| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * রোজায় অফিস সময় ৯টা থেকে সাড়ে ৩টা   * দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তি দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর   * সন্ধ্যার পর ওষুধের দোকান ছাড়া সব বন্ধ   * ঢাকায় মোট ৬৪ জনের করোনা শনাক্ত   * নামাজ-প্রার্থনা নিজঘরে, জুমায় সর্বোচ্চ ১০ জন   * চট্টগ্রামে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের   * ফরিদপুরে আইসোলেশনে বৃদ্ধের মৃত্যু   * দেশে করোনায় নতুন করে ২৯ করোনা রোগী শনাক্ত, মোট ১১৭   * করোনায় দেশে একদিনে ৪ জনের মৃত্যু, সংখ্যা বেড়ে ১৩   * এবার বাঘের শরীরে মিললো করোনাভাইরাস  

   অপরাধ ও অনিয়ম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
প্রক্রিয়া শেষে দ্রুত মুক্তি খালেদা জিয়ার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার প্রশাসনিক প্রক্রিয়া শেষ হলে তিনি খুব দ্রুত মুক্তি পাবেন বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, বেগম জিয়াকে গতকাল মুক্তির সিদ্ধান্ত হলেও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক প্রক্রিয়াগুলো শেষ করতে না পারায় তার মুক্তি হয়নি। এ প্রক্রিয়া আজই শেষ হতে পারে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পরই বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ত্বরান্বিত হবে। গতরাতে ফোনে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, দ্রুত মুক্তি নিশ্চিত করতে প্রক্রিয়া চলছে। এ সময় আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, এখনো অনেক সময় লাগবে। এটার জিও জারি হবে। তারপর প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষরের পর মুক্তির বিষয়টি আসবে। এর আগে শর্ত সাপেক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে গুলশানের নিজ বাসভবনে সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, বিদেশে গমন না করার শর্তে প্রধানমন্ত্রীর আদেশে খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

এ সময় তাকে বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায় মানবিক কারণে সদয় হয়ে দণ্ডাদেশ স্থগিত রাখার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

 
প্রক্রিয়া শেষে দ্রুত মুক্তি খালেদা জিয়ার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
                                  

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার প্রশাসনিক প্রক্রিয়া শেষ হলে তিনি খুব দ্রুত মুক্তি পাবেন বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, বেগম জিয়াকে গতকাল মুক্তির সিদ্ধান্ত হলেও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক প্রক্রিয়াগুলো শেষ করতে না পারায় তার মুক্তি হয়নি। এ প্রক্রিয়া আজই শেষ হতে পারে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পরই বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ত্বরান্বিত হবে। গতরাতে ফোনে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, দ্রুত মুক্তি নিশ্চিত করতে প্রক্রিয়া চলছে। এ সময় আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, এখনো অনেক সময় লাগবে। এটার জিও জারি হবে। তারপর প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষরের পর মুক্তির বিষয়টি আসবে। এর আগে শর্ত সাপেক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে গুলশানের নিজ বাসভবনে সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, বিদেশে গমন না করার শর্তে প্রধানমন্ত্রীর আদেশে খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

এ সময় তাকে বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায় মানবিক কারণে সদয় হয়ে দণ্ডাদেশ স্থগিত রাখার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

 
করোনা নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোয় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক আটক
                                  

অনলাইন ডেস্ক:
কভিড-১৯ করোনাভাইরাস নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অপরাধে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ মানিকগঞ্জ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সাদ্দাম হোসেন অভিকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় আদালতের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন অভি। এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মো. হাফিজুর রহমান বলেন, শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সাদ্দাম হোসেন অভি তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে ‘করোনায় আক্রান্ত হয়ে মানিকগঞ্জের মুন্নু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একজনের মৃত্যু ও তিনজনকে ঢাকায় স্থানান্তর’ লিখে গুজব ছড়িয়ে দেন। এটি পুলিশের দৃষ্টিতে আসার পর, সেদিন সন্ধ্যায় বাচামারা বাজারে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

পুলিশ সুপার হাফিজুর রহমান আরও জানান, অভির বিরুদ্ধে শনিবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২০১৮ এর ২৫ (খ)(২)/৩১ ধারায় মামলা করা হয়েছে। উল্লেখ্য, আটক সাদ্দাম হোসেন অভি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ মানিকগঞ্জ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং দৌলতপুর উপজেলা প্রকৌশলী সমিতির সহ-সভাপতি।

 
গত ২৫ দিনে রাজধানীতে গামছা পার্টি কেড়ে নিল চারজনের প্রাণ
                                  

অনলাইন ডেস্ক:
রাজধানীতে গত ২৫ দিনের ব্যবধানে ছিনতাইকারী গামছা পার্টির খপ্পরে পড়ে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। একমাত্র উপার্জনকারীকে হারিয়ে নিঃস্ব প্রতিটি পরিবার। চক্রের ২ সদস্য বন্দুকযুদ্ধে নিহত ও বাকীদের গ্রেফতারের পর চক্রটি এখন নিষ্ক্রিয় বলে দাবি পুলিশের।
আজাদ পাটোয়ারি, ঝালমুড়ি বিক্রি করে স্ত্রী তানিয়া আক্তার ও চার ছেলে-মেয়ে নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। থাকতেন তুরাগের ধউর এলাকায় ভাড়া বাসায়। সন্তানদের লেখাপড়া শিখিয়ে মানুষ করার স্বপ্ন কেড়ে নিয়েছে গামছা পার্টি।

গত ২৯ ডিসেম্বর ঝালমুড়ি বিক্রির জন্য বের হয়ে আর ফেরেননি। এক মাস পর আজাদের মরদেহ ঢাকা মেডিকেলের মর্গে শনাক্ত করেন স্ত্রী তানিয়া। চার শিশুকে নিয়ে দিশেহারা তানিয়া। গত বছরের ১০ ডিসেম্বর থেকে চলতি ৬ জানুয়ারি। গত ২৫ দিনে রাজধানীর ভিন্ন ভিন্ন ফ্লাইওভারে পাওয়া গেছে চারটি মরদেহ। প্রতিটি হত্যার ধরন এক। গলায় গামছা বা মাফলার পেঁচিয়ে হত্যা করা হয়েছে তাদের।

গত বছরের ১০ ডিসেম্বর জুয়েলার্স শ্রমিক আক্তার হোসেনের মরদেহ পাওয়া যায় কুড়িল ফ্লাইওভারে। গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর খিলক্ষেত ফ্লাইওভারে পাওয়া যায় ঝালমুড়ি বিক্রেতা আজাদের মরদেহ। গত ৩ জানুয়ারি কুড়িল ফ্লাইওভারে টেইলারিং মাস্টার মনির হোসেন এবং ৬ জানুয়ারি মগবাজার ফ্লাইওভারে মেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মিজানুর রহমানের মরদেহ।

ফ্লাইওভারে একের পর এক মরদেহ পাওয়ার ঘটনায় নড়েচড়ে বসে পুলিশ। প্রযুক্তির সহায়তায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী মিজান হত্যায় গ্রেফতার করা হয় নুরুল ইসলামকে। জবানবন্দিতে বেরিয়ে আসে লোমহর্ষক তথ্য। এরপর একে একে গ্রেপ্তার হয় চক্রের সদস্য জালাল ও আব্দুল্লাহসহ ৫ জন। চক্রের দুজন নাজমুল ও শাহীন পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। পুলিশ বলছে, এই চক্রের কোনো অস্তিত্ব এখন আর নেই। ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার বলেন, একটি ঘটনার রহস্য বের করতে আমরা মোট চারটি ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছি। যে চক্রটি ধরা পড়েছে তারা সিএনজিতে ছিনতাই করে গামছা পেছিয়ে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকে। চক্রটি আটক হওয়ার পরে এসব ঘটনা আর হচ্ছে না। চক্রের সবাইকেই আমরা ধরতে সক্ষম হয়েছি। সিএনজিতে যাত্রী হিসেবে তুলে ছিনতাই। বাধা দিলে হত্যা করতো এই চক্র।

মাদকদ্রব্য আত্মসাত; শার্শা থানার ওসিসহ ৫ পুলিশ ক্লোজড
                                  

উদ্ধার করা মাদকদ্রব্য আত্মসাতের অভিযোগে যশোরের শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমানসহ ৫ পুলিশকে ক্লোজড করা হয়েছে। অন্য পুলিশ সদস্যরা হলেন থানার সাব ইনসপেক্টর (এসআই) আবুল হাসান, এএসআই আবু বক্কর সিদ্দিক, কনস্টেবল আব্দুল মান্নান এবং ইকবাল হোসেন। সোমবার খুলনার ডিআইজি ড. খঃ মহিদ উদ্দিনের এক অফিস আদেশে (স্মারক নম্বর-জিএ-০২/৩১০৬/৭) তাদের ক্লোজ করা হয়।

আদেশে বলা হয়েছে, প্রশাসনিক কারণে শার্শা থানার ওসিকে ক্লোজড করে খুলনা রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ)-এ সংযুক্ত করা হলো। একইসঙ্গে এসআই আবুল হাসান, এএসআই আবু বক্কর সিদ্দিক, কনস্টেবল আব্দুল মান্নান ও ইকবাল হোসেনকে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হলো। পুলিশের একটি সূত্র বলছে, ওসি ও তার সহযোগীরা উদ্ধার করা ৪৫০ বোতল ফেনসিডিল ও ১৬ কেজি গাঁজা আত্মসাৎ করেছেন। সেই কারণে তাদের বিরুদ্ধে এই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা।

যশোর জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, একটি মামলার আলামত সঠিকভাবে সংগ্রহ না করার কারণে ওই পাঁচ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

 
ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণ: মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট
                                  

রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলায় আসামি মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে ১৬ জনকে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আবু বক্কর আজ সোমবার বেলা ১১টায় জানান।

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে রওনা দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী। সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি রাজধানীর কুর্মিটোলা বাসস্ট্যান্ডে নামেন। এরপর একজন অজ্ঞাত ব্যক্তি তার মুখ চেপে ধরে সড়কের পেছনে নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে ধর্ষণের পাশাপাশি তাকে নির্যাতনও করা হয়। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষতচিহ্ন পাওয়া যায়। ধর্ষণের একপর্যায়ে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন।

রাত ১০টার দিকে নিজেকে একটি নির্জন জায়গায় আবিষ্কার করেন ওই ছাত্রী। পরে সিএনজি নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে যান। রাত ১২টার দিকে ওই ছাত্রীকে ঢামেক হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করান তার সহপাঠীরা।পরের দিন সকালে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে ছাত্রীর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি উত্তর)।

 
বিবস্ত্র করে সাংবাদিক রিগ্যানকে পেটানো হয়
                                  

অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন- এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলাম রিগ্যানকে শুক্রবার দিবাগত রাতে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট। জানা যায়, শুক্রবার দিবাগত রাতে পুলিশ ছাড়া আনসার নিয়ে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা দরজা ভেঙে আরিফুলের বাসায় ঢোকেন। এরপর তাকে মারধর শুরু করেন। পরে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে নিয়ে ‘বিবস্ত্র` করে নির্যাতন করা হয়। তার ভিডিও ধারণ করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে কুড়িগ্রামে এমন ঘটনা ঘটেছে।

আরিফুলের স্ত্রী মোস্তারিমা সরদার নিতু ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘কেন আমার স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে আমরা জানি না। দরজা ভেঙে ৭/৮ জন বাসায় ঢোকে। এরপরই পেটাতে শুরু করে। কী অপরাধ জানতে চাইলে আরও বেশি মারতে থাকে। এক পর্যায়ে টিনের বেড়া ভেঙে ওকে নিয়ে যায়। প্রথমে তো আমরা জানতামই না, কারা নিয়ে গেছে? ধরার সময় শুধু বলেছে, তুই অনেক জ্বালাইছিস। পরে আমি কারাগারে দেখা করি। তখন সে দাঁড়াতেই পারছিল না। আমাকে বলল, বিবস্ত্র করে পিটিয়েছে।

দুটি কাগজেও স্বাক্ষর নিয়েছে।’’ আরিফুলকে আটক অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিন্টু বিকাশ চাকমা। তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘‘অভিযানের সময় তার কাছ থেকে আধা বোতল মদ ও দেড়শ গ্রাম গাঁজা পাওয়া গেছে। এই অপরাধ তিনি স্বীকার করায় তার এক বছরের জেল ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।`` তবে আরিফুলের স্ত্রী মোস্তারিমা এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ‘‘বাসাতে তারা কোন তল্লাশি করেনি।’’ শনিবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর সাংবাদিক মহল থেকে তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়।

বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, ‘‘আরিফুলের ওপর যদি অন্যায় হয়ে থাকে, তবে অবশ্যই জেলা প্রশাসককে প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে। কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। মধ্যরাতে মোবাইল কোর্ট ও সাজা কোনও কিছুই আইনসম্মত নয়।’’ এরপরই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে রংপুরের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনারকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। শনিবারই কমিটির সদস্যরা আরিফুলের স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন।

 
আইসিটি মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেফতার
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি:
কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনের সংসদ সদস্যকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর ও মানহানিকর তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে জেলা আওয়ামী লীগের নেতাসহ ৩ জনের নামে মামলা হয়েছে। গতকাল বুধবার (৪ মার্চ) রাতে কুমারখালী থানায় সাংসদ সেলিম আলতাফ জর্জের সমর্থক জহিরুল ইসলাম বাদী হয়ে এ মামলা করেন। মামলার আসামিরা হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য ও শহর আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত সাধারন সম্পাদক মোমিনুর রহমান মোমিজ, রবি রহমান ও শিমুল আহমেদ খান। ওই মামলায় বুধবার দিবাগত রাতেই শহরের বাসা থেকে মোমিনুর রহমন মোমিজকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মামলার বাদি জহিরুল ইসলাম বলেন, সাংসদ সেলিম আলতাফ জর্জকে নিয়ে মানহানিকর ও মিথ্যা এবং বানোয়াট তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো ও শেয়ার করার অপরাধে মামলা করেছি। কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত বলেন, কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানায় আইসিটি আইনের মামলায় মোমিজকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সাংসদের নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মানহানিকর তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে আইসিটি আইনে কুমারখালী থানায় মামলা হয়েছে।

 
পাপিয়ার নামে ৪ কোটি টাকা থাইল্যান্ডের ব্যাংকে !
                                  

অনলাইন ডেস্ক:
বাংলাদেশ ফাইন্যানসিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের তদন্তে যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া এ পর্যন্ত ৪ কোটি টাকা দেশ থেকে পাচার করার তথ্য পেয়েছে। এই ৪ কোটি টাকা থাইল্যান্ডের ক্যাশিকর্ণ ব্যাংকে পাপিয়ার নামের একাউন্টে জমা আছে। এছাড়া আরো টাকা পাচার করেছেন কি না সে বিষয়ে জোর তদন্ত চলছে। এর পাশাপাশি পাপিয়ার ব্যাংক হিসাব তলব করেছে বাংলাদেশ ফাইন্যানসিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)। তার ব্যাংকের হিসাব নথিতে কত টাকা জমা আছে এ ব্যাপারে চিঠি দিয়েছে রাষ্ট্রের তপশিলি ব্যাংকের সকল শাখায়।

অপরদিকে, পাপিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা তিন মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশে (ডিবি) স্থানান্তর করা হয়েছে। এর আগে অস্ত্র, মাদক ও জাল টাকার পৃথক তিন মামলায় পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরীসহ চার জন ১৫ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন। গত ২২ ফেব্রুয়ারি হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে সাতটি পাসপোর্ট, ২ লাখ ১২ হাজার ২৭০ টাকা, ২৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল নোট, ৩১০ ভারতীয় রুপি, ৪২০ শ্রীলঙ্কান রুপি ও সাতটি মোবাইল ফোনসহ র‌্যাব পাপিয়াকে গ্রেফতার করে।

পরে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পর দিন গুলশানের হোটেল ওয়েস্টিনের প্রেসিডেনশিয়াল স্যুট এবং ইন্দিরা রোডে পাপিয়ার দুটি অ্যাপার্টমেন্টে অভিযান চালিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, ২০ রাউন্ড গুলি, পাঁচ বোতল মদ, ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা, পাঁচটি পাসপোর্ট ও কিছু বিদেশি মুদ্রা উদ্ধার করে র‌্যাব। এসব ঘটনায় র‌্যাব পাপিয়ার বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় একটি ও শেরেবাংলা নগর থানায় দুইটি মামলা দায়ের করে।

 
ফের পিছিয়েছে গ্যাটকো মামলার শুনানি
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ অপর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানি পিছিয়েছে। আজ মঙ্গলবার মামলার অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। তবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে খালেদা জিয়া চিকিৎসাধীন থাকায় এদিন তাকে আদালতে হাজির করা হয়নি। তাই কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত ঢাকার অস্থায়ী তিন নম্বর বিশেষ জজ আবু সৈয়দ দিলজার হোসেন ৭ এ‌প্রিল শুনা‌নির জন্য নতুন দিন ঠিক করে দেন।

খা‌লেদা জিয়ার আইনজীবী জিয়া উ‌দ্দিন জিয়া জানান, গতবছর শুরুর দি‌কে এই মামলায় খালেদা জিয়ার প‌ক্ষে আং‌শিক চার্জ শুনা‌নি হয়। প‌রে তি‌নি অসুস্থ হ‌য়ে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে চি‌কিৎসাধীন থাকায় আদাল‌তের স্থান ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থে‌কে কেরানীগ‌ঞ্জে স্থানান্তর করা হয়। ত‌বে নতুন এই আদাল‌তে তা‌কে এখ‌নেও হা‌জির করা হয়নি।

২০০৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর রাজধানীর তেজগাঁও থানায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে গ্যাটকো মামলাটি করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মামলার বাদী দুদকের উপ-পরিচালক গোলাম শাহরিয়ার চৌধুরী। মামলার অভিযোগে বলা হয়, ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির মাধ্যমে চট্টগ্রাম বন্দরের কনটেইনার হ্যান্ডলিংয়ের কাজ গ্লোবাল অ্যাগ্রো ট্রেড কোম্পানিকে (গ্যাটকো) পাইয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রের প্রায় এক হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে। ২০০৮ সালের ১৩ মে তদন্ত শেষে দুদকের উপপরিচালক জহিরুল হুদা খালেদা জিয়াসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। তাদের মধ্যে সাত আসামি মারা গেছেন। তারা হলেন সাবেক মন্ত্রী এম সাইফুর রহমান, আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া, এম কে আনোয়ার, এম শামছুল ইসলাম, জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির মতিউর রহমান নিজামী, চট্টগ্রাম বন্দরের প্রধান অর্থ ও হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আহমেদ আবুল কাশেম ও বিএনপি চেয়ারপারসনের ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন বিএনপির সাবেকমন্ত্রী ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের (চবক) সাবেক চেয়ারম্যান কমোডর জুলফিকার আলী, প্রয়াত মন্ত্রী কর্নেল (অব.) আকবর হোসেনের স্ত্রী জাহানারা আকবর, দুই ছেলে ইসমাইল হোসেন সায়মন এবং এ কে এম মুসা কাজল, এহসান ইউসুফ, সাবেক নৌ সচিব জুলফিকার হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের (চবক) সাবেক সদস্য এ কে রশিদ উদ্দিন আহমেদ, গ্লোবাল অ্যাগ্রো ট্রেড প্রাইভেট লিমিটেডের (গ্যাটকো) পরিচালক শাহজাহান এম হাসিব, গ্যাটকোর পরিচালক সৈয়দ তানভীর আহমেদ ও সৈয়দ গালিব আহমেদ, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সাবেক চেয়ারম্যান এ এস এম শাহাদত হোসেন, বন্দরের সাবেক পরিচালক (পরিবহন) এ এম সানোয়ার হোসেন ও বন্দরের সাবেক সদস্য লুৎফুল কবীর। দুই মামলায় দণ্ডিত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি খালেদা জিয়া।

প‌রে সেখা‌নে অসুস্থতা বে‌ড়ে যাওয়ায় গতবছর তা‌কে চি‌কিৎসার জন্য বিএসএমএমইউ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেই থে‌কে তি‌নি ওখা‌নেই চিকিৎসাধীন।

 
কলেজ জীবনেও ছাত্রী হোস্টেলেও গড়েছিলেন পাপিয়ার ‘পাপের আস্তানা’
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:
বর্তমানে চালঞ্চ্যকর তথ্য মানেই শামীমা নূর পাপিয়া। সম্প্রতি বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় নরসিংদী যুব মহিলা লীগের সদ্য বহিষ্কৃত এই নেত্রী। তিনি ছিলেন জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক। গ্রেফতারের পর থেকে বর্তমানে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে পাপিয়ার। আর জিজ্ঞাসাবাদে প্রতিদিনিই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ পাচ্ছে।

এদিকে, জিজ্ঞাসাবাদের বাইরেও পাপিয়া সম্পর্কে বেরিয়ে আসছে তার কর্মকাণ্ডের নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা গেছে, নরসিংদী সরকারি কলেজে লেখাপড়া করার সময় সেখানকার ছাত্রী হোস্টেলেও ‘পাপের আস্তানা’ গড়ে তুলেছিলেন এই পাপিয়া। স্থানীয় সূত্র জানায়, ২০০৬ সালের দিকে নরসিংদী সরকারি কলেজে প্রথম ছাত্রী হোস্টেল উদ্বোধন হয়। ওই সময় হোস্টেলের একটি কক্ষে নিজেদের আস্তানা বানিয়েছিলেন পাপিয়া। সেখানে অনেক বহিরাগত ছাত্রীর যাতায়াত ছিল। কোনও কোনও ছাত্রীকে প্রলোভন ও চাপ দিয়ে ওই সময় খারাপ পথে নিয়েছিলেন পাপিয়া।

তখনও স্থানীয় অনেকে পাপিয়ার এসব কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে অবগত ছিলেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সূত্র জানায়, নরসিংদী সরকারি কলেজেই সুমনের সঙ্গে পরিচয় হয় পাপিয়ার। পরিচয় হওয়ার পর তারা ঘনিষ্ঠ হতে থাকেন। বন্ধু থেকে একপর্যায়ে মতি সুমনের প্রেমিকা হন পাপিয়া। পরে তারা বিয়েও করেন। সুমনের হাত ধরে রঙিন দুনিয়ার সঙ্গে পরিচয় শুরু হয় পাপিয়ার। কলেজের সাধারণ ছাত্রী হয়েও সুমনের মাধ্যমে প্রথমে নরসিংদীর স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে পরিচয় হয় তার।

বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে স্থানীয় অনেক রাজনৈতিক নেতা পাপিয়াকে তাদের কাজে ব্যবহার করতে শুরু করেন। সেখান থেকেই শুরু হয় পাপিয়ার বেপরোয়া জীবন। তবে সুমনের হাত ধরে পাপিয়ার উত্থান হলেও একপর্যায়ে প্রভাব-প্রতিপত্তি আর ক্ষমতায় স্বামীকেও ছাড়িয়ে যান পাপিয়া।

 
সাধারণ সম্পাদক পদ পেতে তিন কোটি টাকা খরচ করেছিলেন পাপিয়া
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:
শামীমা নূর পাপিয়া, এখন দেশব্যাপী আলোচিত মুখ। ছিলেন নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক। কিন্তু বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে সম্প্রতি তাকে যুব মহিলা লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়। বর্তমানে তিন মামলায় ১৫ দিনের রিমান্ডে রয়েছেন আলোচিত এই নারী। সদ্য বহিষ্কৃত যুব মহিলা লীগের নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাওয়ার চেষ্টা চালিয়েছিলেন। এ জন্য তিনি খরচ করেছিলেন ১০ কোটি টাকা।

আর তিন কোটি টাকা খরচ করেছিলেন নরসিংদী যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক পদ পেতে। রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ও তার স্বামী এ তথ্য জানিয়েছেন বলে তদন্তকারী সূত্রের বরাতে গণমাধ্যমে উঠে এসেছে এ খবর। সূত্র জানিয়েছে, ডিবিতে জিজ্ঞাসাবাদে পাপিয়া ও তার স্বামী সুমন চৌধুরী অনেক তথ্য দিচ্ছেন। তাদের কখনও আলাদাভাবে, কখনও দুজনকে মুখোমুখি করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। রিমান্ডে তাদের দুই সহযোগী সাব্বির ও তায়্যিবাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাচ্ছে।

পাপিয়া ও সুমন চৌধুরীর অপরাধ জগত সম্পর্কে তায়্যিবা ডিবিকে জানিয়েছেন, অনেক সময় চাহিদামতো থাইল্যান্ড, নেপাল, ভারত, ভুটান ও রাশিয়া থেকে মেয়েদের নিয়ে আসা হতো। পার্বত্য অঞ্চল থেকেও পাহাড়ি মেয়েদের নিয়ে আসতেন পাপিয়া। এদিকে, পাপিয়ার অনৈতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় চলার মধ্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের শনিবার বলেছেন, ‘পাপিয়ার পেছনে যাঁরা আছেন, তারাও নজরদারিতে রয়েছেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘শুধু পাপিয়া নয়, অপকর্ম, সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদকের সঙ্গে যারাই জড়িত, তাঁরা নজরদারিতে আছেন।

টার্গেট পূরণ না হওয়া পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে।’ এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ‘যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেতা শামিমা নূর পাপিয়ার অনৈতিক কর্মকাণ্ডে দল বিব্রত। শুধু পাপিয়া নয়, দুষ্কৃতকারীদের গডফাদারদেরও আইনের আওতায় আনা হবে। কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।’

 
আপিলেও আদেশ বহাল ২০ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের অর্থ পাচারের ঘটনায় এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব ও পাসপোর্ট জব্দের হাইকোর্টের আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। আজ বুধবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের আবেদন খারিজ করে আদেশ দেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার তানজিব উল আলম।

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আহসানুল করিম। এর আগে দুই বিনিয়োগকারীর করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চ ১৯ জানুয়ারি আদেশ দেন। আদেশে একই সঙ্গে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেড পরিচালনার জন্য স্বাধীন পরিচালক ও চেয়ারম্যান হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গর্ভনর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদকে নিয়োগ দেন হাইকোর্ট।

এরপর ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেড হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করে। এরপর গত ১৬ ফেব্রুয়ারি ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেডের আর্থিক অবস্থার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে কোম্পানিটির স্বাধীন চেয়ারম্যান (হাইকোর্টের নির্দেশে নিয়োগপ্রাপ্ত) খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালকের নিচে নয় এমন একজন কর্মকর্তাকে ডেকেছিলেন আপিল বিভাগ। সে অনুযায়ী তারা দুইজন মঙ্গলবার আপিল বিভাগে উপস্থিত হয়ে মতামত দেন। এরপর আদালত আদেশের জন্য বুধবার দিন রাখেন।

সে অনুসারে বুধবার ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেডের আবেদন খারিজ করে দেন। হাইকোর্ট পিকে হালদার ছাড়াও যাদের ব্যাংক হিসাব ও পাসপোর্ট জব্দের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তারা হলেন- কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম নুরুল আলম, পরিচালক জহিরুল আলম, এমএ হাশেম, নাসিম আনোয়ার, বাসুদেব ব্যানার্জী, পাপিয়া ব্যানার্জী, মোমতাজ বেগম, নওশেরুল ইসলাম, আনোয়ারুল কবির, প্রকৌশলী নরুজ্জামান, আবুল হাশেম, মো. রাশেদুল হক, পি কে হালদারের মা লীলাবতী হালদার, স্ত্রী সুস্মিতা সাহা, ভাই প্রিতুষ কুমার হালদার, চাচাতো ভাই অমিতাভ অধিকারী, অভিজিৎ অধিকারী, ব্যাংক এশিয়ার সাবেক পরিচালক ইরফান উদ্দিন আহমেদ, পিকে হালদারের বন্ধু উজ্জ্বল কুমার নন্দী।

প্রশান্ত কুমার হালদার বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বে থেকে অন্তত সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা লোপাট করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

 
ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেফতার এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়া
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:
ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেফতার গেণ্ডারিয়া আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়ার আরেক বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে র‍্যাব-৩। গতকাল মধ্যরাতে রাজধানীর ওয়ারীর লাল মোহন সাহা স্ট্রিটের ছয়তলা বাড়ির নিচতলায় র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলমের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় সিন্দুক থেকে বিপুল পরিমাণ নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও ক্যাসিনো সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব জানায়, ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেফতার গেণ্ডারিয়া আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়ার একাধিক বাড়ির বিষয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে এই বাড়ির সন্ধান পায় র‍্যাব। পুরান ঢাকার ওয়ারীর লাল মোহন সাহা স্ট্রিটের ছয়তলা এই বাড়ির নিচতলার বাসায় কেউ থাকতো না।

বেশ সুরক্ষিত অবস্থায় সবকিছু রাখা ছিল এখানে। অভিযানের বিষয়ে আরও জানা যায়, এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়ার এই বাড়ি থেকে টাকা ভর্তি পাঁচটি সিন্ধুক, পাঁচ কোটি টাকার এফডিআর বিপুল পরিমাণ স্বর্ণালংকার ও ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের সিল লাগানো বেশ কিছু ক্যাসিনো সরঞ্জাম পাওয়া গেছে। সিন্দুকে পাওয়া নগদ টাকার হিসেবে পেতে টাকা গোনার মেশিন আনা হয়েছে। তবে প্রাথমিকভাবে সেখানে ২০ থেকে ২৫ কোটি টাকা থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন র‍্যাব কর্মকর্তারা। এনু-রুপনের বাড়িতে র‍্যাবের অভিযান, সিন্দুকভর্তি টাকা-স্বর্ণালংকার উদ্ধার

উল্লেখ্য, গেণ্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি এনামুল হক এনু ছিলেন ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের পরিচালক। তার ভাই রুপন ভূঁইয়া ছিলেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। ২০১৯ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার কয়েকটি ক্লাবে অভিযান চালিয়ে জুয়ার সরঞ্জাম, কয়েক লাখ টাকা ও মদ উদ্ধার করে র‌্যাব। এর মধ্যে ওয়ান্ডারার্স ক্লাব একটি। পরে গত বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর পুরান ঢাকায় এনু-রুপন এবং তাদের দুই সহযোগীর বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। সে সময় তাদের বাসা থেকে পাঁচ কোটি ৫ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া আট কেজি স্বর্ণ ও ৬টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

সিন্দুকে পাওয়া এই টাকার উৎস ছিল ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের ক্যাসিনো। এনু-রুপনের বাড়িতে র‍্যাবের অভিযান, সিন্দুকভর্তি টাকা-স্বর্ণালংকার উদ্ধার বেশ কিছুদিন পলাতক থাকার পর চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যায় একটি ভবন থেকে এক সহযোগীসহ গ্রেপ্তার হন এনু-রুপন দুই ভাই। তাদের গ্রেফতারের পর সিআইডি জানায়, এনামুল হক এবং রুপন ভূঁইয়ার নামে ঢাকায় ২২টি বাড়ি ও জমি রয়েছে। এছাড়া তাদের ব্যবহার করা পাঁচটি গাড়ির সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। বিভিন্ন ব্যাংকে তাদের নামে ৯১টি একাউন্ট রয়েছে। এসব একাউন্টে ১৯ কোটি ১১ লাখ টাকা রয়েছে। ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানের পর থেকে তাদের এসব ব্যাংক একাউন্ট অবরুদ্ধ (ফ্রিজ) করে রাখা হয়েছে। ঘটনার পর তাদের বিরুদ্ধে অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসা, জুয়া পরিচালনা, অর্থপাচার, মানি লন্ডারিংয়ের দায়ে মোট সাতটি মামলা দায়ের করা হয়, যার মধ্যে অবৈধ ক্যাসিনো ও জুয়া পরিচালনা ও অর্থ-পাচারের অভিযোগে চারটি মামলার তদন্ত করছে সিআইডি।

 
শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজে দুর্নীতির অভিযোগ, ৮ জনকে দুদকে তলব
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক:

হবিগঞ্জের শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের মেডিকেল সরঞ্জাম ক্রয়ে সাড়ে ১৫ কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. আবু সুফিয়ানসহ আটজনকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের নির্দেশনায় রবিবার টেন্ডার কমিটির বাজার দর যাচাই টিমের সদস্য ডা. জাহাঙ্গীর, ডা. শাহীন ভূঁইয়া, ডা. প্রাণকৃষ্ণ ও ডা. পংকজ কান্তি গোস্বামীকে এবং পরদিন সোমবার টেন্ডার কমিটির প্রধান ডা. আবু সুফিয়ান, সদস্য সচিব ও হবিগঞ্জ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক ডা. নাসিমা খানম ইভা, সদস্য ডা. হালিমা ও ডা. কদ্দুছকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানানো হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে দুদক প্রধান কার্যালয়ের সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। ১০৬ হটলাইনে শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজে দুর্নীতির ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়ার পর প্রধান কার্যালয়ের নির্দেশে গত ৩ ডিসেম্বর প্রাথমিক তদন্তে নামে দুদক হবিগঞ্জ জেলা কার্যালয়।

এরপর দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক শামসুল আলমকে প্রধান করে এর তদন্ত টিম গঠন করা হয়। ওই তদন্ত টিমের প্রধান চিঠির মাধ্যমে টেন্ডার কমিটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আটজনকে তলব করেছেন। অভিযোগে প্রকাশ, ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে বরাদ্দের বিপরীতে ১৩ কোটি ৮৭ লাখ ৮১ হাজার টাকার মালামাল ক্রয় বাবদ ব্যয় দেখানো হয়। কিন্তু বাস্তবে ওই মালামালের মূল্য পাঁচ কোটি টাকার বেশি নয়।

সরবরাহ করা মালামালের মধ্যে ৬৭টি লেনেভো ল্যাপটপের (মডেল ১১০ কোর আই ফাইভ) প্রতিটির মূল্য দেখানো হয় এক লাখ ৪৮ হাজার ৫০০ টাকা। তবে একই মডেলের ল্যাপটপ বাজারে বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৪২ হাজার টাকায়। অন্যান্য প্রায় প্রতিটি মালামাল অতিরিক্ত মূল্যে দেয় সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান নির্ঝরা এন্টারপ্রাইজ এবং পুনম ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল।

 
ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস করে প্রতারণার চেষ্টা
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি:
জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলায় এসএসসি পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসকারী চক্রের এক সদস্যকে আটক করেছেন জয়পুরহাট র‌্যাব- ৫ ক্যাম্পের সদস্যরা। তার নাম মোস্তাফিজুর রহমান। অসত্য তথ্য দিয়ে দুটি ফেসবুক ফেক আইডিতে মেসেঞ্জারে টাকার বিনিময়ে পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র দেয়ার কথা বলে প্রচারণা চালাচ্ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান বলে জানায় র‌্যাব।

বুধবার রাতে উপজেলার পৌর শহরের পাঁচমাথা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক মোস্তাফিজুর রহমান উপজেলার দমদমা গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে। জয়পুরহাট র‌্যাব- ৫ ক্যাম্প কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম মোহাইমেনুর রহমান বলেন, ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের সক্রিয় সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মোবাইল প্রযুক্তি ব্যবহারে অত্যন্ত দক্ষ। অসত্য তথ্য দিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান ও মিষ্টি আক্তার নামে দুটি ফেসবুক ফেক আইডি খোলেন তিনি।

এই ফেসবুক আইডি ও মেসেঞ্জারের মাধ্যমে বিভিন্ন পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র তৈরি করে টাকার বিনিময়ে দেয়ার কথা বলা হয়। কয়েকটি ফেসবুক গ্রুপে প্রচারণা চালান ওই যুবক। তিনি আরও বলেন, অনেকেই তার মাধ্যমে প্রতারিত হয়, এ কারণে তাকে আটক করা হয়েছে।

 
ঢাকার নবনির্বাচিত কাউন্সিলর সাখাওয়াত গ্রেফতার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জয়ী ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাখাওয়াত হোসেন শওকতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশের বিশেষ শাখা-এসবির এক পরিদর্শককে মারধরের অভিযোগে সোমবার রাতে রামপুরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওই পুলিশ পরিদর্শক বাদী হয়ে খিলগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

পুলিশের খিলগাঁও জোনের সহকারী কমিশনার জুলফিকার আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, শওকতকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
কাউন্সিলর শওকত আওয়ামী লীগের সমর্থনে ভোট করে নির্বাচিত হন। তিনি ২৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।


   Page 1 of 24
     অপরাধ ও অনিয়ম
প্রক্রিয়া শেষে দ্রুত মুক্তি খালেদা জিয়ার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
করোনা নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোয় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক আটক
.............................................................................................
গত ২৫ দিনে রাজধানীতে গামছা পার্টি কেড়ে নিল চারজনের প্রাণ
.............................................................................................
মাদকদ্রব্য আত্মসাত; শার্শা থানার ওসিসহ ৫ পুলিশ ক্লোজড
.............................................................................................
ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণ: মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট
.............................................................................................
বিবস্ত্র করে সাংবাদিক রিগ্যানকে পেটানো হয়
.............................................................................................
আইসিটি মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেফতার
.............................................................................................
পাপিয়ার নামে ৪ কোটি টাকা থাইল্যান্ডের ব্যাংকে !
.............................................................................................
ফের পিছিয়েছে গ্যাটকো মামলার শুনানি
.............................................................................................
কলেজ জীবনেও ছাত্রী হোস্টেলেও গড়েছিলেন পাপিয়ার ‘পাপের আস্তানা’
.............................................................................................
সাধারণ সম্পাদক পদ পেতে তিন কোটি টাকা খরচ করেছিলেন পাপিয়া
.............................................................................................
আপিলেও আদেশ বহাল ২০ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দের
.............................................................................................
ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেফতার এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়া
.............................................................................................
শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজে দুর্নীতির অভিযোগ, ৮ জনকে দুদকে তলব
.............................................................................................
ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস করে প্রতারণার চেষ্টা
.............................................................................................
ঢাকার নবনির্বাচিত কাউন্সিলর সাখাওয়াত গ্রেফতার
.............................................................................................
১০ মাসে কিশোর গ্যাংয়ের হাতে ৮ খুন
.............................................................................................
ফেনী বিপুল পরিমান অস্ত্রসহ আন্ত জেলার ডাকাত দলের ২ সদস্য আটক
.............................................................................................
বাসায় ডেকে নিয়ে চারজন মিলে গৃহকর্মীকে ধর্ষণ: গ্রেফতার ২
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩
.............................................................................................
দুই মেয়ের সামনে বাবাকে উলঙ্গ করে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
আড়াইহাজারে পুলিশের সঙ্গে `বন্দুকযুদ্ধে` ডাকাত নিহত
.............................................................................................
মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ধানক্ষেত থেকে নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে চিকিৎসক শাহ আলম হত্যার হোতা `বন্দুকযুদ্ধে` নিহত
.............................................................................................
গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
ময়মনসিংহের সেই লাগেজে মিলল মাথাবিহীন মরদেহ
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক কারবারি নিহত
.............................................................................................
সুন্দরবনে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ বনদস্যু নিহত
.............................................................................................
সোনাইমুড়ীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২
.............................................................................................
পূজা দেখতে আসা পাঁচ তরুণীর শ্লীলতাহানি : দুই যুবকের কারাদণ্ড
.............................................................................................
ফতুল্লায় ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা
.............................................................................................
বেনাপোলে বাড়িতে এনে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
কদমতলীতে ১০ হাজার ইয়াবাসহ আটক ৪
.............................................................................................
সেন্টমার্টিনে হোটেলে ডেকে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
সিদ্ধিরগঞ্জে কোটি টাকার নকল প্রসাধনী সামগ্রী জব্দ
.............................................................................................
পরকীয়ার জেরে স্ত্রী ও শাশুড়িকে হত্যা
.............................................................................................
চাকরির আশ্বাসে ডেকে এনে গণধর্ষণ, রিহ্যাবের দুই পরিচালক গ্রেফতার
.............................................................................................
টেকনাফে `বন্দুকযুদ্ধে` ২ রোহিঙ্গা নিহত
.............................................................................................
গাজীপুরে গুলি করে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১৬ লাখ টাকা ছিনতাই
.............................................................................................
সোনাগাজীতে ৬ বছরের শিশু ধর্ষণের অভিযোগ
.............................................................................................
সৌদি যাওয়া হয়নি গৃহবধূর, প্রতিদিন ধর্ষণ করতো চারজন
.............................................................................................
ভোলায় ভুয়া ডাক্তা‌রের ৬ মাসের ক‌ারাদণ্ড
.............................................................................................
উখিয়ায় নিজ ঘরে প্রবাসীর স্ত্রী-দুই সন্তান ও মায়ের গলাকাটা মরদেহ
.............................................................................................
চুরি যাওয়া ল্যাপটপ দিয়েই রোহিঙ্গাদের জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরি
.............................................................................................
৫ম শ্রেণির ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, প্রধান শিক্ষক ধরা
.............................................................................................
দশম শ্রেণির ছাত্রীকে অচেতন করে ধর্ষণ, মোবাইলে ছবি ধারণ
.............................................................................................
ফতুল্লায় তিন জঙ্গি আটক
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা স্বামী-স্ত্রী নিহত
.............................................................................................
একা পেয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD