| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ইমরান হাশমির স্ত্রী খুন, মর্গ থেকে উধাও মৃতদেহ!   * বিকিনি পরে উত্তাপ ছড়ালেন নায়িকা   * ফোক ফেস্টের শেষদিনে মঞ্চ মাতাবেন যারা   * বাগদাদে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে বোমা বিস্ফোরণ   * বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান ঢাকায় পৌঁছাবে মঙ্গলবার   * রান্নাঘরের এসব উপাদানেই ত্বক থাকবে ঝকঝকে   * দুর্নীতির টাকা দিয়ে ফুটানি চলবে না : প্রধানমন্ত্রী   * মুশফিকের ফিফটি, যোগ্য সঙ্গ দিচ্ছেন মিরাজ   * দেখে নিন নিলামের আগে আইপিএলের ৮ দলের অবস্থা   * প্রশিক্ষণ নিতে ভারত যাবেন দুদক কর্মকর্তারা  

   জাতীয়
  সড়ক আইন: কাগজে-কলমে শুরু হলেও বাস্তবায়নে আরও অপেক্ষা
 

নিজস্ব প্রতিবেদক

 


কাগজে-কলমে ঢাকাসহ সারা দেশে নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর হলেও আইনের পূর্ণ বাস্তবায়নে আরও সময় নেওয়ার কথা বলছে পুলিশ।

যারা আইনটি প্রয়োগ করবেন, ট্রাফিক পুলিশের সেই কর্মকর্তাদের অনেকেই এখনও আইনটি সম্পর্কে অবগত নন। এই আইনের বিধি-বিধান সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা নেই চালক-পথচারীদেরও।

শুক্রবার আইন কার্যকরের প্রথম দিনে ঢাকা মহানগরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তেমন কোনো তৎপরতা দেখা যায়নি, নতুন আইনের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে পুলিশের পস মেশিনের সফটওয়্যারও আপডেট হয়নি।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের নজিরবিহীন আন্দোলনের মুখে প্রচলিত আইনকে আরও কঠোর করে গত বছর সড়ক পরিবহন আইন পাস হয়। ১ নভেম্বর থেকে আইনটি কার্যকরের জন্য ২৮ অক্টোবর প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।

এই আইনে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনায় সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান রয়েছে। আইন লংঘনে বেড়েছে জরিমানার অঙ্কও।

নতুন আইন নিয়ে চালক ও যাত্রীদের বক্তব্যে মিলেছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। শাস্তি কমানোর দাবি করছেন চালকরা।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে এসেছে নতুন এই আইননিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে এসেছে নতুন এই আইনসড়কে শৃঙ্খলা আনতেই নতুন আইন জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, “সড়ক-মহাসড়কে শৃঙ্খলা আমাদের বড় সঙ্কট। সড়ক-মহাসড়কের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনাই আমাদের লক্ষ্য। এটাই আমাদের চ্যালেঞ্জ। সড়ক পরিবহন আইনটাও সেই জন্যই করা হয়েছে। এখন আমরা আটঘাঁট বেধেঁই নেমেছি। শৃঙ্খলা না থাকলে উন্নয়নের কোনো দাম নেই।”
আইন কার্যকরে আরও সময় দরকার বলে মনে করছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার (ট্রাফিক দক্ষিণ) আবদুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, “নতুন আইন তো সব জায়গায় হুট করে প্রয়োগ করা যাবে না। মানুষ তো এখনও জানে না। ডিএমপির যেসব অফিসাররা আইনটা প্রয়োগ করবে তাদেরতো জানার দরকার আছে। তাদের একটি প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা আমরা করেছি।”

শুক্রবার ছুটির দিনে এমনিতে ঢাকার রাস্তায় যানবাহনের সংখ্যা কম। তার মধ্যে নতুন আইন কার্যকরে বিশেষ কোনো তৎপরতা চোখে পড়েনি।

নতুন আইনে শাস্তি ও জরিমানার পরিমাণ প্রচলিত আইনের চেয়ে বেশি, আইনের ব্যাখ্যায়ও আছে তফাৎ।

সে প্রসঙ্গ টেনে পুলিশ কর্মকর্তা রাজ্জাক বলেন, “এটা আমরা স্টেপ বাই স্টেপ প্রয়োগ করব। দেখা যাচ্ছে, কিছু দিন আগে যেখানে পাঁচশ টাকা জরিমানা ছিল, এখন হয়েছে আড়াই হাজার টাকা।”

উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, “এক জায়গায় বলা হল, অনধিক ২৫ হাজার টাকা জরিমানা। এটা এক টাকা থেকে শুরু…। তাই আমরা (পুলিশ) একবারে সর্বোচ্চ শাস্তি প্রয়োগের দিকে না গিয়ে ধাপে ধাপে এবং জানাতে চাই-বলতে চাই যে, এখন কিন্তু শক্ত আইন এত টাকা জরিমানা হবে।”

এক প্রশ্নে এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, “নতুন আইন সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে।”

ট্রাফিক আইন মেনে চলতে অনেক পুলিশ সদস্যেরও রয়েছে অনীহাট্রাফিক আইন মেনে চলতে অনেক পুলিশ সদস্যেরও রয়েছে অনীহা
সফটওয়্যার আপডেট হয়নি ট্রাফিক পুলিশের

ট্রাফিক আইনের বেশিরভাগ মামলায় চালকের কাগজপত্র নিয়ে ঘটনাস্থলে জরিমানার স্লিপ প্রিন্ট করে দেয় পুলিশ। পয়েন্ট অব সেল (পস) মেশিনের সঙ্গে আইনের সঙ্গতি রেখে সফটওয়্যার আপডেটের কাজ এখনও হয়নি বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা।

ডিএমপির ট্রাফিক দক্ষিণের যুগ্ম-কমিশনার রাজ্জাক এ বিষয়ে বলেন, ”বর্তমান পস মেশিনের সফটওয়্যারে আগের আইনটি সেট করা। নতুন আইনটি সফটওয়্যারে সেট করতে এক মাসের মতো সময় লাগবে। যতদিন সফটওয়ার পদ্ধতিতে না যাব, ততদিন ম্যানুয়্যাল পদ্ধতিতে বাস্তবায়ন করা হবে।”

চালক-যাত্রীর মিশ্র প্রতিক্রিয়া

নতুন আইন নিয়ে চালক, যাত্রী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে।

শাহবাগ মোড়ে বাসের অপেক্ষায় থাকা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী সাইফুল ইসলাম বলেন, “নতুন আইন তো যাত্রীদের কল্যাণেই। আমার মনে হয়, এটা সবাই মানলে রাস্তা আগের চেয়ে ভালো হবে।”

তিনি বলেন, ”আমরাতো চাই সড়ক নিরাপদ হোক। সেজন্য নতুন আইন বাস্তবায়নের আগে সচেতনতাও তৈরি করা জরুরি, যাতে সবাই আইনটা জানতে পারে।”

আইন বাস্তবায়নের পথ ধরে সড়কের শৃঙ্খলা অনেকটা ফিরতে পারে বলে মনে করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মোস্তফা মোহাম্মদ।

তিনি বলেন, “আইন হইছে ভালো কথা, কিন্তু আইনের বাস্তবায়নটা তো থাকতে হবে। ঠিকঠাক মতো বাস্তবায়ন হলে যাত্রী, চালক, হেলপার সবাই মানতে চেষ্টা করবে। তখন এমনিই শৃঙ্খলা আসবে।”

দেওয়ান পরিবহনের একজন চালক বলেন, “আমি মনে করি, নতুন আইন ভালোই হইছে, সড়কে নিরাপদ অবস্থা ফিরা আইলেই ভালো।”

তবে আইনে শাস্তির বিধান নিয়ে আপত্তির কথা জানান ট্রাস্ট পরিবহনের চালক আবদুল হক।

তিনি বলেন, “চালক দেইখা কি আমাগো প্রাণের দাম নাই? কেউ কি ইচ্ছা করে এক্সিডেন্ট ঘটায়? এটা ঠিক হয় নাই। এতো শাস্তি কেন দিবো? বাতাসের ব্রেক, এটাতো ফেল হইতেই পারে, এইটা কি আমরা ইচ্ছা করে করি?”

নতুন সড়ক আইনের পরিক্রমা

গত বছর ঢাকায় বাসচাপায় দুই ছাত্র-ছাত্রীর মৃত্যুর পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের মুখে ২০১৮ সালে আগের আইন কঠোর করে এই আইনটি করা হয়েছিল।

এই আইন অনুযায়ী, মোটরযান চালনাজনিত কোনো দুর্ঘটনায় কোনো ব্যক্তি গুরুতর আহত বা নিহত হলে এ সংক্রান্ত অপরাধ দণ্ডবিধি-১৮৬০ এর এ সংক্রান্ত বিধান অনুযায়ী অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে।

তবে দণ্ডবিধির ৩০৪বি ধারাতে যা-ই থাকুক না কেন, কোনো ব্যক্তির বেপরোয়া বা অবহেলাজনিত মোটরযান চালনার কারণে সংঘটিত কোনো দুর্ঘটনায় কোনো ব্যক্তি গুরুতরভাবে আহত বা নিহত হলে চালক সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

আইনের ১১৪ ধারায় বলা হয়েছে, এই আইনের অধীন অপরাধের তদন্ত, বিচার, আপিল ইত্যাদির ক্ষেত্রে ফৌজদারি কার্যবিধি (১৮৯৮) প্রযোজ্য হবে।

গত বছর ৮ অক্টোবর ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’ এর গেজেট জারি করা হলেও তার কার্যকারিতা এত দিন ঝুলে ছিলে। এ নিয়ে আদালতে একটি রিট আবেদনও হয়েছিল।

আইনটি প্রণয়নের পর থেকে তার প্রবল বিরোধিতা করে আসছিল পরিবহন মালিক-শ্রমিক সংগঠনগুলো। তাদের দাবি, সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর ঘটনার মামলায় নতুন আইনে শাস্তির মাত্রা ‘অযৌক্তিক’ বেশি।

এরপর গত ২৫ সেপ্টেম্বর পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আইন সংশোধনের সুপারিশ সম্বলিত একটি প্রতিবেদন জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের কাছে দেবেন বলে জানিয়েছিলেন।

তবে পরে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আইনটি সংশোধনের প্রস্তাব নাকচ করে দেন। এরপরই আইনটি কার্যকরের তারিখ ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ হয়।

 


সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 11        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     জাতীয়
ঈমান ও নীতির বাইরে কোনো কিছু করি না: নিকাহ সমিতির আলোচনা সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান ঢাকায় পৌঁছাবে মঙ্গলবার
.............................................................................................
দুর্নীতির টাকা দিয়ে ফুটানি চলবে না : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রশিক্ষণ নিতে ভারত যাবেন দুদক কর্মকর্তারা
.............................................................................................
সেবার মানসিকতা ছড়িয়ে দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
পেঁয়াজের বাজার চরম বিশৃঙ্খল, কেজি ২৬০ টাকা
.............................................................................................
সংশোধিত ড্যাপে শিশুদের প্রস্তাব অন্তর্ভুক্ত করবে রাজউক
.............................................................................................
ধানমন্ত্রীর কাছে মনের কথা খুলে বলতে চান নিকাহ কাজিরা
.............................................................................................
লন্ডভন্ড শিডিউল আর বন্ধ এসএমএস সার্ভিসে ভোগান্তিতে ট্রেনযাত্রীরা
.............................................................................................
স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন মঞ্চে শেখ হাসিনা
.............................................................................................
রেনিটিডিন উৎপাদন ও ক্রয়-বিক্রয় স্থগিত
.............................................................................................
দেশ ক্ষুধামুক্ত হয়েছে, এবার লক্ষ্য দারিদ্র্যমুক্ত করা
.............................................................................................
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অগ্নিকাণ্ডের কারণ উদঘাটনে কমিটি
.............................................................................................
‘শিবির সন্দেহ’ আবরারকে হত্যার একমাত্র কারণ নয়
.............................................................................................
চালকরা ছিলেন ঘুমে, পরপর তিনটি সিগন্যাল ভাঙে তূর্ণা-নিশীথা
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনার তদন্ত শুরু, আহত যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলছে কমিটি
.............................................................................................
বিদ্যুতের অপচয় করবেন না : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
মা-বাবা-ভাইকে রেখে চলে গেল ছোট্ট ছোঁয়া
.............................................................................................
বুলবুলে ২৬৩ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি
.............................................................................................
ট্রেনচালকদের উন্নত প্রশিক্ষণ প্রয়োজন : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনায় হতাহতদের সহযোগিতা দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
.............................................................................................
কসবায় হতাহতের ঘটনায় রাষ্ট্রপতির শোক
.............................................................................................
বিশ্ব মুসলিম বাবরী মসজিদ রায় প্রত্যাখ্যান করেছে
.............................................................................................
ভোটার তালিকা প্রকাশের দিনক্ষণ নিজে ঠিক করতে চায় ইসি
.............................................................................................
রোহিঙ্গারা আঞ্চলিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
তুরিন আফরোজকে ট্রাইব্যুনালের সব কাজ থেকে অব্যাহতি
.............................................................................................
সাগর-রুনি হত্যার আলামত এখনও যুক্তরাষ্ট্রে
.............................................................................................
সবাই একযোগে কাজ করলে দারিদ্র্য জয় করতে পারব
.............................................................................................
বুলবুলে আইলার স্মৃতি, দেয়াল হিসেবে দাঁড়াবে সুন্দরবন
.............................................................................................
বুলবুলের কারণে সোমবারের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষাও পেছাল
.............................................................................................
আহসান উল্লাহ মাস্টারের জন্মদিন আজ
.............................................................................................
গ্রামের স্বজনদের নিয়ে উদ্বিগ্ন রাজধানীর লাখো পরিবার
.............................................................................................
পরিকল্পনার বাইরে কোনো কিছু হতে পারবে না
.............................................................................................
‘বুলবুল’ মোকাবিলার সমস্ত প্রস্তুতি আমাদের আছে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
‘ভিসির দুর্নীতির প্রমাণ না দিলে আন্দোলনকারীদেরই সাজা’
.............................................................................................
অবৈধ ১১ হাজার বিদেশিকে নিজখরচে ফেরত পাঠাবে বাংলাদেশ
.............................................................................................
সাংবাদিকদের অনুদানের চেক বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রূপপুর বালিশকাণ্ড : ৭ প্রকৌশলীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুদক
.............................................................................................
বাংলাদেশের শ্রমিক নেবে মালয়েশিয়া, সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত
.............................................................................................
রোহিঙ্গারা প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট করছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
কৃষক-কৃষি বাদ দিয়ে উন্নয়ন-শিল্পায়ন নয়
.............................................................................................
রূপপুর বালিশকাণ্ড : দুদকে ৬ প্রকৌশলীকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে
.............................................................................................
সম্মেলনের মঞ্চে প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
সাগরে নিম্নচাপ, বন্দরে সতর্কতা
.............................................................................................
মালয়েশিয়া থেকে ৫০ হাজার অবৈধ কর্মী ফিরছে
.............................................................................................
নতুন ঠিকাদারদের সুযোগ দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
ই-মিউটেশন শতভাগ বাস্তবায়নে মাঠ প্রশাসনকে নির্দেশ
.............................................................................................
`প্লানেটরি ইমার্জেন্সি` প্রস্তাব উঠছে সংসদে
.............................................................................................
রুপালি ইলিশে সয়লাব বাজার, দামও কম
.............................................................................................
সৌদিতে কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে সমস্যা দুই দেশেরই
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]