| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ৭ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল চিলি   * বান্দরবানে বন্য হাতির আক্রমণে দু`জনের মৃত্যু   * ১২ ঘণ্টা পর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় ফেরি চলাচল শুরু   * রাশিয়ায় `পুতিনবিরোধী` বিক্ষোভ, গ্রেফতার ৩ হাজার   * গজারিয়ায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই বন্ধুর মৃত্যু   * অটো পাস বিষয়ে শিক্ষা বিল-২০২১ সংসদে পাস   * পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি চলাচল বন্ধ   * রাজধানীর কমলাপুরে ভবনে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ১০ ইউনিট   * মুজিববর্ষে এটিই আমাদের বড় উৎসব : প্রধানমন্ত্রী   * ঝড় তুললেন নোরা ফাতেহি  

   আবহাওয়া -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ঢাকায় তিন দিন ঘন কুয়াশা, মাসের শেষে বৃষ্টির সম্ভাবনা

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীসহ সারাদেশে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। কনকনে ঠান্ডা বাতাস আর কুয়াশায় ঢাকা পড়েছে রাজধানী, দেখা মেলেনি সূর্যের। আগামী দুই থেকে তিন দিন ঢাকায় মধ্যরাত থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশা থাকবে। চলতি মাসের শেষের দিকে পশ্চিমা লঘুচাপের কারণে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। ফলে তাপমাত্রা আরো কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সকালের দিকে মাঝারি থেকে ভারি কুয়াশা পড়তে পারে। এ ছাড়া উত্তর-পশ্চিম/উত্তরের বাতাস ঘণ্টায় ৫ থেকে ১০ কিলোমিটার বেগে প্রবাহিত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

এদিকে ভোর ৫টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দেশের অভ্যন্তরীণ নদী অববাহিকায় ভোর ৫টা থেকে সকাল ৯-১০টা পর্যন্ত মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশার কারণে দৃষ্টিসীমা কমে ৩০০ মিটার বা কোথাও কোথাও আরও কম হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। তবে কোনো সতর্ক সংকেত দেখাতে হবে না।

রাজধানীতে আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১৩ দশমিক ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর, দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে খুলনা ও রাজশাহীতে আট দশমিক এক ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে দিনের বেলায় সন্ধ্যার আবহ রংপুরে। কুয়াশার চাদরে ঢাকা চারপাশ। কনকনে ঠান্ডা আর হিমেল হাওয়া উত্তরের জনপদে বাড়িয়ে দিয়েছে শীত। দিনের বেলাতেও হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে গাড়ি। অন্যদিকে, হাড়কাঁপানো ঠান্ডায় শীতবস্ত্রের অভাবে নওগাঁর ছিন্নমূল মানুষের কষ্টটা একটু বেশিই। সরকারের পক্ষ থেকে তাই গরম কাপড় দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্মে ঠাঁই নেওয়া অসহায় মানুষ।

শীত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্টের মতো শীতজনিত রোগে আক্রান্ত শিশুদের ভিড় হু হু করে বাড়ছে হাসপাতালে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালগুলো। শুক্রবার গিয়ে দেখা যায় ৬৬৪ শয্যার ঢাকা শিশু হাসপাতালের একটি শয্যাও খালি নেই। অনেক রোগীকে শয্যার অভাবে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে অন্য হাসপাতালে।

ঢাকায় তিন দিন ঘন কুয়াশা, মাসের শেষে বৃষ্টির সম্ভাবনা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীসহ সারাদেশে শীতের তীব্রতা বেড়েছে। কনকনে ঠান্ডা বাতাস আর কুয়াশায় ঢাকা পড়েছে রাজধানী, দেখা মেলেনি সূর্যের। আগামী দুই থেকে তিন দিন ঢাকায় মধ্যরাত থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশা থাকবে। চলতি মাসের শেষের দিকে পশ্চিমা লঘুচাপের কারণে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। ফলে তাপমাত্রা আরো কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সকালের দিকে মাঝারি থেকে ভারি কুয়াশা পড়তে পারে। এ ছাড়া উত্তর-পশ্চিম/উত্তরের বাতাস ঘণ্টায় ৫ থেকে ১০ কিলোমিটার বেগে প্রবাহিত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

এদিকে ভোর ৫টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দেশের অভ্যন্তরীণ নদী অববাহিকায় ভোর ৫টা থেকে সকাল ৯-১০টা পর্যন্ত মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশার কারণে দৃষ্টিসীমা কমে ৩০০ মিটার বা কোথাও কোথাও আরও কম হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। তবে কোনো সতর্ক সংকেত দেখাতে হবে না।

রাজধানীতে আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১৩ দশমিক ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর, দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে খুলনা ও রাজশাহীতে আট দশমিক এক ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে দিনের বেলায় সন্ধ্যার আবহ রংপুরে। কুয়াশার চাদরে ঢাকা চারপাশ। কনকনে ঠান্ডা আর হিমেল হাওয়া উত্তরের জনপদে বাড়িয়ে দিয়েছে শীত। দিনের বেলাতেও হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে গাড়ি। অন্যদিকে, হাড়কাঁপানো ঠান্ডায় শীতবস্ত্রের অভাবে নওগাঁর ছিন্নমূল মানুষের কষ্টটা একটু বেশিই। সরকারের পক্ষ থেকে তাই গরম কাপড় দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন রেলস্টেশনের প্ল্যাটফর্মে ঠাঁই নেওয়া অসহায় মানুষ।

শীত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, শ্বাসকষ্টের মতো শীতজনিত রোগে আক্রান্ত শিশুদের ভিড় হু হু করে বাড়ছে হাসপাতালে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালগুলো। শুক্রবার গিয়ে দেখা যায় ৬৬৪ শয্যার ঢাকা শিশু হাসপাতালের একটি শয্যাও খালি নেই। অনেক রোগীকে শয্যার অভাবে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে অন্য হাসপাতালে।

বৃষ্টির পর বাড়বে শীত
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের ছয় বিভাগে আজ গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির এই প্রবণতা আজ ও কাল বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) থাকবে এবং অতি সামান্য বৃষ্টি বা ছিঁটেফোটা আকারে থাকবে। পরশু শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) থেকে তাপমাত্রা আরও কমে যাবে বা শীতের অনুভূতি বাড়বে।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে এসব তথ্য জানান আবহাওয়াবিদ মো. আবুল কালাম মল্লিক।

তিনি বলেন, `গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি আজ ও কাল থাকবে এবং অতি সামান্য বৃষ্টি বা ছিঁটেফোটা বৃষ্টি হতে পারে। তারপর আর থাকবে না। বৃষ্টি কেটে গেলে পরশু থেকে তাপমাত্রা আরও কিছুটা কমে যাবে। তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে আসলে মৃদু ধরনের শৈত্য প্রবাহ শুরু হবে। পরে কিছু কিছু অঞ্চলে তাপমাত্রা ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস নেমে যাবে।`

এ আবহাওয়াবিদ বলেন, `গত রাতে একটু বৃষ্টি হয়েছে। আজকে দিনের বেলায়ও হলো। এখন রাতের তাপমাত্রা ১১ থেকে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে আছে। তাপমাত্রা তুলনামূলক ঠাণ্ডাই।`

এখন তাপমাত্রা শৈত্যপ্রবাহের ওপরে থাকলেও শীতের অনুভূতি বা শীত বাড়ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

আবুল কালাম মল্লিক বলেন, `শীত বাড়ছেই। কেবল শৈত্যপ্রবাহ হলেই শীত বাড়ে এমন নয়। এমনও আছে শৈত্যপ্রবাহ আছে, কিন্তু শীতের অনুভূতি কম হয়। এটা অনেকগুলো নিয়ামকের ওপর নির্ভরশীল। বায়ু প্রবাহের গতি, কুয়াশা কতখানি দীর্ঘস্থায়ী, বাতাস কোন দিক থেকে প্রবাহিত হয়- এরকম অনেকগুলো ফ্যাক্টরের ওপর শীতের অনুভূতি নির্ভরশীল।`

আরও ২-৩ দিন শৈত্যপ্রবাহ থাকতে পারে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশের উত্তরাঞ্চলসহ বিভিন্ন স্থানে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ রয়েছে। ফলে শীত বেড়ে গেছে। এটি আরও দুই তিন দিন স্থায়ী হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়াবিদরা জানান, রাজশাহী, পাবনা, নওগাঁ, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম ও সৈয়দপুরে শৈত্যপ্রবাহ থাকবে। এর প্রভাব রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পড়বে। বুধবার রাজধানীর তাপমাত্রাও কমেছে। এদিন তাপমাত্রা ছিল ১৫ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াম।

আবহাওয়াবিদ আফতাব উদ্দীন বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ রয়েছে। ফলে শীত বেড়ে গেছে। এটি দুই-তিন দিন স্থায়ী হতে পারে। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নেমে আসতে পারে।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল দিয়ে বয়ে যাওয়া মৃদু শৈত্যপ্রবাহটি একই এলাকা দিয়ে বয়ে যেতে পারে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা আরও কমতে পারে।

বুধবার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, শৈত্যপ্রবাহটি পাবনা, নওগাঁ, দিনাজপুর, সৈয়দপুর ও কুড়িগ্রাম অঞ্চলের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিন দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নওগাঁর বদলগাছীতে ৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বোচ্চ কক্সবাজারে ৩০ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে তাপমাত্রা কমার সম্ভাবনা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : অবশেষে শীত মৌসুমে অস্বাভাবিকভাবে তাপমাত্রা বৃদ্ধির প্রবণতা কমার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) থেকে দেশের তাপমাত্রা কমে আসতে পারে। বুধবার থেকে শুরু হতে পারে শৈত্যপ্রবাহ।

সোমবার সকালে এ তথ্য জানান আবহাওয়াবিদ মো. শাহিনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, `তাপমাত্রা এখনও কমেনি। বরং গতকাল (রোববার) যে তাপমাত্রা ছিল, সেই তুলনায় আজকে (সোমবার) একটু বেড়েছে। তবে আগামীকাল (মঙ্গলবার) থেকে কমতে পারে। আর বুধবার থেকে শৈত্যপ্রবাহ আসার সম্ভাবনা আছে।`

এদিকে, এদিন সকালে আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, আজ সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। পরের তিন দিনে তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

সোমবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে।

উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

শৈত্যপ্রবাহ কবে আসছে, জানাল আবহাওয়া অফিস
                                  

অনলাইন ডেস্ক : পৌষের শেষের দিকে এসে সারাদেশ থেকে অনেকটাই হারিয়ে গেছে শীতের প্রভাব। তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে আছে সবখানেই। তবে আসছে সপ্তাহের শেষ দিকে আবারও শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে বলে আভাস দিচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ১২ বা ১৩ জানুয়ারির পর থেকে দু-এক জায়গায় বিশেষ করে উত্তরাঞ্চল থেকে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে। ওই সময় পর্যন্ত তাপমাত্রা একটু একটু করে বাড়বে, আবার হঠাৎ কমে গিয়ে আবার শীত বেড়ে যেতে পারে।

নতুন করে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হলে তা তীব্র আকার ধারণ করতে পারে বলেও আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

দেশের ৩ বিভাগে বৃষ্টির আভাস
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের দু-এক জায়গায় হালকা বা গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে। সোমবার (৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। তবে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

জানুয়ারির মাঝামাঝি তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রিতে নামতে পারে
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : জানুয়ারি মাসে এক থেকে দুটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। তার মধ্যে একটি তীব্র (৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস) শৈত্যপ্রবাহে রূপ নিতে পারে।

রোববার (৩ জানুয়ারি) জানুয়ারি মাসের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ মো. আবদুর রহমান খান বলেন, `এই দুটি শৈত্যপ্রবাহই হবে ১২ জানুয়ারির পর। ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত তাপমাত্রা বেড়ে যাবে। অর্থাৎ শীত ওইভাবে পড়বে না। এখন রাতে যে তাপমাত্রা আছে, তা আরও বাড়বে। কনকনে শীত থাকবে না, কোনো কোনো জায়গায় মানুষ গরম অনুভব করবে। ১২ তারিখের পর থেকে তাপমাত্রা কমা শুরু করবে। দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকে যেকোনো সময় তীব্র শৈত্যপ্রবাহ হতে পারে।`

জানুয়ারির দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, এ মাসে সামগ্রিকভাবে দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এবং নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি বা ঘন কুয়াশা এবং অন্য জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। ঘন কুয়াশা পরিস্থিতি কখনো কখনো দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

জানুয়ারি জুড়ে দেশের সব প্রধান নদ-নদীগুলোয় স্বাভাবিক পানি প্রবাহ বিরাজমান থাকতে পারে। সূর্য গড়ে সাড়ে ৫ থেকে সাড়ে ৬ ঘণ্টা আলো দিতে পারে বলেও পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।

ফের শৈত্যপ্রবাহ, তাপমাত্রা আরও কমতে পারে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : একদিনের ব্যবধানে দেশে ফের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। আজ নীলফামারীর ডিমলা ও মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেছে। আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, সারাদেশে আজ রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে। আগামী ৩ দিনে রাতের তাপমাত্রা আরও কমে যেতে পারে। ফলে সামনে আবার শীত বাড়তে পারে।

শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় আবহাওয়া অধিদফতর এ তথ্য জানিয়েছে।

সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। শেষরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকার কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্য এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

দেশের উত্তর-পশ্চিমাংশে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

দেশে আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ডিমলায় ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়াও শ্রীমঙ্গলে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে। ঢাকায় আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শুক্রবার তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : শৈত্যপ্রবাহ মুক্ত হয়েছে দেশ। এ অবস্থায় শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) দিনের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে।

বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

সন্ধ্যা ছয়টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকার কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। তবে আগামী তিনদিনে রাতের তাপমাত্রা কমতে পারে। তার পরের পাঁচদিনে আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

তারা আরও বলছে, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

হাড় কাঁপানো শীতের কবলে দেশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : পৌষের শুরুতেই জেঁকে বসেছে শীত। বিভিন্ন জেলায় কমেছে তাপমাত্রা। হাসপাতালগুলোতেও বাড়ছে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা। মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ আরো দুই থেকে তিন দিন স্থায়ী হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

হাড় কাঁপানো শীতের কবলে পড়েছে দেশের উত্তরাঞ্চল। হিম হাওয়ার সাথে বৃষ্টির ফোঁটার মত ঝরছে কুয়াশা। দিনের বেলাতেও যেন সন্ধ্যার আবহ পথেঘাটে।

উত্তরের জনপদ কুড়িগ্রাম, পঞ্চগড়েও একই চিত্র। মাঝারী থেকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহে কাবু জনজীবন। তীব্র শীতে যেন জমে গেছে কুড়েঘরের বিছানা-বালিশ। খড়কুটোতে আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে হতদরিদ্র মানুষ।

রাজশাহীতে বেলা বাড়লে সূর্যের দেখা মিললেও ঠাণ্ডা বাতাসে বাড়িয়ে দিয়েছে শীত। হিমেল হাওয়ায় পদ্মা পাড়ের মানুষের দুর্ভোগ একটু বেশিই।

গত কয়েকদিন ধরেই তাপমাত্রা কমছে নীলফামারীতে। শীত বাড়ায় গরম কাপড়ের অভাবে বেশি বিপাকে পড়েছেন ছিন্নমূল মানুষ।

শীতের সাথে পাল্লা দিয়ে রংপুরের হাসপাতালগুলোতে রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ বেড়েছে। বেড়েই চলেছে নিউমোনিয়া, ডায়রিয়াসহ শীতজনিত নানা রোগে আক্রান্তের সংখ্যা। ঠাণ্ডাজনিত রোগে শিশু ও বয়স্করাই বেশি আক্রান্ত।

শৈত্যপ্রবাহ থেকে রেহাই পেতে আরো দুই থেকে তিন দিন অপেক্ষা করতে হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

কাল পরশুর মধ্যে শীত আরও বাড়বে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : নীলফামারী, পঞ্চগড় ও কুড়িগ্রাম অঞ্চলের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এটি অব্যাহত থাকতে পারে এবং দেশের পশ্চিম ও উত্তরাঞ্চলের কোথাও কোথাও শৈত্যপ্রবাহ বিস্তার লাভ করতে পারে। সারাদেশে আজ রাতের তাপমাত্রা ২ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমে যেতে পারে।

শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে এসব তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। এই ২৪ ঘণ্টা পরবর্তী ২ দিনে আবহাওয়ার উল্লেযোগ্য পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই। তবে পরের ৫ দিনে আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকার কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

দেশে আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, দ্বিতীয় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে নীলফামারীর ডিমলায় সাড়ে ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শৈত্যপ্রবাহ নিয়ে যে পূর্বাভাস দিল আবহাওয়া অধিদফতর
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আগামী দু দিনের মধ্যে ঘন কুয়াশা কেটে যাবে। এরপরই শীতের যে স্বাভাবিক কুয়াশা তা অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

তবে, আগামী ১৭-১৮ ডিসেম্বর উত্তরবঙ্গ হয়ে সারাদেশে হালকা থেকে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাবে। এতে শীতের তীব্রতা আরো বাড়বে। এছাড়া, ডিসেম্বরের শেষে আরো একটি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাওয়ার পূর্বাভাসের কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

এদিকে, গত কয়েকদিন মতো আজও কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়ে আছে রাজধানীসহ পুরো দেশ। কোথাও কোথাও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির ফোটার মতো কুয়াশা পড়েছে। এতে প্রতিদিনের স্বাভাবিক জীবনে ছন্দপতন ঘটছে। দুর্ভোগে পড়েছেনে দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষগুলো।

ভোরে ঘনকুয়াশা থাকার কারণে সারা দেশের সড়কগুলোতে হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহানগুলো চলাচল করেছে। বিভিন্ন জায়গায় খড়কুটো জালিয়ে মানুষজন শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন। শহরের বিভিন্ন স্থানে বসা মৌসুমী গরম কাপড়ের দোকানগুলোতে সাধারণ মানষের ভিড় জমেছে।

দেশের উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে শীতের প্রকোপ সবচেয়ে বেশি। গত কয়েকদিন ধরে সেখানে তাপমাত্রা ওঠা-নামা করছে। সকাল ৯টায় তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৪ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) সকাল ৯টায় তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ১৫ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছিল বলে জানান তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রাসেল শাহ।

আজকের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আকাশ আংশিক মেঘলা থাকার কথা বলা হয়েছে। দেখা মিলতে পারে মাঝারি থেকে হালকা ধরনের কুয়াশার। পশ্চিম উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ৬ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

এছাড়া, রাজধানী ঢাকায় শনিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শুক্রবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২০ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শনিবার সূর্যাস্ত হবে ৫টা ১৩ মিনিটে। রোববার সূর্যোদয় হবে ৬টা ৩৩ মিনিটে।

আরব সাগর থেকে আসা জলীয় বাষ্পের কারণে ঘন কুয়াশা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ঘন কুয়াশা আর শীতের প্রকোপে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, তাদের ধারণা ছিল- হালকা বাতাস শুরু হওয়ায় কুয়াশা সরে গিয়ে সূর্যের আলোর দেখা মিলবে। ভূমধ্যসাগর থেকে আসা এই কুয়াশা সরে গিয়ে হিমালয়ের পাদদেশে বৃষ্টি হয়ে ঝরে বিদায় নেবে। সেই ভরসায় থাকতে না থাকতে আরব সাগর থেকে আসা বাতাসের সঙ্গে একরাশ জলীয় বাষ্পও এসে উপস্থিত হয়েছে। ফলে চার দিন ধরে জমে থাকা কুয়াশা আরও ঘন হয়ে উঠেছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ সাংবাদিকদের বলেন, আরব সাগর থেকে আসা জলীয় বাষ্পপূর্ণ বায়ুর কারণে এ কুয়াশা তৈরি হয়েছে। এটি আরও দু–এক দিন থাকতে পারে। সোম–মঙ্গলবার থেকে কুয়াশা কেটে গিয়ে সূর্যের দেখা পাওয়া যেতে পারে।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, সোমবার সূর্যের দেখা পাওয়ার পর তাপমাত্রা কিছুটা বাড়লেও ধীরে ধীরে তাপমাত্রা আবারও কমতে থাকবে। বিশেষ করে পশ্চিমা লঘুচাপ ছড়িয়ে পড়ায় সারা দেশেই শীতের অনুভূতি বেড়ে যেতে পারে। তাপমাত্রা দ্রুত কমে উত্তরাঞ্চলে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে।

শুক্রবার সারা দিন আবছায় কেটেছে। দিনের তাপমাত্রা খুব বেশি না কমলেও শীতের অনুভূতি কিন্তু বেড়েই চলেছে।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এই ঘন কুয়াশা আরও দু–এক দিন থাকতে পারে। অর্থাৎ, রোববারের পর আবহাওয়া স্বাভাবিক হতে পারে।

এদিকে আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আজ সন্ধ্যার পর থেকে কুয়াশা আরও বাড়তে পারে। তবে আগামীকাল শনিবার দিনের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। সেই সঙ্গে নদীতীরবর্তী এলাকায় কুয়াশা বাড়তে পারে।

আজ দেশের সবচেয়ে কম তাপমাত্রা ছিল সীতাকুণ্ডে—১৪.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর রাজধানীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আগামী সপ্তাহে আসতে পারে শৈত্যপ্রবাহ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে শৈত্যপ্রবাহ বইছে না। অথচ রাজধানীসহ সারাদেশে বেড়েছে শীতের অনুভূতি। মূলত দিনের তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় শীত বেড়েছে। ‍আগামী চার-পাঁচদিন এমনই থাকবে। এর পর ৭-৮ দিনের মধ্যে শৈত্যপ্রবাহ আসতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, সারাদেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা একদম নিচে নেমে এসেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জের তাড়াশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শুধু তাই নয়, দেশের মাত্র ৫টি অঞ্চল বাদে সারাদেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ১৯ থেকে ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। আর বেশিরভাগ অঞ্চলের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ১৯ থেকে ২৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে।

আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেন, `সারাদেশেই শীতের অনুভূতি বেড়েছে। সূর্যের আলো পড়ছে না, দিনের বেলা তাপমাত্রা খুব কম থাকছে– এ কারণে শীতের অনুভূতি বেড়েছে। শীত কিন্তু এখনও শুরু হয়নি। ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে তাপমাত্রা আসলে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়। শৈত্যপ্রবাহ না বইলেও শীতের অনুভূতি বেড়ে গেছে।`

তিনি আরও বলেন, `আগামী ১৭ থেকে ১৮ ডিসেম্বরের মধ্যে শৈত্যপ্রবাহ চলে আসতে পারে। এদিকে আরও চার-পাঁচ দিন এ অবস্থাই থাকতে পারে। এর মধ্যে দেশের পশ্চিমাঞ্চলে হালকা বৃষ্টিরও সম্ভাবনা রয়েছে। সবমিলিয়ে শীতের অনুভূতি আরও বাড়তে পারে।`

সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কমলেও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা খুব একটা কমেনি। ফলে সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পার্থক্য কমে এসেছে। যেমন ঢাকায় আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১৭ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং গতকাল সূর্য উঠলেও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল ২৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অর্থাৎ, ঢাকায় সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রার মধ্যে পার্থক্য মাত্র ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আজকে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে সীতাকুণ্ডে ১৪ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল টেকনাফে, ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে দুপুর পর্যন্ত সারাদেশের নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা থাকতে পারে এবং অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা থাকতে পারে।

সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

আসছে তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশা
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : শীত নামার আগেই মানুষ পূর্বপ্রস্তুতি নিয়ে থাকেন শীত মোকাবিলায়। তীব্র শীতে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাসার বাইরে বের হতে চান না মানুষ। সপ্তাহ শেষে শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। শীতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়বে ঘন কুয়াশা।

আগামী তিন-চার দিনের মধ্যেই আসছে শীতের তীব্রতা ও ভারি কুয়াশা। এজন্য আগেভাগেই শীত মোকাবিলায় প্রস্তুতি নেওয়া দরকার। চলতি সপ্তাহের শেষ দিকে জেঁকে আসছে শীত।

অধিদপ্তরের ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভোসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ দেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। দেশের নদী অববাহিকায় কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে।

এ ছাড়া আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে সীতাকুন্ডে ১৪ ডিগ্রি এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে টেকনাফে ৩১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সারা দেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।
আবহাওয়ার সিনপটিক অবস্থায় বলা হয়েছে, মৌসুমী লঘুচাপটি দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর একটি বাড়তি অংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। উপ মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বাড়তি অংশ বিহার ও এর কাছাকাছি এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

রাতে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে প্রতিনিয়তই বাড়ছে শীতের তীব্রতা। বাড়ছে কুয়াশাও। সোমবার (৭ ডিসেম্বর) মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে।

আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে।

সারাদেশে রাত এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

তারা আরও বলছে, মৌসুমি লঘুচাপটি দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে এবং এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

আগামী ৩ দিনে দেশে রাতের তাপমাত্রা আরও কমে যেতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।


   Page 1 of 10
     আবহাওয়া
ঢাকায় তিন দিন ঘন কুয়াশা, মাসের শেষে বৃষ্টির সম্ভাবনা
.............................................................................................
বৃষ্টির পর বাড়বে শীত
.............................................................................................
আরও ২-৩ দিন শৈত্যপ্রবাহ থাকতে পারে
.............................................................................................
মঙ্গলবার থেকে তাপমাত্রা কমার সম্ভাবনা
.............................................................................................
শৈত্যপ্রবাহ কবে আসছে, জানাল আবহাওয়া অফিস
.............................................................................................
দেশের ৩ বিভাগে বৃষ্টির আভাস
.............................................................................................
জানুয়ারির মাঝামাঝি তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রিতে নামতে পারে
.............................................................................................
ফের শৈত্যপ্রবাহ, তাপমাত্রা আরও কমতে পারে
.............................................................................................
শুক্রবার তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে
.............................................................................................
হাড় কাঁপানো শীতের কবলে দেশ
.............................................................................................
কাল পরশুর মধ্যে শীত আরও বাড়বে
.............................................................................................
শৈত্যপ্রবাহ নিয়ে যে পূর্বাভাস দিল আবহাওয়া অধিদফতর
.............................................................................................
আরব সাগর থেকে আসা জলীয় বাষ্পের কারণে ঘন কুয়াশা
.............................................................................................
আগামী সপ্তাহে আসতে পারে শৈত্যপ্রবাহ
.............................................................................................
আসছে তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশা
.............................................................................................
রাতে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে
.............................................................................................
তাপমাত্রা কমার পূর্বাভাস
.............................................................................................
মেঘ কেটে গেলেই বাড়বে শীত-কুয়াশার দাপট
.............................................................................................
আজ দেশের যেসব অঞ্চলে বৃষ্টি হতে পারে
.............................................................................................
কয়েকদিনের মধ্যেই নামবে শীত
.............................................................................................
রাতের তাপমাত্রা কমার পূর্বাভাস
.............................................................................................
আগামী ৩ দিনে রাতের তাপমাত্রা কমতে পারে
.............................................................................................
আগামী ২-৩ দিন পর বৃষ্টির আভাস
.............................................................................................
উপকূল অতিক্রম করেছে নিম্নচাপ, ৩ নম্বর সংকেত বহাল
.............................................................................................
শনিবারেও ঢাকাসহ সারাদেশে ভারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা
.............................................................................................
দেশের ২০ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টির আভাস, নদীবন্দরকে ১ নম্বর সংকেত
.............................................................................................
আজ সারাদেশে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা
.............................................................................................
ময়মনসিংহ ও সিলেটে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে
.............................................................................................
দেশের কিছু কিছু এলাকার উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে
.............................................................................................
সারাদেশে বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা
.............................................................................................
মঙ্গলবার থেকে বৃষ্টিপাতের পূর্বাবাস
.............................................................................................
শৈত্যপ্রবাহ চলবে আরও ২ দিন
.............................................................................................
মৌসুমের শেষ শৈত্যপ্রবাহ দু’একদিনের মধ্যে বিদায় নিচ্ছে
.............................................................................................
আরও তীব্র হতে পারে শৈত্যপ্রবাহ
.............................................................................................
শৈত্যপ্রবাহ বইছে সাত জেলায়
.............................................................................................
দিনের তাপমাত্রা বাড়তে পারে
.............................................................................................
শৈত্যপ্রবাহ বাড়তে পারে, থাকবে তিনদিন
.............................................................................................
সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড তেঁতুলিয়ায়
.............................................................................................
আগামী তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা
.............................................................................................
ফের ৮ ডিগ্রিতে নামল তেঁতুলিয়ার তাপমাত্রা
.............................................................................................
৩ বিভাগে হতে পারে বৃষ্টি
.............................................................................................
এবার আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘রিতা’
.............................................................................................
ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের চেয়েও শক্তিশালী ‘নাকরি’
.............................................................................................
সোমবার তাপমাত্রা বাড়তে পারে
.............................................................................................
কয়েকটি ফ্লাইট বাতিল, বিকেলে চট্টগ্রামে ওঠানামা বন্ধ
.............................................................................................
৯ ঘণ্টায় ১০০ কিমি এগিয়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’
.............................................................................................
গতি পাল্টে তীব্র শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসছে বুলবুল
.............................................................................................
মোংলা ও পায়রায় ১০ নম্বর মহাবিপৎসংকেত
.............................................................................................
শতাধিক কিলোমিটার গতিতে আঘাত হানবে ‘বুলবুল’
.............................................................................................
ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ কোথায় আঘাত হানতে পারে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop