| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ঈদে রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু ২৯ জুলাই   * সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত ২   * ছেলেধরা ও গণপিটুনি বিষয়ে পুলিশের সব ইউনিটকে নির্দেশনা   * উত্তরাঞ্চলে পানি কিছুটা কমলেও নদীগুলোর পানি এখনও বিপদসীমার ওপর   * সৌদি পৌঁছেছেন ৭৫ হাজার ৫৯০ হজযাত্রী   * হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ থেকে প্রিয়া সাহা বহিষ্কার   * দুদক পরিচালক এনামুল বাছির গ্রেফতার   * চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ৮ বাড়িতে বন্য হাতির তাণ্ডব   * আদালতে মিন্নির দু`টি আবেদন নামঞ্জুর   * পেশায় ইমাম, জিন তাড়ানোর নামে করতেন নারী-শিশু ধর্ষণ  

   অপরাধ ও অনিয়ম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত ২

অনলাইন ডেস্ক : সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু খালেক বাহিনীর দুই সদস্য নিহত হয়েছেন। এ সময় বেশ কিছু আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের জোংড়ার খাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বনদস্যু খালেক বাহিনীর প্রধান খালেক (৪৮) ও তার সহযোগী (২৯)। নিহতদের বিস্তারিত পরিচয় এবং অস্ত্র ও গুলির সংখ্যা র‌্যাব তাৎক্ষণিকভাবে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করতে পারেনি।

র‌্যাব-৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর সজীবুল ইসলাম বলেন, সাগরে মাছ আহরণের নিষেধাজ্ঞা ২৩ জুলাই প্রত্যাহার হচ্ছে। তাই ইলিশ মৌসুমে সাগরের ওপর নির্ভরশীল জেলেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে র‌্যাব সুন্দরবন ও সাগরে টহল জোরদার করে। নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার ভোররাতে র‌্যাবের একটি দল সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের জোংড়ার খাল এলাকায় যায়। এ সময় বনদস্যুরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে প্রথমে গুলিবর্ষণ শুরু করে। র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছোড়ে।

রাত সাড়ে ৩টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত থেমে থেমে উভয়পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়। একপর্যায়ে বনদস্যুরা বনের গহীনে চলে গেলে র‌্যাব সদস্যরা জোংড়ার খাল এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে দুইজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ ও বেশ কয়েকটি অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে। দিনের আলো ফুটলে নদীতে থাকা জেলেরা সেখানে এসে এই দুইজনকে খালেক বাহিনীর সদস্য বলে শনাক্ত করেন। নিহতদের মরদেহ খুলনার দাকোপ থানায় পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন, ২০১৮ সালে খালেক নামে এক ব্যক্তি ৫/৬ জন সহযোগীকে নিয়ে নিজ নামে বাহিনী গড়ে তোলেন। সাগর ও সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল জেলে, বাওয়ালী ও মৌয়ালদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি অপরহরণের পর মুক্তিপণ আদায়সহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে এই খালেক বাহিনী। সর্বশেষ এই খালেক বাহিনী ইলিশ মৌসুমে সাগরে মাছ ধরতে আসা জেলেদের ট্রলারে ডাকাতি ও চাঁদাবাজির প্রস্তুতি নিতে সুন্দরবনের জোংড়া খাল এলাকায় অবস্থান করছে বলে র‌্যাবের গোয়েন্দাদের কাছে খবর ছিল।

সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত ২
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু খালেক বাহিনীর দুই সদস্য নিহত হয়েছেন। এ সময় বেশ কিছু আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের জোংড়ার খাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বনদস্যু খালেক বাহিনীর প্রধান খালেক (৪৮) ও তার সহযোগী (২৯)। নিহতদের বিস্তারিত পরিচয় এবং অস্ত্র ও গুলির সংখ্যা র‌্যাব তাৎক্ষণিকভাবে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করতে পারেনি।

র‌্যাব-৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর সজীবুল ইসলাম বলেন, সাগরে মাছ আহরণের নিষেধাজ্ঞা ২৩ জুলাই প্রত্যাহার হচ্ছে। তাই ইলিশ মৌসুমে সাগরের ওপর নির্ভরশীল জেলেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে র‌্যাব সুন্দরবন ও সাগরে টহল জোরদার করে। নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার ভোররাতে র‌্যাবের একটি দল সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের জোংড়ার খাল এলাকায় যায়। এ সময় বনদস্যুরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে প্রথমে গুলিবর্ষণ শুরু করে। র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছোড়ে।

রাত সাড়ে ৩টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত থেমে থেমে উভয়পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়। একপর্যায়ে বনদস্যুরা বনের গহীনে চলে গেলে র‌্যাব সদস্যরা জোংড়ার খাল এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে দুইজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ ও বেশ কয়েকটি অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে। দিনের আলো ফুটলে নদীতে থাকা জেলেরা সেখানে এসে এই দুইজনকে খালেক বাহিনীর সদস্য বলে শনাক্ত করেন। নিহতদের মরদেহ খুলনার দাকোপ থানায় পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন, ২০১৮ সালে খালেক নামে এক ব্যক্তি ৫/৬ জন সহযোগীকে নিয়ে নিজ নামে বাহিনী গড়ে তোলেন। সাগর ও সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল জেলে, বাওয়ালী ও মৌয়ালদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি অপরহরণের পর মুক্তিপণ আদায়সহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে এই খালেক বাহিনী। সর্বশেষ এই খালেক বাহিনী ইলিশ মৌসুমে সাগরে মাছ ধরতে আসা জেলেদের ট্রলারে ডাকাতি ও চাঁদাবাজির প্রস্তুতি নিতে সুন্দরবনের জোংড়া খাল এলাকায় অবস্থান করছে বলে র‌্যাবের গোয়েন্দাদের কাছে খবর ছিল।

পেশায় ইমাম, জিন তাড়ানোর নামে করতেন নারী-শিশু ধর্ষণ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ১৮ বছর ধরে জিনের ভয় দেখিয়ে একাধিক নারী ও শিশুকে ধর্ষণ ও বলাৎকারের ঘটনায় রাজধানীর দক্ষিণখান থেকে মসজিদের এক ইমামকে আটক করেছে র‌্যাব-১। আটককৃত ইমামের নাম ইদ্রিস আহমেদ।

আজ সোমবার (২২ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. সারোয়ার বিন কাশেম।

তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তার ইদ্রিস আহমেদ দক্ষিণখানের একটি মসজিদের ইমাম। তিনি স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় প্রায় ১৮ বছর ধরে শিক্ষকতা করে আসছে। ইদ্রিসের বিরুদ্ধে চার-পাঁচ জন নারীকে ধর্ষণ ও ১০-১২ কিশোরকে বলাৎকারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জিনের ভয় দেখিয়ে তিনি এসব অপকর্ম করে আসছিলেন।

তিনি বলেন, ইদ্রিস ঝাড়ফুঁক ও তাবিজ-কবজ দেয়া এবং জিনের ভয় দেখিয়ে নারীদের ধর্ষণ করতো। তিনি তার মসজিদ ও মাদরাসার খাদেম ও ছাত্রদের জোরপূর্বক বলাৎকার করতো। তিনি এসব মোবাইলে ধারণ করতো এবং কাউকে না বলার জন্য জিনের হুমকি দিতো। এভাবে বারবার একই কাজ করতো।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইদ্রিস ধর্ষণ ও বলাৎকারের ঘটনাগুলো স্বীকার করেছে। দক্ষিণখান থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

বাথরুমে ঢুকে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১২) ধর্ষণের অভিযোগে শুক্রবার রাতে বহুলুল বিশ্বাস (২৮) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতার বহুলুল বিশ্বাস উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের বাংরাইল গ্রামের আফছার বিশ্বাসের ছেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে শিশুটি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাথরুমে যায়। এ সময় ওৎ পেতে থাকা বহুলুল বাথরুমে ঢুকে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে তার মা বাথরুমের দিকে এগিয়ে গেলে বহুলুল দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় সন্ধ্যায় শিশুটির মা বাদী হয়ে সালথা থানায় মামলা করেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে বহুলুল বিশ্বাসকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সালথা থানা পুলিশের ওসি দেলোয়ার হোসেন খান বলেন, ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত, নারী আহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সিদ্ধিরগঞ্জে দুই ঘণ্টার ব্যবধানে পৃথক দুই স্থানে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ সময় গুরুতর আহত হয়েছেন এক নারী।

শনিবার সকাল ৯টায় ও বেলা পৌনে ১১টায় সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পূর্বপাড়া ও পাইনাদী শাপলা চত্বর এলাকায় এ দুই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক সাখাওয়াত জানান, ৬-৭ বছরের এক মেয়ে শিশুর হাত ধরে নিয়ে যাচ্ছিল ওই যুবক। এ সময় শিশুটি কান্নাকাটি শুরু করলে দুই যুবকের সন্দেহ হয়। তারা ওই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করলে শিশুটি নিজের বলে দাবি করে ওই যুবক। ইতোমধ্যে শিশুটির বাবা ঘটানস্থলে গেলে শিশুটি তার বাবার কাছে চলে যায়।

এ ঘটনায় উপস্থিত লোকজন ওই যুবককে গণপিটুনি দেয়। খবর পেয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পুলিশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জের খানপুর হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত যুবকের পরিচয় উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে শাপলা চত্বর এলাকায় ২২ থেকে ২৫ বছরের এক নারী খেলনা ও খাবার দিয়ে এক শিশুকে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় প্রত্যক্ষদর্শীদের সন্দেহ হলে তারা শিশুটি কার জিজ্ঞেস করলে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। পরে এলাকাবাসী তাকে গণপিটুনি দেয়া শুরু করে।

খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে যায়। তার শারীরিক অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক শাহীদুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে এক নারীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বিক্ষুব্ধ জনতা। শনিবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে উত্তর বাড্ডার কাঁচাবাজার সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত অবস্থায় ওই নারীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। বাড্ডা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন মিন্নি
                                  

বরগুনা: পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষ হওয়ার আগেই আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন তিনি রিফাত শরীফ হত্যায় জড়িত রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুরে বিষয়টি গণমাধ্যমে জানান পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মারুফ হোসেন।

বুধবার (১৭ জুলাই) বিকেলে বরগুনা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলার শুনানি শেষে মিন্নির পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বিচারক মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে এ হত্যা মামলার ৩ নম্বর আসামি রিশান ফরাজীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. শাহজাহান হোসেনের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তবে কোথা থেকে রিশানকে গ্রেফতার করা হয়েছে তা তদন্তের স্বার্থে জানায়নি পুলিশ। এখন পর্যন্ত প্রধান সাক্ষী মিন্নিসহ ১৫ জনকে এ মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন।

গ্রেফতার ১৫ জনের মধ্যে ১০ জন এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। এছাড়া চারজন রিমান্ডে রয়েছেন। রিশান ফরাজীকেও রিমান্ডে নেওয়ার জন্য আদালতে নেওয়া হয়েছে।

রিফাত হত্যা: রিশান ফরাজী গ্রেফতার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বরগুনায় আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার আসামি রিশান ফরাজীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জানিয়েছেন বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন।

তিনি জানান, রিফাতকে হত্যার মামলার তিন নম্বর আসামি রিশানকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার এ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। দিনভর জিজ্ঞাসাবাদের পর মঙ্গলবার রাতে তাকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।

গত ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে দুর্বৃত্তরা প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করে রিফাত শরীফকে। এ ঘটনায় পরের দিন ২৭ জুলাই ১২ জনের নাম উল্লেখ করে নিহত রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ বাদী হয়ে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

ওই মামলায় এখন পর্যন্ত এজাহারভুক্ত সাতজন এবং জড়িত সন্দেহে সাতজনসহ মোট ১৪ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যার মধ্যে মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে` মারা গেছে।

এ পর্যন্ত গ্রেফতার ব্যক্তিদের মধ্যে এজাহারভুক্ত চারজন এবং জড়িত সন্দেহে ছয়জনসহ মোট ১০ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বাকি তিনজনকে পুলিশ বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

ফতুল্লায় বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ডিবি পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে বিপ্লব (৩২) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। সোমবার গভীর রাতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের ফতুল্লার চানমারী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ডিবি পুলিশের দাবি- বন্দুকযুদ্ধে এসআই ওসমান, এএসআই সোহেলসহ দুই কনস্টেবল আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটারগান বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত বিল্পব ফতুল্লার চাঁনমারী বস্তির সুলতান মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে ১৪টি মাদক মামলা রয়েছে।

ডিবি পুলিশ জানায়, ফতুল্লার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বিপ্লবের বিরুদ্ধে শুধুমাত্র ফতুল্লাতেই ১৪টি মাদকের মামলা রয়েছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতারের জন্য লিংক রোডের পাশে মাইক্রোবাস স্ট্যান্ডের দিকে অভিযানে গেলে ডিবি পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েকজন সন্ত্রাসী গুলি করে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। পরে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে সেখানে বিল্পবের নিথর দেহ পাওয়া যায়।

জেলা ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিপ্লবের বিরুদ্ধে একাধিক মাদকের মামলা রয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের পর বিপ্লবের মরদেহের পাশ থেকে একটি ওয়ান শুটারগান বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে।

ধর্ষণের পর হত্যা : পুড়িয়ে দেয়া হলো মাদরাসাছাত্রীর মুখ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মাদারীপুরে দিপ্তী আক্তার নামে এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার পর মুখ পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। নিখোঁজের দু’দিন পর শনিবার শহরের পাকদী এলাকার একটি পুকুর থেকে ওই ছাত্রীর বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। খবর পেয়ে রোববার সকালে নিহতের স্বজনরা মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে গিয়ে মরদেহ শনাক্ত করে।

নিহত দিপ্তী আক্তার মাদারীপুর সদর উপজেলার চরনচনা গ্রামের মজিবর ফকিরের মেয়ে ও স্থানীয় একটি মাদরাসার দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দিপ্তী গত বুধবার সকালে মাদারীপুর শহরে বোনের বাড়ি বেড়াতে যায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে বেড়ানো শেষে নিজ বাড়িতে রওনা দেয়। এরপর থেকেই সে নিখোঁজ ছিল। শনিবার বিকেলে পাকদী এলাকার একটি পুকুর থেকে অজ্ঞাত পরিচয় একটি মরদেহ উদ্ধার করা হয়। খবর পেয়ে স্বজনরা রোববার সকালে মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে গিয়ে মরদেহ শনাক্ত করে। ওই ছাত্রীর শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মুখ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। পেটের ওপর ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

নিহতের চাচা গোলাম মাওলা ফকির বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে নিখোঁজ ছিল দিপ্তী। পরে আমরা খবর পাই একটি মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার হাসপাতালের মর্গে এসে মরদেহ দেখে তার পরিচয় নিশ্চিত করি। আমরা ধারণা করছি, কেউ অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে দিপ্তীকে হত্যা করেছে। মেয়েটির মুখ পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। আমরা এর বিচার চাই।

স্থানীয়রা জানান, মরদেহটি অনেকটাই পচে বিকৃত হয়ে গেছে এবং বিবস্ত্র অবস্থায় ছিল। ধারণা করা হচ্ছে ধর্ষণ শেষে হত্যা করা হয়েছে।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা বলেন, কিশোরীর পরিচয় পাওয়া গেছে। মামলা হবে। বিষয়টি নিয়ে পুলিশ কাজ করছে।

স্বামীকে আটকে রেখে ৫ জন মিলে নববধূকে ধর্ষণের চেষ্টা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নীলফামারীর ডিমলায় স্বামীকে আটকে রেখে এক নববধূকে ৫ বখাটে মিলে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাতে উপজেলার টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের পূর্ব খড়িবাড়ি কলোনিপাড়ার তিস্তা নদী সংলগ্ন এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে।

এ ব্যাপারে শুক্রবার বিকেলে ওই নববধূ বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে ডিমলা থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

চলতি বছরের ২৩ জুন টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের পূর্ব খড়িবাড়ি টাবুরচর এলাকার এক যুবকের সঙ্গে ওই নারীর বিয়ে হয়।

জানা গেছে বৃহস্পতিবার রাতে আত্মীয়ের বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে স্বামীর সঙ্গে ওই বাড়ি ফিরছিলেন নববধূ। পথে তিস্তা নদী সংলগ্ন নালা পার হওয়ার সময় টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের পূর্ব খড়িবাড়ি কলোনিপাড়া নামক স্থানে ৫ বখাটে তাদের পথ রোধ করে। এ সময় ৩ জন স্বামীকে আটকে রাখে এবং অপর দুই জন নববধূকে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় তার চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে বখাটেরা পালিয়ে যায়।

নববধূর অভিযোগ তারা বাড়ি ফেরার পথে কলোনি পাড়া গ্রামের মাহাবুব হোসেনের ছেলে রেজাউর ইসলাম (৩০), হারুন ইসলামের ছেলে শফিকুল ইসলাম (২৮), জাফুর মামুদের ছেলে আব্দুর রউফ (২৬), মশিয়ার রহমানের ছেলে গিয়াস উদ্দিন (২৭) ও মেনহাজ আলীর ছেলে মতিউর রহমান (২২) স্বামীকে আটকে রেখে তাকে তিস্তা নদী সংলগ্ন নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজ উদ্দিন শেখ বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

টাঙ্গাইলে নিখোঁজের ৫ দিন পর মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ উদ্ধার
                                  

টাঙ্গাইল জেলা অ্যাডভোকেট বার সমিতির সিনিয়র আইনজীবী, মুক্তিযোদ্ধা ও কৃষক শ্রমিক জনতালীগের কেন্দ্রীয় নেতা মিঞা মো. হাসান আলী রেজার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ৫ দিন নিখোঁজের পর শনিবার দুপুর ১২টার দিকে সদর উপজেলার লৌহজং নদী থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

টাঙ্গাইল মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সায়েদুর রহমান জানান, দুপুরের দিকে পৌর শহরের কাগমারার পশ্চিম আকুর টাকুর পাড়া এলাকার লৌহজং নদীতে ভাসমান মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে পরিবারের সদস্যরা মরদেহটি নিখোঁজ আইনজীবী মিঞা মো. হাসান আলীর বলে শনাক্ত করেন।

তিনি আরও জানান, হাসান আলীকে হত্যার পর তার মরদেহটি নদীতে ফেলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গত ৮ জুলাই (সোমবার) সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় নিজ বাসা থেকে বের হওয়ার পর আর ফিরে আসেননি আইনজীবী মিঞা মো. হাসান আলী। পরিবারের পক্ষ থেকে সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। পরে তার সন্ধান চেয়ে টাঙ্গাইল মডেল থানায় জিডি করে পরিবার।

নিহত আইনজীবী বীর মুক্তিযোদ্ধা মিঞা মো. হাসান আলী রেজা কৃষক শ্রমিক জনতালীগের প্রতিষ্ঠাতাকালীন কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য ও জেলা শাখার সহ-সভাপতি।

দলীয় প্রবীণ নেতার মরদেহ উদ্ধার প্রসঙ্গে কৃষক শ্রমিক জনতালীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার খোকা বীরপ্রতীক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমরা প্রশাসনের কাছে তাকে জীবিত উদ্ধারের দাবি জানিয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ উদ্ধার করলো তার মরদেহ। প্রশাসন যদি গুরুত্ব সহকারে উদ্ধার তৎপরতা চালাতো তাহলে অবশ্যয় দলীয় নেতা ও প্রবীণ আইনজীবী মিঞা মো. হাসান আলী রেজাকে জীবিত করা সম্ভব হতো।

পদ্মাসেতু নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৫ ব্যক্তি আটক
                                  

অনলাইন ডেস্ক : পদ্মাসেতু নির্মাণে মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এমন গুজব ছড়ানোর অভিযোগে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ৫ ব্যক্তিকে আটক করেছে র‌্যাব।

আটককৃতরা হচ্ছে- শহীদুল ইসলাম (২৫), আরমান হোসাইন (২০), ফারুক হোসেন (৫০) ও হায়াতুন্নবী । অপর এক জনের নাম জানা যায়নি।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সিনিয়র সহকারী পরিচালক সিনিয়র এএসপি মো. মিজানুর রহমান ভূঁইয়া বাসসকে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, পদ্মাসেতু নির্মাণ নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে শহীদুল ইসলামকে (২৫) নড়াইল থেকে র‌্যাব-৬, আরমান হোসাইনকে (২০) চট্টগ্রাম থেকে র‌্যাব-৭, ফারুককে (৫০) মৌলভিবাজার থেকে র‌্যাব-১১ ও হায়াতুন্নবীকে কুমিল্লার লাকসাম থেকে র‌্যাব সদস্যরা আটক করেছে। এছাড়া র‌্যাব-৮ এর একটি দল রাজবাড়ীর পাংশা এলাকা থেকে আরও এক যুবককে আটক করে। তাৎক্ষণিকভাবে তার নাম জানা যায়নি।
মিজানুর রহমান ভূঁইয়া জানান, আটককৃতরা পদ্মাসেতু নির্মাণে মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে ফেসবুকে এমন গুজব ছড়িয়েছে। যা জনমনে আতঙ্ক ও বিভ্রান্তির সৃষ্টি করেছে। তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাসস

সিলেটে ৩৪ জুয়াড়ি আটক
                                  

এশিয়া বাণী অনলাইন ডেস্ক : সিলেটে ৩৪ জন তির শিলং জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) কোতোয়ালি থানার সদস্যরা নগরের তালতলাস্থ নন্দিতা সিনেমা হলের সামনে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।

জেদান আল মুসা আরও জানান, এ সময় তাদের কাছ থেকে ৬৩ হাজার টাকা ও জুয়া খেলায় ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন এসএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) জেদান আল মুসা।

আটককৃতরা হলেন- মো. সবুজ মিয়া (২৬), রুহুল আমিন (২২), মো. রফিক মিয়া (২৪), মো. মিলন আহমদ (৩০), মো. তজিমুল ইসলাম নবাব (২৫), মো. ফরহাদ শেখ (৩২), মো. আখতার হোসেন (২৫), মো. বাবুল (২৪), মো. শফিক মিয়া (৫০), মো. মোক্তার খান (২৭), সাদেক আহমদ (৩০), মো. সফিকুল ইসলাম (২২), মাসুম আহমদ (২৪), দীপক রায় (২৭), ইনতাজ আলী (২৭), মো. মাসুম মিয়া (২৫), মো. হাবিবুর রহমান (২০), মো. জসিম আহমদ (৪৬), মো. আব্দুল গনি (৩২), মো. শাহিন মিয়া (৩৫), মো. ফেরদৌস আহমদ (৩০), মো. জামাল হোসেন (২২), মো. জাকির হোসেন (২৫), মো. আব্দুর রহিম (২৪), এস.কে হারুণ (৩৮), মো. কামরুল ইসলাম (৩২), বাবুল মিয়া (৩৮), মো. ময়না মিয়া (২৭), মো. সোহাগ আহমদ (২৪), মোহাম্মদ আলী (৩৮), অরুণ কুমার ঘোষ (৪৩), আবু তাহের (৩৮), মো. টিটু মিয়া (২৪), মো. সিরাজুল ইসলাম (৩০)। তারা সবাই নগরের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

দেবীদ্বারে মা-ছেলেসহ চারজনকে কুপিয়ে হত্যা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : কুমিল্লার দেবীদ্বারে দিনেদুপুরে মা-ছেলেসহ চারজনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ঘাতক মোখলেছুর রহমানকে (৩৪) গণপিটুনিতে নিহত হয়েছেন। বুধবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার রাধানগর গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- রাধানগর গ্রামের মো. শাহ আলমের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৪০), ছেলে আবু হানিফ ( ১২), একই গ্রামের নুরুল ইসলামের স্ত্রী নাজমা আক্তার (৩৬) ও মা মাজেদা বেগম (৫৫)।

দেবীদ্বার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

প্রতিবেশীর ধর্ষণের শিকার ১১ বছরের শিশু
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আশুলিয়ার জিরাবোয় ১১ বছরের এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় ধর্ষক প্রতিবেশী মনোয়ার মণ্ডল রামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) দুপুরে তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে সোমবার (৮ জুলাই) রাতে তাকে জিরাবো এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুটির মা বাদী হয়ে গতকাল রাতেই আশুলিয়া থানায় একটি মামলা করেন।

গ্রেফতার হওয়া মনোয়ার মণ্ডল চুয়াডাঙ্গা জেলার খাজুরিয়া ডিঙ্গিদাহ বাজার এলাকার মৃত টেনু মণ্ডলের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শিশুটি মা ও খালার সঙ্গে জিরাবো পুকুরপাড়ের একটি ভাড়া বাসায় থাকত। মনোয়ার সম্পর্কে আত্মীয় ও প্রতিবেশী হওয়ায় তাদের বাসায় মাঝে মাঝে আসত। গত মঙ্গলবার (২ জুলাই) দুপুরে সে ওই বাসায় গিয়ে শিশুটিকে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুটির চিৎকারে পাশের বাসার ভাড়াটিয়া বের হয়ে আসলে মনোয়ার ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিজন কুমার দাস জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে মনোয়ার নামের অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই শিশুর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

উত্তরখানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর উত্তরখান থানার শহীদনগর এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত ও এক র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। নিহত মাদক ব্যবসায়ীর নাম আনোয়ার হোসেন। তার বাড়ি কিশোরগঞ্জ। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ১৬টি মাদক মামলা রয়েছে।

সোমবার (৮ জুলাই) দিবাগত রাত ১টা ৫৫ মিনিট থেকে ২টা ৫ মিনিটের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ইয়াবা, শর্টগান ও কার্তুজ উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-১ এর এএসপি (মিডিয়া) কামরুজ্জামান বলেন, ‘র‌্যাবের টহল টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে, উত্তরখানের শহীদনগর এলাকায় কিছু মাদক ব্যবসায়ী অবস্থান নিয়ে মাদক ও মাদকের টাকা ভাগবাটোয়ারা করছে। ওই সংবাদে ঘটনাস্থলে যায় র‌্যাবের টহল টিম। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি ছোড়ে। পাল্টা গুলি চালায় র‌্যাব সদস্যরা। এ সময় জিকরুল নামে র‌্যাবের এক কনস্টেবল আহত হন। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আনোয়ার হোসেন নামে এক মাদক ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।’

র‌্যাব-১ এর এ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘ঘটনাস্থল থেকে ৩ হাজার পিস ইয়াবা, শর্টগান, ৬টি কার্তুজ জব্দ করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদহে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন ‘

গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামির গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রামে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি আব্দুর নুর গোলাগুলিতে নিহত হয়েছেন।

গতকাল শনিবার (৬ জুলাই) রাতে আনোয়ারা উপজেলার হাজিগাঁও এলাকার চায়না ইকোনমিক জোনে এ ঘটনা ঘটে।

আজ রোববার (৭ জুলাই) সকালে তার গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
দুলাল মাহমুদ জানান, সকালে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে কেইপিজেডের নারীকর্মী ধর্ষণ ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত আব্দুর নুরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে, ছিনতাইয়ের টাকা ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে প্রতিপক্ষ তাকে গুলি করে হত্যা করে থাকতে পারে। তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।
উল্লেখ্য, বুধবার (৩ জুলাই) রাতে আনোয়ারার চৌমুহনীর কালারমার দিঘি এলাকা থেকে এক কিশোরীকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার কর হয়। পরে জানা যায়, রাতে ছুটির পর কারখানা থেকে বের হয়ে সিএনজিযোগে বাড়ি ফেরার পথে ওই কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়। ওই ঘটনায় দু’জনকে আটক করে। তারা পুলিশের কাছে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেন।


   Page 1 of 17
     অপরাধ ও অনিয়ম
সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত ২
.............................................................................................
পেশায় ইমাম, জিন তাড়ানোর নামে করতেন নারী-শিশু ধর্ষণ
.............................................................................................
বাথরুমে ঢুকে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
সিদ্ধিরগঞ্জে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত, নারী আহত
.............................................................................................
রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন মিন্নি
.............................................................................................
রিফাত হত্যা: রিশান ফরাজী গ্রেফতার
.............................................................................................
ফতুল্লায় বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
ধর্ষণের পর হত্যা : পুড়িয়ে দেয়া হলো মাদরাসাছাত্রীর মুখ
.............................................................................................
স্বামীকে আটকে রেখে ৫ জন মিলে নববধূকে ধর্ষণের চেষ্টা
.............................................................................................
টাঙ্গাইলে নিখোঁজের ৫ দিন পর মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
পদ্মাসেতু নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৫ ব্যক্তি আটক
.............................................................................................
সিলেটে ৩৪ জুয়াড়ি আটক
.............................................................................................
দেবীদ্বারে মা-ছেলেসহ চারজনকে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
প্রতিবেশীর ধর্ষণের শিকার ১১ বছরের শিশু
.............................................................................................
উত্তরখানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামির গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
ওয়ারীর শিশুটিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়
.............................................................................................
হোটেল সী ক্রাউন থেকে ভূয়া কারাপরিদর্শক আটক
.............................................................................................
মুদি দোকানে নিয়ে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
মোরেলগঞ্জে নিজ ঘরে মাদরাসাছাত্রীর বিবস্ত্র লাশ
.............................................................................................
জামালপুরে ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কলেজছাত্রীকে ব্লেড দিয়ে জখম
.............................................................................................
অস্ত্রের মুখে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, ভিডিও ধারণ
.............................................................................................
ধর্ষণে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা, কিশোর গ্রেফতার
.............................................................................................
এবার ঠাকুরগাঁও‌য়ে নার্স‌কে ছুরিকাঘাতে হত্যা
.............................................................................................
বৃদ্ধ মাসহ সেনা সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
স্ত্রীকে ‘উত্ত্যক্তের’ প্রতিবাদ করায় প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগে ১১ লাখ টাকা ঘুষ, আটক ২
.............................................................................................
কুমিল্লায় আবাসিক হোটেল থেকে ২ বস্তা কনডম জব্দ
.............................................................................................
‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন মানব পাচারকারী নিহত
.............................................................................................
রেস্টুরেন্টের গোপন কক্ষে অসামাজিক কার্যকলাপ, ৩ তরুণীসহ আটক ১১
.............................................................................................
সোনারগাঁয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে পালাক্রমে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১
.............................................................................................
এক রুমেই দুই বোনকে ১৯ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ, গ্রেফতার ২
.............................................................................................
বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ, নৌপুলিশ সদস্য আটক
.............................................................................................
ট্রেনের টয়লেটে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা!
.............................................................................................
৫ বছরের নাতনিকে ধর্ষণ করল দাদা!
.............................................................................................
যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে হত্যা
.............................................................................................
ঝিনাইদহে মুয়াজ্জিনকে গলা কেটে হত্যা
.............................................................................................
জিন তাড়ানোর কথা বলে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, মুয়াজ্জিনকে গণধোলাই
.............................................................................................
কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার পলাতক আসামী গ্রেপ্তার
.............................................................................................
টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ৩ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
সাক্ষীকে হাত-পা কেটে হত্যা করলো আসামি পক্ষ
.............................................................................................
কক্সবাজারের লাইটহাউসে ইয়াবাসহ আটকদের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
হত্যার পরে লাশ ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেফতার
.............................................................................................
রাজবাড়ীতে স্কুলছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা, গ্রেফতার ২
.............................................................................................
ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জিতলেন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার
.............................................................................................
ফেনীতে বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক কারবারি নিহত
.............................................................................................
বাস থেকে ছুড়ে ফেলা লাগেজে মিলল শিশুর খণ্ডিত লাশ
.............................................................................................
সহকর্মীর ৩ আঙ্গুল কেটে নিলেন শিক্ষক!
.............................................................................................
কক্সবাজারে ইয়াবা ও আগ্নেয়াস্ত্র সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]