| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * বিশ্বের দূষিত শহরের তালিকায় সবার শীর্ষে ঢাকা   * পল্লীকবি জসীম উদদীন সাহিত্য উৎসব   * ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা নেই বাইডেনের   * ঘুষ-দুর্নীতি ও সন্ত্রাসীদের দল বিএনপি : তথ্য প্রতিমন্ত্রী   * দেশে কমল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা   * পোশাক শ্রমিকদের ৩০ শতাংশ ঝুঁকি ভাতা প্রদানের দাবি   * পঞ্চগড়ে শৈত্যপ্রবাহ, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯.৬ ডিগ্রি   * ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক   * ভারতের কর্ণাটকে রহস্যজনক বিস্ফোরণে ভূমিকম্প, নিহত ৮   * প্রধানমন্ত্রীকে দিয়ে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হলে জনগণ আগ্রহী হবে: জাফরুল্লাহ  

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা নেই বাইডেনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সাবেক মার্কিন ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নেই বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

বুধবার ট্রাম্প বাইডেনের উদ্দেশ্যে একটি `অত্যন্ত উদার` একটি চিঠি লিখেছেন বলে উল্লেখ করেন বাইডেন। এ প্রেক্ষিতে ট্রাম্পকে ফোন করার পরিকল্পনা বর্তমান প্রেসিডেন্টের আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেন, `কল করার কোনো পরিকল্পনা নেই।`

বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে ট্রাম্প উপস্থিত ছিলেন না, যা যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্টদের জন্য এক বিরল ঘটনা।

সাকি বলেন, `তিনি (বাইডেন) যা বলতে চেয়েছেন তা হল সাবেক প্রেসিডেন্টের অনুমতি ছাড়া তার ব্যক্তিগত চিঠি তিনি প্রকাশ করতে চান না। তবে আমি বলবো না ফোন কলের মাধ্যমে তিনি এই অনুমতি চাইবেন, ব্যক্তিগত যে চিঠিটি পাঠানো হয়েছে সেটির ওপর তিনি শুধু শ্রদ্ধাশীল থাকার চেষ্টা করছিলেন।`

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রথাগত অনেক নিয়মই রক্ষা করেননি। এর মধ্যে রয়েছে বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থিত না থাকা ও তাকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে অভিনন্দন না জানানো। তবে প্রথা অনুযায়ী উত্তরসূরীর জন্য ট্রাম্প নোট রেখে যাবেন কিনা সেটি বুধবার পর্যন্ত অস্পষ্ট ছিল।

চিঠি সম্পর্কে বুধবার ওভাল অফিসে বাইডেন বলেন, `প্রেসিডেন্ট (ট্রাম্প) অত্যন্ত উদার একটি চিঠি লিখেছেন। তবে যেহেতু এটি ব্যক্তিগত, তাই তার সঙ্গে কথা বলার আগে আমি এ সম্পর্কে কিছু বলব না। তবে এটি উদার ছিল।`

ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা নেই বাইডেনের
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সাবেক মার্কিন ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নেই বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

বুধবার ট্রাম্প বাইডেনের উদ্দেশ্যে একটি `অত্যন্ত উদার` একটি চিঠি লিখেছেন বলে উল্লেখ করেন বাইডেন। এ প্রেক্ষিতে ট্রাম্পকে ফোন করার পরিকল্পনা বর্তমান প্রেসিডেন্টের আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেন, `কল করার কোনো পরিকল্পনা নেই।`

বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে ট্রাম্প উপস্থিত ছিলেন না, যা যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্টদের জন্য এক বিরল ঘটনা।

সাকি বলেন, `তিনি (বাইডেন) যা বলতে চেয়েছেন তা হল সাবেক প্রেসিডেন্টের অনুমতি ছাড়া তার ব্যক্তিগত চিঠি তিনি প্রকাশ করতে চান না। তবে আমি বলবো না ফোন কলের মাধ্যমে তিনি এই অনুমতি চাইবেন, ব্যক্তিগত যে চিঠিটি পাঠানো হয়েছে সেটির ওপর তিনি শুধু শ্রদ্ধাশীল থাকার চেষ্টা করছিলেন।`

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রথাগত অনেক নিয়মই রক্ষা করেননি। এর মধ্যে রয়েছে বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থিত না থাকা ও তাকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে অভিনন্দন না জানানো। তবে প্রথা অনুযায়ী উত্তরসূরীর জন্য ট্রাম্প নোট রেখে যাবেন কিনা সেটি বুধবার পর্যন্ত অস্পষ্ট ছিল।

চিঠি সম্পর্কে বুধবার ওভাল অফিসে বাইডেন বলেন, `প্রেসিডেন্ট (ট্রাম্প) অত্যন্ত উদার একটি চিঠি লিখেছেন। তবে যেহেতু এটি ব্যক্তিগত, তাই তার সঙ্গে কথা বলার আগে আমি এ সম্পর্কে কিছু বলব না। তবে এটি উদার ছিল।`

ভারতের কর্ণাটকে রহস্যজনক বিস্ফোরণে ভূমিকম্প, নিহত ৮
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের কর্ণাটকে পাথরখনি এলাকায় শক্তিশালী বিস্ফোরণে অন্তত আটজন প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো বেশ কয়েকজন।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) রাত ১০টা ২০ মিনিটে কর্ণাটকের শিবমোগা এলাকায় শক্তিশালী বিস্ফোরণ ঘটে। বিকট শব্দে আশপাশের এলাকা কেঁপে উঠে। ভয়াবহ বিস্ফোরণে এলাকায় ১৫-২০ কিলোমিটার পর্যন্ত কম্পন অনুভূত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

বিস্ফোরণটি ডিনামাইট নাকি অন্য কোনো কিছুর কারণে হয়েছে, তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ওই পাথরখনি এলাকার একটি রাস্তায় বড় ফাটল দেখা দিয়েছে। ভেঙে পড়েছে অসংখ্য বাড়ির জানালার কাচ। আতঙ্কে রাস্তায় ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন বাসিন্দরা।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয় প্রশাসন প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে, আবালাগিরি গ্রামের হোনাসুদির কোনো পাথরখনিতে বিস্ফোরণটি হতে পারে।

আরও বিস্ফোরক থাকার আশঙ্কায় ঘটনাস্থলে ঢুকতে পারেনি পুলিশ। এর বদলে বোম্ব স্কোয়াড ডাকা হয়েছে। অবরুদ্ধ করে দেয়া হয়েছে গোটা এলাকা। প্রাদেশিক মুখ্যমন্ত্রী এটা দ্রুত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

অন্যান্য গণমাধ্যম এসেছে, খনির কাজে ট্রাকে করে বিস্ফোরক নিয়ে যাওয়ার সময় প্রবল বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ট্রাকটিতে থাকা বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছেন। বিস্ফোরণের তীব্রতা এত বেশি ছিল যে নিহতদের কাউকে চিহ্নিত করা যায়নি।

ইউক্রেনের নার্সিং হোমে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ১৫
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ইউক্রেনের একটি নার্সিং হোমে আগুনে পুড়ে মারা গেছেন ১৫ জন। দগ্ধ আরও পাঁচজনকে অন্য একটি হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

দেশটির জরুরি বিভাগের বরাতে ইউরো নিউজ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের খারকিভ শহরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ৩টার দিকে আগুন লাগে। খবর পেয়ে দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ৫০ দমকলকর্মীর দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

কিন্তু আগুন নেভার আগেই ১৫ জনের মৃত্যু হয়। এছাড়া ৯ জনকে জীবিত উদ্ধার করা গেছে। এদের মধ্যে ৫ জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় অন্য একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দোতলা হাসপাতালটিকে আবাসিক ভবন বলছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো। তবে সেখানে হাসপাতাল পরিচালনার জন্য অনুমতি ছিল কিনা বিষয়টি এখনো জানা যায়নি।

অগ্নিকাণ্ডে হতাহতে এক টুইটবার্তায় শোক জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদাইমার জেলেনস্কি। এমন ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না হয় তার পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। একই সঙ্গে রাজ্য তদন্ত কমিশনকে এ ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

যারা আপনজন হারিয়েছেন ও আহত হয়েছেন তাদের পরিবারকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা দিতে স্থানীয় কর্তৃপক্ষকেও নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভোলোদাইমার জেলেনস্কি।

জুমআর দিন মুমিনের আবশ্যক করণীয় কাজ
                                  

ইসলাম ডেস্ক : আল্লাহ তাআলা এ মর্মে নির্দেশ দেন যে- হে ঈমানদারগণ! জুমআর দিন যখন তোমাদের নামাজের জন্য আহ্বান করা হয়, তখন তোমরা দ্রুতগতিতে আল্লাহর স্মরণে (মসজিদে) ধাবিত হও আর বেচা-কেনা (ওই সময় দুনিয়ার সব কাজ) ছেড়ে দাও। তোমরা যদি জ্ঞানী হওয়া তবে এটাই তোমাদের জন্য উত্তম। অতপর যখন নামাজ শেষ হয়ে যাবে তখন (সঙ্গে সঙ্গে) জমিনে (নিজ নিজ কাজে অংশগ্রহণে) ছড়িয়ে পড়। আল্লাহর অনুগ্রহ (জীবিকা) অন্বেষণে লেগে যাও। আর আল্লাহকে বেশি বেশি করে স্মরণ করতে থাক; যাতে তোমরা সফলকাম হও।` (সুরা জুমআ : আয়াত ৯-১০)

মুমিন মুসলমান কুরআনুল কারিমের এ আয়াত দুটি দ্বারা যেসব কাজ নিজেদের জন্য আবশ্যক মনে করবে। তাহলো-


- একজন মুমিনকে জুমআর নামাজের জন্য মনে প্রাণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া উচিত। তাই আজান শোনামাত্র সব কাজ রেখে দ্রুত মসজিদের দিকে ধাবিত হওয়া জরুরি।

- আজান শোনার পর কোনো ঈমানদারের জন্য ব্যবসা-বাণিজ্য অথবা দুনিয়ার কোনো কাজেই ব্যস্ত হওয়ার সুযোগ নেই। আজানের পর দুনিয়ার যে কোনো কাজে ব্যস্ত হওয়ার অর্থই হচ্ছে- আল্লাহ থেকে গাফেল হয়ে খাঁটি দুনিয়াদার হয়ে যাওয়া। যা ইসলামে কোনোভাবেই বৈধ নয়।

- মুমিনের পূণ্যের রহস্য হলো- সে দুনিয়ায় আল্লাহর বান্দাহ ও গোলাম হয়ে থাকবে আর আল্লাহর পক্ষ থেকে যে কোনো ডাক এলেই একজন প্রভুভক্ত ও অনুগত গোলাম হিসেবে নিজের সব চিত্তাকর্ষক ও দুনিয়ার সব উন্নতির পথে অগ্রসর হওয়াকে দু-পায়ে ঠেলে আল্লাহর ডাকে সাড়া দেবে। আর এতেই প্রমাণিত হয় যে-

`দ্বীনের প্রয়োজনে দুনিয়ার উন্নতি ও স্বার্থ ত্যাগ করা ধ্বংস বা অকৃতকার্যতা নয়। বরং দুনিয়ার উন্নতির আশায় দ্বীন ধ্বংস করাই প্রকৃত ধ্বংস ও ব্যর্থতা।`


- দুনিয়ার ব্যাপারে এ মনোভাব ঠিক নয় যে, মানুষ দ্বীনদার হতে গিয়ে দুনিয়া বিমুখ হয়ে যাবতীয় কাজ ছেড়ে দেবে। নিজেকে অকেজো প্রমাণিত করবে। `না`, বরং কুরআন এ মর্মে নসিহত করছে যে-

`মুমিন বান্দা নামাজ থেকে অবসর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আল্লাহর জমিনে তার অনুগ্রহ (রিজিক) তালাশে ছড়িয়ে পড়বে।`

আল্লাহ তাআলা দুনিয়ায় মানুষের জন্য জীবিকা অর্জনের যেসব উপায়-উপকরণ দান করেছেন, সেসব তেকে পূর্ণ উপকারিতা গ্রহণ করতে নিজেদের যোগ্যতাকে কাজে লাগাবে। আল্লাহর দেয়া অনুগ্রহ তথা জীবিকা সংগ্রহ করবে। আর মুমিনের জন্য এটা ঠিক নয় যে-

`সে নিজের প্রয়োজন পূরণের জন্য অন্যের মুখাপেক্ষী হয়ে থাকবে। আবার এটাও ঠিক নয় যে, নিজের অধিনস্থদের প্রয়োজন পূরণে ত্রুটি বা অবহেলা করবে। আর তারা অস্থিরতা ও হতাশার শিকার হবে।`

সর্বোপরি কথা হলো

মুমিন মুসলমান দুনিয়ার ধাঁধাাঁয় ও কাজে এমনভাবে জড়িয়ে পড়বে না যে, মহান আল্লাহর নির্দেশ থেকে গাফেল হয়ে যাবে। মহান আল্লাহ জুমআর নামাজ পড়ার যে নির্দেশ দিয়েছেন তা পালনে অমনোযোগী হয়ে পড়বে। জুমআর দিন আজান শোনার পর দ্রুত মসজিদে না গিয়ে দুনিয়ার যে কোনো কাজে ব্যস্ত থাকবে।

বরং মুমিনের উচিত, আল্লাহর নির্দেশ মেনে আজান হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জুমআর নামাজের প্রস্তুতি নিয়ে সুন্নাহ মোতাবেক মসজিদে উপস্থিত হবে। কেননা মুমিনের জীবনের প্রধান পুঁজি ও প্রকৃত সম্পদই হলো- মহান আল্লাহর স্মরণ ও তার নির্দেশ মেনে চলা। তাইতো হজরত সাঈদ ইবনে জুবাইর রাহমাতুল্লাহি আলাইহি যর্থার্থ বলেছেন-

`শুধু মুখে তাসবিহ, তাহমিদ, তাহলিল, তাকবির উচ্চারণ করার নামই মহান আল্লাহর জিকির বা স্মরণ নয় বরং আল্লাহর আনুগত্যে নিজের জীবন গঠন করার নামই আল্লাহর জিকির বা স্মরণ।`

সুতরাং মহান আল্লাহর নির্দেশ মেনে জুমআর নামাজ আদায়ের উদ্দেশ্যে দ্রুত মসজিদে গিয়ে উপস্থিত হওয়া এবং নামাজ আদায় করার পাশাপাশি জুমআ পরবর্তী কাজে অংশগ্রহণও আল্লাহ তাআলার নির্দেশ পালন তথা আনুগত্যের অন্তর্ভূক্ত।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে উল্লেখিত আয়াতের নির্দেশ পালন এবং নামাজ পরবর্তী কাজে যোগদান করে ইসলামের বিধান পালনে যথাযথ আনুগত্য করার তাওফিক দিন। আমিন।

পাথরখনির বিস্ফোরণে তছনছ ভারতের শিবমোগা, নিহত অন্তত ৮
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে কর্ণাটকের একটি পাথরখনি এলাকায় প্রবল বিস্ফোরণে অন্তত আটজন নিহত হয়েছেন। বিস্ফোরণের মাত্রা এতটাই শক্তিশালী ছিল যে কয়েক কিলোমিটার দূরেও অনুভূত হয়েছে এর প্রভাব। তবে বিস্ফোরণটি ডিনামাইট নাকি অন্য কোনো কিছুর কারণে হয়েছে, তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ২০ মিনিটে কর্ণাটকের শিবমোগা এলাকায় শক্তিশালী বিস্ফোরণ ঘটে। এর প্রভাব এতটাই তীব্র ছিল যে, অনেকে এটিকে ভূমিকম্প মনে করেছেন। বিস্ফোরণের ধাক্কায় ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় এই কম্পন অনুভূত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

বিস্ফোরণস্থলের কাছাকাছি এলাকার রাস্তায় বড় ফাটল দেখা দিয়েছে। ভেঙে পড়েছে অসংখ্য বাড়ির জানালার কাচ। এসময় আতঙ্কে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন লোকজন।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, আবালাগিরি গ্রামের হোনাসুদির কোনো পাথরখনিতে বিস্ফোরণটি হতে পারে। তবে আরও বিস্ফোরক থাকতে পারে আশঙ্কায় ঘটনাস্থলে পুলিশ ঢুকতে পারেনি। এর বদলে বোম্ব স্কোয়াড ডাকা হয়েছে। অবরুদ্ধ করে দেয়া হয়েছে গোটা এলাকা।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেছেন, শিবমোগা থেকে পাঁচ-ছয় কিলোমিটার দূরে একটি বিস্ফোরণ ঘটেছে। এতে বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারতীয় বার্তাসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, খনির কাজে ট্রাকে করে বিস্ফোরক নিয়ে যাওয়ার সময় প্রবল বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ট্রাকটিতে থাকা বেশ কয়েকজন নিহত হয়েছেন। বিস্ফোরণের তীব্রতা এত বেশি ছিল যে নিহতদের কাউকে চিহ্নিত করা যায়নি।

ট্রাকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশের এডিজি প্রতাপ রেড্ডিও। তিনি জানিয়েছেন, ওই এলাকায় একটি ক্ষতিগ্রস্ত ট্রাক দেখা গেছে। তবে ওই ট্রাকেই কোনো বিস্ফোরক ছিল নাকি সেটি বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত নয়।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

করোনার তাণ্ডবে ফের ভয়াবহ মৃত্যু
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাসের ইতিহাসে আবারও রেকর্ড মৃত্যু দেখল বিশ্ব। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালিয়েছে করোনা। শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) আবারও প্রাণহানি ১৭ হাজার ছাড়িয়েছে। এ নিয়ে মহামারি করোনায় বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২১ লাখ।

এর আগে ২১ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো ১৭ হাজার প্রাণহানি দেখেছে বিশ্ব। এছাড়া ১৩ ও ১৪ জানুয়ারিও করোনার তাণ্ডব দেখেছিল বিশ্ব। ১৩ জানুয়ারি ১৫ হাজার ৭১১ জন এবং ১৪ জানুয়রি ১৬ হাজারের বেশি প্রাণ কেড়ে নেয় করোনা।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন নয় কোটি ৮০ লাখ ৮৬ হাজার ৯৭৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২১ লাখ ৩৪১ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭ কোটি ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৮৫২ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন দুই কোটি ৫১ লাখ ৯৬ হাজার ৮৬ জন। মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ২০ হাজার ২৮৫ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৬ লাখ ২৬ হাজার ২০০ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৫৩ হাজার ৬৭ জন।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ৮৬ লাখ ৯৯ হাজার ৮১৪ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ১৪ হাজার ২২৮ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে রাশিয়া চতুর্থ স্থানে রয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৬ লাখ ৫৫ হাজার ৮৩৯ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছে ৬৭ হাজার ৮৩২ জন।

আক্রান্ত ও মৃত্যুর হিসেবে যুক্তরাজ্য বিশ্বে পঞ্চম স্থানে রয়েছে। এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩৫ লাখ ৪৩ হাজার ৬৪৬ জন। এর মধ্যে মারা গেছে ৯৪ হাজার ৫৮০ জন।

এদিকে আক্রান্তের তালিকায় ফ্রান্স ষষ্ঠ, স্পেন সপ্তম, ইতালি অষ্টম, তুরস্ক নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে আছে। এ ছাড়া বাংলাদেশের অবস্থান ২৭তম।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বাগদাদে একটি বাজারে জোড়া আত্মঘাতী বোমা হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২ জন। এঘটনায় আহত হয়েছেন আরও শতাধিক।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আল জাজিরাকে জানান, প্রথম বোমা হামলাকারী বাজারের ভেতর দ্রুত ঢুকে নিজেকে অসুস্থ বলে দাবি করেন যেন লোকজন তার কাছাকাছি জড়ো হয়। এরপরই তিনি বোমার বিস্ফোরণ ঘটান।

লোকজন যখন প্রথম বোমায় আক্রান্তদের চারপাশে জড়ো হয়েছিল তখন দ্বিতীয় বোমার বিস্ফোরণ ঘটান আরেক হামলাকারী।

ইরাকের স্বাস্থ্য মন্ত্রণায়লয় জানিয়েছে, আহতদের চিকিৎসায় স্থানীয় হাসপাতালুগলোকে প্রস্তুত করা হচ্ছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে।

২০১৮ সালের পরে এটি বাগদাদে প্রথম কোনো বড় ধরনের আত্মঘাতী হামলার ঘটনা। এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সদস্যরা এই ধরনের অনেক ছোট ছোট হামলা চালিয়ে আসছে।

২০১৭ সালে ইরাক সরকার আইএসকে পরাজিত করার ঘোষণা দেয়। এরপরও জঙ্গি সংগঠনটির সদস্যরা ইরাকের স্বল্প ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন বার্তায় ভাসছেন বাইডেন-কামালা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিষেকের পর সারা বিশ্ব থেকে জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কামালা হ্যারিসকে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠানো হচ্ছে। বিভিন্ন দেশের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধান আশা প্রকাশ করছেন, বাইডেন প্রশাসনের সঙ্গে নতুন সম্পর্কের মাধ্যমে দৃঢ় হবে আগামীর বন্ধন।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন তার শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন, বাইডেন-কামালার অভিষেক `যুক্তরাষ্ট্রের জন্য কঠিন এ সময়ে এক পা এগিয়ে যাওয়া`।

বরিস জনসন বলেন, এটা যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র উভয়ের জন্যই বড় মুহূর্ত। দুই দেশের একই এজেন্ডা রয়েছে। অনেক কাজ করার আছে। করোনা মোকাবিলা, অর্থনীতি, জলবায়ু পরিবর্তন রোধ, ন্যাটোসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়ানোর লক্ষ্য রয়েছে।

আইরিশ প্রধানমন্ত্রী মাইকেল মার্টিন তাদের দায়িত্ব গ্রহণকে ঐতিহাসিক আখ্যা দেন। ইতালির প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কোন্তে বলেন, এটা গণতন্ত্রের জন্য দারুণ একদিন।

জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস বলেন, এখন সময় একসঙ্গে কাজ করার। শুভেচ্ছা জানিয়েছেন খ্রিস্টানদের প্রধান ধর্মীয় গুরু পোপ ফ্রান্সিসও।

বেলারুশ আগামী দিনগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও উন্নত সম্পর্ক গড়ার আশা নিয়ে বাইডেন ও কামালা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়েছে। আরও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় একযোগে কাজ করতে হবে।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো কোভিড-১৯ মোকাবিলা, অর্থনীতি পুনরুদ্ধার আর জলবায়ুসহ নানা ইস্যুতে একযোগে কাজ করে যাওয়ার আশা প্রকাশ করেন।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র-ইসরাইল সম্পর্ক আরও মজবুত করা আর ইসরাইলের সঙ্গে আরবদের শান্তি প্রচেষ্টা এগিয়ে নেওয়ার কামনায় বাইডেন ও হ্যারিসকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইসরাইলের প্রধানন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

ফিলিস্তিনিরা ট্রাম্প আমলের অন্যায় নীতি থেকে সরে আসার আহ্বান জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানান। স্বাগত জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ অন্যান্যরা।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদার হওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছে রাশিয়া। কারণ হিসেবে মস্কো বলছে, বারাক ওবামার ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকার সময় তিনি যে মনোভাবে ছিলেন তার জন্যই সমস্যা।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের পুনেতে করোনার ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে এ অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়া যায়।

সেরাম ইনস্টিটিউটের ১ নম্বর টার্মিনালের গেটের লাগোয়া ভবনে আগুন লাগে। কালো ধোয়া ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায়। জানা গেছে, ফায়ার সার্ভিসের অন্তত ১০টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণ আনার চেষ্টা করছে।

দুপুর ৩টায় এই অগ্নিকাণ্ড ঘটে। পুনের মঞ্জরি এলাকায় সেরামের টিকা তৈরির এই কারখানা। সেখানেই আগুন লাগে। ১ নম্বর টার্মিনালের লাগোয়া এস ই জেড ২৩ ভবনে চতুর্থ ও পঞ্চম তলায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে আগুন।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যলয় ও ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকার তত্ত্বাবধানে করোনার টিকা কোভিশিল্ড তৈরি করছে সেরাম। ভারতে বিপুল পরিমাণে কোভিশিল্ড টিকা সরবরাহের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

এরই মধ্যে কোভিশিল্ড প্রস্তুতকারী সেরামের কারখানায় আগুন লাগায় আতঙ্ক বেড়েছে। যদিও ভারতীয় একটি সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানানো হয়েছে, টিকা তৈরির ইউনিট এই আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি।

আতংকিত হবেন না, ভ্যাকসিন পাবেন : ডব্লিওএইচও
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিওএইচও) বলেছে, ভ্যাকসিন পাওয়া নিয়ে কেউ আতংকিত হবেন না। যারা ভ্যাকসিন পেতে চাচ্ছেন তাদের প্রত্যেকেই পাবেন।

সংস্থাটির সহকারী মহাসচিব মারিয়েঙ্গালা সিমাও বুধবার বলেছেন, বিশ্ব জুড়ে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে জাতি সংঘের স্বাস্থ্য সংস্থা কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, কারোরই আতংকিত হওয়ার প্রয়োজন নেই। কারণ আপনি ভ্যাকসিন পেতে যাচ্ছেন।

ডব্লিওএইচও`র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের লাইভে তিনি আরো বলেন, বিশ্বের সকল দেশের সকল জনগণ যাতে ভ্যাকসিন পায় সে লক্ষ্যে আমরা কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছি।
সিমাও বলেন, বিশ্বের প্রায় ৫০টি দেশে ভ্যাকসিন দেয়ার কাজ শুরু হয়েছে। এরমধ্যে ৪০ টিরও বেশি উচ্চ আয়ের দেশ।

ডব্লিওএইচও কোভ্যাক্সেও মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিন সরবরাহের উদ্যোগ নিয়েছে। এ জন্যে তারা ৫টি ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী কোম্পানীর সাথে ২শ কোটি ডোজ পাওয়ার চুক্তি করেছে।
চলতি বছরের শেষ নাগাদ অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দেশের ২০ শতাংশ লোককে তারা ভ্যাকসিনেরআওতায় নিয়ে আসবে।
সিমাও বলেন, আমরা আশা করছি ফেব্রয়ারির শেষ নাগাদ দেশগুলোতে ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ সরবরাহ সম্ভব হবে। বাসস

প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরল যুক্তরাষ্ট্র
                                  

অনলাইন ডেস্ক : প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরে যাওয়াসহ বেশ কিছু নির্বাহী আদেশে সইয়ের মধ্য দিয়ে বুধবার নিজের প্রশাসনিক কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এসব সিদ্ধান্তে পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের বহু আদেশ তিনি উল্টে দিয়েছেন। যার মধ্যে আছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় ফিরে যাওয়া, মুসলিমসংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলো থেকে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ও জলবায়ু সুরক্ষাকে জোরদার করা।-খবর এএফপির

করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইকে জোরদার করতেও পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি।

প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্তে স্বাগত জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস।

বৈশ্বিক উষ্ণতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একটি উচ্চাকাঙ্ক্ষী পরিকল্পনা গ্রহণে জো বাইডেনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এক বিবৃতিতে গুতেরেস বলেন, প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরে আসতে এবং জলবায়ু সংকটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে উচ্চাকাঙ্ক্ষী পদক্ষেপ নিতে মানুষ, ব্যবসা, রাষ্ট্র, শহর ও সরকারগুলোর ক্রমবর্ধমান জোটে যুক্ত হতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সিদ্ধান্তকে আমি স্বাগত জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, কার্বন-নির্গমন কমিয়ে আনতে বৈশ্বিক চেষ্টা বৃদ্ধিতে আমরা মার্কিন নেতৃত্বের দিকে তাকিয়ে আছি।

১৫টি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করলেন বাইডেন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেওয়ার পর প্রথম দিন ১৫টি নির্বাহী আদেশ ও দুটি দাফতরিক নথিতে স্বাক্ষর করেছেন জো বাইডেন। স্থানীয় সময় বুধবার ওভাল অফিসে এসব আদেশে সই করেন তিনি।

নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষরের দিক থেকে ট্রাম্প ও বারাক ওবামাকে পেছনে ফেলেছেন বাইডেন। ট্রাম্প শপথগ্রহণের পর দুই সপ্তাহে ৮টি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছিলেন। আর বারাক ওবামা ৯টিতে স্বাক্ষর করেছিলেন।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, এসব নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে বাইডেন বুঝিয়ে দিলেন, ট্রাম্পের নীতি পাল্টে দিতে তিনি বিলম্ব করতে রাজি নন।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক সংক্রান্ত নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন জো বাইডেন। যুক্তরাষ্ট্রকে প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু করে দিয়েছেন তিনি। এ চুক্তিতে ফেরার বিষয়ে জাতিসংঘে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে গত বছর ওই চুক্তি থেকে বের হয়ে গিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করার যে প্রক্রিয়া ট্রাম্প শুরু করেছিলেন, তা থামাতেও পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বাইডেনকে চিঠিতে কী লিখে গেছেন ট্রাম্প?
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সাম্প্রতিক সময়ের প্রথা অনুযায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জন্য একটি চিঠি রেখে গেছেন ওভাল অফিসে। প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, চিঠিটি খোলার সময় তিনিও প্রেসিডেন্টের সাথে তার কার্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন। তবে চিঠির বিষয়বস্তু জো বাইডেন এককভাবে প্রকাশ করবেন না জানিয়ে জেন সাকি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে এখনই কথা বলার কোনো পরিকল্পনাও প্রেসিডেন্টের নেই।

বুধবার জো বাইডেন শপথ নিয়ে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর হোয়াইট হাউজে প্রথম সংবাদ সম্মেলনে জেন সাকি এ তথ্য জানান। প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি হোয়াইট হাউজে সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের উত্তর দেন।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের চিঠি নিয়ে সাংবাদিকদের বাইডেন বলেছেন, যেহেতু এটা গোপন চিঠি। আমি তার সঙ্গে কথা না বলে এই বিষয়ে কিছু বলব না। তবে এটি `খুব উদার চিঠি`।

গত ৩ নভেম্বরের নির্বাচনের ফলাফল কখনোই মেনে নেননি ডোনাল্ড ট্রাম্প। এমনকি হোয়াইট হাউজ থেকে বিদায় নেওয়ার সময় তিনি যে বক্তব্য দিয়েছেন তাতেও তিনি নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নাম উল্লেখ করেননি।

প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়ার দিনের অন্যতম ঐতিহ্য হলো বিদায়ী প্রেসিডেন্ট তার উত্তরসূরিদের শুভেচ্ছা ও পরামর্শ প্রদান করে একটি চিঠি লিখে যান। নতুন প্রেসিডেন্টের পড়ার জন্য চিঠিটি সাধারণত রেজোলিউট ডেস্কে রেখে যায় বিদায়ী প্রেসিডেন্ট। নতুন প্রেসিডেন্ট যখন প্রথম ওভাল অফিসে প্রবেশ করেন তখন তিনি রেজোলিউট ডেস্ক থেকে এ চিঠি পড়েন। কিন্তু ট্রাম্পের ওই কী লেখা আছে, তা এখনও জানা যাচ্ছে না।

সূত্র: বিবিসি, রয়টার্স

বাইডেন-কামালাকে বিশ্ব নেতাদের অভিবাদন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন জো বাইডেন। প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হয়ে ইতিহাসে গড়লেন কামালা হ্যারিস। এখন থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব তাদের হাতেই। শপথ নেয়ার পরপরই তাদের অভিবাদন জানিয়েছে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র প্রধান।

শপথ নেয়া পরপরই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইটবার্তায় দু`জনকেই উষ্ণ শুভেচ্ছা জানান। ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় পৌঁছাবে বলে আশা প্রকাশ করেন মোদি।

পিছিয়ে নেই পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও। তিনি টুইটারে বলেছেন, `প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে অভিষেকের জন্য অভিনন্দন জানাই। বাণিজ্যিক-অর্থনৈতিক চুক্তি, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াই, জনস্বাস্থ্যের উন্নতি, দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে আঞ্চলিক এবং এর বাইরে উন্নয়নের জন্য একটি শক্তিশালী পাক-মার্কিন অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করার অপেক্ষায় থাকলাম।`

ইউরোপিয়ান কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট চার্লস মাইকেল দু`জনের প্রতি শুভকামনা জানিয়েছেন। শিগগিরই হোয়াইট হাউজে নতুন বন্ধু পাওয়া যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ প্রসঙ্গে ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লিয়েনও একই সুরে বলেন, আবার দীর্ঘদিন পর হোয়াইট হাউজে ইউরোপের প্রকৃত বন্ধু পাওয়া যাবে। ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও বাইডেনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

অন্যদিকে সামরিক জোট ন্যাটোর পক্ষ মহাসচিব জেন্স স্টোলটেনবার্গও যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতা পরিবর্তনের বিষয়টিকে স্বাগত জানান। তার মতে, বাইডেনের অধীনে ট্রান্স-আটলান্টিক সম্পর্ক আরও বাড়ানোর আশা করছে এ জোট।

সাবেক সোভিয়েত নেতা মিখাইল গর্বাচেভ রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রকে তাদের আন্তরিকতাশূন্য সম্পর্কের অবসান ঘটানোর আহ্বান জানিয়েছেন।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম তাসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গর্বাচেভ বলেছেন, ‘রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের বর্তমান অবস্থা উদ্বেগের। সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে কিছু একটা করতে হবে। আমরা পরস্পরের বিরুদ্ধে দেয়াল তুলে দিতে পারি না।’

দায়িত্ব নিয়েই ট্রাম্পের মূলনীতিতে আঘাত প্রেসিডেন্ট বাইডেনের
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দায়িত্ব নেওয়ার পরই বেশ কয়েকটি নির্বাহী আদেশে সই করলেন ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরল বাইডেন প্রশাসন। এছাড়া করোনা মোকাবিলা এবং জাতিগত বৈষ্যমের মতো ইস্যুতেও ট্রাম্পের নীতির পরিবর্তনেও স্বাক্ষর করলেন বাইডেন। প্যারিস জলবায়ুর চুক্তিতে ফেরার বিষয়ে জাতিসংঘে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে গত বছর ওই চুক্তি থেকে বের হয়ে গিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

শপথগ্রহণের পর ওভাল অফিসে গিয়েই নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করে বাইডেন বলেন, `অপচয় করার মতো সময় নেই। অবিলম্বে কাজ করতে হবে।` করোনা মহামারির সংক্রমণরোধে কেন্দ্রীয় সরকারের দফতরে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করেছেন বাইডেন। সংক্রমণ রোধে সবাইকে মাস্ক পড়ার আহ্বান জানান সদ্য দায়িত্ব নেওয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) শপথের পরই মাস্ক পরে ওভাল অফিসে ঢুকেন বাইডেন। সেখানে বসে কিছুক্ষণ সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করেন তিনি। তারপর ডোনাল্ড ট্রাম্পের রেখে যাওয়া নীতিতে আঘাত করেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

বেশ কয়েকটি মুসলিম দেশের পর্যটকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে ট্রাম্পের জারি করা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে জানিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। অবৈধ অভিবাসীদের ঢল ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে ট্রাম্পের আদেশ স্থগিত করার কথা চলছে।

এর আগে ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েই রাজনৈতিক উগ্রবাদ, শ্বেতাঙ্গ আধিপত্য এমনকি ঘরোয়া সন্ত্রাসবাদের শেকড় উপরে ফেলার আহ্বান জানিয়েছেন জো বাইডেন। একইসঙ্গে নতুন করে শুরুর ডাক দিয়ে মার্কিন রাজনীতিতে যে বিভেদ সৃষ্টি হয়েছে তা দূর করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

প্রখ্যাত মার্কিন সংগীত শিল্পী লেডি গাগার কণ্ঠে আমেরিকার জাতীয় সঙ্গীত দিয়েই শুরু হয় মূল আনুষ্ঠানিকতা। তারপরই শপথ বাক্য পাঠ করতে বেগুনি রঙের ব্লেজার পরে মঞ্চে আসেন কামালা হ্যারিস। তাকে শপথ পড়ান সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি সোনিয়া সোটোমায়র। এর মধ্যে দিয়েই মার্কিন ইতিহাসে প্রথম কোন কৃষ্ণাঙ্গ নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হলেন কামালা। তাকে প্রথমেই শুভেচ্ছা জানান তার স্বামী তার ডগলাস এমহফ। প্রথম নারী, প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ এবং দক্ষিণ এশীয় হিসেবে ভাইস প্রেসিডেন্ট হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করলেন কামালা।

যে কারণে ২০ জানুয়ারিই শপথ নেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১১টায় শপথ নিতে চলেছেন জো বাইডেন। এ উপলক্ষে নজিরবিহীন নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ক্যাপিটল হিল ও হোয়াইট হাউস চত্বরে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তাসহ পঞ্চাশটি প্রদেশ থেকে ২৫ হাজার ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েন রয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই অভিষেক অনুষ্ঠান ঘিরে রয়েছে নানা আয়োজন। শত প্রতিকূলতা ও হুমকি সত্ত্বেও আগেও নয় আবার পরেও নয়- আজ ২০ জানুয়ারিই অনুষ্ঠিত হচ্ছে শপথ। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান অনুযায়ী দিনটিকে নির্ধারণ করা। এদিন শপথে নির্ধারিত ঠিক ৩৫টি শব্দ উচ্চারণের মধ্য দিয়েই পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষমতাধর এই দেশের ক্ষমতার মসনদে বসবেন। এমনটা যুগ যুগ ধরে হয়ে আসছে- যেমন আগামী ২০২৫ সালের ২০ জানুয়ারিও হবে।

কিন্তু কেন এই ২০ জানুয়ারি? মূলত এই ২০ জানুয়ারি তারিখটি নির্ধারণ করা হয়েছে মার্কিন সংবিধানে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে যে জন্য আনা হয় ২০তম সংশোধনী। তথ্য বলছে, ১৯৩৭ সালের ২০ জানুয়ারি প্রথম কোনও মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট। প্রথম মেয়াদে শপথ নিয়েছিলেন ৪ মার্চ। ১৭৮৯ সালের সংবিধানের ধারাবাহিকতা মেনে তার আগের সব মার্কিন প্রেসিডেন্টই মার্চের ওই তারিখেই শপথ নিয়েছেন।
মূলত দুটি কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয় এবং তারিখে পরিবর্তন আসে। প্রথম কারণটি হলো, নির্বাচিত নতুন প্রেসিডেন্টের ওয়াশিংটনে এসে ক্ষমতা গ্রহণের বিষয়টি সময় সাপেক্ষ ছিলো। দ্বিতীয় কারণটি হলো ক্ষমতা হস্তান্তরের জন্য বিদায়ী প্রশাসনের কাছ থেকে নানা তথ্য নতুন প্রশাসনকে বুঝিয়ে দিতে হয়, যা একটি নির্দিষ্ট কাঠামো ও সময়ের মাধ্যমে সম্পন্ন হতে হয়।


   Page 1 of 237
     আন্তর্জাতিক
ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা নেই বাইডেনের
.............................................................................................
ভারতের কর্ণাটকে রহস্যজনক বিস্ফোরণে ভূমিকম্প, নিহত ৮
.............................................................................................
ইউক্রেনের নার্সিং হোমে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ১৫
.............................................................................................
জুমআর দিন মুমিনের আবশ্যক করণীয় কাজ
.............................................................................................
পাথরখনির বিস্ফোরণে তছনছ ভারতের শিবমোগা, নিহত অন্তত ৮
.............................................................................................
করোনার তাণ্ডবে ফের ভয়াবহ মৃত্যু
.............................................................................................
বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২
.............................................................................................
বিশ্বনেতাদের অভিনন্দন বার্তায় ভাসছেন বাইডেন-কামালা
.............................................................................................
ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন
.............................................................................................
আতংকিত হবেন না, ভ্যাকসিন পাবেন : ডব্লিওএইচও
.............................................................................................
প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরল যুক্তরাষ্ট্র
.............................................................................................
১৫টি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করলেন বাইডেন
.............................................................................................
বাইডেনকে চিঠিতে কী লিখে গেছেন ট্রাম্প?
.............................................................................................
বাইডেন-কামালাকে বিশ্ব নেতাদের অভিবাদন
.............................................................................................
দায়িত্ব নিয়েই ট্রাম্পের মূলনীতিতে আঘাত প্রেসিডেন্ট বাইডেনের
.............................................................................................
যে কারণে ২০ জানুয়ারিই শপথ নেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট
.............................................................................................
শপথ নিতে ক্যাপিটল হিলে বাইডেন-কামালা
.............................................................................................
নতুন করে রাজনৈতিক দল গঠন করবেন ট্রাম্প!
.............................................................................................
দায়িত্বের চেয়েও বেশি কাজ করেছি: ট্রাম্প
.............................................................................................
করোনা: বিশ্বে ২০ লাখ ৬৫ হাজার মৃত্যু ছাড়াল
.............................................................................................
পশ্চিমবঙ্গে পাথর বোঝাই ডাম্পারের নিচে বিয়ের গাড়ি, নিহত ১৪
.............................................................................................
শপথের সব আয়োজন সম্পন্ন, নজিরবিহীন নিরাপত্তা
.............................................................................................
জাপানে এক দশকে মুসলিমদের সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণের বেশি
.............................................................................................
ভ্যাকসিন নেয়ার আহ্বানে সাড়া দেয়নি এক-তৃতীয়াংশ ভারতীয়
.............................................................................................
ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে ট্রাম্পের নির্দেশ খাটছে না
.............................................................................................
রাত পোহালেই শপথ, ভারী অস্ত্রে ট্রাম্প সমর্থকদের মহড়া
.............................................................................................
আর্জেন্টিনায় ৬ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প
.............................................................................................
নতুন ফার্স্ট লেডিকে স্বাগত জানালেন না মেলানিয়া
.............................................................................................
ইতালিতে ভ্যাকসিন নিলেন ১০৮ বছরের বৃদ্ধা
.............................................................................................
ফুটপাতে ঘুমন্ত শ্রমিকদের পিষে দিল ট্রাক, মৃত ১৫
.............................................................................................
সিনেট থেকে পদত্যাগ করলেন কমলা হ্যারিস
.............................................................................................
নিরাপত্তার স্বার্থে ক্যাপিটল ভবন লকডাউন
.............................................................................................
ভারতীয় ভূখণ্ডের সাড়ে ৪ কিমি জুড়ে চীনের গ্রাম !
.............................................................................................
শেষ সময়ে যে কারণে বাইডেনের শপথ গ্রহণের মহড়া স্থগিত
.............................................................................................
ভারতের `উপহার` ২০ লাখ ডোজ টিকা আসছে বুধবার
.............................................................................................
বাইডেনের অভিষেকে হামলার আশঙ্কা, তল্লাশির আওতায় নিরাপত্তাকর্মীরাও!
.............................................................................................
ইসরাইলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নিচ্ছে আমিরাত
.............................................................................................
ব্রাজিলে প্রথম টিকা নিলেন ৫৪ বছর বয়সী নার্স
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে ট্রাম্প সমর্থকদের সশস্ত্র বিক্ষোভ
.............................................................................................
শেষ বেলায়ও ট্রাম্পের গোঁয়ার্তুমি
.............................................................................................
সিরিয়ায় তুরস্কের তিন সেনা নিহত
.............................................................................................
সাত মুসলিম দেশের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বাতিল করবেন বাইডেন
.............................................................................................
করোনা ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কী?
.............................................................................................
আইসক্রিমেও করোনা !
.............................................................................................
ভারতে করোনা টিকা : প্রথমদিনেই প্রায় ২ লাখ মানুষকে সেবা প্রদান
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৫৬, ধ্বংসস্তূপে মিলছে প্রাণ
.............................................................................................
ওয়াশিংটনে অস্ত্র-গোলাবারুদসহ আটক ১, বাড়ছে আতঙ্ক
.............................................................................................
বাইডেনের শপথ গ্রহণ: বিক্ষোভের শঙ্কায় ৫০ অঙ্গরাজ্যে সতর্কতা
.............................................................................................
বাইডেনের জন্য চিঠি লিখবেন কিনা ট্রাম্প তা নিয়েও সন্দেহ!
.............................................................................................
কাবার গিলাফে লাগছে আধুনিক প্রযুক্তির ছোঁয়া
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop