| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * পেঁয়াজের পর এবার সিলেটে লবণ নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড   * এক বছর নয়, আরও বেশি সময়ের জন্য নিষিদ্ধ হচ্ছেন শাহাদাত রাজীব   * খুলনা বিভাগে পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত, দুর্ভোগে যাত্রীরা   * পদ্মা সেতুর আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান হচ্ছে আজ   * ফুটবলের এসএ গেমস প্রস্তুতি শুরু বৃহস্পতিবার   * মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়েই অসুস্থ নুসরাত!   * নতুন সিনেমার প্রথম পোস্টারেই ভাইরাল কাজল   * পুরুষদের জন্য গর্ভনিরোধক ইনজেকশন!   * ককপিটে নিয়ে কেবিন ক্রুদের কুপ্রস্তাব দেন পাইলট ইশরাত   * লিবিয়ায় বিমান হামলায় নিহত বাংলাদেশির পরিচয় মিলেছে  

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
পদ্মা সেতুর আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান হচ্ছে আজ

 

স্টাফ রিপোর্টার

পদ্মা সেতুর ১৬তম স্প্যান বসছে আজ মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর)। সকালে স্প্যানটি ১৬ ও ১৭ নং পিলারের ওপর বসানো হবে। এর মধ্য দিয়ে প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান হবে পদ্মা সেতু।

 

পদ্মা সেতুর প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর জানান, এ মাসেই বসতে যাচ্ছে অন্তত আরও দুটি স্প্যান। এর পূর্বে ১৫টি স্প্যান বসানোর মাধ্যমে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘে্র সেতুটির ২২৫০ মিটার বা ২ কিলোমিটারের অধিক দৃশ্যমান হয়েছে। এখন দিন গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পদ্মা সেতুও দীর্ঘায়িত দৃশ্যমান হবে।

 

জানা গেছে, প্রতিটি স্পেনের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার। ৪২টি পিলারের ওপর ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে সবকটি পিলার এরই মধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে।

 

সেতু বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, ইতিমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৪ দশমিক ৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। চলতি বছরের মধ্যে সবকটি স্প্যান বসিয়ে সেতুটি দৃশ্যমান করে তুলতে পারব বলে আশা করছি।

পদ্মা সেতুর আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান হচ্ছে আজ
                                  

 

স্টাফ রিপোর্টার

পদ্মা সেতুর ১৬তম স্প্যান বসছে আজ মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর)। সকালে স্প্যানটি ১৬ ও ১৭ নং পিলারের ওপর বসানো হবে। এর মধ্য দিয়ে প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান হবে পদ্মা সেতু।

 

পদ্মা সেতুর প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর জানান, এ মাসেই বসতে যাচ্ছে অন্তত আরও দুটি স্প্যান। এর পূর্বে ১৫টি স্প্যান বসানোর মাধ্যমে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘে্র সেতুটির ২২৫০ মিটার বা ২ কিলোমিটারের অধিক দৃশ্যমান হয়েছে। এখন দিন গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পদ্মা সেতুও দীর্ঘায়িত দৃশ্যমান হবে।

 

জানা গেছে, প্রতিটি স্পেনের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার। ৪২টি পিলারের ওপর ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে সবকটি পিলার এরই মধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে।

 

সেতু বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, ইতিমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৪ দশমিক ৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। চলতি বছরের মধ্যে সবকটি স্প্যান বসিয়ে সেতুটি দৃশ্যমান করে তুলতে পারব বলে আশা করছি।

ককপিটে নিয়ে কেবিন ক্রুদের কুপ্রস্তাব দেন পাইলট ইশরাত
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

সুন্দরী, শিক্ষিত ও স্মার্ট মেয়েরাই সাধারণত কেবিন ক্রু পেশায় চাকরি করেন। বিমানে ইন-ফ্লাইটে তাদের আতিথেয়তায় এয়ারলাইন্সের ভাবমূর্তি বাড়ে। যাদের ভূমিকায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সম্মান বাড়ে সেই কেবিন ক্রুদের ফ্লাইটে কোনো নিরাপত্তা নেই। সম্প্রতি ককপিটে পাইলটদের যৌন হয়রানির শিকার হন নারী কেবিন ক্রুরা।

এমনই একটি ঘটনা ঘটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে। ফলে প্রতিষ্ঠানটির ভাবমূর্তি হুমকির মুখে পড়েছে। ঘটনার নায়ক ক্যাপ্টেন ইশরাত আহমেদ। তার বিরুদ্ধে দুই কেবিন ক্রু এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও বরাবর যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন।

বিমান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট সার্ভিস শাখা সূত্র জানায়, গত ২৬ অক্টোবর চট্টগ্রাম হয়ে আবুধাবিগামী বিজি-১২৭ ফ্লাইটের ককপিটে ছিলেন ক্যাপ্টেন ইশরাত। ফ্লাইটে চিফ পার্সার হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন খুকু। ওই ফ্লাইটে দুই কেবিন ক্রু ছিলেন। ক্যাপ্টেন ইশরাত ককপিটে নিয়ে তাদের কুপ্রস্তাব দেন।

অভিযোগে এক কেবিন ক্রু বলেছেন, ফ্লাইটের চিফ পার্সার খুকু তাকে পেছনে পজিশন দেন। কিন্তু ক্যাপ্টেন ইশরাতের নির্দেশে তাকে আবার সামনের পজিশনে আনা হয়। নিয়ম অনুযায়ী সামনে পজিশন পাওয়া কেবিন ক্রু ককপিটে সার্ভিস দেন। ওই ক্রু ককপিটে সার্ভিস দিতে গিয়ে দেখেন, ক্যাপ্টেন ইশরাত সিটে বসে মদ খাচ্ছেন। এ সময় সিট বেল্ট খুলে ওই ক্রুকে স্পর্শ করার চেষ্টা করেন তিনি। ওই ক্রু তাৎক্ষণিক ককপিট থেকে বেরিয়ে বিষয়টি চিফ পার্সারকে জানান। চিফ পার্সার পুনরায় ওই ক্রুকে পেছনে পাঠাতে চাইলেও ক্যাপ্টেন ইশরাত বাধা দেন। পরবর্তীতে আবারও ওই ক্রু ককপিটে সার্ভিস দিতে গেলে ক্যাপ্টেন ইশরাত অ্যাপ্রোন খুলে সার্ভিস দিতে বলেন। এ সময় ইশরাত মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন বলে জানান ওই ক্রু। চট্টগ্রামে ফ্লাইট বিরতিকালে হোটেলে ওই ক্রুদের পাশাপাশি রুম নেয়ার চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ করেন।

অভিযোগকারী আরেক ক্রুবলেন, আমাদের যা বলার তদন্ত সেলের কাছে বলেছি। গতকাল রোববার আমরা বেশ কয়েকজন কেবিন ক্রু তদন্ত টিমের কাছে বক্তব্য দিয়েছি। সেখানে নারী পরিষদের প্রতিনিধিও ছিলেন। এর বাইরে গণমাধ্যমকে আর কিছু বলব না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফ্লাইট সার্ভিসে কর্মরত এক নারী কর্মকর্তা জানান, বিমানের ফ্লাইট সার্ভিসে কর্মরত বেশিরভাগ কেবিন ক্রু ক্যাপ্টেন ইশরাতের সন্তানের বয়সী। তারপরও তিনি সন্তানতুল্য মেয়েদের কুপ্রস্তাব দেন এবং বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করেন।


এ বিষয়ে একাধিকবার ক্যাপ্টেন ইশরাতের মোবাইলফোনে যোগাযোগ করা হলেও সেটি বন্ধ পাওয়া যায়। ক্ষুদে বার্তা পাঠানো হলে তারও কোনো উত্তর দেননি তিনি।

এ বিষয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট সার্ভিস শাখার উপ-মহাব্যবস্থাপক আফরোজা খানম নিপু বলেন, আমার কাছে ই-মেইলে অভিযোগ করেছে নির্যাতনের শিকার কেবিন ক্রুরা। বিষয়টি ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নির্দেশে তদন্তাধীন। এর বেশি জানাতে তিনি অপারগতা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বিমানে দেড় শতাধিক পাইলট কর্মরত। ক্যাপ্টেন ইশরাত একমাত্র পাইলট, যিনি অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগে ২০১২ সালে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পাইলট অ্যাসোসিয়েশনের (বাপা) সদস্যপদ হারান। ইতোমধ্যে তার নামে দুই কেবিন ক্রু অভিযোগ দেয়ার পর আরও ২০ জন স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্ত কমিটির কাছে অভিযোগ করেন। কেউ কেউ বলছেন, বিভিন্ন সময় ককপিটে নিয়ে মোবাইলে অশ্লীল ছবি দেখাতেন ক্যাপ্টেন ইশরাত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নারী কেবিন ক্রু জানান, ক্যাপ্টেন ইশরাত এবং ক্যাপ্টেন অরবিন্দ প্রায়শই কেবিন ক্রুদের মনোরঞ্জন চাইতেন। এটাই তাদের মূল কাজ বলে জানান তিনি।

রাতে দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

নিউজ ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ মঙ্গলবার রাতে দেশে ফিরবেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতে তার চারদিনের সরকারি সফর শেষে রাত ১১টায় দেশে ফিরবেন। তিনি ‘দুবাই এয়ার শো-২০১৯’ ও অন্যান্য অনুষ্ঠানে যোগদান করতে এ সফরে যান।

শেখ হাসিনা সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী এবং দুবাইয়ের শাসক মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুমের আমন্ত্রণে উপসাগরীয় এই দেশ সফর করেন।

প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী আমিরাত ফ্লাইটের একটি বিমান স্থানীয় সময় আজ বিকেলে দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবে। বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফ্লাইটটির পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

১৭ নভেম্বর বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম ও সফল এয়ার শো এবং মধ্যপ্রাচ্য, এশিয়া ও আফ্রিকার বৃহত্তম এয়ারোস্পেস ইভেন্ট ‘দুবাই এয়ার শো-২০১৯’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। পরে তিনি দুবাইয়ের নয়নাভিরাম ভবিষ্যৎ বিমানবন্দর দুবাই ওয়ার্ল্ড সেন্টারে এয়ার ডিসপ্লে উপভোগ করেন। এটি ‘আল মাকতুম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর’ হিসেবেও পরিচিত।

‘দুবাই এয়ার শো’র ফাঁকে আবুধাবির যুবরাজ এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের সশস্ত্র বাহিনীর ডেপুটি সুপ্রিম কমান্ডার শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শাংরিল-লা হোটেলে আবুধাবিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত এক নৈশভোজ ও অভ্যর্থনায় যোগ দেন।


অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে দ্বিপীয় বাণিজ্যিক স্বার্থে শেখ হাসিনা বাংলাদেশের আরএমজি, আইটি, কৃষি ও বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চলে বড় ধরনের বিনিয়োগ করার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতি আহ্বান জানান।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ারকে হাইকোর্টে তলব
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

মোবাইল কোর্ট পরিচালনার পর দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে তিন মাসেও আদেশের সার্টিফাইড কপি না দেয়ায় র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলমকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ১ ডিসেম্বর তাকে সশরীরে আদালতে উপস্থিত হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দেয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) মোবাইলে কোর্টে সাজাপ্রাপ্ত এক ব্যক্তির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রিটকারী আইনজীবী সাখাওয়াত হোসেন।

এর আগে একই বেঞ্চ মোবাইল কোর্টের দেয়া সাজার রায়ের বিরুদ্ধে দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির আবেদনের পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে মামলার সার্টিফাইড কপি সরবরাহ করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিবকে এ আদেশ বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

সড়ক আইন বাস্তবায়নে বাড়াবাড়ি না করার নির্দেশ ওবায়দুল কাদেরের
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক


সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নতুন সড়ক পরিবহন আইন প্রথমে সহনীয় পর্যায়ে কার্যকর করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ আইন বাস্তবায়নে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা যেন হয়রানি কিংবা বাড়াবাড়ি না করে, সে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সমসাময়িক ইস্যুতে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নতুন আইনে জরিমানা আদায় করা মুখ্য উদ্দেশ্য নয়, সরকার চায় সবাই আইন মেনে চলুক। নতুন সড়ক পরিবহন আইনের মাধ্যমে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনাই প্রধান উদ্দেশ্য।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল থেকে মাঠ পর্যায়ে সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ কার্যকর হয়েছে। এ কার্যকর গত ১ নভেম্বরই হয়েছে। তবে মাঠ পর্যায়ে এটি বাস্তবায়নে দুই সপ্তাহ সময় দিয়েছি। আইনটি কার্যকরে অনেকেই আরও বেশি সময় চেয়েছিলেন, কিন্তু আমি তাতে রাজি হয়নি। প্রধানমন্ত্রীও আইনটির বাস্তবায়ন চান। তাই আইনটি কার্যকর করতে শুরু করেছি।’

তিনি বলেন, ‘প্রথম পর্যায়ে আইনটি সহনীয় পর্যায়ে কার্যকর করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেও এ আইনে শাস্তি দেয়া যাবে-এ বিষয়ে গতকাল একটি গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে। আইনটির বিধিমালা প্রণয়নের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে।’

বিধিমালা প্রণয়ন বিলম্বের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি নিজেও অসুস্থ ছিলাম। সবকিছু মিলে এটি প্রণয়নে দেরি হয়েছে। তবে কয়েক দিনের মধ্যেই এটি প্রণয়ন হয়ে যাবে।’


কাদের বলেন, ‘সড়ক পরিবহন আইনটি স্বাভাবিক কারণেই আগের তুলনায় কঠোর করা হয়েছে। কঠোর করার উদ্দেশ্য শাস্তি দেয়া নয়, সকলের কল্যাণ ও সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিত করে দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণ করা এবং সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা। এ আইনে ট্রাফিকের নিরাপত্তার পাশাপাশি পরিবেশ দূষণের বিষয়টিও গুরুত্বের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে।’

দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিশেষ করে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে এ আইনটির বিষয়ে জনগণকে সচেতন করে তোলার আহ্বান জানান তিনি। যাতে আইনটি কার্যকরে কোনো সমস্যা না হয়। তিনি বলেন, আইন প্রয়োগকারী যাতে এটি কার্যকরে অযথা কোনো হয়রানি বা বাড়াবাড়ি না করে সেজন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করেছি, যাতে কোনো প্রকার বাড়াবাড়ি না হয়।

তিনি বলেন, ‘সড়ক নিরাপদ ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে শুধু সরকারি উদ্যোগই যথেষ্ট নয়। এটাতে সমাজের বিভিন্ন অংশীজনকে এগিয়ে আসতে হবে।

আইন যখন কার্যকর শুরু হয়েছে তখন পরিবহন মালিকরা বড় ধরনের আন্দোলনে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে- এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমার কাছে এ খবর আছে। এ বিষয়ে আমাদের সচিবও তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাই বলে তো আমরা আইন প্রয়োগ না করে এ থেকে সরে যাব, এটা হয় না। যত চাপ থাকুক সড়ক পরিবহন আইন বাস্তবায়ন হবে।’

হালকা লাইসেন্স দিয়ে ভারী গাড়ি চালানো হচ্ছে-এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এখন তো বিআরটিএতে (লাইসেন্স নেয়ার জন্য) হিড়িক পড়ে গেছে। বিআরটিএ কর্মচারী-কর্মকর্তারা অতিরিক্ত সময় কাজ করছে। লোকজনও বাড়ানো হচ্ছে, তারপরও এটা একটা চ্যালেঞ্জ। সবাই সহযোগিতা করলে আমরা এ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে পারব।’

ঢাকায় পর্যাপ্ত পরিমাণ পার্কিংয়ের ব্যবস্থা নেই। এ অবস্থায় এ আইন বাস্তবায়ন কতুটুকু যুক্তযুক্ত-এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, ‘শুধু ঢাকাকে নিয়ে ভাবছেন কেন? সারা দেশকে নিয়ে ভাবুন। ঢাকার পার্কিং নিয়ে সিটি কর্পোরেশন কাজ করছে। কিন্তু ডেঙ্গু পুরিস্থিতি ভয়াবহ হওয়ায় সিটি কর্পোরেশনের মনোযোগটা ওই দিকে চলে গিয়েছিল। এ বিষয়ে তারা আবার কাজ শুরু করেছে।’

আরব আমিরাতের আরও বড় বিনিয়োগ প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর
                                  

নিউজ ডেস্ক 


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পারস্পরিক সুবিধার্থে আরব আমিরাতের আরও বড় আকারে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন। দেশের বিভিন্ন সম্ভাবনাময় ক্ষেত্রে বিশেষ করে তৈরি পোশাক, তথ্য প্রযুক্তি এবং বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে সরকারি এবং বেসরকারি পর্যায়ে ইউএইর উদ্যোক্তাদের আরও বড় আকারে বিনিয়োগের আহ্বান জানান তিনি।

রোববার রাতে আবুধাবীতে প্রধানমন্ত্রীর অবস্থানকালীন হোটেল সাংরি-লা’তে তার সম্মানে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত সংবর্ধনা ও নৈশভোজে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের সরকার অর্থনৈতিক অঞ্চলে, বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে এবং হাইটেক পার্কে বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) বিনিয়োগকারীদের জন্য ‘ওয়ান স্টপ’ সার্ভিস সুবিধা এবং একশর অধিক অবকাঠামোসহ নানা প্রয়োজনীয় সুবিধাদি প্রদান করছে।

দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশে সব থেকে সহনীয় বিনিয়োগ নীতি বিদ্যমান উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিনিয়োগকারীরা তৈরি পোশাক শিল্প, ভবন অবকাঠামো নির্মাণ, নির্মাণ শিল্প, যোগাযোগ, জ্বালানি, তথ্য প্রযুক্তি, জাহাজ নির্মাণ, পর্যটন, হাল্কা প্রকৌশল, শিল্প পার্ক এবং পণ্য সরবারাহের কেন্দ্র হিসেবে বিনিয়োগ করতে পারে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ ইমরান অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।


দেশে বিদ্যমান বৈদেশিক বিনিয়োগ সুরক্ষা নীতিমালার উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আইন দ্বারা বিদেশি বিনিয়োগকে সুরক্ষা, শুল্ক রেয়াত, যন্ত্রাংশ আমদানিতে স্বল্প শুল্ক, যে কোনো সময় লাভ এবং আসলসহ প্রস্থানের সুবিধা, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

তৈরি পোশাকের পরেই আমাদের রফতানির ক্ষেত্রে কৃষি ভিত্তিক পণ্য উল্লেখযোগ্য আখ্যায়িত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আরব আমিরাতের উদ্যোক্তাদের বাংলাদেশের কৃষিজাত এবং খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পে বিনিয়োগকে স্বাগত জানাই।’

বাংলাদেশ এবং আরব আমিরাতের মধ্যে পারস্পরিক ব্যবসা এবং বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অপার সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা সরকারি এবং বেসরকারি উভয় খাতেই বাংলাদেশ এবং ইউএইর যৌথ উদ্যোগের জন্য সম্ভাবনাময় বেশ কিছু খাত খুঁজে বের করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) এবং আমিরাতের অর্থনৈতিক উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এবং বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) এবং আমিরাত অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা দুই দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্যের উন্নয়ন এবং বিনিয়োগের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

বাংলাদেশ এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে পারস্পরিক বাণিজ্য ধারাবাহিকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের যৌথ উদ্যোগের ফলে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের বহুমুখীকরণ হবে এবং সম্প্রসারণ ঘটবে বলে বিশ্বাস করি।’

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি বাংলাদেশ এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে সম্পর্ক উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়ে একটি নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে। যে সম্পর্ক বহুমুখী এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ এবং যা বিভিন্ন ক্ষেত্রে সম্প্রসারিত হয়েছে।’

বাংলাদেশের পণ্য আমদানির জন্য ইউএইর প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে ইউএই ফার্মাসিউটিক্যাল সামগ্রী, পাট এবং পাটজাত পণ্য, সিরামিক, চামড়া, খাদ্যদ্রব্য, প্লাস্টিক সামগ্রী, নীটওয়্যার, ফ্রোজেন ফুড, বস্ত্র, হোম টেক্সটাইল, কৃষিপণ্য এবং প্রকৌশল সামগ্রী আমদানি করতে পারে।’ বাসস

সোমবার পল্টনে বায়ু দূষণ ২৩৩ পিএম, সবার অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক 


বায়ু দূষণ ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে বাংলাদেশে। বিশেষ করে রাজধানীতে বায়ু দূষণ চরম মাত্রায় ঠেকেছে। ফলে রাজধানীতে বসবাসকারী সবারই অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন।

ঢাকা ইউএস কনস্যুলেটের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার (১৮ নভেম্বর) সকাল ১০টায় বিশ্বের শীর্ষ ৯ বায়ু দূষিত দেশের একটি বাংলাদেশ। এ সময় ঢাকার পল্টনে বায়ু দূষণের পরিমাণ ছিল ২৩৩ পিএম, যা খুবই অস্বাস্থ্যকর। এ অবস্থায় সাধারণত জরুরি স্বাস্থ্য সাবধানতা জারি করতে হয়। এ সময় সব মানুষই অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকিতে থাকে।


ঢাকা ইউএস কনস্যুলেটের সকালের তথ্য অনুযায়ী, এ সময় বিশ্বে বায়ু দূষণের পরিমাণ সবচেয়ে রয়েছে চীনের কাশগড়ে ৯৯৯ পিএম, এরপর মেক্সিকোর অ্যাগাস্কালিয়েন্টসে ৭৫২ পিএম, ভারতে পশ্চিমবঙ্গের চাকাপাড়ায় ৪৯২ পিএম, তুরস্কের এলবিস্তানে ৩০৭ পিএম, ইউক্রেইনের কেইভে ৩০২ পিএম, মঙ্গেলিয়ার উলান বাতরে ৩০২ পিএম, পাকিস্তানের লাহোরে ২৪৬ পিএম, যুক্তরাষ্ট্রের পেন্ডলেটনে ২৪২ পিএম ও বাংলাদেশের পল্টনে ২৩৩ পিএম।

বায়ু মান ও দূষণ পরিমাপের ভিত্তিতে সতর্কতা বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ২০১ থেকে ৩০০ পিএম ২.৫ মাত্রার বায়ু দূষণ খুবই অস্বাস্থ্যকর। এ অবস্থায় জরুরি স্বাস্থ্য সাবধানতা জারি করতে হয়। এ সময় সব বয়সের মানুষ হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ার ঝুঁকিতে থাকে।

 

শিশু, বৃদ্ধ ও যাদের শ্বাসতন্ত্র জনিত রোগ (যেমন এজমা) রয়েছে তাদের এ অবস্থায় বাইরে বের হওয়া উচিত না। সবারই বাইরে বের হওয়া কমিয়ে দেয়া উচিত, বিশেষ করে শিশুদের।

চাকা ফেটেছে নভোএয়ারের, ভাগ্যগুণে বেঁচে গেলেন ৩৩ যাত্রী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার

রাজশাহীর শাহ মখদুম বিমানবন্দরে অবতরণের সময় চাকা ফেটেছে নভোএয়ারের একটি উড়োজাহাজের। রোববার (১৭ নভেম্বর) সকাল পৌনে ১০টার দিকে রাজশাহী বিমানবন্দরে অবতরণের সময় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিমানটিতে ৩৩ জন যাত্রী ছিলেন। তবে নিরাপদেই তাদের বিমান থেকে নামিয়ে আনা হয়।

ঢাকা থেকে ৩৩ জন যাত্রী নিয়ে বিমানটি রাজশাহীর উদ্দেশে যায়। রাজশাহী থেকে ৫৫ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকা আসার কথা ছিল। ঢাকা আসার জন্য রাজশাহীতে অপেক্ষমান ৫৫ যাত্রীকে নিয়ে আসে ঢাকা থেকে পাঠানো নভোএয়ারের আরেকটি উড়োজাহাজ।



এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি বলে জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন নভোএয়ারের হেড অব সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং মেসবাউল ইসলাম।

তিনি জানান, ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যাত্রী নিয়ে সকাল পৌনে ১০টার দিকে রাজশাহী পৌঁছায় টিআর ৭২-৫০০ উড়োজাহাজটি। বিমানবন্দরে অবতরণের সময় এয়ারক্রাফটের পেছনের বাঁ দিকের একটি চাকা বিকট শব্দে ফেটে যায়। তবে যাত্রীদের নিরাপদেই নামিয়ে আনা হয়। কোনো ধরনের হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে যাত্রীরা কিছুটা আতঙ্কিত হন।

চাকা ফেটে যাওয়ার পর বিমানের ভেতরে রুদ্ধশ্বাস পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তবে শেষ পর্যন্ত নিরাপদেই উড়োজাহাজ নিয়ন্ত্রণে নিতে সক্ষম হন পাইলট।

মেসবাউল ইসলাম জানান, ওই উড়োজাহাজে করে রাজশাহী থেকে ৫৫ জন যাত্রী ঢাকা আসার অপেক্ষায় ছিলেন। ঢাকা থেকে আরেকটি উড়োজাহাজ পাঠিয়ে তাদের নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হয়।

১৮ ফুট চওড়ায় উন্নীত হচ্ছে ফেনী সদর থেকে শান্তিরহাট মহাসড়ক
                                  

 

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে সীমান্ত হাট বসে। সীমান্ত হাট বসায় ফেনী সদর থেকে ছাগলনাইয়ার শান্তিরহাট পর্যন্ত জেলা মহাসড়কটি অর্থনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সড়কটির কোথাও ১০ ফুট, আবার কোথাও ১২ ফুট চওড়া। সড়কটি সরু হওয়ায় দুটো গাড়ি পাশাপাশি অতিক্রম করতে অসুবিধা হয়। তাই সড়কটি ১৮ ফুট প্রশস্তে উন্নীত ও মজবুত করার উদ্যোগ নিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়।

‘ফেনী (মাস্টারপাড়া)-আলোকদিয়া-লস্করহাট-ছাগলনাইয়া (শান্তিরহাট) জেলা মহাসড়কটি যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ’ নামে একটি প্রকল্প বাস্তবায়নে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। পরিকল্পনা কমিশন সূত্র বলছে, এটি আগামী জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় পাস হতে যাচ্ছে।



৫৯ কোটি ৮৪ লাখ ৯৭ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে সড়ক ও জনপথ অধিদফতর (সওজ)। ২০১৯ সালের অক্টোবর থেকে ২০২১ সালের ডিসেম্বর মেয়াদে এ প্রকল্প বাস্তবায়নের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

পরিকল্পনা কমিশন সুপারিশ করে বলেছে, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ফেনী জেলার সদর উপজেলার সঙ্গে ছাগলনাইয়া উপজেলার উন্নত ও সরাসরি সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপন এবং প্রকল্প এলাকার জনসাধারণের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন হবে।

সড়ক ও জনপথ অধিদফতর বলছে, ফেনী (মাস্টাপাড়া)-আলোকদিয়া-ভালুকিয়া-লস্করহাট-ছাগলনাইয়া (শান্তিরহাট) জেলা মহাসড়কটি একটি গুরুত্বপূর্ণ জেলা মহাসড়ক। সড়কটি পুরাতন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ৮ কিলোমিটারে মাস্টারপাড়া পয়েন্ট থেকে আরম্ভ হয়ে সদর উপজেলার আলোকদিয়া, ভালুকিয়া, লস্করহাট হয়ে ছাগলনাইয়া উপজেলার ভূঁইয়ারহাট নামক স্থানে মিলিত হয়েছে। সড়কটির মোট দৈর্ঘ্য ১৪ দশমিক ১২৩ কিলোমিটার।

সড়কটি কোথাও ১০ ফুট আবার কোথাও ১২ ফুট চওড়া। সড়কটি সরু হওয়ায় দুটো গাড়ি পাশাপাশি অতিক্রম করতে অসুবিধা হয়। এ মহাসড়কের শান্তিরহাট নামক স্থান থেকে ভারতের দূরুত্ব মাত্র সাত কিলোমিটার। দুদেশের সীমান্ত অঞ্চল ছাগলনাইয়ায় সীমান্ত হাট বসে বিধায় মহাসড়কটির অর্থনৈতিক গুরুত্ব অনেক। এ লক্ষ্যে সড়কটি ১৮ ফুট প্রশস্তে উন্নীতকরণ ও মজবুতীকরণ প্রয়োজন। এ পরিপ্রেক্ষিতে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য পরিকল্পনা কমিশনে প্রস্তাব পাঠানো হয়।


এই প্রকল্পের আওতায় সড়ক বাঁধে মাটির কাজ, বিদ্যমান পেভমেন্ট প্রশস্ত ও মজবুত করা, বিদ্যমান পেভমেন্ট পুনঃনির্মাণ করা, সার্ফেসিং, একটি পিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ, আরসিসি বক্স কালভার্ট নির্মাণ তিনটি, ব্রিক মেশিনারি টো-ওয়াল, গ্রাস টার্ফিং, সসার ড্রেন নির্মাণ, রোড মার্কিং, নির্মাণের সময় রক্ষণাবেক্ষণ, ইউটিলিটি স্থানান্তর, জেনারেল অ্যান্ড সাইট ফ্যাসিলিটিস, সাইন, সিগন্যাল, কিলোমিটার পোস্ট ইত্যাদি নির্মাণ করা হবে।

শীত সামনে মশার উৎপাত বেড়েছে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া যখন ভয়াবহ রূপ নিয়েছিল, সে সময় মশক নিধন কার্যক্রম ব্যাপকভাবে পরিচালিত হলেও বর্তমান সময়ে ঝিমিয়ে পড়েছে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের মশক নিধন কার্যক্রম। আসন্ন শীত মৌসুমকে সামনে রেখে বেড়েছে রাজধানীতে মশার উৎপাত।

 

রাজধানীবাসীর অভিযোগ, বর্তমানে তারা মশক নিধন কর্মীদের তেমনভাবে আর মাঠে দেখছেন না। অথচ সংস্থা দুইটি ঘোষণা দিয়েছিল, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে রাখতে সারাবছর জুড়ে কাজ করবে তারা। কিন্তু দুই তিন মাসের ব্যবধানে তাদের কার্যক্রমের গতি কমে এসেছে।

 

 

 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শুধু বিশেষ মৌসুম বা নির্দিষ্ট সময়ে ডেঙ্গুবিরোধী তৎপরতা দেখালে হবে না। বরং বছরব্যাপী এ কার্যক্রম জোরদার রাখতে হবে।

 

রাজধানীর বনশ্রীর বাসিন্দা জেসমিন আক্তার বলেন, ‘কিছু দিনে আগে মশা মারতে সিটি কর্পোরেশনের ব্যাপক তৎপরতা দেখা গেলেও বর্তমানে আমরা মশক নিধন কর্মীদের দেখতে পাইনি। ফলে মশার উৎপাত দেখা দিয়েছে। সারাদিনই তবে বিশেষ করে সন্ধ্যার পর থেকে মশার কারণে বিড়ম্বনায় পড়তে হয় আমাদের।’

 

 

রাজধানী মালিবাগ মোড় সংলগ্ন চায়ের দোকানি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘আমার চায়ের দোকান ভোর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত খোলা থাকে। এ সময় সিটি কর্পোরেশনের মশক নিধন কর্মীদের খুব কম সময়ই দেখেছি মশার মারার ওষুধ ছিটাতে। যে কারণে মশার উৎপাত বেড়েছে। ইদানীং দিনের বেলাতেও মশার কয়েল জ্বালিয়ে রাখতে হয়।’

 

 

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের উত্তর বাড্ডা এলাকার বাসিন্দা এরশাদ আলী বলেন, ‘কিছুদিন আগে মশা মারার অ্যাক্টিভিটিস ছিল দুই সিটি কর্পোরেশনের কিন্তু সে কাজ এখন ঝিমিয়ে পড়েছে। আসলে তারা লোক দেখানো এবং মিডিয়া কাভারেজের জন্য কার্যক্রম দেখায়। আমরা যারা সাধারণ মানুষ তারাই ভোগান্তিতে পড়ি মশা নিয়ে। বাসায় ছোট বাচ্চা আছে সারাদিন মশারির মধ্যে রাখতে হয় তাকে। কারণ সন্ধ্যা নামার সঙ্গে সঙ্গেই শুরু হয় মশার ভোঁ ভোঁ শব্দ।’

 

সম্প্রতি ‘মশক নিয়ন্ত্রণে বর্তমান কার্যক্রম এবং বছরব্যাপী কর্মপরিকল্পনা’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘এখন থেকে প্রতিটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা নিজ নিজ ওয়ার্ডের মশক নিয়ন্ত্রণ, পরিছন্নতাসহ যেকোনো বিষয়ে দায়ী থাকবেন। যার যার কৃতকর্মের জন্য তাকেই জবাবদিহিতা করতে হবে।’

 

 

 

অন্যদিকে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মীর মোস্তাফিজুর রহমানের বরাদ দিয়ে জনসংযোগ কর্মকর্তা উত্তম কুমার রায় বলেন, ‘এডিস মশার প্রজননস্থল ধ্বংসকরণ কার্যক্রমে গত ২২ জুলাই থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের টিম মোট দুই লাখ ১৫ হাজার ৮৪৩ বাড়ি পরিদর্শন করে এক হাজার ৪৯৩ বাড়িতে লার্ভা পেয়েছে। মশক নিধনে আমাদের কার্যক্রম চলছে।’

 

ডিএনসিসির সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, কিউলেক্স মশা ও ডেঙ্গু রোগের জীবাণুবাহক এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম বিষয়ক পরিচালনা পর্ষদ গঠন করেছে তারা। মশা নিয়ন্ত্রণে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যক্তিদের নিয়ে এই পর্ষদ গঠিত হয়েছে। প্রতি তিন মাস অন্তর এই পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে। কিউলেক্স মশা নিয়ন্ত্রণে গত ৭ অক্টোবর থেকে কিউলেক্স মশার প্রজননস্থল অর্থাৎ হট স্পট চিহ্নিত করার জন্য দুইজন কীট বিশেষজ্ঞ এবং ১০ জন শিক্ষানবিশ নিয়োজিত করা হয়েছে। তারা ইতোমধ্যে গবেষণা করে হট স্পট অর্থাৎ কোন এলাকায় কিউলেক্স মশার তীব্রতা কত তা নির্ধারণ করেছেন।

 

 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের একজন কাউন্সিলর বলেন, ‘এ সময়ে এসে প্রতিবছর মশার উৎপাত বাড়তে থাকে তাই আমাদের উচিত আরও বেশি কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা। আসলে প্রতিটি ওয়ার্ডে যতসংখ্যক মশক নিধন কর্মী প্রয়োজন সেই তুলনায় আমাকের লোকবল কম। এর মধ্যও আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি। সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকেও অনেক পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে, এর সঙ্গে নগরবাসীকেও সচেতন হতে হবে।’

 

মশক নিধনে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন পদক্ষেপ, কার্যক্রম তবুও কেন রাজধানীতে মশার উৎপাত-এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নেই পর্যাপ্ত লোকবল। পাশাপাশি ফগার ও হুইলব্যারোসহ অন্যান্য মেশিন-যন্ত্রপাতিতে সংকট থাকায় মশা নিধন পুরোপুরি সম্ভব হচ্ছে না। পুরনো কাঠামোর মাত্র ৪৮ শতাংশ জনবল নিয়েই সংস্থা দুটি তাদের দ্বিগুণ এলাকায় নাগরিক সেবা দিয়ে আসছে। এ কারণে প্রতিটি সেবা সংক্রান্ত কার্যক্রমেই হিমশিম খেতে হচ্ছে সংস্থা দুটিকে।

 

 

 

সিটি কর্পোরেশন বিভক্ত হওয়ার পর নতুন করে ১৬টি ইউনিয়ন যুক্ত হওয়ায় সংস্থা দুটির আয়তন বেড়েছে কিন্তু জনবল বাড়েনি। বরং বিভক্ত হওয়ার সময় দুই ভাগ হয়েছে আগের জনবল। এজন্য যথাযথ নাগরিক সেবা পাচ্ছে না নগরবাসী।

 

ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়াসহ মশাবাহিত রোগ মোকাবিলায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) ও ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে (ডিএনসিসি) মোট ১২৯ ওয়ার্ডের জন্য মশক নিধন কর্মী রয়েছে মাত্র ৭০৯ জন। যে কারণে তারা হিমশিম খাচ্ছেন সার্বিক কাজ পরিচালনায়।

চাল নিয়ে কেলেঙ্কারি করতে দেয়া যাবে না : খাদ্যমন্ত্রী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

চাল নিয়ে কেলেঙ্কারি করতে দেয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। বাজারে চালের মূল্য বেড়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এক সভায় চালকল মালিকদের উদ্দেশ্যে খাদ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। রোববার রাজধানীর আব্দুল গণি রোডে খাদ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে এ সভা হয়।

 

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা পত্র-পত্রিকায় দেখেছি চালের দাম বৃদ্ধি। কিন্তু আমি বুঝি না, আমাদের এখন সর্বকালের সর্ববৃহৎ সরকারি (খাদ্যশস্য) মজুত। ওএমএস ডিলাররা এখন চাল নেয় না। বাজার কন্ট্রোলের জন্য তো সরকার ওএমএস ডিলার নিয়োগ করেছে। সরকারের মজুত থেকেই ডিলারদের চাল দিয়ে বাজার কন্ট্রোল করা হয়।’

 

 

 

তিনি বলেন, ‘কিন্তু ওএমএস ডিলাররা নাকি ৩০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করতে পারে না। তাই ওএমএস ডিলাররা চাল নিতে চায় না। এর অর্থ এই নয় যে আমাদের গুদামে খারাপ চাল আছে।’

 

‘আমাদের বোরো প্রকিউরমেন্টের চাল রয়েছে এবং ভালো চাল রয়েছে। এই চাল ৩০ টাকা দরে কিনতে চায় না। কিন্তু পত্র-পত্রিকায় এসেছে চালের দাম বেড়েছে।’

 

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরাও তো বাজার মনিটরিং করি। আমরা বাজার মনিটরিংয়ে দেখেছি ফাইন রাইসের (চিকন চাল) দাম কিছুটা বেড়েছে।’

 

‘ইতোপূর্বে আপনারা (চালকল মালিক) যখন রফতানির কথা বলেছেন। আমাদের ক্যাবিনেটে যখন রফতানির কথাটা উঠে, হ্যাঁ রফতানি তো করতে হবে রফতানি না করলে চলবে কীভাবে? আমি তখন প্রথম বলেছিলাম, রফতানি যদি করতে হয় মোটা চাল সাবসিডি দিয়ে করতে হবে। মোটা চাল বিক্রির বাজার খুঁজতে হবে।’

 

 

এখন রিকশাওয়ালা থেকে শুরু করে গণভবন পর্যন্ত সবাই চিকন চালের ভাত খায় জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘(রফতানি করলে) এটার (চিকন চাল) উপর চাপ পড়বে আর রফতানি হলে তো ফাইন রাইস রফতানি হবে, মোটা চাল রফতানি হবে না। তাই এ চাল রফতানির জন্য আমার তরফ থেকে আমি অনুমোদন দিতে পারব না। দায়-দায়িত্ব আপনাদের নিতে হবে।’

 

তিনি বলেন, ‘এজন্য আমাকে অনেকে খারাপও মনে করেছে যে আপনি রফতানি করতে দিলেন না। ঠিক আছে রফতানি হোক কিন্তু রফতানি করতে গিয়ে যদি চালের দাম বাড়ে?’

 

‘আমাদের তো এই মন্ত্রণালয়ের বিপদ, যদি চালের দাম ২ টাকা কমে, তবে কৃষক দাম পেল না বলে গুষ্টি উদ্ধার আমাদের। দাম ২ টাকা যদি বাড়ে তাইলে গুষ্টি উদ্ধার আমাদের।’

 

 

 

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পেঁয়াজ নিয়ে একটা অযথা কেলেঙ্কারি। এজন্যই আপনাদের (চালকল মালিক) আমাদের ডাকা। যাতে চাল নিয়ে কোনো কেলেঙ্কারি আমাদের না হয়। এটা নিয়ে কেলেঙ্কারি করতে দেওয়া যাবে না। আপনাদের সুবিধা-অসুবিধা আমরা শুনব।’

 

তিনি বলেন, ‘তারপরও যতই অসুবিধা হোক না কেন বাজার সহনীয় পর্যায়ে কন্ট্রোলের মধ্যে রাখতে হবে, এটাই হলো কথা। মিল মালিক, কৃষক, অধিদফতর, মন্ত্রণালয়- এরা অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত।’

 

‘পাশাপাশি আমাদের একটা নির্দেশনা ছিল- প্রকৃত মিল মালিকরা যাতে বরাদ্দ পায়। আমার মনে হয় এটা সারা দেশে কঠোরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে, সে অনুযায়ী সার্ভে করা হয়েছে।’

 

এ বিষয়ে কোনো অনিয়মের তথ্য থাকলে তাও জানানোর অনুরোধ জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী।

 

 

 

মাঠ পর্যায়ের খাদ্য কর্মকর্তাদের এই তালিকা ওয়েবসাইটে এবং সাংবাদিকদের সরবরাহ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘কোনো অভিযোগ থাকলে আগেই সাংবাদিকরা অভিযোগ দিক। পরে যেন না বলে যে, বন্ধ মিলকে বা অবৈধ মিলকে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বললে আগেই বলুক।’

ঈমান ও নীতির বাইরে কোনো কিছু করি না: নিকাহ সমিতির আলোচনা সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
                                  

মিয়া আবদুল হান্নান : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের রাজনীতির সাথে কখনো বেঈমানী করিনি। ঈমান ও নীতির বাইরে কোনো কিছু করি না। অনেকেরই বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযান চলছে। আমার বিরুদ্ধে দশ টাকার ঘুষ দুর্নীতিও কেউ দেখাতে পারেনি। গতকাল শনিবার তোপখানা রোডস্থ ফেনী সমিতি মিলনায়তনে বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতি আয়োজিত সাধারণ সভা ও বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে নিকাহ রেজিস্ট্রারদের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ এসব কথা বলেন। নিকাহ রেজিস্ট্রারদের দাবি দাওয়া উত্থাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর সাথে একদিন মিটিং করার সুযোগ সৃষ্টির জন্য চেষ্টা চালানোরও প্রতিশ্রুতি দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

বাংলাদেশ মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির সভাপতি ও যুবলীগের কেন্দ্রী কমিটির ধর্মবিষয়ক সম্পাদক কাজী মাওলানা মো. খলিলুর রহমান সরদারের সভাপতিত্বে ও সমিতির মহাসচিব আলহাজ কাজী মাওলানা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে নেতৃবৃন্দ বলেন, সারাদেশে কাজীরা যোগ্য সন্মান পাচ্ছেন না। নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে মনের কথা খুলে বলতে চান নিকাহ রেজিস্ট্রাররা (কাজী)। সমস্যা শুনতে প্রধানমন্ত্রী একদিন সময় দিলেই সব সমস্যার সমাধান হবে বলে তাদের বিশ্বাস। কারণ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কাজীদের ন্যায্য দাবি সব সময় মেনে নিতেন। তার সুযোগ্য কন্যাও নিশ্চয়ই তাদের ন্যায্য দাবি মেনে নেবেন।

সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, এক মাস আগে আমার কিছু বক্তব্য নিয়ে সাঈদীর ছেলে তার ফেসবুকে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়িয়েছে। অসৎ উদ্দেশ্যে কেউ কেউ মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছে। এতে আলেমদের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, বাতেল বেশি দিন টিকে থাকতে পারবে না। তিনি আরো বলেন, সকল আলেম সমাজই শ্রদ্ধাভাজন। সরকার ও আলেম ওলামাদের মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে আনতে সকল শ্রেণীর আলেমদের ঐক্যবদ্ধ করে একটি প্লটফর্মে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, বাল্যবিবাহ, নারীর প্রতি সহিংসতা, মাদকাসক্তিসহ যাবতীয় সামজিক সমস্যার বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে বাংলাদেশের নিকাহ রেজিস্ট্রারগণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন। সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দল্লাহকে বাংলাদেশের মুসলিম নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে মনোনীত করা হয়।

সভায় আলহাজ কাজী মাওলানা মো. খলিলুর রহমান সরদার ও আলহাজ কাজী মো. ইকবাল হোসেন যথাক্রমে সংগঠনের সভাপতি ও মহাসচিব হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হন।

বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান ঢাকায় পৌঁছাবে মঙ্গলবার
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

মিসর থেকে কার্গো বিমানযোগে আমদানিকৃত পেঁয়াজের প্রথম চালান ঢাকায় পৌঁছাবে মঙ্গলবার। এস আলম গ্রুপ বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করছে, এটি তার প্রথম চালান। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য আমদানিকারকদের আমদানিকৃত পেঁয়াজ কার্গো উড়োজাহাজ যোগে ঢাকায় পৌঁছাবে। শনিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশে পেঁয়াজের সরবরাহ ও মূল্য স্বাভাবিক রাখতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে টিসিবির মাধ্যমে সরাসরি তুরস্ক থেকে, এস আলম গ্রুপ মিসর থেকে, বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আফগানিস্তান ও সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে জরুরিভিত্তিতে কার্গো উড়োজাহাজ যোগে পেঁয়াজ আমদানি করবে।



এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। অতি অল্প সময়ের মধ্যে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ বাজারে সরবরাহ করা সম্ভব হবে। এছাড়া সমুদ্র পথে আমদানিকৃত পেঁয়াজ বাংলাদেশের পথে রয়েছে, পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় এই চালান খুব শিগগিরই বাংলাদেশে পৌঁছাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে টেকনাফ স্থলবন্দর, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরসহ বিভিন্ন স্থানে পেঁয়াজ পরিবহনে কয়েকদিনের জন্য সমস্যা হয়েছিল। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য জরুরিভিত্তিতে উল্লিখিত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, খুব কম সময়ের মধ্যে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ বাজারে চলে আসবে এবং মূল্য স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলছে, দেশের গোয়েন্দা সংস্থা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এ বিষয়ে তৎপর রয়েছে। কেউ পেঁয়াজ অবৈধ মজুত করলে, কারসাজি করে অতি মুনাফা অর্জনের চেষ্টা করলে বা অন্য কোনো উপায়ে বাজারে পেঁয়াজের সংকট সৃষ্টির চেষ্টা করলে, তাদের বিরুদ্ধে আইন মোতাবেক কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বাজার মনিটরিং করার জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বেশ কয়েকটি টিম কাজ করছে। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বাজার অভিযান জোরদার করেছে। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে উৎপাদিত দেশীয় পেঁয়াজ বাজারে আসতে শুরু করেছে।

উল্লেখ্য, দাম কম ও সহজ পরিবহনের কারণে প্রতিবেশী দেশ ভারত থেকে প্রয়োজনীয় পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। তবে এ বছর ভারতের মহারাষ্ট্র ও অন্য এলাকায় বন্যার কারণে পেঁয়াজের ফলন ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে কিছুদিন আগে রফতানির ক্ষেত্রে ভারত প্রতি মেট্রিক টন পেঁয়াজের মিনিমাম এক্সপোর্ট প্রাইস (এমইপি) নির্ধারণ করে দেয়।


গত ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে ভারত কর্তৃপক্ষ পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ ঘোষণা করে। বিকল্প হিসেবে বাংলাদেশ মিয়ানমার থেকে এলসি এবং বর্ডার ট্রেডের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেছে। পাশাপাশি মিসর ও তুরস্ক থেকেও এলসির মাধ্যমে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করা হয়। সম্প্রতি মিয়ানমারও পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি করেছে। ফলে বাংলাদেশের বাজারেও এর প্রভাব পড়েছে।

 

দুর্নীতির টাকা দিয়ে ফুটানি চলবে না : প্রধানমন্ত্রী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চলছে, অভিযান অব্যাহত থাকবে। দেশে আর কোনো দুর্নীতি সন্ত্রাস চাঁদাবাজি চলবে না। দুর্নীতির টাকা দিয়ে ফুটানি-ফাটানী চলবে না।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের নীতি হচ্ছে কেউ যেন পিছনে না পড়ে থাকে। সবাই সুন্দরভাবে জীবন যাপন যেন করতে পারে। এজন্য প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শুরু করে উচ্চ ডিগ্রি নেয়া পর্যন্ত আমরা উপবৃত্তির ব্যবস্থা করেছি। যাতে অসচ্ছলরাও এগিয়ে যেতে পারে। এ ছাড়া গ্রামের বিধবা, অসচ্ছল, স্বামী পরিত্যাক্তাদের ভাতা, বয়স্কদের ভাতা সহ নানা সুবিধা দেয়া হচ্ছে। তরুণ-যুবকরা যাতে প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারে সেজন্য যুব উন্নয়ন ট্রেনিংসহ নানা সুযোগ দেয়া হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তৃণমূল পর্যন্ত স্বাস্থ্যসেবায় অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে ৩০ প্রকার ওষুধ দিয়ে সেবা করছি।

তিনি বলেন, দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। এখন নজর দিয়েছি পুষ্টিকর খাবারের দিকে। নারী পুরুষ সমানভাবে যেন তাদের অধিকার এবং সুবিধা পায় সে ব্যবস্থা করেছি। যে যতভাবে বাধা সৃষ্টি করুক না কেন দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ এগিয়ে যাওয়ার গতি অব্যাহত থাকবে। মুজিব আদর্শে যারা বিশ্বাসী দেশ গড়ে তোলার দায়িত্ব তাদের। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের যে মর্যাদা দিয়েছেন তা ধরে রাখতে হবে।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকার কারণে দেশের অনেক উন্নয়ন করতে পেরেছি। আজকে দেশ হয়েছে ডিজিটাল বাংলাদেশ। গ্রামীণ মানুষের উন্নয়নে আমার বাড়ি আমার খামার কর্মসূচি ঘোষণা করেছি। তারা যেন নিজেরা পুষ্টিকর খাবার খেতে পারে সে পরিকল্পনা নিয়ে কর্মসূচি ঘোষণা করেছি।


স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেবাদানের মূলমন্ত্র নিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী করেছিলেন। পরে দলের সঙ্গে মিলিয়ে নাম পরিবর্তন করে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ করেছি। এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে যে নতুন নেতৃত্বে আসবে তারা যেন সেবাদান ও সুশৃংখলভাবে জীবন যাপন করে। তাদের দেখে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যেন একটি সুশৃঙ্খল জীবন গড়তে পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, যারা বাংলাদেশের বিরোধিতা করেছে যারা দেশের স্বাধীনতা চায়নি তারাই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে হত্যা করেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে হত্যা করার পর তারা দেশে খুনের রাজত্ব কায়েম করেছে। খুন-ধর্ষণ ছিল তখন নিত্যদিনের ঘটনা। পরবর্তীতে যারা ক্ষমতায় এসেছে তারা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিভিন্ন দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করেছে। রাজাকার-আলবদরদের মন্ত্রী বানিয়ে এ দেশের পতাকার অসম্মান করেছে। ১৯ বার ক্যূ হয়েছে। হাজার হাজার আর্মি অফিসারদের হত্যা করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের যারা মন্ত্রী বানিয়েছে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পুরস্কৃত করেছে সেই বিএনপি এবং রাজাকাররা আর যেন ক্ষমতায় আসতে না পারে সেজন্য দেশের মানুষকে সজাগ থাকতে হবে। কারণ তারা ক্ষমতায় এলে আবার জঙ্গিবাদ, খুন, ধর্ষণ, লুণ্ঠন শুরু হবে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি নির্মল গুহের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ও কৃষিবিদ আ. ফ. ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

সম্মেলনে সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও গাজী মেজবাউল হক সাচ্ছু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি মতিউর রহমান মতি, সম্মেলনে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের দফতর সম্পাদক সালেহ মো. টুটুল। মুক্তিযুদ্ধসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

এর আগে সম্মেলনের শুরুতেই জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এরপর পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

প্রশিক্ষণ নিতে ভারত যাবেন দুদক কর্মকর্তারা
                                  

বিশেষ সংবাদদাতা

ভারতের গুজরাট ফরেনসিক সায়েন্স ইউনিভার্সিটিতে প্রশিক্ষণ নিতে যাচ্ছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কর্মকতারা। ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসের ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্বদীপ দে কর্তৃক প্রেরিত এক পত্রের মাধ্যমে দুদক বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে। দুদকের একটি দায়িত্বশীল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ভারতীয় দূতাবাসের ওই পত্রে বলা হয়েছে, দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত এবং অপরাধীদের প্রসিকিউট করার জন্য এ প্রশিক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। আগামী বছরের শুরুতেই প্রশিক্ষণের স্লটসহ বিস্তারিত কর্মসূচি জানানো হবে এবং কর্মকর্তারা আগামী বছরের এপ্রিল মাস থেকেই প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

এর আগে গত ২৯ সেপ্টেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনের সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখ্ত কমিশনের অনুমোদনক্রমে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনারের নিকট এক পত্রের মাধ্যমে দুদক কর্মকর্তাদের দুর্নীতি দমন, প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে ভারতে বিশেষ প্রশিক্ষণ আয়োজনের ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

এ বিষয়ে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুদক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেশ-বিদেশে বহুমাত্রিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের সক্ষমতা আরও বৃদ্ধিতে কাজ করছে কমিশন। এছাড়া ফরেনসিকের ওপরে বিশেষায়িত একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুদক কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ তাদের ডিজিটাল তদন্তের জ্ঞান ভান্ডার আরও সমৃদ্ধ করবে। অপরাধ ও অপরাধী চিহ্নিতকরণে ফরেনসিক জ্ঞান অত্যন্ত জরুরি।

সেবার মানসিকতা ছড়িয়ে দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বেচ্ছাসেবক লীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সেবার মানসিকতা সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।



প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারা দেশে শিশু কিশোরদের মাঝে এই সেবার মানসিকতা ছড়িয়ে দিতে হবে। শুধু তাই নয় নিজেরাও একটা সুশৃঙ্খল জীবন-যাপন করতে হবে যাতে শিশু কিশোরদের মাঝে সেবার মানসিকতা গড়ে ওঠে এবং তারা উদ্বুদ্ধ হয়।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহের সভাপতিত্বে সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন সদস্য সচিব গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু।

সম্মেলনে আরও উপস্থিত রয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম প্রমুখ।

এর আগে জাতীয় সংগীতের সঙ্গে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। পরে চার ধর্মগ্রন্থ পাঠ করা হয়।


   Page 1 of 128
     জাতীয়
পদ্মা সেতুর আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান হচ্ছে আজ
.............................................................................................
ককপিটে নিয়ে কেবিন ক্রুদের কুপ্রস্তাব দেন পাইলট ইশরাত
.............................................................................................
রাতে দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ারকে হাইকোর্টে তলব
.............................................................................................
সড়ক আইন বাস্তবায়নে বাড়াবাড়ি না করার নির্দেশ ওবায়দুল কাদেরের
.............................................................................................
আরব আমিরাতের আরও বড় বিনিয়োগ প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
সোমবার পল্টনে বায়ু দূষণ ২৩৩ পিএম, সবার অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি
.............................................................................................
চাকা ফেটেছে নভোএয়ারের, ভাগ্যগুণে বেঁচে গেলেন ৩৩ যাত্রী
.............................................................................................
১৮ ফুট চওড়ায় উন্নীত হচ্ছে ফেনী সদর থেকে শান্তিরহাট মহাসড়ক
.............................................................................................
শীত সামনে মশার উৎপাত বেড়েছে
.............................................................................................
চাল নিয়ে কেলেঙ্কারি করতে দেয়া যাবে না : খাদ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
ঈমান ও নীতির বাইরে কোনো কিছু করি না: নিকাহ সমিতির আলোচনা সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান ঢাকায় পৌঁছাবে মঙ্গলবার
.............................................................................................
দুর্নীতির টাকা দিয়ে ফুটানি চলবে না : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রশিক্ষণ নিতে ভারত যাবেন দুদক কর্মকর্তারা
.............................................................................................
সেবার মানসিকতা ছড়িয়ে দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
পেঁয়াজের বাজার চরম বিশৃঙ্খল, কেজি ২৬০ টাকা
.............................................................................................
সংশোধিত ড্যাপে শিশুদের প্রস্তাব অন্তর্ভুক্ত করবে রাজউক
.............................................................................................
ধানমন্ত্রীর কাছে মনের কথা খুলে বলতে চান নিকাহ কাজিরা
.............................................................................................
লন্ডভন্ড শিডিউল আর বন্ধ এসএমএস সার্ভিসে ভোগান্তিতে ট্রেনযাত্রীরা
.............................................................................................
স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন মঞ্চে শেখ হাসিনা
.............................................................................................
রেনিটিডিন উৎপাদন ও ক্রয়-বিক্রয় স্থগিত
.............................................................................................
দেশ ক্ষুধামুক্ত হয়েছে, এবার লক্ষ্য দারিদ্র্যমুক্ত করা
.............................................................................................
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অগ্নিকাণ্ডের কারণ উদঘাটনে কমিটি
.............................................................................................
‘শিবির সন্দেহ’ আবরারকে হত্যার একমাত্র কারণ নয়
.............................................................................................
চালকরা ছিলেন ঘুমে, পরপর তিনটি সিগন্যাল ভাঙে তূর্ণা-নিশীথা
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনার তদন্ত শুরু, আহত যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলছে কমিটি
.............................................................................................
বিদ্যুতের অপচয় করবেন না : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
মা-বাবা-ভাইকে রেখে চলে গেল ছোট্ট ছোঁয়া
.............................................................................................
বুলবুলে ২৬৩ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি
.............................................................................................
ট্রেনচালকদের উন্নত প্রশিক্ষণ প্রয়োজন : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ট্রেন দুর্ঘটনায় হতাহতদের সহযোগিতা দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
.............................................................................................
কসবায় হতাহতের ঘটনায় রাষ্ট্রপতির শোক
.............................................................................................
বিশ্ব মুসলিম বাবরী মসজিদ রায় প্রত্যাখ্যান করেছে
.............................................................................................
ভোটার তালিকা প্রকাশের দিনক্ষণ নিজে ঠিক করতে চায় ইসি
.............................................................................................
রোহিঙ্গারা আঞ্চলিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
তুরিন আফরোজকে ট্রাইব্যুনালের সব কাজ থেকে অব্যাহতি
.............................................................................................
সাগর-রুনি হত্যার আলামত এখনও যুক্তরাষ্ট্রে
.............................................................................................
সবাই একযোগে কাজ করলে দারিদ্র্য জয় করতে পারব
.............................................................................................
বুলবুলে আইলার স্মৃতি, দেয়াল হিসেবে দাঁড়াবে সুন্দরবন
.............................................................................................
বুলবুলের কারণে সোমবারের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষাও পেছাল
.............................................................................................
আহসান উল্লাহ মাস্টারের জন্মদিন আজ
.............................................................................................
গ্রামের স্বজনদের নিয়ে উদ্বিগ্ন রাজধানীর লাখো পরিবার
.............................................................................................
পরিকল্পনার বাইরে কোনো কিছু হতে পারবে না
.............................................................................................
‘বুলবুল’ মোকাবিলার সমস্ত প্রস্তুতি আমাদের আছে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
‘ভিসির দুর্নীতির প্রমাণ না দিলে আন্দোলনকারীদেরই সাজা’
.............................................................................................
অবৈধ ১১ হাজার বিদেশিকে নিজখরচে ফেরত পাঠাবে বাংলাদেশ
.............................................................................................
সাংবাদিকদের অনুদানের চেক বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রূপপুর বালিশকাণ্ড : ৭ প্রকৌশলীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুদক
.............................................................................................
বাংলাদেশের শ্রমিক নেবে মালয়েশিয়া, সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]