| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * এবার বগি লাইনচ্যুত হয়ে রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন   * ৪ উইকেট হারিয়ে ১০০ পার বাংলাদেশের   * আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত   * ৬৯ বার পেছাল সাগর-রুনি হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন   * রোগীদের টাকায় চলে টাঙ্গাইল ডায়াবেটিক হাসপাতাল   * আয়কর মেলায় উপচেপড়া ভিড়   * চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদার জামিন খারিজের বিরুদ্ধে আপিল   * ফোক ফেস্ট শুরু হচ্ছে আজ, প্রথমদিন মঞ্চ মাতাবেন যারা   * ধড়পাকড়ে স্বপ্ন এখন দুঃস্বপ্ন, ফিরলেন আরও ২১৫ কর্মী   * ৪৮ ঘণ্টায় ৩২ ফিলিস্তিনি নিহত  

   সারা দেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
এবার বগি লাইনচ্যুত হয়ে রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

এবার সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হয়ে আগুন লেগেছে। তবে এখনো কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার দুপুরে উল্লাপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল হামিম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।


স্থানীয় সূত্রে জানা, উল্লাপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের কাছে রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের পাঁচটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। এতে এসিসহ দুইটি বগিতে আগুন লেগেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এ দুর্ঘটনার পর ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

এর আগে মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ভোররাত পৌনে ৩টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে তূর্ণা নিশীথা ও উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষে ১৬ জন নিহত এবং শতাধিক আহত হন। দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাস সুজন দুর্ঘটনার জন্য তূর্ণা নিশীথার লোকোমোটিভ মাস্টারকে দায়ী করেন। দুর্ঘটনার পরই তূর্ণার লোকোমোটিভ মাস্টার ও সহকারী মাস্টারকে বরখাস্ত করা হয়।

এবার বগি লাইনচ্যুত হয়ে রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন
                                  

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

এবার সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হয়ে আগুন লেগেছে। তবে এখনো কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার দুপুরে উল্লাপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল হামিম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।


স্থানীয় সূত্রে জানা, উল্লাপাড়া রেলওয়ে স্টেশনের কাছে রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের পাঁচটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। এতে এসিসহ দুইটি বগিতে আগুন লেগেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এ দুর্ঘটনার পর ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

এর আগে মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ভোররাত পৌনে ৩টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে তূর্ণা নিশীথা ও উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষে ১৬ জন নিহত এবং শতাধিক আহত হন। দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাস সুজন দুর্ঘটনার জন্য তূর্ণা নিশীথার লোকোমোটিভ মাস্টারকে দায়ী করেন। দুর্ঘটনার পরই তূর্ণার লোকোমোটিভ মাস্টার ও সহকারী মাস্টারকে বরখাস্ত করা হয়।

আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধি


কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের হাতে আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একাধিক মামলার আসামি রোহিঙ্গা ডাকাত মাহমুদুল হাসান (৩৭) নিহত হয়েছেন। বুধবার (১৩ নভেম্বর) সন্ধ্যায় আটকের পর পাহাড়ে অবস্থানকারী অপরাধী হিসেবে মাহমুদুল হাসানকে নিয়ে পুলিশ গভীর রাতে অস্ত্র উদ্ধারে গেলে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এ সময় তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। ঘটনাস্থল হতে এটি বিদেশি পিস্তল ও বুলেট উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ।



নিহত মাহমুদুল হাসান (৩৭) নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ ব্লকের মৃত বাকের আহমদের ছেলে।

টেকনাফ থানা সূত্র জানায়, বুধবার সন্ধ্যার দিকে আটক হাসানকে নিয়ে গভীর রাতে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ শালবাগান ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে গেলে স্বশস্ত্র রোহিঙ্গা ডাকাত এবং পুলিশের মধ্যে ব্যাপক গোলাগুলিতে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। এই ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবল মিঠুন, শাহীন ও হাবিব আহত হন। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে কিছুক্ষণ পর হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে একটি বিদেশি পিস্তল, বেশ কয়েক রাউন্ড বুলেটসহ গুলিবিদ্ধ ডাকাত মাহমুদুল হাসানকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখান হতে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে হস্তান্তর করা হয়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

টেকনাফ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, মরদেহটি উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহত মাহমুদুল হাসান একাধিক মামলার আসামি ছিলেন। এ ঘটনায় পৃথক মামলা করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

 
রোগীদের টাকায় চলে টাঙ্গাইল ডায়াবেটিক হাসপাতাল
                                  

 টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

  

ডায়াবেটিস সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আজ (১৪ নভেম্বর) পালিত হচ্ছে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। তবে এ ব্যাধি সম্পর্কে এখনো অসচেতন টাঙ্গাইলবাসী। ফলে এ জেলায় ক্রমশই উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা।

 

এদিকে টাঙ্গাইল জেলায় এ রোগে আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবায় রয়েছে মাত্র একটি হাসপাতাল। কিন্তু সরকারি-বেসরকারি কোনো আর্থিক সহায়তা না পাওয়ায় সেখানে কর্মরত চিকিৎসক, কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেতন-ভাতা রোগীদের চিকিৎসা থেকে আয়ের উপর নির্ভরশীল। ফলে হাসপাতালের সেবা বৃদ্ধিতে সচেষ্ট নয় সংশ্লিষ্টরা। এতে এ হাসপাতালের প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছেন রোগীরা।

 

 

 

জানা গেছে, ১৯৮৭ সালের ২৫ অক্টোবর টাঙ্গাইল পৌর এলাকার সাবালিয়ায় প্রতিষ্ঠিত হয় জেলার একমাত্র ডায়াবেটিক হাসপাতাল। ৩৫ জন কর্মকর্তা কমচারী নিয়ে পরিচালিত এ হাসপাতালের প্রধান, ডেপুটি চিফ মেডিকেল অফিসারসহ রয়েছেন আরও চারজন চিকিৎসক। সপ্তাহের শুক্রবার ছাড়া বাকি ছয়দিন সকাল ৮ থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত চলে এ হাসপাতালের কার্যক্রম। ২০১৮ সালের জুলাই থেকে ২০১৯ সালের জুন পর্যন্ত হাসপাতালটিতে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন ৮৯ হাজার ৭৭৫ জন।

 

 

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন এ হাসপাতালে ডায়াবেটিস রোগের জিটিটি (গ্লুকোজ টলারেন্স টেস্ট) পরীক্ষা ফি ২৮০, এবিএফ (আফটার ব্রেকফাস্ট) ১০০, লিবার ১৮০, কিডনি ১৮০ আর হার্টের ইসিজি ফি ১৬০ টাকা।

 

হাসপাতালটির সেবার মান নিয়ে ক্ষুব্ধ ডায়াবেটিস আক্রান্ত রুমি খান, বুলবুল মল্লিক, নয়ন, মর্জিনা বেগমসহ একাধিক রোগী বলেন, বছরের একটি দিন (১৪ নভেম্বর) র‌্যালি আর সভা সেমিনারে সীমাবদ্ধ রেখে নামমাত্র বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালনে কতটা সচেতনা বৃদ্ধি সম্ভব? এ রোগ নিয়ন্ত্রণে সরকারি তেমন কোনো উদ্যোগ না থাকায় ভয়াবহ হারে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এমন অবস্থায় এ রোগ নিয়ন্ত্রণে জরুরি ভিত্তিতে একটি পূর্ণাঙ্গ হাসপাতাল প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন টাঙ্গাইল ডায়াবেটিক হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মাহবুব বিন রশীদ।

 

 

তিনি জানান, ডায়াবেটিস রোগীদের হার্ট, কিডনি, লিভার ও ব্রেনস্ট্রোকে আক্রান্তের উচ্চ ঝুঁকিতে থাকেন। এ জন্য এ রোগের সঠিক চিকিৎসায় টাঙ্গাইলে একটি পূর্ণাঙ্গ হাসপাতাল প্রয়োজন।

 

তিনি জানান, বর্তমান হাসপাতালে শুধু ডায়াবেটিস রোগের সেবা দেয়া সম্ভব হলেও হার্ট, কিডনি, লিভার ও ব্রেন জনিত রোগের চিকিৎসক না থাকায় এসব রোগে আক্রান্তরা চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। ফলে এ জেলায় ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হচ্ছে না।

 

 

এছাড়াও হাসপাতালে কর্মরতদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করতে হচ্ছে রোগীদের কাছ থেকে নেয়া ফি দিয়ে। যা সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে একটি বড় প্রতিবন্ধকতা হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে জানান তিনি।

 

এ প্রসঙ্গে ডায়াবেটিস চিকিৎসক ও ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের সাবেক তত্ত্বাবধায়ক ডা. সৈয়দ ইবনে সাঈদ জানান, রাষ্ট্রীয়ভাবে সংক্রমণ ব্যাধির বিষয়ে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা রয়েছে। এ কারণে দেশে মানুষের গড় আয়ু বাড়ছে। তাই ডায়াবেটিসের মত অসংক্রমণ ব্যাধির বিষয়েও এই মুহূর্তে সরকারের দৃষ্টি প্রয়োজন।

আমন ধানের দাম নিয়ে শঙ্কায় চাষিরা
                                  

নওগাঁ প্রতিনিধি


নওগাঁয় শুরু হয়েছে আমন ধান কাটা-মাড়াই। সোনালি ফসল ঘরে তুলতে ব্যস্ত চাষিরা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় গত বছরের মতো এবারও আমনের ফলন ভালো হয়েছে। এদিকে সরকার ২৬ টাকা কেজি দরে আগাম ধান কেনার ঘোষণা দিলেও বাজারে দাম নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে চাষিরা।

চাষিরা জানান, বাজারে কৃষি উপকরণের দাম বেশি হওয়ায় ফসল উৎপাদন করতে খরচ কিছুটা বেশি পড়েছে। উপকরণের দাম কম হলে উৎপাদনে খরচ কমবে। ধানের ন্যায্য দাম পেলে খরচ মিটিয়ে লাভবান হবেন তারা।



জানা যায়, গত সপ্তাহ থেকে আমন ধান কাটা-মাড়াই শুরু হয়েছে। আবহাওয়া ভালো থাকায় মাড়াইয়ের আগে কাটা ধান জমিতে শুকানো হচ্ছে। ধান গোলায় তুলতে ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা। গত বছরের ন্যায় এ বছরও ফলন ভালো হয়েছে। বিঘাপ্রতি প্রায় ১৮-২২ মণ হারে ফলন হচ্ছে। তবে ফলন ভালো হলেও চাষিরা বাজারে ভালো দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন।

Paddy-cover

জেলার বদলগাছী উপজেলার মথুরাপুর গ্রামের আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, জমিতে রোপণ থেকে শুরু করে সার, ওষুধ ও কাটা-মাড়াই করে ধান ঘরে তুলতে প্রায় ৮-৯ হাজার টাকা খরচ হয়। এবছর বিঘাপ্রতি প্রায় ১৮-২২ মণ হারে ফলন হয়েছে। বাজারে নতুন ধান ৫৫০-৬০০ টাকা মণ দরে বিক্রি হচ্ছে। দাম ৮০০ টাকা মণের নিচে হলে তেমন কিছুই থাকবে না।

কৃষক সাইদুর রহমান ও উৎপল কুমার জানান, প্রথমে কারেন্ট পোকার আক্রমণ হলেও কীটনাশক প্রয়োগে রক্ষা পাওয়া গেছে। তবে উৎপাদন খরচ বেশি পড়েছে। সরকার ২৬ টাকা কেজি দরে আগাম ধান কেনার ঘোষণায় তারা খুশি। তবে খোলা বাজারে দাম নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন তারা।


জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘চলতি রোপা-আমন মৌসুমে জেলায় প্রায় ১ লাখ ৯৭ হাজার হেক্টর জমিতে আবাদ করা হয়েছিল। সেখানে প্রতি হেক্টরে ৩ মেট্রিন টন হিসেবে প্রায় ৬ লাখ মেট্রিক টন চাল সংগ্রহ হবে।’

 
টাকার অভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কি আটকে যাবে?
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

 

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন ইয়ামিন আক্তার। কিন্তু টাকার অভাবে শেষ পর্যন্ত কোথাও ভর্তি হতে পারবেন কি না, ভর্তি হলেও পড়াশোনার খরচ কীভাবে জোগাবেন, সেই দুশ্চিন্তা তাঁকে তাড়া করছে।

 

ইয়ামিন আক্তারের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ভাতশালা গ্রামে। তাঁর বাবা বাহার ভূঁইয়া বেঁচে নেই। মা মারুফা বেগম গৃহিণী। চার বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে ইয়ামিন পঞ্চম। দুই বোনের বিয়ে হয়ে গেছে। দুই ভাইয়ের মধ্যে ছোট দ্বীন ইসলাম স্থানীয় চিনাইর আঞ্জুমান আরা উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। বোন ইয়াজ আক্তার চিনাইর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব অনার্স কলেজে স্নাতক (পাস) তৃতীয় বর্ষে পড়েন। বড় ভাই মো. আলামিন পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তিনি কাঁচামালের ব্যবসা করেন। তাঁর আয়ে কোনোমতে চলে পাঁচজনের সংসার।

 

 

ইয়ামিন আক্তার। দারিদ্র্যের সঙ্গে লড়াই করে পড়াশোনা করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ তিনটি বিশ্ববিদ্যায়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন।

 

ইয়ামিন বলেন, ‘অভাব আমার পরিবারের নিত্যসঙ্গী। পড়াশোনার খরচ চালানো পরিবারের পক্ষে সম্ভব ছিল না; এখনো সম্ভব নয়। ছাত্রছাত্রী পড়িয়ে অল্প কিছু টাকা পেতাম। তা দিয়ে পড়েছি এবং পরিবারকে সাহায্য করেছি। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছি। উচ্চশিক্ষা লাভ করতে চাই। কিন্তু টাকার অভাবে ভর্তি হতে পারব কি না, এই দুশ্চিন্তায় আমরা অস্থির। সামনে কী হবে কিছুই জানি না।’

 

ইয়ামিন ভর্তি পরীক্ষায় মেধাতালিকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটে ৮৫৯তম স্থান পেয়েছেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘সি’ ইউনিটে হয়েছেন ১৪৬তম। এ ছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বি’ ইউনিটে ১ হাজার ৩৯৯তম স্থান অর্জন করেছেন।

 
৭ ঘণ্টা পর চরে আটকেপড়া লঞ্চের ৫০০ যাত্রী উদ্ধার
                                  

বরিশাল প্রতিনিধি

বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার কালীগঞ্জের ভোলার চর সংলগ্ন মেঘনা নদীর চরে আটকেপড়া এমভি শাহরুখ-২ এর প্রায় ৫০০ যাত্রীকে ৭ ঘণ্টা পর উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার এমভি পূবালী-১ নামে অন্য একটি লঞ্চে এম ভি শাহরুখ-২ এর যাত্রীদের তুলে দেয়া হয়। এরপর এমভি পূবালী-১ লঞ্চটি ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়।

বুধবার (১৩ নভেম্বর) ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে দিকে মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার কালীগঞ্জের ভোলার চর সংলগ্ন মেঘনা নদীর চরে প্রায় ৫০০ যাত্রী নিয়ে আটকা পড়ে এম ভি শাহরুখ-২ লঞ্চটি।

লঞ্চের যাত্রীরা জানান, মঙ্গলবার বিকেলে ৫ শতাধিক যাত্রী নিয়ে বরগুনা থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে এম ভি শাহরুখ-২ লঞ্চটি। ভোররাত সাড়ে ৩টার কোনো কিছুর সঙ্গে ধাক্কা লাগার শব্দ হয়। বাইরে গিয়ে দেখা যায় লঞ্চটি চরে উঠে গেছে। লঞ্চ মাস্টারের গাফিলতির কারণেই এমনটা হয়েছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) বরিশাল নৌ-নিরাপত্তা শাখার উপ-পরিচালক ও বন্দর কর্মকর্তা আজমল হুদা মিঠু জাগো নিউজকে বলেন, চরে আটকে থাকার খবর পেয়ে লঞ্চটির মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। লঞ্চ মালিক মো. মাসুম খানকে আটকে থাকা যাত্রীদের দ্রুত উদ্ধার করে ঢাকা পাঠাতে বলা হয়।

এমভি শাহরুখ-২ লঞ্চের মালিক মো. মাসুম খান জানান, লঞ্চটি আটকেপড়ার খবর পেয়ে তার কোম্পানির এমভি পূবালী-১ লঞ্চ পাঠান। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এমভি শাহরুখ-২ এর ৪৫০ থেকে ৫০০ যাত্রীকে ওই লঞ্চে করে ঢাকার উদ্দেশে পাঠনো হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত যাত্রীদের নিয়ে ওই লঞ্চটি চাঁদপুর অতিক্রম করেছে।


তিনি বলেন, লঞ্চটি কীভাবে চরে আটকা পড়লো তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এতে লঞ্চের মাস্টার ও সুকানীর গাফিলতি ছিল কি-না তাও জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। তাদের গাফিলতির প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
এমপির পিএসসহ দুইজনকে কোপানোর ঘটনায় সড়ক অবরোধ
                                  

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ-২ আসনের এমপি তাহজীব আলম সিদ্দিকী সমির পিএস কামাল হোসেন (৪০) ও মটর শ্রমিক পলাশকে (৩০) কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন শ্রমিকরা। বুধবার (১৩ নভেম্বর) সকাল ৭টা থেকে তারা ঝিনাইদহ শহরে মাওলানা ভাসানী সড়ক অবরোধ করে রাখেন। পরে সকাল ১০টার দিকে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে তারা অবরোধ তুলে নেন।

জেলা বাস-মিনিবাস ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ওলিয়ার রহমান বলেন, গতকাল এমপির পিএস কামাল হোসেন এবং আমাদের মটর শ্রমিক পলাশকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় যারা জড়িত রয়েছে তাদের আটকের দাবিতে এই কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। অনতিবিলম্বে ঘটনায় জড়িতদের আটক করা না হলে আরও কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।


ঝিনাইদহ সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈন উদ্দিন জানান, হামলার ঘটনায় জড়িতদের আটকের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নিয়েছেন। তবে এ ঘটনায় এখনও কোনো মামলা হয়নি।

এর আগে মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঝিনাইদহ-২ আসনের এমপি তাহজীব আলম সিদ্দিকী সমির পিএস কামাল হোসেন তার অফিসে বসে ছিলেন। এ সময় অফিস থেকে বের হয়ে রাস্তার ওপর আসলে কয়েকজন সন্ত্রাসী তাকে ও তার পাশে থাকা মটর শ্রমিক পলাশকে কুপিয়ে আহত করে। পরে তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 
কুমিল্লায় তারেক মনোয়ারসহ ৩ বক্তার ওয়াজ নিষিদ্ধ
                                  

কুমিল্লা প্রতিনিধি

 

ইসলামি বক্তা ও টিভি উপস্থাপক মাওলানা তারেক মনোয়ারসহ তিন বক্তার ওয়াজ নিষিদ্ধ করেছে কুমিল্লা জেলা প্রশাসন। ওয়াজ মাহফিলে ধর্মীয় উসকানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে কুমিল্লায় তারা ওয়াজ করতে পারবেন না। গত সোমবার (১১ নভেম্বর) কুমিল্লা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।

নিষিদ্ধের তালিকায় মাওলানা তারেক মনোয়ার ছাড়াও আরও দুই বক্তা হলেন- আবদুর রাজ্জাক এবং জসিম উদ্দিন।

জেলা আইনশৃঙ্খখলা কমিটির সভার সভাপতি জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর বলেন, উল্লেখিত ওয়াজকারী বক্তারা দীর্ঘ বছর ধরে ওয়াজের নামে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে আসছে। তাদের ওয়াজে ইসলামের আদর্শ ও দেশ প্রেমের চেয়ে উগ্রবাদ প্রকাশ পায়। তাই তাদের ওয়াজ কুমিল্লায় নিষিদ্ধ করা হলো।

তিনি আরও বলেন, কিছু বক্তা মাফফিলে বিভ্রান্তিকর বক্তব্য দেন। বিশৃঙ্খলা ছড়াতে উসকানিমূলক কথাবার্তা বলেন। এ ধরনের বক্তাদের মাহফিলে কিছুতেই দাওয়াত দেয়া যাবে না। ইতোমধ্যেই আমরা তিনজনের তালিকা করেছি। এই তিনজনকে কোনো মাহফিলে ওয়াজ করতে দাওয়াত দেয়া যাবে না, অন্ততপক্ষে কুমিল্লায় তো নয়ই। কুমিল্লায় কিছুতেই শান্তি বিনষ্ট হতে দেয়া যাবে না। এ বিষয়ে আমরা বেশ সতর্ক।

সভায় উপস্থিত কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ মো. নুরুল ইসলাম বলেন, আমাদের দেশের মানুষ সহজ-সরল ও অত্যান্ত ধর্মপ্রাণ। তাদের সরলতার সুযোগ নিয়ে ধর্মীয় অনুভূতিকে কাজে লাগিয়ে কোনো কোনো বক্তা ইসলামের ভুল ব্যাখ্যা উপস্থাপন করেন এবং শান্তিময় পরিবেশ নষ্ট করেন। এসব ওয়াজকারীদের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। তাই যথাযথ অনুমতি নিয়ে ওয়াজ-মাহফিলের আয়োজন করতে হবে। যেই স্থানে মাহফিল আয়োজন করা হবে সেখানে যেন অবশ্যই সাউন্ড সিস্টেমটি প্যান্ডেলের ভেতরে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি ছিলেন ধর্ম অনুরাগী এবং তিনি আলেমদের সম্মান করতেন। তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ধর্মপ্রাণ। তার উদ্যোগে দেশের প্রতিটি উপজেলায় মডেল মসজিদ নির্মিত হচ্ছে।

 

 
চুরির অপবাদে মৎস্যচাষিকে নির্যাতন, গ্রেফতার ২
                                  

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

 

চুরির অপবাদে মৎস্যচাষিকে নির্যাতন, গ্রেফতার ২

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে চুরির অপবাদ দিয়ে মৎস্যচাষি মজনু চৌধুরীসহ দুইজনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উপজেলার ভোলাব ইউনিয়নের চারিতালুক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

 

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগম ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তরিকুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি দল সরেজমিন গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পান। পরে দোষী দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতারসহ মজনু চৌধুরীর তিনটি পুকুর দখলমুক্ত করে তাকে বুঝিয়ে দেয় প্রশাসন।

 

গ্রেফতাররা হলেন- চারিতালুক এলাকার মৃত লস্কর আলী প্রধানের ছেলে নুরুল ইসলাম ও মনির হোসেন।

 

অভিযানের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন রূপগঞ্জ থানা পুলিশের ইন্সপেক্টর (তদন্ত) এমদাদ হোসেন, ভোলাব তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সফিকুল ইসলাম, ভোলাব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন টিটু প্রমুখ।

 

rupgonj

 

রূপগঞ্জ থানা পুলিশের ইন্সপেক্টর (তদন্ত) এমদাদুল হক জানান, এ ঘটনায় দুই জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হবে। নির্যাতনের শিকার মৎসচাষি মজনু চৌধুরী বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

 

 

জানা যায়, চারিতালুক এলাকায় মিজানুর রহমান নামে এক ব্যক্তির বাড়ির কেয়ারটেকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন মজনু চৌধুরী। বাড়ির মালিক মিজানুর রহমান ও তার স্ত্রী মেহেরুন্নেছা মারা যাওয়ার পর থেকেই ওই এলাকার মজিবুর রহমানের ছেলে মাহাবুর, মোহাম্মদ মিয়ার ছেলে আকবর মিয়া, আইয়ুব মিয়া, ইয়ানুছ মিয়ার ছেলে মাজাহারুল ও নাজমুলসহ তাদের নিয়োজিত সন্ত্রাসী বাহিনী বাড়িঘর দখলের চেষ্টা করাসহ মজনু চৌধুরীকে নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতন করে আসছিল।

 

মজনু চৌধুরী জানান, তিনি বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে ও তিনটি পুকুর বর্গা নিয়ে মাছ চাষ করে আসছেন। পুকুরের চারপাশে লাউসহ বিভিন্ন সবজি চাষ করেন। ৩ মাস আগে উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা এক বিঘার একটি পুকুর দখল করে নেয়। বাকি দুইটি পুকুরের মাছও জোরপূর্বক বিক্রি করে দেয়। পুকুর পাড়ে চাষ করা লাউসহ সবজি গাছ কেটে ফেলে। পুকুরে গেলেই মজনু চৌধুরীকে হত্যা ও হামলার হুমকি দিতে থাকে অভিযুক্তরা। গত এক মাস আগে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা ফজরের নামাজরত অবস্থায় মসজিদ থেকে ডেকে নিয়ে মোশারফ হোসেন নামে এক যুবকের সঙ্গে মজনু চৌধুরীকে চুরির অপবাধ দিয়ে নারিকেল গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন চালায়। দীর্ঘ এক মাস ঢাকার সোহরওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর বাড়ি ফিরে তিনি প্রশাসনের কাছে অভিযোগ দেন।

 
উপজেলা আ.লীগ নেতার কানাডায় বাড়ি, কোটি টাকার সম্পত্তি!
                                  

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি           

 

সুনামগঞ্জ-১ (তাহিরপুর, জামালগঞ্জ, ধর্মপাশা) আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের পর এবার সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) অভিযোগ করা হয়েছে। গত সোমবার (১১ নভেম্বর) বিকেলে তাহিরপুর উপজেলার ভাটি তাহিরপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এমদাদ নূর দুদকের প্রধান কার্যালয়ে এ অভিযোগ জমা দেন।

 

অভিযোগে তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন খা ও সাধারণ সম্পাদক অমল করের বিরুদ্ধে বিতর্কিত ও দুর্নীতি মূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকায় তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার দাবি জানানো হয়।

 

 

অভিযোগে বলা হয়, ২০১৫ সালে তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদ লাভের পর থেকে দলীয় পদবী ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন অমল কর। হঠাৎ করে তিনি আঙুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছেন। অমল কর ২০০৮-২০১৫ সাল পর্যন্ত তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক থাকাকালে এবং ২০১৫ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক থাকাকালে সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনী সৃষ্টি করে ব্যাপক চাঁদাবাজি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিশাল সম্পত্তির মালিক হয়েছেন।

 

তিনি অবৈধ পথে উপার্জিত টাকায় সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার বাঁধনপাড়া এলাকায় বহুতল বিশিষ্ট ভবনের মালিক হয়েছেন। যার বাজার মূল্য ৮ কোটি টাকা। অমল কর কানাডাতেও বাড়ি ক্রয় করেছেন। তিনি তার অবৈধ অর্থ কানাডাতে স্থানান্তর করেছেন। তার স্ত্রী ও সন্তান বর্তমানে কানাডাতে অবস্থান করছেন। তাছাড়া তিনি গত অক্টোবর মাস কানাডাতে পরিবারের সঙ্গে অবস্থান করেছেন।

 

 

 

অভিযোগে আরও বলা হয়, তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অমর করের দেশ-বিদেশের অনেক ব্যাংকে কোটি কোটি টাকা জমা রয়েছে।

 

দুদকে অভিযোগকারী মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এমদাদ নূর বলেন, অমল কর সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর থেকে দলীয় ক্ষমতার অপব্যবহার করে বালু, পাথর, কয়লাঘাট, চুনাপাথর ঘাট, হাট-বাজার অফিসসহ বিভিন্ন উৎসে চাঁদা আদায় করে বিত্তশালী হয়েছেন এবং বিলাসী জীবন-যাপন করছেন। অতিরিক্ত টাকা হাতে আসায় তিনি বিভিন্ন দেশে ঘুরে বেড়ান। কানাডায় বাড়ি করে পরিবারকে ওই জায়গায় স্যাটেল করেছেন।

 

 

এ বিষয়ে তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অমল কর বলেন, আমি ভ্রমণ প্রিয় মানুষ। আমি বিভিন্ন সময় ভারত, কানাডা, সিঙ্গাপুর ঘুরতে যাই। আমার কয়লার ব্যবসা রয়েছে। আমি সৎ পথে ব্যবসা করি এবং সেই টাকায় বিদেশে ঘুরতে যাই। আমার কোনো কানাডায় বাড়ি নেই। আমার পরিবার আমার সঙ্গে সুনামগঞ্জে রয়েছে।

 

 

তিনি আরও বলেন, সামনে তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। এই সম্মেলনকে কেন্দ্র করে কিছু দলের বিরোধী লোকেরা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে যাচ্ছে। তারা এক সময় জামায়াত-বিএনপির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল।

 
সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে স্কুলের টাকা আত্মসাৎ
                                  

নওগাঁ প্রতিনিধি   

 

 

নওগাঁয় বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে চেকের মাধ্যমে ব্যাংক থেকে স্লিপের টাকা উঠিয়ে আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে এনামুল ইসলাম নামে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। তিনি বর্তমানে নওগাঁ সদরের কফিল উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আছেন।

 

এর আগে উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের গঙ্গাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক থাকাকালে তিনি এমন কাজ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দফতরে জানানো হয়েছে।

 

জানা গেছে, গত ৪ নভেম্বর গঙ্গাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক বনভোজন, সমাপনী শিক্ষার্থীদের বিদায় ও আগামী বছরের উন্নয়নসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি, সহ-সভাপতি, বর্তমান ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক এনামুল ইসলামের বিরুদ্ধে সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে চেকের মাধ্যমে ব্যাংক থেকে স্লিপ ফান্ডের টাকা উত্তোলনের অভিযোগ করা হয়।

 

অভিযোগে বলা হয় গত ৭ জুলাই বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপানা কমিটির কাউকে না জানিয়ে এনামুল ইসলাম সভাপতি রেজাউন নবী রেজার স্বাক্ষর জাল করে একটি চেকের মাধ্যমে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) থেকে ২৬ হাজার ৫০০ টাকা উত্তোলন করেন। যা সম্পূর্ণ নিয়ম বহির্ভূত।

 

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন ওই বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক না থাকায় তিনি গত চার বছর যাবত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এরপর হঠাৎ করেই গত ৯ আগস্ট প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটিকে না জানিয়ে বদলি নিয়ে অন্য স্কুলে চলে যান। ইতোপূর্বেও তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকবার অনিয়মের অভিযোগ উঠেছিল।

 

 Naogaon-School

 

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক এনামুল ইসলাম বলেন, ‘ওই স্কুলে যোগদানের পর থেকে একটি পক্ষ আমার বিরুদ্ধে উঠেপড়ে লেগেছিল। আমাকে ফাঁসাতে তারা পরিকল্পিতভাবে এটা করেছে। তবে এনিয়ে কোনো সংবাদ না করার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।

 

বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি রেজাউন নবী রেজা বলেন, স্কুলের উন্নয়নে কত টাকা খরচ হয়েছে তা জানতে গত ১৫/২০ দিন আগে ব্যাংক অ্যাকাউন্টের স্টেটমেন্ট (লেনদেনের হিসাব) সংগ্রহ করা হয়। তাতে আমরা যে পরিমাণ টাকা উঠিয়েছি তার চেয়ে অনেক বেশি টাকা উত্তোলন দেখানো হয়েছে। এরপর টাকা আত্মসাতের বিষয়টি প্রকাশ পায়।

 

তিনি জানান, কমিটির কাউকে না জানিয়ে আমার স্বাক্ষর জাল করে শিক্ষক এনামুল ইসলাম স্লিপ ফান্ডের টাকা তুলে আত্মসাৎ করেছেন। এর কয়েক দিন পর আমাদের না জানিয়ে তিনি অন্য স্কুলে বদলি হয়ে যান।

 

তিনি আরও জানান, ওই শিক্ষক টাকা উত্তোলনের বিষয়টি স্বীকার করে গত ২ নভেম্বর ফেরত দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এ পর্যন্ত দেননি। আমরা বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দফতরে লিখিতভাবে জানিয়েছি।

 

বিদ্যালয়ের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবু তাহের বলেন, আমরা (শিক্ষকরা) বিষয়টি নিয়ে বসে নিজেরা সমাধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। এনামুল ইসলাম টাকা ফেরত দেয়ার জন্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, কিন্তু সেই কথা রাখেননি।

 

নওগাঁ সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নাইয়ার সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে তাকে প্রেষণে অনত্র বদলি করা হয়েছে। অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ তদন্ত করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে সাদ্দাম হোসেন (২৬) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে উপজেলার যাত্রাপুর চাপরবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

 

আশুগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

পুলিশের দাবি, সাদ্দাম ডাকাত দলের সদস্য। তার বিরুদ্ধে ডাকাতির মামলা রয়েছে। তিনি জেলার সরাইল উপজেলার কালিকচ্ছ ইউনিয়নের বেপারীপাড়া এলাকার কাঙ্গাল মিয়ার ছেলে।

 

এ ঘটনায় তিন ডাকাতকে আটক করার কথা জানিয়েছে পুলিশ। আটকরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার বিরাসার এলাকার শামছুল হকের ছেলে আকাশ মিয়া (২৭), সরাইল উপজেলার নাথপাড়া এলাকার কাশেম মিয়ার ছেলে হৃদয় মিয়া (২৫) ও উচালিয়াপাড়া এলাকার আমির হোসেনের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (২৫)।

 

 

পুলিশের ভাষ্য মতে, জেলা গোয়েন্দা পুলিশ, আশুগঞ্জ থানা পুলিশ ও সদর মডেল থানা পুলিশের সমন্বয়ে পুলিশের একটি দল ডাকাত দল ধরার জন্য যাত্রাপুর এলাকার চাপাড়বাড়ি এলাকা ঘেরাও করলে ডাকাতরা পুলিশের ওপর গুলি চালিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে ডাকাত দলের সদস্য আকাশ, হৃদয় ও আশরাফুলকে আটক করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাদ্দামের মরদেহ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশা এবং একটি মোটরসাইকেল উদ্ধারের কথাও জানিয়েছে পুলিশ।

 
বিষাদের পাহাড় নিয়ে বাড়ি ফিরলেন সবাই
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

 

কেউ যাচ্ছিলেন কাজে, কেউ ঘুরতে আবার কেউ ফিরছিলেন আপনজনদের কাছে। কিন্তু কারোরই কোথাও যাওয়া হলো না। বিষাদের পাহাড় নিয়ে তারা এখন নিজ বাড়িতে ফিরেছেন। বাড়ির ওঠোনে রাখা তাদের নিথর দেহ কাঁদিয়েছে আত্মীয়-স্বজনসহ এলাকার সবাইকে।

 

গতকাল মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ভোররাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ১৬ জনের মরদেহ তাদের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এদিন রাতে সবার মরদেহ হস্তান্তর প্রক্রিয়া শেষ করে জেলা প্রশাসন।

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শামসুজ্জামান মরদেহ হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

নিহতদের সবারই পরিচয় জানা গেছে। তারা হলেন- মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার মোছলিম মিয়ার স্ত্রী জাহেদা খাতুন (৩০), চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার রাজারগাঁও এলাকার মজিবুর রহমান (৫৫) তার স্ত্রী কুলসুমা বেগম (৪০), হাইমচর উপজেলার দক্ষিণ তিরাশি এলাকার মাঈন উদ্দিনের স্ত্রী কাকলী আক্তার (৩২), জাহাঙ্গীর মালের স্ত্রী আমাতুন বেগম (৪১) ও মেয়ে মরিয়ম (৪), চাঁদপুর সদর উপজেলার উত্তর বালিয়া এলাকার বিল্লাল মিয়াজীর মেয়ে ফারজানা (১৫), হবিগঞ্জের ভোল্লা সদর এলাকার ইয়াছিন আরাফাত (১২), চুরারুঘাট উপজেলার তীরেরগাঁও এলাকার সুজন আহমেদ (২৪), আহম্মেদাবাদ এলাকার আব্দুস সালামের স্ত্রী পিয়ারা, হবিগঞ্জ সদরের আজমত উল্লার ছেলে রিপন (৪৫), বানিয়াচং উপজেলার মদনমুরক এলাকার আইয়ূব হোসেনের ছেলে আল-আমিন (৩০), বড়বাজার এলাকার সোহেল রানার মেয়ে আদিবা (২), হবিগঞ্জ সদরের আনোয়ারপুর এলাকার আলী মো. ইউসূফ (৩২), বানিয়াচং এলাকার ছোয়ামণি (৩) এবং নোয়াখালী সদর উপজেলার শঙ্কর হরিজনের ছেলে রবি হরিজন (২৩)।

 

মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনায় কেউ হারিয়েছেন তার বাবা-মা, কেউ সন্তান কেউবা হারিয়েছেন ভাই-বন্ধু। মরদেহবাহী গাড়িগুলো বাড়িতে ঢোকার পরই স্বজনদের আহাজারি আর হাহাকারে ভারি হয়ে যায় চারপাশের পরিবেশ। বুক ভরা কষ্ট আর ক্ষোভ নিয়ে দুর্ঘটনার জন্য দায়ীদের শাস্তির দাবিও জানিয়েছেন তারা।

 

মঙ্গলবার ভোররাতে উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনে সবাই যখন গভীর ঘুমে ঠিক তখনই ঘটে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। বিপরীত দিক থেকে আসা তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেস ট্রেনটি উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনটিকে ধাক্কা দেয়। তূর্ণাকে পাশ দেয়ার জন্য সংযুক্ত লাইনের এক লাইন থেকে আরেক লাইনে ঢুকছিল উদয়ন। বেশ কয়েকটি বগি ঢুকে পড়লেও তিনটি বগি ঢোকার আগমুহূর্তে তূর্ণা এসে উদয়নকে থাক্কা দেয়। এ ঘটনায় ১৬ জন নিহত হন।

 

 

দুর্ঘটনার পর মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার জকির হোসেন চৌধুরী জানিয়েছিলেন, তূর্ণা নিশীথাকে আউটারে থাকার জন্য সিগনাল দেয়া হয়েছিল। কিন্তু চালক আউটার ও হোম সিগনাল অমান্য করে স্টেশনে ঢুকে পড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

 
ট্রেন দুর্ঘটনায় ১৬ জন নিহতের ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ট্রেন দুর্ঘটনায় ১৬ জন নিহতের ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে দুই ট্রেনের সংঘর্ষে ১৬ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) রাতে আখাউড়া রেলওয়ে থানায় মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার জাকের হোসেন চৌধুরী বাদী মামলাটি করেন।

আখাউড়া রেলওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কান্তি দাস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, স্টেশন মাস্টার থানায় একটি ইউডি (অপমৃত্যু) মামলা করেছেন।

এর আগে মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ভোররাত পৌনে ৩টার দিকে মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে তূর্ণা নিশীথা ও উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় ১৬ জন নিহত এবং শতাধিক আহত হন। দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাস সুজন দুর্ঘটনার জন্য তূর্ণা নিশীথার লোকোমোটিভ মাস্টারকে দায়ী করেন। দুর্ঘটনার পরই তূর্ণার লোকোমোটিভ মাস্টার ও সহকারী মাস্টারকে বরখাস্ত করা হয়।

 
দুই ট্রেনের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় স্পিকারের শোক
                                  

স্টাফ রিপোর্টার


দুই ট্রেনের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় স্পিকারের শোক
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলস্টেশনে তূর্ণা নিশীথা ও উদয়ন এক্সপ্রেসের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা, নিহতদের রুহের মাগফিরাত ও আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন।

এ ঘটনায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তারা নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

এছাড়াও এ ঘটনায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি এবং চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

এর আগে ভোররাত পৌনে ৩টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা আন্তনগর ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা ও সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী আন্তনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়।

এতে ঘটনাস্থলেই ৯ জন এবং কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩ জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে ২ জন ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১ জন মারা যান।


ঘটনা তদন্তে দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। রেল মন্ত্রণালয় থেকে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ১ লাখ এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২৫ হাজার টাকা করে দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।

 
ট্রেন দুর্ঘটনা : তূর্ণা নিশীথার মাস্টার-সহকারী মাস্টার বরখাস্ত
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি


ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে তূর্ণা নিশীথার লোকোমোটিভ মাস্টার ও সহকারী মাস্টারকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।

তিনি বলেন, তূর্ণা নিশীথা ট্রেনের লোকোমোটিভ মাস্টার সিগন্যাল ভঙ্গ করেছেন। আমরা বিস্তারিত জানার জন্য জেলা প্রশাসন ও রেলপথ মন্ত্রণালয় থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। এখানে উদয়ন এক্সপ্রেসের কোনো ত্রুটি দেখছি না।

এর আগে মঙ্গলবার ভোররাত পৌনে ৩টার দিকে মন্দবাগ রেলওয়ে স্টেশনে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা আন্তনগর ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা ও সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী আন্তনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৬ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। দুই ট্রেনের শতাধিক যাত্রী আহত হয়েছেন।

 

   Page 1 of 110
     সারা দেশ
এবার বগি লাইনচ্যুত হয়ে রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন
.............................................................................................
আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত
.............................................................................................
রোগীদের টাকায় চলে টাঙ্গাইল ডায়াবেটিক হাসপাতাল
.............................................................................................
আমন ধানের দাম নিয়ে শঙ্কায় চাষিরা
.............................................................................................
টাকার অভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কি আটকে যাবে?
.............................................................................................
৭ ঘণ্টা পর চরে আটকেপড়া লঞ্চের ৫০০ যাত্রী উদ্ধার
.............................................................................................
এমপির পিএসসহ দুইজনকে কোপানোর ঘটনায় সড়ক অবরোধ
.............................................................................................
কুমিল্লায় তারেক মনোয়ারসহ ৩ বক্তার ওয়াজ নিষিদ্ধ
.............................................................................................
চুরির অপবাদে মৎস্যচাষিকে নির্যাতন, গ্রেফতার ২
.............................................................................................
উপজেলা আ.লীগ নেতার কানাডায় বাড়ি, কোটি টাকার সম্পত্তি!
.............................................................................................
সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে স্কুলের টাকা আত্মসাৎ
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত
.............................................................................................
বিষাদের পাহাড় নিয়ে বাড়ি ফিরলেন সবাই
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনায় ১৬ জন নিহতের ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা
.............................................................................................
দুই ট্রেনের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় স্পিকারের শোক
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনা : তূর্ণা নিশীথার মাস্টার-সহকারী মাস্টার বরখাস্ত
.............................................................................................
৮ ঘণ্টা পর ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক
.............................................................................................
শিশু উন্নয়ন কেন্দ্র থেকে মুক্তি পেল ১২১ শিশু
.............................................................................................
দুর্ঘটনাকবলিতদের উদ্ধার করতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু
.............................................................................................
নিহতদের পরিবারকে ১ লাখ করে টাকা দেয়া হবে : রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
কসবার ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬, তদন্ত কমিটি
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনা দেখতে এসে চাচা-চাচির লাশ পেলেন শাহাদৎ
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের ৭ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনায় ৩টি তদন্ত কমিটি গঠন
.............................................................................................
‘তূর্ণা নিশীথা সিগন্যাল অমান্য করে’
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৫ জন নিহত
.............................................................................................
বুলবুলে তছনছ সাকিবের কাঁকড়ার খামার
.............................................................................................
বিকেলে ফিরছেন সেন্টমার্টিনে তিন দিন ধরে আটকাপড়া ১২শ পর্যটক
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের একমাসের বেতন-ভাতা দেবেন এমপি শাওন
.............................................................................................
সুগার মিলের মেশিনে জড়িয়ে শ্রমিকের মৃত্যু
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড় বুলবুল কেড়ে নিল ১৩ জনের প্রাণ
.............................................................................................
সব সতর্ক সংকেত নামল, ফিরতে পারবেন পর্যটকরা
.............................................................................................
ঢাকা থেকে সারা দেশে নৌ চলাচল শুরু
.............................................................................................
ট্রাকের ধাক্কায় মাইক্রোবাস উল্টে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, নিহত ৩
.............................................................................................
৪৫ যাত্রী নিয়ে পুকুরে বিয়ের বাস
.............................................................................................
নিরাপদে আছেন সেন্টমার্টিনে আটকেপড়া পর্যটকরা
.............................................................................................
আশ্রয়কেন্দ্রে সাতক্ষীরা উপকূলের ৬০ হাজার মানুষ
.............................................................................................
কক্সবাজারে উত্তাল সাগর, উপকূলের নিচু এলাকা প্লাবিত
.............................................................................................
ছেলের রডের আঘাতে প্রাণ গেল বাবার
.............................................................................................
আশ্রয়কেন্দ্রে পটুয়াখালী উপকূলের ৭০ হাজার মানুষ
.............................................................................................
রেইনবো সুপার মার্কেটে আগুন
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড় বুলবুল : খুলনাঞ্চলের বেড়িবাঁধ নিয়ে শঙ্কা
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড় বুলবুল : দুপুর ২টার মধ্যে আশ্রয়কেন্দ্রে আসার নির্দেশ
.............................................................................................
প্রেমের টানে বাড়ি ছাড়া যুবকের লাশ মিলল কাঁঠালগাছে
.............................................................................................
পরীক্ষায় ফেল করেও ড্রাইভিং লাইসেন্স পেয়েছি আমি
.............................................................................................
ছাত্রীকে পেটানোয় চাকরি গেল শিক্ষকের
.............................................................................................
আসামি ছিনিয়ে নিতে ডিবি পুলিশের ওপর হামলা
.............................................................................................
মাদরাসার পাশে বোমা ফেলে গেল কারা?
.............................................................................................
কিডনি বিক্রি করায় স্বামী-স্ত্রী আটক
.............................................................................................
শিক্ষকের পিটুনিতে মারাই গেল মাদরাসাছাত্র আসিফ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]