| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * রোজায় অফিস সময় ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা   * দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তি দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর   * সন্ধ্যার পর ওষুধের দোকান ছাড়া সব বন্ধ   * ঢাকায় মোট ৬৪ জনের করোনা শনাক্ত   * নামাজ-প্রার্থনা নিজঘরে, জুমায় সর্বোচ্চ ১০ জন   * চট্টগ্রামে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের   * ফরিদপুরে আইসোলেশনে বৃদ্ধের মৃত্যু   * দেশে করোনায় নতুন করে ২৯ করোনা রোগী শনাক্ত, মোট ১১৭   * করোনায় দেশে একদিনে ৪ জনের মৃত্যু, সংখ্যা বেড়ে ১৩   * এবার বাঘের শরীরে মিললো করোনাভাইরাস  

   উপ-সম্পাদকীয়
  সাইবার অপরাধ
 

সারোয়ার আলম

প্রযুক্তির সুফলের পাশাপাশি কুফলও বাস্তবতা। ব্যবহারকারীর মানসিকতা ও অভিপ্রায় অনুযায়ী প্রযুক্তির ব্যবহার কিংবা অপব্যবহার ঘটে থাকে। দুঃখজনক হলো দেশে প্রাযুক্তিক উন্নয়নের পাশাপাশি সাইবার ক্রাইমও বেড়ে চলেছে। প্রতিনিয়ত বিভিন্ন এ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হচ্ছে। পর্নোগ্রাফি, অনলাইন প্রতারণা ও অনলাইন ব্যাংক জালিয়াতি তো আছেই। এক বছরে ৩২১টি অভিযোগের মধ্যে সাইবার অপরাধে ৯৯ জনকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হয়েছে। বছরের শুরুতেই ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উপলক্ষে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাইবার অপরাধ সম্পর্কে সুন্দরভাবে সবাইকে সচেতন করার প্রয়াস পেয়েছিলেন। তিনি ইন্টারনেটে ক্ষতিকর ডিজিটাল কনটেন্ট ফিল্টারিং করার ওপর গুরুত্বারোপ করে সত্য-মিথ্যা যাচাই ছাড়া ইন্টারনেট এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোন কিছু শেয়ার বা পোস্ট না করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন। না জেনেবুঝে মন্তব্য করা এবং সবার মাঝে অসত্য খবর বা বক্তব্য ছড়িয়ে দেবার মধ্য দিয়ে কোন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী অজান্তেই নিজেকে বিপদগ্রস্ত করে তুলতে পারেন। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানের মর্মকথা স্মরণে রাখলে তা শুধু নিজের জন্যই নয়, দেশ ও জাতির জন্যও কল্যাণকর হবে, এতে কোন সন্দেহ নেই।

সাইবার বিশ্বে বাংলাদেশ নতুন। এর সম্ভাবনা ও সঙ্কট সম্পর্কে সরকার সম্যক অবগত। সরকার ইতোমধ্যে ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর সাইন্স এ্যান্ড টেকনোলজি (এনসিএসটি) গঠন করেছে। স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন কোর্স চালু করা দরকার যাতে করে আমাদের নতুন প্রজন্ম সাইবার নিরাপত্তা এবং ইনফরমেশন সিকিউরিটি বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করে দেশের আইসিটি অবকাঠামো গড়ে তুলতে সাহায্য করতে পারে।

দেশে অনলাইন ব্যবহারকারীর সংখ্যা যেমন বাড়ছে, তেমনি জ্যামিতিকহারে বাড়ছে সাইবার অপরাধ। তাই এই সাইবার অপরাধ প্রতিরোধ ও দমন একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে। কোন থানার অধীনস্থ এলাকায় যদি খুনের মতো অপরাধ সংঘটিত হয়, তাহলে পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে অপরাধের আলামত সংগ্রহের। তেমনি সাইবার অপরাধের ক্ষেত্রেও কিছু অত্যাবশ্যক ব্যবস্থা নিতে হয়। সেসব ব্যাপারে আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এখনও শতভাগ সক্ষম ও সচেতন নয়। উন্নত বিশ্ব সাইবার অপরাধ নিয়ে যথেষ্ট সতর্ক ও সচেতন। এ ব্যাপারে আমাদের কিছুটা ঘাটতি রয়েছে। সাম্প্রতিককালে দেশে যেসব সাইবার অপরাধ সংঘটিত হয়েছে তার ভেতরে প্রধান হচ্ছে ব্যক্তিগত হয়রানি। কারও সম্পর্কে মানহানিকর বা আপত্তিকর কথা ও ছবি পোস্ট করা। সামাজিক মাধ্যমের ব্যাপক প্রসারের ফলে এই অপরাধের মাত্রা অনেক বেড়েছে। বিশেষ করে নারী সংক্রান্ত সাইবার অপরাধের মাত্রা বেশি। অনেকে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে যাচ্ছে। অনেকে লজ্জা বা সঙ্কোচের জন্য সেটাও করছে না। দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী নারীদের ৭৩ শতাংশই নানা ধরনের সাইবার অপরাধের শিকার হচ্ছেন। এর ২৩ শতাংশ কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করেন না। সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ সাইবার অপরাধ দমনে অত্যন্ত সক্রিয়। ক্রমবর্ধমান সাইবার অপরাধের অন্যপিঠে ইন্টারনেটে তথ্যের প্রবাহ ঠিক রেখে পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি এ্যান্ড ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি) অপরাধ দমনে দিনরাত কাজ করছে। সাইবার জগতকে সরকারের তিনটি সংস্থা সর্বক্ষণিক মনিটর করার জন্য আধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন করেছে। সংস্থাগুলোতে বাড়তি জনবল নিয়োগও করে সাইবার জগতকে নিরাপদ রাখার কাজ চলছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এখন আর আগের মতো দেশবিরোধী অপপ্রচার হচ্ছে না। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগের ফলে ব্যক্তি পর্যায়ে অপরাধও কমে আসছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার রোধে ‘কন্টেন্ট ফিল্টারিং’ করা হচ্ছে। এ জন্য একটি প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। কোন পরিস্থিতিতেই রাষ্ট্র ও জনগণের নিরাপত্তা বিঘিœত হতে দেয়া হবে না।



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 38        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     উপ-সম্পাদকীয়
সাইবার অপরাধ
.............................................................................................
প্রসঙ্গ ভ্রাম্যমাণ ফায়ার সার্ভিস ও Fire hydrant
.............................................................................................
পরমাণু অস্ত্র নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিমুখী আচরণ
.............................................................................................
আমার গেলাস সদাই থাক অর্ধেক পূর্ণ
.............................................................................................
লাখো কন্ঠে বিদ্রোহী কবিতা
.............................................................................................
বৈশাখ বাঙালির সার্বজনীন অসাম্প্রদায়িক উৎসব
.............................................................................................
সিরিয়া হামলায় মধ্যপ্রাচ্য বনাম রুশ হিসাব
.............................................................................................
Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale
Digital Load Cell
Digital Indicator
Digital Score Board
Junction Box | Chequer Plate | Girder
Digital Scale | Digital Floor Scale

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD