| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ঈদে রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু ২৯ জুলাই   * সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত ২   * ছেলেধরা ও গণপিটুনি বিষয়ে পুলিশের সব ইউনিটকে নির্দেশনা   * উত্তরাঞ্চলে পানি কিছুটা কমলেও নদীগুলোর পানি এখনও বিপদসীমার ওপর   * সৌদি পৌঁছেছেন ৭৫ হাজার ৫৯০ হজযাত্রী   * হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ থেকে প্রিয়া সাহা বহিষ্কার   * দুদক পরিচালক এনামুল বাছির গ্রেফতার   * চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ৮ বাড়িতে বন্য হাতির তাণ্ডব   * আদালতে মিন্নির দু`টি আবেদন নামঞ্জুর   * পেশায় ইমাম, জিন তাড়ানোর নামে করতেন নারী-শিশু ধর্ষণ  

   সারা দেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ফের জামিন আবেদন মিন্নির

অনলাইন ডেস্ক : বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন চেয়ে ফের আবেদন করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে জামিন আবেদন করেন মিন্নির আইনজীবী ও জেলা বারের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম।

বিষয়টি নিশ্চিত করে অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম জানান, মিন্নির জামিন চেয়ে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আবেদন করা হয়েছে। মিন্নির জামিন শুনানি আদালতের কার্যতালিকায় রয়েছে।

এর আগে গত সোমবার আদালতে দেয়া মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রত্যাহার ও তার চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তির আবেদন নামঞ্জুর করেন বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত বিচারক মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী।

গত ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে স্ত্রী মিন্নির সামনেই সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে স্বামী রিফাত শরীফকে। গুরুতর আহত রিফাতকে ওই দিন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচ-ছয় জনকে অজ্ঞাত আসামি করে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

গত ১৬ জুলাই (মঙ্গলবার) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনার মাইঠা এলাকার বাবার বাসা থেকে বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরসহ মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তার বক্তব্য রেকর্ড করতে বরগুনা পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যায় পুলিশ। এরপর দীর্ঘ ১০ ঘণ্টার জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় মিন্নিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর বুধবার বিকেল ৩টার দিকে বরগুনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মিন্নিকে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে মিন্নির পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী।

পরদিন বৃহস্পতিবার বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন জানান, মঙ্গলবার দিনভর জিজ্ঞাসাবাদ ও বুধবার রিমান্ড মঞ্জুরের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মিন্নি তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। এ হত্যার পরিকল্পনার সঙ্গেও তিনি যুক্ত ছিলেন।

এরপর শুক্রবার বিকেলে মিন্নি একই আদালতে তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত মিন্নিসহ ১৫ জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদের সবাই রিফাত হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

ফের জামিন আবেদন মিন্নির
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন চেয়ে ফের আবেদন করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে জামিন আবেদন করেন মিন্নির আইনজীবী ও জেলা বারের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম।

বিষয়টি নিশ্চিত করে অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম জানান, মিন্নির জামিন চেয়ে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আবেদন করা হয়েছে। মিন্নির জামিন শুনানি আদালতের কার্যতালিকায় রয়েছে।

এর আগে গত সোমবার আদালতে দেয়া মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রত্যাহার ও তার চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তির আবেদন নামঞ্জুর করেন বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত বিচারক মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী।

গত ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে স্ত্রী মিন্নির সামনেই সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে স্বামী রিফাত শরীফকে। গুরুতর আহত রিফাতকে ওই দিন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচ-ছয় জনকে অজ্ঞাত আসামি করে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

গত ১৬ জুলাই (মঙ্গলবার) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনার মাইঠা এলাকার বাবার বাসা থেকে বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরসহ মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তার বক্তব্য রেকর্ড করতে বরগুনা পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যায় পুলিশ। এরপর দীর্ঘ ১০ ঘণ্টার জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় মিন্নিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর বুধবার বিকেল ৩টার দিকে বরগুনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মিন্নিকে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে মিন্নির পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী।

পরদিন বৃহস্পতিবার বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন জানান, মঙ্গলবার দিনভর জিজ্ঞাসাবাদ ও বুধবার রিমান্ড মঞ্জুরের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মিন্নি তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। এ হত্যার পরিকল্পনার সঙ্গেও তিনি যুক্ত ছিলেন।

এরপর শুক্রবার বিকেলে মিন্নি একই আদালতে তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত মিন্নিসহ ১৫ জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদের সবাই রিফাত হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

উত্তরাঞ্চলে পানি কিছুটা কমলেও নদীগুলোর পানি এখনও বিপদসীমার ওপর
                                  

অনলাইন ডেস্ক : উত্তরাঞ্চলে বন্যার পানি কিছুটা কমলেও প্রধান নদীগুলোর পানি এখনও বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। দুর্গত এলাকার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন পানিবাহী নানা রোগে। খাবার সংকটে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটছে তাদের।

জামালপুরে ৬২টি ইউনিয়নের বিভিন্নস্থানে পানিবন্দী রয়েছেন অনেক মানুষ। ঘর-বাড়ি থেকে পানি না নামায় বাড়ি ফিরতে পারছেন না তারা।
বন্যায় জেলার ২৫ হাজার ৯শ’ হেক্টর ফসলী জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। বন্ধ আছে জামালপুর-শেরপুর সড়ক যোগাযোগ।

চারটি উপজেলায় ট্রেন চলাচলও বন্ধ আছে। বন্ধ রয়েছে ১১শ’ ২০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। গাইবান্ধা সদর, ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার পানি কমতে শুরু করেছে।

তবে করতোয়া ও বাঙালি নদীতে পানি বাড়তে থাকায়, বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে, গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভাসহ ৮ ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল।

এরই মধ্যে পানিবন্দী রয়েছে ৫ লাখের বেশি মানুষ। গেল তিনদিনে কুড়িগ্রামের বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও আবার পানি বাড়তে শুরু করেছে ধরলা ও দুধকুমার নদীর পানি।

পুলিশের পৃথক পৃথক অভিযানে ২০০০ পিস ইয়াবাসহ আটক -২
                                  

আবু সায়েমঃ কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের পৃথক অভিযানে ২০০০ পিস ইয়াবাসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলেন, কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলার ১নং ওয়ার্ডের রহমত উল্লাহর মেয়ে আয়েশা বেগম (২৭) এবং কক্সবাজারের কলাতলীর সৈয়দ উল্লাহর পুত্র ইসমাইল (২৬) ।পুলিশ সূত্রে জানায়, কক্সবাজার সদর মডেল থানার এসআই সুজন চন্দ্র মজুমদারের নেতৃত্বে এএসআই আবুল কাশেম এবং এএসআই বাবলু দে এর সহায়তায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সকাল ৭ঃ৪৫ মিনিটের সময় শহরের পৌরসভাস্থ লালদীঘির পাড়ে মারছা পরিবহন বাস থেকে ১৫০০ পিস ইয়াবাসহ আয়েশা বেগম (২৭) কে আটক করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া এসআই সুজন চন্দ্র মজুমদার বলেন,অপরদিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একই দিন ১১ঃ০৫ মিনিটের সময় ৫০০ পিস ইয়াবাসহ ইসমাইল (২৬) কে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা দীর্ঘদিন যাবত মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

এ ব্যপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফরিদ উদ্দীন খন্দকার (পিপিএমবার) বলেন, আটককৃত মাদক কারবরীদের বিরুদ্ধে পৃথক পৃথকভাবে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ধৃত আসামীদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, সদর মডেল থানায় এসআই সুজন চন্দ্র মজুমদার যোগদানের করার পর থেকে মাদক নির্মূল, এবং অস্ত্র উদ্ধারে ব্যাপক ভূমিকা পালন করছেন। তার সফল কার্যক্রমের জন্য তিনি অনেকবার পুর¯কারে ভূষিত হয়েছেন। তারঁ সফলতার ধারা অব্যাহত রয়েছে।

পদ্মায় পানি কমলেও কমেনি দুর্ভোগ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : পর পর কয়েক দিন রাজবাড়ীতে পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধির পর গত দুইদিন ধরে কমতে শুরু করেছে। তবে এখনও গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ও পাংশার সেনগ্রাম গেজ স্টেশন পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সকালে জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

পাউবো কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া গেজ স্টেশন পয়েন্টে পদ্মার পানি ২০ সেন্টিমিটার কমে ৩৯ সেন্টিমিটার এবং পাংশার সেনগ্রাম পয়েন্টে ১৫ সেন্টিমিটার কমে ৪১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এছাড়া রাজবাড়ী সদর উপজেলার মহেন্দ্রপুর গেজ স্টেশন পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপৎসীমার ১ দশমিক ২৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিকে পানি কমতে শুরু করায় স্বস্তি দেখা দিয়েছে বন্যাদুর্গতদের মাঝে। তবে দুর্ভোগ কমেনি তাদের।

গত কয়েক দিনে পদ্মায় অব্যাহত পানি বৃদ্ধির কারণে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের বাইরে থাকা নিম্নাঞ্চলের প্রায় ২০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। তলিয়ে গেছে বিস্তীর্ণ এলাকার ফসলি জমি ও রাস্তা-ঘাট। এতে করে রান্না, থাকা-খাওয়া ও চলাফেরায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের। পাশাপাশি খাবার, বিশুদ্ধ পানি ও গবাদি পশুর খাবারের সংকট দেখা দিয়েছে বন্যাকবলিত এলাকায়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে পদ্মায় পানি বৃদ্ধির কারণে রাজবাড়ীর তিন উপজেলার ৬ ইউনিয়নের প্রায় ২০ থেকে ২৫ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। জেলা প্রশাসন তাদের তালিকা তৈরি করে শুকনো খাবারসহ অন্যান্য সহযোগিতা দিচ্ছে।

মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় বাদী নিজেই শ্রীঘরে
                                  

আবু সায়েম : জায়গা জমিনের বিরোধের জের ধরে নিজের মামা ভাগ্নিকে ধর্ষণ করে মামিকে কথিত মা সাজিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে মামা মামির ঠিকানা হলো কারাগারে। কক্সবাজার সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদের বিচক্ষণতায় প্রকৃত সত্য ঘটনা উদ্ভাবন সম্ভব হয়। পৃথিবীতে এ রকম নিকৃষ্ঠ ঘটনা সত্যিই নিন্দনীয়।

প্রতিপক্ষ মৌলভী ফরিদের সাথে মিথ্যা ধর্ষণ মামলার বাদী নূরন্নবী ও তার স্ত্রী আমেনা খাতুনের জায়গা জমির বিরোধ রয়েছে দীর্ঘদিন যাবত। উভয় পক্ষের বিবিধ মামলা বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন। বাদী এবং বিবাদী তাদের উভয় বাড়ী পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মুহুরী পাড়া গ্রামের। প্রতিপক্ষ মৌলভী ফরিদকে কোনঠাসা করতে না পেরে নিজের ভাগ্নী ও তার পরিবারকে প্রলোভন দেখিয়ে মামা নিজেই ধর্ষণ করে ষড়যন্ত্রের জাল বুনে। তারই অংশ হিসেবে মগনামা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার বর্তমানে শহরতলীর জেল গেইট এলাকার বাসিন্দা আলমগীরের কুপরামর্শে তার বাসায় সুইটি আকতার (১৪ কে নিজের মামা ধর্ষণ করে প্রতিপক্ষ মৌলভী ফরিদের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।যার মামলা নং ৭।

কিন্ত মামলাটি তদন্ত করতে গিয়ে প্রকৃত ঘটনা প্রকাশ পায়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কক্সবাজার সদর মডেল থানার উপ- পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ বলেন.,বিগত ১৯ দিন আগে ভিকটিম সুইটির মা বাবা পরিচয় দিয়ে মৌলভী ফরিদকে আসামী করে নারী নিযার্তন মামলা করা হয়। পরবর্তীতে তদন্ত করতে গিয়ে সুইটি ও তার মা লতিফা বেগমের স্বীকারুক্তিমূলক জবানবন্দিতে প্রকৃত সত্য ঘটনা প্রকাশ পায়। মূলত বাদী নূরন্নবীর সাথে প্রতিপক্ষ মৌলভী ফরিদের জায়গা জমির বিরোধ রয়েছে দীর্ঘদিন যাবত। উভয় পক্ষের মামলা আদালতে বিচারাধীন। কোনভাবেই প্রতিপক্ষ কে দুর্বল করতে না পেরে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে তারা নিজেরাই ফেসেঁ গেলো । সত্যি মুক্তি দেয়, আর মিথ্যা ধ্বংস করে ।তদন্তকারী কর্মকর্তার চৌকস কাযার্বলির মাধ্যমে এ প্রবাদ বাক্য সত্যিতে রুপান্তরিত হলো। নিজের ভাগ্নিকে দিয়ে মামা মামি এ ধরণের অনৈতিক কাজ করায় পুরো জেলায় চাঞ্জল্যের সৃষ্টি হয়েছে। আরেকটা বিষয় সত্যিই ঘৃণিত এবং নিন্দনীয় ! প্রতিপক্ষকে দুর্বল করার জন্য নিজের ভাগ্নিকে ধর্ষণ করা, মূলত মানুষের হিতাহিত জ্ঞান ও বিবেক হারিয়ে ফেললে এ ধরণের জঘন্য ও ঘৃণ্যতম কাজ করতে পারে। পুলিশের মানবিক ও দায়িত্ববোধের ফলে একজন মানুষ মিথ্যা মামলা থেকে রেহাই ফেলো। আমরা শুধু পুলিশের খারাপ কিছুই নিয়ে পড়ে থাকি। আসলে পুলিশ যে মানুষের ভালোবাসার স্থান,নিরাপত্তার প্রহরী ও বিশ্বাসের

অনন্য উদাহরণ তাঁর প্রমাণ তদন্তকারী কর্মকতার্ আবুল কালাম আজাদ। তিনি পুলিশ বিভাগের উজ্জ্বল নক্ষত্র। সত্য ঘটনা উদ্ভাবন করায় পুরো জেলায় তিনি প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ফরিদ উদ্দীন খন্দকার (পিপিএমবার)বলেন, বিষয়টি খুবই জটিল!!তদন্তকারী কর্মকর্তার তদন্তের প্রেক্ষিতে, ভিকটিম সুইটি ও তার প্রকৃত মায়ের জবানবন্দিতে মামা নূরন্নবী , মামী আমেনা খাতুন , এবং জনৈক মেম্বার আলমগীরসহ ৩জনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নিযার্তন দমন আইনে মামলা করা হয়েছে। যার মামলা নং ৬১, এবং তাদের মধ্যে মামা ও মামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এবং মামলার অন্য আসামী জনৈক মেম্বার আলমগীরকে ধরতে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ৮ বাড়িতে বন্য হাতির তাণ্ডব
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রামের আনোয়ারায় বন্য হাতির তাণ্ডবে আট পরিবারের ঘর-বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। হাতির পালটি বাড়ির দেয়াল ভেঙে দিয়েছে।

রোববার গভীর রাতে উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নের গুয়াপঞ্চক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, রোববার গভীর রাতে একটি হাতির পাল মধ্যম গুয়াপঞ্চক গ্রামে ঢুকে পড়ে। সেখানে আবদুল কাদের, জালাল আহমেদ, জাগির আহমেদ, মোহাম্মদ ইদ্রিছ, আবদুল খালেক, আবদুল হক, মোহাম্মদ আলমগীর ও হাসান আলীর ঘরের দেয়াল ভেঙে দেয় হাতিগুলো। ৫টি ঘরের ব্যাপক ক্ষতি করেছে। রাতে হাতির পাল বাড়িগুলোর গাছ, দরজা, দেয়াল, রান্নাঘর ভেঙে আসবাবপত্র তছনছ করে দেয়। ঘরের বস্তাভরা ধানগুলো ছিটিয়ে দেয়। এ সময় ভয়ে আতঙ্কিত লোকজন পাকা ঘরের ছাঁদে উঠে অবস্থান নেয়। সকাল হলেই হাতির পালটি পাহাড়ে চলে গেলেই লোকজনের মাঝে স্বস্তি নেমে আসে।

বৈরাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সোলায়মান জানান, হাতির তাণ্ডবে ৫টি ঘর ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কমপক্ষে ৬-৭ লাখ টাকার ক্ষতি হয়। এলাকায় লোকজনের মধ্যে হাতির আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। অনেক পরিবার নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে।

স্থানীয় বনকর্মী ফোরকান জানান, বাড়ি-ঘরের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা হচ্ছে। বনবিভাগের প্রতিনিধিদল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ জোবায়ের আহমেদ জানান, হাতির তাণ্ডবে বাড়ি-ঘরের ক্ষতি হওয়ার সংবাদ পেয়েছি।

আদালতে মিন্নির দু`টি আবেদন নামঞ্জুর
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনায় প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি বনে যাওয়া তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির দু`টি আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার বরগুনা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এ আবেদন দুটি নামঞ্জুর করেন।

এদিন, স্বামী হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতার মিন্নির আদালতে দেওয়া জবানবন্দি প্রত্যাহার চেয়ে আবেদন করেন তার আইনজীবী। আদালত আইনজীবীর আবেদনের প্রেক্ষিতে বলেন, মিন্নি যদি তার জবানবন্দি প্রত্যাহার করতে চায় তাহলে কারাগরে জেল সুপারের মাধ্যমে সেটা করতে পারবে। এছাড়া মিন্নির সু-চিকিৎসার দাবি জানিয়ে আরো একটি আবেদন একই আদালতে করেন তার আইনজীবী। এ প্রসঙ্গে আদালত বলেন, মিন্নির সু-চিকিৎসার প্রয়োজন হলে কারাগার কর্তৃপক্ষই যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারবেন।

মিন্নির আইনজীবী ও জেলা বারের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম জানান, আদালত মিন্নির জবানবন্দি প্রত্যাহারের বিষয়টি জেল সুপারের মাধ্যমে করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। এবং একই সাথে তার সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা কারা কর্তৃপক্ষ যাতে করেন সে ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

পদ্মা নদী থেকে শিশুসহ ২ জনের মরদেহ উদ্ধার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঈশ্বরদীতে পদ্মা নদীর পৃথক দুই স্থান থেকে শিশুসহ দুই জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শী কৃষক রিয়াজুল ইসলাম জানান, রোববার (২১ জুলাই) দুপুরে উপজেলার লক্কীকুন্ডা ইউনিয়নের বিলকাদা গ্রামে পদ্মা নদীতে অজ্ঞাত ৯/১০ বছরের এক শিশুর মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে এসে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে।

অপরদিকে শিক্ষার্থী নয়ন আলী জানান, সাঁড়া ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে পদ্মা নদীর তীরে স্থানীয়রা অজ্ঞাত (২২) এক যুবকের গলাকাটা মরদেহ ভাসতে দেখে থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ সেখানে এসে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী ঘটনা নিশ্চিত করে জানান, পদ্মা নদী থেকে শিশুসহ দুই জনের মরদেহ উদ্ধার করে প্রথমে থানায় আনা হয়। পরে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দুটি পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, কীভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে বিষয়টি স্পষ্ট নয়। এ ব্যাপারে থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে এবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : হোয়াইট হাউসে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনে এবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মো. আসাদ উল্লাহ্ নামে একজন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে পরে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

এর আগে ঢাকায় একই অভিযোগে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে দুটি মামলা করা হয়।

রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমানের আদালতে একটি মামলাটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। এদিন আদালত বাদীর জবানবন্দি নেন এবং নথি পর্যালোচনা শেষে পরে আদেশ দেবেন বলে জানান। বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শাওন আহমেদ, জুয়েল শিকদারসহ আরও অনেকে শুনানি করেন।

অন্যদিকে একই অভিযোগে ঢাকা বারের কার্যনির্বাহী সদস্য ইব্রাহীম খলিল তার বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা করেন। ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সুফিয়ান নোমানের আদালতে দণ্ডবিধি ১২৪ (ক) ধারায় তিনি মামলাটি করেন। ইব্রাহীম খলিল পেনাল কোডের ১২৪ (এ) ধারা অনুযায়ী প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেন।

মামলার আরজি থেকে জানা যায়, গত ১৭ জুলাই প্রিয়া বালা বিশ্বাস ওরফে প্রিয়া সাহা বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রপ্রধান ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশের সংঘালঘু নির্যাতন নিয়ে বক্তব্য দেন। সে বক্তব্য গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ বলে দাবি করেন বাদী।

আরজিতে বলা হয়, আসামি প্রিয়া সাহার এ বক্তব্যের মাধ্যমে দেশের মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ধর্মীয় ভেদাভেদ তৈরি হয়। যাতে দেশকে অস্থিতিশীল ও বিদেশি রাষ্ট্রের হস্তক্ষেপ করার পাঁয়তারা করা হচ্ছে। তাই আসামির বক্তব্য রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত ১৬ জুলাই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হওয়া কয়েকজন ব্যক্তি ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সেখানে চীন, তুরস্ক, উত্তর কোরিয়া, মিয়ানমারসহ ১৭টি দেশের নির্যাতিত ব্যক্তিরা ছিলেন। সেখানে নিজেকে বাংলাদেশি পরিচয় দেয়া প্রিয়া সাহা বলেন, `স্যার, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। সেখানে ৩৭ মিলিয়ন হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান বিলীন হয়ে গেছে। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা বাংলাদেশেই থাকতে চাই। সেখানে এখনো ১৮ মিলিয়ন সংখ্যালঘু মানুষ রয়েছে। আমার অনুরোধ দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন। আমরা আমাদের দেশ ছাড়তে চাই না। শুধু থাকার জন্য সাহায্য করুন।`

তিনি আরো বলেন, `আমি আমার বাড়ি-ঘর হারিয়েছি, তারা আমার বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে। তারা আমার জমিজমা দখল করে নিয়েছে। কিন্তু তারা (সরকার) কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এখন পর্যন্ত।`

এ সময় ট্রাম্প ওই নারীকে প্রশ্ন করেন, `কারা জমি দখল করেছে, করা বাড়ি-ঘর দখল করেছে?`

ট্রাম্পের প্রশ্নের উত্তরে ওই নারী বলেন, `তারা মুসলিম মৌলবাদী গ্রুপ এবং তারা সব সময় রাজনৈতিক আশ্রয় পায়। সব সময়ই পায়।`

ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশ নিয়ে এমন অভিযোগের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। তার বক্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যে ব্যাপক বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে।

বৈদ্যুতিক ফাঁদে প্রাণ গেল দাদি-নাতির
                                  

জেলা প্রতিনিধি : নেত্রকোণায় শিয়ালের কাছ থেকে হাঁস-মুরগি বাঁচাতে খামারে পাতা বৈদ্যুতিক ফাঁদে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দাদি ও নাতির করুণ মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাতে নেত্রকোণা সদর উপজেলার আমতলা ইউনিয়নের বলনিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বলনিয়া গ্রামের নজরুল পইসলামের স্ত্রী শরীফা আক্তার (৪৮) ও তার নাতি আরমান হোসেন (৮)।

মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. বিল্লাল হোসেন জানান, বাড়িতে একটি ছোট ঘরে খামার করে হাঁস-মুরগি পালন করত পরিবারটি। শিয়ালসহ কিছু বন্যপ্রাণী প্রায়ই হানা দিয়ে খামারের হাঁস-মুরগি খেয়ে ফেলত। তাই খামারের চারদিকে বিদ্যুতায়িত করে ফাঁদ পেতে রাখা হয়।

রাতে খামারে হাঁস-মুরগি ঠিকঠাক আছে কি-না দেখতে গেলে অসাবধানতাবশত শিশু আরমান বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে তার দাদিও গুরুতর আহত হন। পরিবারের লোকজন তাদের উদ্ধার করে দ্রুত নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে জেলার কেন্দুয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক জেলের মৃত্যু হয়েছে।

নেত্রকোণার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল বাবাসহ দুই ছেলের
                                  

পঞ্চগড় প্রতিনিধি : পঞ্চগড় সদর উপজেলার একটি খালে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বাবাসহ দুই ছেলের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল শনিবার (২০ জুলাই) সন্ধ্যায় হাফিজাবাদ ইউনিয়নের মাহানপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন- ওই এলাকার শহিদুল হক (৪০) এবং তার দুই ছেলে নাজিরুল ইসলাম ও আশাদুর রহমান।
জানা যায়, বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে ওই খালের পড়ে থাকে। পরে শহিদুল হক সেখানে মাছ ধরতে গেলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। বাবাকে বাঁচাতে তার বড় ছেলে নাজিরুল ইসলাম এগিয়ে আসেন তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এরপর বাবা ও বড়ভাইকে বাঁচাতে পানিতে নেমে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন তার ছোট ছেলে। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।

পঞ্চগড় সদর হাসপাতালের চিকিৎসক মঈন খন্দকার বলেন, তাদের হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তারা মারা যান।

শেরপুরে নতুন করে ১৫ গ্রাম প্লাবিত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : উজান থেকে প্রবল বেগে নেমে আসা ঢলের কারণে পুরনো ব্রহ্মপুত্র নদে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় শেরপুর সদর উপজেলার বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদের শেরপুর অংশের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ভাঙন দিয়ে পানি প্রবেশ অব্যাহত রয়েছে।

শেরপুর সদর, শ্রীবরদী ও নকলা উপজেলার আরও ১৫টি গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। এতে ১৫টি ইউনিয়নের ৬০ গ্রামের প্রায় ১৫ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

শেরপুর-জামালপুর সড়কের পোড়ার দোকান এলাকার কজওয়েটি ছয় থেকে সাত ফুট পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় শেরপুর-ঢাকা এবং উত্তরবঙ্গের সঙ্গে এ পথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি উঠায় জেলার ৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। জেলায় ত্রাণ তৎপরতা অপ্রতুল বলে জানিয়েছেন বানভাসি মানুষ। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৭০ মেট্রিকটন চাল ও নগদ এক লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা বন্যার্তদের মধ্যে বিতরণের জন্য বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন চিকিৎসা সেবা ও আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়নি। শেরপুর-জামালপুর সড়কের ব্রহ্মপুত্র বীজ পয়েন্টে পানি বিপদ সীমার দশমিক ১৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

শনিবার ২০ জুলাই বিকেলে জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব সদর উপজেলার কামারেরচর ইউনিয়নে দুর্গতদের মধ্যে নগদ টাকা ও চাল বিতরণ করেন। এসময় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

শেরপুর সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা পিকন কুমার সাহা জানান, উজান থেকে নেমে আসা পানিতে সৃষ্ট বন্যায় উপজেলার ১৫ হাজার একশ কৃষকের রোপা আমন বীজতলা, আউশ ধানের ক্ষেত, সবজি ও পাটের আবাদকৃত এক হাজার ৩৩০ হেক্টর জমি বন্যার পানিতে নিমজ্জিত রয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণের কাজ চলছে।
জাতীয় সংসদে সরকারদলীয় হুইপ ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আতিউর রহমান ভাঙন এলাকা পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের জানান, মানুষের ঘরে ধানের অভাব নাই। কিন্তু তা চাল করা যাচ্ছে না। তাই সরকারের পক্ষ থেকে শুকনো খাবার ও চাল ডাল বিতরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দুর্গতদের ভয়ের কোনও কারণ নাই, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা তাদের পাশে আছি।

অপরদিকে ঝিনাইগাতী উপজেলার মহারশী ও নালিতাবাড়ী উপজেলার ভোগাই ও চেল্লাখালী নদীর পানি কমে যাওয়ায় ওই দুই উপজেলার বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

মিন্নির জামিন শুনানির আবেদন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফতারে স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন শুনানির আবেদন করা হয়েছে। রোববার সকালে বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম এ জামিন শুনানির আবেদন করেন। আবেদনের ফলে এ মামলাটি আজ বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কার্যতালিকায় স্থান পেয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জিআরও মো. হান্নান বলেন, মিন্নির জামিন আবেদনটি গ্রহণ করে শুনানির জন্য আদালতের কার্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আজ বেলা ১১টার দিকে এ মামলার শুনানি হতে পারে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে মিন্নির আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম বলেন, মিন্নির জামিন শুনানির জন্য আমরা আবেদন করেছি। আমার মিন্নির জামিনের জন্য আদালতে যুক্তি তুলে ধরব।

এদিকে মিন্নির জামিন শুনানির কথা শুনে আদালতে উপস্থিত হয়েছেন নিহত রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ ও মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর।

গত ১৬ জুলাই মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরগুনার মাইঠা এলাকার বাবার বাসা থেকে বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরসহ মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তার বক্তব্য রেকর্ড করতে বরগুনা পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যায় পুলিশ। এরপর দীর্ঘ ১০ ঘণ্টার জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ৯টায় মিন্নিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর বুধবার বিকেল ৩টার দিকে বরগুনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মিন্নিকে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে মিন্নির পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী।

পরদিন বৃহস্পতিবার বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন জানান, মঙ্গলবার দিনভর জিজ্ঞাসাবাদ ও বুধবার রিমান্ড মঞ্জুরের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মিন্নি তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। এ হত্যার পরিকল্পনার সঙ্গেও তিনি যুক্ত ছিলেন।

এরপর শুক্রবার বিকেলে মিন্নি একই আদালতে তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ১৫ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে মিন্নিসহ ১৪ জন অভিযুক্ত রিফাত হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এছাড়া এ মামলার তিন নম্বর আসামি রিশান ফরাজী রিমান্ডে রয়েছেন। আর এ মামলার প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

প্রকাশিত প্রতিবাদে এআরসি টাওয়ার ভবনের ভাড়াটিয়া আলমগীর ও অন্যান্য ভাড়াটিয়াদের বক্তব্য
                                  

কক্সবাজার শহরে এআরসি টাওয়ার ভবনে যে প্রকৃত ঘটনা সংগঠিত হয়েছিলো তা হলো, মূলত জুমাআর নামাজের আগে অন্তত ১৫- ২০ পর্যন্ত ফায়ার এলার্ম বাজতেই ছিলো, ১৪ তলা বিশিষ্ট এ ভবনে ফায়ার এলার্ম ১৫- ২০ মিনিট পর্যন্ত চলমান থাকায় জীবণ বাচাঁর তাগিদে ৪০ টি ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়ারা তাড়াহুড়া করে নামতে গিয়ে আহত ও অসুস্থ হয়ে পড়েন। মহিলা , অসুস্থ বৃদ্ধ পঙ্গু পুরুষ , মহিলা, বাচ্চাসহ ঐ ভবনের সকল ভাড়াটিয়ারা আতঙ্ক , ভয়ঙ্কর অবস্থা এবং পঙ্গু মানুষদের বাচাঁনোর জন্য এক হাহাকার পরিস্থিতির মধ্যে পতিত হয়েছিলো। জুমাআর নামাজের আগে পুরুষ ব্যক্তি তেমন ছিলো না, মহিলারা ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে ভবন থেকে তাড়াহুড়া করে নামতে গিয়ে আহত ও অসুস্থ হয়ে যাওয়ার প্রাক্কালে তাদের এমন অবস্থা দেখে কর্তব্যরত সিকিউরিটি গার্ড কাউকে দেখতে না পেয়ে , একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আমি প্রতিবাদ করি। আমার প্রতিবাদের ভাষা ছিলো, কোথায়, আগুন!!!কোথায় আগুন!!! সিকিউরিটি গার্ড !! সিকিউরিটি গার্ড !!! কিন্তু ফায়ার এলার্ম বাজার পড়েও প্রায় আধ ঘন্টা পর্যন্ত ভবনের কর্তব্যরত কোন ব্যক্তি এগিয়ে আসে নি। দীর্ঘক্ষণ পর্যন্ত কারো সাড়া শব্দ না পেয়ে হঠাৎ সিকিউরিটি গার্ডকে দেখে এতো মানুষের হাহাকার সহ্য করতে না পেরে আমি সিকিউরিটি গার্ডকে প্রকৃত বিষয়টা জানার জন্য জিঙ্গেস করি, কিন্তু সে অকট্য ভাষায় কিছুই জানে না বলে আমাকে দুর্ববহার করে,যা সাক্ষী ভবনের উপস্থিত সকল বাসিন্দারা।

স্বাধীন বাংলাদেশে এরকম হাহাকার অবস্থা দেখে একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে এ ভবনের বাসিন্দা হিসেবে আমি যদি প্রতিবাদ করি অবশ্যই দোষের কিছু আছে বলে আমি মনে করি না। কক্সবাজারের আমি স্থায়ী বাসিন্দা। ব্যবসা বাণিজ্যের জন্য এআরসি টাওয়ার ভবনে অবস্থান করছি। প্রতিবাদ করার মূল কারণ হচ্ছে, মূলত এআরসি টাওয়ার ভবনের কোন ব্যবস্থাপনা ঠিক নেই। ফায়ার এলার্ম যদি বাজে সাধারণত সে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য বিকল্প সিড়িঁর ব্যবস্থা থাকতে হয়। কিন্তু ১৪ তলা বিশিষ্ট এআরসি টাওয়ার ভবনে সে সিড়িঁর কোন ব্যবস্থা নেই। যা তদন্ত করলে বেরিয়ে আসবে। একটা মাত্র সিড়িঁ , কিন্তু সে সিড়িঁর নিচে রয়েছে বিপদজনক বিশাল আকারের জেনারেটর , বৈদ্যতিক ট্রান্সফরমার এবং আরো বৈদ্যতিক সাব- স্টেশন। যেটা চলালের একটামাত্র সিড়িঁর নিচে করা খুবই ঝুকিঁপূর্ণ। কালকের ঐ ফায়ার এলার্মের জন্য যদি কোন প্রাণহানি ঘটতো তাহলে এর দায়ভার কে নিতো??? শুধুমাত্র সচেতন মানুষ , জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনকে বোকা বানানোর জন্য এ আরসি টাওয়ার কর্তৃপক্ষ সংবাদের প্রতিবাদে মিথ্যা জঘন্য তথ্য দিয়ে প্রকৃত ঘটনা আড়াল করে ব্যবসায়ী, সরকারী ও বেসরকারী চাকরিজীবী ভাড়াটিয়াদের তাড়িয়ে, এনজিও ভাড়াটিয়াদের মোটা অঙ্কে বাসা ভাড়া দেওয়ার অপচেষ্টায় মেতে উঠেছে। কিন্তু বাসা ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৯১ অনুসারে এ ধরণের নিয়ম ও বিধি মালা উল্লেখ নেই যে, বেশী দামে বাসা ভাড়া দেওয়ার জন্য পুরাতন বাসিন্দাদের সাথে দুবর্বহার, মানসিক নির্যাতন, অপমান, এবং মিথ্যা তথ্য দিয়ে সম্মান হানির চেষ্টা। যা এআরসি টাওয়ার ভবন কর্তৃপক্ষ ভাড়াটিয়াদের সাথে করে আসছে। মিথ্যা তথ্য ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে এ আরসি টাওয়ার কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যে এআরসি টাওয়ার ভবনের অন্যান্য ভাড়াটিয়ারা আমার প্রতিবাদের সাথে একাত্বতা পোষণ করেছেন, এবং তারা সত্য ঘটনা প্রকাশ করার জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন। বিষয়টি জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। শীঘ্রই আমি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এআরসি টাওয়ার ভবনের সকল ভাড়াটিয়ারা।

 


প্রতিবাদকারী
আলমগীর
ভাড়াটিয়া- এআরসি টাওয়ার।

মিন্নির পক্ষে লড়বেন শতাধিক আইনজীবী
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিবেন শতাধিক আইনজীবী। বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্টের (ব্লাস্ট), আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক), নিজেরা করি`র আইনজীবীরা এই সহায়তা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

ব্লাস্টের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জেডআই খান পান্না এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
শনিবার ২০ জুলাই সকালে ঢাকা থেকে ১৪ সদস্যর আইনজীবী প্রতিনিধি দল বরগুনার পথে রওনা দিয়েছে। বিকেলে ২০ সদস্যর আরো একটি আইনজীবী প্রতিনিধি দল বরগুনা যাবে। শতাধিক আইনজীবী লড়বেন মিন্নির পক্ষে।

জেডআই খান পান্না বলেন, তিন সংগঠনের আইনজীবীদের প্রতিনিধি দল বরগুনা যাচ্ছে। ইতোমধ্যে অভিজ্ঞ ১৪ জন আইনজীবী রওনা দিয়েছেন। বিকেলে আরো ২০ জন আইনজীবী ঢাকা থেকে যাবেন।
ঢাকা ছাড়াও বিভিন্ন স্থানের আইনজীবীরাও তার পক্ষে লড়তে আগ্রহ প্রকাশ করছেন।

ফরিদপুরে ট্রাক খাদে পড়ে নিহত ২
                                  

জেলা প্রতিনিধি : ফরিদপুর সদর উপজেলার ধুলদীতে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে ট্রাক উল্টে খাদে পড়ে দুই জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচ জন। তাদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. নুরুল আলম দুলাল জানান, ঢাকা থেকে পিরোজপুরগামী বিদ্যুতের মালামাল বহনকারী একটি ট্রাক আজ (শনিবার) ভোররাতে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ধুলদীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশের খাদে পড়ে যায়।

তিনি আরও জানান, শ্রমিকরা উল্টে যাওয়া ট্রাকের মালামালের নিচে চাপা পড়েন। পরে ট্রাক সরিয়ে তাদের উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দুই শ্রমিক ঘটনাস্থলেই মারা যান। তাৎক্ষণিক তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

নুরুল আলম জানান, গুরুতর আহত অবস্থায় আরও পাঁচ জনকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত দুই শ্রমিকের মরদেহ কানাইপুর হাইওয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কানাইপুর হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ এস আই জয়নুল ইসলাম জানান, দুই শ্রমিকের মরদেহ ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। তাদের পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি।


   Page 1 of 81
     সারা দেশ
ফের জামিন আবেদন মিন্নির
.............................................................................................
উত্তরাঞ্চলে পানি কিছুটা কমলেও নদীগুলোর পানি এখনও বিপদসীমার ওপর
.............................................................................................
পুলিশের পৃথক পৃথক অভিযানে ২০০০ পিস ইয়াবাসহ আটক -২
.............................................................................................
পদ্মায় পানি কমলেও কমেনি দুর্ভোগ
.............................................................................................
মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় বাদী নিজেই শ্রীঘরে
.............................................................................................
চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ৮ বাড়িতে বন্য হাতির তাণ্ডব
.............................................................................................
আদালতে মিন্নির দু`টি আবেদন নামঞ্জুর
.............................................................................................
পদ্মা নদী থেকে শিশুসহ ২ জনের মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে এবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা
.............................................................................................
বৈদ্যুতিক ফাঁদে প্রাণ গেল দাদি-নাতির
.............................................................................................
মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল বাবাসহ দুই ছেলের
.............................................................................................
শেরপুরে নতুন করে ১৫ গ্রাম প্লাবিত
.............................................................................................
মিন্নির জামিন শুনানির আবেদন
.............................................................................................
প্রকাশিত প্রতিবাদে এআরসি টাওয়ার ভবনের ভাড়াটিয়া আলমগীর ও অন্যান্য ভাড়াটিয়াদের বক্তব্য
.............................................................................................
মিন্নির পক্ষে লড়বেন শতাধিক আইনজীবী
.............................................................................................
ফরিদপুরে ট্রাক খাদে পড়ে নিহত ২
.............................................................................................
কক্সবাজারের এআরসি টাওয়ারে আগুন
.............................................................................................
সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি
.............................................................................................
এইচএসসি পরীক্ষায় ফেল করায় শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
.............................................................................................
গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ
.............................................................................................
প্রবল স্রোতে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি চলাচল ব্যাহত
.............................................................................................
সিরাজগঞ্জে চলছে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট
.............................................................................................
মিন্নির পক্ষে দাঁড়াননি বরগুনার কোনো আইনজীবী
.............................................................................................
মিন্নি ৫ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি
.............................................................................................
৮ দিন পর বান্দরবানের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক
.............................................................................................
রাজবাড়ীতে বিপৎসীমার ওপরে পদ্মার পানি
.............................................................................................
মামলার প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি মিন্নি
.............................................................................................
বন্যাকবলিত এলাকার জন্য সায়েমা ওয়াজেদের নকশায় নৌকা তৈরি
.............................................................................................
জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জেলা পুলিশের কার্যালয়ে মিন্নি
.............................................................................................
মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেল শিশুর
.............................................................................................
উল্লাপাড়ায় ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ নিহত ১০
.............................................................................................
রংপুরে প্রস্তুত এরশাদের কবর ও জানাজার মাঠ
.............................................................................................
গাইবান্ধায় আরও ১৫ গ্রাম প্লাবিত
.............................................................................................
হজ পালনের উদ্দেশ্যে মক্কা শরীফে গমন করলেন হাফেজ মােঃ আরাফাত আলী
.............................................................................................
জমি সংক্রান্ত বিরোধ: ভাইয়ের হাতে ভাই খুন
.............................................................................................
বিচারকের সামনেই আসামির ছুরিকাঘাতে বাদী নিহত
.............................................................................................
পঞ্চম দিনের মতো মেহেরপুর থেকে বাস চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
বিকল কাভার্ডভ্যানে পিকআপের ধাক্কা : নিহত ৩
.............................................................................................
ব্রহ্মপুত্র বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে ভাঙন, গাইবান্ধার বন্যা পরিস্থিতির অবনতি
.............................................................................................
কুশিয়ারার বাঁধ ভেঙে ২৫ গ্রাম প্লাবিত
.............................................................................................
সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি
.............................................................................................
রিফাত হত্যা : মিন্নিকে গ্রেফতারের দাবিতে বরগুনায় মানববন্ধন
.............................................................................................
কক্সবাজারে পাহাড় ধসে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু
.............................................................................................
নেত্রকোণায় তিন শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ
.............................................................................................
তিস্তা ব্রহ্মপুত্র ঘাঘটের পানি বিপৎসীমার ওপরে
.............................................................................................
দেশসেরা ক্যাডেট নির্বাচিত হলেন কক্সবাজার জেলা পুলিশের এসআই শরিফুল
.............................................................................................
চলন্ত সিএনজির ওপর ধসে পড়ল পাহাড়
.............................................................................................
খামার দেখতে গিয়ে বজ্রপাতে প্রাণ গেল বাবা-ছেলের
.............................................................................................
গরুর নাম পালসার বাবু ॥ দাম ১২ লাখ টাকা
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]