| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ   * লাদাখ সীমান্তে চীনা সেনাকে আটক করল ভারত   * রায়হানের মৃত্যু: ১৬৪ ধারায় তিন পুলিশের জবানবন্দি   * কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের অজগর সাপ ও ময়না পাখি অবমুক্ত   * জনগণকে বুঝতে না পারাই বিএনপির ব্যর্থতা: কাদের   * পদ্মায় ইলিশ ধরার দায়ে ২৪ জেলেকে সাজা   * পদ্মা সেতুতে বসলো ৩৩তম স্প্যান, ৫ কি.মি. দৃশ্যমান   * আজও আন্দোলনে নর্থ সাউথের শিক্ষার্থীরা   * চার্জ গঠনের এক সপ্তাহের মাথায় শিশু ধর্ষণ মামলার রায়   * নামাজ আদায়ে খুলে দেয়া হলো মসজিদুল হারাম  

   প্রবাস -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
কানাডায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

অনলাইন ডেস্ক : এবার দুর্গাপূজা শুরু হচ্ছে এক মাস পর; অর্থাৎ আগামী ২১ অক্টোবর থেকে। এদিন দেবীর বোধন।

বরফাচ্ছন্ন কানাডার ক্যালগেরিতে আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে আগামী ২১ অক্টোবর থেকে।

কিন্তু এবারের আয়োজনে প্রবাসী বাংলাদেশীরা করোনাকালে শুধু ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে পূজা-অর্চনার মাধ্যমে মন্দির প্রাঙ্গণের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে সব আয়োজন। বয়স্ক ব্যক্তি ও শিশু এবার পূজায় আসতে পারবে না। তাদের জন্য ভার্চুয়ালি অঞ্জলির ব্যবস্থা থাকবে সব আয়োজনে।

এবার দুর্গাপূজায় স্বাস্থ্যবিধি ও গাইডলাইন কঠোরভাবে পুণ্যার্থীদের মেনে চলতে হবে। এর মধ্যে মন্দির প্রাঙ্গণে নারী-পুরুষের প্রবেশ ও বের হওয়ার পথ আলাদা থাকবে।

এ ছাড়া পূজামণ্ডপে আসা ব্যক্তিরা নির্দিষ্ট দূরত্ব (কমপক্ষে দুই মিটার) বজায় রেখে লাইন ধরে সারিবদ্ধভাবে প্রবেশ করবেন এবং প্রণাম শেষে বের হয়ে যাবেন।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে পুষ্পাঞ্জলি প্রদানের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে এবং ভক্তের সংখ্যা অধিক হলে একাধিকবার পুষ্পাঞ্জলির ব্যবস্থা করতে হবে।

পূজাণ্ডপে আসা সবার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। মাস্ক না পরে এলে কাউকে পূজামণ্ডপে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। এ ছাড়া মন্দিরের প্রবেশ পথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা সাবান দিয়ে হাত ধোয়া এবং তাপমাত্রা পরিমাপের জন্য থার্মাল স্ক্যানারের ব্যবস্থা থাকবে।

গত বছরের মতো এ বছর আলোকসজ্জ্বা হবে না পূজামণ্ডপে। নানা মাত্রিক আচার অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শারদীয় উৎসবে চলবে দেবী দুর্গার আরাধনা।

ক্যালগেরির `আমরা সবাই`-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, আসছে শুভ দিনে মায়ের আশীর্বাদে দেশে ও বিশ্বের মধ্যে শান্তি বিরাজ করবে, আগামী দিনগুলো আরও সুন্দর হয়ে উঠবে, করোনাসহ সব জড়াব্যাধি, পাপ ও পঙ্কিলতা দূর হয়ে মানুষের মধ্যে শান্তি ফিরে আসবে এমনটিই আমাদের প্রত্যাশা।

ক্যালগেরি বঙ্গীয় পরিষদের সাবেক সভাপতি, বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর বলেন, ক্যালগেরি বঙ্গীয় পরিষদ এই শহরে সর্বপ্রথম এবং সর্ববৃহৎ পূজার আয়োজন করে আসছে। কিন্ত এবার ভিন্ন প্রেক্ষাপটে পূজা হবে।

বাংলাদেশ পূজা পরিষদ অব ক্যালগেরির এক্সকিউটিভ কমিটির সদস্য প্রকৌশলী সুব্রত বৈরাগী বলেন- দুর্গতি বিনাশ করার জন্য দেবীর আবির্ভাব। তাই দেবীর নামকরণ ‘দুর্গা’। আমরা বিশ্বাস করি, দেবী সর্বত্র আছেন, মঙ্গলের বার্তা দিয়ে তিনি পৃথিবীকে শান্তিময় করে তুলবেন।

কানাডায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এবার দুর্গাপূজা শুরু হচ্ছে এক মাস পর; অর্থাৎ আগামী ২১ অক্টোবর থেকে। এদিন দেবীর বোধন।

বরফাচ্ছন্ন কানাডার ক্যালগেরিতে আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে আগামী ২১ অক্টোবর থেকে।

কিন্তু এবারের আয়োজনে প্রবাসী বাংলাদেশীরা করোনাকালে শুধু ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে পূজা-অর্চনার মাধ্যমে মন্দির প্রাঙ্গণের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে সব আয়োজন। বয়স্ক ব্যক্তি ও শিশু এবার পূজায় আসতে পারবে না। তাদের জন্য ভার্চুয়ালি অঞ্জলির ব্যবস্থা থাকবে সব আয়োজনে।

এবার দুর্গাপূজায় স্বাস্থ্যবিধি ও গাইডলাইন কঠোরভাবে পুণ্যার্থীদের মেনে চলতে হবে। এর মধ্যে মন্দির প্রাঙ্গণে নারী-পুরুষের প্রবেশ ও বের হওয়ার পথ আলাদা থাকবে।

এ ছাড়া পূজামণ্ডপে আসা ব্যক্তিরা নির্দিষ্ট দূরত্ব (কমপক্ষে দুই মিটার) বজায় রেখে লাইন ধরে সারিবদ্ধভাবে প্রবেশ করবেন এবং প্রণাম শেষে বের হয়ে যাবেন।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে পুষ্পাঞ্জলি প্রদানের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে এবং ভক্তের সংখ্যা অধিক হলে একাধিকবার পুষ্পাঞ্জলির ব্যবস্থা করতে হবে।

পূজাণ্ডপে আসা সবার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। মাস্ক না পরে এলে কাউকে পূজামণ্ডপে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। এ ছাড়া মন্দিরের প্রবেশ পথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা সাবান দিয়ে হাত ধোয়া এবং তাপমাত্রা পরিমাপের জন্য থার্মাল স্ক্যানারের ব্যবস্থা থাকবে।

গত বছরের মতো এ বছর আলোকসজ্জ্বা হবে না পূজামণ্ডপে। নানা মাত্রিক আচার অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শারদীয় উৎসবে চলবে দেবী দুর্গার আরাধনা।

ক্যালগেরির `আমরা সবাই`-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, আসছে শুভ দিনে মায়ের আশীর্বাদে দেশে ও বিশ্বের মধ্যে শান্তি বিরাজ করবে, আগামী দিনগুলো আরও সুন্দর হয়ে উঠবে, করোনাসহ সব জড়াব্যাধি, পাপ ও পঙ্কিলতা দূর হয়ে মানুষের মধ্যে শান্তি ফিরে আসবে এমনটিই আমাদের প্রত্যাশা।

ক্যালগেরি বঙ্গীয় পরিষদের সাবেক সভাপতি, বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর বলেন, ক্যালগেরি বঙ্গীয় পরিষদ এই শহরে সর্বপ্রথম এবং সর্ববৃহৎ পূজার আয়োজন করে আসছে। কিন্ত এবার ভিন্ন প্রেক্ষাপটে পূজা হবে।

বাংলাদেশ পূজা পরিষদ অব ক্যালগেরির এক্সকিউটিভ কমিটির সদস্য প্রকৌশলী সুব্রত বৈরাগী বলেন- দুর্গতি বিনাশ করার জন্য দেবীর আবির্ভাব। তাই দেবীর নামকরণ ‘দুর্গা’। আমরা বিশ্বাস করি, দেবী সর্বত্র আছেন, মঙ্গলের বার্তা দিয়ে তিনি পৃথিবীকে শান্তিময় করে তুলবেন।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশীদের জন্য সেকেন্ড হোম অবস্থান তৃতীয়
                                  

মিয়া আবদুল হান্নান : আট হাজারেও বেশি বাংলাদেশী নাগরিক স্ব-পরিবারে বসবাস ও ব্যবসা চাকরি করতেছে। মালয়েশিয়ায় সেকেন্ডহোম সুবিধা নিয়ে ফ্লাট কিনে বসবাস করছেন। সেকেন্ড হোম হিসেবে যেসব বিদেশি নাগরিক মালয়েশিয়াকে বেছে নিচ্ছেন তাদের মধ্যে বাংলাদেশিদের অবস্থান তৃতীয়। এই কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া বিদেশিরা স্থাবর সুবিধা ও রাজস্ব হিসেবে দেশটির জাতীয় অর্থনীতিতে যোগ হচ্ছেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, মালয়েশিয়ায় টাকার উৎস নিয়ে প্রশ্ন না করায় অনেক বাংলাদেশী এই সুযোগ নিচ্ছেন। সম্প্রতি দেশটির সারওয়াকে সেকেন্ড হোম কর্মসূচিতে নতুন সংশোধিত প্রয়োজনীয়তা এবং বিধিমালা রাজ্য মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পেয়েছে। এতে করে নতুন নীতিমালায় রাজ্যে বাড়ি নির্মাণে বা সেকেন্ড করতে বিদেশিদেরা আকৃষ্ট হবেন বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট বিভাগ।

ভিসার মেয়াদ বাড়াতে কফিলেই শেষ ভরসা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ভিসা ও ইকামার মেয়াদ বাড়াতে নিরুপায় হয়ে প্রবাসীরা নিজ উদ্যোগে কফিলের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছেন। কেউ আবার নিচ্ছেন দালালের সহায়তা।

যে কোনো মূল্যে ভিসা নবায়ন করে কাজে ফিরতে মরিয়া হাজার হাজার সৌদি প্রবাসী। গত মার্চ মাসে যারা ভিসা নিয়ে করোনার কারণে যেতে পারেননি তাদেরও নতুন করে ভিসা নিতে হবে।

এ সংখ্যা প্রায় ২৫ হাজার। সময়মতো টিকিট না পাওয়ায় ভোগান্তি কাটছে না সৌদি প্রবাসীদের। নানা জায়গায় ধরনা দিয়েও সংশ্লিষ্টরা ভিসা নবায়নের সুনির্দিষ্ট আশ্বাস পাচ্ছেন না।

অন্যান্য দিনের মতো বৃহস্পতিবারও টিকিটের জন্য মতিঝিলে বিমান ও সোনারগাঁও হোটেলে সাউদিয়া এয়ারলাইন্স অফিসের সামনে ছিল ভিড়।

সকাল থেকে কয়েক হাজার কর্মী সেখানে জড়ো হন। যাদের ভিসার মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে তাদের অনেকেও আসেন সেখানে। ভিসা ও আকামার মেয়াদ না থাকায় তাদের কোনো টিকিট দেয়া হচ্ছে না। গতকাল সাউদিয়া এয়ারলাইন্সে ৪০০ টিকিট দেয়া হয়।

এর মধ্যে ‘এ’ সিরিয়ালের ২০০ এবং ‘বি’ সিরিয়ালের ২০০ টিকিট দেয়া হয়। টিকিটের জন্য ৪ অক্টোবর থেকে নতুন টোকেন দেয়ার কথা রয়েছে সৌদি এয়ারলাইন্সের। মতিঝিলের বিমান অফিসে সকাল ১০টা থেকে টিকিট দেয়া শুরু হয়েছে।

যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পথে তারাই ভিড় করছেন বিমান অফিসের সামনে। গতকাল ৫ অক্টোবরের ঢাকা-জেদ্দা, ঢাকা-দাম্মামের টিকিট দেয়া হয়।

কফিল না চাইলে ভিসার মেয়াদ বাড়ানো সম্ভব নয়। এ নিয়ে তাদের কিছু করার নেই। সরকারের এমন ঘোষণার পর মেয়াদ শেষ এমন অধিকাংশ প্রবাসী হতাশ হয়ে পড়েন। মেয়াদ বাড়াতে সরকার কোনো উদ্যোগ নেবে না- এমনটা ধরে নিয়ে অনেকেই নিজ উদ্যোগে কাজ শুরু করেছেন। তারা নিজেরাই কফিলের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন।

সৌদি দূতাবাসের নির্দেশিত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আনার চেষ্টা করছেন। কিন্তু বেশির ভাগ সৌদি প্রবাসী কফিলের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারছেন না। বিশেষ করে যারা বড় কোম্পানিতে কাজ করেন তাদের সঙ্গে কফিলের সরাসরি কোনো যোগাযোগই নেই।

নিজেরা না পেরে এ ক্ষেত্রে অনেকে নিচ্ছেন দালালের সহায়তা। প্রয়োজনীয় কাগজ এনে দেয়ার বিনিময়ে অনেকের কাছে মোটা অঙ্কের টাকাও দাবি করছেন তারা। টাকা দেয়ার পরও তা পাবেন কিনা সেই ভরসাও করতে পারছেন না কেউ।

আবার করোনার কারণে সৌদির অনেক প্রতিষ্ঠান এখনও পুরোপুরি খোলেনি। তাই ওইসব প্রতিষ্ঠানে কর্মরতরা কফিলের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না।

জানা গেছে, সৌদি আরবে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালুর পর অর্থাৎ ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে কাজে ফেরা শুরু হয়। সৌদি এয়ারলাইন্সের পাশাপাশি বাংলাদেশ বিমানও তাদের ফ্লাইট চালু করেছে। দুই এয়ারলাইন্স মিলে এখন পর্যন্ত সাড়ে তিন হাজারের মতো সৌদি প্রবাসী সেদেশে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছেন।

বাকিদের মধ্যে যাদের ভিসার মেয়াদ আছে তারা যাওয়ার অপেক্ষায় আছেন। ২৬ সেপ্টেম্বর ফ্লাইট শুরুর পর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে সৌদি আরবে গেছেন ৯১০ জন। ২৬ থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনটি ফ্লাইট পরিচালনা করে বিমান।

এদিকে ২৩ সেপ্টেম্বর ফ্লাইট চালুর পর সাউদিয়া এয়ারলাইন্সে গেছেন ২৪০৮ জন প্রবাসী। ২৩ থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করে এয়ারলাইন্সটি। তবে গতকাল থেকে দুটি এয়ারলাইন্সেই ফ্লাইট সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ঢাকা থেকে সৌদি আরবের উদ্দেশে এখন থেকে সপ্তাহে ২০টি করে ফ্লাইট যাবে। এর মধ্যে সাউদিয়া এয়ারলাইন্সের ১০টি এবং বিমান বাংলাদেশের ১০টি।

২৫ হাজার সৌদি প্রবাসীর নতুন করে ভিসা নিতে হবে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশে অবস্থানরত প্রায় ২৫ হাজার সৌদি প্রবাসীকে পুনরায় ভিসা নিতে হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) গালফ অঞ্চলের ছয়টি দেশ এবং মালয়েশিয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে প্রবাসী এবং শ্রমিক ইস্যুতে বৈঠকে বসেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন এবং প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একথা জানান।

তিনি জানান, দেশটিতে যাদের কর্মসংস্থান আছে কিন্তু করোনাকালে দেশে আসার পর ভিসার মেয়াদ পেরিয়ে যায়, তাদের আবারও ভিসা নিয়েই দেশটিতে ফিরতে হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, যারা দেশে চলে এসেছিলেন তাদের মধ্য থেকে যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে কিন্তু সেখানে চাকরি আছে তাদের নতুন করে ভিসা নিতে হবে। সৌদি কর্তৃপক্ষ ভিসা নতুন করে ইস্যু করবে বলে জানিয়েছে।

এছাড়া, দেশে অবস্থানরত প্রবাসীদের সৌদি আরবে কাজের জন্য যেতে চাইলে সেখানকার নিয়োগকর্তাদের ছাড়পত্র লাগবে বলে জানান তিনি।

খাওয়ার পয়সা নেই লেবানন প্রবাসী বাংলাদেশিদের
                                  

অনলাইন ডেস্ক : লেবাননের বৈরুত বিস্ফোরণের পর দেশটির রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অচলাবস্থা আরও প্রকট হয়েছে। বন্ধ হতে বসেছে শ্রমবাজার। মাসের পর মাস বেতন না পাওয়া, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও অর্থের মান কমে যাওয়ায় দেশটিতে থাকার আশা একেবারেই ছেড়ে দিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রবাসী বলেন, `গেল কয়েক বছর ধরেই নানামুখী সংকটে লেবাননের শ্রম বাজার। আগস্টের ভয়াবহ বিস্ফোরণ এ সংকটের কফিনে শেষ পেরেকটিও ঠুকেছে। দেশটিতে বাংলাদেশিদের বেশিরভাগেরই কাজ নেই। যাদেরও বা কাজ রয়েছে তারা এখন অনেক কম পারিশ্রমিক পাচ্ছেন`।

তিনি বলেন, `দেশে অর্থ পাঠানো তো দূরের কথা, নিজেই তিন বেলা খেয়ে-পরে থাকতে পারছি। এ অবস্থায় দেশে ফেরাকেই একমাত্র সমাধান দেখছি`। মাসের পর মাস বেতন না পাওয়া, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও অর্থের মান কমে যাওয়ায় ধস নেমেছে অর্থনীতিতে। এছাড়া রাজনৈতিক দলগুলোর বিভাজন ও ফ্রান্সসহ পশ্চিমা দেশগুলোর আধিপত্যেও সংকট আরও ঘোলা হয়েছে।

দেশটিতে অর্থনৈতিক মন্দা, ডলার সংকট ও করোনা পরিস্থিতিসহ খাদ্যদ্রব্যের কয়েকগুণ মূল্য বৃদ্ধির কারণে দেড় লাখ বাংলাদেশির জীবন জীবিকা হুমকির মুখে। পরিস্থিতি বাধ্য করছে অনেক বৈধ প্রবাসীকেই বাংলাদেশে ফিরে যেতে।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘদিন বিমান চলাচল বন্ধ থাকার পর লেবানন থেকে ফিরেছে আটকেপড়া আরও ৪শ ১২ জন বাংলাদেশি। বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইট বৃহস্পতিবার বৈরুতের রফিক হারিরি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়ন করে।

বিশেষ বিমানে ফিরতে পেরে আটকেপড়া বাংলাদেশিরা বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানিয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে বিমান চলাচল বন্ধ থাকায় দীর্ঘদিন যাবত নিবন্ধিত বাংলাদেশিদের দেশে ফেরার পথ বন্ধ ছিল।

লেবাননে দেড় লাখের বেশি বাংলাদেশি বাস। দূতাবাস বলছে, আগ্রহীদের দেশে পাঠাতে সাধ্য মতো কাজ চলছে। খাদ্যপণ্য ও জরুরি চিকিৎসা সামগ্রীর পর এবার বৈরুতের ক্ষতিগ্রস্ত ভবনগুলোর জন্য ত্রাণ সামগ্রী পাঠিয়েছে বাংলাদেশ।

১৯৯১ সালে ২৫ জন নারী কর্মীর মাধ্যমে লেবাননে বাংলাদেশি কর্মী যাওয়া শুরু। বর্তমানে মোট বাংলাদেশি আছেন প্রায় ১ লাখ ৬৮ হাজার। এছাড়া নারী শ্রমিক প্রায় এক লাখ।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিদের প্রবেশে সুখবর
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশসহ প্রায় ২৩টি দেশের নাগরিকদের মালয়েশিয়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারির মাত্র দুই দিন পর তা শিথিল করেছে মালয়েশিয়া।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দেশটির মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরপর কোভিড-১৯ এর নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন দেশটির জ্যেষ্ঠ মন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব।

তিনি বলেন, প্রবাসী এবং পেশাদারদের মালয়েশিয়ায় প্রবেশের আগে ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট থেকে অনুমোদন নিতে হবে। তাদের আবেদনের সঙ্গে মালয়েশিয়ান ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটিস অথবা সম্পর্কিত সংস্থা থেকে একটি সাপোর্ট লেটার থাকতে হবে।

এর আগে গত ৭ সেপ্টেম্বর শুরুতে মালয়েশিয়া সরকার জানায়, যেসব দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দেড় লাখের বেশি সেই দেশগুলো মালয়েশিয়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার অন্তর্ভুক্ত থাকবে। কিন্তু দুইদিনের মাথায় ২৩টি দেশের নাগরিকদের ওপর আরোপিত ‘প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা’ শিথিল করলো মালয়েশিয়া।

এছাড়া স্থায়ী বাসিন্দাদের পাশাপাশি মালয়েশিয়ান নাগরিকদের ভিনদেশি স্ত্রীদের প্রবেশেও বাধা নেই। তবে এটি হবে ‘ওয়ান-ওয়ে’ জার্নি, অর্থাৎ সেখানে গিয়ে তাদের থেকে যেতে হবে এবং পাস-হোল্ডার শিক্ষার্থীরাও দেশটিতে যেতে পারবেন। তবে নতুন কোনো শিক্ষার্থী পরবর্তী ঘোষণার আগে আবেদন করতে পারবেন না।

মালয়েশিয়ায় বিদেশি শ্রমিকদের জন্য আবাসন : বাস্তবায়নে টালবাহানা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মালয়েশিয়ায় বিদেশি শ্রমিকদের আবাসন আইন বাস্তবায়নে চলছে টালবাহানা। এর বাস্তবায়নে আরও সময় চেয়েছে দেশটির চাকরিজীবী ফেডারেশন। তবে সময় না বাড়িয়ে দ্রুত এটি কার্যকর করতে সরকারকে আহ্বান জানিয়েছে দেশটির ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেস (এমটিইউসি)।

গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মরত বিদেশি শ্রমিকদের আবাসন আইন কার্যকর করেছে সরকার। আর এ আইন অমান্য করলে ৫০ হাজার রিঙ্গিত জরিমানার বিধানও করা হয়েছে।

এদিকে, মালয়েশিয়ার নিয়োগকর্তারা বলছেন, করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে বিদেশি কর্মীদের ভালো আবাসন সরবরাহ করতে তাদের নতুন বিধিবিধানগুলো পূরণের জন্য আরও সময় প্রয়োজন।

এর আগে সরকার মার্চ মাসে ঘোষণা করেছিল, নিয়োগকর্তাকে অবশ্যই তাদের আইনের অধীনে সমস্ত খাতে কর্মীদের আবাসন সরবরাহ করতে হবে।

নতুন নিয়মে নিয়োগকর্তাদের প্রতিটি কর্মীকে একটি বিছানা প্রদান করতে হবে যা ১.৭ বর্গ মিটারের চেয়ে কম নয়। প্রতিটি কর্মীকে অবশ্যই একটি গদি দিতে হবে যা কমপক্ষে ১০ সেন্টি মিটার, একটি বালিশ এবং একটি কম্বলও প্রদান করতে হবে। প্রতিটি কর্মীকে অবশ্যই লকসহ একটি আলমারি দিতে হবে।

মালয়েশিয়ার এমপ্লয়ার্স ফেডারেশনের নির্বাহী পরিচালক শামসুদ্দীন বরদান বলেছেন, কোভিড-১৯ মহামারির কারণে নিয়ম মেনে চলার জন্য আরও বেশি সময় প্রয়োজন। নিয়োগকর্তাদের গাইড করার জন্য কমপক্ষে এক বছর সময় আমাদের দরকার। তবে এই চেষ্টা চলাকালীন সময়ে চাপ সৃষ্টি না করার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

মালয়েশিয়ায় বিদেশি শ্রমিকদের জন্য আবাসন : বাস্তবায়নে টালবাহানা

তিনি বলেন, নির্দিষ্ট আকারের ঘন গদি এবং আলমারি সরবরাহের মতো নির্দিষ্ট শর্তগুলো পূরণে সময় লাগবে।

মালয়েশিয়ায় ২২ লাখ নিবন্ধিত বিদেশি কর্মী রয়েছেন এবং আরও দুই মিলিয়নেরও বেশি যারা অবৈধভাবে কাজ করেন।

তবে কেবলমাত্র নিবন্ধিত কিছু অভিবাসী শ্রমিককে তাদের নিয়োগকর্তারা বাড়িঘর ভাড়া দিয়ে থাকেন, ভাড়া সংক্রান্ত শপ লট এবং নির্মাণ সাইটের অস্থায়ী কোয়ার্টারে।

ফেডারেশন অফ মালয়েশিয়ার ম্যানুফ্যাকচারার্স সভাপতি সোহ থিয়ান লাই বলেন, চলমান সংকটে ৫০ হাজার রিঙ্গিত জরিমানার কারণে সরকারের এই পরিকল্পনা বেশিরভাগ শিল্পের ব্যবসায়িক পুনরুজ্জীবন উদ্যোগকে মারাত্মকভাবে বাধাগ্রস্ত করবে।

এমটিইউসি বলছে, বিদেশি শ্রমিকদের আবাসন ও সুযোগ-সুবিধাগুলো বাস্তবায়নে বিলম্ব হওয়াই অভিবাসীদের পদ্ধতিগত শোষণের কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

সংস্থার সেক্রেটারি জেনারেল জে. সলোমন বলছেন, মালয়েশিয়ার নিয়োগকারী ফেডারেশন (এমইএফ) দ্বারা শ্রমিকদের আবাসনের বিষয়ে নতুন আইন কার্যকর না করার জন্য সরকারকে অনুরোধ করার কারণগুলো হতাশাজনক। কারণ নিয়োগকর্তারা শ্রমিকদের শালীন জীবনযাপনের মৌলিক অধিকার অস্বীকার করে চলেছে। অল্প দক্ষ এবং স্থানীয়ভাবে অভিবাসী শ্রমিকদের স্বল্প বেতনে নিয়োগ দিয়ে প্রচুর মুনাফা অর্জন করে চলেছে তারা। এটি অবশ্যই লক্ষ্য করা উচিত যে, প্রতিবার মালয়েশিয়ায় নিয়োগকর্তাদের শ্রমিকদের জীবিকা নির্বাহের জন্য বা তাদেরকে কিছুটা চাকরির সুরক্ষার ব্যবস্থা করার জন্য বলা হয়।

তিনি আরও বলেন, অভিবাসী শ্রমিকরা স্বল্প বেতনের পাশাপাশি নানা সমস্যায় ভুগছেন, তারা সামান্য আইনি সুরক্ষাসহ জটিল ও অস্বাস্থ্যকর পরিস্থিতিতেও জীবনযাপন করতে বাধ্য হচ্ছেন। দেরি না করে শ্রমিকদের আবাসন, সুযোগ-সুবিধার আইন বাস্তবায়নে সরকারকে আহ্বান জানিয়েছেন এ কংগ্রেস নেতা।

পাঁচ মাসে ২৭ দেশ থেকে ফিরেছেন লক্ষাধিক কর্মী
                                  

সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ বিশ্বের ২৭টি দেশ থেকে গত পাঁচ মাসে (১ এপ্রিল থেকে ১ সেপ্টেম্বর) দেশে ফেরত এসেছেন এক লাখ দুই হাজার ২২৬ জন প্রবাসী। তাদের মধ্যে পুরুষ ৯৪ হাজার ২১০ জন ও নারী আট হাজার ১৬ জন। এদের অর্ধেকেরই বেশি মাত্র দুটি দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত ও সৌদি আরব থেকে ফেরত এসেছেন।

ফেরত আসাদের কেউ বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করে আউটপাস, কেউ করোনার কারণে কাজ না বা চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়া আবার কেউ ভিসার মেয়াদ না থাকায় সাধারণ ক্ষমার আওতায় দেশে ফেরত এসেছেন।

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্র জানায়, বিদেশফেরত কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে অনেকেরই ফিরে আসার কারণ জানা গেছে। আবার কারও কারও ফিরে আসার কারণ জানা যায়নি।

২৭টি দেশের মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ফেরত আসেন ৩১ হাজার ৩৯৪ জন (পুরুষ ২৯ হাজার ৭৩২ জন ও নারী এক হাজার ৬৬২ জন)। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ না থাকায় তারা কর্মীদের পাঠিয়ে দিয়েছে। কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তাদের আবার নেয়ার কথা বলে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে। অনেকেই বলছেন তারা ছুটিতে এসেছেন।

সৌদি আরব থেকে ২২ হাজার ৪২৭ জন (পুরুষ ১৯ হাজার ৮২৯ জন ও নারী দুই হাজার ৫৯৮ জন) ফেরত আসেন। বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করে আউটপাস নিয়ে তারা দেশে আসেন।

মালদ্বীপ থেকে আট হাজার ৮২৩ জন (পুরুষ আট হাজার ৭৬৬ ও নারী ৫৭ জন) ফেরত আসেন। পর্যটননির্ভর দেশ হওয়ায় করোনার কারণে কাজ নেই তাই মালিক/কোম্পানি তাদের ফেরত পাঠিয়েছে।

কুয়েত থেকে আট হাজার ২৩৭ জন (পুরুষ আট হাজার ১৩৪ জন ও নারী ১০৩ জন) ফেরত আসেন। আকামা বা ভিসার মেয়াদ না থাকায় বা অবৈধ হওয়ায় সাধারণ ক্ষমার আওতায় ফেরত আসেন আবার অনেক কর্মী বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করে দেশে ফিরেছেন।

কাতার থেকে ফেরত এসেছেন আট হাজার ২২১ জন (পুরুষ সাত হাজার ৬১৫ জন ও নারী ৬০৬ জন)। কাজ নেই তাই ফেরত এসেছেন। ওমান থেকে ফেরত এসেছেন ছয় হাজার ৭১৫ জন (পুরুষ ছয় হাজার ১৫৩ জন ও নারী ৫৬২ জন)। বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করে আউটপাস নিয়ে তারা দেশে আসেন।

মালয়েশিয়া থেকে ফেরত এসেছেন তিন হাজার ৪৩৫ জন (পুরুষ তিন হাজার ২৩৩জন ও নারী ২০২ জন)। কাজ নেই তাই ফেরত এসেছেন। দক্ষিণ কোরিয়া থেকে ফেরত এসেছেন ১০০ জন এবং তাদের সবাই পুরুষ। চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ায় তারা দেশে ফিরে আসেন।

ইরাক থেকে ফেরত এসেছেন তিন হাজার ১০১ জন (পুরুষ তিন হাজার ৯৬ জন ও নারী পাঁচজন)। কাজ নেই তাই ফেরত এসেছেন তারা। শ্রীলঙ্কা থেকে ফেরত এসেছেন ১৩৫ জন এবং তাদের সকলেই পুরুষ। কাজের মেয়াদ শেষে তারা ফেরত আসেন।

তুরস্ক থেকে ফেরত আসেন দুই হাজার ৯৯৮ জন। (পুরুষ দুই হাজার ৭৩৯ জন ও নারী ২৬০ জন)। কী কারণে ফেরত আসেন তা উল্লেখ করা হয়নি। লেবানন থেকে ফেরত আসেন দুই হাজার ১৮৫ জন (পুরুষ এক হাজার ৪০১ জন ও নারী ৭৮৪ জন)। কী কারনে ফেরত আসেন তার উল্লেখ নেই।

জর্দান থেকে ফেরত এসেছেন এক হাজার ৩৯২ জন (পুরুষ ২৭২ জন ও নারী এক হাজার ১২০ জন)। তাদের সবাই গার্মেন্টস শ্রমিক। চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ায় ফিরে এসেছেন তারা। সিঙ্গাপুর থেকে ফেরত এসেছেন এক হাজার এক হাজার ৬০৪ জন (পুরুষ এক হাজার ৬০০ জন ও নারী চারজন)। কাজের বা চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ায় তারা দেশে ফেরত আসেন।

বাহরাইন থেকে ফেরতে এসেছেন ৭৪৬ জন এবং তাদের সকলেই পুরুষ। বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করে আউটপাস নিয়ে দেশ আসেন। এছাড়া অসুস্থ ও চাকরি হারিয়ে অনেকেই ফেরত আসেন।

ইতালি থেকে ফেরত এসেছেন ১৫১ জন। তাদের সকলেই পুরুষ। ৬ জুলাই বাংলাদেশ থেকে যাওয়া ১৫১ জন বাংলাদেশ কর্মীকে করোনা সন্দেহে দেশে ফেরত পাঠানো হয়। এদের সকলকেই সেনাবাহিনীর অধীন কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়। ভিয়েতনাম থেকে ফেরত এসেছেন ১২২ জন এবং তাদের সকলেই পুরুষ। কাজের মেয়াদ শেষে তারা দেশে ফিরে আসেন।

রাশিয়া থেকে ১০০ জন ফেরত আসেন। তাদের সকলেই পুরুষ। কী কারণে ফেরত আসেন তা উল্লেখ করা হয়নি। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ৭১ জন থেকে ফেরত আসেন এবং তাদের সকলেই পুরুষ। কাজ নেই তাই ফেরত এসেছেন। নেপাল থেকে ফেরত আসেন ৫৫ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৪০ জন ও নারী ১৫ জন)। কী কারণে ফেরত আসেন তার উল্লেখ নেই।

কম্বোডিয়া থেকে ৪০ জন ফেরত আসেন এবং তারা সকলেই পুরুষ। কাজ নেই তাই ফেরত এসেছেন তারা। মিয়ানমার থেকে ফেরত এসেছেন ৩৯ জন। তাদের সবাই পুরুষ। কাজ নেই তাই ফেরত এসেছেন। মরিশাস থেকে ফেরত এসেছেন ৩৬ জন। (পুরুষ ১৬ হাজার ১৫৩ জন ও নারী ২০ জন)। কাজের মেয়াদ শেষে তারা দেশে ফিরে আসেন।

থাইল্যান্ড থেকে ফেরত এসেছেন ৩২ জন (পুরুষ ৩০ জন ও নারী দুইজন)। কাজ নেই তাই ফেরত এসেছেন। হংকং থেকে ফেরত আসেন ১৬ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ১২ জন ও নারী চারজন। কী কারণে ফেরত আসেন তার উল্লেখ নেই।

জাপান থেকে ফিরে আসেন আটজন। তারা সকলেই পুরুষ। আইএম জাপানের মাধ্যমে যাওয়া প্রথম ব্যাচের আটজন তিন বছর মেয়াদ শেষে ছুটিতে আসেন। লন্ডন থেকে ফেরত আসেন ৪৩ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৩০ জন ও নারী ১৩ জন। কী কারণে ফেরত আসেন তার উল্লেখ নেই। সূত্র: জাগোনিউ২৪

স্পেনে করোনা আক্রান্ত ২ শতাধিক বাংলাদেশি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : স্পেনে দুই শতাধিক বাংলাদেশি নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে অন্তত ১০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদের মধ্যে দেশটির রাজধানী মাদ্রিদে ৬ জন এবং বার্সেলোনায় ৪ জন।

মাদ্রিদের মানবাধিকার সংস্থা ভলিয়ান্তে বাংলার দেয়া তথ্য অনুসারে, মাদ্রিদে বর্তমানে বাংলাদেশি আক্রান্তের সংখ্যা ১১৩ জন। শুধু গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে বাংলাদেশি আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ জন। পর্যটন শহর বার্সেলোনায় বাংলাদেশিদের মধ্যে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা অর্ধশতকের ওপরে।

করোনা আক্রান্ত বাংলাদেশি আটটি পরিবার লকডাউনে আছেন। যাদের প্রায় সবাই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তাদের বেশির ভাগই বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়া করোনা সংক্রমিত হয়েছেন এমন আশঙ্কায় পরীক্ষা করিয়েছেন প্রায় দুই হাজার বাংলাদেশি। যাদের শতকরা প্রায় আট শতাংশ কোভিড-১৯ পজিটিভ এসেছে।

ইউরোপের মধ্যে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত দেশের তালিকায় বর্তমানে স্পেন প্রথমে আছে। আর বৈশ্বিক পরিসংখ্যানে ৬ নম্বরে। এর মধ্যে স্পেনে মৃতের সংখ্যা প্রায় ৩০ হাজার স্পর্শ করেছে। আক্রান্ত হয়েছে এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে চার লাখ।

রাষ্ট্রীয় সতর্কতা উঠিয়ে নেয়ার পর বর্তমানে স্পেনে দ্বিতীয় ধাপে কোভিড মহামারি ছড়িয়ে পড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক নতুন আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন তিন হাজার ৫৯৪ জন। মৃত্যুবরণ করেছে ৪৭ জন। আক্রান্তের প্রায় অর্ধেকই রাজধানী মাদ্রিদে (১৫১৩ জন)।

এদিকে অক্সফোর্ডের তৈরি কোভিড-১৯ টিকা কিনবে বলে ঘোষণা দিয়েছে স্পেন। ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকে অক্সফোর্ডের তৈরি টিকা আসবে বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সালভাদর ইয়া। তিনি বলেন, সব ঠিক থাকলে দুই ডোজ করে টিকা প্রয়োগের হিসাব করে ডিসেম্বরের শেষের দিক থেকে টিকা দেয়া শুরু করা হবে।
=
এছাড়া সম্প্রতি সর্বোচ্চ আক্রান্ত প্রদেশগুলোর মধ্যে অন্যতম কাতালোনিয়ায় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ অতিক্রম করেছে। গত ১৭ থেকে ২৩ আগস্ট পর্যন্ত ছয় হাজার ৬৪৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন কাতালোনিয়ায়। বর্তমানে গড়ে প্রতিদিন ৯০০ জন নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন।

এছাড়া কাতালোনিয়ায় বর্তমানে ১৩৬ জন আশঙ্কাজনক অবস্থায় আইসিইউতে ভর্তি আছেন। হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৬৬২ জন। কাতালোনিয়ায় এখন পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা প্রায় ১৩ হাজার। এর মধ্যে হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছে ৫৫%, বৃদ্ধদের আবাসস্থলে ৩২%।

মালয়েশিয়ায় মসজিদে নামাজের অনুমতি বিদেশিদের
                                  

অনলাইন ডেস্ক : পাঁচ মাস পর মালয়েশিয়ার মসজিদে বিদেশিদের নামাজের অনুমতি পেল বিদেশি অভিবাসীরা। মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে দেশটির সিনিয়র প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাতো সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব এ ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ১ সেপ্টেম্বর থেকে বিদেশিদের মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায়ের ক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে সবুজ সংকেত দেয়া হয়েছে। তবে সবাইকে নিবন্ধন করে হ্যান্ড স্যানিটাইজ করে জায়নামাজ নিয়ে মসজিদের ভেতরে প্রবেশকরতে হবে।

মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব। কিন্তু কতজনকে নামাজ আদায়ে মসজিদে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হবে তা মসজিদ কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবে।

ভিয়েনায় বঙ্গমাতার ৯০তম জন্মবার্ষিকী পালন
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ ভিয়েনায় বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী পালন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষ্যে দূতাবাস প্রাঙ্গণে এক বিশেষ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বিকেল পাঁচটয় দূতাবাস প্রাঙ্গনে প্রথম সচিব ও দূতালয় প্রধান মোঃ তারাজুল ইসলামের সঞ্চালনায় পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু হয়।

অনুষ্ঠানে বঙ্গমাতার সংগ্রামী জীবনের ওপর আলোচনা হয়। এমসয় বক্তারা বলেন, জাতির পিতার আন্দোলন সংগ্রামের প্রতিটি ক্ষেত্রে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের প্রেরণা ও অবদান রয়েছে।

বক্তরা বলেন, বঙ্গমাতা বঙ্গবন্ধুর কারাগারে বন্দীকালীন সময়ে সংগ্রাম মুখর জীবনে কোন প্রকার চাপের মধ্যে নতিস্বীকার না করতে বঙ্গবন্ধুকে সাহস জুগিয়েছেন। বেগম মুজিব জাতির পিতা ও রাষ্ট্রপ্রধানের সহধর্মিনী হয়েও আজীবন সাধারণ জীবনযাপন করেছেন। অনুষ্ঠানের সমাপনী বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মোহাম্মদ আব্দুল মুহিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সকল শহিদ এবং মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

তিনি বঙ্গমাতার সংগ্রামী জীবনের বিভিন্ন দিক উল্লেখ করে বলেন, শেখ মুজিব থেকে বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু থেকে জাতির পিতা হওয়ার পেছনে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের অনন্য অবদান রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ৭ই মার্চেরভাষণ প্রদানের ক্ষেত্রেও বঙ্গমাতার পরামর্শ নিয়েছিলেন, যা বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ভাষণ হিসেবে ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃত।

পরে বিশেষ মোনাজাত ও অতিথিদের আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে দিবসটির কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়।

মালয়েশিয়া প্রবাসী রায়হান কবির ১৩ দিনের রিমান্ডে
                                  

কোডিভ-১৯ মহামারী চলাকালে অভিবাসীদের প্রতি মালয়েশিয়া সরকারের আচরণ নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলায় গ্রেপ্তার বাংলাদেশি তরুণ রায়হান কবিরকে ১৩ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে মালয়েশিয়ার পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ তাকে আদালতে হাজির করে ১৪ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ১৩ দিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করেন। ফলে ১৯ আগস্ট পর্যন্ত রায়হানকে রিমাণ্ডে থাকতে হবে।

রায়হানের আইনজীবী সুমিতা শান্তিনি কিষনা জানান, বুধবার রাতেই তারা জানতে পারেন রায়হানকে আজ আদালতে হাজির করে ফের রিমান্ড চাইবে পুলিশ। সে অনুযায়ী তারা আদালতে হাজির হন। তবে আদালতে বাংলাদেশ হাইকমিশনের কোনো প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন না।

সুমিতা শান্তিনি কিষনা জানান, রায়হান আগের মতোই বলেছে, তিনি যা দেখেছেন তাই বলেছেন। তবে মালয়েশিয়ার কাউকে আহত করা তাঁর উদ্দেশ্য ছিল না। রায়হানের বিরুদ্ধে এখনো কোনো অভিযোগ আনতে পারেনি পুলিশ।

বেড়াতে গিয়ে কম্বোডিয়ায় আটকে পড়া ৩ বাংলাদেশি থাইল্যান্ডে ঢুকে গ্রেফতার
                                  

কম্বোডিয়া থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে থাইল্যান্ডের সা কায়ো প্রদেশ থেকে তিন বাংলাদেশিকে আটক করেছে সীমান্ত পুলিশ।
মার্চে বেড়াতে গিয়ে মহামারীতে আটকে পড়ে অসহায় অবস্থার মধ্যে নাছোড়বান্দা হয়ে তারা ব্যাংককে বাংলাদেশ দূতাবাসে যেতে চেয়েছিলেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যম পাত্তায়া নিউজের প্রতিবেদনে জানানো।

এরা হলেন- সোহেল পারভেজ (৪০), “এমডি”(২৭) ও আব্দুল করিম আলজাদ (৩৩)। তাদের সবার কাছে বাংলাদেশের পাসপোর্ট রয়েছে।পাত্তায়া নিউজ বলছে, কম্বোডিয়ার পইপেট এলাকা দিয়ে একটি খাল পাড়ি দিয়ে থ্যাইল্যান্ডে ঢোকার সময় ক্লোং লোয়েক এলাকা থেকে আটক করে সীমান্ত পুলিশ।

সীমান্ত পুলিশকে উদ্ধৃত করে প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই তিন বাংলাদেশি মার্চে ছুটি কাটাতে কম্বোডিয়ায় গিয়ে করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে আটকে পড়েন। দেশের ফেরার কোনো উপায় খুঁজে না পেয়ে এবং টাকা-পয়সাও অনেক আগেই ফুরিয়ে যাওয়ায় চরম সংকটে পড়েন তারা। কম্বোডিয়ায় বাংলাদেশের দূতাবাস না থাকায় ব্যাংকক দূতাবাসের সহায়তা নিতে থাইল্যান্ডে ঢুকেন তারা।ওই তিনজনকে কোয়ারেন্টিন করে তাদের কোভিড-১৯ শনাক্তের পরীক্ষার পাশাপাশি বাংলাদেশকে তাদের বিষয়ে অবহিত করা হবে বলে পুলিশ কর্মকর্তারা জানান। থাইল্যান্ডে অবৈধ অনুপ্রবেশের অন্যতম প্রধান রুট সা কায়ো। এই সীমান্তে বেশ কড়াকাড়ি রয়েছে।

মিশরের হোটেলে বাংলাদেশি নারীর রহস্যজনক মৃত্যু
                                  

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক মার্কিন নাগরিক নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে মিশরের কায়রোর একটি হোটেল থেকে।  ফাতেমা খান খুকি (৪৪) নামে ওই নারী পাঁচদিন আগে কায়রোতে ঘুরতে গিয়েছিলেন তিনি।

মঙ্গলবার কায়রোর একটি হোটেলের কক্ষ থেকে স্থানীয় পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক ও নিউ জার্সির বিউটি এক্সপার্ট হিসেবে বাংলাদেশি-আমেরিকান ওই নারী কর্মরত ছিলেন।

কায়রোর মার্কিন দূতাবাস ওই নারীর মৃত্যুর খবর তার পরিবারকে জানিয়েছে।

এখন পর্যন্ত তার মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। কায়রো পুলিশ এ ঘটনার তদন্তে নেমেছে। বিষয়টি এখনো রহস্যাবৃত বলে জানা গেছে বিভিন্ন সূত্রে।

কনস্যুলেট সেবা থেকে বঞ্চিত হতে যাচ্ছে সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিরা বাড়ছে বিড়ম্বনা রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার হুমকি
                                  

মিয়া আবদুল হান্নান: মরণঘাতী মহামারী  করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ও শ্রমবাজারের সর্বোচ্চ দেশ সৌদি আরবে কনস্যুলেট সেবা নিয়ে প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের বিড়ম্বনা দিন দিন বাড়ছে । সৌদি আরব অনেক বড় দেশ বিধায় দূর দূরান্তের প্রবাসীদের নিকট সহজেপাসপোর্ট সেবা পৌঁছে দেয়ার জন্য এটুআই প্রকল্পের আওতায় রিয়াদস্থ বাংলাদেশ   দূতাবাসের   রাষ্ট্রদূত   গোলাম   মসীহ   ইডিসি   নামক প্রতিষ্ঠানের   সাথে   চুক্তিবদ্ধ   হয়েছেন।     জেদ্দাস্থ   বাংলাদেশ   কনস্যুলেট জেনারেলের অফিসের অদূরে শিগগিরই পাসপোর্ট সেবা দিতে ইডিসি কেন্দ্র চালু করা হচ্ছে। এতে মরণঘাতী মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের   দুর্দিনে অসহায় প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের পাসপোর্ট হাতে পেতে অতিরিক্ত ৪০ রিয়াল এবং গাড়ী ভাড়া গুনতে হবে। জেদ্দা থেকে গতকাল মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতা শেখ ফজলুল কবীর ভিকু ও মাহামুদুল হাসান শামীম দৈনিক এশিয়া বাণীকে বলেন, এই গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব কারো হাতে তুলে দেয়ার আগে অবশ্যই তাদের রাজনৈতিক পরিচয় এবং অতীত ইতিহাস পুঙ্খানুপুঙ্খরুপে যাচাই করা   প্রয়োজন ছিল।জেদ্দার এই নতুন ইডিসি সেবা কেন্দ্রের দায়িত্ব এমন কিছু ব্যক্তির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে যারা ইতোপূর্বে    প্রথম এম আর পি পাসপোর্ট
ইস্যুর   সময়   আইরিশ   কোম্পানির   সহযোগি   এজেন্সি   হিসেবে   কাজ করেছে।   এরাই   হাজার   হাজার   রোহিঙ্গার   হতে   লক্ষ   লক্ষ   রিয়ালের   বিনিময়ে বাংলাদেশের   পাসপোর্ট   তুলে   দিয়েছিল।   ইস্যুয়েন্স   ব্যতিরেকে   কয়েক হাজার   পাসপোর্ট   প্রবাসীদের   মধ্যে   বিলি   করেছে।   এইপাসপোর্ট ধারীরা এখন তাদের পাসপোর্ট গুলো রিইস্যু করতে পারছে না।এ   ধরণের কলংক জনক   অতীত   ইতিহাস   থাকার   পরেও   কি   কারণে   রাষ্ট্রদূত তড়িঘড়ি একই কোম্পানির হাতেই পাসপোর্টের কাজ তুলে দিয়েছেন,তা’ বোধগম্য নয়।তারা বলেন, জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটে প্রায় ৮৫ জন কর্মকর্তা থাকার পরেও পাসপোর্টের মত স্পর্শকাতর সেবা কখনোই দ্বিতীয় পক্ষের মাধ্যমে প্রদান   করা   ঠিক   হয়নি।   এই   দায়িত্ব   প্রাপ্ত   ব্যক্তিরা   ঢাকায়   একটি বিতর্কিত রাজনৈতিক দলের পরিচালিত প্রতিষ্ঠানের জড়িত রয়েছে বলেও প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতারা অভিযোগ করেন। ইতোপূর্বে     জেদ্দাস্থ   কনস্যুলেট   প্রতি   সপ্তাহে   বিভিন্ন   প্রদেশে পাসপোর্ট সেবা দিত। বর্তমানে ভারতসহ অন্যান্য   দেশের দূতাবাসসেই সেবা দিলেও জেদ্দা কনস্যুলেট কোন রহস্যময় কারণে পাসপোর্ট ট্যুরবন্ধ   রেখে   এই   প্রতিষ্ঠানকে   প্রবাসীদের   পাসপোর্ট   সংগ্রহের   কাজ দিয়েছে।   প্রবাসীদের   অভিযোগ     আসলে   ২০১৫   সালে   তাদের   দেয়া রোহিঙ্গাদের পাসপোর্টগুলো পুনরায় রিইস্যুর জন্যেই আবার ভিন্ন ভিন্ন ধরনের  নামে এই প্রতিষ্ঠানের সৃষ্টি করা হয়েছে।   জেদ্দাস্থ কনসাল জেনারেল মো.ফয়সল আহমেদ   পাসপোর্ট  রিইস্যু  সেবা   বন্ধ   করে   দিয়ে   গরীব   প্রবাসীদের অতিরিক্ত   টাকা   সার্ভিস   চার্জসহ   ইডিসির   মাধ্যমে   পাসপোর্ট রিনিউ করতে   নোটিশ জারি করেছেন। অভিযোগ উঠেছে জেদ্দাস্থ কনসালজেনারেল নতুন ইডিসি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রবাসীদের পাসপোর্ট সেবানেয়ার   জন্য   মরিয়া   হয়ে   উঠছেন।   আজ   বুধবার   জেদ্দাস্থ   সিজি   ফয়সল আহমেদের সাথে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেনি। গত ৬ জুলাই জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দশ সহযোগি সংগঠন নিয়ে   গঠিত   মোর্চার   প্রধান   সমন্বয়ক   মাহমুদ   হাসান   শামীমের নেতৃত্বে   স্বাধীনতা   বিরোধী   জামাত   এর   পৃষ্ঠপোষক   নিয়ে   গঠিত অসাধু   ব্যবসায়ী   সিন্ডিকেটের   হাতে   ইডিসি   সেবা কেন্দ্রের দায়িত্ব দেয়ার প্রতিবাদে এক সংবাদ সম্মলনের আয়োজন করে। সংবাদস ম্মেলনে  ইডিসি কেন্দ্র  সাময়িক  স্থগিত  এবং তদন্ত  করে  স্বাধীনতা বিরোধী অসাধু ব্যবসায়ী চক্রের কাছে দেয়া দায়িত্ব বাতিলের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। রাষ্ট্রদূত   গোলাম   মসীহ   উল্লেখিত   সংবাদ   সম্মেলন   আয়োজনকারী আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ স্মারক নং :বিইআর /এএমবি-১/২০২০ (১৬৭) জারি করেছেন। ঐ নোটিশে স্বাধীনতাবিরোধী   অসাধু   ব্যবসায়ীদের   সর্ম্পকে   অভিযোগের   তথ্য   প্রমাণাদি কনসাল   জেনারেলের   মাধ্যমে   জমা   দেয়ার   নিদের্শ   দেয়া   হয়।   রাষ্ট্রদূতসম্পূর্ণ এখতিয়ার বহির্ভূত চিঠি দেয়ায় সংবাদ সম্মেলন আয়োজক আওয়ামী   লীগ   নেতারা   তার   বিরুদ্ধে   শিগগিরই   আইনি   পদক্ষেপ   নেয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন। এ ব্যাপারে আজ বুধবার রিয়াদে রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ’র   সাথে   ফোনে   যোগাযোগ   করা   হলে   তিনি   দুই   ঘন্টা   পড়ে যোগাযোগ করতে বলেন।

ইউরোপের দেশ পর্তুগালে দূতাবাসে হেনস্থার শিকার হচ্ছে প্রবাসীরা ডিজিটাল সেবার নামে দালাল চক্রের হাতে চরম ভোগান্তি
                                  

মিয়া আবদুল হান্নান :  ইউরোপের দেশ পর্তুগালে বাংলাদেশ দূতাবাসে ডিজিটাল সেবার নামে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে প্রবাসী কর্মীরা। রাষ্ট্রদূতের ঘনিষ্ঠ দালালদের

মাধ্যমে বেশি টাকা দিলে দুই এক ঘন্টার মধ্যেই প্রবাসীরা দূতাবাসের যেকোনো সেবা পাচ্ছে। যারা দালালদের মাধ্যমে অতিরিক্ত ঘুষ দিতে রাজি না হয়  তাদেও দালাল চক্রের হাতে চরম ভোগান্তির অন্ত নেই।   অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ সহ প্রবাসী বাংলাদেশীদের ফেসবুক গ্রুপগুলোতে
প্রতিনিয়ত ভোগান্তির কথা জানাচ্ছেন প্রবাসীরা ।অথচ দূতাবাস থেকে কোনব্যবস্থাই নেয়া হচ্ছে না ।  অনুগ্রহ করে নিম্নের লিংকে দূতাবাসের ফেসবুকপেজে প্রবাসীদের কথাগুলো পড়ে দেখবেন এবং অতি দ্রুত তদন্তের ব্যবস্থানিবেন ।
প্রবাসী বাংলাদেশীদের কিছু লেখা আপনার জানার জন্য এখানে তুলে ধরলাম।বিদেশের মাটিতে দেশের ইমেজকে এভাবে নষ্ট করার জন্য অতি দ্রুত তদন্ত করেশাস্তির ব্যবস্থা করুন । মাত্র ২ ঘন্টা অফিস চালু সেবা গ্রহিতাদের জন্য। পরে একবারখুলবেন শুধু ডেলিভারি দেয়ারজন্য। এই দুই ঘন্টাকি সেবা দেয়ার জন্যযথেষ্ট? সত্যায়িত করার জন্য যে পরিমান চার্জ করা হয় আমার জানা মতেপর্তুগাল এর যে কোন সরকারি অফিসে এর কাছে 
ধারেও না। এখানকার যে কোনোঅফিসে গেলে তারা প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রের কপিঅফিস থেকেই করে রাখে কিন্তুআপনারা সর্বোচ্চ চার্জ নেয়ার পরও তা করেন না। এই সামান্য কাজের জন্যপ্রায়ই হয়রান হতে হয়। কোনকাজে আপনারা ভুল করলেও তা সংশোধন করাতে পুনরায়
ফি দিতে হয়। আপাতত আপনাদের বিচারের ভার আপনাদের বিবেকের কাচেই দিলামবাকিটা শেষ বিচার পর্যন্তঅপেক্ষা করবো।তেল মারি না কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেপরোয়া ব্যবহার এর কারনে মানুষ
ক্ষিপ্ত। দুতাবাসের ভাবমূর্তি জন্য তানভীর এবং গাজী নয়, কর্মকর্তাকর্মচারীদের অহংকারী ব্যবহার দায়ী। দুতাবাসের পেইজে সব কমেন্ট এনালাইসিসকরে দেখেন।শত শত তানভীর এবং গাজী হয়রানি শিকার হয়েছে।। দুতাবাস নিজেদের দুষ চাপাচ্ছেন অন্যের ঘাড়ে। মানুষ ভাল সার্ভিস পেলে কেন দুতাবসের পেইজেখারাপ কমেন্ট করে। জাগ বাংলাদেশি জাগ।অসরহঁৎ জধযধসধহ পর্তুগালে এম্বাসেডর সাহেব সকল বাংগালীদের হক মেরে কোননিয়োগ বিজ্ঞপ্তি কিংবা বিজ্ঞাপন ছাড়াই নিজের খেয়াল-খুশিমত তার চার জন
নিকট আত্মীয়কে এম্বাসীতে চাকরী দিছেন ।উনার আস্পর্ধার কারনে তারআত্মীয়রা দুই জন ছেলে আরদুই জন মহিলা সবার সাথে খারাপ ব্যবহার করে। তারানিজেদেরকে রাজা মনে করে। এম্বাসেডর কোন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ছাড়া কিভাবে নিজের আত্মীয়কে এম্বাসীতে নিয়োগ দেয়, তা সকল প্রবাসীর সামনে জবাবদিহিতাকরতে হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।তধশবৎ গফ অশধংয আমি একদিন পাসপোর্টের বায়োকপি এটাসটেড করতে সকাল৯ টায়গিয়েছিলাম। বিকাল ৩ টায়২ টা মহিলা আমাকে যখন 
ডেলিভারি দিলো তখন দেখলামআমার পাসপোর্টের ৫ নম্বর পাতায় তারা এনট্রি সিল মেরে রেখেছে। জানতেচাইলাম এটা কেনো? মহিলা২ টা বললো এটাই এটাষটেড। আমি কিংকর্তব্যবিমুড় হয়েগেলাম। আমি বললাম পাসপোর্টে কোনো ধরনের 
সিল মারার এখতিয়ার আপনাদের নেই।উত্তরে বললো সমস্যা নাই। কোনো ভাবেই তারা মানতে রাজি নয় এটা তাদের ভুলহয়েছে। এই হলো অপদার্থ কিছু কর্মী। এদের কাছ থেকে কি সুবিধা আশা করবো?আরেকদিন বাংগালী বাসার মালিক ১ মাসের ভাড়া দিতে দেরি হচ্ছে দেখে
জোরপূর্বক বের করে দিচ্ছিলো। আমি তাদের হেল্পচাইলাম বৃহস্পতিবারে আরতারা আমাকে সমাধান দিবে বলেছে সোমবারে। এই হলো তাদের হেল্প। তাই আমিএসব দূতাবাস নিয়ে আর কোনো উচ্চাকাঙ্ক্ষা করিনা। এরা দলীয় তদবির করেএখানে এসেছে। আগের এম্বাসেডর অনেক ভাল ছিলেন। বর্তমান এম্বাসেডর আসারপর থেকেই এম্বাসির সার্ভিস একদম খারাপ হয়ে 
গেছে । আমরা আগে আধা ঘণ্টারমধ্যেই সত্যায়িত করে নিতাম, মাত্র ৫ ইউরো দিয়ে ট্রান্সলেশন নিতাম । উনিআসার পর থেকেই ট্রান্সলেশন বন্ধ, সকাল ০৯টায় কাগজ জমা দিলেও বিকালের আগেদেয় না । কাজের জন্য অন্য কারোকে অথরাইজেশন দিয়ে কাগজ পাঠাইলেও, করে দেয়
না । কিন্তু উনার ঘনিষ্ঠ দালালদের মাধ্যমে বেশী টাকাদিয়ে যে কোন কাজইএক/দুই ঘন্টার মধ্যে করায় নেয়া যায় । আর এখন তো ডিজিটালের নাম করে উনিবাংলাদেশীদের কে চরম ভোগান্তিতে ফেলছেন। আর টাকাও বেশী নিচ্ছেন।পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
আমি গিয়েছিলাম এক দিন। আমার সাথেও আচরন টা খুবই খারাপ করেছে।জধশরন গধযধসঁফ আমাদের মাননীয় মহোদয়, যেমন লিখিত বক্তব্য দেওয়া হলোদ্রুতাবাস থেকে۔ এমন সুযোগ সবাই পেয়েছেন কিনা যদি সত্যি হয় বাহবা দেওয়া
প্রয়োজন۔ আমি একদিন পাসপোর্ট এটাস্টেশন করতেগেলাম সময় ছিল ১২ টা ১০মিনিট, কিন্তু গেট লক করে দিলো আমি কাজ বন্ধ রেখে গেলাম অনেক দূর থেকেতারা আমাকে কাজটা কমপিট করে দেয় নাই বলছে পরের দিন যাওয়ার জন্য কিন্তুআমি আর ছুটি নিতে পারিনাই۔ তাদের অনুভব করা

   Page 1 of 10
     প্রবাস
কানাডায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি
.............................................................................................
মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশীদের জন্য সেকেন্ড হোম অবস্থান তৃতীয়
.............................................................................................
ভিসার মেয়াদ বাড়াতে কফিলেই শেষ ভরসা
.............................................................................................
২৫ হাজার সৌদি প্রবাসীর নতুন করে ভিসা নিতে হবে
.............................................................................................
খাওয়ার পয়সা নেই লেবানন প্রবাসী বাংলাদেশিদের
.............................................................................................
মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিদের প্রবেশে সুখবর
.............................................................................................
মালয়েশিয়ায় বিদেশি শ্রমিকদের জন্য আবাসন : বাস্তবায়নে টালবাহানা
.............................................................................................
পাঁচ মাসে ২৭ দেশ থেকে ফিরেছেন লক্ষাধিক কর্মী
.............................................................................................
স্পেনে করোনা আক্রান্ত ২ শতাধিক বাংলাদেশি
.............................................................................................
মালয়েশিয়ায় মসজিদে নামাজের অনুমতি বিদেশিদের
.............................................................................................
ভিয়েনায় বঙ্গমাতার ৯০তম জন্মবার্ষিকী পালন
.............................................................................................
মালয়েশিয়া প্রবাসী রায়হান কবির ১৩ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
বেড়াতে গিয়ে কম্বোডিয়ায় আটকে পড়া ৩ বাংলাদেশি থাইল্যান্ডে ঢুকে গ্রেফতার
.............................................................................................
মিশরের হোটেলে বাংলাদেশি নারীর রহস্যজনক মৃত্যু
.............................................................................................
কনস্যুলেট সেবা থেকে বঞ্চিত হতে যাচ্ছে সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিরা বাড়ছে বিড়ম্বনা রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার হুমকি
.............................................................................................
ইউরোপের দেশ পর্তুগালে দূতাবাসে হেনস্থার শিকার হচ্ছে প্রবাসীরা ডিজিটাল সেবার নামে দালাল চক্রের হাতে চরম ভোগান্তি
.............................................................................................
ইতালিতে ৬ বাংলাদেশির হাতে ১ বাংলাদেশি খুন
.............................................................................................
নিউ ইয়র্কে ফাহিমের জানাজা আজ, সাংবাদিকদের যাওয়া নিষেধ
.............................................................................................
ফাহিমের খুনি চিহ্নিত, যেকোনো সময় গ্রেফতার
.............................................................................................
ইতালিতে বাংলাদেশিদের নিষিদ্ধে দুই যুক্তি
.............................................................................................
নিউ ইয়র্কে ফাহিম হত্যাকাণ্ড ঘিরে অনেক প্রশ্ন
.............................................................................................
ওমান থেকে ফিরলেন ২৫৪ বাংলাদেশি
.............................................................................................
পাপুল কাণ্ডে এবার কুয়েতের সেনা কর্মকর্তা গ্রেফতার
.............................................................................................
আড়াই লাখের বেশি বাংলাদেশীকে ফেরত পাঠাতে পারে কুয়েত
.............................................................................................
করোনাকাণ্ড: ১৬৭ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে দিল ইতালি
.............................................................................................
বাহরাইনে ৫০% ছাড়ে মিলছে ভিসা, নিয়মে আসছে পরিবর্তন
.............................................................................................
বাংলাদেশিসহ ১৮০ অভিবাসনপ্রত্যাশীর জন্য দ্বার খুলল ইতালি
.............................................................................................
প্রবাসীদের ভিসার মেয়াদ বাড়িয়েছে সৌদি সরকার- পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রবাস ফেরতদের কর্মসংস্থানে জাতিসংঘের সহায়তা চান ড. মোমেন
.............................................................................................
প্রবাস ফেরতদের কর্মসংস্থানে জাতিসংঘের সহায়তা চান ড. মোমেন
.............................................................................................
আবুধাবি থেকে ফিরলেন আরও ১৫২ বাংলাদেশি
.............................................................................................
পাপুলের সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে কুয়েতের সেনা কর্মকর্তা বরখাস্ত
.............................................................................................
সৌদি আরবে নতুন রাষ্ট্রদূত জাবেদ পাটোয়ারী
.............................................................................................
মানবপাচার সংক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক প্রতিবেদনে বাংলাদেশের উন্নতি: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী
.............................................................................................
এক লাখ বাংলাদেশি সৌদিতে কর্মসংস্থান হারানোর হুমকিতে
.............................................................................................
কুয়েতের কারাগারে এমপি পাপুল
.............................................................................................
কাতারে করোনা আক্রান্ত হয়ে রাঙ্গুনিয়া এক প্রবাসীর মৃত্যু!
.............................................................................................
সৌদিতে করোনায় ৫ বাংলাদেশি চিকিৎসকের মৃত্যু
.............................................................................................
কাজের সংকট আবুধাবির বিভিন্ন কোম্পানীতে, ৪১২ জন রেমিট্যান্স যোদ্ধা ফিরছে খালি হাতে
.............................................................................................
সৌদি আরবে করোনায় ৪ চিকিৎসকসহ ৩৭৫ বাংলাদেশির মৃত্যু
.............................................................................................
২৫ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশির দুর্বিষহ জীবন যাপন: বেরাকাসে আসিফুল গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা পথ বেছে নেয়
.............................................................................................
ক্ষতিগ্রস্ত বিদেশফেরতদের ৩ কোটি টাকা জরুরি সহায়তা
.............................................................................................
অবৈধ শ্রমিকদের দারুণ সুখবর দিল মালয়েশিয়া
.............................................................................................
করোনায় ফ্রান্সে আরও এক বাংলাদেশির মৃত্যু
.............................................................................................
হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখা বাড়ছে, মালয়েশিয়া থেকে এক মাসে এসেছে ৮৩ বাংলাদেশি কর্মীদের লাশ
.............................................................................................
মালদ্বীপ থেকে খালি হাতে ফিরছে দুইশত বাংলাদেশি, মধ্যপ্রাচ থেকে ফিরছে দশকর্মীর লাশ
.............................................................................................
কুয়েতে ২৫ হাজার অবৈধ বাংলাদেশির ভাগ্য অনিশ্চিত
.............................................................................................
অভিবাসী কর্মী ছাটাইয়ের দিকে অগ্রসর হচ্ছে দুবাই, কূটনৈতিক তৎপরতায় এগিয়ে যেতে বাংলাদেশের দূতাবাসের ভূমিকা নেয়া জরুরি
.............................................................................................
সৌদিতে মৃত বাংলাদেশি নাগরিকের নাম ঠিকানা পরিচয় প্রকাশ
.............................................................................................
ভিসার মেয়াদ শেষ, চুক্তির মেয়াদ না বাড়াতে আদালতের নির্দেশ : চাকরি হারানোর ঝুঁকিতে ওমানের প্রবাসীরা কর্মীরা
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD