| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ঈদে রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু ২৯ জুলাই   * সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত ২   * ছেলেধরা ও গণপিটুনি বিষয়ে পুলিশের সব ইউনিটকে নির্দেশনা   * উত্তরাঞ্চলে পানি কিছুটা কমলেও নদীগুলোর পানি এখনও বিপদসীমার ওপর   * সৌদি পৌঁছেছেন ৭৫ হাজার ৫৯০ হজযাত্রী   * হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ থেকে প্রিয়া সাহা বহিষ্কার   * দুদক পরিচালক এনামুল বাছির গ্রেফতার   * চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ৮ বাড়িতে বন্য হাতির তাণ্ডব   * আদালতে মিন্নির দু`টি আবেদন নামঞ্জুর   * পেশায় ইমাম, জিন তাড়ানোর নামে করতেন নারী-শিশু ধর্ষণ  

   ভ্রমণ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বিমানযাত্রীদের নিরাপত্তায় ভারতের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক
বিমানের যাত্রী সুরক্ষায় আন্তর্জাতিক সূচকের সবগুলো ক্যাটাগরিতেই ভারতকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহনের নিয়ন্ত্রক আইকাও (ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অর্গানাইজেশন)-এর রিপোর্ট বলছে, যে আটটি ক্যাটাগরির ভিত্তিতে সুরক্ষার বিষয়টি যাচাই করা হয়, তার মধ্যে পাঁচটিতে ভারতের প্রাপ্ত নম্বর আন্তর্জাতিক গড়ের তুলনায় কম। অন্যদিকে বাংলাদেশ সাতটি ক্যাটাগরিতেই আন্তর্জাতিক গড় থেকে এগিয়ে। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি-বিজ ও আনন্দবাজারের।
আইকাও এর রিপোর্ট অনুযাযী, দুর্ঘটনা তদন্ত ক্যাটাগরিতে ভারত পেয়েছে ৩২.৩৫% স্কোর। যেখানে বাংলাদেশের স্কোর ৬৪.১৩%।
লাইসেন্সিং ক্যাটাগরিতে ভারতের স্কোর ২৬.০৪%, আর বাংলাদেশের স্কোর ৭৭.২২%। অথচ এ ক্যাটাগরিতে বৈশ্বিক গড় ৭২.৫%।
অন্য ৬ ক্যাটাগরিসহ আট ক্যাটাগরির সব ক’টিতেই ভারতের চাইতে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।

বিমানযাত্রীদের নিরাপত্তায় ভারতের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক
বিমানের যাত্রী সুরক্ষায় আন্তর্জাতিক সূচকের সবগুলো ক্যাটাগরিতেই ভারতকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহনের নিয়ন্ত্রক আইকাও (ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন অর্গানাইজেশন)-এর রিপোর্ট বলছে, যে আটটি ক্যাটাগরির ভিত্তিতে সুরক্ষার বিষয়টি যাচাই করা হয়, তার মধ্যে পাঁচটিতে ভারতের প্রাপ্ত নম্বর আন্তর্জাতিক গড়ের তুলনায় কম। অন্যদিকে বাংলাদেশ সাতটি ক্যাটাগরিতেই আন্তর্জাতিক গড় থেকে এগিয়ে। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি-বিজ ও আনন্দবাজারের।
আইকাও এর রিপোর্ট অনুযাযী, দুর্ঘটনা তদন্ত ক্যাটাগরিতে ভারত পেয়েছে ৩২.৩৫% স্কোর। যেখানে বাংলাদেশের স্কোর ৬৪.১৩%।
লাইসেন্সিং ক্যাটাগরিতে ভারতের স্কোর ২৬.০৪%, আর বাংলাদেশের স্কোর ৭৭.২২%। অথচ এ ক্যাটাগরিতে বৈশ্বিক গড় ৭২.৫%।
অন্য ৬ ক্যাটাগরিসহ আট ক্যাটাগরির সব ক’টিতেই ভারতের চাইতে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।

ফরিদুর রেজা সাগরসহ ৬ জন অল্পের জন্য রক্ষা
                                  

অনলাইন ডেস্ক
রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ফরিদুর রেজা সাগরসহ ৬ জন।
রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ফরিদুর রেজা সাগরসহ ছয়জন। আজ বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
পুলিশ জানায়, গোদাগাড়ী থেকে উড্ডয়নের পরপরই হেলিকপ্টারটি ৬০ ফুট ওপর থেকে মুখ থুবড়ে পড়ে যায়। এ সময় হেলিকপ্টারে ছিলেন ফরিদুর রেজা সাগর, কণ্ঠশিল্পী ফেরদৌস আরা ও স্বর্ণকিশোরী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফারজানা ব্রাউনিয়া, রফিকুল ইসলাম, তুফান আলী ও সুমন আলী। দুর্ঘটনায় সবাই আঘাত পেয়েছেন। ফরিদুর রেজা সাগর, রফিকুল ইসলাম, তুফান আলী ও সুমন আলীকে অ্যাম্বুলেন্সে করে রাজশাহী বিমানবন্দরে নেওয়া হয়েছে। ঢাকায় নিয়ে তাঁদের চিকিৎসা দেওয়া হবে।
গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, রাজশাহীর আনোয়ারা ফাহিম জিয়াউদ্দীন পাইলট বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে আজ অনুষ্ঠিত হয় চ্যানেল আইয়ের ‘স্বর্ণকিশোরী’ অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানে যোগ দেন চ্যানেল আইয়ের এমডি ফরিদুর রেজা সাগর, কণ্ঠশিল্পী ফেরদৌস আরা ও স্বর্ণকিশোরী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফারজানা ব্রাউনিয়া।
অনুষ্ঠান শেষে তাঁরা হেলিকপ্টারে করে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন। পাইলট জানিয়েছেন, হেলিকপ্টারটি ৬০ ফুট ওঠার পর নিয়ন্ত্রণ হারায়। পাইলট হেলিপ্যাডে অবতরণ করার চেষ্টা করেন। তবে এটি মুখ থুবড়ে পাশে পড়ে যায়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ফায়ার সার্ভিস ও গোদাগাড়ী থানার পুলিশ। পুলিশ সবাইকে উদ্ধার করে প্রথমে গোদাগাড়ী উপজেলা সদরের একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। তবে তাঁদের কারও আঘাতই গুরুতর নয়।

কমলাপুরে বিড়ম্বনায় যাত্রীরা
                                  

অনলাইন ডেস্ক
রাজধানীর কমলাপুর রেল স্টেশনে ঈদযাত্রার তৃতীয় দিনে ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড় থাকলেও ট্রেন ছাড়তে দেরি হচ্ছে আগের দিনের মতোই। এতে এক প্রকার অপেক্ষা আর ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন সাধারণ যাত্রীরা।
রোববারের ট্রেনের সূচি অনুযায়ি সকাল ৬টায় কমলাপুর থেকে দিনের প্রথম আন্তঃনগর ট্রেন ধূমকেতু এক্সপ্রেস রাজশাহীর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেটি ছেড়ে যায় এক ঘণ্টা দেরিতে, সকাল ৭টার পর। খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস সকাল ৬টা ২০ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলেও সেটি সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে স্টেশন ছাড়ে। চিলাহাটির নীলসাগর এক্সপ্রেস সকাল ৮টায় কমলাপুর ছাড়ার কথা, তবে ট্রেনটি স্টেশনেই আসে বেলা ১০টা ৫ মিনিটে। পৌনে ১১টার সময়ও ট্রেনটি ছাড়েনি। বেলা ৯টার রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন বেলা ১১ টা পর্যন্ত প্ল্যাটফর্মে আসেনি। দিনাজপুরের এক্সপ্রেস সকাল ১০টায় কমলাপুর ছাড়ার কথা থাকলেও সেটি পৌনে ১১টায় কমলাপুরে এসে বেলা ১১টায় স্টেশন ছেড়ে যায়। লালমনিরহাট ঈদ স্পেশাল ট্রেন ছাড়ার কথা বেলা ৯টা ১৫মিনিটে। তবে বেলা ১১টা পর্যন্ত সেটি স্টেশনেই আসেনি। রেলওয়ে বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে ট্রেনটি ছাড়ার সম্ভাব্য সময় দিয়েছে। ঢাকা-চিলাহাটি রুটের নীলসাগর ট্রেনের কমলাপুর ছেড়ে যাওয়ার কথা সকাল ৮টায়। দুই ঘণ্টা ৫ মিনিট দেরি করে বেলা ১০টা ৫ মিনিটে ট্রেনটি কমলাপুরের প্ল্যাটফর্মে আসে। দীর্ঘসময় অপেক্ষায় থাকা যাত্রীরা ট্রেনে ওঠার জন্য হুড়োহুড়ি শুরু করেন।
যাত্রীদের ভিড়ে ট্রেনের দরজা দিয়ে স্ত্রীকে নিয়ে ঢুকতে পারছিলেন না বাড্ডার একটি বেসরকারি স্কুলের শিক্ষক ফরিদ আহমেদ। উপায় না দেখে, স্ত্রীকে জানালা দিয়ে ট্রেনে উঠিয়ে দেন তিনি। অনেক কসরত করে পরে নিজে ওঠেন।
তিনি বলেন, দরজায় যে ভিড়, ধাক্কাধাক্কি করে উঠতেই পারতাম না। কি আর করবো, ট্রেন ঠিক সময়ে এলে এই ঝামেলাটা হত না।

ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু বুধবার
                                  

অনলাইন ডেস্ক
আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি আগামীকাল বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে। যা চলবে ১২ আগস্ট (রবিবার) পর্যন্ত। প্রথম দিন বিক্রি করা হবে ১৭ আগস্টের টিকিট। এছাড়া ১৫ আগস্ট থেকে বিক্রি করা হবে ফিরতি ট্রেনের টিকিট। যা চলবে ১৯ আগস্ট (সোমবার) পর্যন্ত।
প্রতিদিন ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় সকাল ৮টা থেকে শুরু হবে টিকিট বিক্রি। এর মধ্যে ঢাকায় ২৬টি কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি করা হবে।
রেলওয়ে সূত্র জানায়, ৯ আগস্ট বিক্রি হবে ১৮ আগস্টের টিকিট। ১০ আগস্ট বিক্রি হবে ১৯ আগস্টের, ১১ আগস্ট বিক্রি হবে ২০ আগস্টের, ১২ আগস্ট বিক্রি হবে ২১ আগস্টের টিকিট।
একইভাবে ১৫ আগস্ট থেকে ঈদ ফেরত যাত্রীদের জন্য ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ফিরতি টিকিট ১৫ আগস্টে পাওয়া যাবে ২৪ আগস্টের টিকিট। একইভাবে ১৬, ১৭, ১৮ ও ১৯ আগস্টে যথাক্রমে পাওয়া যাবে ২৫, ২৬, ২৭ ও ২৮ আগস্টের টিকিট।

ট্রেনের আগাম টিকিট ৮ আগস্ট থেকে
                                  

অনলাইন ডেস্ক
ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঘরমুখী মানুষের নির্বিঘ্ন যাতায়াত নিশ্চিত করতে আগামী ৮ আগস্ট থেকে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া দুইটায় ঢাকায় রেল ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক এ কথা বলেন।
মন্ত্রী জানান, এবার ঈদ উপলক্ষে বিশেষ নয় জোড়া ট্রেন দেওয়া হবে।
ঈদের আগাম টিকিট বিক্রি আগামী ১২ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে টিকিট দেওয়া হবে। ৮ আগস্ট দেওয়া হবে ১৭ আগস্টের টিকিট। ৯ আগস্ট ১৮ আগস্টের, ১০ আগস্ট ১৯ আগস্টের, ১১ আগস্ট ২০ আগস্টের এবং ১২ আগস্ট ২১ আগস্টের আগাম টিকিট দেওয়া হবে।
সংবাদ সম্মেলনে রেলপথমন্ত্রী বলেন, ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ২৬টি কাউন্টারের মাধ্যমে টিকিট বিতরণ করা হবে। এই ২৬টির মধ্যে নারীদের জন্য আলাদা দুটি কাউন্টার সংরক্ষিত থাকবে। একজন যাত্রী সর্বোচ্চ চারটি টিকিট নিতে পারবেন। বিক্রি হওয়া টিকিট ফেরত নেওয়া হবে না। প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে এই টিকিট বিক্রি শুরু হবে।
সাধারণ সময়ে রেলে যাত্রী ধারণ ক্ষমতা প্রতিদিন ২ লাখ ৬০ হাজার। ঈদ উপলক্ষে তিন লাখ যাত্রী চলাচল করতে পারবেন। কালোবাজারি ঠেকাতে এবার বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

পদ্মায় ঢেউয়ের আঘাতে স্পিডবোট ডুবে নিখোঁজ ৫
                                  

অনলাইন ডেস্ক
মাদারীপুরের শিমুলিয়া ঘাট থেকে কাঁঠালবাড়ী যাওয়ার পথে পদ্মা নদীতে ১৬ জন যাত্রী নিয়ে একটি স্পিটবোট ডুবে গেছে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত (দুপুর সাড়ে ১২টা) ৫জন নিখোঁজ রয়েছেন।
বুধবার (২৭ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মুন্সিগঞ্জের লৌহজং পয়েন্টে স্পিটবোটটি ডুবে যায়। পদ্মার ঢেউয়ে স্পিটবোটটি ডুবে যায় বলে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা জানান। নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ড উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।
শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আহমেদ ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) কাঁঠালবাড়ি লঞ্চঘাটের ট্রাফিক পরিদর্শক আক্তার হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এ ঘটনার শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে ফেরিসহ সকল নৌ যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে না আসা পর্যন্ত ফেরি চলাচল শুরু হবে না।

ঈদযাত্রায় বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু ৩০ মে
                                  

অনলাইন ডেস্ক
আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে সড়কপথে যাতায়াতের জন্য বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হচ্ছে আগাসী বুধবার (৩০ মে) থেকে। বৃষ্টি ও সড়কের বেহাল দশার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে এবার একটু আগে থেকেই শুরু হচ্ছে অগ্রিম টিকিট বিক্রি।
বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ও সোহাগ পরিবহনের এমডি সোহেল তালুকদার বলেন, দূরপাল্লার পরিবহন মালিকদের প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। ৩০ মে বিক্রি হবে ৭ জুন যাত্রার টিকিট। যাত্রীদের চাহিদা অনুসারে কাউন্টারে টিকিট অবশিষ্ট থাকা পর্যন্ত বিক্রি চলবে।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির মহাসচিব খোন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, মহাখালী বাস টার্মিনালে বাসের অগ্রিম টিকিট দেয়ার ধরা-বাধা নিয়ম নেই। যেকোনো কোম্পানি চাইলে যেকোনো সময় অগ্রিম টিকিট বিক্রি করতে পারবে।
বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও শ্যামলী পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রমেশ চন্দ্র ঘোষ বলেন, অতীত অভিজ্ঞতার আলোকে সংগঠনের পক্ষ থেকে এবার বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রির ব্যাপারে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি আমরা শুরু করেছি। অনেক পরিবহন অনলাইনে টিকিট বিক্রি করছে। ফলে টিকিট প্রাপ্তিতে কোনো সমস্যা হবে না আশা করা যাচ্ছে।
প্রসঙ্গত, রাজধানীর তিনটি বাস টার্মিনাল সায়েদাবাদ, মহাখালী ও গাবতলী থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল করে থাকে। এবার ঈদযাত্রায় ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে ১ জুন থেকে। তবে বরাবরের ন্যায় বিআরটিসির বাসের আগাম টিকিট বিক্রির ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

অাগাম টিকিট বিক্রি শুরু ১ জুন
                                  

অনলাইন ডেস্ক
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হবে আগামী ১ জুন থেকে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে রেলভবনে ঈদ প্রস্তুতি উপলক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক এ কথা জানান।
রেলমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথম দিন ১ জুন বিক্রি হবে ১০ জুনের টিকিট। ৩ জুন বিক্রি হবে ১২ জুনের টিকিট। ৪ জুন বিক্রি হবে ১৩ জুনের টিকিট। ৫ জুন বিক্রি হবে ১৪ জুনের টিকিট। ৬ জুন হবে ১৫ জুনের টিকিট। প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ২৬টি কাউন্টারে টিকিট বিক্রি হবে। প্রতি একজনকে চারটি করে টিকিট দেওয়া হবে। নারীদের জন্য দুটি বিশেষ কাউন্টার থাকবে।
তিনি বলেন, ‘সাধারণত প্রতিদিন ২ লাখ ৬০ হাজার যাত্রী ট্রেনে চলাচল করে। এবারে ঈদ উপলক্ষে ২ লাখ ৭৫ হাজার যাত্রী নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।’
ঈদে সিডিউল বিপর্যয় প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘সময়মতো যাত্রা নিশ্চিত করাই আমাদের প্রধান দায়িত্ব। গত ঈদে যথাসময় ট্রেন ছেড়ে গেছে ও গন্তব্যে পৌঁছেছে। এবারও একইভাবে সময়মতো ট্রেন চলবে।’
মুজিবুল হক বলেন, ‘টিকিট কালবাজারি এবং নাশকতা এড়াতে র‌্যাব, পুলিশ, আরএনবিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে। যাত্রী নিরাপত্তায় সবাই সর্তক থাকবে। সুষ্ঠু ট্রেন পরিচালনার স্বার্থে রেলওয়ের সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।’

তিন দিনের সফরে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

অনলাইন ডেস্ক
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল তিন দিনের সরকারি সফরে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন। সিডনিতে অনুষ্ঠেয় ‘গ্লোবাল সামিট অন ওমেন’ সম্মেলনে যোগ দেবেন এবং মর্যাদাপূর্ণ ‘গ্লোবাল ওমেন’স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হবেন। বিকেলে থাই এয়ারওয়েজের বিমানে সিডনির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন।
শেখ হাসিনা সিডনির আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে (আইসিসি) শুক্রবার ভিয়েতনামের ভাইস প্রেসিডেন্ট থাই নগক থিন এবং কসোভোর সাবেক প্রেসিডেন্ট এ্যাতিফেত জাহজাগার সঙ্গে এই গ্লোবাল ওমেন’স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০১৮ গ্রহণ করবেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশে নারী শিক্ষার প্রসার এবং নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে অগ্রণী ভূমিকা পালনের স্বীকৃতি হিসেবে এ সম্মাননা দেয়া হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী নারী নেতাদের ব্যবসা এবং অর্থনৈতিক বিষয়াবলী সংক্রান্ত এটি বাৎসরিক সম্মেলন।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের (পিএমও) সূত্র জানায়, এ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন এবং জাতীয় উন্নয়নের মূলধারায় নারীদের সম্পৃক্তকরণে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরবেন।
এছাড়া প্রধানমন্ত্রী সফরকালীন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ইন্টারকন্টিনেন্টাল সিডনিতে অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

দুই দিনের সফরে কুষ্টিয়া যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
                                  

অনলাইন ডেস্ক
কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিধন্য কুঠিবাড়ি ও ছেঁউড়িয়ায় বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহের আখড়াবাড়ি পরিদর্শনকে কেন্দ্র করে দুই দিনের সফরে কুষ্টিয়া যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ঢাকা থেকে রাষ্ট্রপতিকে বহনকারী হেলিকপ্টার শনিবার (০৬ জানুয়ারি) দুপুর পৌনে ২টার দিকে কুষ্টিয়া স্টেডিয়ামে নির্মিত হেলিপ্যাডে অবতরণ করবে। এরপর রাষ্ট্রপতি উঠবেন কুষ্টিয়া সার্কিট হাউসে। সেখান থেকে বিকেল সাড়ে ৩টায় তিনি যাবেন শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে। পরদিন রোববার (০৭ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টায় রাষ্ট্রপতি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ সমাবর্তনে যোগ দিবেন। সমাবর্তনকে ঘিরে ইবি ক্যাম্পাস এখন উৎসবমুখর। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুন উর রশিদ জানান, ১৬ বছর পর ইবিতে সমাবর্তন হতে যাচ্ছে। রাষ্ট্রপতিকে বরণ করতে যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

