| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * এবার বগি লাইনচ্যুত হয়ে রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন   * ৪ উইকেট হারিয়ে ১০০ পার বাংলাদেশের   * আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত   * ৬৯ বার পেছাল সাগর-রুনি হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন   * রোগীদের টাকায় চলে টাঙ্গাইল ডায়াবেটিক হাসপাতাল   * আয়কর মেলায় উপচেপড়া ভিড়   * চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদার জামিন খারিজের বিরুদ্ধে আপিল   * ফোক ফেস্ট শুরু হচ্ছে আজ, প্রথমদিন মঞ্চ মাতাবেন যারা   * ধড়পাকড়ে স্বপ্ন এখন দুঃস্বপ্ন, ফিরলেন আরও ২১৫ কর্মী   * ৪৮ ঘণ্টায় ৩২ ফিলিস্তিনি নিহত  

   অপরাধ ও অনিয়ম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
১০ মাসে কিশোর গ্যাংয়ের হাতে ৮ খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক
কথিত বড় ভাইদের ছত্রচ্ছায়ায় চট্টগ্রাম দাপিয়ে বেড়াচ্ছে প্রায় ২০টি কিশোর গ্যাং। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই গ্রুপগুলো জড়িয়ে পড়ছে নানা ধরনের বিরোধে। চলতি বছরের গত ১০ মাসে কিশোর গ্যাংয়ের হাতে খুন হলো ৮ জন। যার সর্বশেষ বলি- মো. নাহিদ (১৯) নামে এক তরুণ। এ ছাড়া কিশোর অপরাধের কারণে নগরের বিভিন্ন থানায় মামলা হয়েছে অন্তত ১০টি।

রোববার (৩ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নগরের খুলশী থানার আমবাগান এলাকায় ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের অফিসের পাশে ঘটে নাহিদ হত্যাকাণ্ড। এ ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, নিহত নাহিদসহ কয়েকজন তরুণ-যুবক আগে ঘটে যাওয়া কোনো একটি ঘটনার প্রতিশোধ নিতে তারই বন্ধু সোহেলকে মারতে গিয়েছিল। কিন্তু বন্ধু সোহেলের (২২) স্ক্রু ড্রাইভারের আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে নাহিদ নিজেই।

নিহত মো. নাহিদ (১৯) স্থানীয় রাজমিস্ত্রি মো. আবদুল্লাহর ছেলে। ঘাতক অভিযুক্ত মো. সোহেলও (২২) একই এলাকার বাসিন্দা ও গ্যারেজ মিস্ত্রি।

ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, তখনও দুই গ্রুপের বাকি সদস্যদের মধ্যে মারামারি চলছিল। কিছু নারী তাদের ছাড়াতে চেষ্টা করছে। অন্যরা যখন সোহেলকে মারছিল, তখন নাহিদ কিছুটা পিছিয়ে পড়ে মাটিতে বসে পড়ে। রাস্তায় পরে আবার টলতে টলতে উঠে কয়েক পা এগিয়ে গেট ধরে ভারসাম্য রাখার চেষ্টা করতে গিয়ে ঢলে পড়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নাহিদ রাস্তায় পড়ে গেলে স্থানীয়রা তাকে ধরাধরি করে মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সোহেলের কথায় তারা সংঘবদ্ধভাবে লাঠিসোঁটা হাতে আমবাগান এলাকায় এসে নাহিদকে হুমকি দেয়। পরে এলাকার কিশোর-তরুণরা সংঘবদ্ধ হয়ে সোহেলদের ধাওয়া দেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ দুই গ্রুপকে দুই দিকে সরিয়ে দেয়।

ঘাতক সোহেল আমবাগান এলাকায় থাকলেও তার সঙ্গে পিচ্চি হানিফ, পাপ্পু, রায়হানসহ লালখান বাজার এলাকার চিহ্নিত কিছু সন্ত্রাসীর সখ্যতা ছিল।

মূলত, নগরের লালখান বাজারের এক আওয়ামী লীগ নেতার অনুসারী ও কাউন্সিলর হিরণের অনুসারীদের মধ্যে শনিবার সন্ধ্যায় ওই ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও মারামারি হয়েছিল।

এরই জের ধরে রোববার (৩ নভেম্বর) সোহেলকে একা পেয়ে নাহিদসহ কয়েকজন যুবক তাকে মারধর করতে থাকে। স্থানীয় নারীরা তাদের ছাড়িয়ে নিতে গেলেও এরই ফাঁকে সোহেলের হাতে থাকা স্ত্রু ড্রাইভারে দিয়ে সে নাহিদের পেট ফুটো করে দেয়।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব চৌধুরী বলেন, ‘গুরুতর আহত অবস্থায় আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক নাহিদকে মৃত ঘোষণা করেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নাহিদরা কয়েকজন মিলে সোহেলকে মারতে গিয়েছিল। সেখানে সোহেল স্ক্রু ড্রাইভার পেটে ঢুকিয়ে দিয়ে তাকে খুন করেছে। এ সংক্রান্ত সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ আমরা জব্দ করেছি। ঘটনার পর সোহেল পালিয়ে গেছে।’

সাম্প্রতিক সময়ে চট্টগ্রামে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে কিশোর অপরাধীরা। একের পর এক খুন, মাদক , ছিনতাই, চাঁদাবাজি, দখলদারিত্ব ও আধিপত্য বিস্তারে জড়িয়ে পড়ছে তারা। কিশোর গ্যাং কালচারের সর্বশেষ বলি এই নাহিদ।

নগরের কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন বলেন, ‘ফেসবুক-টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গ্রুপ খুলে নিজেদের সংঘবদ্ধ অপরাধে জড়াচ্ছে গ্যাং কালচারের কিশোর সদস্যরা। অনেক সময় দেখা যায়, স্কুলে বন্ধুদের সঙ্গে ঝামেলা হলে এরা ওই গ্রুপের মাধ্যমে অন্য সদস্যদের সে ঘটনা জানিয়ে দেয়। এরপর স্কুল ছুটি হলে তারা একত্রিত হয়ে অথবা অন্য সময়ে একজন আরেকজনের ওপর হামলা চালায়। প্রেম থেকে শুরু করে তুচ্ছ যে কোনো ঘটনায় জড়িয়ে পড়ছে প্রাণঘাতী সংঘাতে।’

নগর গোয়েন্দা পুলিশ সূত্র বলছে, ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারি চট্টগ্রাম নগরের জামালখানে কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র আদনান ইসপারকে প্রকাশ্যে মাথায় গুলি করে হত্যার পরপর নগর পুলিশ অপরাধচক্রে জড়িত কিশোর এবং অপরাধপ্রবণ এলাকার তালিকা করেছিল। তালিকায় প্রায় ৫৫০ জন কিশোরের নাম এসেছিল। অপরাধপ্রবণ স্পট, যেখানে নিয়মিত আড্ডা বসে, এ ধরনের স্পটের নাম এসেছিল প্রায় ৩০০টি।

কিশোরদের রাজনৈতিকভাবে ব্যবহারের জন্য নগরের লালখানবাজার, চকবাজার, নন্দনকানন, সিআরবি, বিশ্বকলোনি, বহদ্দারহাট, পলিটেকনিক এলাকার কয়েকজন আওয়ামী লীগ-যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতার নাম পেয়েছিল পুলিশ। কিশোর-তরুণ অপরাধীদের যারা নিয়ন্ত্রক, তাদের প্রভাব অনেক বেশি। এর ফলে কিশোরদের অপরাধ দমনের বিষয়টি দিন দিন বেড়েই চলছে।

সনাক চট্টগ্রাম চ্যাপ্টারের সভাপতি অ্যাডভোকেট আকতার কবীর চৌধুরী বলেন, বর্তমানে কিশোর গ্যাং কালচারের প্রভাব পরিবার থেকে সমাজের সর্বত্র পড়ছে। মূলত, রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এসব কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে পারছে না।

 
১০ মাসে কিশোর গ্যাংয়ের হাতে ৮ খুন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক
কথিত বড় ভাইদের ছত্রচ্ছায়ায় চট্টগ্রাম দাপিয়ে বেড়াচ্ছে প্রায় ২০টি কিশোর গ্যাং। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই গ্রুপগুলো জড়িয়ে পড়ছে নানা ধরনের বিরোধে। চলতি বছরের গত ১০ মাসে কিশোর গ্যাংয়ের হাতে খুন হলো ৮ জন। যার সর্বশেষ বলি- মো. নাহিদ (১৯) নামে এক তরুণ। এ ছাড়া কিশোর অপরাধের কারণে নগরের বিভিন্ন থানায় মামলা হয়েছে অন্তত ১০টি।

রোববার (৩ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নগরের খুলশী থানার আমবাগান এলাকায় ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের অফিসের পাশে ঘটে নাহিদ হত্যাকাণ্ড। এ ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, নিহত নাহিদসহ কয়েকজন তরুণ-যুবক আগে ঘটে যাওয়া কোনো একটি ঘটনার প্রতিশোধ নিতে তারই বন্ধু সোহেলকে মারতে গিয়েছিল। কিন্তু বন্ধু সোহেলের (২২) স্ক্রু ড্রাইভারের আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে নাহিদ নিজেই।

নিহত মো. নাহিদ (১৯) স্থানীয় রাজমিস্ত্রি মো. আবদুল্লাহর ছেলে। ঘাতক অভিযুক্ত মো. সোহেলও (২২) একই এলাকার বাসিন্দা ও গ্যারেজ মিস্ত্রি।

ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, তখনও দুই গ্রুপের বাকি সদস্যদের মধ্যে মারামারি চলছিল। কিছু নারী তাদের ছাড়াতে চেষ্টা করছে। অন্যরা যখন সোহেলকে মারছিল, তখন নাহিদ কিছুটা পিছিয়ে পড়ে মাটিতে বসে পড়ে। রাস্তায় পরে আবার টলতে টলতে উঠে কয়েক পা এগিয়ে গেট ধরে ভারসাম্য রাখার চেষ্টা করতে গিয়ে ঢলে পড়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নাহিদ রাস্তায় পড়ে গেলে স্থানীয়রা তাকে ধরাধরি করে মা ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সোহেলের কথায় তারা সংঘবদ্ধভাবে লাঠিসোঁটা হাতে আমবাগান এলাকায় এসে নাহিদকে হুমকি দেয়। পরে এলাকার কিশোর-তরুণরা সংঘবদ্ধ হয়ে সোহেলদের ধাওয়া দেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ দুই গ্রুপকে দুই দিকে সরিয়ে দেয়।

ঘাতক সোহেল আমবাগান এলাকায় থাকলেও তার সঙ্গে পিচ্চি হানিফ, পাপ্পু, রায়হানসহ লালখান বাজার এলাকার চিহ্নিত কিছু সন্ত্রাসীর সখ্যতা ছিল।

মূলত, নগরের লালখান বাজারের এক আওয়ামী লীগ নেতার অনুসারী ও কাউন্সিলর হিরণের অনুসারীদের মধ্যে শনিবার সন্ধ্যায় ওই ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও মারামারি হয়েছিল।

এরই জের ধরে রোববার (৩ নভেম্বর) সোহেলকে একা পেয়ে নাহিদসহ কয়েকজন যুবক তাকে মারধর করতে থাকে। স্থানীয় নারীরা তাদের ছাড়িয়ে নিতে গেলেও এরই ফাঁকে সোহেলের হাতে থাকা স্ত্রু ড্রাইভারে দিয়ে সে নাহিদের পেট ফুটো করে দেয়।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব চৌধুরী বলেন, ‘গুরুতর আহত অবস্থায় আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক নাহিদকে মৃত ঘোষণা করেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নাহিদরা কয়েকজন মিলে সোহেলকে মারতে গিয়েছিল। সেখানে সোহেল স্ক্রু ড্রাইভার পেটে ঢুকিয়ে দিয়ে তাকে খুন করেছে। এ সংক্রান্ত সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ আমরা জব্দ করেছি। ঘটনার পর সোহেল পালিয়ে গেছে।’

সাম্প্রতিক সময়ে চট্টগ্রামে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে কিশোর অপরাধীরা। একের পর এক খুন, মাদক , ছিনতাই, চাঁদাবাজি, দখলদারিত্ব ও আধিপত্য বিস্তারে জড়িয়ে পড়ছে তারা। কিশোর গ্যাং কালচারের সর্বশেষ বলি এই নাহিদ।

নগরের কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন বলেন, ‘ফেসবুক-টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গ্রুপ খুলে নিজেদের সংঘবদ্ধ অপরাধে জড়াচ্ছে গ্যাং কালচারের কিশোর সদস্যরা। অনেক সময় দেখা যায়, স্কুলে বন্ধুদের সঙ্গে ঝামেলা হলে এরা ওই গ্রুপের মাধ্যমে অন্য সদস্যদের সে ঘটনা জানিয়ে দেয়। এরপর স্কুল ছুটি হলে তারা একত্রিত হয়ে অথবা অন্য সময়ে একজন আরেকজনের ওপর হামলা চালায়। প্রেম থেকে শুরু করে তুচ্ছ যে কোনো ঘটনায় জড়িয়ে পড়ছে প্রাণঘাতী সংঘাতে।’

নগর গোয়েন্দা পুলিশ সূত্র বলছে, ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারি চট্টগ্রাম নগরের জামালখানে কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র আদনান ইসপারকে প্রকাশ্যে মাথায় গুলি করে হত্যার পরপর নগর পুলিশ অপরাধচক্রে জড়িত কিশোর এবং অপরাধপ্রবণ এলাকার তালিকা করেছিল। তালিকায় প্রায় ৫৫০ জন কিশোরের নাম এসেছিল। অপরাধপ্রবণ স্পট, যেখানে নিয়মিত আড্ডা বসে, এ ধরনের স্পটের নাম এসেছিল প্রায় ৩০০টি।

কিশোরদের রাজনৈতিকভাবে ব্যবহারের জন্য নগরের লালখানবাজার, চকবাজার, নন্দনকানন, সিআরবি, বিশ্বকলোনি, বহদ্দারহাট, পলিটেকনিক এলাকার কয়েকজন আওয়ামী লীগ-যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতার নাম পেয়েছিল পুলিশ। কিশোর-তরুণ অপরাধীদের যারা নিয়ন্ত্রক, তাদের প্রভাব অনেক বেশি। এর ফলে কিশোরদের অপরাধ দমনের বিষয়টি দিন দিন বেড়েই চলছে।

সনাক চট্টগ্রাম চ্যাপ্টারের সভাপতি অ্যাডভোকেট আকতার কবীর চৌধুরী বলেন, বর্তমানে কিশোর গ্যাং কালচারের প্রভাব পরিবার থেকে সমাজের সর্বত্র পড়ছে। মূলত, রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এসব কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে পারছে না।

 
ফেনী বিপুল পরিমান অস্ত্রসহ আন্ত জেলার ডাকাত দলের ২ সদস্য আটক
                                  

আবু সায়েম : বিপুল পরিমান অস্ত্র শস্ত্রসহ আন্ত জেলার ডাকাত দলের ২ সদস্য ফেনী গোয়েন্দা পুলিশের হাতে আটক করা হয়েছে। গতকাল বুধবার ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যা ৭ টায় ফেণী সদর মডেল থানাধীন ট্রাংক রোড জিরু পয়েন্টে অভিযান পরিচালনা করে অস্ত্র সহ তাদের আটক করা হয়।

জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ জনাব রনজিত কুমার বড়ুয়া-র নেতৃত্বে,ইসপেক্টর-মোঃ শাহীন মিয়া এসআই মোঃ মনিরুজ্জামান, এএসআই- মাসুদ রানা, এএসআই- মোঃ ইমরান চৌধুরী, এএসআই-মোঃ ওসমান গনি ও সঙ্গীয় ফোর্স এর সহায়তায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে আন্ত জেলা ডাকাত দলের সর্দার ১. আব্দুল তাহের (২৮) পিতাঃ মানিক মিয়া, সাংঃ খলিলপুর, ধুমচর (মালেক মিয়ার বাড়ী), থানাঃ সুধারাম, জেলাঃ নোয়াখালী, ২.মোঃ জয়নাল আবেদীন(৪০), পিতা-মৃত সুলতান আহম্মদ, সাং- গুচ্ছগ্রাম, (সুলতান মিয়ার হাটের উত্তর পার্শ্বে), থানা- চরফ্যাশন, জেলা- ভোলা বর্তমান ফেনী মহিপাল দ্বয়কে আটক পূর্বক তাহাদের হেফাজত হইতে ১টি দৈশীয় লোহার তৈরী কাঠের বাটযুক্ত(এলজি), ১০ রাউন্ড কার্তুজ, ৬ টি লোহার তৈরি কিরিজ, ১ টি ষ্টিলের তৈরি হেসকো ব্লেড, ১ টি লোহার কোরাবাড়ী, ১ টি লোহার তৈরি শাবল, ৬টি টর্চ লাইট, ২ টি মুখোশ, ২টি গামছা উদ্ধার করা হয়।জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত ডাকাত দ্বয় জানায়, তারা ১৫ ডাকাত ফেনী

শহরে বড় বাজার এলাকায় সশস্ত্র ডাকাতির প্রসস্তুতি গ্রহন করছিল। ওসি ডিবি রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, এই সংক্রান্তে ফেনী মডেল থানায় অস্ত্র ও ডাকাতি প্রস্তুতি জন্য পৃথক ২ টি মামলা রুজু হয়। আসামীদের রিমান্ডে এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

 
বাসায় ডেকে নিয়ে চারজন মিলে গৃহকর্মীকে ধর্ষণ: গ্রেফতার ২
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় কাজের কথা বলে এক গৃহকর্মীকে মোবাইল ফোনে বাসায় ডেকে এনে ধর্ষণ করেছে ৪ যুবক। ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বাগবাড়িয়া এলাকায় গত সোমবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটলে ওই গৃহকর্মী মঙ্গলবার রাতে বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় ৪ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। মামলার পর রাতেই দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মামলার এজাহারভুক্ত আসামিরা হলেন, সোনারগাঁ উপজেলার বাগবাড়িয়া এলাকার মৃত সোবহান মিয়ার ছেলে হাবিবুর, একই এলাকার আজিজুল মিয়ার ছেলে স্বপন এবং নওগাঁ জেলার শিকারপুর গ্রামের মোতাহার প্রামাণিকের ছেলে শাহীনুর ইসলাম। এদের মধ্যে হাবিবুর ও শাহীনুরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার গৃহকর্মী জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বাগবাড়ীয়া গ্রামের হাবিবুরের বাড়িতে ভাড়া থেকে বিভিন্ন লোকের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতেন তিনি। কাজের সুবিধার্থে তিনি বর্তমানে রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা এলাকায় ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস করে গৃহকর্মীর কাজ করেন। হাবিবুরের বাসায় ভাড়া থাকা অবস্থায় হাবিবুর ও ওই গৃহকর্মীর কিছু আর্থিক লেনদেন হয়। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য হাবিবুরের সহযোগী স্বপন ও শাহিনুর ওই গৃহকর্মীকে ফোন করে হাবিবুরের বাসায় আসতে বলে। তাদের কথা শুনে তিনি হাবিবুরের বাসায় এলে তাকে জোরপূর্বক ৪ জন মিলে গণধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে ওই গৃহকর্মী অচেতন হয়ে পড়লে তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় ধর্ষকরা। পরে তিনি সুস্থ হয়ে মঙ্গলবার রাতে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং একজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে সোনারগাঁ থানায় একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের তালতলা ফাঁড়ির ইনচার্জ আহসানউল্লাহ বলেন, মামলা দায়েরের পর ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করা হয়ে। বাকি দুজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের দায়ে গ্রেফতারকৃতদের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, চলতি মাসেই একই এলাকায় এক গার্মেন্টকর্মীকে সিএনজি অটোরিকশা করে তুলে এনে রাতভর গণধর্ষক করে ৬ যুবক। ওই ঘটনায় ৫ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৫ ধর্ষক দুই দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে রয়েছে।

সীতাকুণ্ডে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থানাধীন ছোট কুমিরা এলাকায় র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের তিন সদস্য নিহত হয়েছে। সোমবার (২৯ অক্টোবর) ভোর তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

র‍্যাব জানায়, আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্যরা ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল-এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাবের একটি টিম সেখানে পৌঁছালে অতর্কিত গুলি ছুড়তে শুরু করে ডাকাত দলের সদস্যরা। এ সময় আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। দুই পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনার পর তিনজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তলসহ দুটি অস্ত্র, ১২ রাউন্ড গুলি এবং বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে র‍্যাব-৭ এর টহল দল।

 
দুই মেয়ের সামনে বাবাকে উলঙ্গ করে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভোলার লালমোহনের একটি নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। এ ঘটনায় ব্যাপক তোলপার সৃষ্টি হয়েছে। মেয়েদের সামনে বাবাকে উলঙ্গ করে নির্যাতনের ভিডিওটি নিয়ে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে সমালোচনা ও নিন্দার ঝড় বইছে।

তবে নির্যাতনের শিকার জসেম বর্তমানে একটি মামলায় জেল হাজতে রয়েছেন। আর নির্যাতনকারী মো. হাসানকেও ডাকাতি মামলায় পুলিশ রোববার রাতে গ্রেফতার করেছে।

নির্যাতনের শিকার মো. জসিমের বাড়ি ভোলার লালমোহন উপজেলার চরলক্ষ্মী গ্রামে।

তার স্ত্রী রাজু বেগম জানান, ২০১৮ সালের জুলাই মাসে একই এলাকার মানব পাচারকারী ও চোরাকারবারী মো. হাসান তার স্বামীকে স্থানীয় ডাওরী বাজার থেকে ডেকে নিয়ে এমন নির্যাতন চালায়। এমন নির্যাতনের পরও তারা কোথাও অভিযোগ বা মামলা করার সাহস পাননি। গোপনে বাড়িতে স্বামীর চিকিৎসা করান। মারধরের সময় জসিমের স্বজনরা উপস্থিত হয়ে মিনতি করার পরও তাকে ছাড়া হয়নি। জসিম ডাকাতি মামলায় গত ৫ মাস জেলে রয়েছে। তার বিরুদ্ধে থানা ও আদালতে আরও মামলা রয়েছে।

এ ঘটনায় এখন আর কোন মামলা করবেন না বলেও রাজু বেগম জানান।

এদিকে ঘটনার মূলহোতা মো. হাসানকে রোববার রাতে পুলিশ ডাকাতি মামলায় গ্রেফতার করেছে বলে জানিয়েছেন লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবীর।

তিনি আরও জানান, পুরানো এ ঘটনায় কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। হাসান গ্রেফতার হওয়ার পর ভিডিওটি ভাইরাল হয়। হাসানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মানবপাচার, চুরি ও ডাকাতির প্রস্তুতির মামলা রয়েছে। তবে স্থানীয়রা জানিয়েছে, হাসান মাদক ব্যবসা ও চোরাকারবারীর সঙ্গেও জড়িত ছিল।

 
আড়াইহাজারে পুলিশের সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে` ডাকাত নিহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে` এক যুবক নিহত হয়েছে, যার বিরুদ্ধে হত্যা ও ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৮টি মামলা থাকার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

শনিবার মধ্যরাতে উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নের ইলুমদি এলাকায় `বন্দুকযুদ্ধের` এই ঘটনা ঘটে।

নিহত আবু সাইদ (৩৫) জোকারদিয়া গ্রামের নাজিম মিয়ার ছেলে।

পুলিশ বলছে, আবু সাঈদ ডাকাত দলের সদস্য। সে স্থানীয়ভাবে ছুইটকা ডাকাত নামেই পরিচিত।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, আবু সাইদকে শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তার সহযোগীদের গ্রেপ্তারে মধ্যরাতে তাকে নিয়ে হাইজাদী ইউনিয়নের ইলুমদি এলাকায় অভিযানে যায় পুলিশ। সেখানে সাইদের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় দু`পক্ষের গোলাগুলির মাঝে পড়ে সাইদের মৃত্যু হয়।

তিনি জানান, হত্যা ও ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে আবু সাইদ ওরফে ছুইটকা ডাকাতের বিরুদ্ধে থানায় আটটি মামলা রয়েছে।

 
মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ধানক্ষেত থেকে নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মানিকগঞ্জের সিংগাইরে হাসিনা বেগম (৫০) নামে এক নারীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে বাড়ির পাশে একটি ধানক্ষেত থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত হাসিনা বেগম উপজেলার বলধরা ইউনিয়নের খোয়ামুড়ি গ্রামের আব্দুর রহমানের স্ত্রী।

নিহতের স্বামী আব্দুর রহমান তাদের জানান, শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে তিনি বাড়ি ফিরে দেখেন ঘরের দরজা খোলা। স্ত্রী ভেতরে নেই। এ সময় পাশের ঘরে তাদের প্রবাসী ছেলের স্ত্রী ঘুমিয়ে ছিলেন। তিনিও কিছু জানাতে পারেননি। খোঁজাখুঁজির সময় বাড়ির পূর্বপাশে হাসিনা বেগমের পায়ের একটি স্যান্ডেল পড়ে থাকতে দেখেন স্বজনরা। এরই সূত্র ধরে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে একটি ধানক্ষেতে গলাকাটা অবস্থায় তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়া হয়। সকালে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

সিংগাইর থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) নজরুল ইসলাম বলেন, ব্যাপক তদন্ত ছাড়া এই হত্যাকাণ্ডের মোটিভ বলা সম্ভব হচ্ছে না। হত্যাকাণ্ডের পেছনে পূর্বশত্রুতার জের কিংবা অন্য কোনো কারণ আছে কি-না খতিয়ে দেখা হবে। এ ঘটনায় সিংগাইর থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

 
সীতাকুণ্ডে চিকিৎসক শাহ আলম হত্যার হোতা `বন্দুকযুদ্ধে` নিহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলায় শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শাহ আলম হত্যার `মূল হোতা` নজির আহমেদ সুমন ওরফে কালু (২৬) র‌্যাবের সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে` নিহত হয়েছেন।

বুধবার ভোররাতের দিকে উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের উত্তর বাঁশবাড়িয়া গ্রামের হাবিব রোড এলাকায় `বন্দুকযুদ্ধের` এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

নিহত নজির সীতাকুণ্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের নতুন পাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে।

সীতাকুণ্ডের কুমিরা বাইপাস এলাকা থেকে গত শুক্রবার সকালে ডা. শাহ আলমের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে শনিবার রাতে অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

র‌্যাব জানায়, এই মামলায় মঙ্গলবার সকালে মো. ফারুক নামে এক লেগুনাচালককে গ্রেপ্তার করা হয়। একইদিন বিকেলে ফারুক চট্টগ্রামের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শিপলু কুমার দের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন, যেখানে তিনি হত্যার মূল হোতা হিসেবে নজির আহমেদের নাম উল্লেখ করেন।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত)) শামীম শেখ বন্দুকযুদ্ধের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তারা ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক নজির আহমেদকে মৃত ঘোষণা করেন। নজির আহমেদের বুকে তিনটি ও পেটের বাঁ পাশে একটি গুলি লেগেছে।

র‌্যাবের চান্দগাঁও ক্যাম্পের স্কোয়াড কমান্ডার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ জানান, তাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য ছিল– চিকিৎসক শাহ আলম হত্যার মূল হোতা নজির আহমেদ উত্তর বাঁশবাড়িয়া হাবিব রোড এলাকায় অবস্থান করছেন। তাকে গ্রেপ্তারে র‌্যাবের একটি দল রাত ৩টার দিকে ওই এলাকায় যায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে নজির আহমেদ দলবল নিয়ে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালালে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে নজির আহমেদকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে সীতাকুণ্ড থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ নজিরকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, চিকিৎসক হত্যা মামলায় র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার লেগুনাচালক ফারুক মঙ্গলবার বিকেলে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। সেখানে তিনি হত্যার মূল হোতা হিসেবে নজির আহমেদের নাম উল্লেখ করেন।

 
গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড
                                  

অনলাইন ডেস্ক : জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার গৃহবধূ আরতি রাণীকে ধর্ষণ করে হত্যা করার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় সাত আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে দুজনকে পাঁচ লাখ এবং পাঁচজনকে এক লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ড.এ.বি.এম. মাহমুদুল হক এই রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-আক্কেলপুর উপজেলার মারমা গ্রামের সোহেল তালুকদার, দেওড়া সোনারপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেন, দেওড়া গুচ্ছগ্রামের রাহিন, দেওড়া সাখিদার পাড়ার ফেরদৌস আলী, দেওড়া সোনারপাড়ার মজিবর রহমান, জগতি গ্রামের রুহুল আমীন ও দেওড়া গুচ্ছগ্রামের আজিজার রহমান।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের আট অক্টোবর রাতে দেওড়া আশ্রয়ণ কেন্দ্রের উজ্জ্বল মহন্তের স্ত্রী আরতী রাণীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে আসামিরা গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পথে আরতী রাণী মারা যান। এ ঘটনায় ১০ সেপ্টেম্বর আরতী রাণীর স্বামী উজ্জ্বল মহন্ত বাদী হয়ে দণ্ডপ্রাপ্ত সাতজনকে আসামি করে আক্কেলপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

মামলায় দীর্ঘ শুনানি শেষে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক সকল আসামির মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। একইসঙ্গে আসামি সোহেল ও ফেরদৌসকে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা ও অন্য সকলের এক লাখ টাকা করে জরিমানারও আদেশ দেন।
সরকারপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট ফিরোজা চৌধুরী এবং বাদীপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ও রফিকুল ইসলাম তালুকদার রতনসহ পাঁচজন।

জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট ফিরোজা চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

 
ময়মনসিংহের সেই লাগেজে মিলল মাথাবিহীন মরদেহ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ময়মনসিংহ শহরের পাটগুদাম ব্রিজের কাছে রোববার (২০ অক্টোবর) রাত ৮টা থেকে সন্দেহজনক একটি লাগেজ ঘিরে রাখে পুলিশ ও র‍্যাব সদস্যরা।

রহস্য উদঘাটনে খবর দেয়া হয় বোম ডিসপোজাল ইউনিটকে। সোমবার (২১ অক্টোবর) সকালে সেই লাগেজ থেকে উদ্ধার করা হলো এক ব্যক্তির মাথা ও হাত-পা বিহীন একটি দেহ। লাশটির মাথা ও হাত-পা কেটে অন্যত্র ফেলে রাখা হতে পারে বলে ধারণা পুলিশের।

সোমবার সকালে ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার শাহ আবীদ হোসেন জানান, এটি একটি ঠান্ডা মাথার হত্যাকাণ্ড। ময়নাতদন্তের জন্য দেহাংশটি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিচয় ও দেহের অন্য অংশগুলো উদ্ধার এবং জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

এরআগে পাটগুদাম ব্রিজের কাছে রোববার সকাল থেকে সারাদিন লাল রঙের একটি ল্যাগেজ পড়ে থাকতে দেখেন ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা। পরে সন্দেহ হলে সন্ধ্যায় পুলিশকে জানানো হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেনসহ এবং র‍্যাবের সিইও লেফটেন্যান্ট কর্নেল ইফতেখার উদ্দিনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকতারা।

 
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : কক্সবাজারের টেকনাফে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মো. রহিম উদ্দিন ওরফে রফিক (৩৭) ও মো. আজিজ (২৪) নামের দুই যুবক নিহত হয়েছেন।

শনিবার (১৯ অক্টোবর) রাত ১টার দিকে বিজিবি সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. রহিম উদ্দিন ওরফে রফিক এবং রোববার (২০ অক্টোবর) ভোর ৪টার দিকে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মো. আজিজ নিহত হন।
নিহত রহিম উদ্দিনের বাড়ি উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপড়ার মধ্যম খাঞ্জরপাড়া এলাকায় এবং মো. আজিজ টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ডেলপাড়া গ্রামের।

টেকনাফ-২ ব্যাটালিয়ন বিজিবি কমান্ডার লে. কর্নেল ফয়সাল হাসান খান জানান, উনচিপ্রাং বিওপির একটি টিম মদিনার জোড়া এলাকায় অভিযানে যায়। সেখানে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা টহল দলকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে ৬০ হাজার ইয়াবা, একটি দেশীয় বন্দুক, তিন রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও দুইটি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

অন্যদিকে টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, শনিবার রাত ৯টার দিকে মাদক মামলার আসামি মো. আজিজকে গ্রেপ্তার করার পর তাকে নিয়ে সদর ইউপি মহেশখালীয়া পাড়া নৌকাঘাটে অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধারে পুলিশ একটি টিম অভিযানে যায়। এসময় পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছোঁড়ে গ্রেপ্তারকৃতের সহযোগীরা। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। পরে ঘটনাস্থল থেকে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতাল নিলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে তিন হাজার ইয়াবা, একটি এলজি ও সাত রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক কারবারি নিহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জিয়াবুল হক জিয়া (৩০) ও আজিম উল্লাহ (৪৬) নামে দুই মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, নিহতরা শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ছিল। তাদের বিরুদ্ধে থানায় অস্ত্র ও মাদকসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর ) ভোরে টেকনাফের হোয়াইক্যং সাতঘরিয়া পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, এ ঘটনায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন—কক্সবাজার জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উখিয়া-সার্কেল নিহাদ আদনান তাইয়ান, উপ-পরিদর্শক সাব্বির আহমেদ, কনেস্টবল রাইসুল ইসলাম আসাদ ও শুক্কুর।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, গোপন সংবাদ পেয়ে পুলিশের একটি দল বুধবার বিকেলে টেকনাফের হ্নীলা বাজার এলাকা থেকে জিয়াবুল হক জিয়াকে গ্রেফতার করে। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বৃহস্পতিবার ভোরে একদল পুলিশ টেকনাফের হোয়াইক্যং সাতঘরিয়া পাড়া পাহাড়ের পাদদেশে তাদের গোপন আস্তানায় অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধারে যায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জিয়ার লোকজন পুলিশের ওপর গুলিবর্ষণ করে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উখিয়া-সার্কেল নিহাদ আদনান তাইয়ানসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হন।

ওসি আরও বলেন, পরে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বাবুল ও তার সহযোগী আজিম উল্লাহকে উদ্ধার করে কক্সবাজার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি শুটার গান, পাঁচটি দেশীয় এলজি, ৩৬ রাউন্ড তাজা গুলি ও পাঁচ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত দুজনের বিরুদ্ধে মাদক, অস্ত্রসহ একাধিক মামলা রয়েছে।ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।

সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ বনদস্যু নিহত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : খুলনার কয়রা উপজেলায় সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনীর প্রধান আমিনুলসহ চারজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন দুই র‌্যাব সদস্য। মঙ্গলবার সকালে সুন্দরবনের গহীনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বনদস্যুরা হলেন, আমিনুল বাহিনীর প্রধান আমিনুল ইসলাম, সেকেন্ডে ইন কমান্ড রফিকুল ইসলামসহ চারজন।

র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল সৈয়দ মোহাম্মদ নূরুস সালেহীন ইউসুফ জানান, জলদস্যু আমিনুল বাহিনীর সঙ্গে সুন্দরবনের কয়রা এলাকায় র‌্যাবের ব্যাপক গোলাগুলি হয়েছে। এতে আমিনুল বাহিনীর প্রধান আমিনুল ও তার সেকেন্ড ইন কমান্ড রফিকসহ চারজন নিহত হয়েছেন। র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে বিপুল অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

 
সোনাইমুড়ীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সোনাইমুড়ী আমিশাপাড়া ইউনিয়নে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী (১৩)কে গণধর্ষণ করেছে ৩ বখাটে। ঘটনায় ভিকটিমের মায়ের দায়ের করা মামলায় সজিব ও রাজন নামের দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এরআগে সকালে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে বড় বোনের বাড়ি পশ্চিম চাঁদপুর থেকে নিজ বাড়ি সোনাইমুড়ি উপজেলার আমিশাপাড়া ইউনিয়নের পানিয়া শালা গ্রামের উদ্দেশ্যে রিকশা করে যাচ্ছিল সে।

পথে আমিশাপাড়া বাজারে রিকশা স্ট্যান্ডের জাহান প্লাজার সামনে নামে সে। এসময় বজরগঁ্রাও গ্রামের পন্ডিত বাড়ির নুর নবী বাহারের ছেলে সজিব হোসেন (২৫) শিশুটিকে বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে সিএনজিতে তুলে নেয়। পরে কিছু দূর যাওয়া পর সোহাগ ও শুক্কুর মিয়ার বিল্ডিং এর সামনে সিএনজিটি বন্ধ করে দেয়।

সে শিশুটিকে কিছুক্ষণ টিভি দেখানোর কথা বলে দলিল লেখক সহিদ উল্যাহ সোহাগের বিল্ডিং এর ৫ম তলার ১টি বন্ধ কক্ষের তালা খুলে শিশুটিকে ভিতরে নিয়ে যায়। পরে সেখানে বখাটে নাঈম (২৫) ও রাজন (২৪) ছিলো।

এসময় তারা ভিকটিমকে আটকে গণধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে শিশুটিকে বাড়ি যাওয়ার জন্য একটি রিকশা ভাড়া করে দেয়। এসময় ভিকটিমের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমিক চিকিৎসা দিয়ে সোনাইমুড়ী থানা পুুলিশে খবর দেয়। সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস সামাদ বলেন, ঘটনায় এ পর্যন্ত দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। শিশুটিকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

 
পূজা দেখতে আসা পাঁচ তরুণীর শ্লীলতাহানি : দুই যুবকের কারাদণ্ড
                                  

অনলাইন ডেস্ক : খাগড়াছড়ির রামগড়ে পূজা দেখতে আসা পাঁচ তরুণীকে শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগে সাগর ত্রিপুরা (২২) ও মো. জাহাঙ্গীর আলম (২২) নামের দুই বখাটেকে দুই মাস করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার রাত ১০টার দিকে রামগড়ে বাজারের পাশে ডেবারপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সাজাপ্রাপ্ত সাগর ত্রিপুরা রামগড় পৌরসভার সুকেন্দ্র পাড়ার তপন ত্রিপুরার ছেলে এবং জাহাঙ্গীর আলম রামগড় পৌরসভার বল্টুরাম টিলা এলাকার মৃত আবুল কালামের ছেলে।

জানা গেছে, সোমবার রাত ১০টার দিকে শারদীয় দুর্গাপূজা দেখে বাড়ি ফেরার পথে রামগড়ে বাজারের পাশে ডেবারপাড় এলাকায় দুই বখাটে যুবক পাঁচ তরুণীকে শ্লালীনতাহানির চেষ্টা করে। বিষয়টি জানাতে পেরে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে ওই দুই বখাটেকে আটক করে। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সরওয়ার উদ্দিন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তাদের দুই মাসের কারাদণ্ড দেন।

রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারেক মোহাম্মদ আবদুল হান্নান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দণ্ডিত যুবকদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ফতুল্লায় ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় জেনারেটর ব্যবসা দখলে নিতে মাহবুবুল রহমান বাবলু নামে এক ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

আজ সোমবার (৭ অক্টোবর) ভোরে হাজীগঞ্জ বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তিনি ওই এলাকার মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে।

নিহতের মামা অ্যাডভোকেট মজিদ খন্দকার জানান, বাবলু পেশায় একজন জেনারেটর মেকানিক ও জেনারেটর ব্যবসায়ী। দীর্ঘদিন ধরে তল্লা এলাকার সন্ত্রাসীরা জোরপূর্বক তার কাছ থেকে চাঁদা দাবি ও ব্যবসা দখল করার হুমকি দিয়ে আসছে। ভোরে তিনি বাজারে চা খেতে গেলে ৭/৮ জনের একদল সন্ত্রাসীরা মিলে তার উপর হামলা চালিয়ে তাকে পিটিয়ে আহত করে রাস্তায় ফেলে পালিয়ে যায়। পরে তার চিৎকারে আশপাশে লোকজন এসে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে শহরের খানপুর ৩শ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আসলাম হোসেন জানায়, হাজীগঞ্জ বাজারে জেনারেটর ব্যবসা দখলে নিতে বাবলু নামে একজনকে পিটিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় রাকিব নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে ও মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

 

   Page 1 of 23
     অপরাধ ও অনিয়ম
১০ মাসে কিশোর গ্যাংয়ের হাতে ৮ খুন
.............................................................................................
ফেনী বিপুল পরিমান অস্ত্রসহ আন্ত জেলার ডাকাত দলের ২ সদস্য আটক
.............................................................................................
বাসায় ডেকে নিয়ে চারজন মিলে গৃহকর্মীকে ধর্ষণ: গ্রেফতার ২
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩
.............................................................................................
দুই মেয়ের সামনে বাবাকে উলঙ্গ করে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
আড়াইহাজারে পুলিশের সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে` ডাকাত নিহত
.............................................................................................
মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ধানক্ষেত থেকে নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে চিকিৎসক শাহ আলম হত্যার হোতা `বন্দুকযুদ্ধে` নিহত
.............................................................................................
গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
ময়মনসিংহের সেই লাগেজে মিলল মাথাবিহীন মরদেহ
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক কারবারি নিহত
.............................................................................................
সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ বনদস্যু নিহত
.............................................................................................
সোনাইমুড়ীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২
.............................................................................................
পূজা দেখতে আসা পাঁচ তরুণীর শ্লীলতাহানি : দুই যুবকের কারাদণ্ড
.............................................................................................
ফতুল্লায় ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা
.............................................................................................
বেনাপোলে বাড়িতে এনে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
কদমতলীতে ১০ হাজার ইয়াবাসহ আটক ৪
.............................................................................................
সেন্টমার্টিনে হোটেলে ডেকে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
সিদ্ধিরগঞ্জে কোটি টাকার নকল প্রসাধনী সামগ্রী জব্দ
.............................................................................................
পরকীয়ার জেরে স্ত্রী ও শাশুড়িকে হত্যা
.............................................................................................
চাকরির আশ্বাসে ডেকে এনে গণধর্ষণ, রিহ্যাবের দুই পরিচালক গ্রেফতার
.............................................................................................
টেকনাফে `বন্দুকযুদ্ধে` ২ রোহিঙ্গা নিহত
.............................................................................................
গাজীপুরে গুলি করে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১৬ লাখ টাকা ছিনতাই
.............................................................................................
সোনাগাজীতে ৬ বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগ
.............................................................................................
সৌদি যাওয়া হয়নি গৃহবধূর, প্রতিদিন ধর্ষণ করতো চারজন
.............................................................................................
ভোলায় ভুয়া ডাক্তা‌রের ৬ মাসের ক‌ারাদণ্ড
.............................................................................................
উখিয়ায় নিজ ঘরে প্রবাসীর স্ত্রী-দুই সন্তান ও মায়ের গলাকাটা মরদেহ
.............................................................................................
চুরি যাওয়া ল্যাপটপ দিয়েই রোহিঙ্গাদের জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরি
.............................................................................................
৫ম শ্রেণির ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, প্রধান শিক্ষক ধরা
.............................................................................................
দশম শ্রেণির ছাত্রীকে অচেতন করে ধর্ষণ, মোবাইলে ছবি ধারণ
.............................................................................................
ফতুল্লায় তিন জঙ্গি আটক
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা স্বামী-স্ত্রী নিহত
.............................................................................................
একা পেয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
একা পেয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ
.............................................................................................
বিধবাকে ধর্ষণে জড়িত থাকার অভিযোগে এএসআই প্রত্যাহার
.............................................................................................
নারায়ণগঞ্জে একই পরিবারের ৩ জনকে গলা কেটে হত্যা
.............................................................................................
কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ রোহিঙ্গা নিহত
.............................................................................................
ঈশ্বরগঞ্জে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী নিহত, স্বামী আটক
.............................................................................................
রাঙ্গামাটিতে দুই জেএসএস কর্মীকে গুলি করে হত্যা
.............................................................................................
নানাবাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশু
.............................................................................................
আদালতে ছুরি নিয়ে প্রবেশের সময় নারী আটক
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রতিবন্ধীকে গণধর্ষণ
.............................................................................................
অন্য নারীকে ধর্ষণের সময় স্বামীকে ধরে ফেললেন স্ত্রী
.............................................................................................
চাকরি দেয়ার কথা বলে যুবতীকে ডেকে এনে গণধর্ষণ
.............................................................................................
ময়মনসিংহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
মেহেরপুরে ২ মাছ চাষিকে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
নিজ ঘরে ঢুকে হাত-মুখ বেঁধে ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
নিজ মেয়েকে দিয়ে দেহব্যবসা, স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা
.............................................................................................
বৃদ্ধা মাকে মারধর, ছেলে গ্রেফতার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]