| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ফিটনেসবিহীন গাড়ি চালানোয় চলতি বছর মামলা হয়েছে ৩৯,৮৩৭টি   * ঈদে রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু ২৯ জুলাই   * সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বনদস্যু বাহিনী প্রধানসহ নিহত ২   * ছেলেধরা ও গণপিটুনি বিষয়ে পুলিশের সব ইউনিটকে নির্দেশনা   * উত্তরাঞ্চলে পানি কিছুটা কমলেও নদীগুলোর পানি এখনও বিপদসীমার ওপর   * সৌদি পৌঁছেছেন ৭৫ হাজার ৫৯০ হজযাত্রী   * হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ থেকে প্রিয়া সাহা বহিষ্কার   * দুদক পরিচালক এনামুল বাছির গ্রেফতার   * চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ৮ বাড়িতে বন্য হাতির তাণ্ডব   * আদালতে মিন্নির দু`টি আবেদন নামঞ্জুর  

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
চাঁদের অন্ধকার দিকের রহস্য জানতে ছুটল চন্দ্রযান-২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অবশেষে সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ১৩০ কোটি ভারতবাসীর স্বপ্ন নিয়ে চাঁদের দেশে পাড়ি দিয়েছে চন্দ্রযান-২। সোমবার কাউন্টডাউন শেষে স্থানীয় সময় ২টা ৪৩ মিনিটে এ যানটি যাত্রা শুরু করেছে।

গত ১৫ জুলাই উৎক্ষেপণের কথা থাকলেও একেবারে শেষ মুহূর্তে যাত্রা স্থগিত হয়েছিল। কারণ হিসেবে তখনই যান্ত্রিক ত্রুটির কথা জানিয়েছিল ইসরো। রকেট থেকে তরল গ্যাস নির্গত হওয়ার কারণেই ডানা মেলার ঠিক ৫৬ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগেই স্থগিত করা হয়েছিল জিওসিনক্রোনাস স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকল মার্ক থ্রির অভিযান।

এই রকেটের একটা ডাক নামও আছে। ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী এই রকেটের ডাক নাম দেয়া হয়েছে ‘বাহুবলী’। জনপ্রিয় দক্ষিণী সিনেমা বাহুবলীতে কাঁধে পাথরের ভারী শিবলিঙ্গ তুলে নিয়েছিলেন বাহুবলী। চন্দ্রযানকেও যেন অনেকটা সেভাবেই মহাকাশে নিয়ে যাবে জিএসএলভি। এমন অভিনব নাম দেয়া হয়েছে এই রকেটের।

ইসরোর ওই রকেটে চেপেই চাঁদের অন্ধকার দিকের রহস্য উদ্ঘাটন করবে চন্দ্রযান-২। ইসরো জানিয়েছে, উৎক্ষেপণের পর পৃথিবীর চারদিকে ঘুরপাক খেয়ে চাঁদের কক্ষপথে ঢুকে পড়বে এই যানটি। পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী, আগামী ৬ সেপ্টেম্বর ‘লুনার সারফেস’ বা চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করবে যানটি।

তবে জ্বালানি লিকের কারণে প্রথমবার এর উৎক্ষেপণ বাতিল হওয়ায় সব প্রক্রিয়ায় কিছু রদবদল এনেছেন বিজ্ঞানীরা। ওই সময় উৎক্ষেপণ থেকে অবতরণ পর্যন্ত ৫৪ দিন সময় ধার্য করা হয়েছিল। এর মধ্যে ২২ দিন পৃথিবীর কক্ষপথে (আর্থ অরবিট) ঘুরপাক খাওয়ার কথা ছিল এই চন্দ্রযানের।

পরবর্তী ২৮ দিন চাঁদের কক্ষপথে (লুনার অরবিট) ঘোরার কথা ছিল এই চন্দ্রযানের। শেষের চারদিন চাঁদের ‘লোয়ার অটমোস্ফিয়ারে’ গতি কমিয়ে চাঁদের দক্ষিণ মেরুর জমিতে অবতরণ করার কথা ছিল। কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ‘লুনার অরবিটের’ সময় কমিয়ে ২০ দিন করা হয়েছে। ফলে এবার পুরো অভিযানের সময়সীমা দাঁড়িয়েছে ৪৬ দিন।

বিজ্ঞানীদের ধারণা, চাঁদের মাটিতে সৃষ্টির আদি সময়ের ফসিল অবিকৃত অবস্থায় থাকতে পারে। তবে সেটা অবশ্যই সর্বত্র নয়। চাঁদের যেসব জায়গায় সূর্যবিমুখ, শুধু সেখানেই থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে যেহেতু বেশকিছু এলাকায় সূর্যরশ্মি সরাসরি পৌঁছায় না, তাই সূর্যের বিকিরণগত পরিবর্তনও সেখানে কম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এতেই ফসিল অবিকৃত থাকবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। চন্দ্রযান-২ এর অভিযাত্রী যান ‘প্রজ্ঞান’ আধুনিক প্রযুক্তি মারফত খুঁজে বের করবে সেই তথ্যই। অন্তত এমন আশায় ৮৫১ কোটি টাকার এই প্রকল্পের পরিকল্পনা করেছে ইসরো। সেই সঙ্গে চাঁদের মাটিতে চন্দ্রযান-১ যে জলকণার সন্ধান পেয়েছিল, তা নিয়ে আরও বিশদ গবেষণা করবে চন্দ্রযান-২।

এর মধ্যে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে বরফের অস্তিত্ব সন্ধানের চেষ্টা যেমন থাকবে, তেমনই থাকবে চাঁদের মাটিতে বিভিন্ন খনিজ পদার্থ ও রাসায়নিক খুঁজে বের করার চেষ্টাও। সেই সঙ্গে চাঁদের মাটিতে বিশেষ গভীরতা পর্যন্ত গর্ত খুঁড়ে তার তাপমাত্রা, কম্পনের প্রক্রিয়াও জানার চেষ্টা করবে ‘প্রজ্ঞান’। এসব কিছুই হবে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে।

চাঁদের অন্ধকার দিকের রহস্য জানতে ছুটল চন্দ্রযান-২
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অবশেষে সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ১৩০ কোটি ভারতবাসীর স্বপ্ন নিয়ে চাঁদের দেশে পাড়ি দিয়েছে চন্দ্রযান-২। সোমবার কাউন্টডাউন শেষে স্থানীয় সময় ২টা ৪৩ মিনিটে এ যানটি যাত্রা শুরু করেছে।

গত ১৫ জুলাই উৎক্ষেপণের কথা থাকলেও একেবারে শেষ মুহূর্তে যাত্রা স্থগিত হয়েছিল। কারণ হিসেবে তখনই যান্ত্রিক ত্রুটির কথা জানিয়েছিল ইসরো। রকেট থেকে তরল গ্যাস নির্গত হওয়ার কারণেই ডানা মেলার ঠিক ৫৬ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগেই স্থগিত করা হয়েছিল জিওসিনক্রোনাস স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকল মার্ক থ্রির অভিযান।

এই রকেটের একটা ডাক নামও আছে। ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী এই রকেটের ডাক নাম দেয়া হয়েছে ‘বাহুবলী’। জনপ্রিয় দক্ষিণী সিনেমা বাহুবলীতে কাঁধে পাথরের ভারী শিবলিঙ্গ তুলে নিয়েছিলেন বাহুবলী। চন্দ্রযানকেও যেন অনেকটা সেভাবেই মহাকাশে নিয়ে যাবে জিএসএলভি। এমন অভিনব নাম দেয়া হয়েছে এই রকেটের।

ইসরোর ওই রকেটে চেপেই চাঁদের অন্ধকার দিকের রহস্য উদ্ঘাটন করবে চন্দ্রযান-২। ইসরো জানিয়েছে, উৎক্ষেপণের পর পৃথিবীর চারদিকে ঘুরপাক খেয়ে চাঁদের কক্ষপথে ঢুকে পড়বে এই যানটি। পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী, আগামী ৬ সেপ্টেম্বর ‘লুনার সারফেস’ বা চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করবে যানটি।

তবে জ্বালানি লিকের কারণে প্রথমবার এর উৎক্ষেপণ বাতিল হওয়ায় সব প্রক্রিয়ায় কিছু রদবদল এনেছেন বিজ্ঞানীরা। ওই সময় উৎক্ষেপণ থেকে অবতরণ পর্যন্ত ৫৪ দিন সময় ধার্য করা হয়েছিল। এর মধ্যে ২২ দিন পৃথিবীর কক্ষপথে (আর্থ অরবিট) ঘুরপাক খাওয়ার কথা ছিল এই চন্দ্রযানের।

পরবর্তী ২৮ দিন চাঁদের কক্ষপথে (লুনার অরবিট) ঘোরার কথা ছিল এই চন্দ্রযানের। শেষের চারদিন চাঁদের ‘লোয়ার অটমোস্ফিয়ারে’ গতি কমিয়ে চাঁদের দক্ষিণ মেরুর জমিতে অবতরণ করার কথা ছিল। কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ‘লুনার অরবিটের’ সময় কমিয়ে ২০ দিন করা হয়েছে। ফলে এবার পুরো অভিযানের সময়সীমা দাঁড়িয়েছে ৪৬ দিন।

বিজ্ঞানীদের ধারণা, চাঁদের মাটিতে সৃষ্টির আদি সময়ের ফসিল অবিকৃত অবস্থায় থাকতে পারে। তবে সেটা অবশ্যই সর্বত্র নয়। চাঁদের যেসব জায়গায় সূর্যবিমুখ, শুধু সেখানেই থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে যেহেতু বেশকিছু এলাকায় সূর্যরশ্মি সরাসরি পৌঁছায় না, তাই সূর্যের বিকিরণগত পরিবর্তনও সেখানে কম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এতেই ফসিল অবিকৃত থাকবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। চন্দ্রযান-২ এর অভিযাত্রী যান ‘প্রজ্ঞান’ আধুনিক প্রযুক্তি মারফত খুঁজে বের করবে সেই তথ্যই। অন্তত এমন আশায় ৮৫১ কোটি টাকার এই প্রকল্পের পরিকল্পনা করেছে ইসরো। সেই সঙ্গে চাঁদের মাটিতে চন্দ্রযান-১ যে জলকণার সন্ধান পেয়েছিল, তা নিয়ে আরও বিশদ গবেষণা করবে চন্দ্রযান-২।

এর মধ্যে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে বরফের অস্তিত্ব সন্ধানের চেষ্টা যেমন থাকবে, তেমনই থাকবে চাঁদের মাটিতে বিভিন্ন খনিজ পদার্থ ও রাসায়নিক খুঁজে বের করার চেষ্টাও। সেই সঙ্গে চাঁদের মাটিতে বিশেষ গভীরতা পর্যন্ত গর্ত খুঁড়ে তার তাপমাত্রা, কম্পনের প্রক্রিয়াও জানার চেষ্টা করবে ‘প্রজ্ঞান’। এসব কিছুই হবে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে।

সৌদি আরব মাতালেন জ্যানেট জ্যাকসন, ফিফটি সেন্ট
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সৌদি আরবের পশ্চিমাঞ্চলের রেড সি শহরে আয়োজিত জেদ্দা ওয়ার্ল্ড ফেস্ট মাতালেন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গীতশিল্পী জ্যানেট জ্যাকসন, ফিফটি সেন্ট এবং ক্রিস ব্রাউন।

সঙ্গীতশিল্পীদের পারফর্ম্যান্সের পাশাপাশি এই ফেস্ট মাতিয়ে তোলে উপস্থিত দর্শকরা। মাত্র দুই বছর আগেও দেশটিতে এমন কোনোকিছু অকল্পনীয় ছিল।

শুক্রবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ফ্রান্সের সংবাদ সংস্থা এএফপির বরাত দিয়ে এসব কথা জানায় ইন্টারনেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট ইয়াহু নিউজ।

এর আগে র‌্যাপার নিকি মিনাজ মানবাধিকার সংস্থাগুলোর উদ্বেগের কথা উল্লেখ করে এই ফেস্টে পারফর্ম করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন।

তিনি নারী ও সমকামীদের অধিকারের প্রতি সমর্থন জানানোর জন্য এই অতি রক্ষণশীল ইসলামি দেশে পারফর্ম করবেন না বলে জানান।

মিনাজের এই সিদ্ধান্তে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে রীতিমতো ঝড় উঠে যায়। অনেকেই হতাশ হয়ে তাদের টিকেটের অর্থ ফেরত চায়।

তিনি অবশ্য তার টুইটার অ্যাকাউন্টে দেয়া এক পোস্টে জোর দিয়ে জানান, সৌদি সরকারের প্রতি ‘অসম্মান’ দেখানোর জন্য এই সিদ্ধান্ত নেননি।

এদিকে নাম উল্লেখ না করে একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটির সরকারপন্থি সংবাদপত্র ওকাজ-সহ কিছু গণমাধ্যম জানায়, তার পারফর্ম বাতিল করেছে সরকার।

এসব গণমাধ্যমের খবরে আরও বলা হয়, স্থানীয় প্রথা ও মূল্যবোধ বিরোধী বলে তার পারফর্ম্যান্স বাতিল করা হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

তুরস্কে সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ড এবং নারী অধিকারকর্মীদের চলমান বিচারের কারণে আন্তর্জাতিকভাবে তীব্র সমালোচিত হচ্ছে সৌদি আরব।

কেন চাঁদে যাওয়ার তোড়জোড় ভারত-চীনের, রহস্য উদঘাটন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চাঁদ পৃথিবীর একমাত্র প্রাকৃতিক উপগ্রহ এবং সৌর জগতের পঞ্চম বৃহত্তম উপগ্রহ। এই উপগ্রহে রয়েছে বিপুল পরিমাণ ‘হিলিয়াম-৩’ (হিলিয়াম মৌলের একটি বিশেষ আইসোটোপ), যা পৃথিবীতে শক্তির যাবতীয় চাহিদা মেটাতে পারে অন্তত ১০ হাজার বছরের জন্য।

পৃথিবীতে ৫ হাজার কিলোগ্রাম ওজনের কয়লা পোড়ালে যতটা শক্তি উৎপাদন হয়, চাঁদের মাত্র ৪০ গ্রাম হিলিয়াম-৩ মৌল থেকে তৈরি হয় ততটাই শক্তি! ভাবুন, কত কম পরিমাণে ওই মৌলের প্রয়োজন হচ্ছে এই বিপুল পরিমাণ শক্তি তৈরি করতে!

এই ধারণাটার ভিত যতই মজবুত হচ্ছে উত্তরোত্তর, ততই ভারত ও চীনের মতো দেশগুলো ছুটতে শুরু করেছে চাঁদে। যাওয়ার তোড়জোড় শুরু করেছে ছোট ছোট উন্নয়নশীল দেশগুলোও। কারণ, তারা বুঝে গেছে, অপ্রচলিত উপায়ে শক্তি উৎপাদনের সেরা হাতিয়ারটি রয়েছে চাঁদেই। সেটি হচ্ছে হিলিয়াম-৩ মৌল।
হিলিয়াম-৩ কীভাবে কাজে লাগবে পৃথিবীতে শক্তি উৎপাদনে?

আমাদের এই গ্রহের তিন ভাগই জল (পানি)। বাকি এক ভাগ স্থল। পৃথিবী কার্যত ভরে রয়েছে সাগর, মহাসাগরে। সেই পানিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ডয়টেরিয়াম অক্সাইড (D2O)। এই ডয়টেরিয়াম অক্সাইডের সঙ্গে পরমাণু চুল্লিতে হিলিয়াম-৩ মৌলের বিক্রিয়া ঘটালেই জন্ম হতে পারে বিপুল পরিমাণ শক্তির।

এখন যেটা ভাবা হচ্ছে, তা হল- তেজস্ক্রিয় বিকিরণহীন পরমাণু বিদ্যুৎ প্রচুর পরিমাণে উৎপাদনের জন্য চাঁদের বালিকণা ও ধুলোবালি (রেগোলিথ) থেকে ওই হিলিয়াম-৩ মৌলটিকে নিষ্কাশন করে সেটাকেই ক্যাপসুলে ভরে পৃথিবীতে নিয়ে আসা হবে এবং কিছুটা দিয়ে চাঁদেই পরমাণু চুল্লিতে ব্যবহার করা হবে। এ জন্য শিল্পাঞ্চল ও গড়ে তোলা হবে চাঁদে। চাঁদে এই শিল্পাঞ্চল গড়তে সময় লাগবে ৩০ বছর। চাঁদে যে কলোনি বানাতে চলেছে মানবসভ্যতা, এই হিলিয়াম-৩ মৌলটি তারও শক্তির চাহিদা মেটাবে।

সূত্র: আনন্দবাজার

মার্কিন সেনা মোতায়েনের প্রস্তাবে সৌদি বাদশাহ`র সম্মতি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আবারও সৌদি আরবে সেনা মোতায়েন করতে যাচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী সৌদিতে সেনা ও সরঞ্জাম মোতায়েনের বিষয়টি অনুমোদন দিয়েছেন।

সৌদি বাদশাহ সালমানও মার্কিন সেনাদের আমন্ত্রণের সিদ্ধান্তে সায় দিয়েছেন। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আঞ্চলিক নিরাপত্তা জোরদার করতে ওয়াশিংটনের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে মার্কিন সেনাদের আমন্ত্রণ জানাতে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি আরব।
মার্কিন সেনাদের গ্রহণে ইতোমধ্যে অনুমোদন দিয়েছেন সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ।

ইরাক যুদ্ধের শেষ হওয়ার পর ২০০৩ সাল থেকে মার্কিন বাহিনীকে আমন্ত্রণ জানায়নি সৌদি আরব।

তখন সৌদি আরবে মার্কিন সেনাদের উপস্থিতি ছিল এক যুগের বেশি। কুয়েতে ইরাকের অভিযানের পর ১৯৯১ সালে অপারেশন ডেজার্ট স্ট্রোম শুরু হলে সৌদিতে মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়।

এর গত জুনে পেন্টাগন জানিয়েছিল, মধ্যপ্রাচ্যে তারা আরও এক হাজার সেনা মোতায়েন করবে। কিন্তু কোথায় তাদের মোতায়েন করা হচ্ছে, তা বলা হয়নি।

চীনে গ্যাস প্ল্যান্ট বিস্ফোরণে নিহত ১০
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের মধ্যাঞ্চলে একটি গ্যাস প্ল্যান্টে বিস্ফোরণে অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আরও অন্তত ১৯ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এই ঘটনায় নিখোঁজ আছেন অন্তত ৫ জন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিবিএস নিউজ এক প্রতিবেদনে জানায়, চীনের হেনান প্রদেশের সানমেনজিয়া সিটির ইয়ামাতে শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ভবনটির দরজা-জানালা আশেপাশে ছড়িয়ে পড়ে।
চীনের সংবাদমাধ্যম জিনহুয়া নিউজ জানায়, হেনান কোল গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের ইয়ামা গ্যাস ফ্যাক্টরিতে বিস্ফোরণ ঘটে। তবে গ্যাস ট্যাঙ্ক এরিয়াতে এই বিস্ফোরণ হয়নি। বিস্ফোরণ হয়েছে মূলত ফ্যাক্টরিটির এয়ার সেপারেশন ইউনিটে। এতে ওই কারখানার সব কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।

চীন সরকার কারখানায় সুরক্ষা নিশ্চিতের ওপর যথেষ্ট গুরুত্ব দিলেও গত কয়েকদিন ধরে দুর্ঘটনা অনেকটাই নিয়মিত হয়ে উঠেছে। গত মার্চে জিয়াংজু প্রদেশে একটি কেমিক্যাল কারখানায় বিস্ফোরণে ৬০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়।

ভারতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ শিক্ষার্থী নিহত
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের পুনেতে সড়ক দুর্ঘটনায় নয় জন শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। শুক্রবার রাতে পুনে-সোলাপুর মহাসড়ক হয়ে ওই শিক্ষার্থীরা ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে যাচ্ছিলেন। মাঝপথে ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই তারা নিহত হয়।

ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভির অনলাইন প্রতিবেদনে পুলিশের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, শুক্রবার রাত আনুমানিক ২টার দিকে কাদামাওয়াক নামক এলাকায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। পুনে শহর থেকে যার দূরত্ব মাত্র ২০ কিলোমিটার।

স্থানীয় পুলিশ স্টেশনের এক কর্মকর্তা বলেছেন, ‘দুর্ঘটনায় যারা নিহত হয়েছেন তারা রাজগড় থেকে তাদের নিজের শহর ইয়াবতে ফিরছেলেন। মাঝপথে সামনে থেকে আসা একটি মালবাহী ট্রাকের সঙ্গে তাদের গাড়িটির সংঘর্ষ ঘটে।’

তিনি আরও বলেন, গাড়িটিতে থাকা মোট নয় শিক্ষার্থীর সবাই ওই দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। তাদের সবার বয়স ১৯ থেকে ২৩ বছরের মধ্যে। ঘটনাস্থলেই সবার মৃত্যু হয় বলে জানান তিনি।

পুলিশের ওই কর্মকর্তা জানান, ‘নিহত ওই শিক্ষার্থীদের মরেদহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মরদেহগুলো তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। আমরা বিষয়টির তদন্ত শুরু করেছি।’

উত্তরপ্রদেশে যাওয়ার পথে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী আটক
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আটক করা হয়েছে। ভারতের উত্তরপ্রদেশে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ১০ জন খুন হওয়ার ঘটনাস্থলে যাওয়ার পথে তাকে আটক করা হয়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক অনলাইন প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে।

গত বুধবার উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্রা গ্রামে জমি নিয়ে সংঘর্ষের জেরে গুলিবিদ্ধ হয়ে যে ১০ জন নিহত হন তাদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে আজ শুক্রবার সেখানে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু মাঝপথে তাকে আটক করা হয়। উত্তরপ্রদেশে অপরাধ বৃদ্ধি ও আইনের শাসন নেই বলে রাজ্য সরকার ও মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সমালোচনা করেন প্রিয়াঙ্কা।

সোনভদ্রা যাওয়ার পথে তাকে আটক করা হলে মির্জাপুর নামক এলাকার রাস্তায় বসে পড়েন প্রিয়াঙ্কা। তার সঙ্গে থাকা অন্য কংগ্রেস কর্মীরাও তার পাশেই বসে পড়েন। তাদের ঘিরে থাকেন প্রিয়াঙ্কার নিরাপত্তারক্ষীরা। প্রিয়াঙ্কা সেখান থেকে সরে যেতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে আটক করে সরকারি গাড়িতে তোলা হয়।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এসময় বলেন, ‘যাদেরকে নির্মমভাবে মেরে ফেলা হয়েছে আমি শুধু তাদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলাম। আমার ছেলের বয়সী একটি ছেলেকেও গুলি করা হয়েছে এবং সে এখন হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছে। আমাকে বলুন, কোন আইনে আমাকে এভাবে আটকে দেয়া হল।’

প্রিয়াঙ্কা ওই এলাকায় পৌঁছানোর আগেই জানা যায়, সোনভদ্রায় যেকোনো ধরনের সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তিনি দাবি করেন যে, তাকে বলা হয়েছে তিনি গাড়ি করে বারানসি থেকে সোনভদ্রা যেতে পারবেন না। সরকারি গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়ার সময় তিনি বলেন, ‘আমি জানি না তারা আমাকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছে। আমরা যেকোনো জায়গায় যেতে রাজি।’

শুক্রবার সকালেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির লোকসভা আসন বারানসিতে পৌঁছান প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। সেখান থেকে তিনি সোনভদ্রা কাণ্ডে আহতদের দেখতে স্থানীয় হাসপাতালে যান। গত বুধবার উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্রায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ১০ জন নিহত হন। এ ছাড়া আরও ২৪ জন গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জাপানের অ্যানিমেশন স্টুডিওতে আগুন লেগে নিহত ১৩
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জাপানের কিয়োটো শহরে একটি অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১৩ জন নিহত হয়েছেন।

স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও গার্ডিয়ান এমন খবর দিয়েছে।

এএফপি জানিয়েছে, প্রথম ও দ্বিতীয় তলায় ধোঁয়ায় শ্বাসপ্রশ্বাস বন্ধ হয়ে ১২ জন নিহত হয়েছেন। পরবর্তী সময়ে তা বেড়ে ১৩ জন হয়েছে। এছাড়াও বহু লোক আহত হয়েছেন।

জাপানি বার্তা সংস্থা কিয়োদো জানিয়েছে, আগুনে ৩০ ব্যক্তি আহত হন। তার মধ্যে ১০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এনএইচকে টেলিভিশন জানায়, স্টুডিওর চারপাশে পেট্রোল ঢেলে দেয়ার অভিযোগে ৪১ বছর বয়সী এক লোককে আটক করেছে পুলিশ। তবে ওই ব্যক্তি আহত হওয়ায় তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এই স্টুডিও থেকে ‘সাউন্ড! ইউফোনিয়াম’ নামের একটি ধারাবাহিক প্রযোজনা করা হচ্ছে। চলতি মাসে এটির ‘ফ্রি! রোড টু দ্য ওয়ার্ল্ড-দ্য ড্রিম’ চলচ্চিত্র মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

ইবোলা সংক্রমণ : বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আফ্রিকার দেশ ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোর ইবোলা সংকটকে ‘বৈশ্বিক জনস্বাস্থ্য সংকট’ বলে ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। খবর বিবিসির।

বুধবার জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে ডব্লিউএইচও’র প্রধান টেড্রোস আধানম গিব্রাইয়াসুস ইবোলাকে ‘আন্তর্জাতিক পর্যায়ের জনস্বাস্থ্য সংকট’ উল্লেখ করে জরুরি অবস্থার ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে বিশ্ববাসীর নজর দেওয়ার সময় হয়েছে।

এ ঘোষণার ফলে সম্পদশালী দাতা দেশগুলো আরও অর্থ সহায়তা দেওয়ার বিষয়ে সচেতন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এই সিদ্ধান্তকে আন্তর্জাতিক ফেডারেশন রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট স্বাগত জানিয়েছে।

চলতি সপ্তাহে ১০ লাখেরও বেশি বাসিন্দার শহর ডিআর কঙ্গোর গোমায় প্রথমবারের মতো একজনের শরীরে ইবোলার ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

ইতোমধ্যে দেশটির আড়াই হাজারেরও বেশি লোক ইবোলায় আক্রান্ত হয়েছে এবং তাদের মধ্যে এক হাজার ৬শ’ জনেরও বেশি লোক মারা গেছে।

২০১৮ সালের অগাস্টে শুরু হয়ে ডিআর কঙ্গোর উত্তর কিভু ও ইতুরি প্রদেশে ছড়িয়ে পড়ে ইবোলা। ২২৪ দিনের মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার জনে দাঁড়ায়।

কিন্তু পরবর্তীতে মাত্র ৭১ দিনের মধ্যে সংখ্যাটি ২ হাজার জনে জনে গিয়ে দাঁড়ায়। প্রতিদিন নতুন করে প্রায় ১২ জন এ রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

তবে ডব্লিউএইচও উত্তর কিভু ও ইতুরি প্রদেশের বাইরে বাসিন্দাদের যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়নি। তারা বলছে, অন্য প্রদেশে ছড়িয়ে পড়ার মতো ঝুঁকি আপাতত নেই।

সর্বোচ্চ পর্যায়ের এই জরুরি পরিস্থিতির ঘোষণা এর আগে মাত্র চারবার দিয়েছিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাটি। তার মধ্যে একটি পশ্চিম আফ্রিকায় মহামারী আকারে ইবোলার ছড়িয়ে পড়া নিয়েই ছিল। ২০১৪ থেকে ২০১৬-র ওই সময়টিতে পশ্চিম আফ্রিকায় ইবোলা সংক্রমণে ১১ হাজারের বেশি লোকের মৃত্যু হয়েছিল।

মুম্বাই হামলার মূল হোতা হাফিজ সাঈদ গ্রেপ্তার পাকিস্তানে
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের মুম্বাইয়ে ২০০৮ সালে সন্ত্রাসী হামলার মূল হোতা এবং জামায়াতুদ দাওয়ার (জেইউডি) প্রধান হাফিজ মোহাম্মদ সাইদ সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নের দায়ে গ্রেপ্তার হয়েছেন।

বুধবার তিনি পাকিস্তানের লাহোর থেকে গুজরানওয়ালায় যাওয়ার পথে তাকে গ্রেপ্তার করে কাউন্টার-টেরোরিজম ডিপার্টমেন্টের (সিটিডি) পাঞ্জাব শাখা।

সিটিডির পাঞ্জাব শাখার একাধিক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় সংবাদপত্র ডন।

শাখাটির এক মুখপাত্র জানান, হাফিজকে গুজরানওয়ালার এক অ্যান্টি-টেরোরিজম কোর্টে (এটিসি) হাজির করার পর জুডিশিয়াল রিমান্ডে কারাগারে পাঠানো হয়।

এটিসির পক্ষ থেকে শাখাটিকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তদন্ত শেষ করে তার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগপত্র জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

গুজরানওয়ালার এক এটিসিতে হাজির হতে সেখানে যাচ্ছিলেন হাফিজ। তার গ্রেপ্তার হওয়ার বিষয়টি যুক্তরাজ্যের সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে নিশ্চিত করেছে জেইউডির এক মুখপাত্র।

যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘ তাকে বিশ্ব সন্ত্রাসী ঘোষণা করেছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র তার মাথার মূল্য ঘোষণা করে এক কোটি ডলার।

হাফিজকে এর আগেও কয়েকবার গ্রেপ্তার করে ছেড়ে দেয়া হয়। মুম্বাইয়ের হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে বিচারের আওতায় আনতে পাকিস্তানকে অনবরত দিয়ে আসছে।

এদিকে হাফিজ বারবার এই হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। মুম্বাই হামলায় ১৬০ জন নিহত হন।

মুম্বাইয়ে ভবনধসে নিহত ১২, আটকা ৫০
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের মুম্বাই শহরের ডংরি এলাকায় চারতলাবিশিষ্ট একটি বহুতল ভবন ধসে অন্তত ১২ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। ভবনের ধ্বংসস্তূপের নিচে আরও অনেকেই আটকা পড়েছে বলে দেশটির আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী জানিয়েছে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ৪০ মিনিটের দিকে ডংরির ট্যান্ডেল স্ট্রিটে ভেঙে পড়ে চারতলা ওই ভবন। ভবনের নিচে কমপক্ষে ৪০ থেকে ৫০ জন আটকা পড়েছেন আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উদ্ধারকাজ শুরু করেছে দমকল বাহিনী। যুদ্ধকালীন তত্পরতায় উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে দেশটির জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী (এনডিআরএফ)।

ভবনটি সরু গলির ভেতরে হওয়ায় সেখানে উদ্ধার তৎপরতা চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। ভবন ধসের পর স্থানীয় লোকজন খালি হাতে ধ্বংস্তূপ সরানোর কাজ শুরু করেছেন। অনেকেই রাস্তা ফাঁকা করার জন্য রাস্তার দুই পাশে দাঁড়িয়ে অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও অন্যান্য সরঞ্জাম পৌঁছে দিতে সহায়তা করছেন।

জীবিতদের উদ্ধারে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। গত কয়েক সপ্তাহের বৃষ্টির কারণে মাটি নরম হয়ে ভবনটি দেবে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ভবনটি চোখের সামনে ধসে যেতে দেখা এক কিশোর এনডিটিভিকে বলেছেন, ‌‘আমরা বিকট বিস্ফোরণের শব্দ পাই। ভবন ধসে গেল, ভবন ধসে গেল বলে প্রত্যেকেই চিৎকার করছে। আমি দৌড়ে পালিয়েছি। এটা ছিল প্রচণ্ড ভূমিকম্পের মতো।

‌অপর এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ‘ভবনটি ৯০ থেকে ১০০ বছরের পুরোনো। আমি বেশ কয়েকজন শিশুর মরদেহ দেখেছি। ভবনটিতে ৭-৮টি পরিবার বসবাস করতো।’

৬ দশমিক ১ তীব্র কম্পনে কেঁপে উঠল বালি
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আবারও ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে ইন্দোনেশিয়ায়। দেশটির জনপ্রিয় পর্যটন দ্বীপ বালিতে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকালে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। রিখটার স্কেলে ওই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ১।

তীব্র কম্পনে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন স্থানীয় লোকজন এবং সেখানে ঘুরতে আসা পর্যটকরা। আতঙ্কে তারা বিভিন্ন ভবন থেকে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন।

ওই ভূমিকম্প থেকে এখন পর্যন্ত কোন ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এছাড়া হাওয়াইভিত্তিক প্রশান্ত মহাসাগরীয় সুনামি সতর্কতা কেন্দ্রও এই ভূমিকম্প থেকে কোন সুনামি সতর্কতা জারি করেনি।

বালির রাজধানী দেনপাসার থেকে ১০২ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এর গভীরতা ছিল ১শ কিলোমিটার। প্রাথমিকভাবে ওই ভূমিকম্পের মাত্রা ৫ দশমিক ৭ বলে জানিয়েছে মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ।

মাত্র দু`দিন আগেই শক্তিশালী আরও একটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছিল ইন্দোনেশিয়ায়। রোববার পূর্বাঞ্চলীয় মোলুকাসের টার্নেট শহরে ৭ দশমিক ৩ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। তবে ওই ভূমিকম্প থেকে কোনো ক্ষয়ক্ষতি কিংবা প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়নি।

শেষ মুহূর্তে ভারতের চন্দ্রাভিযান স্থগিত
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের চন্দ্রযান-২ এর উৎক্ষেপণ একেবারে শেষ মুহূর্তে স্থগিত করা হয়েছে। উৎক্ষেপণের মাত্র ৫৬ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে ত্রুটি ধরা পড়ে। তাই শেষ মুহূর্ত স্থগিত করা হয় চন্দ্রযান-২ এর উৎক্ষেপণ।

রোববার দিনগত রাত ২টা ৫১ মিনিটে উড়ে যাওয়ার কথা ছিল জিও সিঙ্ক্রোনাস স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকেলস মার্ক ৩ (GSLV Mk III) রকেট বা বাহুবলীর। তবে কাউন্টডাউনের সময়েই প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে তা স্থগিত করে দেয়া হয়।
ইসরোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, উৎক্ষেপণের পরবর্তী দিনক্ষণ পরে জানানো হবে। এর আগে ইসরোর কর্মকর্তারা বলেছিলেন, উৎক্ষেপণ নিয়ে চিন্তা নেই। আবহাওয়াও অনুকূল। চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ নিয়েই চিন্তা বেশি।
এদিকে এই অভিযানের সাফল্য চেয়ে ইসরোর চেয়ারম্যান কে শিবন তিরুপতি মন্দিরে পুজো দিয়েছিলেন। চন্দ্রযান ২-এর একটি প্রতিরূপও নিয়ে গিয়েছিলেন সেখানে। ইসরো সূত্রের দাবি, এটা দীর্ঘদিনের রীতি। মঙ্গলযানের সময় তৎকালীন ইসরো প্রধান কে রাধাকৃষ্ণন নাকি মন্দিরে গিয়ে কীর্তনও গেয়ে এসেছিলেন।

জানা গেছে, উৎক্ষেপণের আগে রকেটে লিকিউড হাইড্রোজেন এবং লিকিউড অক্সিজেন ভরার কাজ চলছিল। আর তা করার সময় একটা ছিদ্র দেখা যায়। এরপরই তড়িঘড়ি করে এই অভিযান বাতিল করা হয়।
এখন এই রকেট থেকে পুরো জ্বালানি ফেলে দেয়া হবে। এরপর তা খালি করে কিভাবে এই ছিদ্র সৃষ্টি হলো তা নিয়ে তদন্ত করবেন গবেষকরা। আর তা করতে প্রায় ১০দিন লেগে যেতে পারে বলে জানা যাচ্ছে।

ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী রকেট জিওসিঙ্ক্রোনাস স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকেলস মার্ক ৩ (GSLV Mk III) এর ওজন ৬৪০ টন। রকেটটি বানাতে খরচ হয়েছে প্রায় ৩৭৫ কোটি রুটি। ৪৪ মিটার উঁচু এই রকেটের উচ্চতা প্রায় ১৫তলা বিল্ডিংয়ের সমান। এই রকেটের ডাকনাম হচ্ছে ‘বাহুবলী’।

উল্লেখ্য, টানা ১৬ মিনিট ওড়ার পর চন্দ্রযান-২-কে মহাকাশে নির্দিষ্ট কক্ষপথে পৌঁছে দেবে বাহুবলী। সেখান থেকে প্রায় দুই মাস ধরে চাঁদের পথে এগোতে থাকবে চন্দ্রযান-২। দুই মাসের যাত্রা শেষে ৬ সেপ্টেম্বর রোভার প্রজ্ঞান-কে নিয়ে চাঁদের মাটিতে সফট ল্যান্ডিং করবে ল্যান্ডার বিক্রম। এরপরই বেরিয়ে আসবে ছয় চাকার যান প্রজ্ঞান।

৬ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল অস্ট্রেলিয়া
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল অস্ট্রেলিয়া। রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৯। রোববার মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানিয়েছে, অস্ট্রেলিয়ার ব্রুম সৈকতে ভূমিকম্পটি আঘাত হেনেছে।

প্রাথমিকভাবে ভূমিকম্পটি থেকে কোন ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানিয়েছে, ভূপৃষ্ঠ থেকে ৩৩ কিলোমিটার গভীরে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। অস্ট্রেলিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর থেকে ২০৩ কিলোমিটার দূরে ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।

ভূমিকম্পটি থেকে কোন সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি। ব্রুম পুলিশ দফতরের কর্মকর্তা নেইল গর্ডন বলেন, শহরে প্রায় এক মিনিট ধরে তীব্র কম্পন অনুভূত হয়েছে।

তিনি এএফপিকে বলেন, এখানে ভবনগুলো প্রায় দেড় মিনিট ধরে কেঁপে উঠেছে। তিনি আরও বলেন, ভূমিকম্পের কারণে এখানে কোন ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

তবে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম এবিসির খবরে বলা হয়েছে, ভূমিকম্প থেকে সামান্য ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে। তবে কেউ হতাহত হয়নি।

অস্ট্রেলিয়ার অনেক স্থানেই ভূমিকম্পের সময় প্রচণ্ড কম্পন অনুভূত হয়েছে। উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় উপকূল, রাজধানী পার্থ, খনি কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত কারাথা, দক্ষিণের হেডল্যান্ড বন্দর এবং উত্তরের ডারউইন শহরে তীব্র কম্পনে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

বৃষ্টি-বন্যা-ভূমিধস : নেপালে মৃত ৩০, ভারতে ২২
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নেপালে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩০ জনে দাঁড়িয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত ১৮ জন। ভারতের বিহারে বন্যায় মৃতের সংখ্যা ১২ ছাড়িয়েছে। আসামে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০ জনে দাঁড়িয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ লাখ মানুষ। দেশটির অন্যান্য অঞ্চলেও বন্যা দেখা দিয়েছে। এদিকে, চীনে অপরিবর্তিত রয়েছে বন্যা পরিস্থিতি।

তীব্র গরমের পর এবার ভারতে টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে নদ-নদীর পানি বেড়ে বিভিন্ন রাজ্যে দেখা দিয়েছে বন্যা। বিহার রাজ্যের রাজধানী পাটনাসহ বিভিন্ন স্থানে গত পাঁচদিনে প্রবল বর্ষণে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। ঘটেছে প্রাণহানি। বহু মানুষকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে নিরাপদস্থানে। ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তায় খোলা হয়েছে আশ্রয়কেন্দ্র। বন্ধ হয়ে গেছে অনেকস্থানের সড়ক যোগাযোগ।

উত্তরপ্রদেশে বিপদসীমার ওপর দিয়ে অতিক্রম করছে গঙ্গা নদীর পানি। এতে তলিয়ে গেছে বেশ কয়েকটি অঞ্চল।

আরেক রাজ্য আসামের ৩৩টি জেলার ২৫টিতেই দেখা দিয়েছে বন্যা। সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১৫ লাখের বেশি মানুষ। আগামী কয়েকদিনে বন্যা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপ দিতে পারে বলে আশঙ্কা কর্তৃপক্ষের। ইতোমধ্যে সেখানে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী। ত্রাণ সহায়তার কাজ করছে দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী। ব্রক্ষ্মপুত্র নদের পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়ায় রাজধানী গুয়াহাটিও তলিয়ে গেছে। বন্ধ হয়ে পড়েছে সড়ক যোগাযোগ।

এছাড়া বাংলাদেশ সংলগ্ন আরেক রাজ্য মিজোরামেও বন্যা দেখা দিয়েছে। ডুবে গেছে বাড়িঘর, রাস্তাঘাট।

এদিকে টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় নেপালের ৭৭টি জেলার মধ্যে ২০ জেলা প্লাবিত হয়েছে। রাস্তা তলিয়ে যাওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। ভারী বৃষ্টিপাতে পাহাড়ি এলাকায় সৃষ্ট ভূমিধসে হতাহতের পাশাপাশি এখনো নিখোঁজ রয়েছেন অনেকে। তাদের উদ্ধারে কাজ করে যাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা।

এদিকে প্রতিবেশী দেশ ভুটানেও বন্যা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। পাকিস্তানেও বৃষ্টিপাত বেড়ে যাওয়ায় জারি রয়েছে বন্যা সতর্কতা।

চীনের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। বন্যায় এখন পর্যন্ত অন্তত দুই কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্যা কবলিত অঞ্চল থেকে এ পর্যন্ত কয়েক লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। বৃষ্টিপাত বন্ধ না হওয়ায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে আরও সপ্তাহ খানেক সময় লাগবে বলে জানিয়েছে দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ।

ভারতে ৬ মাসে ধর্ষণের শিকার ২৪০০০ শিশু
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ‘বেটি বাচাও, বেটি পড়াও’। শিশুকন্যাদের কল্যাণে এই স্লোগানের প্রচলন করেছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। কিন্তু তবুও নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না। চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসেই ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে ২৪ হাজারের বেশি শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। শীর্ষে রয়েছে যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশ। সেখানে ছয় মাসে ৩ হাজার ৪৫৭ শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

শিশু ধর্ষণে প্রথম পাঁচটি রাজ্যের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে পঞ্চম স্থানে। ছয় মাসে সেখানে ১ হাজার ৫৫১ শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে এফআইআর জমা পড়েছে।

শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট একের পর এক এ জাতীয় ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বিগ্ন হয়ে স্বতঃপ্রণোদিত হস্তক্ষেপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ আদালতের রেজিস্ট্রিকে এ নিয়ে মামলা দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছেন। সোমবার সুপ্রিম কোর্ট রাজ্যগুলোর জন্য এ ব্যাপারে নির্দেশিকা জারি করতে পারে। প্রধান বিচারপতির নির্দেশেই আদালতের রেজিস্ট্রি পুরো দেশে শিশু ধর্ষণের তথ্য জোগাড় করছে। এতেই ৬ মাসে ২৪ হাজারের বেশি ধর্ষণের পরিসংখ্যান উঠে এসেছে।

বিরোধীদের অভিযোগ, কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের চরম উদাসীনতার কারণেই সুপ্রিম কোর্টকে এভাবে হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে। কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা বলেন, ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ২৪ হাজার ২১২টি শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

কিন্তু মাত্র ৯১১টি মামলায় বিচার শেষ হয়েছে। উত্তরপ্রদেশে সবচেয়ে বেশি ঘটনা ঘটলেও মাত্র ৩ শতাংশ মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে। শিশু ধর্ষণে প্রথম পাঁচটি রাজ্যের মধ্যে উত্তরপ্রদেশের পরেই অবশ্য রয়েছে কংগ্রেসশাসিত মধ্যপ্রদেশ আর রাজস্থান। এরপর চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে মহারাষ্ট্র ও পশ্চিমবঙ্গ।


   Page 1 of 93
     আন্তর্জাতিক
চাঁদের অন্ধকার দিকের রহস্য জানতে ছুটল চন্দ্রযান-২
.............................................................................................
সৌদি আরব মাতালেন জ্যানেট জ্যাকসন, ফিফটি সেন্ট
.............................................................................................
কেন চাঁদে যাওয়ার তোড়জোড় ভারত-চীনের, রহস্য উদঘাটন
.............................................................................................
মার্কিন সেনা মোতায়েনের প্রস্তাবে সৌদি বাদশাহ`র সম্মতি
.............................................................................................
চীনে গ্যাস প্ল্যান্ট বিস্ফোরণে নিহত ১০
.............................................................................................
ভারতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ শিক্ষার্থী নিহত
.............................................................................................
উত্তরপ্রদেশে যাওয়ার পথে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী আটক
.............................................................................................
জাপানের অ্যানিমেশন স্টুডিওতে আগুন লেগে নিহত ১৩
.............................................................................................
ইবোলা সংক্রমণ : বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা
.............................................................................................
মুম্বাই হামলার মূল হোতা হাফিজ সাঈদ গ্রেপ্তার পাকিস্তানে
.............................................................................................
মুম্বাইয়ে ভবনধসে নিহত ১২, আটকা ৫০
.............................................................................................
৬ দশমিক ১ তীব্র কম্পনে কেঁপে উঠল বালি
.............................................................................................
শেষ মুহূর্তে ভারতের চন্দ্রাভিযান স্থগিত
.............................................................................................
৬ দশমিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল অস্ট্রেলিয়া
.............................................................................................
বৃষ্টি-বন্যা-ভূমিধস : নেপালে মৃত ৩০, ভারতে ২২
.............................................................................................
ভারতে ৬ মাসে ধর্ষণের শিকার ২৪০০০ শিশু
.............................................................................................
ফিলিপাইনে শক্তিশালী ভূমিকম্প, আহত অর্ধশতাধিক
.............................................................................................
আসামে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ৬ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
দারিদ্র্যের কারণে এক দশকে ভারত ছেড়েছে ২৭ কোটি মানুষ
.............................................................................................
নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে নিহত ১৫
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে রেকর্ড পরিমাণ জরিমানার মুখে ফেসবুক
.............................................................................................
সোমালিয়ায় হোটেলে বোমা হামলা, সাংবাদিকসহ নিহত ৭
.............................................................................................
পাকিস্তানে ২ ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১০, আহত ৮৫
.............................................................................................
গ্রিসে তীব্র ঝড়ে ও শিলাবৃষ্টিতে ছয়জন নিহত
.............................................................................................
শিশুদের যৌন নির্যাতনে সাজা মৃত্যুদণ্ড করছে ভারত
.............................................................................................
জমজমের পানি বহন নিষিদ্ধ করে ক্ষমা চাইল এয়ার ইন্ডিয়া
.............................................................................................
সৌদি আরবে কনসার্ট বাতিল করলেন নিকি মিনাজ
.............................................................................................
পাপুয়া নিউ গিনিতে উপজাতি গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে ২৪ জন নিহত
.............................................................................................
ডুবন্ত নৌকা থেকে ৩৭ বাংলাদেশি উদ্ধার
.............................................................................................
হোয়াইট হাউসে ঢুকল বৃষ্টির পানি
.............................................................................................
ইমরানের পদত্যাগ দাবি মরিয়ম নওয়াজের
.............................................................................................
ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ইরান
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প, জারি সুনামি সতর্কতা
.............................................................................................
জমজমের পানি নিয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে ওঠা যাবে না
.............................................................................................
হিজাব পরায় কানাডায় মালালার শিক্ষকতা বন্ধ
.............................................................................................
ভারতে যাত্রীবাহী বাস নর্দমায় পড়ে ২৯ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
হংকং বিক্ষোভকারীদের পরবর্তী লক্ষ্য চীনা রেল স্টেশন
.............................................................................................
সিরিয়ায় রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন হামলায় `দুই মাসে নিহত ৫৪৪`
.............................................................................................
সৌদির দুই বিমানবন্দরে ফের ড্রোন হামলা
.............................................................................................
ভূমিকম্পের পর ক্যালিফোর্নিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি
.............................................................................................
ফ্লোরিডার শপিং সেন্টারে বিস্ফোরণ
.............................................................................................
ইরানকে ফের সাবধান করলেন ট্রাম্প
.............................................................................................
পালানো স্ত্রীর নামে মামলা করলেন দুবাই শাসক
.............................................................................................
৩৫ ঘণ্টার ব্যবধানে ক্যালিফোর্নিয়ায় আবারও ভূমিকম্প
.............................................................................................
ভারতের বাজেটে পেট্রল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধি
.............................................................................................
নিরাপদ হজ পালনে প্রস্তুত সৌদি আরব
.............................................................................................
অতিবৃষ্টিতে ভূমিধসের আশঙ্কায় জাপানে সতর্কতা জারি
.............................................................................................
কানাডায় ৬ দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্পের আঘাত
.............................................................................................
হন্ডুরাসে মাছ ধরতে গিয়ে লাশ হলো ২৬ জন
.............................................................................................
মন্দিরে হামলার জেরে দিল্লি জুড়ে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]