৫২ বছর পর ২৫৩ যাত্রী নিয়ে খুলনা ছাড়লো বন্ধন
                                  

অনলাইন ডেস্ক
খুলনা-কলকাতা রেলপথে ২৫৩ যাত্রী নিয়ে বাণিজ্যিকভাবে যাত্রা শুরু করলো ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’। দীর্ঘ ৫২ বছর পর এ পথে আবারও শোনা যাচ্ছে হুইসেল।
বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) দুপুর ১টা ৪৫মিনিটে খুলনা স্টেশন থেকে কলকাতার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছে বন্ধন এক্সপ্রেস।
এর আগে সকালে কলকাতা স্টেশন থেকে যাত্রা করে দুপুর সাড়ে ১২টায় খুলনা স্টেশনে এসে পৌঁছায় বন্ধন এক্সপ্রেস। ভারতীয় সময় সকাল ৭টা ১০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টা ৪০মিনিটে) কলকাতা থেকে যাত্রা করে ট্রেনটি।
বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা যাত্রী হয়ে খুলনা স্টেশন থেকে বাণিজ্যিকভাবে বন্ধন এক্সপ্রেসের যাত্রার উদ্বোধন করেন। এ ট্রেনে করে তিনি বেনাপোল পর্যন্ত যাত্রা করবেন।
যাত্রার শুরুতে হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, ট্রেন চালুর মধ্য দিয়ে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে। বাণিজ্যের সম্প্রসারণ ঘটবে। রোগী ও বৃদ্ধদের যাতায়াতে সুবিধা হবে। অসুস্থ ও বৃদ্ধদের ভিসা সহজ করা হবে। সরাসরি ট্রেন চালুর ফলে যাত্রীদের দুর্ভোগও অনেকটা কমবে।
শ্রিংলা বলেন, অচিরেই খুলনাতে সহকারী ভারতীয় হাইকমিশন খোলা হবে। অর্ধশতাব্দী পর এ যাত্রার সাক্ষী হতে পেরে ট্রেনের যাত্রীদের বেশ উচ্ছ্বসিত দেখেছি।
খালিশপুরের বাসিন্দা সারজিনা আলম সুজানা বাংলানিউজকে বলেন, ইতিহাসের সাক্ষী হতে পেরে ভীষণ ভালো লাগছে। এ রুটে ট্রেন চালু হওয়ায় এই অঞ্চলের মানুষ খুব সহজে কলকাতায় যাতায়াত করতে পারবে।
৫২ বছর পর খুলনা থেকে কলকাতার পথে বন্ধন। ছবি: মানজুরুল ইসলামরেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, খুলনা-কলকাতা ১৭৫ কিলোমিটার এ রেলপথের বন্ধন এক্সপ্রেসে মোট ১০টি কোচ রয়েছে। এর মধ্যে ইঞ্জিন ও পাওয়ার কার ২টি। বাকি ৮ টি কোচে যাত্রীরা। যেখানে ৪৫৬ টি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত আসনের ব্যবস্থা রয়েছে। এর মধ্যে এসি (কেবিন) ১৪৪ এবং ৩১২ টি এসি চেয়ার। যাত্রী ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে এসি সিট ২ হাজার টাকা। আর এসি চেয়ার কোচের ভাড়া ধরা হয়েছে ১৫শ’ টাকা।

রূপগঞ্জে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত
                                  

অনলাইন ডেস্ক
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কলাতলি বালুর মাঠে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছে ২ জন। আজ মঙ্গলবার এই ঘটনা ঘটে।
রূপগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন জানান, রূপগঞ্জের কাঞ্চন পৌরসভার পূর্বকালাদী এলাকায় বালুর মাঠে পড়ে যায় হেলিকপ্টারটি। পাইলট ছাড়া দুইজন ছিল হেলিকপ্টারটিতে। দুইজন আহত হয়েছেন। তাদের নাম জানা যায় নি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

উত্তরের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ
                                  

অনলাইন ডেস্ক
অতি বৃষ্টির কারণে পাবনার চাটমোহর উপজেলার গোয়াখোড়া ভাঙ্গুরা স্টেশনের মাঝামাঝি স্থানে ঈশ্বরদী-ঢাকা রুটের রেললাইনের কিছু অংশের মাটি আজ রোববার সরে গেছে। ফলে সেখানে রেললাইন দেবে যায়। সকাল থেকেই ওই রেললাইন দিয়ে উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ সাময়িক বন্ধ রয়েছে।
পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার জানিয়েছেন, নরম মাটি হওয়ায় অতি বর্ষণের কারণে রেললাইনের কিছু অংশ দেবে গেছে।
অল্প সময়ের মধ্যে রেল চলাচল স্বাভাবিক হবে। জরুরি ভিত্তিতে কাজ শুরু করা হয়েছে।

বন্ধন ছুটবে ১৬ নভেম্বর, পাঁচ ঘণ্টায় খুলনা থেকে কলকাতা
                                  

অনলাইন ডেস্ক
আর মাত্র এক মাস। অনেক অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ১৬ নভেম্বর থেকে উভয় বাংলার ভালোবাসা নিয়ে খুলনা-কলকাতা রুটে ছুটতে শুরু করবে ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’।
আর এই আন্ত:দেশীয় ট্রেনের যাত্রীদের জন্য বড় একটা সুখবরই আছে। এ রুটে উভয় দেশের প্রান্তিক স্টেশন কলকাতার চিৎপুর আর খুলনাতেই সারা হবে কাস্টমস ও ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা।
তাই চেক পোস্টে দীর্ঘ যাত্রা বিরতির বিড়ম্বনা সইতে হবে না বন্ধনের যাত্রীদের। খুলনা থেকে কলকাতা পর্যন্ত পৌনে দুশ’ কিলোমিটার রেলপথ পাড়ি দিতে সময় লাগবে মাত্র পাঁচ ঘণ্টা। সকাল সাড়ে সাতটায় কলকাতার চিৎপুর থেকে যাত্রী নিয়ে দুপুর সাড়ে ১২টায় বন্ধন পৌঁছুবে খুলনায়। এরপর দুপুর দেড়টায় খুলনা থেকে যাত্রী নিয়ে সন্ধ্যা নাগাদ ফের কলকাতায় পৌছে যাবে।
প্রাথমিক প্রস্তাবে চেয়ার কোচে আট ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় সাড়ে আটশ’ টাকা) এবং কেবিনে ১২ ডলার (সাড়ে নয়শ’ টাকা) সিট ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে বন্ধনে।
সোমবার ( ১৬ অক্টোবর) বিকেলে রাজধানীর রেলভবনে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাংলাদেশ রেলওয়ের একজন উর্দ্ধতন কর্মকর্তা বাংলানিউজকে জানিয়েছেন, চলতি অক্টোবরের ২৪ ও ২৫ তারিখ দিল্লিতে উভয় দেশের উচ্চ পর্যায়ের রেল কর্মকর্তাদের বৈঠকে বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।
ওই বৈঠকে অংশ নিতে বাংলাদেশ রেলওয়ের ৩ সদস্যের এক প্রতিনিধিদল নতুন দিল্লি যাবেন। ভারতের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বসে ভাড়া চূড়ান্ত করবেন তারা।
এর আগে ভাড়া নির্ধারণে উভয় দেশের কর্মকর্তা সমন্বয়ে যৌথ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে ৩০ দিনের মধ্যে তাদের রিপোর্ট পেশ করতে বলা হয়। নয়াদিল্লি রেলভবনে গত ১৩ থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর তিন দিন ব্যাপী ভারত-বাংলাদেশের রেল কর্মকর্তাদের বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত হয়।
এর আগে তিন দফায় দিনক্ষণ নির্ধারণ করেও খুলনা-কলকাতা রুটে যাত্রীবাহী রেল চলাচল শুরু করা যায়নি। প্রথম দফায় গত পহেলা বৈশাখ (১৪ এপ্রিল) এ ট্রেন চালুর কথা ছিলো। কিন্তু ওই তারিখে ট্রেন চালু করা সম্ভব হয়নি। এরপর দ্বিতীয় দফায় পহেলা জুলাই ও তৃতীয় দফায় তেসরা আগস্ট ট্রেনটি চালুর উদ্যোগ নিলেও পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মুখ দেখেনি।

৪ দিনের সফর কিশোরগঞ্জ যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
                                  


অনলাইন ডেস্ক :
৪দিনের সফরে নিজ জন্মস্থান মিঠামইন, বাজিতপুর, কটিয়াদী ও কিশোরগঞ্জ সদর সফর করবেন। এই ৪ দিনের সফরের প্রথম দিন ৮অক্টোবর জেলার মিঠামইনের মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক ডিগ্রি কলেজ পরিদর্শন, বাজিতপুর কলেজের সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানে যোগদান, কটিয়াদী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী অনুষ্ঠানে যোগদান এবং জেলা শহরের সার্কিট হাউজে একাধিক মতবিনিময় সভায় অংশ নিবেন। এছাড়া তিনি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন এবং উদ্বোধন করবেন। রাষ্ট্রপতির এই সফরকে ঘিরে জেলার সর্বত্র সাজ সাজ রব পড়ে গেছে। তাঁকে বরণ করে নিতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।
রাষ্ট্রপতি’র সফরসূচী থেকে জানা গেছে, ৪ দিনের সফরের শুরুতেই রোববার (৮অক্টোবর) নিজ উপজেলা মিঠামইনে যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। ঢাকা তেজগাঁও থেকে হেলিকপ্টারযোগে বিকাল ৩টায় মিঠামইন উপজেলা হেলিপ্যাডে অবতরণের পর নতুন ডাকবাংলোয় উপস্থিত হয়ে গার্ড অব অনার গ্রহণ করবেন। বিকাল সাড়ে ৩টায় জেলা পরিষদের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মিলনায়তনে নিজ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। বিকাল ৪টায় স্পীড বোর্ড ও নৌকা যোগে তিনি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন করবেন। সন্ধা ৭টায় ছোট ভাইয়ের নামে প্রতিষ্ঠিত মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক ডিগ্রি কলেজ পরিদর্শন করবেন। পরিদর্শন শেষে কামালপুর গ্রামের পৈত্রিক বাড়িতে রাত্রিযাপন করবেন।
রাত্রিযাপন শেষে দ্বিতীয় দিন ৯ অক্টোবর সোমবার দুপুর ১২টা ৫মিনিটে মিঠামইন থেকে হেলিকপ্টারযোগে বাজিতপুর উপজেলার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। দুপুর সাড়ে ১২টায় বাজিতপুর সরারচর হেলিপ্যাডে অবতরণ করবেন। সেখান থেকে মোটরকেডযোগে তিনি দুপুর ১২টা ৫০মিনিটে বাজিতপুর কলেজ মাঠে উপস্থিত হয়ে গার্ড অব অনার গ্রহণ করবেন। দুপুর ১টায় বাজিতপুর কলেজে সাময়িক বিশ্রাম শেষে দুপুর ২টা ১৫ মিনিটে ডাকবাংলো মাঠে স্মৃতিসৌধ নির্মানের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন, মুক্তিযোদ্ধা চত্বর ও চারটি ব্রিজ উদ্বোধন করবেন। পরে দুপুর আড়াইটায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বাজিতপুর কলেজের সূবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন। কলেজের সূবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠান শেষে বাজিতপুর থেকে হেলিকপ্টারযোগে বিকাল সোয়া ৫টায় কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্টেডিয়ামে অবতরণ করবেন। অবতরণের পর সার্কিট হাইজের উদ্দেশ্রে যাত্রা করবেন এবং সেখানে গার্ড অব অনার গ্রহন করবেন। পরে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সন্ধা ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় করবেন। মতবিনিময় শেষে তিনি কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের খরমপট্টি এলাকায় নিজ বাসভবনে রাত্রিযাপন করবেন।
সফরের ৩য় দিন ১০ অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ শহরের বাসভবন থেকে মোটর কেড যোগে জেলার কটিয়াদী উপজেলা সদরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। দুপুর ১টায় কটিয়াদী কলেজ মাঠে উপস্থিত হয়ে গার্ড অব অনার গ্রহন করবেন। পরে কটিয়াদী কলেজে সাময়িক বিশ্রাম করবেন। সাময়িক বিশ্রাম শেষে দুপুর পৌনে ৩টায় রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নাম ফলক উদ্বোধন করবেন। বিকাল ৩টায় রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ কটিয়াদী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের হীরক জয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন
অনুষ্ঠান শেষে বিকাল ৫টায় কটিয়াদী থেকে মোটরকেডযোগে কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউজের উদ্দেশ্যে রওনা ও পৌনে ৬টায় কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউজে উপস্থিত হয়ে সাময়িক বিশ্রাম নিবেন। পরে সন্ধা ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বিভিন্ন পেশাজীবী, আইনজীবী, সাংবাদিক ও উদ্বর্ধতন সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করবেন। পরে রাত ১০টা ১০মিনিটে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ শহরের খরমপট্টি এলাকায় নিজ বাসভবনে যাবেন এবং সেখানে তিনি রাত্রিযাপন করবেন। রাত্রিযাপন শেষে ১১ অক্টোবর বুধবার দুপুর ৩টা ৫০মিনিটে গার্ড অব অনার গ্রহন করবেন। গার্ড অব অনার শেষে বিকাল ৪টা ১০ মিনিটে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্টেডিয়াম থেকে হেলিকপ্টারযোগে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা রাঙামাটি
                                  

নিউজ ডেস্ক : প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরা পার্বত্য চট্টগ্রামের জেলা রাঙামাটি। কাপ্তাই লেকের বুকে ভেসে থাকা ছোট্ট এই জেলা শহর আর আশপাশে সর্বত্রই রয়েছে অসংখ্য বৈচিত্র্যময় স্থান। এখানকার জায়গাগুলো বছরের বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন ভিন্ন রূপে সাজে। তবে বর্ষার সাজ একেবারেই অন্যরকম। শহরের কালো ধোঁয়া থেকে দূরে চলে গিয়ে প্রশান্তির নিঃশ্বাস নিতে ঘুরে আসতে পারেন রাঙ্গামাটি।

বিপুল প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর অপার সম্ভাবনাময় নৈসর্গিক সৌন্দর্যের এক অপরূপ লীলাভূমি পার্বত্য জেলা রাঙামাটি। প্রকৃতি যেন বারবার হাতছানি দিয়ে ডাকে রাঙামাটিতে। চলাচলের প্রধান যানবাহন সিএনজি। ঢাকা শহরে বাস যেমন লোকাল চলে, সেখানে সিএনজিও লোকাল যাত্রী বহন করে।সিএনজিতে বসে বসে পাহাড়ের দৃশ্য দেখে মুগ্ধ না হওয়ার কোন উপায় নেই।

এই গরমের মাঝেও যদি কুয়াশা দেখতে চান তাহলে ভোর ৫টায় চোখ মেলে আকাশ পানে তাকাতে হবে আপনাকে। আবার ৮টার পর থেকেই রোদের প্রতাপ বাড়তে থাকে।


রাঙামাটি মোটেল ও ঝুলন্ত সেতু:
রাঙামাটি শহরের শেষপ্রান্তে হ্রদের ওপর গড়ে উঠেছে পর্যটন কেন্দ্র। পর্যটন মোটেল পেরুলেই ঝুলন্ত সেতু। ঝুলন্ত সেতুতে দাঁড়ালেই চোখে পড়ে দৃশ্যমান লেকের অবারিত জলরাশি ও দূরের উঁচু-নিচু পাহাড়ের আকাশছোঁয়া বৃক্ষরাজি। পর্যটন কর্পোরেশন ১৯৭৮ সালে মূল মোটেলটি নির্মাণ করে। ৮৬ সালে মোটেলের আধুনিক অডিটোরিয়াম ও ঝুলন্ত সেতু নির্মাণ করেন। ঝুলন্ত সেতু ৩৩৫ ফুট দীর্ঘ, ৮ ফুট প্রশস্ত এবং উভয় পাশে টানা তার দ্বারা বেষ্টিত। সেতুটির কারণেই মোটেলের গুরুত্ব ও আকর্ষণ অনেকগুণ বেড়ে গেছে। দিনবদলের সঙ্গে সঙ্গে সেতুটি `সিম্বল অব রাঙামাটি` হিসেবে রূপ নিয়েছে। এখানে আরও রয়েছে কটেজ, পার্ক, পিকনিট স্পট, স্পিড বোট ও সাম্পান টাইপের নৌযান।

 

রাজবন বিহার:
পর্যটকদের জন্য অন্যতম আকর্ষণীয় তীর্থস্থান রাঙামাটির ঐতিহ্যবাহী রাজবন বিহার। চাকমারা অবশ্য বিহার বা মন্দিরকে কিয়াং বলে থাকেন। এটি মূলত আমাদের দেশের অন্যতম প্রধান বৌদ্ধবিহার হিসেবে পরিচিত। রাজা ব্যারিস্টার দেবাশীষ রায়ের রাজবাড়ির পাশেই এর অবস্থান।

১৯৭৬ সালে রাজবন বিহার প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সর্বজন শ্রদ্ধেয় শ্রীমৎ সাধনানন্দ মহাস্থাবির (বনভান্তে) অধ্যক্ষরূপে রয়েছেন। ৩৩ দশমিক ৫ একর জায়গাজুড়ে বিস্তৃত বিহার এলাকায় ৪টি মন্দির, ভিক্ষুদের ভাবনা কেন্দ্র, বেইনঘর, তাবতিংশ স্বর্গ, বিশ্রামাগার ও হাসপাতাল রয়েছে। প্রতিবছর বিহারে কঠিন চিবরদান অনুষ্ঠানে লক্ষাধিক মানুষের সমাগম ঘটে, যা দেশের আর কোন বৌদ্ধধর্মীয় অনুষ্ঠানে বিরল।
শুভলং জলপ্রপাত:
রাঙামাটির শুভলং জলপ্রপাত সৃষ্টিকর্তার অপূর্ব সৃষ্টি। পাহাড়ি ঝরনার শীতল জলধারা শুধু মনুষ কেন পাখিকেও দুর্বিনীত আকর্ষণে আকর্ষিত করে। শুভলং ঝরনার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অপূর্ব নৈসর্গিক সৃষ্টি। শুভলং ঝরনা ৩০০ ফুট উঁচু থেকে বর্ষাকালে জল ধারার অবিরাম পতনে সৃষ্ট ধ্বনিসমেত। শুভলং ঝরনা রাঙামাটির বরকল উপজেলায় অবস্থিত। কালিট্যাং তুগ এই অঞ্চলের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ। এটির উচ্চতা প্রায় ১৮৭০ ফুট।

এই শৃঙ্গের পাদমূলে বরকল উপজেলা কমপ্লেক্স অবস্থিত। এই পর্বতশৃঙ্গ হতে রাঙামাটি জেলা সদর এবং ভারতের মিজোরাম রাজ্যটি দৃষ্টিগোচর হয়। শুভলং ঝরণা ভিজিট করতে হলে রাঙামাটি সদরের তবলছুড়ি বাজার থেকে নৌযানে ২ ঘণ্টায় সরাসরি শুভলং যেতে পারেন। রাঙামাটি গেলে অবশ্যই এই কয়েকটি স্থান ঘুরে আসুন। সারাজীবন এই স্মৃতি আপনাকে আনন্দ দেবে।

কীভাবে যাবেন:
ঢাকা থেকে রাঙ্গামাটির সরাসরি বাস রয়েছে। আবার চিটাগং হয়েও যাওয়া যায়। যে পথেই যান না কেন খরচ হবে ৬৫০ টাকার মধ্যে। বাসে উঠতে পারবেন কল্যাণপুর, কলাবাগান, সায়েদাবাদ থেকে।

রাঙ্গামাটি পৌছানোর পর যেতে হবে রিজার্ভ বাজার। সেখান থেকে যেতে পারেন লঞ্চে। সকাল সাড়ে ৬টায় এবং দুপুর আড়াইটায় লঞ্চ ছাড়ে জুরাছড়ির উদ্দেশ্যে। যদি জুরাছড়িতে রাতে না থাকেন তাহলে দুপুর দেড়টা অথবা রাত ৮টার লঞ্চে ফিরতে পারবেন। ভাড়া নেবে ৭০ থেকে ২০০ টাকা। রিজার্ভ বোট ভাড়া নিতে পারবেন। সেক্ষেত্রে কয়দিনের জন্য নিচ্ছেন তার ওপর নির্ভর করবে ভাড়া।


   Page 1 of 2
     ভ্রমণ
বিমানযাত্রীদের নিরাপত্তায় ভারতের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ
.............................................................................................
ফরিদুর রেজা সাগরসহ ৬ জন অল্পের জন্য রক্ষা
.............................................................................................
কমলাপুরে বিড়ম্বনায় যাত্রীরা
.............................................................................................
ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু বুধবার
.............................................................................................
ট্রেনের আগাম টিকিট ৮ আগস্ট থেকে
.............................................................................................
পদ্মায় ঢেউয়ের আঘাতে স্পিডবোট ডুবে নিখোঁজ ৫
.............................................................................................
ঈদযাত্রায় বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু ৩০ মে
.............................................................................................
অাগাম টিকিট বিক্রি শুরু ১ জুন
.............................................................................................
তিন দিনের সফরে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
দুই দিনের সফরে কুষ্টিয়া যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
৫২ বছর পর ২৫৩ যাত্রী নিয়ে খুলনা ছাড়লো বন্ধন
.............................................................................................
রূপগঞ্জে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত
.............................................................................................
উত্তরের সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ
.............................................................................................
বন্ধন ছুটবে ১৬ নভেম্বর, পাঁচ ঘণ্টায় খুলনা থেকে কলকাতা
.............................................................................................
৪ দিনের সফর কিশোরগঞ্জ যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা রাঙামাটি
.............................................................................................
ঘুরে আসুন ঝরনার গ্রামে
.............................................................................................
নববর্ষে পর্যটকদের ঢল কক্সবাজারে
.............................................................................................
শেষ হয়েছে শকুনী লেকের সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ, দর্শনার্থীদের ভিড়
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]