| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * কক্সবাজারে ইয়াবা ও আগ্নেয়াস্ত্র সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক   * স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ ৪০০ মণ আম ধ্বংস   * হুয়াওয়ের সাথে প্যানাসনিকের ব্যবসা স্থগিত   * বিজেপি এগিয়ে ৩৩৯ আসনে, কংগ্রেস ৯০   * ৩২ দলেই হবে কাতার বিশ্বকাপ   * সংগীতশিল্পী খালিদ হোসেনকে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা   * টিকিট নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে মানুষ   * গ্যাস সিলিন্ডার লিকেজ থেকে আগুন ধরে একই পরিবারের ৪ জন নিহত   * সঙ্গীতশিল্পী খালিদ হোসেনের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক   * মেক্সিকোতে অপরাধী চক্রের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১০  

   অন্যান্য -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
গভীর সাগর দিয়ে ছুটবে ট্রেন

অনলাইন ডেস্ক : সমুদ্রের তলা দিয়ে ছুটবে ট্রেন। সে জন্য ইউরোপে তৈরি হচ্ছে পৃথিবীর দীর্ঘতম সুড়ঙ্গ রেলপথ। জেনে নিন তার খুঁটিনাটি।

উত্তর ইউরোপের দুই দেশ ফিনল্যান্ড ও এস্তোনিয়া। তাদের মাঝে রয়েছে ফিনল্যান্ড উপসাগর। তার নীচ দিয়ে ৯০ কিলোমিটার দীর্ঘ সুড়ঙ্গ রেলপথ তৈরি হতে চলেছে। এই প্রকল্পে খরচ পড়বে দেড় হাজার কোটি ইউরো।

ইংল্যান্ড ও উত্তর ফ্রান্সের মাঝে ৫০ কিলোমিটার দীর্ঘ চ্যানেল টানেলই এতদিন পৃথিবীর মধ্যে দীর্ঘতম সুড়ঙ্গ রেলপথ ছিল। তার চেয়েও দীর্ঘ হতে চলেছে এস্তোনিয়ার রাজধানী তালিন থেকে ফিনল্যান্ডের রাজধানী হেলসিঙ্কি পর্যন্ত বিস্তৃত নয়া সুড়ঙ্গ রেলপথ।
ফেরিতে চড়ে তালিন থেকে হেলসিঙ্কি পৌঁছতে এই মুহূর্তে দু’ঘণ্টা সময় লাগে। সুড়ঙ্গ রেলপথ তৈরি হলে সময় লাগবে মাত্র ২০ মিনিট। প্রতিদিন দু’ঘণ্টা পেরিয়ে তালিন থেকে হেলসিঙ্কি যান বহু মানুষ। সুড়ঙ্গ রেলপথ তৈরি হলে তারা সকলেই উপকৃত হবেন।

সুড়ঙ্গ তৈরির কাজ যদিও এখনও শুরু হয়নি। তবে এখন থেকেই তা নিয়ে উন্মাদনা শুরু হয়েছে দু’দেশের মানুষের মধ্যে। গতবছরের ডিসেম্বর থেকে অনলাইন টিকিট বুকিংও শুরু হয়ে গেছে। ভাড়া ৫০ ইউরো।

গভীর সাগর দিয়ে ছুটবে ট্রেন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সমুদ্রের তলা দিয়ে ছুটবে ট্রেন। সে জন্য ইউরোপে তৈরি হচ্ছে পৃথিবীর দীর্ঘতম সুড়ঙ্গ রেলপথ। জেনে নিন তার খুঁটিনাটি।

উত্তর ইউরোপের দুই দেশ ফিনল্যান্ড ও এস্তোনিয়া। তাদের মাঝে রয়েছে ফিনল্যান্ড উপসাগর। তার নীচ দিয়ে ৯০ কিলোমিটার দীর্ঘ সুড়ঙ্গ রেলপথ তৈরি হতে চলেছে। এই প্রকল্পে খরচ পড়বে দেড় হাজার কোটি ইউরো।

ইংল্যান্ড ও উত্তর ফ্রান্সের মাঝে ৫০ কিলোমিটার দীর্ঘ চ্যানেল টানেলই এতদিন পৃথিবীর মধ্যে দীর্ঘতম সুড়ঙ্গ রেলপথ ছিল। তার চেয়েও দীর্ঘ হতে চলেছে এস্তোনিয়ার রাজধানী তালিন থেকে ফিনল্যান্ডের রাজধানী হেলসিঙ্কি পর্যন্ত বিস্তৃত নয়া সুড়ঙ্গ রেলপথ।
ফেরিতে চড়ে তালিন থেকে হেলসিঙ্কি পৌঁছতে এই মুহূর্তে দু’ঘণ্টা সময় লাগে। সুড়ঙ্গ রেলপথ তৈরি হলে সময় লাগবে মাত্র ২০ মিনিট। প্রতিদিন দু’ঘণ্টা পেরিয়ে তালিন থেকে হেলসিঙ্কি যান বহু মানুষ। সুড়ঙ্গ রেলপথ তৈরি হলে তারা সকলেই উপকৃত হবেন।

সুড়ঙ্গ তৈরির কাজ যদিও এখনও শুরু হয়নি। তবে এখন থেকেই তা নিয়ে উন্মাদনা শুরু হয়েছে দু’দেশের মানুষের মধ্যে। গতবছরের ডিসেম্বর থেকে অনলাইন টিকিট বুকিংও শুরু হয়ে গেছে। ভাড়া ৫০ ইউরো।

বরফের তৈরি হোটেল!
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ফিনল্যান্ডে কিট্টিলা এলাকা ফিন্নিশে সম্প্রতি তৈরি করা হয়েছে একটি আইস হোটেল। এই হোটেলটি তৈরি হয়েছে শুধুমাত্র বরফ ও বরফের গুঁড়ো দিয়ে। কেউ যদি এই হোটেলে নিজেদের বিয়ে সারতে চান সে ব্যবস্থাও রয়েছে হোটেলের মধ্যে কিংস ল্যান্ডিং নামের হলে।

উত্তর মেরুর আর্টিক সার্কেলের ১২০ মাইল উপরে ফিন্নিশে তৈরি করা হয়েছে এই ল্যাপল্যান্ড হোটেল। ৮ লক্ষ ৮০ হাজার পাউন্ড বরফ দিয়ে তৈরি করা হয়েছে হোটেলটি। বিভিন্ন দেশের ১২ জন শিল্পী প্রায় ৫ সপ্তাহ ধরে তৈরি করেছেন গেম অফ থ্রোনসের চরিত্র সম্বলিত বরফের হোটেল। আনন্দবাজার।

জীবন বাঁচাতে শ্বাসরোধ করে সিংহকে মেরে ফেললো যুবক!
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাস্তায় হাঁটতে গিয়ে এমন সময় পাহাড়ি এক সিংহের সামনে পড়েন তিনি। সিংহটি আক্রমণ করে তাকে। জীবন বাঁচাতে লড়াইয়ে জড়িয়ে শ্বাসরোধ করে সিংহকে মেরে ফেলে নিজেকে বাঁচালেন সেই যুবক।

সিংহ-মানুষের এমন লড়াইয়ের সাক্ষী থাকল কলোরাডো। গত সোমবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, সেই যুবকের ওপর আক্রমণ করে ৩৭ কেজি ওজনের মাউন্টেন লায়ন। সর্বশক্তি দিয়ে নিজেকে সিংহের কবল থেকে মুক্ত করার চেষ্টা করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত সিংহের গলা টিপে ধরেন। আর তার ফলে শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু হয় সিংহটির। আহত হন তিনি নিজেও।

এখন পর্যন্ত আহত ওই যুবকের নাম জানা যায়নি। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কলোরাডো পার্কস অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ সূত্র থেকে জানা গেছে, মাউন্টেন লায়ন সচরাচর হামলা করে না। শান্ত স্বভাবের এরা।

মৌলভীবাজারের বাইক্কা বিল মাছের পাশাপাশি পাখিদেরও অভয়াশ্রম
                                  

মৌলভীবাজারের হাইল হাওরের বাইক্কা বিল মাছের পাশাপাশি এখন পাখিদেরও অভয়াশ্রম। প্রতিদিন হাজার মাইল দূর থেকে এসে ভিড় করছে অসংখ্য পরিযায়ী পাখি। সকাল-সন্ধ্যা অতিথি ও স্থানীয় পাখির ওড়াউড়ি আর কলকাকলিতে মুখর বিলটি হয়ে উঠেছে পাখির এক রাজ্য। তবে, পাখির খাদ্য সংকট, শিকারির তৎপরতা ও আবাসন পরিবর্তনের কারণে দিনকে দিন কমে আসছে পাখির উপস্থিতি।

শীতের শুরুতেই ঝাঁক বেঁধে বিলে আসে পরিযায়ী পাখিরা। বিলের এ-প্রান্ত থেকে ও-প্রান্ত শুধু এদেরই অবাধ বিচরণ। ডানা ঝাপটানো শব্দে চঞ্চলতায় ভরে উঠেছে নির্জন বিলের প্রান্তর। আকাশে মালা গাঁথছে ঝাঁকবাঁধা ছোট-বড় পাখি।

রাত কিংবা ভোর অথবা দিনের সোনালি রোদ গায়ে মেখে বেগুনি কালেম, সরালী, বালিহাঁসসহ নাম না জানা অসংখ্য পাখির জলকেলি বিলের সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে তুলেছে কয়েকগুণ। আর এই অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগে পাখি ও প্রকৃতি প্রেমীদের বেড়ানোর অন্যতম কেন্দ্র হয়ে উঠেছে এই বাইক্কা বিল।

খাদ্য ও আবাসন সঙ্কটের পাশাপাশি শিকারিদের তৎপরতার কারণে পাখিদের উপস্থিতি কমে যাওয়ার আশংকা দর্শনার্থীদের।

দর্শনার্থীরা বলেন, `এখানে তিন থেকে চার প্রকার পাখি আছে। আগেরবার যখন এসেছিলাম তখন সুন্দর সুন্দর পাখি ছিল। কিন্তু এবারে নাই। এছাড়া রাস্তা ভাঙ্গাচোরা। এটি ঠিক করা হলে আরো দর্শনার্থী আসতো`

জেলা প্রশাসন বলছে, বাইক্কা বিলকে পর্যটনবান্ধব হিসেবে গড়ে তোলা হবে। সিএলআরএস সাইড অফিসার মো মনিরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, `বাইক্কা বিলের যাওয়ার রাস্তার সমস্যার বিষয়ে জেলা প্রশাসন ওয়াকিবহাল। এছাড়া আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি আমাদের নজরে আছে।`

বাইক্কা বিলসহ আশেপাশের ১শ` ৭০ হেক্টর আয়তনের এলাকাকে পাখির স্থায়ী অভয়াশ্রম ঘোষণা করেছে সরকার। গত বছরের পাখি শুমারি অনুযায়ী, ১০ হাজার ৭শ` ১২টি পাখির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে বাইক্কা বিলে। প্রতি শীতেই ৪০ প্রজাতির দেশি বিদেশি পাখির আগমন ঘটে।

একই চেহারার হতে গিয়ে যমজ বোনের কাণ্ড!
                                  

লুসি এবং অ্যানা ডিসনকে। যমজ দুই বোন। কিন্তু দেখতে তাদের চেহারায় একটু ভিন্নতা ছিল। আর এই ভিন্নতা দূর করে হুবহু একই রকমের হতে গিয়ে তারা করে বসেছেন লঙ্কাকাণ্ড। দু`বোন অবিকল চেহারা বানাতে গিয়ে খরচ করেছেন লাখ লাখ ডলার।

এখন বলা হচ্ছে, এই দুই বোনই বিশ্বের সবচেয়ে একই চেহারার যমজ। কিন্তু তাতেও খুশি ছিলেন না তারা। তাই লাখ লাখ ডলার খরচ করে দিন দিন দেখতে আরো অবিকল হয়ে উঠছেন। ইতোমধ্যে আড়াই লাখ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি ২১ লাখ সাড়ে ৩৪ হাজার টাকা) খরচ করে মোট ১৪টি সার্জারি করিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার পার্থের বাসিন্দা ৩৩ বছরের যমজ এ দুই বোন।

দেশটির একটি সংবাদমাধ্যম বলছে, এখনও পর্যন্ত লিপ ফিলার, ফেসিয়াল ট্যাটুইং, ব্রেস্ট ইমপ্লান্ট, স্কিন নিডলিং, হেয়ার এক্সটেনশন, লেজার ট্রিটমেন্ট করিয়েছেন। তবে দেখতে তারা দু`জন যতই এক রকম হয়ে উঠছেন ততই সমালোচনা বাড়ছে তাদের। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাদের দু`জনকে নিয়ে ট্রোলও করেছেন অসংখ্য মানুষ।
অনেকেই যমজ দু`বোনকে প্লাস্টিক বার্বি, ফিশ লিপড বলে ট্রোল করেছেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সমালোচনায় কর্ণপাত করেননি তারা। তবে লুসি এবং অ্যানা ডিসন মনে করেন, আরো একটু পরিকল্পনা করে তারা সার্জারি করাতে পারতেন। শুধু দেখতেই এক নয়, তারা চান জীবনটাও একসঙ্গে চলুক।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, দু`জন বাগদান করেছেন একই প্রেমিকের সঙ্গে। মাও হতে চান একই সময়ে। লুসি ও অ্যানা চান না কখনোই তাদের দেখতে অন্য রকম লাগুক।

বরের বয়স ১০, কনের ৮
                                  

বাল্যবিবাহ নিষিদ্ধ। কিন্তু তারপরেও বেশ ধুমধাম করেই ৮ বছরের পাত্রীর সঙ্গে বিয়ে হয়ে গেল ১০ বছরের পাত্রের। আর সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই তা রীতিমত ভাইরাল হয়ে গেছে। তবে এ নিয়ে বিতর্কের ঝড়ও উঠেছে।

পৃথিবীর অনেক দেশের মতোই বাল্যবিবাহ আইনসিদ্ধ নয় রোমানিয়াতেও। কিন্তু তাতে আটকায়নি এই বিয়ে। এক ঘর অতিথির সামনেই হয়েছে এই বিয়ে।

একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, গাউন পরিহিত একদল নারী এক ক্ষুদে কনেকে বিয়ের জন্য তৈরি করছেন। তাকে সুন্দর করে মেকআপ করিয়ে দেয়া হচ্ছে।

রোমানিয়ার অধিকাংশ দেশেই বাল্যবিবাহ বেআইনি। জিপ্সি কমিউনিটিতেও বাল্যবিবাহের জন্য হাজতবাস অনিবার্য। কিন্তু তা সত্ত্বেও রোমানিয়া সরকার বা জিপ্সি কমিউনিটি কেউই এই বিয়ে নিয়ে কোন মন্তব্য করেনি।

তবে এর সপক্ষে যুক্তি দিয়েছেন ডন ভকিন নামের এক ব্যক্তি। তিনি জানিয়েছেন, জিপ্সি কমিউনিটিতে এই বিয়ের মানে হচ্ছে একে অপরকে পছন্দ করে রাখা। প্রাপ্তবয়স্ক হলেই আবারও বিয়ে হবে তাদের।

কান্নার জন্য ‘সুদর্শন’ পুরুষ ভাড়া!
                                  

বিচ্ছেদের পর একা একা কান্নায় আর আস্থা রাখতে পারছেন না মেয়েরা। তাই কান্নার জন্য টাকার বিনিময়ে সুদর্শন পুরুষের সান্নিধ্য নিচ্ছেন তারা। এমনই রেওয়াজ চালু হয়েছে জাপানে।

জানা গেছে ডিভোর্সের একাকিত্ব বা অন্য কোন কারণে কষ্ট পেলে সঙ্গে সঙ্গে কম্পিউটার বা ফোনের সামনে বসছেন জাপানি নারীরা, অনলাইনে করছেন হ্যান্ডসাম পুরুষের খোঁজ। এজন্য বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩ হাজার টাকা খরচ করতে হচ্ছে তাদের।

বিষয়টিকে পুঁজি করে রীতিমতো ব্যবসা খুলে বসেছেন হিরোকি তেরাই নামে জাপানি এক উদ্যোক্তা।

মানুষের মস্তিষ্কে পিটুইটারি নামে একটি গ্রন্থি আছে। দুঃখ বা কান্নার মুহূর্ত এলে টিয়ার গ্ল্যান্ডে সংকেত পাঠায় সেটি। তাতে চাপ পড়ে চোখের কোণ বেয়ে বেরিয়ে আসে পানি, যাকে আমরা বলি কান্না। কিন্তু জাপানি নারীদের একাংশের বিশ্বাস, সুদর্শন পুরুষ চোখের পানি মুছে দিলে নাকি কান্নায়ও সুখ পাওয়া যায়, দূর হয় দুঃখকষ্ট।

এমন বিশ্বাসকে পুঁজি করে হিরোকি তেরাই নতুন ব্যবসা খুলে বসেছেন। তার প্রতিষ্ঠানে যোগাযোগ করলে নারীরা কান্নার সময় ‘হ্যান্ডসাম উইপিং বয়’নামের সুদর্শন পুরুষ পৌঁছে যাবে তাদের কাছে। তারা সান্ত্বনা দেয়াসহ যত্ন করে নারীদের চোখের পানি মুছে দেবেন।

জাপানি পরিভাষায় এই পদ্ধতির নাম ‘রুই-কাৎসু’। এ জন্য অনলাইনে নির্দিষ্ট ফি দিয়ে বুক করতে হবে নিজের নাম ও কান্নার সময়। এরপর নির্ধারিত ঠিকানায় পৌঁছে যাবেন এক সুদর্শন যুবক।

এ প্রসঙ্গে তেরাই জানান, এই ভাবনার কথা প্রথম মাথায় আসে জাপানি দম্পতিদের ডিভোর্সের সময়ের কথা ভেবে। সেখানে কিছু কিছু পুরুষ সপ্তাহ জুড়েই নানা অফিসিয়াল ও ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্ত থাকায় স্ত্রীরা ডিভোর্সের আবেদন করেন। তখন সংসার ভেঙে যাওয়ার কষ্ট তাদের উভয়কেই পীড়া দেয়।

তেরাইয়ের মতে দুঃখ ভুলে থাকার কায়দা নারী-পুরুষের আলাদা। সাধারণত পুরুষেরা সারাদিন নানা প্রমোদ, বিলাসিতা ও ঘুমিয়ে বা পরের সপ্তাহে কাজের পরিকল্পনা করে কাটিয়ে দেন। সে ক্ষেত্রে নারীরাই কান্নাকাটি করেন বেশি। তা দেখেই এই ব্যবসার কথা মাথায় আসে।

তার মতে ডিভোর্সিদের সামনে যদি কোনো বিপরীত লিঙ্গের মানুষ থাকেন, তাহলে তারা অনেকটা ভরসা পাবেন, কান্নায় সমব্যথী হওয়ার জন্য মনের মতো মানুষ পাবেন। এতে একজন দুঃখী মানুষ সঙ্গীও পাবেন, আবার মেয়েদের মনের চাপও কমবে।

কিন্তু সুদর্শন পুরুষই কেন? -এমন প্রশ্নে তেরাই বলেন, সামনের মানুষ বদলে গেলে একই ঘটনায় মানুষের আচরণও অনেকটা বদলে যায়। সামনে আকর্ষক কেউ থাকলে মানুষ কোথাও জীবনের প্রতি একটু বেশি আশাবাদী হয়। তাই সুন্দর মুখকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে।

এই অভিনব ব্যবসা শুরু করে দ্রুতই সাফল্য পান তেরাই। অল্প দিনের মধ্যেই তার এই ধারনা ছড়িয়ে পড়ে দেশজুড়ে। শুধু তা-ই নয়, তার এই ভাবনাকে মূলধন করে ছবিও বানিয়ে ফেলেছেন দ্যারিয়েল থমস। ‘ক্রাইং উইথ দ্য হ্যান্ডসাম ম্যান’নামের স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবিতে তিনি এই তত্ত্বের ব্যাখ্যা ও বিশ্বাসকে তুলে ধরেছেন।

যদিও জাপান জুড়ে বিপুল জনপ্রিয় হওয়া এই অভ্যাসকে ‘সেরিমনিয়াল অ্যাটিটিউড’ বা ‘উদযাপনের অভ্যাস’ হিসেবে মনেছেন করছেন বিশেষজ্ঞরা।

কম্বোডিয়ায় সড়ক হবে বঙ্গবন্ধুর নামে
                                  

অনলাইন ডেস্ক
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তেজগাঁওয়ে তাঁর কার্যালয়ে আজ বৃহস্পতিবার মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: বাসস
কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেনের একটি সড়কের নামকরণ করা হবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে। আর ঢাকার বারিধারার পার্ক রোডের নামকরণ হবে কম্বোডিয়ার সাবেক রাজা নরাদম সিহানুকের নামে।
আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ব্রিফিং করে মন্ত্রিসভার বৈঠকের এ কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।
ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, মন্ত্রিসভার আজকের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর কম্বোডিয়া সফর সম্পর্ক অবহিত করা হয়। বৈঠকে সড়কের নামকরণ করার বিষয়টি জানানো হয়।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে দশম জাতীয় সংসদের ২০১৮ সালের প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি যে ভাষণ দেবেন, তা অনুমোদন করা হয়েছে। ভাষণে অর্থনীতির বিভিন্ন চিত্র, সরকারের সাফল্য, রূপকল্প বাস্তবায়নে নেওয়া বিভিন্ন সিদ্ধান্ত, কর্মসংস্থান, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীসহ সরকারের বিভিন্ন নীতি ও কৌশল গুরুত্ব পেয়েছে।
আজকের বৈঠকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে শোকপ্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। এ ছাড়া শীতলপাটি ইউনেসকোর স্বীকৃতি পাওয়ায় সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানানো হয়।

সাবেক রাষ্ট্রদূত মারুফ জামান নিখোঁজ
                                  

অনলাইন ডেস্ক
বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত মারুফ জামান (৬০) নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি কাতার ও ভিয়েতনামে নিযুক্ত ছিলেন । এ ঘটনায় মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে মারুফ জামানের মেয়ে সামিহা জামান ধানমন্ডি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন । সোমবার (৪ ডিসেম্বর) বিকাল ৫টায় ধানমণ্ডির ৯/এ রোডের ৮৯ নম্বর বাড়ির ২/এ নম্বর ফ্ল্যাট থেকে মারুফ জামান বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে বের হয়ে যান । তার মেয়ে সামিহা জামান বিদেশ থেকে সন্ধ্যা ৭টায় বিমান বন্দরে পৌঁছানোর কথা । কিন্তু বিমান বন্দরে সামিহা জামান পৌঁছালেও তার বাবা তাকে রিসিভ করার জন্য সেখানে যাননি । পারিবারিক সূত্র জানায়, সোমবার গভীর রাতে মারুফ জামান তার বাসায় ফোন দিয়ে তার রুমে থাকা ল্যাপটপ ও কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তির কাছে দিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন। ওইদিন রাত ২টার দিকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি তার বাসায় গিয়ে ল্যাপটপ ও কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক নিয়ে যায় । এ ঘটনার পর মঙ্গলবার দুপুরে খিলক্ষেত এলাকা থেকে মারুফ জামানের ব্যক্তিগত গাড়িটি পুলিশ পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে। পুলিশ জানায়, মারুফ জামানের সর্বশেষ অবস্থান ছিল সোমবার সন্ধ্যা ৭টা ১৯ মিনিটে কাওলা, দক্ষিণখান এলাকায়। এরপর থেকেই তার আর কোন অবস্থান মেলেনি। মারুফ জামান ২০০৫ সালে ভিয়েতনামের রাষ্ট্রদূত ছিলেন । তিনি ১৯৭৩ সালে সেনা কর্মকর্তা হিসেবে পররাষ্ট্র ক্যাডারে আত্মীকরণ হন। সেনা কর্মকর্তা (ক্যাপ্টেন) এরপর থেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দূতাবাস ও হাইকমিশনে দায়িত্ব পালন শেষে অবসর জীবন যাপন করেন

প্যারাডাইস পেপারসে আসা ব্যক্তিদের ব্যাপারে খতিয়ে দেখা হবে: দুদক চেয়ারম্যান
                                  

অনলাইন ডেস্ক
প্যারাডাইস পেপারসে যেসব বাংলাদেশি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নাম এসেছে তাদের ব্যাপারে খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। গতকাল রবিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছেন, প্যারাডাইস পেপারের অভিযোগ হাতে পেলাম। যাচাই-বাছাই শুরু হয়েছে। আলোচনা করে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেব।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দুদক অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত না নিলেও সরকারের অন্যান্য সংস্থা যাতে বিষয়টি তদন্ত করে, তা নিশ্চিত করা হবে। তিনি বলেন, আমি এটুকু বলতে চাই, আমরা যদি অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত না-ও নেই, তাহলে যাতে সরকারের অন্যান্য সংস্থা বিষয়টি খতিয়ে দেখে সে বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে।
জানা গেছে, বেনামি প্রতিষ্ঠান খুলে বিদেশে বিনিয়োগের তথ্য ফাঁস করে আসছে প্যারাডাইস পেপারস। গত ১৭ নভেম্বর নতুন করে ২৫ হাজার নথি প্রকাশ করা হয়েছে।
প্যারাডাইস পেপারসে নাসরিন ফাতেমা আউয়াল, তাবিথ আউয়াল, তাফসির আউয়াল, চৌধুরী ফয়সাল (গ্লোব-লেক এশিয়া লিমিটেড ও গ্লোব-লেক এশিয়া হোল্ডিংস লিমিটেড), আবদুল আউয়াল মিন্টু (এনএফএম এনার্জি লিমিটেড), ফরিদা ওয়াই মোগল, শহিদ উল্লাহ, সামির আহমেদ (ড্রাগন ক্যাপিট্যাল ক্লিন ডেভেলপমেন্ট ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড) ও তাজওয়ার মোহাম্মদসহ ১০ বাংলাদেশির নাম রয়েছে।

প্রজাপতি মেলায় দর্শনার্থীদের ভিড়
                                  

অনলাইন ডেস্ক
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) শুরু হয়েছে দিনব্যাপী প্রজাপতি মেলা। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দর্শনার্থীরা মেলায় ভিড় জমিয়েছেন।
রাজধানীর ব্যস্ত জীবন থেকে একটু নিরিবিলি পরিবেশে জীবনকে প্রজাতির নানা রঙে রাঙাতে পরিবার নিয়ে ছুটে এসেছেন শত শত মানুষ। সঙ্গে রয়েছে কোলের শিশুটিও।

ঢাকার উত্তরা থেকে পরিবারসহ প্রজাপতি মেলা দেখতে এসে আব্দুর সাত্তার বলেন, ইট-পাথরের এ শহরে মন চায় পরিবার নিয়ে কোথাও নিরিবিলি পরিবেশে প্রকৃতির সঙ্গে একটু সময় পার করি। তাই পরিবারের সবাইকে নিয়ে প্রজাপতি মেলা দেখতে এসেছি।
এছাড়া ঢাকা ও আশপাশের অনেক স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা দল বেধে এসেছে প্রজাপতি মেলায়।
‘উড়লে আকাশে প্রজাপতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি’- স্লোগানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) প্রাণিবিদ্যা বিভাগের আয়োজনে অষ্টমবারের মতো এ প্রজাপতি মেলার আয়োজন করা হয়েছে।
শনিবার (০৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে দশটায় মেলার উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম।
মেলায় দশনার্থীদের ভিড়উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রজাপতির সঙ্গে প্রকৃতির কি সম্পর্ক, পরাগায়নে প্রজাপতি কি সাহায্য করে তা আমরা এ প্রজাপতি মেলার মাধ্যমে জানতে পারছি। প্রজাপতি প্রকৃতির কোনো উপকার করে কিনা, তা না জেনেই আমরা প্রজাপতির পেছনে ছুটি, ভালো লাগার কারণে। এ মেলার কারণে প্রজাপতি ও প্রজাপতির উপকার সম্পর্কে মানুষের মধ্যে জানার আগ্রহ তৈরি হচ্ছে।
এ সময় তিনি প্রজাপতি মেলার আয়োজক ও প্রজাপতিপ্রেমীদের ধন্যবাদ জানান।
এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মো. মনজুরুল হক, আইইউসিএন’র (ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব ন্যাচার) বাংলাদেশ প্রতিনিধি ইশতিয়াক উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।
মেলায় ‘ইয়াং বাটারফ্লাই এনথ্যুসিয়াস্ট অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়া হয় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যায়ের লোক প্রশাসনের শিক্ষার্থী আফলাতুন কায়সারকে।
এছাড়া প্রজাপতির চোখ এবং কালার ভিশনের গবেষণায় সার্বিক অবদানের

আয়কর মেলার প্রথম দিনেই উপচে পড়া ভিড়
                                  


অনলাইন ডেস্ক
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান বলেন, মেলায় সেবার পরিধি বাড়ানো হয়েছে। প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি ভবিষতে করদাতাদের জন্য কর সেবার মান আরও বাড়বে।
তিনি বলেন, উনানয়নের পূর্বশর্ত কর। এজন্য একটি করবান্ধব পরিবেশ তৈরির চেষ্টা চলছে। নানাভাবে কর দাতাদের উৎসাহিত করার চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য, আগে রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে মেলা অনুষ্ঠিত হলেও গত বছর থেকে আগারগাঁওয়ে এনবিআরের নিজস্ব ভবনে হচ্ছে আয়কর মেলা। এটা এনবিআরেরর ৮ম আয়কর মেলা।
এবারের মেলায় আয়কর সংক্রান্ত সব ধরনের ফরম বিনামূল্যে প্রদান করা হচ্ছে। করদাতাদের বিনা ভাড়ায় যাতায়াত সুবিধার জন্য রাজধানীর টিএসসি, বেইলি রোড, মিরপুর-২ ও উত্তরা থেকে ১৩টি শাটল বাস নিয়োজিত রয়েছে।
এছাড়া আয়কর মেলার এবার বাড়তি আকর্ষণ করদাতাদের রিটার্ন দাখিলের সঙ্গে সঙ্গে ইনকাম ট্যাক্স আইডি কার্ড ও ইনকাম ট্যাক্স পেয়ার স্টিকার প্রদান।প্রথমবারের মতো এনবিআর ঢাকা ও চট্টগ্রামের মেলায় এ কার্ড ও স্টিকার প্রদান করা হচ্ছে। এটি এবারের এনবিআরের নতুন উদ্ভাবন।

গাজর ভেবে দামী গাড়ি খেয়ে ফেললো বোকা গাধা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : জার্মানিতে একটি দামী স্পোর্টস কারের একজন মালিক একটি গাধার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এবং এতে জয়লাভ করেছেন। মার্কাস জাহ্ন নামের এই লোক গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে তার বহুমূল্য ম্যাকলারেন স্পাইডার স্পোর্টস কারটি ভোগেলসবার্গ শহরের একটি আস্তাবলের কাছে পার্ক করেন।

ফিরে এসে তিনি দেখেন যে গাড়ির পেছন দিকের অংশটি কেউ চিবিয়ে খেয়ে ফেলার চেষ্টা করেছে। খোঁজখবর নিয়ে তিনি বুঝতে পারেন যে এই কাজটি ছিল ঐ আস্তাবলের ভাইটাস নামের এক ক্ষুধার্ত গাধার। স্থানীয় পুলিশের ধারণা, কমলা রঙের গাড়িটিকে ঐ গাধা একটি বিশাল গাজর বলে ভুল করে থাকতে পারে।

এরপর ঐ গাড়ির মালিক গাধার মালিকের কাছে ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলার রায়ে আদালত ৬৮০০ ডলার ক্ষতিপূরণ দেয়ার জন্য ভাইটাসের মালিককে আদেশ দেন। এই রায়ের বিরুদ্ধে গাধার মালিক আপিল করবেন বলে জানা যাচ্ছে। তার যুক্তি, এই ঘটনায় ভাইটাসের কোন দোষ নেই। আর তিন লক্ষ ১০ হাজার ইউরো দামের এই গাড়িটিকে আস্তাবলের পাশে পার্ক করে রাখা গাড়ির মালিকের মোটেই উচিত হয়নি বলে তিনি বলছেন। বিবিসি বাংলা

মেজাজ ভালো থাকলেই শুধু ফ্লুয়ের টিকা কাজ করে?
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ব্রিটেনেও বিশেষ করে বয়স্ক মানুষ এবং শিশুদের ওপর এর হুমকি কমাতে সরকার থেকে বিনা পয়সায় টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। সেই টিকার ওপর ব্রিটেনের নটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণার ফলাফলে এখন বলা হচ্ছে, ফ্লুয়ের টিকা কতটা কাজ করবে তা হয়তো অনেকটাই নির্ভর করে টিকা নেয়ার আগে ও পরে মানুষটির মনের অবস্থার ওপর।

মেজাজ ফুরফুরে থাকলে টিকা বেশি কার্যকরী হয়। গবেষকরা ৬৫ থেকে ৮৫ বছর বয়স্ক ১৩৮ জনের ওপর একটি জরীপ চালান। টিকা নেওয়ার আগের দু`সপ্তাহ এবং পরের চার সপ্তাহ তাদের মনের অবস্থার ওপর নজর রাখা হয়। দেখা গেছে, যারা এ ছয় সপ্তাহ ধরে ভালো মেজাজে ছিলেন তাদের রক্তে টিকার প্রতিরোধের ক্ষমতা চার মাস পরেও বেশ জোরালো ছিল।

এটা কি নেহাতই কাকতালীয় নাকি সত্যিই মেজাজের সাথে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা আছে তা নিয়ে গবেষকরা এখনও নিশ্চিত হতে পারছেন না। এর আগে ভিন্ন কিছু গবেষণায় টিকার কার্যকারিতার সাথে অন্যান্য কিছু বিষয়েরও সম্ভাব্য যোগসূত্রের কথা বলা হয়েছে।
যেমন একটি গবেষণায় বলা হয়েছে, সকালের দিকে টিকা নিলে তা বেশি কার্যকরী হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় বলা হয়েছে টিকার কার্যকারিতার মাত্রা নির্ভর করে জিনগত গঠনের ওপর।

নটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় গবেষকরা দেখেছেন ব্যক্তির পুষ্টি, শরীর চর্চা বা ঘুমের সাথে টিকার কার্যকারিতার কোনো সম্পর্ক নাই। বিবিসি বাংলা

বিক্ষোভের মুখে কবর থেকে তিমি উত্তোলন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার সমুদ্র সৈকতে কবর দেয়া ৪০ ফুট দীর্ঘ একটি তিমিকে কবর থেকে তোলা হয়েছে। গত সপ্তাহে নিউ সাউথ ওয়েলসে জেলেদের জালে আটকে আহত অবস্থায় ধরা পড়ে তিমিটি। সমুদ্রে আহত ও বিপন্ন প্রাণী উদ্ধারকারী একটি সংগঠন বলছে, তিমিটি হয়ত ১৩ শত কিলোমিটার দূরে তাসমানিয়ায় জালে আটকা পড়েছিল। মারার যাবার পর তিমি মাছটির আকৃতির কারণে এটিকে সৈকতেই কবর দেয়া হয়।

কিন্তু বিপত্তি বাধে, তিমিটির লাশ অন্য কোথাও সরিয়ে নিতে হবে—এই দাবী নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা হঠাৎই বিক্ষোভ শুরু করেন।
তাদের আশংকা তিমির এই কবরের কারণে বছরের পর বছর ধরে ঐ সৈকতে হাঙ্গর হানা দেবে।

তাতে বিপন্ন হবে সমুদ্রের তীর ঘিরে স্থানীয়দের দৈনন্দিন কর্মকাণ্ড। তবে, কর্তৃপক্ষ এ আশংকা উড়িয়ে দিয়েছে, তাদের বক্তব্য এমন আশংকার কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। কিন্তু তা সত্ত্বেও যেহেতু অনেক মানুষ এর বিপক্ষে, সে কারণে কর্তৃপক্ষ তিমিটিকে সরিয়ে নেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
নোবি সৈকত সংলগ্ন তিন হাজারের বেশি বাসিন্দার দায়ের করা এক পিটিশনের প্রেক্ষাপটে শেষ পর্যন্ত সোমবার কর্তৃপক্ষ তিমিটির লাশ কবর থেকে উত্তোলন করতে বাধ্য হয়েছে। পুরাকীর্তি স্থাপনায় মাটি খোঁড়ার কাজে যেসব বিশাল যন্ত্র ব্যবহার করা হয়, তেমন যন্ত্র কাজে লাগানো হয়েছে এক্ষেত্রে।

বিশাল তিমিটিকে কয়েক টুকরো করে কেটে সরিয়ে নেয়া হয়েছে তার মরদেহ। আর এ কাজে খরচ হয়েছে ৪০ হাজার মার্কিন ডলার অর্থাৎ টাকার অংকে ৩২ লক্ষ টাকা। তিমিটি ছিল হাম্পব্যাক জাতের। এই জাতের তিমি প্রতি বছর এন্টার্কটিকা থেকে অস্ট্রেলিয়া পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত পরিভ্রমণ করে থাকে। বিবিসি বাংলা

৩ মাইল লম্বা বিয়ের শাড়ি প্রদর্শন, বিতর্কের মুখে দম্পতি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : শ্রীলঙ্কার ক্যান্ডিতে এক বিউটিশিয়ান তিন মাইল লম্বা বিয়ের শাড়ি পরেছেন গিনেস বুকে রেকর্ড গড়ার আশায়। কিন্তু এ ঘটনায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা তৈরি হয়েছে দেশটিতে। কারণ ওই তিন মাইল লম্বা শাড়ি ধরার জন্য প্রায় আড়াইশো শিক্ষার্থীকে ব্যবহার করা হয়েছে। কেন শিশুদের এ কাজে ব্যবহার করা হলো তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত শুরু করেছে শ্রীলঙ্কার শিশু সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ। শহরের একটি প্রাইমারি স্কুলের আড়াইশোরো বেশি শিক্ষার্থী বৃহস্পতিবার ক্যান্ডি রোডের পাশে দাঁড়িয়েছিল, তিন মাইল লম্বা বিয়ের শাড়ি ধরার জন্যই শিশুরা রাস্তার ধারে দাঁড় করানো হয়েছিল।

ওই শাড়ি পরিহিত বিউটিশিয়ান দাবি করছেন এটিই বিশ্বে সবচেয়ে লম্বা বিয়ের শাড়ি। তিনি মনে করছেন এই বিয়ের শাড়ি গিনেস ওয়ার্ল্ড বুকে জায়গা করে নেবে।
কেন্দ্রীয় প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী সারাথ একনায়েকের পৃষ্ঠপোষকতায় ক্যান্ডির রাস্তাতেই ওই শাড়ি প্রদর্শনের আয়োজনটি করা হয়। সূর্যের তাপে রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা শিশুরা দাঁড়িয়েছিল, কোন মানবিকতায়, কী ভেবে স্কুলের শিশুদের এ কাজে ব্যবহার করা হলো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে এডুকেশন ইউনিয়নগুলো, ব্যাপক বিতর্কও তৈরি হয়েছে। তিন মাইল লম্বা ওই শাড়ি প্রদর্শনের আয়োজনটি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিবিসি বাংলা


   Page 1 of 4
     অন্যান্য
গভীর সাগর দিয়ে ছুটবে ট্রেন
.............................................................................................
বরফের তৈরি হোটেল!
.............................................................................................
জীবন বাঁচাতে শ্বাসরোধ করে সিংহকে মেরে ফেললো যুবক!
.............................................................................................
মৌলভীবাজারের বাইক্কা বিল মাছের পাশাপাশি পাখিদেরও অভয়াশ্রম
.............................................................................................
একই চেহারার হতে গিয়ে যমজ বোনের কাণ্ড!
.............................................................................................
বরের বয়স ১০, কনের ৮
.............................................................................................
কান্নার জন্য ‘সুদর্শন’ পুরুষ ভাড়া!
.............................................................................................
কম্বোডিয়ায় সড়ক হবে বঙ্গবন্ধুর নামে
.............................................................................................
সাবেক রাষ্ট্রদূত মারুফ জামান নিখোঁজ
.............................................................................................
প্যারাডাইস পেপারসে আসা ব্যক্তিদের ব্যাপারে খতিয়ে দেখা হবে: দুদক চেয়ারম্যান
.............................................................................................
প্রজাপতি মেলায় দর্শনার্থীদের ভিড়
.............................................................................................
আয়কর মেলার প্রথম দিনেই উপচে পড়া ভিড়
.............................................................................................
গাজর ভেবে দামী গাড়ি খেয়ে ফেললো বোকা গাধা
.............................................................................................
মেজাজ ভালো থাকলেই শুধু ফ্লুয়ের টিকা কাজ করে?
.............................................................................................
বিক্ষোভের মুখে কবর থেকে তিমি উত্তোলন
.............................................................................................
৩ মাইল লম্বা বিয়ের শাড়ি প্রদর্শন, বিতর্কের মুখে দম্পতি
.............................................................................................
সমুদ্রের হাজার মাইল পথ পাড়ি দেয়া পাখি কেন পথ হারায় না?
.............................................................................................
শরীরে অ্যালকোহল বানিয়ে ঠাণ্ডায় বাঁচে গোল্ডফিশ
.............................................................................................
বিয়ের যাত্রী নিয়ে কারাগারে হঠাৎ নামল হেলিকপ্টার
.............................................................................................
অদ্ভূত প্রাণী `টার্ডিগ্রেড`: কোন বিপদেই যে কাবু হয় না
.............................................................................................
নাচে-গানে যেখানে মৃতদের বিদায় জানানো হয়
.............................................................................................
জরিমানা করা ৫ বছরের শিশুর কাছে অনেক চাকরির প্রস্তাব
.............................................................................................
চীনের শপিং আসক্ত স্ত্রীদের জন্য স্বামী `জমা রাখা`র সার্ভিস
.............................................................................................
কৃত্রিম মা হাঁস
.............................................................................................
পৃথিবীর সব চেয়ে আলসে দেশ কোনগুলো?
.............................................................................................
ইউটিউবে `গ্যাংনাম স্টাইল`কে টপকে শীর্ষে `সি ইউ অ্যাগেইন`
.............................................................................................
কুকুরের সমান টিকটিকি!
.............................................................................................
ছোট্ট মশার কামড়, ভয়ংকর ১২ রোগ
.............................................................................................
কেন এক পায়ে খাড়া থাকে ফ্লেমিঙ্গো পাখিরা?
.............................................................................................
হৃদয় আকৃতির হীরা বিক্রি বিশ্ব রেকর্ডে
.............................................................................................
জেনে নিন কেমন যাবে আজকের দিনটি
.............................................................................................
৮২ বছর বয়সে স্কুলের গণ্ডি পার হলেন তিনি
.............................................................................................
রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে দিনটি
.............................................................................................
রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে আপানার আজকের দিনটি
.............................................................................................
রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে দিনটি
.............................................................................................
রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে আপনার আজকের দিনটি
.............................................................................................
বাটির মধ্যে মাকড়শা, এরপর ভ্যানিস! (ভিডিও)
.............................................................................................
রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে আপনার দানটি
.............................................................................................
গাড়ি চুরি করে একা ১,৩০০ কিলোমিটার পাড়ি দিল ১২ বছরের কিশোর
.............................................................................................
জেনে নিন কেমন যাবে আপনার আজকের দিন
.............................................................................................
জেনে নিন কেমন যাবে আপনার আজকের দিন
.............................................................................................
রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে আপনার আজকের দিন
.............................................................................................
দুপুরে খাবার সময় নেই ভারতের অন্যতম শীর্ষ ধনীর
.............................................................................................
রাশিফলে জেনে নিন কেমন যাবে আপনার আজকের দিন
.............................................................................................
কুমির ও হাতির লড়াই (ভিডিও)
.............................................................................................
বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তি ১১৭ বছর বয়সে মারা গেছেন
.............................................................................................
প্রবাসীদের স্বাস্থ্যবীমা বাধ্যতামূলক সৌদি আরবে
.............................................................................................
এই আশ্চর্য্য যন্ত্রটি মিনিটে কয়েক কিলোমিটার রেলপথ বানাতে পারে
.............................................................................................
গরুর পেটে অদ্ভুত ছিদ্র, কিন্তু কেন?
.............................................................................................
তাইওয়ানে কুকুর ও বিড়ালের মাংস খাওয়া নিষিদ্ধ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]