| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * কক্সবাজারে ইয়াবা ও আগ্নেয়াস্ত্র সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক   * স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ ৪০০ মণ আম ধ্বংস   * হুয়াওয়ের সাথে প্যানাসনিকের ব্যবসা স্থগিত   * বিজেপি এগিয়ে ৩৩৯ আসনে, কংগ্রেস ৯০   * ৩২ দলেই হবে কাতার বিশ্বকাপ   * সংগীতশিল্পী খালিদ হোসেনকে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা   * টিকিট নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে মানুষ   * গ্যাস সিলিন্ডার লিকেজ থেকে আগুন ধরে একই পরিবারের ৪ জন নিহত   * সঙ্গীতশিল্পী খালিদ হোসেনের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক   * মেক্সিকোতে অপরাধী চক্রের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১০  

   আবহাওয়া -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য ২ নম্বর সংকেত

অনলাইন ডেস্ক : রংপুর, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলের নদীবন্দর সমূহকে ২ নম্বর নৌ হুশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অফিস জানায়, রংপুর, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে পশ্চিম অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘন্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ২ নম্বর নৌ হুশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।
এছাড়া দেশের অন্যত্র পশ্চিম অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সাথে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদী বন্দরসমূহকে ১ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মাদারীপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, পাবনা, নোয়াখালী, রাঙ্গামাটি, বরিশাল এবং পটুয়াখালী অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু এলাকায় প্রশমিত হতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, কুমিল্লা, নোয়াখালী ও রাঙ্গামাটি অঞ্চলসহ রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

আজ সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯০ শতাংশ। আজ ঢাকায় সূর্যাস্ত ৬টা ৩৭ মিনিটে এবং আগামীকাল সূর্যোদয় হবে ৫টা ১৩ মিনিটে।

গতকাল দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোর ও মংলায় ৩৭ দশমিক ৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৯ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

আগামী ৩ দিনে বৃষ্টিপাতের কার্যাশক্তি বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে। বাসস

দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য ২ নম্বর সংকেত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রংপুর, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলের নদীবন্দর সমূহকে ২ নম্বর নৌ হুশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অফিস জানায়, রংপুর, ময়মনসিংহ এবং সিলেট অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে পশ্চিম অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘন্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ২ নম্বর নৌ হুশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।
এছাড়া দেশের অন্যত্র পশ্চিম অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সাথে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদী বন্দরসমূহকে ১ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মাদারীপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, পাবনা, নোয়াখালী, রাঙ্গামাটি, বরিশাল এবং পটুয়াখালী অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু এলাকায় প্রশমিত হতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, কুমিল্লা, নোয়াখালী ও রাঙ্গামাটি অঞ্চলসহ রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

আজ সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯০ শতাংশ। আজ ঢাকায় সূর্যাস্ত ৬টা ৩৭ মিনিটে এবং আগামীকাল সূর্যোদয় হবে ৫টা ১৩ মিনিটে।

গতকাল দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোর ও মংলায় ৩৭ দশমিক ৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৯ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

আগামী ৩ দিনে বৃষ্টিপাতের কার্যাশক্তি বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে। বাসস

আজও বৃষ্টি হতে পারে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মঙ্গলবার (১৪ মে) বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। ৯ দিন টানা তাপদাহের পর সোমবার (১৩ মে) রাতে দেশজুড়ে নামে স্বস্তির বৃষ্টি।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গা, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং চট্টগ্রাম বিভাগের দুই-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা ও ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, এছাড়া রাজশাহী, পাবনা মাঈজদীকোর্ট ও রাঙামাটি অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে বিরাজমান মৃদু তাপপ্রবাহ প্রশমিত হতে পারে। সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ফরিদপুরে সর্বোচ্চ বৃষ্টি ৪৩ মিলিমিটার রেকর্ড করা হয়েছে। আর ঢাকায় রেকর্ড করা হয় ২৪ মিলিমিটার। এছাড়া রাঙামাটিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

স্বস্তির খবর দিল আবহাওয়া অফিস
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বেশ কিছু দিন ধরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের উপর দিয়ে বয়ে চলছে মৃদু তাপপ্রবাহ। টানা এই মৃদু তাপপ্রবাহের মাঝে স্বস্তির খবর দিল বাংলাদেশ আবহাওয়া অফিস। চলমান মৃদু তাপপ্রবাহ কিছুটা প্রশমিত হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে হতে পারে শিলাবৃষ্টি।

রবিবার (১২ মে) সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়, সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে।
এছাড়া রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

বয়ে চলা তাপপ্রবাহের বিষয়ে বলা হয়, টাঙ্গাইল, রাঙ্গামাটি, নোয়াখালী, রাজশাহী ও পাবনা অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু কিছু অঞ্চলে প্রশমিত হতে পারে।

এছাড়া পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টায় বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের কার্যশক্তি বৃদ্ধি পেতে পারে। তবে বর্ধিত ৫ দিনের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে তেমন কোনো পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই।

দুই দিনের মধ্যে মিলবে স্বস্তির বৃষ্টি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নোয়াখালী ও দিনাজপুর অঞ্চলসহ ঢাকা, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা আরও কয়েক দিন অব্যাহত থাকতে পারে। আগামী দুই দিনের মধ্যে বৃষ্টিপাত হতে পারে এবং তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে। পরবর্তী আরও তিনদিন এই অবস্থা থাকতে পারে।

শুক্রবার (১০ মে) রাতে আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘আগামী দুই দিনের মধ্যে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে এবং তাপমাত্রা কমার কথা বলা হয়েছে। এটা অব্যাহত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।’

শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদফতর বলেছে, সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে

অধিদফতরের পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলা হয়েছে, এ সময় বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে এবং তাপমাত্রা হ্রাস পেতে পারে।

সেই সঙ্গে আগামী পাঁচ দিনের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অবস্থার উল্লেখযোগ্য কোনো পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই। অর্থাৎ দুই দিন পর তাপমাত্রা কমলে সেই অবস্থা পরবর্তী আরও তিনদিন অব্যাহত থাকতে পারে।

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে আরও জানানো হয়, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের দুই এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

আজকে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাজশাহীতে, ৩৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায়, ২৩ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আগামীকাল (শনিবার) ঢাকায় সূর্যোদয় ভোর ৫টা ১৮ মিনিটে এবং সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৬টা ৩২ মিনিটে।

গরম থেকে রেহাই মিলছে না এখনই
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এখনই গরম থেকে রেহাই মিলছে না। আরো দু-তিন দিন এই দুর্বিষহ গরম থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান বার্তা সংস্থা ইউএনবিকে জানিয়েছেন, দেশব্যাপী দাবদাহ বয়ে যাচ্ছে। এটি আরো দুই থেকে তিন দিন থাকতে পারে। তবে তিনি বলেন, ‘আগামী রবি বা সোমবার হালকা বৃষ্টি হতে পারে।’

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ফরিদপুর, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, রাজশাহী, পাবনা ও বদলগাছী অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।

ঢাকায় গতকাল বুধবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোর ও চুয়াডাঙ্গায়, ৩৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আফতাব উদ্দিন এনটিভিকে জানান, এখনই ব্যাপকভাবে বৃষ্টির সম্ভাবনা তেমন একটা নেই। তবে ১৩ থেকে ১৫ মে সময়ের মধ্যে কিছু কিছু এলাকায় বৃষ্টিপাত শুরু হতে পারে।

আবারো বাড়বে তাপমাত্রা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আজ রোববার (৫ মে) থেকে আগামী কয়েক দিন ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে গত দুই-তিন দিন সারা দেশে তাপমাত্রা কিছুটা কমে গিয়েছিল। বৃষ্টিতে কমে এসেছিল গরমের তীব্রতাও। ওই সময় তাপমাত্রা প্রায় ৭ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমে যায়।

শনিবার ঘূর্ণিঝড় ফণী বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বয়ে যায়। ফণী চলে যাওয়ার পর তাপমাত্রা আবারো বাড়তে শুরু করেছে। আগামী কয়েকদিন তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সকালে ঢাকা বিভাগের পূর্বাভাসে বলা হয়, তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেতে পারে। সেই সঙ্গে আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকবে।

তবে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার বেগে বাতাস বয়ে যেতে পারে বলেও জানায় আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আপাতত বৃষ্টির তেমন সম্ভাবনা নেই। বিক্ষিপ্তভাবে কোথাও কোথাও অল্প সময়ের জন্য বৃষ্টি হতে পারে। সিলেট ও ময়মনসিংহ জেলায় তুলনামূলক বেশি বৃষ্টি হতে পারে। আরও সাত দিন বৃষ্টির প্রবণতা কম থাকবে বলে জানায় আবহাওয়া অধিদপ্তর।

মোংলা-পায়রায় ৭, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ ক্রমে আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠায় সমুদ্রবন্দরগুলোতে সতর্কতা বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে সাত নম্বর বিপদ সংকেত, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরে ছয় নম্বর ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে চার নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (২ মে) সকালে আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে (ক্রমিক নম্বর-২৮) জানানো হয়েছে, পশ্চিমমধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ সামান্য উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আজ সকাল ০৯টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১০৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১০২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৯২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।
এটি আরও ঘনীভূত ও উত্তর/উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে আগামীকাল (০৩ মে) বিকেল নাগাদ ভারতের উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করতে পারে এবং পরবর্তীতে উড়িষ্যা-পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে হয়ে ০৩ মে সন্ধ্যা নাগাদ খুলনা ও তৎসংলগড়ব বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল এলাকায় পৌঁছাতে পারে। খুলনা ও তৎসংলগড়ব বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ০৩ মে সকাল নাগাদ অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ এর অগ্রবর্তী অংশের প্রভাব শুরু হতে পারে।
ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটার এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটার যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৮০ কিঃ মিঃ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে।
মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ০৪ (চার) নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ০৭ নম্বর নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ০৭ নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।
চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ০৪ (চার) নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ০৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ০৬ নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।
কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ০৪ (চার) নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
ঘূর্ণিঝড় এবং অমাবস্যার প্রভাবে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল নিমড়বাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪-৫ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।
ঘূর্ণিঝড় অতিক্রমকালে চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, ভোলা, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা জেলা সমূহ এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণসহ ঘণ্টায় ৯০-১১০ কিলোমিটার বেগে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।
উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে অতিসত্বর নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা
হয়েছে এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

ফণি`র গতিপথ পরিবর্তন হলে বাংলাদেশে আঘাত হবে ভয়াবহ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক ছামছুদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণির গতিপথ পরিবর্তন হয়ে বাংলাদেশে সরাসরি আঘাত হানলে তা ভয়াবহ হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ঘূর্ণিঝড় ফণী বিষয়ে জরুরি প্রস্তুতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ছামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, ফণির গতিপথ যেভাবে রয়েছে তাতে প্রথমে এটি ভারতের উড়িষ্যায় আঘাত করবে, এরপর পশ্চিম বাংলায় আঘাত করবে। কিন্তু এর গতিপথ যদি পরিবর্তন হয়ে সমুদ্রের কোলঘেঁষে সরাসরি বাংলাদেশে আঘাত হানে তাহলে এটি খুলনা, মোংলা, সাতক্ষীরা, চট্টগ্রাম হয়ে ভয়াবহ আকারে কক্সবাজার পর্যন্ত বিস্তৃত হবে।
বৈঠকে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট, ফায়ার সার্ভিস, আবহাওয়া অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সমুদ্র বন্দরসমূহকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। সমুদ্র বন্দরসমূহকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আজ সকাল ৯ টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়া পূর্বাভাসের সিনপটিক অবস্থায় বলা হয়,দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ আরো উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে আজ সকাল ৬ টায় একই এলাকায় অবস্থান করছিল।এটি আরো ঘণিভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে।
আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে এবং দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যমতে টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ,ঢাকা ও রাঙ্গামাটি অঞ্চলসহ রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারী ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। পরবর্তী ৭২ ঘন্টায় আবহাওয়ার উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন নেই।

আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় “ফণি” আরও উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আজ সকাল ৬ টায় চট্টগ্রাম সমুদধবন্দর থেকে ১৬২০ কিঃ মিঃ দক্ষিণে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫৪৫ কিঃ মিঃ দক্ষিণে,মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫৮০ কিঃ মিঃ দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫৫০ কিঃ মিঃ দক্ষিণে অবস্থান করছিল।এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।
ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিঃ মিঃ এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৬২ কিঃ মিঃ যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিঃ মিঃ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর বিক্ষুব্ধ রয়েছে।
উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। বাসস

আজ তাপমাত্রা কমতে পারে
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে আজ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টি হতে পারে। ফলে তাপমাত্রা আজ ১ থেকে ২ ডিগ্রি কমে যেতে পারে।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপটি দুর্বল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। এর নাম দেয়া হয়েছে ‘ফণি’। ঘূর্ণিঝড়টি ঘণ্টায় ১০ থেকে ২০ কিলোমিটার বেগে ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে প্রায় দুই হাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে ‘ফণি’। আজকের মধ্যে এটি বর্তমান অবস্থা থেকে সরে গিয়ে ভারতের ওডিশা প্রদেশের দিকে যাবে। পরে আবার বাংলাদেশ ও মিয়ানমার উপকূলের দিকে আসতে পারে।

ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরা নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আজ সিলেট ও ময়মনসিংহ এবং ঢাকার বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। কুমিল্লা, নোয়াখালী, রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের কয়েকটি স্থানে কালবৈশাখী ও বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। বেশ কয়েকটি স্থানে শিলাবৃষ্টিও হতে পারে।

ঢাকা আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি শনিবার (২৭ এপ্রিল) বিকেল ৩টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ৯৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ৮৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ৯২৫ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ৮৮০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল।

শনিবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল খুলনা ও যশোরে ৩৭.২০ ডিগ্রিসেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন গোপালগঞ্জে ২২.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর রাজধানীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কমতে পারে তাপপ্রবাহ, আছে বৃষ্টির সম্ভাবনা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশের বয়ে চলা তাপপ্রবাহ কিছুটা কমতে পারে। একই সঙ্গে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া ভারত মহাসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। শনিবার (২৭ এপ্রিল) আবহাওয়ার পূর্বাভাস ও বিশেষ সতর্ক বার্তায় এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়, ঢাকা, মাদারীপুর, রাঙ্গামাটি, নোয়াখালী, ফেনী, রাজশাহী, যশোর, বাগেরহাট ও পটুয়াখালী অঞ্চলের উপর দিয়ে বয়ে চলা মৃদু তাপপ্রবাহ প্রশমিত হতে পারে। যার ফলে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা হ্রাস পাবে।

এছাড়া ময়মনসিংহ, রাজশাহী ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং কুমিল্লা, খুলনা ও ঢাকা বিভাগের দুই-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কিছু কিছু এলাকায় শিলা বৃষ্টিও হতে পারে।

আবহাওয়ার এক বিশেষ বার্তায় বলা হয়, ভারত মহাসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত নিম্নচাপটি উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। যা চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ২১০০ কিলোমিটার, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ২০২০ কিলোমিটার, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ২১০৫ কিলোমিটার এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ২০৬০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছে। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

নিম্নচাপের কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

নববর্ষের দিন থাকবে ভ্যাপসা গরম, বিকেলে হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রোববার (১৪ এপ্রিল) পহেলা বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দের প্রথম দিন। বাঙালিদের প্রাণের উৎসব নববর্ষ। উৎসব মুখর এ দিনে (রোববার) সকালে আকাশে মেঘের আনাগোনা থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে তা কেটে যাবে, অনুভূত হবে ভ্যাপসা গরম। আর বিকেলের দিকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি।

আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘নববর্ষের দিন (১৪ এপ্রিল, রোববার) দেশের বেশিরভাগ জায়গায় প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। দুপুরে পর অনেক জায়গায় বিশেষ করে দেশের পশ্চিম অংশে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে। রংপুর, রাজশাহী, যশোর, কুষ্টিয়া এবং ঢাকাতেও বিকেল বা সন্ধ্যার দিকে ঝড়-বৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।’

‘বৃষ্টি না হলেও বজ্রপাত হলো, একটু জোরালো বাতাস হলো -বিকেলের দিকে এমনও হতে পারে নববর্ষের দিন’ বলেন এ আবহাওয়াবিদ।

ঢাকায় তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস কম আছে। এছাড়া বরিশাল ও চট্টগ্রাম ছাড়া দেশের অন্যান্য বিভাগেও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম রয়েছে বলেও জানান আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস।

এদিকে গতকাল শুক্রবার দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৪ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় ছিল ৩৩ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর আজ শনিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে টাঙ্গাইলে ২০ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে টাঙ্গাইলে। একই সময়ে চাঁদপুরে ৪, ময়মনসিংহে ৩ ও নিকলীতে ২ মিলিমিটার ও ঢাকায় সামান্য বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

এছাড়া সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে।

এ সময়ে সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে বলেও পূর্বাভাসে উল্লেখ করা হয়েছে।

ঝড়-বৃষ্টির তীব্রতা বুধবারও থাকবে, নদীবন্দরে ২ নম্বর সংকেত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : অঝোর ধারায় ঝরে বৃষ্টি, এর সঙ্গে থাকে শিলা। আবার পথে বৃষ্টির পানি গড়াচ্ছে, এর মধ্যেই উঁকি দেয় সূর্য। এটাই গত কয়েক দিনের আবহাওয়ার চিত্র।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, চৈত্রের শেষের এই সময়টা এমনই। আগামী ১৪ এপ্রিল নববর্ষ পর্যন্ত থাকবে ঝড়-বৃষ্টির এই প্রবণতা। তবে গত কয়েক দিন ধরে যে তীব্রতা-এটা বুধবার পর্যন্ত থাকতে পারে।

আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকার আকাশ মেঘে ঢাকা থাকলে একপর্যায়ে সূযের মুখ ঠিকই দেখা যায়। তবে সাড়ে ১০টা থেকে হঠাৎই দৃশ্যপট পাল্টে যায়, মেঘের আনাগোনায় অন্ধকার হয়ে যায় চারপাশ। কিছুক্ষণের মধ্যেই বৃষ্টির আয়োজন পূর্ণতা পায়। তুমুল বৃষ্টি নামে নগরজুড়ে। কোথাও কোথাও ছিল জোরালো বাতাস। তবে অফিসগামী মানুষ অনেকটাই ভোগান্তি থেকে বেঁচে গেছেন।

মুষলধারে ঝরার পর বেলা সোয়া ১১টার দিকে বৃষ্টি আবার থেমেও যায়। এই বৃষ্টিতেই নগরীর বিভিন্ন সড়কে পানি জমে গেছে।

আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস জানান, ‘উপরের দিকে অর্থাৎ ময়মনসিংহ, সিলেট, কুমিল্লা, ঢাকায় আজও বৃষ্টি হবে। সঙ্গে কালবৈশাখীও থাকবে। তবে কালবৈশাখী ও বৃষ্টির তীব্রটা আগামীকালও (বুধবার) থাকতে পারে। আশা করছি, এরপর কমে যাবে। তবে বৃষ্টি ও ঝড় বিভিন্ন স্থানে আরও কয়েক দিন থাকবে।’

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, দিনাজপুর, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ২ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া দেশের অন্যত্র পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা বিভাগ ছাড়া সব বিভাগেই বৃষ্টি হয়েছে। এ সময়ে দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে সীতাকুণ্ডে ৭২ মিলিমিটার, আর ঢাকায় বৃষ্টি হয়েছে ৫৮ মিলিমিটার।

বৃষ্টির সম্ভাবনা আরও তিনদিন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সারাদেশে আগামী তিনদিন বৃষ্টিপাতের প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে। রবিবার আবহাওয়া অধিদপ্তর এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানায়।

অপরদিকে আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ, দেশের দক্ষিণাংশ হয়ে উত্তর পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

এপ্রিলে আরও ৩টি কালবৈশাখীর আশঙ্কা
                                  

এশিয়া বাণী অনলাইন ডেস্ক : চলতি এপ্রিল মাসে আরও ৩টি কালবৈশাখী ঝড় বয়ে যেতে পারে। এছাড়া আগামী ৭২ ঘণ্টায় কালবৈশাখীর আঘাত হানার আশংকা রয়েছে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টিপাত এবং শিলা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. আবুল কালাম মল্লিক সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রোববার সন্ধ্যা ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত ভারী বৃষ্টি হয়েছে। এ সময় সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে কুমিল্লা জেলায় ৪৩ মিলিমিটার। রাজধানী ঢাকাতে এর মাত্রা ছিল ৩৮ মিলিমিটার। ঢাকা ছাড়াও তাড়াশে এ সময় বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৪০ মিলিমিটার।

আবহাওয়ার দৃশ্যপটে বলা হয়েছে, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

শিলাবৃ‌ষ্টি হ‌তে পা‌রে, ১ নম্বর সতর্ক সং‌কেত
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আগামী ২৪ ঘণ্টায় দেশের অনেক স্থানে অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্র সহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টি হতে পারে। আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বুধবার (২৭ মার্চ) সকাল ৯টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী, বগুড়া, ময়মনসিংহ, পাবনা, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, ঢাকা, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, মাদারীপুর এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম-উত্তর পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিসহ দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, মৌসুমী স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাঙ্গামাটিতে ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অপরদিকে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীমঙ্গলে ১৫ দশমিক ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।


   Page 1 of 6
     আবহাওয়া
দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য ২ নম্বর সংকেত
.............................................................................................
আজও বৃষ্টি হতে পারে
.............................................................................................
স্বস্তির খবর দিল আবহাওয়া অফিস
.............................................................................................
দুই দিনের মধ্যে মিলবে স্বস্তির বৃষ্টি
.............................................................................................
গরম থেকে রেহাই মিলছে না এখনই
.............................................................................................
আবারো বাড়বে তাপমাত্রা
.............................................................................................
মোংলা-পায়রায় ৭, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত
.............................................................................................
ফণি`র গতিপথ পরিবর্তন হলে বাংলাদেশে আঘাত হবে ভয়াবহ
.............................................................................................
সমুদ্র বন্দরসমূহকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত
.............................................................................................
আজ তাপমাত্রা কমতে পারে
.............................................................................................
কমতে পারে তাপপ্রবাহ, আছে বৃষ্টির সম্ভাবনা
.............................................................................................
নববর্ষের দিন থাকবে ভ্যাপসা গরম, বিকেলে হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি
.............................................................................................
ঝড়-বৃষ্টির তীব্রতা বুধবারও থাকবে, নদীবন্দরে ২ নম্বর সংকেত
.............................................................................................
বৃষ্টির সম্ভাবনা আরও তিনদিন
.............................................................................................
এপ্রিলে আরও ৩টি কালবৈশাখীর আশঙ্কা
.............................................................................................
শিলাবৃ‌ষ্টি হ‌তে পা‌রে, ১ নম্বর সতর্ক সং‌কেত
.............................................................................................
মঙ্গলবার পর্যন্ত বজ্রসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা
.............................................................................................
ঝড়-বৃষ্টি থাকতে পারে আরও একদিন
.............................................................................................
বজ্র ও শিলাবৃষ্টি হতে পারে
.............................................................................................
পুবালি বাতাস আর লঘুচাপ, কালও থাকবে বৃষ্টি
.............................................................................................
সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত
.............................................................................................
নদীবন্দর সমূহকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত
.............................................................................................
ঝড়-বৃষ্টি থাকবে আরও তিনদিন
.............................................................................................
ফের কমবে তাপমাত্রা
.............................................................................................
তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে
.............................................................................................
ফেব্রুয়ারির শেষেই শিলাবৃষ্টি-ঝড়
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড়ে সাগর উত্তাল, বন্দরে গুলোতে ৪ নম্বর সতর্কতা
.............................................................................................
আরও তিন দিন বৃষ্টি হবে!
.............................................................................................
সাগর উত্তাল, ৩ নম্বর সতর্কতা
.............................................................................................
লঘুচাপ নিম্নচাপে পরিণত, আজও বৃষ্টি হবে
.............................................................................................
বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, ৩ নম্বর সতর্কতা
.............................................................................................
মাগুরা ও সিরাজগঞ্জে বজ্রপাতে ৮ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
বুধবার থেকে কমতে পারে শীতের তীব্রতা
.............................................................................................
৬ ঘণ্টা পর দৌলতদিয়ায় ফেরি চলাচল শুরু
.............................................................................................
বৃষ্টি হতে পারে আজও
.............................................................................................
বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ, ৩ নম্বর সতর্কতা
.............................................................................................
সাগরে নিম্নচাপ, ১ নম্বর সতর্কসংকেত
.............................................................................................
ঘন কুয়াশায় নৌযান চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
আবহাওয়া: দিনের তাপমাত্রা হ্রাস পাবে
.............................................................................................
হতে পারে আরও ২দিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি
.............................................................................................
সারা দেশে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, নদীবন্দরসমূহে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত
.............................................................................................
বাঁধ ভেঙে গ্রামকে গ্রাম প্লাবিত
.............................................................................................
৩ নম্বর সতর্ক সংকেত বহাল, জলোচ্ছ্বাস হতে পারে
.............................................................................................
মাঝারি থেকে ছোট নৌযান চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
টাঙ্গাইল অভিমুখী মহাসড়কে ৭০ কি.মি. যানজট, দুর্ভোগে যাত্রীরা
.............................................................................................
সাগরে লঘুচাপ: বন্দরগুলোতে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
.............................................................................................
দক্ষিণাঞ্চলে দিন ও রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রী হ্রাস পেতে পারে
.............................................................................................
দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে
.............................................................................................
আগামী ৭২ ঘন্টায় বৃষ্টিপাতের প্রবণতা হ্রাস পেতে পারে
.............................................................................................
ভারি বর্ষণের আভাস, বন্দরে সতর্কসংকেত
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]