| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * পোলট্রি ও ডেইরি শিল্প সুরক্ষায় নীতিমালা হচ্ছে: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী   * দ. আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট কোয়ারেন্টাইনে   * পুলিশ কর্মকর্তাকে খুন করলো মোরগ!   * বরিশালে দেড় বছরের মেয়ের গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে ধর্ষণ   * শক্তিশালী টাইফুনের কবলে ভিয়েতনাম, ২৬ জেলে নিখোঁজ   * করোনায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে সশস্ত্রবাহিনী: প্রধানমন্ত্রী   * ৩ দিনের রিমান্ডে ইরফান সেলিম ও তার বডিগার্ড   * গাজীপুরে ট্টেনের ইঞ্জিন লাইনচ্যুত, ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের যোগাযোগ বন্ধ   * হেলিকপ্টারে এমপি আবু জাহিরকে সিএমএইচে স্থানান্তর   * সৌদি কারাগারে নারী মানবাধিকার নেত্রীর আমরণ অনশন  

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ফের জার্মানি-ফ্রান্স লকডাউন হচ্ছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দ্বিতীয় দফা করোনা সংক্রমণে ইউরোপজুড়ে ফের বিধিনিষেধ জারি হয়েছে। লকডাউনের পরিকল্পনা করছে জার্মানি ও ফ্রান্স। নভেম্বরে মাসজুড়ে জারি হতে যাওয়া এই লকডাউনকে কিছুটা হালকা বলে অভিহিত করছে জার্মানি। এদিকে চার সপ্তাহ দেশ লকডাউনের পরিকল্পনা করা ফ্রান্স বলছে, পূর্বের মতো কঠোর হবে না।

বিবিসির এ খবর দিয়ে জানাচ্ছে, নতুন করে সংক্রমণের লাগাম টানতে বার, অবকাশযাপন কেন্দ্র ও হোটেল বন্ধ করা হবে কিনা এ নিয়ে রাজ্য পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। এ দিকে ফ্রান্সের লকডাউন সংক্রান্ত বিস্তারিত জানাতে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

প্রথম দফার চেয়ে দ্বিতীয় দফায় করোনার প্রকোপ বেশি। অবশ্য এখন নমুনা পরীক্ষাও হচ্ছে বেশি। এ দিকে ইউরোপের বেশিরভাগ দেশে জারি হয়েছে রাত্রীকালীন কারফিউ। বড়দিনে পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে মানুষের দেখা করতে দেয়ার ব্যাপারে জার্মান সরকার আগ্রহী হলেও দেশটিতে রেকর্ড সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

জার্মানির লকডাউন শুরু হবে ৪ নভেম্বর। নতুন লকডাউনে স্কুল খোলা থাকলেও দুই পরিবারের মধ্যে দেখা-সাক্ষাৎ সীমিত করা হবে। ভ্রমণের ওপর জারি হবে নিষেধাজ্ঞা। বন্ধ করে দেয়া হবে বার, পেক্ষাগৃহ, থিয়েটার, অবকাশযাপন ও শরীরচর্চা কেন্দ্র। রেস্তোরাঁ খোলা থাকবে, তবে তা থাকবে সীমিত সময়ের জন্য।

ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা পরিষদ ও মন্ত্রিসভা বুধবার চার সপ্তাহের লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু স্কুলগুলো খোলা থাকার কথাও শোনা যাচ্ছে। তবে প্রাপ্তবয়স্ক ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের অনলাইনে ক্লাস করার ব্যাপারে উৎসাহিত করা হবে বলে জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত থেকে নতুন লকডাউন কার্যকর হতে পারে।

মঙ্গলবার নতুন করে ফ্রান্সে করোনায় আক্রান্ত আরও ৫২৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে ২৩৫ জন আবাসিক কেন্দ্রগুলোতে। হাসপাতালে রোগী ভর্তি বৃদ্ধির কারণে সম্ভব হলে নতুন করে দেশে বৃহৎ পরিসরে লকডাউন নিষেধাজ্ঞা জারি করার অনুরোধ করেছে দেশটির হাসপাতাল ফেডারেশন।

দ্বিতীয় দফায় মহামারি করোনার সংক্রমণ নিয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে পড়েছে ফ্রান্স সরকার। প্রতিদিন অর্ধ লক্ষাধিক নতুন রোগী শনাক্ত হচ্ছে। আগামী আরও তা বাড়বে বলেই শঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। প্যারিসের হাসপাতালগুলোর জরুরি সেবা দেয়ার মতো শয্যাগুলোর ৭০ শতাংশ এখন পূর্ণ।

ফের জার্মানি-ফ্রান্স লকডাউন হচ্ছে
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দ্বিতীয় দফা করোনা সংক্রমণে ইউরোপজুড়ে ফের বিধিনিষেধ জারি হয়েছে। লকডাউনের পরিকল্পনা করছে জার্মানি ও ফ্রান্স। নভেম্বরে মাসজুড়ে জারি হতে যাওয়া এই লকডাউনকে কিছুটা হালকা বলে অভিহিত করছে জার্মানি। এদিকে চার সপ্তাহ দেশ লকডাউনের পরিকল্পনা করা ফ্রান্স বলছে, পূর্বের মতো কঠোর হবে না।

বিবিসির এ খবর দিয়ে জানাচ্ছে, নতুন করে সংক্রমণের লাগাম টানতে বার, অবকাশযাপন কেন্দ্র ও হোটেল বন্ধ করা হবে কিনা এ নিয়ে রাজ্য পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। এ দিকে ফ্রান্সের লকডাউন সংক্রান্ত বিস্তারিত জানাতে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

প্রথম দফার চেয়ে দ্বিতীয় দফায় করোনার প্রকোপ বেশি। অবশ্য এখন নমুনা পরীক্ষাও হচ্ছে বেশি। এ দিকে ইউরোপের বেশিরভাগ দেশে জারি হয়েছে রাত্রীকালীন কারফিউ। বড়দিনে পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে মানুষের দেখা করতে দেয়ার ব্যাপারে জার্মান সরকার আগ্রহী হলেও দেশটিতে রেকর্ড সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

জার্মানির লকডাউন শুরু হবে ৪ নভেম্বর। নতুন লকডাউনে স্কুল খোলা থাকলেও দুই পরিবারের মধ্যে দেখা-সাক্ষাৎ সীমিত করা হবে। ভ্রমণের ওপর জারি হবে নিষেধাজ্ঞা। বন্ধ করে দেয়া হবে বার, পেক্ষাগৃহ, থিয়েটার, অবকাশযাপন ও শরীরচর্চা কেন্দ্র। রেস্তোরাঁ খোলা থাকবে, তবে তা থাকবে সীমিত সময়ের জন্য।

ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা পরিষদ ও মন্ত্রিসভা বুধবার চার সপ্তাহের লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু স্কুলগুলো খোলা থাকার কথাও শোনা যাচ্ছে। তবে প্রাপ্তবয়স্ক ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের অনলাইনে ক্লাস করার ব্যাপারে উৎসাহিত করা হবে বলে জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত থেকে নতুন লকডাউন কার্যকর হতে পারে।

মঙ্গলবার নতুন করে ফ্রান্সে করোনায় আক্রান্ত আরও ৫২৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে ২৩৫ জন আবাসিক কেন্দ্রগুলোতে। হাসপাতালে রোগী ভর্তি বৃদ্ধির কারণে সম্ভব হলে নতুন করে দেশে বৃহৎ পরিসরে লকডাউন নিষেধাজ্ঞা জারি করার অনুরোধ করেছে দেশটির হাসপাতাল ফেডারেশন।

দ্বিতীয় দফায় মহামারি করোনার সংক্রমণ নিয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে পড়েছে ফ্রান্স সরকার। প্রতিদিন অর্ধ লক্ষাধিক নতুন রোগী শনাক্ত হচ্ছে। আগামী আরও তা বাড়বে বলেই শঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। প্যারিসের হাসপাতালগুলোর জরুরি সেবা দেয়ার মতো শয্যাগুলোর ৭০ শতাংশ এখন পূর্ণ।

নাটকীয় পরিবর্তনে টেক্সাসে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে বাইডেন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : একদিনের ব্যবধানেই অন্যতম ব্যাটলগ্রাউন্ড রাজ্য টেক্সাসে জয়ের আভাস পাচ্ছেন বিরোধী প্রার্থী জো বাইডেন।

রেকর্ড পরিমাণ আগাম ভোটের কারণে রাজ্যটিতে ডেমোক্রেটিক পার্টির জয়ের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, সোমবারই ইউএসএ টুডের এক জনমত জরিপে বলা হয়, টেক্সাসে বাইডেনের চেয়ে ১.৭ পয়েন্ট নিয়ে এগিয়ে রয়েছে ট্রাম্প।

মঙ্গলবারই আরেক জরিপে বলা হয়েছে, আগাম ভোটের হিসেবে ট্রাম্পের চেয়ে অনেকটা এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে সবার চোখ এখন ব্যাটলগ্রাউন্ড তথা দোদুল্যমান রাজ্যগুলোতে। এখন পর্যন্ত সব জনমত জরিপ মতে, ১২টি দোদুল্যমান রাজ্যের মধ্যে অন্তত ১০টিতেই এগিয়ে রয়েছেন।

এর মধ্যে পেনসিলভানিয়া, মিশিগান ও উইসকনসিনে সবচেয়ে বেশি ব্যবধানে। এই তিন রাজ্যের পাশাপাশি নতুন করে আলোচনায় এসেছে ৩৮ ইলেক্টোরাল কলেজের টেক্সাস।

জনমত জরিপে নাটকীয়ভাবে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী বাইডেন এগিয়ে। এটি রিপাবলিকান অধ্যুষিত রাজ্য হিসেবেই খ্যাত।

টেক্সাসকে রিপাবলিকানদের ঘাঁটি বলা হয়। ১৯৭৬ সালের পর এখন পর্যন্ত জয় পাননি কোনো ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী।

কিন্তু ভোটের মাত্র আট দিন আগে প্রকাশিত এক জরিপে দেখা যায়, বাইডেন এখানে ট্রাম্পের চেয়ে তিন পয়েন্টে এগিয়ে গেছেন।

ডালাস মর্নিং নিউজ এবং ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস ও টাইলার পরিচালিত জনমত জরিপে দেখা গেছে, সম্ভাব্য ভোটারদের মধ্যে ৪৮ শতাংশ বাইডেনকে সমর্থন জানিয়েছেন। বিপরীতে ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন ৪৫ শতাংশ।

নির্বাচনী প্রচারের শেষ সপ্তাহে এসে ডেমোক্র্যাট প্রচারশিবির তাদের প্রচার কৌশলে পরিবর্তন এনেছে। দোদুল্যমান রাজ্যগুলোতেই সর্বশক্তি নিয়োগ করার পাশাপাশি ডেমোক্র্যাটদের নতুন টিভি প্রচার শুরু হয়েছে।

আইওয়া, টেক্সাস, জর্জিয়া এবং ওহাইওতে ডেমোক্রেটিক দলের ব্যাপক প্রচারে রিপাবলিকান শিবির অনেকটাই উৎকণ্ঠিত। কারণ তাদের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত রাজ্যে হানা দিচ্ছে ডেমোক্রেটিক দল।

শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে এরদোয়ানের মামলা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ফ্রান্সের সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোয়ান। নিজের আপত্তিকর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করায় ম্যাগাজিনটির বিরুদ্ধে বুধবার তিনি ফৌজদারি মামলা দায়ের করেন।

তুর্কি সংবাদমাধ্যম ইয়েনি শাফাকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আঙ্কারার প্রসিকিউটরের কাছে এ অভিযোগটি জমা দেয়া হয়েছে।

এরদোগানের আইনজীবী হুসেই আদিন জানিয়েছেন, এরদোয়ান তার বিরুদ্ধে ঘৃণ্য কার্টুনের অভিযোগ এনে ম্যাগাজিনটির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এতে আসামি করা হয়েছে ম্যাগাজিন কর্তৃপক্ষ ও কার্টুনিস্টকে।

এর আগে আঙ্কারার প্রসিকিউটরও শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে দেশের প্রেসিডেন্টকে অপমানের জন্য মামলা করা করেন।

শার্লি হেবদো ম্যাগাজিনের কাভারে এরদোয়ানের যে কার্টুন ছেপেছে সেখানে, হিজাবপরা একজন নারীর সঙ্গে এরদোয়ানকে অশালীন অবস্থায় দেখানো হয়েছে।

এর আগে মহানবী হজরত মোহাম্মদকে (সা.)কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করে শার্লি হেবদো। এর কড়া সমালোচনা করেন এরদোয়ান। বিষয়টি নিয়ে ফ্রান্স ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

দ. আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট কোয়ারেন্টাইনে
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কিছুদিন আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার আগে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যুমুখ থেকে কোনওমতে ফিরে এসেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। আক্রান্ত হয়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারোসহ বিভিন্ন দেশের বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতা। সংক্রমণের ঝুঁকি থাকায় কোয়ারেন্টাইনে গিয়েছেন আরও অনেকে।

এবার এ তালিকায় যোগ হলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সাইরিল রামাফোসা। শরীরে এখনও করোনা ধরা না পড়লেও ঝুঁকি বিবেচনায় সেলফ-কোয়ারেন্টাইনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে দক্ষিণ আফ্রিকান প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানিয়েছে, রামাফোসার শরীরে কোনও উপসর্গ নেই। তিনি কোয়ারেন্টাইনে থেকেই প্রয়োজনীয় কাজ চালিয়ে যাবেন।

জানা গেছে, গত শনিবার অ্যাডপ্ট-এ-স্কুল ফাউন্ডেশনের আয়োজনে জোহানেসবার্গের একটি হোটেল তহবিল সংগ্রহের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকান প্রেসিডেন্ট।

সেখানে রাতের খাবারের আয়োজনে অংশ নেন মোট ৩৫ জন অতিথি। এর মধ্যে একজন অনুষ্ঠানের পরেরদিনই অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং পরে টেস্টে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন।

প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানিয়েছে, অনুষ্ঠানে স্ক্রিনিং, সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক পরার মতো করোনা সতর্কতাগুলো কঠোরভাবে অনুসরণ করা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট নিজেও শুধু খাদ্যগ্রহণ ও বক্তব্য দেয়ার সময় মাস্ক খুলেছিলেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শিগগিরই রামাফোসার শারীরিক নমুনা পরীক্ষা করা হবে। তিনি আপাতত কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

আফ্রিকা মহাদেশে সবচেয়ে বেশি করোনাভাইরাস সংক্রমণের শিকার দক্ষিণ আফ্রিকা। দেশটিতে এ পর্যন্ত সাত লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত এবং ১৯ হাজারের বেশি প্রাণ হারিয়েছেন।

করোনা নিয়ন্ত্রণে দক্ষিণ আফ্রিকায় বিশ্বের অন্যতম কঠোর লকডাউন জারি করেছিলেন প্রেসিডেন্ট রামাফোসা। তবে কিছুদিন পরে সেগুলো তুলে নিয়েছেন তিনি।

সূত্র: বিবিসি, ওয়ার্ল্ডোমিটার

পুলিশ কর্মকর্তাকে খুন করলো মোরগ!
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ফিলিপাইনের নর্দার্ন সামার প্রদেশে অবৈধ মোরগ লড়াই বন্ধে অভিযান পরিচালনার সময় মোরগের পায়ে বাঁধা ধারাল অস্ত্রের আঘাতে পুলিশের এক কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। বুধবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ফিলিপাইনে ব্যাপক জনপ্রিয় মোরগ লড়াই বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় দেশটির সরকার। কিন্তু সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে নর্দার্ন সামারে মোরগ লড়াইয়ের আয়োজন করা হলে পুলিশের কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ক্রিস্টিন বোলোক সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন।

ফিলিপাইনে জনপ্রিয় এই লড়াইয়ে মোরগের পায়ে স্টিলের ধারাল এবং তীক্ষ্ণ ব্লেড বেঁধে দেয়া হয়। দুর্ঘটনাবশত লড়াইরত একটি মোরগ ক্রিস্টিনের বাম উরু ও ধমনীতে আঘাত করে। পরে সেখান থেকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দেশটির সরকারি সংবাদ সংস্থা দ্য ফিলিপাইন নিউজ অ্যাজেন্সি (পিএনএ) বলছে, মহামারির আগে ফিলিপাইনে শুধুমাত্র প্রতি রোববার এবং সরকারি ছুটির দিনের পাশাপাশি স্থানীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠান যেগুলো তিনদিন ধরে চলে; সেখানে এই মোরগ লড়াইয়ের অনুমতি ছিল।

নর্দার্ন সামার প্রদেশের পুলিশের প্রধান কর্নেল আর্নেল অপুদ ফরাসী বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, দুর্ঘটনাটি দুর্ভাগ্যবশত ঘটেছে। এটি দুর্ভাগ্যজনক। আমি এর ব্যাখ্যা করতে পারি না।

তিনি বলেন, এটি প্রথমে যখন আমি জানতে পারি; তখন বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। আমার পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে ২৫ বছরের চাকরিকালীন মোরগ লড়াইয়ের কারণে প্রথমবারের মতো একজনকে হারালাম।

পিএনএ বলছে, পুলিশের প্রাদেশিক এই প্রধান নিহত পুলিশ সদস্যের পরিবারের প্রতি `গভীর সহানুভূতি` জানিয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে দু`টি দলের অন্তত তিনজন সদস্য ও সাতটি মোরগ ও ৫৫০ ফিলিপিনো পেসো জব্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা। এছাড়া আরও তিনজনকে খুঁজছে পুলিশ।

শক্তিশালী টাইফুনের কবলে ভিয়েতনাম, ২৬ জেলে নিখোঁজ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভিয়েতনামে আঘাত হেনেছে শক্তিশালী টাইফুন ‘মোলাভি’। সেন্ট্রাল ভিয়েতনামে আঘাত হানা এ টাইফুনে কমপক্ষে দু`জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া উত্তাল সাগরে নৌকাডুবে ২৬ জেলে নিখোঁজের খবর পাওয়া গেছে।

এটিকেদ গত ২০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী টাইফুন আখ্যা দিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন।

ভিয়েতনামের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানায়, বুধবার (২৮ অক্টোবর) দক্ষিণ-মধ্য নাগাই প্রদেশের ঘণ্টায় ১৫০ কিলোমিটার গতিবেগে আঘাত হানে টাইফুন। এর আগে সামুদ্রিক ঝড়টি বিন দিন প্রদেশে আঘাত হানলে ২৬ জেলে নিখোঁজ হন।

তাদের সন্ধানে নৌ-বাহিনীর দুটি উদ্ধারকারী নৌকা অভিযান চালাচ্ছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় টাইফুনের ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে ৪০ হাজার মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয় নেয়া হয়েছে।

টাইফুনের আঘাতে বহু গাছ-পালা উপড়ে গেছে। নিচু এলাকায় পানিতে তলিয়ে যাওয়া ব্যাহত হচ্ছে উদ্ধার কাজ। বিভিন্নস্থানে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে গেছে।

দুর্ঘটনা এড়াতে বাতিল করা হয়েছে ২`শ ফ্লাইট। সেই সঙ্গে পাঁচটি বিমানবন্দর বন্ধ করে দেয়া হয়েছ। এছাড়া আবহাওয়া উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকার ঘোষণা দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় ঘরে ঘরে গিয়ে খবর নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

সৌদি কারাগারে নারী মানবাধিকার নেত্রীর আমরণ অনশন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সৌদি আরবের কারাগারে দেশটির প্রখ্যাত নারী মানবাধিকারকর্মী লুজাইন আল-হাসুল আমরণ অনশন শুরু করেছেন। ২০১৮ সাল থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

কারাগারে বন্দি থাকাবস্থায় তাকে কোনো ফোনকল রিসিভ করতে দেয়া হয় না এবং পরিবারের লোকজন তার সঙ্গে দেখা করতে পারেন না। এরই প্রতিবাদে লুজাইন অনশন শুরু করেছেন। খবর এএফপি, রয়টার্স ও ফ্রান্স২৪ডটকমের।

তার বোন লিনা আল-হাসুল গণমাধ্যমকে মঙ্গলবার জানান, সোমবার থেকে লুজাইন অনশন শুরু করেছেন। তাকে পরিবারের লোকজনের সঙ্গে ফোনে কথা বলতে দেয়া হয় না, এমনকি দেখাও করতে দেয় না সৌদি কর্তৃপক্ষ। তার সঙ্গে সরকার খুবই বাজে ব্যবহার করছে।

এর আগে গত আগস্ট মাসে লুজাইন ছয় দিনের জন্য অনশন করেন। সে সময় তাকে দিনে পরিবারের লোকজনের একটি মাত্র ফোনকল রিসিভ করার অনুমতি ছিল এবং ছয় মাসে দুজন পারিবারিক সদস্য তার সঙ্গে দেখা করতে পারতেন।

কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্র্যাজুয়েট করা ৩১ বছর বয়সী লুজাইনকে আটক করে রাজধানী রিয়াদের আল-হেয়ার কারাগারে রাখা হয়েছে।

তিনি নারীদের ওপর থেকে গাড়ি চালানোর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার আন্দোলনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেত্রী ছিলেন। ২০১৪ সালেও তিনি ৭০ দিনের জন্য আটক হয়েছিলেন।

ট্রাম্প একজন যোদ্ধা : মেলানিয়া
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বেশিদিন বাকি নেই। আগামী ৩ নভেম্বর নির্বাচনে মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন।

এবারের নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো অংশ নিচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। নির্বাচনের আগে ট্রাম্প এবং বাইডেন জোরেসোরেই প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে, স্বামীর পক্ষে সমর্থন চেয়ে প্রচারণায় নেমেছেন মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় ট্রাম্পের পক্ষে ভোট চেয়ে মেলানিয়াকে অনেক বেশি প্রচারণা চালাতে দেখা গেলেও এ বছরের চিত্র কিছুটা ভিন্ন।

সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, মেলানিয়া, তাদের ছেলে ব্যারন এবং হোয়াইট হাউসের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই মেলানিয়াকে জনসমাগম এড়িয়ে চলতে দেখা গেছে। যদিও এ বিষয়ে কোনো পাত্তাই দেননি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

তবে মঙ্গলবার ট্রাম্পের হয়ে তাকে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে দেখা গেছে। করোনা থেকে সেরে ওঠার পর প্রথম তিনি বিভিন্ন সমাবেশে অংশ নিলেন। নির্বাচনী প্রচারণায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রশংসা করে মেলানিয়াকে বলতে শোনা গেছে, ট্রাম্প একজন যোদ্ধা এবং তিনি করোনা মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা দিচ্ছেন।

পেনসিলভানিয়ায় ট্রাম্পের সমর্থকদের উদ্দেশে ৫০ বছর বয়সী মেলানিয়া বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প একজন যোদ্ধা। তিনি তার দেশকে ভালোবাসেন এবং তিনি প্রত্যেকটা দিন যুদ্ধ করে যাচ্ছেন। নির্বাচনে ওই অঙ্গরাজ্য ট্রাম্পের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। সেখানে বাইডেনের সঙ্গে তার তীব্র লড়াই হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমার পরিবারের কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়ার পর আপনারা যেভাবে ভালোবাসা ও সমর্থন দেখিয়েছেন সেজন্য সবাইকে ধন্যবাদ। আমরা এখন আগের চেয়ে অনেকটাই ভালো অনুভব করছি।

চলতি বছর যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণে ২ লাখ ২৫ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের কথা স্মরণ করে তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছেন মেলানিয়া ট্রাম্প।

তিনি বলেন, আমি জানি এখানে অনেক মানুষ আছেন যারা এই নীরব শত্রুর (করোনাভাইরাস) কারণে তাদের প্রিয়জন বা পরিচিত মানুষকে হারিয়েছেন। তাদের এই দুঃসময়ে আমার পরিবারের প্রার্থনা ও সমবেদনা রইল। এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে জয়লাভের আশা ব্যক্ত করেছেন মেলানিয়া।

ট্রাম্পের সঙ্গে অনেক বিষয়ে দ্বিমত প্রসঙ্গে মেলানিয়া বলেন, তিনি যেভাবে বিভিন্ন বিষয় বলেন অনেক সময় আমি তার সঙ্গে একমত থাকি না। কিন্তু তিনি যাদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন তাদের সঙ্গে সরাসরি বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলাটা তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

সপ্তাহের ব্যবধানে ইউরোপে মৃত্যু বেড়েছে ৪০ শতাংশ
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইউরোপে করোনা সংক্রমণে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে গেছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে ইউরোপের দেশগুলোতে মৃত্যুহার ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। খবর বিবিসির।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মুখপাত্র ডা. মার্গারেট হ্যারিস বলেন, ইউরোপে সংক্রমণের অধিকাংশই ফ্রান্স, স্পেন, যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস এবং রাশিয়ায়। হাসপাতালগুলোতে রোগীর ভিড় বাড়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে ডা. মার্গারেট হ্যারিস বলেন, উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে... বিভিন্ন হাসপাতালে বেশি অসুস্থ লোকজনকে ইন্টেন্সিভ কেয়ারে নেওয়া হচ্ছে। ফলে ইন্টেন্সিভ কেয়ারেও জায়গা হচ্ছে না।

রাশিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২৬ হাজার ৫৮৯ জন।

ইতালিতেও করোনায় মৃত্যু বেড়ে গেছে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মারা গেছে ২২১ জন। ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান বলছে, দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৩৭ হাজার ৭শ জন।

অস্ট্রিয়ায় মঙ্গলবার মৃত্যুর সংখ্যা এক হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এদিকে, করোনা সংক্রমণে বিশ্বে ৪র্থ অবস্থানে থাকা রাশিয়ায় মঙ্গলবার নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে আরও ১৬ হাজার ৫৫০ জন। ফলে কর্তৃপক্ষ নতুন করে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। দেশটিতে সব ধরনের জনাকীর্ণ স্থানে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

সংক্রমণ বাড়ছে ইতালিতেও। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে আরও ২২ হাজার মানুষ। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, করোনার পরীক্ষা-নিরীক্ষাও বাড়ানো হয়েছে।

সংক্রমণ বাড়ায় দেশজুড়ে নতুন করে বিধি-নিষেধ আরোপ করতে বাধ্য হয়েছে ইতালি সরকার। এদিকে সোমবার সন্ধ্যা থেকে নতুন বিধি-নিষেধের বিপক্ষে ইতালির বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ-প্রতিবাদে অংশ নিয়েছে হাজার হাজার মানুষ।

মঙ্গলবার ফ্রান্সে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৩৩ হাজার ৪১৭ জন এবং মারা গেছে ৫২৩ জন। দেশটিতে গত এপ্রিলের পর এটাই একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা।

এদিকে, বেলজিয়ামেও নতুন করে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। ফলে হাসপাতালগুলোতেও এর প্রভাব দেখা যাচ্ছে। দেশটির এক চতুর্থাংশ মেডিকেল স্টাফ বর্তমানে কোভিড-১৯ সংক্রমণে ভুগছেন। দেশটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ৬৮৭ এবং ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ৮৯ জন।

বেলজিয়ামের ১০টি হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ তাদের স্টাফদের কাজ চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। করোনায় আক্রান্ত যেসব স্টাফের দেহে করোনার লক্ষণ দেখা যায়নি তাদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

পুরো ইউরোপজুড়েই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। ফলে অনেক দেশই এখন আবার নতুন করে কড়াকড়ি ও বিধি-নিষেধ জারি করতে বাধ্য হয়েছে। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে রেস্টুরেন্ট-বার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কারফিউ ও জরুরি অবস্থাও জারি করেছে বেশ কিছু দেশ।

ম্যাক্রোঁকে মুসলিম বিশ্বের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদকে (সা.) অবমাননা করে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর দেওয়া বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে লিবিয়া। দেশটির জাতীয় ঐক্যমত্যের সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে অবিলম্বে ম্যাক্রোঁকে বিশ্ব মুসলিমের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

লিবিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মুহাম্মাদ আল-কাবলাবি সোমবার ত্রিপোলিতে এক বিবৃতিতে বলেন, ম্যাক্রোঁর ইসলামি অবমাননাকর বক্তব্যে তার প্রতি মানুষের ঘৃণা বেড়েছে। তিনি দেশে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের লক্ষ্যে এ ধরনের বক্তব্য দিয়েছেন।

লিবিয়ার এই মুখপাত্র ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতের পক্ষ থেকে ২০১৮ সালে দেয়া এক রায়ের কথা উল্লেখ করেন যেখানে বলা হয়েছে, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর অবমাননা বাক স্বাধীনতার মধ্যে পড়ে না। তিনি এই উসকানিমূলক বক্তব্য প্রত্যাহার করে বিশ্ব মুসলিমের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করার জন্য ম্যাক্রোঁর প্রতি আহ্বান জানান।

এর আগে লিবিয়া সরকারের সর্বোচ্চ পরিষদ ম্যাক্রোঁর ইসলাম অবমাননাকর বক্তব্যের প্রতিবাদে ফ্রান্সের বিভিন্ন কোম্পানিকে লিবিয়া থেকে বহিস্কারের আহ্বান জানায়। একই সঙ্গে লিবিয়ায় আরও যেসব ফরাসি কোম্পানি কাজ করছে তাদের সঙ্গেও চুক্তি বাতিল করার আহ্বান জানিয়েছে এই পরিষদ।

গত ১৬ অক্টোবর প্যারিসের উপকণ্ঠে দেশটির এক স্কুল শিক্ষকের শিরশ্ছেদ করে ১৮ বছর বয়সী এক কিশোর। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর বিতর্কিত কার্টুন শিক্ষার্থীদের প্রদর্শনের কারণে ক্ষুব্ধ ওই কিশোর স্কুল শিক্ষককে হত্যা করেন।

পরে ফ্রান্সের সরকার ওই স্কুল শিক্ষককে দেশটির সর্বোচ্চ মরণোত্তর পদকে ভূষিত এবং বিভিন্ন ভবনের গায়ে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর বিতর্কিত সেই কার্টুনের প্রদর্শন শুরু করে। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এই কার্টুনের প্রদর্শনের ব্যবস্থার নির্দেশ দেন।

ফরাসি পত্রিকা শার্লি এবদোও সম্প্রতি মানবতার মুক্তির দূত বিশ্বনবী (সা.)-এর অবমাননাকর কার্টুনগুলো পুনর্মুদ্রণ করেছে। ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ সব ধরনের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও কূটনৈতিক রীতিনীতি ভুলে ঘোষণা করেছেন যে, তার দেশে এ ধরনের কার্টুন প্রকাশ অব্যাহত থাকবে।

ফরাসি প্রেসিডেন্টের এমন ইসলাম অবমাননাকর বক্তব্যের বিরুদ্ধে মুসলিম বিশ্ব ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। বিভিন্ন মুসলিম দেশ ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে এবং ম্যাক্রোঁকে তার ইসলাম-বিদ্বেষী বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

করোনা মহামারী নিয়ে যা বললেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভ্যাকসিন নিয়ে জাতীয়তাবাদী মনোভাব পোষণ করলে মহামারী শেষ হবে না। বরং আরও দীর্ঘস্থায়ী হবে। করোনাভাইরাসে ভ্যাকসিন নিয়ে বিশ্ববাসীকে এভাবেই সতর্ক করলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রধান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান ড. টেড্রস অ্যাডহানম গেব্রেইয়েসুস।

ভ্যাকসিন বিতরণ নিয়ে সহজ পন্থার পরামর্শ দিলেন তিনি। তার মতে, এটা খুবই স্বাভাবিক যে, ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত হলে প্রত্যেক দেশের নেতা চাইবেন নিজের দেশের মানুষদের সবার আগে ভ্যাকসিন বিতরণ করতে।

এসময় তিনি জানান, কিন্তু মহামারীর হাত থেকে বাঁচার জন্য সঠিক রাস্তা এটা নয়। কিছু দেশের সব নাগরিকের মধ্যে না বিলিয়ে সব দেশের কিছু মানুষের মধ্যে বিতরণ করা উচিত। সকলে মিলে একসঙ্গে হাতে হাত ধরে না কাজ করলে এই মহামারীকে শেষ করা যাবে না।

ভারতীয় জেলেদের পেটাল শ্রীলংকার নৌবাহিনী
                                  

অনলাইন ডেস্ক : একটি ভারতীয় জেলে দলকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে শ্রীলংকার নৌবাহিনীর বিরুদ্ধে। সোমবার রাতে কলম্বোর আঞ্চলিক জলসীমায় অনধিকার প্রবেশের অভিযোগে তাদের ওপর হামলা করা হয়। এতে এক জেলে আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। তবে জেলেরা দাবি করেছে, তারা লংকান জলসীমায় যাননি।তাদের ওপর পাথর নিক্ষেপ এবং তাদের জাল ছিড়ে ফেলা হয়েছে।

এক সিনিয়র কর্মকতা এনডিটিভিকে জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। তবে এ ঘটনায় তদন্ত চলছে। তিনি বলেন, সব জেলেরা তীরে ফিরে এসেছে। কেউই অভিযোগ করেনি। আহত জেলে রমেসওয়ারাম তামিল নাডুর বাসিন্দা।

হাজী সেলিমপুত্র ইরফানকে ৭ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ, শুনানি বুধবার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের পুত্র ইরফান সেলিমকে সাতদিনের রিমান্ডে চেয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে এ আবেদন করেছে পুলিশ। বুধবার এ আবেদনের বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে সোমবার এই মামলায় গ্রেফতার হন- ইরফান সেলিম, তার দেহরক্ষী মো. জাহিদ ও গাড়িচালক মিজানুর রহমান। আর দিনগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে টাঙ্গাইল শহরে এক বন্ধুর বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় দিপুকে।

এই মামলার আরেক আসামি ইরফানের গাড়িচালক মিজানুর গ্রেফতারের পর রিমান্ডে রয়েছেন। সূত্র: যুগান্তর

ওবামা ও বাইডেনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তায় সবচেয়ে বড় বিপদ চীন। পেন্সিল্ভেনিয়ার বৃহত্তম এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৫ম জনবহুল শহর ফিলাডেলফিয়াতে একটি অনুষ্ঠানে এ কথাই বললেন জাতিসংঘের সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিক্কি হেলি।

মার্কিন নির্বাচনকে সামনে রেখে ট্রাম্পের হয়ে প্রচার চালাচ্ছেন দক্ষিণ ক্যারোলিনার দু`বারের গভর্নর। নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নিক্কি জানান, বেইজিং যাতে যুক্তরাষ্ট্রের মেধা সম্পত্তি চুরি করতে না পারে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট সেই ব্যবস্থাই করেছেন।

তিনি বলেন, চীনকে বিশেষ নজরে রেখেছেন ট্রাম্প। চীনের সঙ্গে বাণিজ্য চুক্তি করে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য শুধু লাভের রাস্তা খুলে দেওয়াই নয়, চীন যাতে যুক্তরাষ্ট্রের মেধা সম্পত্তি চুরি করতে না পারে, তার জন্য যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর এখন চীন আর নজরদারি চালাতে পারবেনা। আর যদি সেরকম কিছু হয়, তাহলে তার জন্য চীনই দায়ী থাকবে।‌

এদিন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও তৎকালীন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগ আনেন হেলি। তিনি বলেন, ‌আগের প্রশাসন সন্ত্রাসবাদে মদত দিতে কোটি কোটি টাকা খরচ করেছে। ইয়েমেন, লেবানন, সিরিয়া, ইরাকে টাকা ঢেলেছে তারা।‌

সিরিয়ায় রাশিয়ার বিমান হামলায় নিহত ৫০
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে রাশিয়ার বিমান হামলায় তুরস্ক সমর্থিত ৫০ জনের বেশি মিলিশিয়া যোদ্ধা নিহত হয়েছে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিব প্রদেশে ওই হামলা চালানো হয়েছে।

ওই হামলায় আরও বহু মানুষ আহত হয়েছে। রাশিয়ার ওই হামলার কারণে ওই অঞ্চলে সহিংসতা আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ফায়লাক আল-শাম নামের একটি ইসলামিস্ট গ্রুপের প্রশিক্ষণ ঘাঁটি লক্ষ্য করে ওই হামলা চালানো হয়েছে। এই হামলার ফলে রাশিয়া ও তুরস্কের মধ্যস্থতা ও পর্যবেক্ষণে ইদলিবে যে যুদ্ধবিরতি চলছিল তা লঙ্ঘন করা হলো।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, ওই হামলায় অন্তত ৭৮ জন নিহত হয়েছে।

সংস্থাটি বলছে, হামলায় আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।

সংস্থাটির পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে যে, গত মার্চ মাসে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার পর ইদলিবের উত্তর-পশ্চিমের হারেম অঞ্চলে এই হামলা এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ভয়াবহ।

ওই ‍যুদ্ধবিরতির পর ইদলিবে হামলা বন্ধ রাখে সিরিয়ার সরকারি বাহিনী। এর ফলে ওই অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ ছিল তুরস্ক সমর্থিত মিলিশিয়াদের হাতে। ওই অঞ্চলে যুদ্ধ-সংঘাতের কারণে ১০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুহারা হয়ে পড়েছে।

এদিকে যুদ্ধবিরতি ঘোষণার পর তুরস্ক জানায়, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের মিত্ররা কোনও হামলা চলালে `পুরো শক্তি দিয়ে পাল্টা জবাব` দেয়ার অধিকার রাখে আঙ্কারা। বিদ্রোহী ও জিহাদিদের শেষ ঘাঁটি হচ্ছে ইদলিব।

ইরানের তেলমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এবার ইরানের তেলমন্ত্রী বিজান নামদার জানগেনেহের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। জানগেনেহ ছাড়াও আরও কয়েকজন ব্যক্তি ও কোম্পানির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়।

সোমবার সন্ধ্যায় মার্কিন মন্ত্রণালয় ইরানের যেসব প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে ইরানের তেল মন্ত্রণালয় ও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান এবং দেশটির তেলমন্ত্রী।

আগামী ৩ নভেম্বরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সামনে রেখে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণার কাজে ব্যবহার করার উদ্দেশ্যে এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা।

মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় একই সঙ্গে সম্প্রতি ভেনেজুয়েলার কাছে ইরানি তেল বিক্রির ঘটনায় জড়িত কয়েকজন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান ও ইরানের জাহাজ চলাচল সংস্থাকেও এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় এনেছে।

মার্কিন অর্থমন্ত্রী স্টিফেন মুচিন দাবি করেছেন, ইরান তার তেল বিক্রির অর্থ ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসির কথিত অস্থিতিশীলতা সৃষ্টিকারী তৎপরতায় কাজে লাগাচ্ছে।

মার্কিন সরকার ২০১৮ সালের মে মাসে পাশ্চাত্যের সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে তেহরানের ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করে।

ট্রাম্প প্রশাসনের এই আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনকারী পদক্ষেপের বিরুদ্ধে বিশ্বের বহু দেশ প্রতিক্রিয়া জানায়। কিন্তু ওয়াশিংটন এখন পর্যন্ত তার নিষেধাজ্ঞা আরোপের নীতি অনুসরণ করে যাচ্ছে।


   Page 1 of 201
     আন্তর্জাতিক
ফের জার্মানি-ফ্রান্স লকডাউন হচ্ছে
.............................................................................................
নাটকীয় পরিবর্তনে টেক্সাসে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে বাইডেন
.............................................................................................
শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে এরদোয়ানের মামলা
.............................................................................................
দ. আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট কোয়ারেন্টাইনে
.............................................................................................
পুলিশ কর্মকর্তাকে খুন করলো মোরগ!
.............................................................................................
শক্তিশালী টাইফুনের কবলে ভিয়েতনাম, ২৬ জেলে নিখোঁজ
.............................................................................................
সৌদি কারাগারে নারী মানবাধিকার নেত্রীর আমরণ অনশন
.............................................................................................
ট্রাম্প একজন যোদ্ধা : মেলানিয়া
.............................................................................................
সপ্তাহের ব্যবধানে ইউরোপে মৃত্যু বেড়েছে ৪০ শতাংশ
.............................................................................................
ম্যাক্রোঁকে মুসলিম বিশ্বের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান
.............................................................................................
করোনা মহামারী নিয়ে যা বললেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান
.............................................................................................
ভারতীয় জেলেদের পেটাল শ্রীলংকার নৌবাহিনী
.............................................................................................
হাজী সেলিমপুত্র ইরফানকে ৭ দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ, শুনানি বুধবার
.............................................................................................
ওবামা ও বাইডেনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগ
.............................................................................................
সিরিয়ায় রাশিয়ার বিমান হামলায় নিহত ৫০
.............................................................................................
ইরানের তেলমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিনই বাড়ছে সংক্রমণ
.............................................................................................
এবার ফরাসি পণ্য বয়কটের ডাক দিলেন এরদোয়ান
.............................................................................................
ক্ষমতা ছাড়ছেন না থাই প্রধানমন্ত্রী, বিক্ষোভ অব্যাহত
.............................................................................................
ইতালিতে করোনা ঠেকাতে সিনেমা হল জিম আবার বন্ধ !
.............................................................................................
চীন সীমান্তে ৪৭টি নতুন সেনাচৌকি বসাচ্ছে ভারত
.............................................................................................
ইসরায়েলের সঙ্গে সুদানের সম্পর্ক, কয়েকশো মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে সৌদি
.............................................................................................
৫০ বছরে ইউরোপে ইহুদি কমেছে ৬০ শতাংশ
.............................................................................................
ফরাসি প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে এবার মুখ খুললেন ইমরান খান
.............................................................................................
১ নভেম্বর থেকে ওমরাহ করতে পারবেন বিদেশি মুসল্লিরা
.............................................................................................
স্যামসাংয়ের চেয়ারম্যান লি কুন হির মৃত্যু
.............................................................................................
বিক্রি হয়ে যাচ্ছে কোকা-কোলা
.............................................................................................
এবার করোনা জয় করলেন ৯৯ বছরের বৃদ্ধা
.............................................................................................
কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১৮
.............................................................................................
মালয়েশিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি করতে আলোচনায় বসবেন রাজা
.............................................................................................
ঘানায় গির্জা ধসে শিশুসহ কমপক্ষে ২২ জন নিহত
.............................................................................................
বিশ্বজুড়ে চার কোটি ২৪ লাখ ছাড়াল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা
.............................................................................................
মৃত করোনা রোগীর ফুসফুস বলের মতো শক্ত, বিস্মিত চিকিৎসকরা
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৭৭ হাজারের বেশি
.............................................................................................
মাস্ক খুললেই করোনার ঝুঁকি বাড়ে ২৩ গুণ
.............................................................................................
আজারবাইজানের সেনাবাহিনী দখলমুক্ত করল ১৩ গ্রাম
.............................................................................................
মুম্বাইয়ে শপিংমলে ভয়াবহ আগুন
.............................................................................................
বিশ্বে করোনা রোগী ৪ কোটি ১৯ লাখ ছাড়িয়েছে
.............................................................................................
তাইওয়ানের কাছে ক্ষেপণাস্ত্র-আর্টিলারি বিক্রি করবে যুক্তরাষ্ট্র
.............................................................................................
মার্কিন মন্তব্যের প্রতিবাদে সুইস রাষ্ট্রদূতকে তলব করল ইরান
.............................................................................................
বাংলাদেশের ভ্যাকসিন নিতে আগ্রহী নেপাল
.............................................................................................
যুক্তরাজ্যে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড
.............................................................................................
আগাম ভোটে এগিয়ে বাইডেন
.............................................................................................
সৌদি রাজপুত্রের মৃত্যু
.............................................................................................
বায়ু দূষণে ২০১৯ সালে ৬৭ লাখ প্রাণহানি : গবেষণা
.............................................................................................
দ্বিতীয় নারী রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দিল সৌদি আরব
.............................................................................................
রাতভর তুমুল যুদ্ধ, নতুন এলাকা মুক্ত করল আজারবাইজান
.............................................................................................
পাকিস্তানের ভিসা আবেদন করতে গিয়ে আফগানিস্তানে নিহত ১৫
.............................................................................................
কুয়েতে নতুন আইন, কমবে বাংলাদেশি শ্রমিক
.............................................................................................
লাদাখ সীমান্তে চীনা সেনাকে আটক করল ভারত
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD