| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * আবারও হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারে ‘না’ করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা   * বিশ্বব্যাপী করোনা আক্রান্তের সর্বোচ্চ রেকর্ড আজ   * সৌদিতে করোনায় পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশির মৃত্যু, আক্রান্ত প্রায় ২০ হাজার   * ট্রাম্পের বিপক্ষে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেন কার্দাশিয়ানের স্বামী কেনি   * মৃত্যু বেড়ে ২০৫২, মোট শনাক্ত ১৬২৪১৭   * কাতার বিশ্বকাপের চমক ‘রোবট রেফারি’   * শ্রীলঙ্কার কুশল মেন্ডিস গ্রেফতার   * ১ কোটি ১৩ লাখ ছাড়াল আক্রান্ত, মৃত্যু ৫ লাখ ৩৩ হাজার   * করোনায় মৃত্যুর তালিকায় পাঁচে মেক্সিকো   * ২৪ ঘন্টায় অবস্থার অবনতি, করোনায় আক্রান্ত পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি  

   সারা দেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মৃত্যু বেড়ে ২০৫২, মোট শনাক্ত ১৬২৪১৭

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৫ জন। এনিয়ে মোট মারা গেলেন ২,০৫২ জন। এছাড়া একই সময়ে আরও ২,৭৩৮ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১,৬২,৪১৭ জন।

আজ রবিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, ৬৮টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩,৯৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এখন পর্যন্ত মোট ৮,৪৬,৬২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ১,৯০৪ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৭২,৬২৫ জন।

গতকাল শনিবার পর্যন্ত করোনাভাইরাস শনাক্তে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল ১৪,৭২৭টি। এরমধ্যে নতুন শনাক্ত হয়েছিলেন ৩,২৮৮ জন। মোট শনাক্ত হয়েছিলেন ১,৫৯,৬৭৯ জন। আর গতকাল আরও ২৯ জন মারা যান। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ১,৯৯৭ জন। এছাড়া গতকাল সুস্থ হয়েছিলেন ২,৬৭৩ জন। এনিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৭০,৭২১ জন।

আপনার সুস্থতা আপনার হাতে উল্লেখ করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

দেশে নভেল করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। আর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

মৃত্যু বেড়ে ২০৫২, মোট শনাক্ত ১৬২৪১৭
                                  

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৫ জন। এনিয়ে মোট মারা গেলেন ২,০৫২ জন। এছাড়া একই সময়ে আরও ২,৭৩৮ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১,৬২,৪১৭ জন।

আজ রবিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, ৬৮টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩,৯৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এখন পর্যন্ত মোট ৮,৪৬,৬২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ১,৯০৪ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৭২,৬২৫ জন।

গতকাল শনিবার পর্যন্ত করোনাভাইরাস শনাক্তে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল ১৪,৭২৭টি। এরমধ্যে নতুন শনাক্ত হয়েছিলেন ৩,২৮৮ জন। মোট শনাক্ত হয়েছিলেন ১,৫৯,৬৭৯ জন। আর গতকাল আরও ২৯ জন মারা যান। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ১,৯৯৭ জন। এছাড়া গতকাল সুস্থ হয়েছিলেন ২,৬৭৩ জন। এনিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৭০,৭২১ জন।

আপনার সুস্থতা আপনার হাতে উল্লেখ করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

দেশে নভেল করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। আর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

আজ ঝড়বৃষ্টির আভাস দেশের আট অঞ্চলে
                                  

দেশের আট অঞ্চলে আজ ঝড়বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এসব অঞ্চলের নদীবন্দরকে এক নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আজ রবিবার (৫ জুলাই) ভোর ৫টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরের পূর্বাভাসে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্রগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলের ওপর দিয়ে পূর্ব বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে এক নম্বর সর্তকতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ অস্থায়ীভাবে মেঘলা থেকে মেঘাচ্ছন্ন থাকতে পারে। অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। দক্ষিণ বা দক্ষিণ পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৬ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে, যা অস্থায়ীভাবে দমকা হিসেবে ৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত প্রবাহিত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা প্রায় ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমতে পারে।

ভাষাসৈনিক বিচারপতি আনসার আলীর মৃত্যুবার্ষিকী আজ
                                  

আজ রবিবার (৫ জুলাই) ভাষা সৈনিক বিচারপতি মোহাম্মদ আনসার আলীর ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৯৫ সালের এই দিনে মৃত্যুবরণ করেন এই প্রখ্যাত আইনজীবী ও বিচারপতি।

এ উপলক্ষে আজ ঢাকার বনানীতে মরহুমের কবরস্থান প্রাঙ্গণ  এবং নওগাঁয় তাঁর গ্রামের বাড়িতে দোয়া মাহফিল, আলোচনাসভা, কোরানখানি ও বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করা হয়েছে।

বিচারপতি মোহাম্মদ আনসার আলী ১৯৬২ সালে ঢাকা হাইকোর্টে তথা তদানীন্তন পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টে আইন পেশায় আত্মনিয়োগ করেন। তিনি ছাত্রাবস্থায় মহান ভাষা আন্দোলন ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। ভাষা আন্দোলনে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০০১ সালে তাঁকে মরণোত্তর `মাতৃভাষা পদক` দেওয়া হয়।

১৯৭১ সালের স্বাধীনতা সংগ্রামেও সক্রিয় ছিলেন আনসার আলী। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় তিনি সারা জীবন কাজ করে গেছেন। তিনি বিভিন্ন সময়  বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি, কোষাধ্যক্ষ, তৎকালীন রংপুর হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের দুবার নির্বাচিত সভাপতি এবং বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড সোসাইটির সহ-সভাপতি ছিলেন।

অসংখ্য রায়ের মধ্যে বিচারপতি হিবেবে আনসার আলীর দক্ষতা, বিচক্ষনতা ও প্রতিভার স্বাক্ষর মেলে। মরহুমের ছোট ছেলে বিচারপতি আহমেদ সোহেল বর্তমানে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে বিচারপতি হিসেবে কর্মরত।

পদ্মার পানি বাড়ছে, ভয়ংকর চেহারায় ফিরছে ভাঙন
                                  

নদ-নদীর পানি কোথাও বাড়ছে, আবার কোথাও কমছে। একই সঙ্গে ভাঙনও ভয়ংকর চেহারায় ফিরছে। মুন্সীগঞ্জ ও রাজবাড়ীতে পদ্মার পানি বাড়ছেই।

কুড়িগ্রামে ধরলা এবং নীলফামারীর ডিমলায় তিস্তার পানি ফের বেড়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বগুড়ার বাঙ্গালী নদীর পানিও বেড়েছে।

তবে কমছে যমুনা, ব্রহ্মপুত্র ও ঘাঘটের পানির গতি। বন্যায় এখনো ডুবে আছে শতাধিক গ্রাম। পানিবন্দি হয়ে আছে লাখো মানুষ। বন্যাদুর্গত এলাকায় চলছে খাবার সংকট। বগুড়ায় যমুনা, কিশোরগঞ্জে ব্রহ্মপুত্র এবং রংপুরের পীরগাছায় চলছে তিস্তার ভাঙন। এর ফলে সীমাহীন ভোগান্তিতে পড়েছে নদীপারের মানুষ। ভয় আর আতঙ্কে ভাঙন এলাকা থেকে ঘরবাড়ি সরিয়ে নিচ্ছে অনেকেই।

এদিকে শরীয়তপুরের নড়িয়ায় গতকাল এক অনুষ্ঠানে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, বন্যা ও বর্ষা মৌসুমে ঝুঁকিপূর্ণ সব স্থানে নদীভাঙন রোধে কাজ চলছে। এরই মধ্যে সারা দেশের মানুষকে ভাঙনের হাত থেকে রক্ষায় সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। চলমান করোনা মহামারির মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভাঙনকবলিত এলাকাগুলোতে পুরোদমে এগিয়ে চলছে বেড়িবাঁধের কাজ। তিনি আশা করেন, এবারের বর্ষা মৌসুমে সারা দেশে কোনো নদীভাঙন হবে না। এ ব্যাপারে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

মুন্সীগঞ্জ : মুন্সীগঞ্জে পদ্মার পানি এখনো বিপত্সীমার ওপর দিয়ে বইছে। ভাগ্যকূলে পদ্মার পানি ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এখানে ১১ সেন্টিমিটার পানি বেড়েছে। এতে পদ্মা অববাহিকার নিম্নাঞ্চলের জনপদগুলো প্লাবিত হয়েছে। চরাঞ্চলের বহু এলাকা এখন জলমগ্ন। দ্রুত পানি আসার কারণে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। টঙ্গিবাড়ীর দিঘিরপারে কান্দারবাড়ী-শরিষাবন বাঁধ ভেঙে প্রায় ১০০ একর জমিতে পানি ঢুকে পড়েছে। লৌহজংয়ের মেদিনীমণ্ডল ইউনিয়নের কান্দিপাড়া যশলদিয়া, কুমারভোগ, কনকসার, হলদিয়া, লৌহজং-টেউটিয়া ও গাঁওদিয়া ইউনিয়নের চরাঞ্চলসহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। শ্রীনগরের ভাগ্যকূলের আশপাশের নিম্নাঞ্চলে বন্যাতঙ্ক বিরাজ করছে। শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এদিকে টঙ্গিবাড়ীর কান্দারবাড়ী-শরিষাবন বাঁধের প্রায় ১০ ফুট বিলীন হয়ে গেছে।

রাজবাড়ী : রাজবাড়ীর পদ্মা নদী অংশে পানি বাড়ছেই। গত ২৪ ঘণ্টায় গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া পয়েন্টে পদ্মার পানি ২ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপত্সীমার ৪৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ছাড়া এখনো সদর উপজেলার মহেন্দ্রপুর ও পাংশার সেনগ্রাম পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপত্সীমার নিচে রয়েছে। তবে জেলার কোথাও এখনো বন্যার খবর পাওয়া যায়নি। তবে গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ও দেবগ্রামের তিনটি চর ও কালুখালীর হরিণবাড়িয়া চরের ফসলি জমিসহ নদীতীরবর্তী ফসলি জমিতে পানি উঠতে শুরু করেছে। এতে কৃষকদের ধান-পাট তলিয়ে যেতে শুরু করেছে।

কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামে ব্রহ্মপুত্রের পানি ধীরে ধীরে কমলেও ধরলার পানি ফের বাড়ছে। গতকাল শনিবার সকালে ধরলা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপত্সীমার যথাক্রমে ৫৯ ও ৩১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। ধরলা পানি বাড়ায় সদর উপজেলা ছাড়াও ফুলবাড়ী, উলিপুর ও রাজারহাটের শতাধিক গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। পাশাপাশি তিস্তার পানি বেড়ে রাজারহাট ও উলিপুরের ছয়টি ইউনিয়নের চরাঞ্চলের নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। তলিয়ে গেছে ফসলের ক্ষেত ও কিছু ঘরবাড়ি।

ধুনট (বগুড়া) : বগুড়ায় যমুনা নদীর পানি কমে বিপত্সীমার ৪৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনার পানি ৬ সেন্টিমিটার কমেছে। অন্যদিকে বাঙ্গালী নদীর পানি বেড়ে বিপত্সীমার ৭০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি বাড়ার ফলে এবার বাঙ্গালী নদীতীরবর্তী মানুষের মধ্যে বন্যা আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও ধুনটের ১৪টি ইউনিয়নের শতাধিক গ্রাম এখনো ডুবে আছে। বন্যা দুর্গত এলাকার পাট, ধানসহ ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। যমুনার প্রবল স্রোতে দেখা দিয়েছে ভাঙন। ভাঙনের কবলে এরই মধ্যে সারিয়াকান্দি উপজেলার চার শতাধিক বাড়িঘর অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

নীলফামারী : তিস্তার পানি ফের বেড়ে ডিমলার বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। গতকাল সকালে ওই উপজেলার ডালিয়ায় তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে নদীর পানি বিপত্সীমার ২২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। ডিমলা উপজেলার পূর্ব ছাতনাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খান বলেন, ‘এর আগে বন্যার পানি নেমে গেলেও গত শুক্রবার সন্ধ্যার পর থেকে পানি বাড়তে থাকে। গতকাল ভোরে আবারও পানি বাড়ায় বন্যার সৃষ্টি হয়েছে।

গাইবান্ধা : গাইবান্ধার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে ব্রহ্মপুত্র ও ঘাঘট নদীর পানি কমতে শুরু করলেও শনিবারও বিপত্সীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। শনিবার ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপত্সীমার ৬৬ সেন্টিমিটার ও ঘাঘট নদীর পানি বিপত্সীমার ৩১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এদিকে তিস্তার পানি ১৭ সেন্টিমিটার এবং করতোয়ার পানি ৪ সেন্টিমিটার বেড়ে এখনো বিপত্সীমার নিচে রয়েছে। এদিকে গত শুক্রবার রাতে সাঘাটার জুমারবাড়ী-হলদিয়া সড়কের গোবিন্দপুর এলাকায় যমুনা নদীর পানির স্রোতে একটি পাকা সড়কের ২০০ ফুট ভেঙে গেছে। এদিকে সাঘাটার হলদিয়া ইউনিয়নের গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়টি সপ্তাহের মধ্যেই যমুনাগর্ভে হারিয়ে গেছে।

সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীর পানি কিছুটা কমলেও এখনো বিপত্সীমার ৩১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ কারণে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে নিম্নাঞ্চলের ২১৬টি গ্রামের প্রায় ২৫ হাজার মানুষ।

কিশোরগঞ্জ : ব্রহ্মপুত্রের ভাঙনে বিপর্যস্ত কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরের সাহেবেরচর গ্রাম। প্রতিদিন এই নদে বিলীন হচ্ছে গ্রামের নতুন নতুন এলাকা, বসতবাড়ি। বিপন্ন লোকজন, মাথা গোঁজার ঠাঁই হারিয়ে ছুটছে অজানা ঠিকানায়। গ্রাম রক্ষায় সেখানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রায় ৫০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প রয়েছে। প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর কয়েক মাস চলে গেলেও এই কাজ শুরুই করেনি তারা। এ অবস্থায় পরিস্থিতি সামাল দিতে বাড়তি আরেকটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ, যাতে খরচ হবে আরো কয়েক কোটি টাকা।

পীরগাছা (রংপুর) : পীরগাছার ছাওলা ইউনিয়নের দক্ষিণ গাবুড়া গ্রামটি বিলীনের পর পাশের হাগুরিয়া হাশিম ভাঙনের কবলে পড়েছে। তিস্তার ভাঙনে গত চার দিনে প্রায় অর্ধশত বাড়ি নদীগর্ভে চলে গেছে। ভাঙন হুমকিতে রয়েছে আরো শতাধিক বাড়ি।

সুনামগঞ্জ : সুরমা নদীর পানি কমলেও নিম্নাঞ্চলে পানি বাড়ছে। ফলে জেলা শহরের আশপাশের এলাকা নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে। শহরের বাইরেও নিম্নাঞ্চলে বন্যার পানিতে প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। হাওরে এসে সুরমার পানি চাপ তৈরি করায় পৌর শহরের বিভিন্ন এলাকা নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে। অনেকের ঘরবাড়িতে ঢুকে পড়েছে পানি। এতে দুর্ভোগে পড়েছে সাধারণ মানুষ। এদিকে এখনো জেলা শহরের সঙ্গে বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর, জামালগঞ্জ, দোয়ারাবাজারসহ চারটি উপজেলার যোগাযোগব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন আছে। বিভিন্ন স্থানে সড়ক ভেঙে যাওয়ায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, ৬১টি ইউনিয়নে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। এতে ৬৬ হাজার ৮৬৯টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) : মির্জাপুরে নদীর পানির প্রবল চাপে ধল্যা-বিলপাড়া আঞ্চলিক সড়ক ভেঙে অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। সড়কটির গ্রামনাহালী আদাবাড়ী এলাকায় পানি নিষ্কাশনের জন্য নির্মিত চারটি কালভার্ট স্থানীয় প্রভাবশালীরা বন্ধ করে দেওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এতে পাশের বাসাইলের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নসহ ওই সড়ক দিয়ে চলাচলকারী দুই উপজেলার ২৫ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ বিপাকে পড়েছে।

করোনার কারণে প্রায় অর্ধেক শিশুই টিকাদান কর্মসূচির বাইরে
                                  

করোনা মহামারিতে প্রায় অর্ধেক শিশুই টিকাদান কর্মসূচির বাইরে রয়ে গেছে। সংক্রমণের ভয়, অধিকাংশ অস্থায়ী কেন্দ্র বসতে না পারাসহ নানা কারণে টিকা নিতে পারেনি শিশুরা। অধিকাংশ এনজিও অফিসের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ঢাকার শিশুরা বেশি বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে। তবে যে কোনো উপায়ে টিকাদান কর্মসূচি সফল করা না গেলে নিউমোনিয়া, হামসহ নানা রোগের প্রকোপ বাড়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। দেশের স্থায়ী ও অস্থায়ী টিকা কেন্দ্রে নেই আগের সেই উপচে পড়া ভিড়। করোনার ছোবল থেকে অভিভাবকরা নিজে ও তার শিশুকে সুরক্ষায় রাখতে আসছেন না কেন্দ্রে।

জন হপকিনস ব্লুমবার্গ স্কুল অব পাবলিক হেলথের গবেষণা বলছে, করোনাকালে অর্ধেক শিশু বিভিন্ন রোগের টিকা নিতে পারেনি। সরেজমিনে অভিভাবকরাও জানালেন সেই বাস্তবতার কথা।

মহামারিতে ক্ষুধা, অপুষ্টি ও অন্য রোগের প্রকোপে আগামি ৬ মাসে ২৮ হাজার শিশুর মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে ব্লুমবার্গের গবেষণায়। শিশুর মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে নিকটবর্তী কেন্দ্রের পরিবেশ পরিস্থিতি বুঝে দ্রুততম সময়ে টিকা নিয়ে বাড়ি ফেরার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

এক বিশেষজ্ঞ বলেন, মাকে কিন্তু ভালো মানের মাস্ক পরতেই হবে। বাচ্চাকে মাস্ক না পরানো গেলে শাড়ির আঁচল দিয়ে মুখ ঢেকে দিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যে স্বাস্থ্যকর্মী টিকা দেবেন তার মাস্ক পরা আছে কিনা। অথবা আগের বাচ্চাটিকে টিকা দিয়ে তিনি হাত পরিষ্কার করেছেন কিনা।  

ঢাকা শিশু হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ডা মাকসুদুর রহমান বলেন, এই সময়ে ইনফ্লুয়েঞ্জা, যক্ষা, নিউমোনিয়া, টিটেনাসের মতো রোগগুলো আবার চলে আসতে পারে।   

শিশুদের বড় একটি অংশ টিকা না নিলেও এখন তা কাটিয়ে ওঠার সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান ইপিআই পরিচালক।

ইপিআই পরিচালক ডা শামসুল হক বলেন, আমরা আশা করছি, এক থেকে দুই মাসের মধ্যে যেসব শিশু বাদ পড়েছে এটা পূরণ করে ফেলতে পারব।

শিশুদের জন্য যক্ষা, নিউমোনিয়া, হাম, পোলিও রোগের ভয়াবহতা করোনার চেয়ে কোনো অংশেই কম নয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে যে কোনো উপায়ে কেন্দ্রে এসে টিকা দিতে না পারলে শিশুদের মধ্যে মৃত্যুঝুঁকি বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

থানাকে জনগণের সেবা কেন্দ্রে পরিণত করা হবেঃ কুতুবদিয়ার নবাগত ওসি
                                  
আবু সায়েম, কক্সবাজারঃ থানাকে জনগণের সেবা কেন্দ্র এবং মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে বদ্ধপরিকর দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ার নবাগত  ওসি মুক্তিযুদ্ধার সন্তান একেএম সফিকুল আলম চৌধুরী। গত ১ লা জুলাই কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসাইন  ( বিপিএম বার) অফিস স্বাক্ষরিত আদেশে চকরিয়া থানার ( তদন্ত) ওসি সফিকুল আলম চৌধুরীকে  কুতুবদিয়া থানার ওসি হিসেবে পদায়ন করেন। সম্প্রতি যোগদান করার পর পরেই মাদকমুক্ত, জলদস্যুক্ত, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিকসহ মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে অবিচল আছেন নবাগত ওসি। 
 
থানা সূত্রে জানা যায়, নবাগত ওসি যোগদানের পরেই জলদস্যু এবং ইয়াবা   কারবারিদের গ্রেপ্তার করতে কর্মপরিকল্পনা তৈরী করেছেন।
ইতোমধ্যে ১২ টি মামলার জলদস্যু এবং ইয়াবা কারবারিকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে কুতুবদিয়া থানা পুলিশ। নবাগত অফিসার ইনচার্জ একেএম সফিকুল আলম চৌধুরীর নির্দেশে কুতুবদিয়াকে বাসযোগ্য নিরাপদ মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে নানাধরণের কর্ম পরিকল্পনাসহ   মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স বাস্তবায়নে  যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত সম্পাদন করা হবে। 
থানা সূত্রে আরো জানা যায়, দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ায় প্রতিটি ওয়ার্ড ভিত্তিক মাদক ব্যবসায়ী  এবং জলদস্যুদের তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। তালিকা অনুসারে নবাগত ওসির নির্দেশে তাদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত থাকবে। 
সদ্য যোগদানকৃত কুতুবদিয়ার নবাগত অফিসার ইনচার্জ মুক্তিযুদ্ধা সন্তান একেএম সফিকুল আলম চৌধুরী বলেন, কক্সবাজারের সুযোগ্য পুলিশ সুপার  এবিএম মাসুদ হোসাইন (বিপিএম)  বার অতিরিক্ত পুলিশ    সুপার ( প্রশাসন) ইকবাল হোছাইন, কুতুবদিয়া - মহেশখালী সার্কেল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার  রতন কুমার দাশ গুপ্তের নির্দেশ মোতাবেক মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে যাবতীয় যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত এবং অভিযান বাস্তবায়ন করা হবে।  তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য তিনি কুতুবদিয়ার আপামর জনসাধারণকে অনুরোধ করেছেন। 
তিনি আরো বলেন, মাদক এবং জলদস্যুদের স্থান কুতুবদিয়ার মাটিতে হবে না।  জলদস্যু এবং মাদক ব্যবসায়ীদের জীবন রক্ষার্থে আত্নসমর্পণ ছাড়া আর কোন উপায় নেই। থানায় জিডি এবং পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর ক্ষেত্রে কোন আর্থিক লেনদেন হবে না। যদি কেউ কোন টাকা দাবী করে  আমাকে জানাবেন।      
"মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ হবে জনতার " এ স্লোগানকে ধারণ করে বাংলাদেশ পুলিশের পথচলা। জনগনের প্রাপ্য সেবা এবং তাদের জানমাল রক্ষার্থে কুতুবদিয়া থানা পুলিশ সচেষ্ট রয়েছেন। সামগ্রিক দায়িত্ব পালনে তিনি কুতুবদিয়ার সচেতন জনগণ,  রাজনীতিবিদ, সাংবাদিকসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন। 
কুতুবদিয়া - মহেশখালীর  সিনিয়র সহকারী  পুলিশ সুপার ( সার্কেল) রতন কুমার দাশগুপ্ত বলেন, মাত্র কয়েকদিন হলো কুতুবদিয়ার নতুন ওসি যোগদান করেছেন। ইতোমধ্যে কুতুবদিয়া থানা পুলিশের টিম মাদক এবং জলদস্যুদের বিরুদ্ধে এ্যাকশন শুরু করে দিয়েছে। ১২ টি মামলার আসামী জলদস্যু বাদুইল্লা সহ এবং কয়েকজন ইয়াবা কারবারিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছেন। 
তিনি আরো বলেন, নবাগত ওসি যোগদান করার কয়েকদিনের মধ্যে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযুদ্ধাদের  সম্মান প্রদর্শন এবং তাদের সম্মান রক্ষার্থে তাঁর  ডান পাশে চেয়ার বসিয়েছেন । এ ধরণের সৃজনশীল চিন্তাভাবনা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার। কুতুবদিয়াকে  মডেল নিরাপদ,  চমৎকার উপজেলা   রুপান্তর করতে জনগণের সার্বিক সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।   

উল্লেখ্য যে,  সদ্য যোগদানকৃত কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম সফিকুল আলম চৌধুরী মহেশখালী ও চকরিয়ায় সফলতার সাথে ওসি ( তদন্তের) দায়িত্ব পালন করেছেন।

থানাকে জনগণের সেবা কেন্দ্রে পরিণত করা হবেঃ কুতুবদিয়ার নবাগত ওসি
                                  
আবু সায়েম, কক্সবাজারঃ থানাকে জনগণের সেবা কেন্দ্র এবং মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে বদ্ধপরিকর দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ার নবাগত  ওসি মুক্তিযুদ্ধার সন্তান একেএম সফিকুল আলম চৌধুরী। গত ১ লা জুলাই কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসাইন  ( বিপিএম বার) অফিস স্বাক্ষরিত আদেশে চকরিয়া থানার ( তদন্ত) ওসি সফিকুল আলম চৌধুরীকে  কুতুবদিয়া থানার ওসি হিসেবে পদায়ন করেন। সম্প্রতি যোগদান করার পর পরেই মাদকমুক্ত, জলদস্যুক্ত, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিকসহ মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে অবিচল আছেন নবাগত ওসি। 
 
থানা সূত্রে জানা যায়, নবাগত ওসি যোগদানের পরেই জলদস্যু এবং ইয়াবা   কারবারিদের গ্রেপ্তার করতে কর্মপরিকল্পনা তৈরী করেছেন।
ইতোমধ্যে ১২ টি মামলার জলদস্যু এবং ইয়াবা কারবারিকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে কুতুবদিয়া থানা পুলিশ। নবাগত অফিসার ইনচার্জ একেএম সফিকুল আলম চৌধুরীর নির্দেশে কুতুবদিয়াকে বাসযোগ্য নিরাপদ মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে নানাধরণের কর্ম পরিকল্পনাসহ   মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স বাস্তবায়নে  যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত সম্পাদন করা হবে। 
থানা সূত্রে আরো জানা যায়, দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ায় প্রতিটি ওয়ার্ড ভিত্তিক মাদক ব্যবসায়ী  এবং জলদস্যুদের তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। তালিকা অনুসারে নবাগত ওসির নির্দেশে তাদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত থাকবে। 
সদ্য যোগদানকৃত কুতুবদিয়ার নবাগত অফিসার ইনচার্জ মুক্তিযুদ্ধা সন্তান একেএম সফিকুল আলম চৌধুরী বলেন, কক্সবাজারের সুযোগ্য পুলিশ সুপার  এবিএম মাসুদ হোসাইন (বিপিএম)  বার অতিরিক্ত পুলিশ    সুপার ( প্রশাসন) ইকবাল হোছাইন, কুতুবদিয়া - মহেশখালী সার্কেল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার  রতন কুমার দাশ গুপ্তের নির্দেশ মোতাবেক মডেল কুতুবদিয়া রুপান্তরে যাবতীয় যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত এবং অভিযান বাস্তবায়ন করা হবে।  তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য তিনি কুতুবদিয়ার আপামর জনসাধারণকে অনুরোধ করেছেন। 
তিনি আরো বলেন, মাদক এবং জলদস্যুদের স্থান কুতুবদিয়ার মাটিতে হবে না।  জলদস্যু এবং মাদক ব্যবসায়ীদের জীবন রক্ষার্থে আত্নসমর্পণ ছাড়া আর কোন উপায় নেই। থানায় জিডি এবং পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর ক্ষেত্রে কোন আর্থিক লেনদেন হবে না। যদি কেউ কোন টাকা দাবী করে  আমাকে জানাবেন।      
"মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ হবে জনতার " এ স্লোগানকে ধারণ করে বাংলাদেশ পুলিশের পথচলা। জনগনের প্রাপ্য সেবা এবং তাদের জানমাল রক্ষার্থে কুতুবদিয়া থানা পুলিশ সচেষ্ট রয়েছেন। সামগ্রিক দায়িত্ব পালনে তিনি কুতুবদিয়ার সচেতন জনগণ,  রাজনীতিবিদ, সাংবাদিকসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন। 
কুতুবদিয়া - মহেশখালীর  সিনিয়র সহকারী  পুলিশ সুপার ( সার্কেল) রতন কুমার দাশগুপ্ত বলেন, মাত্র কয়েকদিন হলো কুতুবদিয়ার নতুন ওসি যোগদান করেছেন। ইতোমধ্যে কুতুবদিয়া থানা পুলিশের টিম মাদক এবং জলদস্যুদের বিরুদ্ধে এ্যাকশন শুরু করে দিয়েছে। ১২ টি মামলার আসামী জলদস্যু বাদুইল্লা সহ এবং কয়েকজন ইয়াবা কারবারিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছেন। 
তিনি আরো বলেন, নবাগত ওসি যোগদান করার কয়েকদিনের মধ্যে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযুদ্ধাদের  সম্মান প্রদর্শন এবং তাদের সম্মান রক্ষার্থে তাঁর  ডান পাশে চেয়ার বসিয়েছেন । এ ধরণের সৃজনশীল চিন্তাভাবনা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার। কুতুবদিয়াকে  মডেল নিরাপদ,  চমৎকার উপজেলা   রুপান্তর করতে জনগণের সার্বিক সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।   

উল্লেখ্য যে,  সদ্য যোগদানকৃত কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম সফিকুল আলম চৌধুরী মহেশখালী ও চকরিয়ায় সফলতার সাথে ওসি ( তদন্তের) দায়িত্ব পালন করেছেন।

রেলে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা হবে না : রেলমন্ত্রী
                                  

রেলে আমরা কোনো প্রকার অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করবো না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমরা রেল পরিচালনা করছি বলে মন্তব্য করেছেন রেলপথমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন। এখন পর্যন্ত অর্ধেক প্যাসেঞ্জার নিয়ে যাতায়াত করছে ট্রেন। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত মিডিয়া ও রেলের যাত্রীসহ কারো কাছ থেকে আমরা তেমন কোনো অভিযোগ পাইনি। গত ঈদে যেভাবে ট্রেন চলেছে এ ঈদেও সেভাবেই চলবে, যদি সরকারের কোনো নির্দেশনা না থাকে।

আজ শনিবার (৪ জুলাই) দুপুরে বোদা উপজেলা অডিটোরিয়াম চত্বরে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৪শ মেধাবী নারী শিক্ষার্থীদের সাইকেল বিতরণ ও মন্ত্রীর নিজস্ব তহবিল থেকে গরিব দুস্থদের মধ্যে অনুদানের চেক প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় মুজিববর্ষ উপলক্ষে নারীর ক্ষমতায়ন ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে জেলা প্রশাসনের বিশেষ উদ্যোগে ১৭শ শিক্ষার্থীর মধ্যে বাইসাইকেল বিতরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন আরো বলেন, আমাদের নতুন করে ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানোর কোনো পরিকল্পনা নেই। আর করোনার মধ্যে যানযটের কোনো সুযোগ নেই। যদি কোরবানির ঈদকে নিয়ে সরকারের কোনো নির্দেশনা না থাকে তবে বর্তমানে যেভাবে ট্রেন চলছে আগামীতেও সেভাবেই চলবে।

ঈদকে সামনে রেখে মানুষের মুভমেন্ট যেন কম হয়, সরকার সে আবেদন জানাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক (ডিসি) সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার (এসি) মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত সম্রাট, বোদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আলম টবি, বোদা পৌর মেয়র ওয়াহিদুজ্জামান সুজা প্রমুখ।

এর আগে মন্ত্রী জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের হলরুমে বাইসাইকেল বিতরণ ও মন্ত্রীর নিজস্ব তহবিল থেকে গরিব দুস্থদের মধ্যে অনুদানের চেক বিতরণ করেন।

আগামী ১৪ জুলাই বগুড়া-১, যশোর-৬ আসনে উপ-নির্বাচন
                                  

বগুড়া-১ এবং যশোর-৬ আসনে আগামী ১৪ জুলাই উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব মো. আলমগীর। গত ২৯ মার্চ এ দুই আসনে ভোট হওয়ার ছিল। করোনার কারণে ভোটগ্রহণ স্থগিত রেখেছিল নির্বাচন কমিশন। সচিব বলেন, নতুন করে কোনো মনোনয়নপত্র জমা, দাখিলের প্রয়োজন নেই। যেসব প্রার্থী ছিলেন এবং যে অবস্থায় নির্বাচন স্থগিত হয়েছিল, সে অবস্থা থেকেই আবার কার্যক্রম শুরু হবে।

ভুতুড়ে বিলের ঘটনায় ডিপিডিসির ৫ জন বরখাস্ত
                                  

বেঁধে দেওয়া সাত দিনের মধ্যে ভুতুড়ে বিল সমন্বয় করতে ব্যর্থ হওয়ায় দেশের চারটি বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থার প্রায় ৩০০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ গঠিত টাস্কফোর্স। গত ২৫ জুন বিদ্যুৎ বিভাগ একজন অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে টাস্কফোর্স গঠন করে।

সাত দিনের মধ্যে ভুতুড়ে বিলের সমাধান না করতে পারলে বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এ জন্য শাস্তি দেওয়ার কথা বলে এই টাস্কফোর্স।

টাস্কফোর্স ঢাকার দক্ষিণে বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির (ডিপিডিসি) চারজন প্রকৌশলী সাময়িক বরখাস্ত করার সুপারিশ করেছে। এ ছাড়া ৩৬ জন প্রকৌশলীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া এবং আর ১৩ মিটার রিডার সুপারভাইজারকে বরখাস্ত করার সুপারিশ করেছে।

ঢাকা উত্তরের বিতরণ সংস্থা ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেডের (ডেসকো) দুজন মিটার রিডারকে বরখাস্তের সুপারিশ করেছে। রাজশাহী ও রংপুরের ১৬ জেলায় বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (নেসকো) লিমিটেডের দুজন মিটার রিডার বরখাস্ত করার সুপারিশ করা হয়েছে।

আর দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার বিতরণ সংস্থা ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ২৩০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কারণ দর্শাও, বরখাস্ত সহ বিভিন্ন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

দেশের সব থেকে বড় বিতরণ সংস্থা পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের (আরইবি) ৮০টি সমিতির কারা কারা ভুতুড়ে বিলের জন্য দায়ী এ ব্যাপারে এখনো কোনো তথ্য দেয়নি আরইবি। এখনো কোনো তথ্য দেয়নি বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডও (পিডিবি)।

এর মধ্যে টাস্কফোর্স কমিটির দেওয়া সুপারিশ অনুযায়ী ত্বরিত সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিপিডিসি। সুপারিশ অনুযায়ী যে চারজন কর্মকর্তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে আদাবর আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রকৌশলী মো. হেলাল উদ্দিন, একই এলাকায় দায়িত্বে থাকা উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. রায়হানুল আলম, সহকারী প্রকৌশলী মো. মজিবুল রহমান ভূঁইয়া ও কম্পিউটার ডেটা এন্ট্রি কো অর্ডিনেটর জেসমিন আহমেদ।

সাময়িক বরখাস্ত হওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অধিকতর তদন্ত শেষে দোষী প্রমাণিত হলে স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে। এ ছাড়া ৩৬টি আঞ্চলিক এর নির্বাহী প্রকৌশলীদের কারণ দর্শাও নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকাশ দেওয়ান চাকমা মুঠোফোনে বলেন, ‘মন্ত্রণালয় থেকে একটি কমিটি গঠন করে সাত দিনের সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। কমিটির সুপারিশে অনুযায়ী কিছু ব্যক্তিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে, ৩৬ জনকে কারণ দর্শাও নোটিশ দেওয়া হয়েছে। কিছু মাঠ কর্মীকে বরখাস্তের সুপারিশ করা হয়েছে। আমরা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া শুরু করেছি।

প্রসঙ্গত, দেশে ছয়টি বিতরণ সংস্থা রয়েছে। এদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে প্রকৃত বিলের চেয়ে কোথাও কোথাও তিন থেকে ১০ গুন বেশি বিল করার অভিযোগ উঠেছে।

বিএসএমএমইউতে করোনা ভাইরাসের রোগী ভর্তি শুরু
                                  

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ১০তলা কেবিন ব্লকে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রোগীরা সরাসরি কেবিন ব্লকে এসে নিয়ম অনুযায়ী সেখান থেকেই ভর্তি হচ্ছেন। শনিবার সকাল ৮টা থেকে এ ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়। বিএসএমএমইউ’র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, হাসপাতালের কেবিন ব্লকের পুরো ভবন করোনা ইউনিট করা হয়েছে। এজন্য সেখানে সেন্ট্রাল অক্সিজেনের পাশাপাশি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) ও হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট (এইচডিইউ) আছে। এ কেবিন ব্লকে আমরা আনুমানিক ২৫০ জন করোনা রোগীকে চিকিৎসা দিতে পারবো। সকাল ৮টা থেকে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রোগীরা আউটডোর থেকে নয়, সরাসরি কেবিন ব্লকে এসে নিয়ম অনুযায়ী সেখান থেকেই ভর্তি হচ্ছেন। তবে ভর্তি রোগীর সংখ্যা এখন কম। পরবর্তীতে তা বাড়তে পারে।

‘এছাড়া আমাদের বেতার ভবনকে আইসোলেশন সেন্টার করা হয়েছে। সেখানে ১২০ জন রোগী থাকতে পারবেন। তবে সেখানে আপাতত সেন্ট্রাল অক্সিজেন করা হচ্ছে না, সিলিন্ডার অক্সিজেন থাকবে।’

বিএসএমএমইউ’র পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল জুলফিকার আহমেদ আমিন বলেন, সকাল থেকেই হাসপাতালের কেবিন ব্লকে করোনা ভাইরাস রোগীদের ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এছাড়া বেতার ভবনে আমাদের আইসোলেশন সেন্টার প্রস্তুত আছে।

তিনি আরও বলেন, কেবিন ব্লকের সপ্তম তলায় ২১টি আইসিইউ বেড আছে। এছাড়া অষ্টম তলায় ১৬টি এইচডিইউ বেড আছে। কেবিন ব্লকে ভর্তি রোগীদের এক, দুই, তিন ও চতুর্থ তলায় রাখা হবে।

আরো ৩২৮৮ জনের করোনা শনাক্ত
                                  

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩২৮৮ জন । এ ছাড়া করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। আজ শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

আপনার সুস্থতা আপনার হাতে উল্লেখ করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

দেশে নভেল করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। আর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

দেশে করোনায় ঝরল আরো ২৯ প্রাণ
                                  

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মারা যান ৪২ জন। করোনায় এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৯৯৭ জন। মৃতদের ২১ জন পুরুষ এবং ৮ জন নারী। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৩২৮৮ জন। গতকাল শনাক্ত হয়েছিলেন ৩১১৪ জন।

আজ শনিবার (৪ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে সরকারি বুলেটিনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বুলেটিন প্রকাশে অংশ নেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

ডা. নাসিমা সুলতানা বরাবরের মতো করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান বুলেটিনে।

গোটা বিশ্ব এখন করোনাভাইরাসের ছোবলে বিপর্যস্ত। গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহর থেকে ছড়ায় এই ভাইরাস। এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ১০ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে পাঁচ লাখ ২৯ হাজার। তবে সাড়ে ৬৩ লাখ ৫৪ হাজারের বেশি রোগী এরই মধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম শনাক্ত হয় করোনাভাইরাস।

সাবেক মন্ত্রী টি এম গিয়াস উদ্দিন আর নেই
                                  

সাবেক মন্ত্রী, শরীয়তপুর জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও প্রবীণ রাজনীতিবিদ টি এম গিয়াস উদ্দিন আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স ছিল ৮৩ বছর। শুক্রবার দিনগত রাতে রাজধানীর গ্রিন লাইফ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শায়রুল কবির জানান, গিয়াস উদ্দিন জ্বর ও ডায়াবেটিস সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি দুই মেয়ে, এক ছেলে ও নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। শনিবার জোহরের নামাজের পর মোহাম্মদপুর তাজমহল রোড জামে মসজিদে নামাজের জানাজা শেষে তাজমহল রোড করবস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

সিঙ্গাপুর-কুয়ালালামপুর রুটে স্থগিত বিমানের ফ্লাইট
                                  

করোনা পরিস্থিতিতে আগামী ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে ফ্লাইট স্থগিত করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

শনিবার বিমানের ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়।  এতে বলা হয়, করোনায় উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে আন্তর্জাতিক রুট সিঙ্গাপুর ও কুয়ালালামপুরে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বিমানের ফ্লাইট স্থগিত করা হল। পরবর্তী সময়ে কবে ফ্লাইট চালু হবে, তা যথাসময়ে জানিয়ে দেওয়া হবে।

দেশে করোনায় নতুন ৩১১৪ জন শনাক্ত
                                  

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩,১১৪ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে। গতকাল শনাক্ত হয়েছিলেন ৪,০১৯ জন। এনিয়ে দেশে মোট শনাক্তের সংখা দাঁড়াল ১,৫৬,৩৫১ জন। আজ শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪,৬৫০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়।
আপনার সুস্থতা আপনার হাতে উল্লেখ করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়। দেশে নভেল করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। আর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।


   Page 1 of 139
     সারা দেশ
মৃত্যু বেড়ে ২০৫২, মোট শনাক্ত ১৬২৪১৭
.............................................................................................
আজ ঝড়বৃষ্টির আভাস দেশের আট অঞ্চলে
.............................................................................................
ভাষাসৈনিক বিচারপতি আনসার আলীর মৃত্যুবার্ষিকী আজ
.............................................................................................
পদ্মার পানি বাড়ছে, ভয়ংকর চেহারায় ফিরছে ভাঙন
.............................................................................................
করোনার কারণে প্রায় অর্ধেক শিশুই টিকাদান কর্মসূচির বাইরে
.............................................................................................
থানাকে জনগণের সেবা কেন্দ্রে পরিণত করা হবেঃ কুতুবদিয়ার নবাগত ওসি
.............................................................................................
থানাকে জনগণের সেবা কেন্দ্রে পরিণত করা হবেঃ কুতুবদিয়ার নবাগত ওসি
.............................................................................................
রেলে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা হবে না : রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
আগামী ১৪ জুলাই বগুড়া-১, যশোর-৬ আসনে উপ-নির্বাচন
.............................................................................................
ভুতুড়ে বিলের ঘটনায় ডিপিডিসির ৫ জন বরখাস্ত
.............................................................................................
বিএসএমএমইউতে করোনা ভাইরাসের রোগী ভর্তি শুরু
.............................................................................................
আরো ৩২৮৮ জনের করোনা শনাক্ত
.............................................................................................
দেশে করোনায় ঝরল আরো ২৯ প্রাণ
.............................................................................................
সাবেক মন্ত্রী টি এম গিয়াস উদ্দিন আর নেই
.............................................................................................
সিঙ্গাপুর-কুয়ালালামপুর রুটে স্থগিত বিমানের ফ্লাইট
.............................................................................................
দেশে করোনায় নতুন ৩১১৪ জন শনাক্ত
.............................................................................................
সিনিয়র সাংবাদিক ফারুক কাজী আর নেই
.............................................................................................
ঈদকে ঘিরে বড় ধাক্কার ঝুঁকি
.............................................................................................
সুমন বেপারীর বক্তব্য অসংলগ্ন : তদন্ত কমিটি
.............................................................................................
গেদুচাচা ও রেহানার মৃত্যুতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসমাঈল হোসেন বেঙ্গল এর শোক
.............................................................................................
রাঙ্গুনিয়ায় অগ্নিদগ্ধ হওয়ার হাজী আবু আহমদের স্ত্রীর ইন্তেকাল
.............................................................................................
দেশে করোনায় আক্রান্ত দেড় লাখ ছাড়ালো, মৃত্যু ২ হাজার ছুঁই ছুঁই
.............................................................................................
পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হলো কুয়াকাটা
.............................................................................................
অবৈধ পথে ভারতীয় গরু আসছে উত্তরের সীমান্ত দিয়ে
.............................................................................................
মেরামতে লাগবে ১৫ দিন, ভারি যান চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় অবনতি হতে পারে বন্যা পরিস্থিতির
.............................................................................................
রাঙ্গুনিয়ায় নতুন করে ১৫ জনসহ সর্বোচ্চ ১৮ জনের করোনা শনাক্ত!
.............................................................................................
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা সামগ্রী দিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ি নৌ-রুটে ১৮ ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল শুরু
.............................................................................................
শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
খুলে দেয়া হলো পোস্তগোলার বুড়িগঙ্গা সেতু
.............................................................................................
একদিনে ৬৪, করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড
.............................................................................................
লঞ্চ উদ্ধারে আসা জাহাজের ধাক্কায় বুড়িগঙ্গা সেতুতে ফাটল
.............................................................................................
আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার, মোট ৩৩
.............................................................................................
উদ্ধার হলো ডুবে যাওয়া লঞ্চ মর্নিং বার্ড
.............................................................................................
১৪ বছরে ৫৩৫ নৌ-দুর্ঘটনা, ৬ হাজারেরও বেশি প্রাণহানি
.............................................................................................
নাটোর সদরে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে ডঃ ওয়াজেদ আলী কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
.............................................................................................
একে একে উদ্ধার হলো ৩৬ জনের লাশ
.............................................................................................
পানছড়ির দুর্গম এলাকায় ত্রাণ পৌঁছাল সেনাবাহিনী
.............................................................................................
৩২ জনের লাশ শনাক্ত
.............................................................................................
লঞ্চডুবিতে নিখোঁজদের স্বজনরা যোগাযোগ করুন এই নম্বরে
.............................................................................................
বুড়িগঙ্গার বাতাশে লাশের গন্ধ, বাড়ছে সংখ্যা
.............................................................................................
রেস্তোরাঁগুলো ১৮ ঘণ্টা খোলা রাখতে মালিক সমিতির ৫ দফা
.............................................................................................
অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি
.............................................................................................
চলনবিলবাসীকে দেয়া অঙ্গীকার পূরণ করেছি : পলক
.............................................................................................
করোনায় প্রাণ দিলেন পুলিশ সদস্য আতিয়ার
.............................................................................................
পদ্মার চরে ৫ ভারতীয়কে বিবস্ত্র করে মারধর বিএসএফের
.............................................................................................
ফুঁসছে নদ-নদী, হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি
.............................................................................................
রাঙ্গুনিয়ায় জামে মসজিদ`র উপদেষ্টা কমিটি সভা অনুষ্ঠিত!
.............................................................................................
রাঙ্গুনিয়ায় মরহুম চাঁদ মিয়া পরিবারের পক্ষ থেকে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ!
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD