| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ঢাকায় সু-প্রভাত বাস চলবে না : আতিকুল   * মোজাম্বিকে ঝড়ে ১ হাজারের বেশি লোকের মৃত্যু   * সন্ত্রাসীর নাম মুখে দিতে নারাজ নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী   * নাটোরে মার্কেটে আগুন   * দুর্ঘটনা ঘটানো বাসের রুট পারমিট বাতিলের দাবি   * রংপুরে বাস-কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে নিহত ৩   * মোশাররফ রুবেলের সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন   * রাঙ্গামাটিতে আ.লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা   * রাজধানীতে বাসচাপায় বিইউপির ছাত্র নিহত, সড়ক অববোধ   * ডিএসইতে লেনদেন ও সূচক কমেছে  

   প্রতিবেশী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বিশ্বে ইন্টারনেট সবচেয়ে সস্তা ভারতে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিশ্বে ইন্টারনেট সবচেয়ে বেশি সস্তা ভারতে। এরকম প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক সংস্থা ‘ক্যাবল’। গত ৭ মার্চ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’।

বিশ্বের ২৩০টি দেশের ইন্টারনেটের মূল্য তুলে ধরে সংস্থাটি জানায়, মোবাইল ফোনে এক জিবি ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ভারতে ব্যয় করত হয় মাত্র সাড়ে ১৮ রুপি (০.২৬ ডলার)। এক জিবি ইন্টারনেটের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে ১২.৩৭ ডলার এবং যুক্তরাজ্যে ৬.৬৬ ডলার ব্যয় করতে হয়।

ক্যাবল’র প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, ভারতের জনসংখ্যার বেশিরভাগ তরুণ এবং তাদের প্রযুক্তি সচেতনতা অনেক বেশি। তাই ভারতে স্মার্টফোনের বিশাল বাজার, মোবাইল টেলিকম সেবায় তীব্র প্রতিযোগিতা এবং ইন্টারনেটের দাম এতো কম।

ভারতীয় গণমাধ্যমটি জানায়, বর্তমানে চীনের পরই বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্মার্টফোনের বাজার ভারতে। দেশটিতে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৪৩ কোটি। তিন বছর আগেও দেশটিতে মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট এতো সস্তা ছিল না।

আরও জানায়, মুকেশ আম্বানির সংস্থা রিলায়েন্স জিও ২০১৬ সালে সস্তায় ফোরজি টেলিকম সেবা দিয়ে বাজারে প্রবেশ করে। গত তিন বছরে রিলায়েন্স জিও’র গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে ২৮ কোটিতে পৌঁছেছে।

এদিকে রিলায়েন্স জিও’র সঙ্গে পাল্লা দিতে এয়ারটেল ও ভোডাফোনের মতো প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থাগুলোও মোবাইল ইন্টারনেটের মূল্য কমাতে বাধ্য হয়। ফলে সামগ্রিকভাবে দেশটিতে মোবাইল ডাটার দাম অনেক কমে আসে।

বিশ্বে ইন্টারনেট সবচেয়ে সস্তা ভারতে
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিশ্বে ইন্টারনেট সবচেয়ে বেশি সস্তা ভারতে। এরকম প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক সংস্থা ‘ক্যাবল’। গত ৭ মার্চ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’।

বিশ্বের ২৩০টি দেশের ইন্টারনেটের মূল্য তুলে ধরে সংস্থাটি জানায়, মোবাইল ফোনে এক জিবি ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ভারতে ব্যয় করত হয় মাত্র সাড়ে ১৮ রুপি (০.২৬ ডলার)। এক জিবি ইন্টারনেটের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে ১২.৩৭ ডলার এবং যুক্তরাজ্যে ৬.৬৬ ডলার ব্যয় করতে হয়।

ক্যাবল’র প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, ভারতের জনসংখ্যার বেশিরভাগ তরুণ এবং তাদের প্রযুক্তি সচেতনতা অনেক বেশি। তাই ভারতে স্মার্টফোনের বিশাল বাজার, মোবাইল টেলিকম সেবায় তীব্র প্রতিযোগিতা এবং ইন্টারনেটের দাম এতো কম।

ভারতীয় গণমাধ্যমটি জানায়, বর্তমানে চীনের পরই বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্মার্টফোনের বাজার ভারতে। দেশটিতে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৪৩ কোটি। তিন বছর আগেও দেশটিতে মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট এতো সস্তা ছিল না।

আরও জানায়, মুকেশ আম্বানির সংস্থা রিলায়েন্স জিও ২০১৬ সালে সস্তায় ফোরজি টেলিকম সেবা দিয়ে বাজারে প্রবেশ করে। গত তিন বছরে রিলায়েন্স জিও’র গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে ২৮ কোটিতে পৌঁছেছে।

এদিকে রিলায়েন্স জিও’র সঙ্গে পাল্লা দিতে এয়ারটেল ও ভোডাফোনের মতো প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থাগুলোও মোবাইল ইন্টারনেটের মূল্য কমাতে বাধ্য হয়। ফলে সামগ্রিকভাবে দেশটিতে মোবাইল ডাটার দাম অনেক কমে আসে।

পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের পা ধুয়ে দিলেন মোদি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মাথায় সাদা চন্দন আর গেরুয়া কুর্তা পরে একটা নিচু টুলে বসেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার সামনেই চেয়ারে বসে ছিলেন পাঁচ পরিচ্ছন্নতাকর্মী পেয়ারে লাল, ছবি, হোরি লাল, নরেশ কুমার এবং জ্যোতি। তারা প্রত্যেকেই কুম্ভে আবর্জনা পরিস্কারের কাজ করেন। এটা তাদের নিত্যদিনের কাজ।

কিন্তু রোববার তাদের দিনটাই যেন বদলে গেল। কারণ সেদিন কুম্ভে স্নান শেষ করে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী তাদের পা ধুইয়ে দিয়েছেন। প্রথমে ঝকঝকে নতুন পাত্রে রাখা পানি দিয়ে তাদের পা ধুয়ে দেন মোদি। তারপর নতুন তোয়ালে দিয়ে সবার পা মুছে দিয়েছেন।

পুরো ঘটনাই টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছে। এই ঘটনা থেকে অনেকেরই মহাত্মা গান্ধীর কথা মনে হয়েছে।

কারণ এক সময় মহাত্মা গান্ধীও এভাবেই পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের সম্মান জানাতেন। গান্ধীর নাম নিয়েই ক্ষমতায় এসে স্বচ্ছতা অভিযান শুরু করেছিলেন মোদি। নিজে হাতে ঝাড়ু দিয়েছিলেন রাজপথ। রোববার পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের পা ধুইয়ে তিনি আরও একবার মহত্মের পরিচয় দিলেন।

বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন, এ দেশে গান্ধীর পরে প্রথমবার কোনও জননেতার মধ্যে এ ধরনের মহানুভবতা দেখা গেছে। এক নতুন যুগের শুরু হলো।

কিন্তু মোদির সমালোচকরা বলছেন, লোকসভা ভোটকে কেন্দ্র করে একই সঙ্গে উচ্চবর্ণের হিন্দু এবং দলিত-দু’পক্ষেরই মন জয়ের চেষ্টা করছেন মোদি।

মোদির এই কাজের সমালোচনা করে পরিচ্ছন্নতা কর্মচারী আন্দোলনের নেতা বেজওয়ারা উইলসন বলেন, শুধু ২০১৮ সালেই বিভিন্ন নর্দমা এবং সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিস্কার করতে গিয়ে ১০৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি (মোদি) চুপ ছিলেন। এখন পা ধুয়ে দিচ্ছেন!

মোদি যাদের পা ধুয়ে দিয়েছেন তাদের মধ্যে নরেশ কুমার বলেন, এমন যে কিছু হবে, তা তারা জানতেনই না। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী তাদের পা ধুয়ে দেয়ায় তারা স্তম্ভিত। নরেশ কুমারদের জানা না থাকলেও আসলে সব ব্যবস্থা আগে থেকেই তৈরি ছিল।

পায়ের পাশে ঝকঝকে ধাতুর পাত্র, পানি, তোয়ালে সবই রাখা ছিল। পরিচ্ছন্নতাকর্মী জ্যোতি বলেন, এত সম্মান পাব কোনদিনও ভাবিনি। কতদিন কুম্ভে কাজ করছি তাও জানতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আর মুগ্ধ পেয়ারে লাল বলেন, উনিই যেন ফের প্রধানমন্ত্রী হন।

বিষাক্ত মদ পানে ভারতীয় ৩২ জনের মৃত্যু
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : ভারতের আসাম প্রদেশে মদ পান করে ৯ নারীসহ মোট ৩২ জন চা-বাগানকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। আরও ৫০ জনকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। তাদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ঘটনাটি নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে দেশটির সরকার। পুলিশ জানায়, মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। গুয়াহাটি থেকে ৩১০ কিলোমিটার দূরে গোলাঘাটের চা বাগানের আরও অনেক কর্মীকে বৃহস্পতিবার রাতে এই একই কারণে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্থানীয় বিধায়ক মৃণাল শইকিয়া সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, প্রায় ১০০ জন ওই বিষাক্ত মদপান করেছিল। খাওয়ার পরেই অসুস্থ হয়ে পড়ে তারা। তারপরই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাদের।

এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গুয়াহাটির সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক দিলীপ রাজবংশী বলেন, ‘বিষাক্ত দেশি মদ’ পান করার জন্যই এই মৃত্যু। জোরহাট মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা ১০ জনের আজ মৃত্যু হয়।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই বিষ মদ খেয়ে উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখণ্ডে মারা গিয়েছিল ১০০ জনের বেশি মানুষ। তার দু`সপ্তাহের মধ্যেই ফের আসামে ঘটল এই ঘটনা।

কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় তারকাদের নিন্দার ঝড়
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের জম্মু-কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় নিহতের সংখ্যা এরই মধ্যে ৪২`তে দাঁড়িয়েছে। এদের সবাই আধা-সামরিক বাহিনী সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) সদস্য। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছে। এদিকে, কাশ্মীরে এই হামলার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। সারা ভারতের মতো ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন দেশটির ক্রিকেট বলিউড-টলিউড তারকারাও।

এই তালিকায় রয়েছে- শাহরুখ খান, প্রিয়াংকা চোপড়া, সালমান খান, আলিয়া ভাট, আবির, প্রসেনজিৎ, দেব’সহ আরও অনেকে।

এদিকে জঙ্গি হামলার প্রতিবাদে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠক সম্পন্ন করে এমন আভাসই দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি।
এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কূটনৈতিক পদক্ষেপ গ্রহণ করবে সরকার। আর এ বিষয়ে আলোচনা চালাবে বিশ্ব নেতারা।

পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল বিধায়ককে গুলি করে হত্যা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসকে (৪২) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার স্থানীয় সময় রাত সোয়া ৮টার দিকে নদিয়া জেলার কৃষ্ণগঞ্জের হাঁসখালি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে খবর আনন্দবাজার প্রত্রিকা, এনডিটিভির।

সত্যজিৎ বিশ্বাস নদীয়া জেলার কৃষ্ণগঞ্জ আসনের বিধায়ক ছিলেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সরস্বতীপুজো উদ্বোধনে এসেছিলেন বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস। আরও এসেছিলেন রাজ্যের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প প্রতিমন্ত্রী রত্না ঘোষাল। মন্ত্রী চলে যাবার পর বিধায়ক শিশু–কিশোরদের পরিবেশিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখছিলেন। এর মধ্যে হঠাৎ দুর্বৃত্তরা এসে সত্যজিৎ বিশ্বাসকে গুলি ছোড়ে। এরপরই তারা পালিয়ে যায়। গুলিতে সত্যজিৎ বিশ্বাস মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয় নেতারা তাঁকে নিয়ে কৃষ্ণনগর জেলা হাসপাতালে যান। সেখানে পৌঁছালে চিকিৎসকেরা জানিয়ে দেন, সত্যজিৎ বিশ্বাস আর বেঁচে নেই।

অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান ধর্মঘটে মমতা
                                  

বড়সড় সাংবিধানিক সংকটের মুখে পশ্চিমবঙ্গ। কেন্দ্রের গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই সারদাকাণ্ডে কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে তল্লাশি চেষ্টা করার ঘটনাকে সাংবিধানিক সংকট বলে উল্লেখ করে রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্নায় বসেছেন।

রোববার (০৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় তিনি পুলিশ কমিশনারের বাড়ির সামনে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং তার নতুন এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।

এরপরই তিনি চলে যান ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেল মোড়ে। সেখানেই লোহার সিটির ওপর চাদর জড়িয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য এই আন্দোলন শুরু করেন মমতা। এর আগে কৃষি জমি ফেরানোর দাবিতে সিঙ্গুরে টানা ১৮ দিন অনশন করেছিলেন তৎকালীন বিরোধী নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সন্ধ্যার পর থেকেই আচমকা ধারাবাহিক নাটকীয় ঘটনা ঘটতে শুরু করে। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় কলকাতার পুলিশ কমিশনারের বাাড়ি কলকাতার লাউডান স্ট্রিটের হানা দেওয়ার জন্য দুই গাড়ি সিবিআই গোয়েন্দা পৌঁছান। কিন্তু সেখানে উপস্থিত ছিল কলকাতা পুলিশেরও বহু সদস্য। সিবিআই গোয়েন্দাদের পথ আটকে দাঁড়ায় কলকাতা পুলিশ। তাদের বাধার মুখে পড়ে সিবিআই গোয়েন্দারা কিছু সময় পিছু হটেন।

এরপরই সিআইয়ের আরো গোয়েন্দা সদস্য সেখানে পৌঁছালে আবারও কমিশনারের বাড়ির ভেতর ঢুকতে চেষ্টা করেন সিআইবি। কিন্তু সেবার পুলিশ আর কোনো কথা বলেনি সরাসরি সিবিআই গোয়েন্দাদের জোর করে গাড়িতে তুলে থানায় নিয়ে যায়। এই মুহূর্তে ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা শেক্সিপেয়ার থানায় আটক আছেন।

সিবিআই হানার পরপরই কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে পৌঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাড়ির ভেতরে প্রায় ৩০ মিনিট ছিলেন তিনি। এরপরই সেখানে অবস্থানরত সাংবাদিকদের ডেকে পাঠান এবং জরুরি সাংবাদিক সম্মেলন করেন।

সেখানে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে রাজ্য সরকারকে অপদস্থ করার অভিযোগ তোলেন। একই সঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর কড়া সমালোচনা করেন। বলেন, রাজ্যে সংবিধানের সংকট। তাই আজ থেকেই ধর্মতলায় মেট্রো চ্যানেলের সামনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবস্থান ধর্মঘটে বসছেন। এই কথা বলেই তিনি ধর্মতলায় চলে যান এবং অনশন শুরু করেন।

অনশন মঞ্চে মমতার মন্ত্রিসভার অনেক সদস্যকে দেখা যাচ্ছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কমিশনারের বাড়ির সামনে জানিয়েছেন সোমবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) খোলা আকাশের নিচেই তিনি জরুরি মন্ত্রিসভার বৈঠকে মিলিত হবেন।

মিয়ানমারের উত্তরপ্রান্তে ভূমিধসে ৬ জনের মৃত্যু
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মিয়ানমারের উত্তর প্রান্তের রাজ্য কাচিনের ফাকান্তে টাউনশিপ ডেভেলপমেন্ট অ্যাফেয়ার্স কমিটি’র স্টাফ কোয়ার্টার্সে ভূমিধসে ছয় জন মারা গেছে।

শনিবার গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমার একথা জানিয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা সিনহুয়া’র।

তথ্য ও জনসংযোগ বিভাগ জানায়, শুক্রবার মাও-ওয়ান ওয়ার্ডের পান্টিন ব্রিজের কাছে এই ভূমিধস হয়েছে। ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে এলাকাটি পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়ে।

মাওগালোন, সুতাউং ও ফাপিন গ্রামেও ভূমিধস হয়েছে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে। বাসস

প্রতিদিন ৩০০ রোহিঙ্গা ফেরত নেবে মিয়ানমার
                                  

অনলাইন ডেস্ক
দুই বছরের মধ্যে সব রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের শর্ত রেখে ‘ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জমেন্ট’ নামের মাঠপর্যায়ের চুক্তি সই করেছে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার। চুক্তি অনুযায়ী, প্রতিদিন ৩০০ থেকে ৫০০ জন করে রোহিঙ্গা ফেরত নেবে মিয়ানমার। তিনমাস পর এই সংখ্যা পুনরায় পর্যালোচনা করে বাড়ানো হবে।
যেদিন থেকে যাওয়া শুরু হবে, তার পরবর্তী দুই বছরের মধ্যে প্রক্রিয়াটি শেষ হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের কর্মকর্তারা।
আজ মঙ্গলবার সকালে মিয়ানমারের রাজধানী নেপিডোতে পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ে যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক শেষে এ চুক্তি সই হয়।
বাংলাদেশের পক্ষে পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক এবং মিয়ানমারের পররাষ্ট্রসচিব মিন্ট থোয়ে নিজ নিজ দেশের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

সুষমা স্বরাজ আজ ঢাকায় আসছেন
                                  

অনলাইন ডেস্ক
ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ যৌথ পরামর্শক কমিশনের (জেসিসি) বৈঠকে যোগ দিতে আজ রোববার দুপুরে ঢাকায় আসছেন। বিকেলে তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক করবেন। সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন তিনি।
এ ছাড়া সুষমা স্বরাজের বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠকের কথা রয়েছে।
ঢাকা ও দিল্লির কূটনৈতিক সূত্রগুলো গতকাল শনিবার জানিয়েছে, সুষমা স্বরাজের সফরের সময় দুই দেশের সম্পর্কের পর্যালোচনার পাশাপাশি রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে আলোচনা হবে। প্রায় দুই মাস ধরে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা ঢল অব্যাহত থাকায় খুব স্বাভাবিকভাবেই দুই পক্ষের আলোচনায় বিষয়টি গুরুত্ব পাবে।
বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলছেন, রাখাইন থেকে রোহিঙ্গারা এখনো বিপুল সংখ্যায় বাংলাদেশে আসছে। তাই রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সমর্থনের পাশাপাশি মিয়ানমারকে চাপ দিতে ভারতের রাজনৈতিক সমর্থন বাংলাদেশের জন্য জরুরি। সুষমা স্বরাজের সফরের সময় এ বিষয়টিই বাংলাদেশ আবার বলবে।
বাংলাদেশ-ভারত জেসিসির বিষয়বস্তু সম্পর্কে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ।
এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে যেসব সিদ্ধান্ত হয়েছিল, তা জেসিসিতে পর্যালোচনা করা হবে। এ ছাড়া আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয়েও দুই দেশ আলোচনা করবে।
রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে আলোচনা হবে কি না জানতে চাইলে শহীদুল হক বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে আলোচনা হবে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সুষমা স্বরাজের ঢাকা সফরের সময় দুই দেশ জ্বালানি ও তথ্য সম্প্রচারের বিষয়ে সহযোগিতার
জন্য দুটি সমঝোতা স্মারক সই করতে পারে। এর একটি হচ্ছে ভারতের নুমালিগড় তেল শোধনাগার থেকে ডিজেল কেনার জন্য সমঝোতা স্মারক। অন্যটি হচ্ছে, বাংলাদেশ বেতারের সঙ্গে ভারতের অল ইন্ডিয়া রেডিওর সমঝোতা স্মারক।
কর্মকর্তারা জানান, দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তিসহ অভিন্ন নদীর পানি বণ্টন, সংযোগ, প্রতিরক্ষা, নিরাপত্তা, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, অর্থনৈতিক সহযোগিতাসহ সম্পর্কের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শীর্ষ নেতাদের বৈঠকের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন নিয়ে আলোচনা হবে।
প্রায় সাড়ে তিন বছর পর এবার ঢাকায় আসছেন সুষমা স্বরাজ। ২০১৪ সালের মে মাসে বিজেপি ক্ষমতায় আসার এক মাস পর ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে তিনি ঢাকায় এসেছিলেন। কংগ্রেস-আওয়ামী লীগ সম্পর্কের বিশেষ মাত্রা আর ৫ জানুয়ারির একতরফা নির্বাচনের কারণে তাঁর সেই সফরটি নিয়ে যথেষ্ট কৌতূহল ছিল বাংলাদেশের রাজনৈতিক মহলে। বিশেষ করে ২০০৯ সালের জানুয়ারি থেকে পরের ৫ বছর বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের ‘বিশেষ মাত্রা’য় কোনো খাদ সৃষ্টি হবে কি না, তা নিয়ে সরকারি মহলে কিছুটা হলেও সংশয় ছিল। আর বিজেপি ক্ষমতায় আসায় উৎসাহিত হয়েছিল বিএনপি। তবে ঢাকা সফরের সময় সুষমা স্বরাজ বলে গেছেন, কংগ্রেস শাসনামলে দুই প্রতিবেশীর সম্পর্কে যে অগ্রগতি হয়েছে, সেটি ধরেই সম্পর্কটা এগিয়ে নেবে বিজেপি।
সুষমা স্বরাজের সর্বশেষ ঢাকা সফরের উল্লেখ করে কূটনৈতিক সূত্রগুলো গতকাল আভাস দিয়েছে, এবারের সফরেও তিনি বিশেষ কোনো বার্তা দিতে পারেন। এখন সেই বার্তা কি রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে হবে, নাকি রাজনৈতিক পরিমণ্ডলে সেটা বলা মুশকিল। তাঁর ঢাকা সফরের পরই সেটি স্পষ্ট হবে।
বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলছেন, সুষমা স্বরাজের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলোচনার সময় রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে ভারতের জোরালো সমর্থন পাওয়ার বিষয়টিতে বাংলাদেশ গুরুত্ব দেবে। এ মাসের শুরুতে দিল্লি সফরের সময় পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক ভারতের স্বরাষ্ট্রসচিব এস জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠকেও বিষয়টি তুলে ধরেন। ভারত এই সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছে। এই মুহূর্তে ভারত মানবিক সহায়তায় অগ্রাধিকার দিচ্ছে। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারকে নেপথ্যে ভারত রাজি করানোর জন্য কথা বলছে। তবে এই মুহূর্তে মিয়ানমারকে রাজি করাতে ভারত একা কিছু করতে রাজি নয়। মিয়ানমারকে রাজি করাতে কিংবা চাপ দিতে একটা সম্মিলিত আন্তর্জাতিক উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলছে ভারত।
খসড়া সূচি অনুযায়ী, ভারতীয় বিমানবাহিনীর একটি বিশেষ ফ্লাইটে আজ বেলা দুইটার দিকে ঢাকায় আসবেন সুষমা স্বরাজ। বিকেল চারটার পর তিনি সোনারগাঁও হোটেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে যৌথ পরামর্শক কমিশনের (জেসিসি) সভায় যোগ দেবেন। সন্ধ্যায় তিনি গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। রাতে তাঁর সম্মানে মাহমুদ আলীর দেওয়া নৈশভোজে যোগ দেবেন সুষমা স্বরাজ।
কাল সোমবার বারিধারায় ভারতীয় হাইকমিশনের নতুন চ্যান্সেরি ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন সুষমা স্বরাজ। সেখানে ভারতের আর্থিক সহযোগিতায় ১৫টি প্রকল্পের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। ওই দিন দুপুরেই দিল্লি ফিরে যাওয়ার আগে সুষমা স্বরাজের বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠকের কথা রয়েছে।
ভারতের কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, দুই প্রতিবেশী দেশের সম্পর্কের উত্তরণের ক্ষেত্রে জেসিসি একটি গুরুত্বপূর্ণ ফোরাম। পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের নেতৃত্বাধীন জেসিসি থেকে সম্পর্ককে রাজনৈতিক মাত্রা যুক্ত করে। এখানে একটি নির্দিষ্ট মেয়াদের পরপর সম্পর্কের পর্যালোচনা হয়। শীর্ষ নেতাদের সিদ্ধান্তে পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকের সুপারিশের প্রতিফলন হয়ে থাকে।
এদিকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল সন্ধ্যায় এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, বাংলাদেশের নেতৃত্বের পাশাপাশি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গবেষণা সংস্থা, বণিক সংগঠন এবং সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে মত বিনিময় করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই সফরে দুই দেশের চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক পর্যালোচনার পাশাপাশি সম্পর্ককে আরও জোরদার করার সুযোগ তৈরি করে দেবে বলে আশা করা যায়।

মিয়ানমারে সোয়াইন ফ্লু`তে ৩৮ জনের মুত্যু
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মিয়ানমারে সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে ৩৮জন মারা গেছে। দেশটিতে সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৪শ লোক। বুধবার গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমারের খবরে বলা হয়েছে, দেশটিতে ২১ জুলাই থেকে এই রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটে। খবর বার্তা সংস্থা সিনহুয়ার।

দেশটির স্বাস্থ্য ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, মূলত ইয়াঙ্গুন, আয়ারওর্য়াদি ও বাগো এলাকায় বেশি লোক মারা গেছে। অসুস্থ অনেকের অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাদের স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।বাসস

ভারতের মুম্বাইয়ে রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়লো বিমান, যাত্রীরা অক্ষত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় মহারাষ্ট্র রাজ্যের মুম্বাই বিমানবন্দরে অবতরণের সময় একটি বিমান রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়েছে। বিমানটিতে ১৮৩ যাত্রী ছিল। সকল যাত্রী অক্ষত আছেন। বুধবার সরকারি কর্মকর্তারা একথা জানান। খবর সিনহুয়ার।

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে অবতরণকালে বিমানটি রানওয়ে থেকে ছিটকে গিয়ে একটি জলাভূমিতে পড়ে। কর্মকর্তারা জানান, এতে কেউ হতাহত হয়নি এবং সংকীর্ণ পথ ব্যবহার করে বিমানের সকল যাত্রীকে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে। বিমানটি উত্তর প্রদেশের বারানসী থেকে আসছিল। রানওয়ে ভেজা থাকার কারণে এটি ছিটকে পড়েছে বলে এয়ারলাইন কর্মকর্তারা ধারণা করছেন।
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিকেল থেকে রাতভর মুম্বাইয়ে প্রবল বৃষ্টি হয়। এতে নগরীতে যানজট ও জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। বাসস

শত কোটি টাকার শাড়ি কিনেও নারীর মন জয় করা যায়নি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : উৎসবকে সামনে রেখে ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যের গরীব নারীদের শাড়ি দেয়ার একটি স্কিম চালু আছে। কিন্তু এবার সরকারের এমন স্কিমে বাধা পড়েছে। বিনামূল্যে পাওয়া এসব শাড়ি `নিম্ন মানের` বলে সেগুলো ফিরিয়ে দিচ্ছে নারীরা।

`এ শাড়ি চারদিনের বেশি টিকবে কিনা তা নিয়ে আমার সন্দেহ আছে` শাড়ি হাতে নিয়ে বিবিসির তেলেগু সার্ভিসকে বলছিলে গঙ্গা।
যেসব নারী এসব শাড়ি পেয়েছে তারা বলছে সরকার যে ধরনের শাড়ি দেবার কথা ছিলো সে ধরনের শাড়ি এগুলো নয় এবং খুবই নিম্ন মানের শাড়ি তাদের দেয়া হচ্ছে। আর সরকার এই শাড়ি কেনার প্রকল্পে এক কোটি শাড়ি কিনতে খরচ করেছে প্রায় ২২২ কোটি টাকা।

স্থানীয় `বথুকাম্মা` উৎসব উপলক্ষে বিনামূল্যে শাড়ি প্রদানের কর্মসূচি ঘোষণা করেছিল কর্তৃপক্ষ। যদিও `নিম্নমানের শাড়ি`র অভিযোগ অস্বীকার করে কর্তৃপক্ষ বলছে এগুলো ভালো মানের শাড়ি। তবে বিরোধী দলগুলো বলছে `শাড়ি কেলেঙ্কারির` এই ঘটনা খতিয়ে দেখা উচিত। তারা বলছে, এভাবে শাড়ি ফিরিয়ে দেয়ার বিষয় প্রমাণ করে যে, সরকার প্রত্যেক শাড়ির জন্য যে অর্থ নির্ধারণ করেছে সে তুলনায় তারা কম খরচ করেছে।
এর আগে কর্তৃপক্ষ বলেছিল যে রাজ্যের হস্তশিল্পের কারিগরদের কাছ থেকেই শাড়ি কিনে এবার সেগুলো বিতরণ করা হবে। তবে সময়মতো সব শাড়ি পাওয়া যাবে না সেটা বুঝতে পেরে অন্য শাড়ি ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

`তারা বলছে এগুলো হ্যান্ডলুম শাড়ি কিন্তু এগুলোতো তা নয়` পদ্মা নামের একজন বলছিলেন। নারীরা যে ক্ষুব্ধ হয়ে শাড়ি পোড়াচ্ছে এবং বলছে `এসব সস্তা শাড়ি কে পড়বে` সে ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে সরকার অভিযোগ করছে এসবের পিছনে রয়েছে বিরোধী দল। কারণ শাড়ি পোড়ানো ভারতীয় সংস্কৃতির সাথে যায় না। তবে নিম্নমানের এ শাড়ি নিয়ে কিছু নারী খুশিও হয়েছেন অবশ্য। `এটার দাম হয়তো ৭০ বা ৭৫ রূপী। কিন্তু আমি খুশি কারণ এটা বিনামূল্যে পেয়েছি` বলছিলেন সাবিত্রি। বিবিসি বাংলা

প্রকাশ্যেই মাইন পুঁতছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এবার আর গোপনে নয়, একেবারে প্রকাশ্যে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে এন্টি পার্সোনাল মাইন পুঁতে রাখছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। প্রতিদিন সকালে ভারী অস্ত্রসহ সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে তারা মাইন পুঁতে রাখছে। সর্বশেষ শনিবার সকালে বান্দরবনের তমব্রু`র সীমান্তে মাইন পুঁতে রাখা এবং সীমান্ত ঘেঁষে টহল দেয়ার চিত্র ধরা পড়েছে সময় টেলিভিশনের ক্যামেরায়। প্রকাশ্যে মাইন পুঁতে রাখায় চরম আতঙ্কে বাড়ি ছাড়ছেন সীমান্তবর্তী বাংলাদেশিরা।

শনিবার সকাল ১০টায় বান্দরবনের নাইক্ষ্যাংছড়ি উপজেলার তমব্রু`র সীমান্তে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মিয়ানমার সেনা সদস্যরা কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে সীমান্তে মাইন পুঁতে রাখছে। বিশেষ করে যেসব জায়গা দিয়ে রোহিঙ্গারা চলাচল করেন সেসব এলাকাতেই মাইন পুঁতছেন তারা। মাইন পুঁতে রাখার ১৫০-২০০ গজের মধ্যে অবস্থান করছেন প্রায় ১০ হাজার রোহিঙ্গা।

ওই এলাকায় আগে থেকেই বসবাস করা কয়েকজন রোহিঙ্গা বলেন, মিয়ানমার সেনাবাহিনী সকাল ৭টা থেকে শুরু করে ১০টা পর্যন্ত মাইন পুঁতেছে। এমন ঘটনায় আমরা খুবই আতঙ্কিত। তবে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর এমন কাজের পর সীমান্তে সংঘাত এড়াতে সেখানে সাদা ও নীল রঙের পতাকা নিয়ে হাজির হন কয়েকজন বিজিবি সদস্য। বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের পতাকা ওড়ানো দেখে মিয়ানমার সেনা সদস্যরা ওই এলাকা ত্যাগ করে চলে যান। ওই সময়ে তাদের সঙ্গে অত্যাধুনিক বিভিন্ন অস্ত্র দেখা যায়।

ওই এলাকার রোহিঙ্গারা বলেন, ছোট বাচ্চাদের নিয়ে যাতে আমরা চলাচল করতে না পরি সেজন্যই মাইন পুঁতে রাখছেন তারা। রাস্তার মাঝে এমনভাবে তারা মাইন পুঁতে রেখেছেন যাতে মানুষ হাঁটতে গেলে মাইনের বিস্ফোরণে মারা যায়।

এভাবে মাইন পুঁতে রাখা এবং সীমান্তবর্তী এলাকায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর গুলি বর্ষণে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এ বিষয়ে কক্সবাজারের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম বলেন, গত কয়েকদিনে সীমান্তের ওপাড়ে আমরা মিয়ানমার সেনাবাহিনীর টহলের সংবাদ শুনতে পেয়েছি।

এ ঘটনায় স্থানীয়রা অনেক আতঙ্কিত বলে জানিয়ে বান্দরবনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুর রহমান বলেন, মিয়ানমার সেনাবাহিনী সীমান্তবর্তী এলাকায় রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে এবং সীমান্তে ১ হাজারেরও বেশি মাইন পুঁতে রেখেছে।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর এসব উস্কানিমূলক কাজের নিন্দা জানিয়ে বিজিবি-৩৪ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মঞ্জুরুল হাসান খান বলেন, গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধির পাশাপাশি তাদের গতিবিধির ওপর বিশেষভাবে নজর রাখা হচ্ছে।
সূ্ত্র: সময় টিভি

ভারতে মুঘল ইতিহাস বাদ, এসেছে হিন্দু শাসকদের কথা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের মহারাষ্ট্রের স্কুল পাঠ্যবই থেকে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে মুঘল সাম্রাজ্যের ইতিহাস। ভারতের একটি বড় অংশে প্রায় তিনশ বছর রাজত্ব করেছিল মুঘল সাম্রাজ্য। মুঘল সুলতানদের ইতিহাস সরিয়ে দিয়ে সেখানে নিয়ে আসা হচ্ছে হিন্দু শাসক ছত্রপতি শিবাজীর প্রতিষ্ঠিত সাম্রাজ্যের ইতিহাস।

এ নিয়েই সে রাজ্যে শুরু হয়েছে বিতর্ক। ভারতের বেশীরভাগ সৌধ মুঘল আমলে তৈরি হয়েছিল। প্রায় তিনশো বছর রাজত্ব করা মুঘল সাম্রাজ্য দেশের ইতিহাসের একটা অতি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। কিন্তু মহারাষ্ট্রের অনেক স্কুল পড়ুয়াদের কাছে সেই ইতিহাসের কোনও গুরুত্ব নেই।

তাদের সিলেবাস থেকে পুরোপুরি বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে মুঘল আমলের ইতিহাস। পরিবর্তে ইতিহাস বইগুলিতে ছত্রপতি শিবাজীকে অত্যন্ত গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।
সপ্তদশ শতকে শিবাজী মুঘলদের পরাজিত করে মারাঠা সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সেই রাজত্ব মহারাষ্ট্র্রের সীমা ছাড়িয়ে আরও বেশ কিছু অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছিল। ছত্রপতি ছিলেন হিন্দু। আর মুঘলরা ছিলেন মুসলমান।

কিন্তু ইতিহাস পাঠ্যপুস্তক কমিটি বলছে, এই সিদ্ধান্তের পেছনে ধর্মীয় বা রাজনৈতিক কোনও কারণ নেই।
কমিটির চেয়ারম্যান সদানন্দ মোরে জানাচ্ছিলেন, `আমাদের ছাত্র-ছাত্রীরা মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা। তাই মারাঠা ইতিহাসের সঙ্গে তাদের সরাসরি যোগ আছে। সমস্যাটা হল বইয়ে পৃষ্ঠা সংখ্যা সীমিত। তাই দুটো ইতিহাসই রাখা কঠিন, আবার মুঘল ইতিহাস রেখে মারাঠা ইতিহাস তো সরিয়ে দেওয়া যায় না!`
দক্ষিণ-পন্থী রাজনৈতিক দলগুলি মুঘলদের `মুসলিম আক্রমণকারী` হিসাবে চিহ্নিত করে। তাদের কথায়, হিন্দুদের ওপরে অনেক অত্যাচার করেছে মুঘলরা।
বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকে এই বক্তব্য আরও জোরালো হয়েছে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কিছু মুঘল শাসক ইসলামের প্রসারের চেষ্টা করেছেন ঠিকই কিন্তু বাকিরা সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দু রাজত্বগুলির ওপরে শান্তিতেই কর্তৃত্ব করেছেন।
এদের কথায়, মুঘল সম্রাটদের শাসন ক্ষমতা বা দক্ষতার নিরিখেই তাদের বিচার করা উচিত, ধর্মের ওপর ভিত্তি করে নয়।বিবিসি বাংলা

রাজস্থানে অপারেশন টেবিলে রোগী রেখে দুই ডাক্তারের তর্কাতর্কি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : অপারেশন থিয়েটারের টেবিলে শুয়ে আছেন অন্তসত্ত্বা নারী। অস্ত্রোপচার করা হবে একটু পরে। কিন্তু তাকে সেই অবস্থায় রেখে দুই ডাক্তার ভীষণ তর্ক চালিয়ে যাচ্ছেন। ভিডিওতে ধারণ করা ভারতের এক হাসপাতালে দুই ডাক্তারের এই কান্ড ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর তাদেরকে সাময়িকভাবে পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

রাজস্থানের উমেইদ হাসপাতালে ঘটনাটি ঘটেছিল। এটির ভিডিও ইন্টারনেটে ফাঁস হওয়ার পর ব্যাপকভাবে শেয়ার হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। মানুষের মধ্যে প্রচন্ড ক্ষোভ সৃষ্টি করে দুই ডাক্তারের এই আচরণ। তবে উমেইদ হাসপাতালের একজন ডাক্তার বিবিসিকে জানিয়েছেন, যে অন্তসত্ত্বা নারীর সন্তান জন্ম দেয়ার সময় এই ঘটনা ঘটে, তিনি এবং তার নবজাতক শিশু, দুজনই সুস্থ আছেন।

ভিডিওটি কে ফাঁস করেছে তা স্পষ্ট নয়। তবে একজন কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন যে হাসপাতালেরই কেউ এটি প্রকাশ করে দেয়।
শুরুতে কোন কোন গণমাধ্যমে রিপোর্ট করা হচ্ছিল যে ছবিতে যে অন্তসত্ত্বা মহিলাকে দেখা যাচ্ছে, তার জন্ম দেয়া শিশুটি শেষ পর্যন্ত বাঁচেনি।
কিন্তু যোধপুরের উমেইদ হাসপাতালের সুপারিনটেনডেন্ট ড: রঞ্জনা দেশাই জানিয়েছেন, এটি সত্য নয়। তিনি বলেন, `হাসপাতালে একটি শিশু মারা গিয়েছিল এটা সত্য। তবে সেই শিশুটির জন্ম হয়েছিল ঐ একই অপারেশন থিয়েটারে আরেকটি টেবিলে। সেখানে আরেকজন মহিলা একটি মৃত সন্তান প্রসব করেন। এই দুটি ঘটনার মধ্যে কোন সম্পর্ক নেই।`

যে দুজন ডাক্তারকে ভিডিওতে তর্ক করতে দেখা যাচ্ছে, তারা পরস্পরকে অপমানসূচক কথাবার্তা বলছিল। অন্তসত্ত্বা মহিলা অপারেশনের আগে কিছু খেয়েছিল কিনা, সেটা নিয়ে তারা তর্ক করছিল। ড: দেশাই জানিয়েছেন, এই দুই ডাক্তারকে বরখাস্ত করা হয়নি। তাদেরকে পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে এই ঘটনার আভ্যন্তরীণ তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত। কে এই ভিডিওটি ফাঁস করেছিল, সেটিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তদন্ত করে দেখছে।বিবিসি বাংলা

শরণার্থী রোহিঙ্গা নারীরা জানেন না তাদের স্বামী-সন্তানরা কোথায় গেছে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : কক্সবাজারের কুতুপালং ক্যাম্পের পাশের রাস্তা জুড়ে জড়ো হয়েছে শত শত রোহিঙ্গা শরণার্থী। দলে দলে ভাগ হয়ে বসে থাকা এই শরণার্থীদের বেশিরভাগই নারী এবং শিশু। বিশ জনের মতো যে শরণার্থী দলটির সঙ্গে আমার কথা হচ্ছিল, সেই দলে কোন পুরুষ নেই। প্রায় প্রতিটি নারীর কোলেই বাচ্চা। এদের সঙ্গে কথা বলে যেটা বুঝতে পারলাম, পরিবারের পুরুষ সদস্যরা তাদের সীমান্ত পর্যন্ত পৌঁছে দিয়ে আবার মিয়ানমারে ফিরে গেছে।

শিশু কোলে এক রোহিঙ্গা তরুণীর সঙ্গে কথা হচ্ছিল। গ্রামের মানুষ যখন দল বেঁধে পালাচ্ছিল, তখন তাদের সঙ্গে চলে আসে এই তরুণী। এরপর থেকে স্বামীর সঙ্গে তার আর কোন যোগাযোগ নেই। নুরাঙ্কিস নামের এক নারী চারটি ছোট বাচ্চাকে নিয়ে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে এসেছেন। পথে তাদের সঙ্গী একজনের বাচ্চা পানিতে ডুবে মারা গেছে।

নুরাঙ্কিসকে বাংলাদেশ সীমান্ত পর্যন্ত পৌঁছে দিতে এসেছিলেন তার স্বামী। পথে তার স্বামীর ওপর হামলা হয়। তার পায়ে দা দিয়ে কোপানো হয়। নুরাঙ্কিস পালিয়ে এসেছেন। কিন্তু স্বামীর কোন খোঁজ পাননি এখনো। শরণার্থীদের দলগুলোতে যে পুরুষের সংখ্যা এত কম, তার একটি ভিন্ন কারণও আছে। মিয়ানমার সরকারের ভাষ্যমতে, রাখাইন রাজ্যে সাম্প্রতিক সহিংসতার সূত্রপাত হয়েছিল দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর একটি রোহিঙ্গা জঙ্গিগোষ্ঠির হামলার মধ্য দিয়ে। এই রোহিঙ্গা নারীদের অনেকের কথায়ও বোঝা যাচ্ছে অনেক রোহিঙ্গা পুরুষ এখন এধরণের বিভিন্ন দলে যোগ দিয়ে সেনাদের সাথে লড়াই করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

একজন রোহিঙ্গা নারী আমাকে জানালেন, তাঁর ১৪ বছরের ছেলেকে তিনি বিদায় জানিয়ে এসেছেন। `আমার ছেলেকে আল্লাহর রাস্তায় দিয়ে এসেছি`, বলছেন তিনি। `পাড়ার প্রত্যেকটি ঘর থেকে ছেলেরা গেছে। আমার ছেলেকেও দিয়েছি।` এই নারী এবং শিশুদের তাদের পরিবারের পুরুষদের সাথে কবে দেখা হবে বা আদৌ দেখা হবে কিনা সেটিও অনিশ্চিত।বিবিসি বাংলা


   Page 1 of 5
     প্রতিবেশী
বিশ্বে ইন্টারনেট সবচেয়ে সস্তা ভারতে
.............................................................................................
পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের পা ধুয়ে দিলেন মোদি
.............................................................................................
বিষাক্ত মদ পানে ভারতীয় ৩২ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় তারকাদের নিন্দার ঝড়
.............................................................................................
পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল বিধায়ককে গুলি করে হত্যা
.............................................................................................
অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান ধর্মঘটে মমতা
.............................................................................................
মিয়ানমারের উত্তরপ্রান্তে ভূমিধসে ৬ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
প্রতিদিন ৩০০ রোহিঙ্গা ফেরত নেবে মিয়ানমার
.............................................................................................
সুষমা স্বরাজ আজ ঢাকায় আসছেন
.............................................................................................
মিয়ানমারে সোয়াইন ফ্লু`তে ৩৮ জনের মুত্যু
.............................................................................................
ভারতের মুম্বাইয়ে রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়লো বিমান, যাত্রীরা অক্ষত
.............................................................................................
শত কোটি টাকার শাড়ি কিনেও নারীর মন জয় করা যায়নি
.............................................................................................
প্রকাশ্যেই মাইন পুঁতছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী
.............................................................................................
ভারতে মুঘল ইতিহাস বাদ, এসেছে হিন্দু শাসকদের কথা
.............................................................................................
রাজস্থানে অপারেশন টেবিলে রোগী রেখে দুই ডাক্তারের তর্কাতর্কি
.............................................................................................
শরণার্থী রোহিঙ্গা নারীরা জানেন না তাদের স্বামী-সন্তানরা কোথায় গেছে
.............................................................................................
রাম রহিমের সাজা ঘোষণা, কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ
.............................................................................................
ভারতীয় ধর্মগুরু বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার রায়ে সহিংসতায় নিহত অন্তত ২৮
.............................................................................................
ভারতের উত্তর প্রদেশে ট্রেন লাইনচ্যুত, নিহত ২৩
.............................................................................................
বিহার, আসামে বন্যায় মৃত ১৪৭ জন
.............................................................................................
ভারতে বন্যা প্রাণহানি ৯১ জনের, ক্ষতিগ্রস্ত ৯৬ লাখ লোক
.............................................................................................
ভারতে ভূমিধসে ৪৬ বাসযাত্রী নিহত
.............................................................................................
মিয়ানমারের রাখাইনে আবারো সেনা মোতায়েন
.............................................................................................
উড়িষ্যায় বজ্রপাতে ১১ জনের মৃত্যু, আহত ৮
.............................................................................................
মুম্বাইয়ে ভবন ধসে নিহত বেড়ে ১৭, শিবসেনা নেতা গ্রেপ্তার
.............................................................................................
ভারতের পশ্চিমাঞ্চলে ভারী বর্ষণ ও বন্যা : ২৫ হাজার লোককে সরানো হয়েছে
.............................................................................................
জাকির নায়েকের পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত করেছে ভারত
.............................................................................................
ভারতের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন আজ
.............................................................................................
তামিলনাডুতে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ১০, আহত ২৩
.............................................................................................
ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বন্যায় নিহত ৮৩
.............................................................................................
অন্ধকার ঘরে ২০ বছর টানা বাবা-মায়ের হাতে বন্দি মেয়ে!
.............................................................................................
ভারতে নজিরবিহীন বন্যার পূর্বাভাস
.............................................................................................
বিহারে বজ্রপাতে ২৩ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
দোস্ত` মোদী, হিন্দিতে নেতানিয়াহুর
.............................................................................................
ভারতের মহারাষ্ট্রে বাস-ট্যাংকার সংঘর্ষে নিহত ৬, আহত ৭
.............................................................................................
রাখাইন রাজ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর সর্বোচ্চ সতর্কতা
.............................................................................................
গোরক্ষার নামে মানুষ হত্যায় ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী মোদী`র নিন্দা
.............................................................................................
ভারতের আসামে ৬৯ হাজারেরও বেশি মানুষ বন্যাকবলিত
.............................................................................................
ভারতে বন্যায় ১২ জনের প্রাণহানি
.............................................................................................
ভারতের উত্তরাঞ্চলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১০
.............................................................................................
গরুকে ভগবান ও মা বললেন ভারতের বিচারপতি
.............................................................................................
ভারতে আতশবাজি কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে ২৫ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
মিয়ানমারের নিখোঁজ বিমানের ধ্বংসাবশেষ মিলেছে
.............................................................................................
ভারতের উত্তরাঞ্চলে তাপদাহে ১০ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
ভারতের মধ্য প্রদেশে কৃষক বিক্ষোভে পুলিশের গুলি, নিহত ৫
.............................................................................................
ভারতে বাস-ট্রাক সংঘর্ষ : নিহত ২২
.............................................................................................
শুকিয়ে যাচ্ছে ভারতের ব্যাঙ্গালোর: ভয়াবহ পানির দুর্ভোগে বিপর্যস্ত মানুষ
.............................................................................................
ভারতে প্রকাশ্যে গরু জবাই করে প্রতিবাদ
.............................................................................................
ভারতে বৃষ্টি ও বজ্রপাতে ২৩ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
ভারতে বাস দুর্ঘটনায় নিহত ৮, আহত ১৬
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]