| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * আবারও হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারে ‘না’ করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা   * বিশ্বব্যাপী করোনা আক্রান্তের সর্বোচ্চ রেকর্ড আজ   * সৌদিতে করোনায় পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশির মৃত্যু, আক্রান্ত প্রায় ২০ হাজার   * ট্রাম্পের বিপক্ষে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেন কার্দাশিয়ানের স্বামী কেনি   * মৃত্যু বেড়ে ২০৫২, মোট শনাক্ত ১৬২৪১৭   * কাতার বিশ্বকাপের চমক ‘রোবট রেফারি’   * শ্রীলঙ্কার কুশল মেন্ডিস গ্রেফতার   * ১ কোটি ১৩ লাখ ছাড়াল আক্রান্ত, মৃত্যু ৫ লাখ ৩৩ হাজার   * করোনায় মৃত্যুর তালিকায় পাঁচে মেক্সিকো   * ২৪ ঘন্টায় অবস্থার অবনতি, করোনায় আক্রান্ত পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি  

   চট্টগ্রাম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত সাড়ে নয় হাজার ছাড়াল

চট্টগ্রাম জেলায় করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) শনাক্তের সংখ্যা অতিক্রম করেছে সাড়ে নয় হাজার। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৬৩ জন। আজ শনিবার চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ২৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নতুন আক্রান্ত হয়েছে ২৬৩ জন। এ নিয়ে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ৬৬৮ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে নগরে ১৯৬ জন এবং উপজেলায় ৬৭ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৫ জন।

চট্টগ্রামের ৬টি ল্যাব ও কক্সবাজার ল্যাবে মোট ১ হাজার ২৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করে এ ফলাফল মিলেছে।

চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত সাড়ে নয় হাজার ছাড়াল
                                  

চট্টগ্রাম জেলায় করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) শনাক্তের সংখ্যা অতিক্রম করেছে সাড়ে নয় হাজার। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৬৩ জন। আজ শনিবার চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ২৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নতুন আক্রান্ত হয়েছে ২৬৩ জন। এ নিয়ে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ৬৬৮ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে নগরে ১৯৬ জন এবং উপজেলায় ৬৭ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৫ জন।

চট্টগ্রামের ৬টি ল্যাব ও কক্সবাজার ল্যাবে মোট ১ হাজার ২৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করে এ ফলাফল মিলেছে।

চট্টগ্রামে আরো ২৭১ জনের করোনা শনাক্ত
                                  

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে নতুন করে করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন ২৭১ জন। এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে ছয় জনের এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৯ জন। আজ বৃহস্পতিবার সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৩৭৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নতুন আক্রান্ত হয়েছে ২৭১ জন। এদের মধ্যে নগরে ১৮৭ জন এবং উপজেলায় ৮৪ জন। করোনায় এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হলেন ৯ হাজার ১২৩ জন।

চট্টগ্রামের ৬টি ল্যাব ও কক্সবাজার ল্যাবে মোট ১ হাজার ৩৭৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাবে ১৪২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৫১ জন করোনা পজেটিভ রোগী শনাক্ত হয়।

ঘুমের ওষুধ-স্যালাইনেই হাসপাতালের বিল ৯৪ হাজার টাকা!
                                  

চট্টগ্রামে নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই চলছে বেসরকারি হাসপাতালের কার্যক্রম। করোনা রোগী ভর্তির ক্ষেত্রেও রয়েছে অনীহা। আবার কোন রোগী ভর্তি করা হলেও বিল নেয়া হচ্ছে কয়েকগুণ বেশি। বাড়তি বিল নেয়ার ক্ষেত্রে অজুহাতের শেষ নেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। তবে স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, বাড়তি টাকা নেয়ার অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

হারুন উর রশিদ সানী বাবা আনিস মিয়াকে হারিয়ে শোকে দিশেহারা। কয়েক দিনের জ্বরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ভর্তি করা হয় চট্টগ্রাম নগরীর বেসরকারি মেট্রোপলিটন হাসপাতালে। কিন্তু শেষপর্যন্ত আর বাড়ি ফেরা হয়নি। এদিকে শোকাহত সন্তানের হাতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ধরিয়ে দেয় বাড়তি বিলের ফর্দ।

এ প্রসঙ্গে তার ছেলে বলেন, শুধুমাত্র ঘুমের ওষুধ আর স্যালাইন দিয়েই ৯৪ হাজার টাকা বিল করেছে। এটা মোটেও স্বাভাবিক না।  

একই ধরনের অভিযোগ নগরীর অধিকাংশ বেসরকারি হাসপাতালগুলোর বিরুদ্ধে। কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কাই করছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কোন রোগী বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তির সুযোগ পেলেও চিকিৎসার নামে গলার কাঁটা বিলের বোঝায় জর্জরিত তারা।


ভুক্তভোগীরা বলেন, মাত্র ৭ দিনে ১ লাখ ১৫ হাজার টাকার বিল এসেছে। এই টাকা পরিশোধ করতে আমার অনেক কষ্ট হয়েছে।

অবশ্য বাড়তি বিল নেয়ার নানা অজুহাত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। ম্যাক্স হাসপাতালের পরিচালক রঞ্জনপ্রসাদ দাশগুপ্ত  বলেন, হাই ফ্লো নেজাল ক্যানোলা দিয়ে ১ ঘণ্টায় ৭০ লিটার করে দিতে হয়। ১৫০ টাকা করে পার লিটার যদি নিই, সে যদি ১৪ দিন নেয়, তার বিল তো অটোমেটিক্যালি বাড়বে।

সরকারিভাবে বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ন্যায্যমূল্যে অক্সিজেন সরবরাহ ও বিলের পরিমাণ নির্ধারণ না করলে এই অবস্থা থেকে মুক্তি মিলবে না বলে মনে করেন নগরীর জনস্বাস্থ্য রক্ষা কমিটি আহবায়ক ডা. মাহফুজুর রহমান।


তিনি বলেন, বেসরকারি হাসপাতালের বিল বানানোর অজুহাতের শেষ নেই। দাম নির্ধারণ করে না দিলে এটা চলতেই থাকবে।

কোন বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে বাড়তি টাকা নেয়ার অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে চট্টগ্রাম স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক হাসান শাহরিয়ার কবির।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ আসে নি। আমাকে, সিভিল সার্জন বা ডিসিকে জানাতে পারে। তবে কেউ জানায় না। তাহলে ব্যবস্থা নেয়া যেত।

চট্টগ্রামে বেসরকারি হাসপাতাল রয়েছে ২৮টি।

৭০ শয্যার অত্যাধুনিক আইসোলেশন সেন্টার গড়েছেন ৭ ভাই
                                  

করোনা আক্রান্তের পাশাপাশি উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ২৫০ জনের লাশ দাফনের পর এবার রোগীদের সুবিধার্থে ৭০ শয্যার অত্যাধুনিক আইসোলেশন সেন্টার গড়ে তুলছেন চট্টগ্রামের সাত ভাই। আইসোলেশন সেন্টারে ১২ শয্যার আইসিইউ সুবিধাসহ থাকছে কেন্দ্রীয় অক্সিজেন ব্যবস্থা। এর মাঝে করোনাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগীদের হাসপাতালে নেয়া কিংবা নমুনা সংগ্রহেও সহায়তা করেছেন তারা।

নগরীর হালিশহর বি ব্লকের এক প্রান্তে গড়ে উঠছে সাত ভাইয়ের স্বপ্নের আইসোলেশন সেন্টার। এখন চলছে শেষ মুহূর্তের ধোয়ামোছা এবং যন্ত্রপাতি স্থাপনের কাজ। বসে গেছে রোগীদের বেড। প্রতিটি বেডের সঙ্গে সংযুক্ত করা হচ্ছে কেন্দ্রীয় অক্সিজেন ব্যবস্থা। সেই সঙ্গে জরুরি প্রয়োজনের জন্য রাখা হয়েছে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সিলিন্ডার। প্রস্তুত হচ্ছে আইসিইউ শয্যার পাশাপাশি অপারেশন থিয়েটারও।

৫ তলা ভবনের পুরোটাই হবে করোনা রোগীদের জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল। থাকছে করোনা রোগীদের জন্য অতি প্রয়োজনীয় হাইফ্লো নজেল ক্যানোলা সিস্টেম।

আল মানাহিল আইসোলেশন সেন্টার কনসালটেন্ট প্রকৌশলী ইফতেখার হোসেন বলেন, আইসিউয়ের বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ভবিষ্যতে আরও কিছু যুক্ত করা হবে।


দেশে করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে নানা ধরণের মানবিক কাজ করে আসছে এই সাত ভাই। বয়সে প্রবীণ হলেও তাদের কাজগুলো ছিল খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।

আল মানাহিল ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ প্রধান নির্বাহী ফরিদ উদ্দিন বিন জমির উদ্দিন বলেন, নমুনা কালেকশনে আমাদের একটা গাড়ি স্বেচ্ছাসেবক নিয়ে কাজ করছে।

আল মানাহিল ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ ম্যানেজার মো. শামসুর রহমান বলেন, নমুনা নিতে গিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে অনেকে মৃত্যুবরণ করেছে। এটা দেখার পর থেকে আমরা চিন্তা করলাম সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে।


রেডজোন হিসাবে চিহ্নিত নগরীর হালিশহর এলাকায় করোনার বিশেষায়িত কোনো চিকিৎসা ব্যবস্থা ছিল না। এ অবস্থায় এই আইসোলেশন সেন্টার স্থানীদের জন্য আশার আলো হয়ে উঠতে যাচ্ছে।

আগামী ৩০ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে রোগী ভর্তির কার্যক্রম শুরু করবে সাত ভাইয়ের এই হাসপাতাল। ৩ শিফটে ২৭ জন চিকিৎসক এবং ৫০ জন স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

চট্টগ্রামে চিকিৎসক সংক্রমণ ও মৃত্যু আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে
                                  

মানসম্মত পিপিই এবং মাস্ক ব্যবহার না করায় চট্টগ্রামে চিকিৎসকদের মধ্যে করোনা সংক্রমণের পাশাপাশি মৃত্যুর হার আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে। এতে চিকিৎসকরা আতঙ্কগ্রস্ত। এতে চিকিৎসা ব্যবস্থায় বিপর্যয়ের শঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে। গত দু`মাসে এখানে আক্রান্ত হয়েছেন আড়াইশোর বেশি চিকিৎসক। সবশেষ বুধবার একদিনে দু`জনসহ গত এক মাসে ১০ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৫ মে জাফর হোসেন রুমির মৃত্যু দিয়ে চিকিৎসকদের মৃত্যুর যে মিছিল শুরু হয়েছে সেই তালিকায় বুধবার রাতে সবশেষ সংযোজন হয়েছেন শহিদুল আনোয়ার নামে আরেক চিকিৎসক। অবশ্য তার কয়েক ঘণ্টা আগে মারা গেছেন ডাক্তার সামিরুল হক বাবু নামে আরো একজন চিকিৎসক। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত ৭ হাজার ২২০ জনের মধ্যে চিকিৎসক রয়েছেন ২৬৪ জন।

স্বাচিপের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আ ন ম মিনহাজুর রহমান বলেন, হাসপাতালে যেসব ডাক্তার আক্রান্ত হচ্ছেন তারা খুব খারাপ স্ট্রেইনের করেনাভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছেন। এই কারণে মৃত্যুর হার অনেক বেশি।

এখন পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হওয়া ১০ চিকিৎসকের মধ্যে দু’জন ছিলেন সরকারিভাবে দায়িত্বরত। আর বাকি ৮ জন বিভিন্ন স্থানে প্রাইভেট চিকিৎসায় নিয়োজিত ছিলেন।


এক্ষেত্রে সরকারিভাবে মানসম্মত পিপিই এবং মাস্ক সরবরাহ করা হচ্ছে বলে দাবি সিভিল সার্জনের। তবে বিভিন্ন সংস্থা থেকে উপহার পাওয়া সাধারণ মানের পিপিই’র কারণে চিকিৎসকরা বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন বলে অভিযোগ তার।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি বলেন, পিপিই এবং সুরক্ষা সামগ্রীগুলো কীভাবে ব্যবহার করতে হয় এবং সেগুলো কীভাবে খুলতে হয় সেটি যথাযথভাবে মানতে হবে।

বর্তমানে করোনা রোগীর তুলনায় বিশেষায়িত হাসপাতালের পাশাপাশি চিকিৎসকের মারাত্মক সংকট রয়েছে। যে কারণে সরকারি হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসকদের টানা দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। সে সাথে পিপিই পরিধান এবং খুলে রাখার পর্যাপ্ত জায়গা পাওয়া যাচ্ছে না। এতেও চিকিৎসকরা আক্রান্ত হচ্ছেন। এতে সাধারণ চিকিৎসকরাও এখন আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন।


চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের উপ অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. নাসির উদ্দিন মাহমুদ বলেন, বেডের তুলনায় অনেক বেশি রোগী। সেই তুলনায় চিকিৎসক অনেক কম। এছাড়া সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ দিতে হবে।

চট্টগ্রাম বিএমএ`র সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী বলেন, চিকিৎসকরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে যাচ্ছেন। তাদের চোখের সামনে যখন একজন সহকর্মী মারা যাচ্ছেন তখন তাদের মধ্যে একটা মানসিক চাপ সৃষ্টি হয় এবং কিছুটা আতঙ্কগ্রস্তও হচ্ছেন।

বিএমএ`র তালিকা অনুযায়ী চট্টগ্রামে মোট চিকিৎসক রয়েছেন ৪ হাজার ৩৪৯ জন। উপজেলা পর্যায়ে ১৮ জন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

করোনা মহামারীর এই যুদ্ধে সম্মুখে থেকে লড়ে যাচ্ছেন চিকিৎসকরা। আবার আক্রান্তের দিক থেকেও তারা রয়েছেন এগিয়ে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চিকিৎসকদের আক্রান্তের হার কমিয়ে আনতে হবে। নাহলে বিপর্যয় নেমে আসবে চিকিৎসা ব্যবস্থায়।

চসিক নির্বাচনে লেমিনেটেড পোস্টার ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:
চট্টগ্রামে পরিবেশবান্ধব সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে লেমিনেটেড পোস্টার ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক্ষেত্রে প্রচারণার সময় কোনো প্রার্থী আইন লঙ্ঘন করলে নেয়া হবে আইনগত ব্যবস্থা। নির্বাচনকে পরিবেশবান্ধব করতেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. হাসানুজ্জামান।

তিনি বলেন, এ নগর সবার, এখানে সবাই যেন সুন্দরভাবে বসবাস করতে পারে সে জন্য এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে এবং বাস্তাবায়নের যা করার দরকার তা করা হবে। লেমিনেটেড পোস্টার ব্যবহার করতে না দেয়ার বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন কাউন্সিলর প্রার্থী ও মুদ্রণ ব্যবসায়ীরা। আরা যারা আইন অমান্য করবে তাদের বিষয়ে কঠোর হওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনকে আহ্বান সচেতন মহলের।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীরা ব্যবহার করেছিলেন লেমিনেটেড পোস্টার। ১২ দিনের নির্বাচনী প্রচারণায় আড়াই হাজার মেট্রিক টন পলিথিন মোড়ানো পোস্টার বর্জ্য হয়েছিল। যা পরিবেশের জন্য ছিল মারাত্মক ক্ষতিকর। ভবিষ্যতে এ ধরনের পোস্টার লাগানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা দেন উচ্চ আদালত। আর সেই নিয়ম মেনেই চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের লেমিনেটেড পোস্টার ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এমনিতেই বর্ষা আসলেই জলাবদ্ধতায় নাকাল থাকে চট্টগ্রামবাসী।

তাই নির্বাচনে লেমিনেটেড পোস্টার ব্যবহার না করার নির্দেশনা ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন মুদ্রণ ব্যবসার সাথে জড়িত ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে, লেমিনেটেড পোস্টার ব্যবহার না করার অঙ্গীকার কাউন্সিলর প্রার্থীদের। এইচ জে সলিউশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাদ্দাম হোসাইন বলেন, লেমিনেটেড পোস্টার ছাপানো হলে বেশি টাকা পাওয়া যাবে এমন না আবার আমাদের ক্ষতি হবে এমনও না, যদি এটা বন্ধ করা হয় তাহলে সেটাকে সাধুবাদ জানাব।

২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন বলেন, আমি চাইব শুধু লেমিনেটেড পোস্টার নয়, পোস্টারবিহীনি একটা নির্বাচন করতে। ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হাসান মাহমুদ হাসনী বলেন, পরিবেশ রক্ষা করা আমাদের সবার দায়িত্ব-কর্তব্য। শুধু নিষেধাজ্ঞা দিলেই হবে না, যে সব প্রার্থী আইন লঙ্ঘন করবেন তাদের ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনকে কঠোর হতে হবে বলে মনে করেন সনাক সভাপতি আকতার কবির চৌধুরী।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে ৭ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১৩ ও সংরক্ষিত কাউন্সির পদে ৫৬ জন প্রার্থী লড়বেন।

 
চট্টগ্রাম রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ এসআই নির্বাচিত টেকনাফ থানার মশিউর
                                  

মোঃ আবু সায়েম:

৩য় বারের মতো চট্টগ্রাম রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ এসআই হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা মশিউর রহমান ।ডিসেম্বর মাসের মাসের সার্বিক কার্যক্রম বিবেচনাপূর্বক মোট তিনটি ক্যাটাগরিতে অবদান রাখায় তাকেঁ এ সম্মাননা প্রদান করা হয়। বুধবার ১৯ শে ফেব্রুয়ারি মাসিক কল্যাণ সভা চট্টগ্রাম পুলিশের ডিআইজির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক পিপিএম,বিপিএম (বার)। উক্ত অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম রেঞ্জে সর্বোচ্চ অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার, মাদক উদ্ধার এবং সার্বিক কার্যক্রম বিবেচনাপূর্বক কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার এসআই মশিউর রহমানকে চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ এসআই হিসেবে সম্মানাস্বরুপ ক্রেস্ট ও সনদ প্রদান করা হয়।

এসময় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি আবুল ফয়েজ (ক্রাইম) এবং চট্টগ্রাম রেঞ্জ কার্যালয়ের সকল পুলিশ কর্মকর্তাগণ । উল্লেখ্য যে, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানায় এসআই মশিউর রহমান যোগদানের পর থেকে মাদক নির্মূল, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক , অস্ত্র উদ্ধার সর্বোপরী টেকনাফ থানাকে নিরাপত্তার চাদরে আচ্ছাদিত করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। ফলশ্রুতিতে তারঁ এ কৃতিত্বের জন্য টানা ৩য় বারের মতো চট্টগ্রাম রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ এসআই হিসেবে পুরস্কার লাভ করেন। । চট্টগ্রাম রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ এসআই হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায় এক প্রতিক্রিয়ায় মশিউর রহমান বলেন, প্রতিটি পুরস্কার আসলে খুবই ভালো লাগে।

কার্যক্ষেত্রে কাজের গতিকে তরান্বিত করে, প্রেষণা সৃষ্টি করে। তিনি আরো বলেন,মাদকমুক্ত টেকনাফ থানা গড়তে আমি যে প্রতিশ্রুতি নিয়ে যোগদান করেছিলাম.তা বাস্তবায়ন করার জন্য আমার মানসিক ও শারীরিক শ্রম অব্যাহত থাকবে। ইনশাআল্লাহ টেকনাফ থানাকে একটি মডেল থানায় বাস্তাবায়ন করতে আমাদের সকল কার্যক্রম বিদ্যমান থাকবে।

 
চট্টগ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে নির্বাচনী হাওয়া
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে নগরীতে ছড়িয়ে পড়েছে নির্বাচনী উত্তাপ। মেয়র প্রার্থী নিয়ে রয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। সেই সাথে নগর জুড়ে বিভিন্ন মনোনয়ন প্রত্যাশীর নামে লাগানো হচ্ছে পোস্টার ও ব্যানার। অনেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকলেও আওয়ামী লীগের পক্ষে নমিনেশন পাওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে আছেন বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির। অন্যদিকে বিএনপির পক্ষে প্রার্থী হিসেবে শোনা যাচ্ছে ডা. শাহাদাত হোসেনের নাম। ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের পর এবার চট্টগ্রাম সিটি করপোরশন নির্বাচন।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলীয় মনোনয়ন কে পাচ্ছে তা নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। মনোনয়ন প্রত্যাশী বিভিন্ন প্রার্থীর পক্ষে নগর জুড়ে লাগানো হচ্ছে পোস্টার ও ব্যানার। বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির বহাল থাকছেন, নাকি পরিবর্তন হচ্ছে? এ নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। বর্তমান মেয়রের বাইরে মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, সাবেক সিডিএ চেয়্যারম্যান আব্দুচ ছালামের নাম শোনা যাচ্ছে।

সেই সাথে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের নামও উঠে এসেছে। তবে মনোনয়ন পেলে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বর্তমান সিটি মেয়র আ জ ম নাছির। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, নাগরিক সেবা বলতে যেটা বুঝায়, সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে আমরা সেটা দিতে পারি। জনগণ আমার বিষয়ে অত্যন্ত সন্তুষ্ট। তবে বিএনপি`র সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে নাম শোনা যাচ্ছে মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনের।

চট্টগ্রামে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৩
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামে আবারো গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। নগরীর মোগলটুলী এলাকায় একটি ওয়াকর্শপে লাগানো ঘরে রান্না করার সময় এ বিস্ফোরণের দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় তিন জন গুরুতর আহত হয়েছেন। এর মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। নগরীর মোগলটুলী এলাকার রাবার ওয়ার্কশপে কাজ করে কয়েক জন শ্রমিক।

ওয়ার্কশপের সঙ্গে লাগানো তাদের বাসা। সকালে রান্নার জন্য গ্যাসের সংযোগ দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘরে অবস্থান করা মিজান, গোলাম মওলাসহ তিনজন গুরুতর দগ্ধ হন। তাদের আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ডি রাবার ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপে কাজ করতেন এই তিন শ্রমিক। ওয়ার্কশপের সঙ্গে লাগানো ঘরে বসবাস করতেন তারা। সকালে রান্নার জন্য গ্যাসের সংযোগ দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিকট শব্দে ঘটে বিস্ফোরণের ঘটনা। এরপর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তাদের চমেকে নিয়ে আসা হয়।

বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সহকারী অধ্যাপক জানান ডা. মোহাম্মদ খালেদ জানান, আহত তিন জনের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের শ্বাসনালীসহ শরীরের বেশিরভাগ অংশ পুড়ে গেছে। গোলাম মওলার ৬৫ শতাংশ ও মিজানের শরীরের ৫০ শতাংশ পুড়ে গেছে। এছাড়া আরেক জনের মুখমণ্ডলসহ শরীরের ২৫ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে জানান বার্ন ইউনিটের চিকিৎসক। তবে চমেকের বার্ন ইউনিটে কোনো আইসিইউ না থাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে বলেও জানার তিনি।

কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, দিন দিন গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা বাড়ছে। এক একটি সিলিন্ডার পরিণত হয়েছে বোমায়। প্রতিদিনই বিস্ফোরণের ঘটনায় রোগী ভর্তি হচ্ছে বার্ন ইউনিটে। এখনই যদি গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার নিরাপদ করা না যায় তাহলে সামনের দিনগুলোতো আরও ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

 
সিলেট-আখাউড়া রেলের কাজ দ্রুত শুরু হবে: রেলমন্ত্রী
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ভোলাগঞ্জে রেলওয়ের ভূমি, স্থাপনা ও রোপওয়ে রক্ষা এবং আখাউড়া থেকে সিলেট রুটে রেলের কাজ দ্রুত শুরু হবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজন। আজ রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জ রোপওয়ে, বাঙ্কার ও ধলাই নদী পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন রেলমন্ত্রী। মন্ত্রী বলেন, রোপওয়ে আবার করা যাবে কিনা এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আর বিলীন হওয়ার হাত থেকে ভোলাগঞ্জে রেলওয়ের ভূমি কীভাবে রক্ষা করা যায়, এ বিষয়েও পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আপাতত ভোলাগঞ্জে রেলওয়ের ভূমি ও স্থাপনা দেখা হচ্ছে।
এর আগে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জ পাথর কোয়ারিতে অবস্থিত রেল স্থাপনা পরিদর্শন করেন রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজন। আজ রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে পরিদর্শনে যান তিনি। এ সময় রেল স্থাপনার পাশে ধলাই নদীও পরিদর্শন করেন মন্ত্রী। পরিদর্শনকালে বাংলাদেশ বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. শামছুজ্জামান মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বাংলাদেশ রেলওয়ের অনেক পুরনো রোপওয়ের অবস্থা দেখতে সরেজমিনে দেখতে সকালে ভোলাগঞ্জ পাথর কোয়ারি এলাকার ধলাই নদীও ভ্রমণ করেন রেলমন্ত্রী।

এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. শামছুজ্জামান। এখান থেকে তিনি রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিয়ে সড়ক পথে সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলা সদরে অবস্থিত বাংলাদেশ রেলওয়ের একমাত্র স্লিপার কারখানা পরিদর্শনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। জানা গেছে, সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জে দেশের সর্ববৃহৎ পাথর কোয়ারির অবস্থান। মেঘালয় রাজ্যের খাসিয়া জৈন্তিয়া পাহাড় থেকে বর্ষাকালে ঢল নামে। ধলাই নদীতে ঢলের সঙ্গে নেমে আসে পাথর।

পরবর্তী বর্ষার আগমন পর্যন্ত চলে পাথর আহরণ। এছাড়া রয়েছে ১৯৬৪-১৯৬৯ সালে সোয়া দুই কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ভোলাগঞ্জ রোপওয়ে প্রকল্প- যার দৈর্ঘ্য ১১ মাইল ও টাওয়ার এক্সক্যাভেশন প্ল্যান্টের সংখ্যা ১২০টি। উত্তোলিত পাথর ছাতক সিমেন্ট ফ্যাক্টরিতে পাঠানো হতো। ১৯৯৪ সালের পর এই পদ্ধতিতে পাথর উত্তোলন বন্ধ রয়েছে। এখান থেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় ২০ মিনিটের দূরত্বে রয়েছে বিশেষ কোয়ারির অবস্থান। মূলত সীমান্তের অতি নিকটবর্তী হওয়ায় এই জায়গাটিকে বিশেষ কোয়ারি বলা হয়। সেখানে থেকে প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য প্রাণভরে উপভোগ করা যায়।

কিন্তু রাতের অন্ধকারে পাথরখেকোরা বাঙ্কার এলাকা থেকে পাথর উত্তোলন অব্যাহত রেখেছে। এ ছাড়া অবৈধ দখলদারদের কারণে ঝুঁকিতে পড়েছে রোপওয়ে লাইনের খুঁটি এবং রেলওয়ে স্থাপনা।

চট্টগ্রামে বস্তিতে আগুন, ক্ষতিগ্রস্ত ২ শতাধিক পরিবার
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামে নগরীর মাঝিরঘাট এলাকায় নাহার বিল্ডিংয়ের পাশে মাদারবাড়ির এসআরবি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার ভোর ৫টা ১০ মিনিটের দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় প্রায় দুই শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টা চালিয়ে পৌনের ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করে আগ্রাবদ, চন্দনপুরা, নন্দনকানন ও চকবাজার ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিটের ১৫টি গাড়ি। আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক ফরিদ আহমেদ চৌধুরী জানান, ধারণা করা হচ্ছে, এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দুই শতাধিক পরিবার।

খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছে নারী-শিশুসহ হাজারো মানুষ। তবে এখনও কোনও হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। তাৎক্ষণিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।

 
কক্সবাজার শহরকে ‘ব্যয়বহুল’ ঘোষণা
                                  

নিউজ ডেস্ক : কক্সবাজার শহরকে ‘ব্যয়বহুল’ ঘোষণা করেছে সরকার। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সোমবার (২৭ জানুয়ারি) কক্সবাজার শহরকে ব্যয়বহুল ঘোষণা করে আদেশ জারি করেছে।


মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়েছে, ‘সরকার দেশের পর্যটন শহর কক্সবাজারের শহর/পৌর এলাকার নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদিসহ বাড়িভাড়া, যানবাহন ভাড়া, খাদ্য ও পোশাক সামগ্রীসহ অন্য ভোগ্যপণ্যের মূল্য বিবেচনায় কক্সবাজার শহর/পৌর এলাকা ব্যয়বহুল হিসেবে ঘোষণা করেছে।’

অবস্থানভেদে সরকারি চাকরিজীবীদের সুযোগ সুবিধার ভিন্নতা আছে। ব্যয়বহুল ঘোষণা করায় মূলত সরকারি চাকরিজীবীদের বিশেষ বরাদ্দ বাড়বে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, ব্যয়বহুল শহর ঘোষণা করায় সেখানে কর্মরত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মেট্রোপলিটন এলাকার মতো বাড়িভাড়া, যানবাহন ভাড়া, খাদ্য ও পোশাক সামগ্রীসহ অন্য ভাতা পাবেন।

পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারে সারা বিশ্বের পর্যটকদের আগমন ঘটে। পর্যটকদের আগমনে সেখানে জীবনযাত্রার ব্যয়ও দিন দিন বাড়ছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরাই শহরটিকে ব্যয়বহুল ঘোষণার দাবি জানিয়ে আসছিলেন।

 
সীতাকুণ্ডে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ম শিক্ষক গ্রেফতার
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক   

 

 

চট্টগ্রাম নগরের একটি আবাসিক হোটেলে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে সীতাকুণ্ডে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

শনিবার (২৩ নভেম্বর) রাতে ওই স্কুল শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে ওই দিন সন্ধ্যায় ধর্ষিতা ছাত্রী বাদী হয়ে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় মামলা দায়ের করে।

 

 

 

গ্রেফতার শিক্ষকের নাম মো. তারেক হোসেন। তিনি সীতাকুণ্ড বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্মবিষয়ক শিক্ষক ও উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জহির আহমেদের ছেলে।

 

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, সীতাকুণ্ড বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্মবিষয়ক শিক্ষক তারেক হোসেন দীর্ঘদিন ধরে একই স্কুলের দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীর সঙ্গে (১৬) সম্পর্ক তৈরির চেষ্টা করে আসছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত জুলাই মাসে ওই ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বিয়ের কথা বলে নগরের ফয়স লেক এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন তারেক। এরপর থেকে ছাত্রী বিয়ের কথা বললে তিনি নানাভাবে টালবাহানা শুরু করেন।

 

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম জানান, গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় ধর্ষিতা ছাত্রী তার পরিবারের লোকজন নিয়ে থানায় এসে তারেকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। রাতে উপজেলার মুরাদপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে আসামি তারেক হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়।

চট্টগ্রামে বন্য হাতির আক্রমণে ৩ জনের মৃত্যু
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক   

 

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে বন্য হাতির আক্রমণে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকালে উপজেলার কধুরখীল, সৈয়দনগর ও জ্যৈষ্ঠপুরায় হাতির পৃথক আক্রমণের শিকার হন তারা।

 

কধুরখীল এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবদুল করিম জানান, সকালে কধুরখীল এলাকায় শস্যক্ষেতে কাজ করার সময় আবদুল লতিফ মিস্ত্রির ছেলে আবু তাহের মিস্ত্রি (৬০) হাতি আক্রমণের শিকার হন। ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।

 

 

 

অন্যদিকে পূর্ব সৈয়দনগরে হাতির আক্রমণে মারা গেছেন চরণদ্বীপ বিজান বিবি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক জাকের হোছাইন (৬৫)। তিনি চরণদ্বীপ ইউনিয়নের পূর্ব সৈয়দনগর জাকের মাস্টারের বাড়ির মৃত আবদুল মোনাফের ছেলে।

 

তার মেয়ে ফাহমিনা আফরোজ তারিন জানান, সকালে চাঁন্দারহাট জামে মসজিদের পাশে হাতির পাল তার বাবাকে (জাকের মাস্টার) আক্রমণ করে। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি হওয়ায় চমেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎস তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

 

এদিকে হাতির পালটি পাহাড়ের দিকে যাওয়ার পথে শ্রীপুর খরণদ্বীপ ইউনিয়নের আমির পাড়ার আবদুল মাবুদ (৬০) নামে এক কৃষককে আক্রমণ করে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

 

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. হাছান চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, হাতির আক্রমণে আবদুল মাবুদের মৃত্যু হয়েছে। তিনি স্থানীয় আলী আহমদের ছেলে।

 

 

 

বোয়ালখালী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন ফারুকী বলেন, তিনজনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। হাতিগুলো দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে সবার সহযোগিতা কামনা করছেন।

 

উল্লেখ্য, গতকাল শনিবার ভোরে জ্যৈষ্ঠপুরা পাহাড় থেকে লোকালয়ে নেমে আসে বাচ্চাসহ ৯টি হাতি। দিনভর হাতিগুলো পূর্ব কধুরখীল বায়তুল জামে মসজিদের সুপারি বাগানে অবস্থান নেয়। রোববার সকালে দুভাগে বিভক্ত হয়ে একদল কধুরখীল -চরণদ্বীপের দিকে যায়, অন্যদল খরণদ্বীপ হয়ে পাহাড়ের দিকে যায়।

চট্টগ্রামে হিযবুত তাহরীরের নেতৃত্বে ক্যান্টনমেন্ট স্কুলের শিক্ষক!
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীরের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক প্রধানসহ সংগঠনটির ১৫ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের মধ্যে আটক কথিত আঞ্চলিক প্রধান এরশাদুল আলম (৩৯) চট্টগ্রামের ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল ও কলেজের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত বলে নিশ্চিত করেছে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

শুক্রবার (২২ নভেম্বর) সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত নগরের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের আলাদা সাতটি টিম সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি-দক্ষিণ) শাহ মো. আব্দুর রউফ।


তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের সাতটি টিম নগরজুড়ে অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে হিযবুত তাহরীরের আঞ্চলিক প্রধানসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ল্যাপটপ, মোবাইল, জিহাদি বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়।’

অভিযানে অংশ নেয়া এক পুলিশ কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, ‘আটক ১৫ জনের মধ্যে ১৩ জনকে চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার একটি বাসায় বৈঠকরত অবস্থায় এবং বাকি দুজনকে বায়েজিদ থানা এলাকার একটি বাসা থেকে আটক করা হয়। তাদের মধ্যে আঞ্চলিক প্রধান এরশাদুল আলম চট্টগ্রামের ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল ও কলেজের সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। সিএমপির সাতটি টিম সন্ধ্যা ৭টা থেকে নগরজুড়ে এ অভিযান পরিচালনা করে।’

 

আটক অন্যরা হলেন- ওয়ালিদ ইবনে নাজিম (১৮), ইমতিয়াজ ইসমাইল (২৫), আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ (৩০), নাসিরুদ্দিন চৌধুরী (২৯), নাজমুল হুদা (২৭), লোকমান গণি (২৯), মোহাম্মাদ করিম (২৭), আব্দুল্লাহ আল মুনিম (২২), কামরুল হাসান রানা (২০), আরিফুল ইসলাম (২০), আজিমুদ্দিন (৩১), মো. আজিমুল হুদা (২৪), আফজাল হোসেন আতিক (৩৫) ও মো. সম্রাট (২২)।

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, প্রায় ছয় মাস ধরে এই চক্রটির ওপর নজর রাখে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। গতকাল (শুক্রবার) সাত দলে ভাগ হয়ে ৫০ জন পুলিশ সদস্য এ অভিযানে অংশ নেয়।


সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকী কাউন্টার টেরোরিজম এক্সচেঞ্জে (সিটিএক্স) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) চেয়েও ভবিষ্যতে বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীর। নিষিদ্ধ এ সংগঠন বিশ্বজুড়ে নিরাপত্তা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের নজরদারি চাতুর্যের সঙ্গে এড়িয়ে তাদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, হিযবুত তাহরীরের একটি সামরিক শাখা রয়েছে। এর নাম হরকত-উল-মুহোজিরিনফি ব্রিটানিয়া। ১৯৫২ সালে জেরুজালেমে প্রতিষ্ঠিত এ দলটির সদর দফতর লন্ডনে। মধ্য এশিয়া, ইউরোপ, দক্ষিণ এশিয়া এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় (মূলত ইন্দোনেশিয়া) এর শাখা রয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার ভেতর পাকিস্তান ও বাংলাদেশেও সংগঠনটির ব্যাপক উপস্থিতি রয়েছে।

চট্টগ্রামে ভবনে বিস্ফোরণ নিয়ে ‘ধূম্রজাল’
                                  

 

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

 

চট্টগ্রামের পাথরঘাটার ‘বড়ুয়া ভবন’-এ বিস্ফোরণের পর পেরিয়ে গেছে ২৪ ঘণ্টা। এই ২৪ ঘণ্টায় পৃথিবী থেকে নাই হয়ে গেছেন নারী-শিশুসহ সাতজন; জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন আরও ৯ জন। কিন্তু এখনও জানা যায়নি কোন ‘অপরাধে’ তাদের জীবনে এই বিভীষিকা।

 

দুর্ঘটনার পর গতকাল রোববার (১৭ নভেম্বর) জেলা প্রশাসন, নগর পুলিশ, কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন তিনটি আলাদা তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। এছাড়া ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ফায়ার সার্ভিস, পিবিআই ও বিস্ফোরক অধিদফতর।

 

 

 

এসব সংস্থার মধ্যে একমাত্র কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন (কেজিসিএল) ছাড়া আর কেউ তাদের তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করতে পারেনি। তবে ঘটনা সম্পর্কে নিজ নিজ মতামত দিয়েছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। দুর্ঘটনা নিয়ে তাদের সে মতামত ছিল পরস্পরবিরোধী। এতে করে দুর্ঘটনার কারণ নিয়ে ‘ধূম্রজাল’ সৃষ্টি হয়েছে।

 

রোববার বিস্ফোরণের পরই কেজিডিসিএলর ব্যবস্থাপনা পরিচালক চার সদস্যের প্রাথমিক তদন্ত কমিটি গঠন করেন। দুপুরে কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন; সন্ধ্যায় জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সচিব, পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান, পরিচালক (অপারেশন) এবং কেজিডিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়।

 

ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (কেজিডিসিল) তাদের তদন্ত প্রতিবেদনে বিস্ফোরণের ঘটনায় ‘গ্যাস লাইনে কোনো লিকেজ পাওয়া যায়নি’ বলে রিপোর্ট দিয়েছে।

 

 

তদন্ত কমিটির প্রধান ও কেজিসিএলের মহাব্যবস্থাপক (ইঞ্জিনিয়ারিং ও সার্ভিসেস) প্রকৌশলী সারোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমাদের তদন্তে গ্যাসের লাইনে কোনো লিকেজ পাইনি। গ্যাসের লাইন এবং রাইজার অক্ষত পাওয়া গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত বাসার রান্নাঘরে চুলার সঙ্গে সংযোগ লাইনও অক্ষত পাওয়া গেছে। রান্নাঘরে গ্যাস জমে বিস্ফোরণ হলে রান্নাঘর ক্ষতিগ্রস্ত হতো। কিন্তু সেটা অক্ষত আছে। রান্নাঘরের পাশে আরেকটি কক্ষে বিস্ফোরণ হয়েছে, যার নিচে সেফটি ট্যাংক আছে। এতে আমরা নিশ্চিত হয়েছি যে, গ্যাসের লাইন থেকে বিস্ফোরণ হয়নি।’

 

তবে ঘটনার পরপরই নগর পুলিশ কর্মকর্তা শাহ্ মোহাম্মদ আব্দুর রউফ জানিয়েছিলেন, ‘সকালের রান্না বসাতে গিয়ে গ্যাস লাইনের রাইজার বিস্ফোরিত হয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।’

 

 

 

তিনি বলেন, ‘বিস্ফোরণে আহতদের মধ্যে ওই ঘরের মেয়ে অর্পিতা নাথের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, তার পরিবারে তারা তিন সদস্য। সকালে দুর্ঘটনার সময় বাকি দুইজন বাইরে ছিল। ৯টার দিকে সকালের রান্না বসাতে গিয়ে গ্যাসের চুলা জ্বালাতে গিয়ে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।’

 

বিস্ফোরণে পুড়ে যাওয়া সেই অর্পিতা নাথকে ঢাকা বার্ন ইউনিটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। চমেক হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শরীরের প্রায় ৮০ শতাংশ পুড়ে গেছে অর্পিতার।

 

ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দিন বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তে ভবনের গ্যাস লাইনের রাইজার বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে আমাদের মনে হয়েছে। আর এ কারণেই দেয়াল ধসের ঘটনা ঘটে।’তিনি বলেন, ‘ভবনের ব্যবহারকারীরা ছিলেন একেবারেই অসচেতন। রাস্তার সঙ্গে লাগোয়া একটি রান্না ঘরের সঙ্গেই গ্যাস লাইনের রাইজারটি লাগানো ছিল। এমনকি রাইজারটিতে মরচে ধরে গিয়েছে।’

 

 

 

তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনার পরপরই আমরা রাইজারটি উদ্ধার করে কোতোয়ালি থানার ওসি মোহসিন সাহেবকে বুঝিয়ে দিয়েছি। এই ভবনটি ছিল অনেক পুরনো, ভবন মালিক এটি নির্মাণে কোনো নিয়মই মানেননি। তাই এখন ভবনটিকে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।’

 

এর আর্গে দুপুরে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড মহাব্যবস্থাপক (বিপণন) আ ন ম সালেক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বলেন, গ্যাস লাইনের ত্রুটি থেকে কোনো বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেনি। তিনি বলেন, গ্যাস লাইনের ত্রুটি থেকে কোনো বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটলে চুলা অক্ষত থাকতে পারে না। এখানে চুলা ছিল অক্ষত। এছাড়া ওই বাসায় শুকাতে দেয়া কাপড় চোপড়েও আগুন লাগেনি। গ্যাস লাইনের রাইজার অক্ষত পাওয়া গেছে।’

 

ctg-(3)

 

ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন বিস্ফোরক অধিদফতরের পরিদর্শক তোফাজ্জল হোসেন। তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তে দেখা গেছে, গ্যাস বিস্ফোরণ থেকে ঘটনাটি ঘটেছে। রাইজার থেকে চুলা পর্যন্ত যে লাইনটি গেছে ওই লাইনে কোনো লিকেজ থাকতে পারে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ওই লিকেজ দিয়ে সারা রাত গ্যাস বের হয়ে ঘরবন্দি হয়ে পড়ে। পরে সকালে আগুন ধরাতে গেলে এই বিস্ফোরণ ঘটে থাকতে পারে। আমরা জানতে পেরেছি, আহত একজন ঘরে দিয়াশলাই জ্বালিয়েছেন। এতে আগুনের উৎস পেয়ে বিস্ফোরণ ঘটেছে।’

 

‘ঘরের মালিক রাইজারটি সংরক্ষণে অবহেলা দেখিয়েছেন। রাইজারটি প্লাস্টিক দিয়ে মোড়ানো থাকার কথা থাকলেও, সেটি ছিল উন্মুক্ত। এছাড়া সব গ্যাস বিস্ফোরণে আগুন ধরে যাবে এটি ঠিক না’-বলেন পরিদর্শক তোফাজ্জল হোসেন।

 

 

 

বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনা তদন্তে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) পক্ষ থেকেও একটি কমিটি করা হয়েছে। এ নিয়ে বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্তে দুটি কমিটি গঠিত হয়েছে।

 

সিএমপির পক্ষ থেকে তিন সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। সিএমপির উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে গঠিত কমিটিতে সদস্য হিসেবে আছেন বিশেষ শাখার অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (পুলিশ সুপার পদমর্যাদা) মঞ্জুর মোরশেদ এবং কোতোয়ালি জোনের সহকারী কমিশনার নোবেল চাকমা।

 

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন বলেন, ‘চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন, সিডিএ, সিটি কর্পোরেশন, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ প্রশাসনের যৌথ সমন্বয়ে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ কমিটিকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্টেটকে।’

 

নগর পরিকল্পনাবিদ শাহিনুল ইসলামসহ একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে প্রাথমিক তদন্তে বলেছেন, ‘দুর্ঘটনা কবলিত ভবনটি সিডিএর বিধি অনুযায়ী হয়নি।’

 

সড়কের জায়গা দখল করে তৈরি করা হয়েছে সেপটিক ট্যাংক, তার পাশে কিচেন এবং গ্যাসের রাইজার রাখা ছিল। ফলে সেপটিক ট্যাংকে জমে থাকা গ্যাস ও গ্যাস লাইনের লিকেজ একসঙ্গে হয়ে বিকট শব্দে বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছে সিডিএর এ পরিকল্পনাবিদ।


   Page 1 of 5
     চট্টগ্রাম
চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত সাড়ে নয় হাজার ছাড়াল
.............................................................................................
চট্টগ্রামে আরো ২৭১ জনের করোনা শনাক্ত
.............................................................................................
ঘুমের ওষুধ-স্যালাইনেই হাসপাতালের বিল ৯৪ হাজার টাকা!
.............................................................................................
৭০ শয্যার অত্যাধুনিক আইসোলেশন সেন্টার গড়েছেন ৭ ভাই
.............................................................................................
চট্টগ্রামে চিকিৎসক সংক্রমণ ও মৃত্যু আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে
.............................................................................................
চসিক নির্বাচনে লেমিনেটেড পোস্টার ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
চট্টগ্রাম রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ এসআই নির্বাচিত টেকনাফ থানার মশিউর
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে নির্বাচনী হাওয়া
.............................................................................................
চট্টগ্রামে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৩
.............................................................................................
সিলেট-আখাউড়া রেলের কাজ দ্রুত শুরু হবে: রেলমন্ত্রী
.............................................................................................
চট্টগ্রামে বস্তিতে আগুন, ক্ষতিগ্রস্ত ২ শতাধিক পরিবার
.............................................................................................
কক্সবাজার শহরকে ‘ব্যয়বহুল’ ঘোষণা
.............................................................................................
সীতাকুণ্ডে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ম শিক্ষক গ্রেফতার
.............................................................................................
চট্টগ্রামে বন্য হাতির আক্রমণে ৩ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
চট্টগ্রামে হিযবুত তাহরীরের নেতৃত্বে ক্যান্টনমেন্ট স্কুলের শিক্ষক!
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ভবনে বিস্ফোরণ নিয়ে ‘ধূম্রজাল’
.............................................................................................
‘সকালে চুলা জ্বালাতেই গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণ’
.............................................................................................
চট্টগ্রামে গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণ, নিহত ৭
.............................................................................................
চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকা-সিলেটের রেল যোগাযোগ বন্ধ
.............................................................................................
খাগড়াছড়িতে আ.লীগ নেতার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
চট্টগ্রামে টেম্পুর ধাক্কায় স্কুলছাত্রী আহত, মহাসড়ক অবরোধ
.............................................................................................
চট্টগ্রামে সুপার শপে আগুন
.............................................................................................
বঙ্গোপসাগর থেকে জাতিসংঘ কর্মকর্তার মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
৩০ সেকেন্ডের টর্নেডোতে দড়ি ছিঁড়ল বন্দর জেটির জাহাজ!
.............................................................................................
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রবেশের চেষ্টায় ৩৯ বিদেশি আটক
.............................................................................................
নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু
.............................................................................................
কক্সবাজারে একই পরিবারের ৪ জনের রহস্যজনক মৃত্যু
.............................................................................................
বাস-সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত তিনজন
.............................................................................................
চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
চট্টগ্রামে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে পদদলিত হয়ে নিহত ৯
.............................................................................................
চট্টগ্রামে চলছে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট
.............................................................................................
পুলিশের আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন দিয়াজের মা
.............................................................................................
চট্টগ্রামে পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে বাস ধর্মঘট
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
.............................................................................................
সিলেটের সাথে ঢাকা ও চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগ বন্ধ
.............................................................................................
১ লাখ রোহিঙ্গার আশ্রয় হচ্ছে ভাসান চরে
.............................................................................................
আজ রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
বাসা খালি, ভেতরে হাত-পা বাঁধা মরদেহ
.............................................................................................
নাফ নদী থেকে আরও ১১ রোহিঙ্গা উদ্ধার
.............................................................................................
সমুদ্রে হারিয়ে যাবে চট্টগ্রাম!
.............................................................................................
ভাসানচরে রোহিঙ্গা পুনর্বাসন প্রকল্পে ব্যয় ২৩১২ কোটি টাকা
.............................................................................................
সমুদ্র বন্দরগুলোতে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত
.............................................................................................
আজ ভয়াল ১৫ নভেম্বর, সিডরের ১০ বছর।
.............................................................................................
মহিউদ্দিন চৌধুরী হাসপাতালে
.............................................................................................
জালে ২০ মণ ওজনের করাতি মাছ
.............................................................................................
ভালোবেসে বিয়ে, দেড় মাসের মাথায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
নৌঘাঁটিতে বোমা হামলার আসামি ঝিনাইদহে গ্রেপ্তার
.............................................................................................
উখিয়ায় পৌঁছেছেন খালেদা : ৩৬ ট্রাক ত্রাণ সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর
.............................................................................................
বিএনপির শোডাউন কক্সবাজারের পথে পথে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD