| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * শিক্ষাসনদ ও মালামাল গায়েব, কারাগারে ছাত্রাবাসের মালিক   * করোনা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ৩২ দেশের ২৩৯ গবেষকের চ্যালেঞ্জ   * আবারও হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারে ‘না’ করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা   * বিশ্বব্যাপী করোনা আক্রান্তের সর্বোচ্চ রেকর্ড আজ   * সৌদিতে করোনায় পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশির মৃত্যু, আক্রান্ত প্রায় ২০ হাজার   * ট্রাম্পের বিপক্ষে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেন কার্দাশিয়ানের স্বামী কেনি   * মৃত্যু বেড়ে ২০৫২, মোট শনাক্ত ১৬২৪১৭   * কাতার বিশ্বকাপের চমক ‘রোবট রেফারি’   * শ্রীলঙ্কার কুশল মেন্ডিস গ্রেফতার   * ১ কোটি ১৩ লাখ ছাড়াল আক্রান্ত, মৃত্যু ৫ লাখ ৩৩ হাজার  

   শিক্ষাঙ্গন -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
পরীক্ষা ছাড়াই একাদশের শিক্ষার্থীরা দ্বাদশে

করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বন্ধ আছে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ সময়ে অনুষ্ঠিত হয়নি অভ্যন্তরীণ কোনো পরীক্ষা। এদিকে সেশনের সময় চলে যাওয়ায় একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে কলেজগুলো। আগামী বছর এপ্রিলে তাদের এইচএসসি পরীক্ষা নির্ধারিত আছে। তাই লেখাপড়ার গতি অব্যাহত রাখতে বিভিন্ন কলেজ শিক্ষার্থীদের দ্বাদশ শ্রেণিতে ‘অটোপাস’ দিচ্ছে। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানা গেছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, করোনার এই সময়ে সব প্রতিষ্ঠানেই শ্রেণিকাজ বন্ধ আছে। বন্ধ আছে পরীক্ষা। তবে শিক্ষার্থীদের একাডেমিক রেকর্ড কলেজে আছে। সেটার ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের পরের ক্লাসে উত্তীর্ণ দেখাতে পারে। এতে বোর্ডের আপত্তি থাকবে না। সূত্র জানায়, করোনা পরিস্থিতির কারণে নটর ডেম কলেজের একাদশ শ্রেণি থেকে সবাইকে পরীক্ষা ছাড়া দ্বাদশ শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

উত্তীর্ণ সব শিক্ষার্থীকে চলতি জুলাই মাসের ২৬ তারিখের মধ্যে দ্বাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি’র ৯ হাজার ৪০০ টাকাসহ চলতি জুলাই মাস ও আগামী আগস্ট এবং সেপ্টেম্বর মাসের ৭ হাজার ৮০০ টাকা পরিশোধের জন্য বৃহস্পতিবার নোটিশ দিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

তবে অভিভাবকদের দাবি, শিক্ষা মন্ত্রণালয় যেখানে করোনাকালে টিউশন ফি আদায়ে শিক্ষার্থীদের চাপ দিতে নিষেধ করেছে; সেখানে এভাবে নোটিশ দিয়ে ফি পরিশোধ করতে বলার কোনো মানেই হয় না।

আশা করছি কলেজ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি বিবেচনা করবে। এ বিষয়ে জানতে নটর ডেম কলেজের অধ্যক্ষ হেমন্ত পিয়াস রোজারিও সিএসসিকে কল দিলে তার নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

দেশসেরা আরেক প্রতিষ্ঠান রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ভিত্তিতে পদোন্নতি দিয়েছ শিক্ষার্থীদের।

কলেজের সিনিয়র প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা আজহারুল আলম জানান, মার্চের শেষে একাদশ শ্রেণির পরীক্ষা নেয়ার কথা ছিল। সেটা সম্ভব না হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফওজিয়া জানান, প্রথম ও দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পরের স্তরে উত্তীর্ণ করার চিন্তা চলছে। ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আলাপ করে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হবে।

রাজধানীর শেখ বোরহানউদ্দিন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আবদুর রহমান বলেন, দ্বাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করা হলে অনলাইন ক্লাস শুরু করা সম্ভব।
না হলে তারা লেখাপড়ার বাইরে থাকবে। তাই উত্তীর্ণ দেখানো উচিত। আমরা উত্তীর্ণ দেখিয়েই অনলাইন ক্লাস শুরু করেছি। জানা যায়, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কোথাও দ্বাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করা হয়েছে, আবার কোথাও উত্তীর্ণের প্রক্রিয়া চলছে।

পরীক্ষা ছাড়াই একাদশের শিক্ষার্থীরা দ্বাদশে
                                  

করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বন্ধ আছে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ সময়ে অনুষ্ঠিত হয়নি অভ্যন্তরীণ কোনো পরীক্ষা। এদিকে সেশনের সময় চলে যাওয়ায় একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে কলেজগুলো। আগামী বছর এপ্রিলে তাদের এইচএসসি পরীক্ষা নির্ধারিত আছে। তাই লেখাপড়ার গতি অব্যাহত রাখতে বিভিন্ন কলেজ শিক্ষার্থীদের দ্বাদশ শ্রেণিতে ‘অটোপাস’ দিচ্ছে। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানা গেছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, করোনার এই সময়ে সব প্রতিষ্ঠানেই শ্রেণিকাজ বন্ধ আছে। বন্ধ আছে পরীক্ষা। তবে শিক্ষার্থীদের একাডেমিক রেকর্ড কলেজে আছে। সেটার ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের পরের ক্লাসে উত্তীর্ণ দেখাতে পারে। এতে বোর্ডের আপত্তি থাকবে না। সূত্র জানায়, করোনা পরিস্থিতির কারণে নটর ডেম কলেজের একাদশ শ্রেণি থেকে সবাইকে পরীক্ষা ছাড়া দ্বাদশ শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

উত্তীর্ণ সব শিক্ষার্থীকে চলতি জুলাই মাসের ২৬ তারিখের মধ্যে দ্বাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি’র ৯ হাজার ৪০০ টাকাসহ চলতি জুলাই মাস ও আগামী আগস্ট এবং সেপ্টেম্বর মাসের ৭ হাজার ৮০০ টাকা পরিশোধের জন্য বৃহস্পতিবার নোটিশ দিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

তবে অভিভাবকদের দাবি, শিক্ষা মন্ত্রণালয় যেখানে করোনাকালে টিউশন ফি আদায়ে শিক্ষার্থীদের চাপ দিতে নিষেধ করেছে; সেখানে এভাবে নোটিশ দিয়ে ফি পরিশোধ করতে বলার কোনো মানেই হয় না।

আশা করছি কলেজ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি বিবেচনা করবে। এ বিষয়ে জানতে নটর ডেম কলেজের অধ্যক্ষ হেমন্ত পিয়াস রোজারিও সিএসসিকে কল দিলে তার নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

দেশসেরা আরেক প্রতিষ্ঠান রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ভিত্তিতে পদোন্নতি দিয়েছ শিক্ষার্থীদের।

কলেজের সিনিয়র প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা আজহারুল আলম জানান, মার্চের শেষে একাদশ শ্রেণির পরীক্ষা নেয়ার কথা ছিল। সেটা সম্ভব না হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফওজিয়া জানান, প্রথম ও দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পরের স্তরে উত্তীর্ণ করার চিন্তা চলছে। ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আলাপ করে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হবে।

রাজধানীর শেখ বোরহানউদ্দিন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আবদুর রহমান বলেন, দ্বাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করা হলে অনলাইন ক্লাস শুরু করা সম্ভব।
না হলে তারা লেখাপড়ার বাইরে থাকবে। তাই উত্তীর্ণ দেখানো উচিত। আমরা উত্তীর্ণ দেখিয়েই অনলাইন ক্লাস শুরু করেছি। জানা যায়, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কোথাও দ্বাদশ শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের উত্তীর্ণ করা হয়েছে, আবার কোথাও উত্তীর্ণের প্রক্রিয়া চলছে।

ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তিতে বয়সের সীমাবদ্ধতা রাখা হবে না
                                  

বিদেশফেরত দক্ষ কর্মীদের প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়ার জন্য ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তির ক্ষেত্রে কোনো রকমের বয়সের সীমাবদ্ধতা রাখা হবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেছেন, বর্তমান সরকার চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত রূপকল্প ৪১ বাস্তবায়নে কারিগরি শিক্ষাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে। তাই কারিগরি শিক্ষায় ভর্তির হার বৃদ্ধির লক্ষ্যে এবং বিদেশ ফেরত দক্ষ কর্মীদের প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়ার জন্য পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তির ক্ষেত্রে কোনো রকমের বয়সের সীমাবদ্ধতা রাখা হবে না।

আজ বুধবার কারিগরি শিক্ষার উন্নয়ন সংক্রান্ত এক ভার্চুয়াল মিটিংয়ে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মুনশী শাহাবুদ্দীনের সভাপতিত্বে এই মিটিংয়ে আরো যুক্ত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরি এমপি, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সফিউদ্দিন আহমেদ, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. সানোয়ার হোসেন, মাদ্রাসা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর কায়সার আহমেদ, কারিগরি বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. মুরাদ হোসেন মোল্লাসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অনেক ব্যক্তির হয়তো প্রয়োজনীয় কারিগরি দক্ষতা আছে কিন্তু তার প্রাতিষ্ঠানিক কোনো সার্টিফিকেট নাই এবং সার্টিফিকেট না থাকার কারণে ভালো চাকরি পাচ্ছে না অথবা চাকরি পেলেও ভালো বেতন পাচ্ছে না। সেক্ষেত্রে ওই ব্যক্তি যদি চায় এবং যদি তার প্রয়োজনীয় একাডেমিক যোগ্যতা থাকে তাহলে সে ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তি হতে পারবে।

বৈঠকে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট স্থাপনের নীতিমালা, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর আইন ২০২০ ও এর নিয়োগ বিধি প্রণয়নসহ কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

এসএসসি’র খাতা পুনঃনিরীক্ষণ, জিপিএ-৫ পেল ৭৯৩ পরীক্ষার্থী
                                  

সারা দেশে ছয় হাজারের অধিক এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল পরিবর্তন হয়েছে। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৯৩ পরীক্ষার্থী। ফেল থেকে জিপিএ-৫ সহ বিভিন্ন স্তরে জিপিএ পরিবর্তন হয়েছে। আবার আবেদন করে পাস থেকে ফেলও করেছে।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) পুনঃনিরীক্ষণ ফল প্রকাশের পর ১১ শিক্ষা বোর্ডে যোগাযোগ করে এ তথ্য জানা গেছে। এসব পরিবর্তনের মধ্যে গণিত ও ইংরেজি বিষয়ে খাতায় বেশি পরিবর্তন হয়েছে। জানা গেছে, এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলে সন্তুষ্ট না হয়ে সারা দেশে ২ লাখ ৩৪ হাজার ৪৭১ শিক্ষার্থী চ্যালেঞ্জ করে আবেদন করে। এ কারণে বিভিন্ন বিষয়ের উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নের জন্য মোট ৪ লাখ ৮১ হাজার ২২২ বিষয়ের ফলে আপত্তি তোলা হয়।

তার মধ্যে ঢাকা বোর্ডে ১ লাখ ৪৬ হাজার ২৬০, বরিশালে ২৩ হাজার ৮৫০, চট্টগ্রামে ৫২ হাজার ২৪৬, দিনাজপুরে ৪০ হাজার ৭৫, রাজশাহীতে ৪৪ হাজার ৬১, সিলেটে ২৩ হাজার ৭৯০, কুমিল্লা বোর্ডে ৩৯ হাজার ৩০৩, ময়মনসিংহে ৩১ হাজার ৩৩১, মাদরাসা বোর্ডে ২৮ হাজার ৪৮৪ এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে ১৭ হাজার ৫৩৮টি বিষয়ে খাতা পুনর্মূল্যায়নের আবেদন করেছে।

গত ৩১ মে প্রকাশিত হয় এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা। এবার গড় পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ, যা গত বছর ছিল ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। এ বছর মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে এক লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮, যা গত বছর পেয়েছিল ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। পরীক্ষার ফলে আপত্তি থাকা শিক্ষার্থীদের জন্য গত ১ জুন পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন কার্যক্রম শুরু হয়ে ৭ জুন শেষ হয়।

এইচএসসি পরীক্ষা কমানোর চিন্তা-ভাবনা চলছে : শিক্ষামন্ত্রী
                                  

এবারের এইচএসসি পরীক্ষার বিষয় সংখ্যা কমানো এবং কম সময়ে নেওয়ার চিন্তা-ভাবনা চলছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেছেন, সেটি আমরা কম সময়ে করতে পারি কি-না? কম সংখ্যক পরীক্ষা নিতে পারি কি-না? আমরা সবকিছুই ভাবছি।

আজ শনিবার শিক্ষা বিটের সাংবাদিকদের সংগঠন এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ইরাব) আয়োজিত এক ভার্চ্যুয়াল সেমিনারে এ কথা জানান তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এ বছরের এইচএসসির সিলেবাস কমানোর কোনো যৌক্তিকতা নেই। কারণ তারা তো তাদের সিলেবাস সম্পন্ন করেছে। এখন হতে পারে যে, পাবলিক পরীক্ষা নেওয়া হবে এবং এত লাখ লাখ পরিবার, এত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, এত প্রশাসনের মানুষ, এত শিক্ষক- সবাইকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলব?

তিনি আরো বলেন, শিক্ষা পরিস্থিতি অনুকূলে আসার ১৫ দিন পর এই পরীক্ষা নেওয়া হবে। এই ১৫ দিন শিক্ষার্থীদের নোটিশ দিতে হবে। তাদের প্রস্তুতি ঝালিয়ে নিতে সময় দিতে হবে।

সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. মনজুর হোসেন এবং ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী অধ্যাপক ড. ফারহানা খানম।

মেডিকেল শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীরা অপেক্ষায় পরীক্ষার, প্রস্তুত নয় কলেজ
                                  

৮ মাস ধরে বন্ধ থাকা মেডিকেল শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীদের ফাইনাল প্রফেশনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠানের ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। থমকে আছে আড়াই হাজার ইন্টার্ন চিকিৎসক যোগ দেয়ার প্রক্রিয়া। পরিবর্তিত পরিস্থিতি সামাল দিতেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের সুপারিশ শিক্ষক ও চিকিৎসক নেতাদের। তবে চিকিৎসা অনুষদের ডিনরা বলছেন, তারা এখনই প্রস্তুত নয়।

৫ বছরের শিক্ষা জীবনের শেষ পরীক্ষার একটিতে নির্ধারিত নম্বর অর্জন করতে পারেননি মেডিকেল শিক্ষার্থী তমা। এরপর ৮ মাস ধরে ঝুলে আছে তার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন।

শেষ বর্ষে গাইনি, সার্জারি ও মেডিসিন; এ তিন বিষয়ে পরীক্ষা পাসের পরই ইন্টার্নশিপের সুযোগ পান তরুণ চিকিৎসকরা। আর মেডিকেল কলেজগুলোতে বছরে দুই বার পরীক্ষা হয়। নভেম্বর সেশনে কোনো কারণে অংশ না নেয়া বা অকৃতকার্য শিক্ষার্থীরা যোগ্যতা অর্জন সাপেক্ষে পরীক্ষা দিতে পারেন মে সেশনে।

একজন মেডিকেল শিক্ষার্থী বলেন, পাস করতে পারছি না পরীক্ষা না হওয়া পর্যন্ত। ইন্টার্ন করতে পারছি না পাস না করা পর্যন্ত।


কিন্তু কোভিডের মতো সংক্রামক রোগের বিস্তারের প্রেক্ষাপটে এমন একটি পরীক্ষা অনুষ্ঠান কতটা সম্ভব?

স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ বলেন, এটা যৌক্তিক দাবি, কারণ একটা সাবজেক্টের জন্য ওরা কতদিন অপেক্ষা করবে?

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ বলেন, ইন্টার্নি তো এক বছরের জন্য। এরপর ওদের ডিউটি শেষ। স্বাভাবিক সংকট তো হবেই।


কিন্তু অনুষদের প্রধানদের রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

বিইউপি ডিন বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, যত তাড়াতাড়ি নেয়া সম্ভব নেয়ার চিন্তা করছি।

চবি চিকিৎসা অনুষদ ডিন অধ্যাপক ডা. সেলিম বলেন, মেডিকেল সাইন্সের পরীক্ষা হলে তো আগে কলেজ খুলতে হবে। ছাত্রদের রোগীদের কাছে যেতে হবে।  

ঢাবি চিকিৎসা অনুষদ ডিন ডা. শাহরিয়ার নবী শাকিল বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে। সরকার মেডিকেল কলেজগুলো খুলে দেবে। তারপর সিদ্ধান্ত নেব। পরীক্ষা দেব কিনা।

দেশের সরকারি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পেশাদার চিকিৎসকদের পাশাপাশি প্রতিবছর দায়িত্ব পালন করেন প্রায় ৮ হাজার ইন্টার্ন চিকিৎসক।

প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার মেয়াদ ২ বছর হচ্ছে
                                  

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে পাঁচ বছরের বেশি বয়সী শিশুরা প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে এক বছর পড়াশোনা করে। এ নিয়ম পরিবর্তন করে প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির মেয়াদকাল আগামী বছর থেকে দুই বছর করতে যাচ্ছে সরকার। অর্থাৎ চার বছর বয়স থেকেই শিশুদের এই শ্রেণিতে ভর্তি করা যাবে।

আজ শুক্রবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিদ্যালয়) আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণি দুই বছর মেয়াদী করার প্রস্তাবের সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিয়েছেন। আগামী বছর থেকেই পরীক্ষামূলকভাবে তার বাস্তবায়ন শুরু হবে। ইতিমধ্যে আমরা কনসেপ্ট ডেভেলপ করেছি, সেখানেই বলা আছে কীভাবে কী করব। আগামী সোমবার একটি ভার্চুয়াল সভা করে আমরা প্ল্যান চূড়ান্ত করব।

গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, নতুন শ্রেণি যুক্ত করে পরীক্ষামূলকভাবে ২০২১ সালে দেশের দুই হাজার ৫৮৩ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুই বছর মেয়াদি প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণি চালু করবে সরকার। আর এ কার্যক্রমে সফলতা এলে ২০২৩ সাল থেকে সব বিদ্যালয়েই ‘শিশু শ্রেণি’ চালু করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

নতুন ‘শিশু শ্রেণি’ চালুর সিদ্ধান্তে দেশের ৬৫ হাজার ৬২০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন একজন করে শিক্ষক ও একজন করে আয়া নিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি হবে। আর চার বছর বয়সেই শিশুরা নতুন শেণিতে ভর্তি হতে পারবে এবং প্রতিটি বিদ্যালয়ে নতুন শ্রেণিকক্ষ তৈরি করার কথাও বলা হয়েছে পরিকল্পনায়।

বর্তমানে প্রাথমিক পর্যায়ে দেশে পড়ালেখা করছে পৌনে দুই কোটি শিশু। দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে ৬৫ হাজার ৬২০টি। ২০১০ সালে স্বল্প পরিসরে প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণি চালু করে সরকার। ২০১৪ সালে সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক বছর মেয়াদি এই শ্রেণি চালু করা হয়। জাতীয় শিক্ষানীতিতে পর্যায়ক্রমে দুই বছর মেয়াদী প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা চালুর কথা বলা আছে।

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে পাঠদানে সম্মতি
                                  

করোনাভাইরাসের প্রভাবের ফলে বর্তমানে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৮ লাখ শিক্ষার্থী পড়াশোনার বাইরে। অনলাইনে ক্লাস শুরু করতে পারেনি অধিকাংশ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজগুলো। তবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অনলাইনে পাঠদান কার্যক্রম শুরু করতে সম্মতি জানিয়েছে বলে জানা গেছে।

এমন অচলাবস্থার কারণে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে বড় সেশনজটের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এ থেকে উত্তরণের জন্য ৪৬ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের নিয়ে বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) ভার্চুয়াল বৈঠকে বসেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

জানা গেছে, বৈঠকটি এখনও চলমান। এরই মাঝে ইউজিসির সদস্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইনে ক্লাসের বিষয়ে উপাচার্যদের সঙ্গে সভা হচ্ছে। বিকেল সাড়ে ৩টায় এ আলোচনা শুরু হয়েছে। এতে অনলাইনে ক্লাসের বিষয়ে জোর দেয়া হচ্ছে। বৈঠকে উপাচার্যরা তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্যাগুলো তুলে ধরছেন।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের সেশন জটের কবল থেকে রক্ষা করতে ইউজিসি’র পক্ষ থেকে সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়কে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর প্রতি জোর দেয়া হয়। দ্রুততার মধ্যে অনলাইন ক্লাস, পরীক্ষা নেয়ার মতো পরিবেশ তৈরি করতে বলা হয়েছে। এ প্রস্তাবে প্রায় সবাই সম্মতি জানিয়েছেন। তবে অনেক বিশ্ববিদ্যালয় বিদ্যমান কিছু সমস্যা সমস্যা রয়েছে সেসব কীভাবে সমাধান করা সম্ভব তা নিয়ে আলোচনা চলছে বলে জানান তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য হলেন মাকসুদ কামাল
                                  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রো-ভিসি) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল। আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে তার নিয়োগের বিষয়টি জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলরের অনুমোদনক্রমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আদেশ-১৯৭৩ এর ১৩ (১) ধারা অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমেদের মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট সায়েন্সেসের ডিন এবং দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামালকে শূন্য পদে নিয়োগ দেয়া হলো।

নিয়োগের প্রজ্ঞাপনে নিম্নোক্ত শর্তসমূহ উল্লেখ করা হয়েছে-

> উপ-উপাচার্য পদে তার নিয়োগের মেয়াদ চার বছর হবে।

> এই পদে তিনি বর্তমান পদের সমপরিমাণ বেতন বাতা পাবেন।

> বিধি অনুযায়ী সুবিধা ভোগ করবেন।

> তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবিধি ও আইন দ্বারা ক্ষমতা প্রয়োগ এবং দায়িত্ব পালন করবেন।

> রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলর প্রয়োজন মনে করলে যেকোনো সময় নিয়োগ বাতিল করতে পারবেন।

অধ্যাপক মাকসুদ কামাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির টানা চারবারের মতো সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারদা সূর্যসেন হলে টানা তিনবার প্রভোস্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

অনুমোদন পেল নতুন আরেকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
                                  

ঢাকার উত্তরায় ‘মাইক্রোল্যান্ড ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি’ নামে আরো একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন ও পরিচালনার অনুমোদন দিয়েছে সরকার। নতুন এ বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে দেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা দাঁড়াল ১০৬টিতে।

আজ বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ।

জানা গেছে, গত ১৬ জুন এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম শরীফকে অনুমোদনের চিঠি পাঠিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বর্তমানে রাজধানীর ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভের উপাচার্যের দায়িত্বে আছেন।

২৩টি শর্ত দিয়ে নতুন এ বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে অস্থায়ীভাবে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা কার্যক্রম সম্পর্কিত একটি পরিকল্পনা প্রণয়ন করে তা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন থেকে অনুমোদন নিতে হবে বলেও আদেশে জানানো হয়েছে।

ফের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ছে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনা সংকটের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়ানো হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে কয়েকদফা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়িয়ে ১৫ জুন পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এখন তা বাড়িয়ে ৩০ জুন পর্যন্ত করা হতে পারে।

সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় আলোচনা করে ছুটি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গেছে।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে গত মার্চের মাঝামাঝি সময় থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে।পরবর্তীতে করোনা পরিস্থিতির কারণে তার কয়েক দফায় বাড়ানো হয়।

রোববার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে আমরা সিদ্ধান্ত নেব। এ বিষয়ে এখনো আমাদের আলোচন হয়নি। তবে ৩০ জুন পর্যন্ত আমরা ছুটি বাড়াব। পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে প্রতি ১৫ দিন অন্তর অন্তর ছুটি বর্ধিত করা হবে।

তিনি বলেন, করোনা মহামারী প্রকোপ আকারে ধারণ করায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে শিক্ষার্থীদের হুমকির মধ্যে ফেলা হবে না। প্রতিদিন সংসদ টিভিতে ক্লাস সম্প্রচার করা হচ্ছে, বাসায় বসে তারা পাঠদান চালিয়ে যাবে। বর্তমানে শিক্ষার্থীদের বাসায় রেখে কীভাবে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব সে বিষয়ে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

দেশের করোনা পরিস্থিতির সর্বশেষ পরিস্থিতিতে রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে আরও ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মোট মারা গেছেন এক হাজার ১৭১ জন। একই সময়ে নতুন করে আরও ৩ হাজার ১৪১ জনের মধ্যে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৭ হাজার ৫২০ জনে।

এসএসসিতে সারা দেশে পাসের হার ৮২.৮৭ শতাংশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়েছে। সারা দেশের পাসের গড় হার ৮২.৮৭ শতাংশ। এবছর জিপিএ ৫ পেয়েছে এক লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ জন।

রোববার (৩১ মে) সকাল ১১টায় গণবভনে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল শেখ হাসিনার হাতে অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এরপর তিনি ফলের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে ফলাফল দেয়ার আগে সকাল সাড়ে ১০টায় বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যানরা শিক্ষামন্ত্রীর কাছে ফলাফল হস্তান্তর করেন।

এরপর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তন থেকে ফেইসবুক লাইভে মাধ্যমিকের ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় গতবছর ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছিল, জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। এবার ২০ লাখ ৪০ হাজার ২৮ জন শিক্ষার্থী মাধ্যমিকের চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নেয়, তাদের মধ্যে ১৬ লাখ ৯০ হাজার ৫২৩ জন পাস করেছে।

নয়টি সাধারণ বোর্ডে পাসের হার ৮৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ, মাদ্রাসা বোর্ডে ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ এবং কারিগরি বোর্ডের ৭১ দশমিক ৭০ শতাংশ।

এবারও পাসের হারে এগিয়ে আছে ছাত্রীরা। ছাত্রদের পাসের হার যেখানে ৮১ দশমিক ৬৩ শতাংশ, সেখানে ছাত্রীদের মধ্যে ৮৪ দশমিক ১০ শতাংশ পাস করেছে।

মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১০ লাখ ২১ হাজার ৪৯০ জন ছাত্র পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। তাদের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৮ লাখ ৩৩ হাজার ৮৯২ জন। আর ১০ লাখ ১৮ হাজার ৫৩৮ জন ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল, তাদের মধ্যে পাস করেছেন ৮ লাখ ৫৬ হাজার ৬৩১ জন।

কোভিড-১৯ সংক্রমণ পরিস্থিতিতে মাধ্যমিকের ফল ঘোষণা করা হচ্ছে বলে ফল প্রকাশের দিন কোনো অবস্থাতেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জমায়েত না হতে শিক্ষার্থীদের আগেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এবার কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই ফল পাঠানো হবে না। তাই ফল প্রকাশের দিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অফিসও বন্ধ রাখতে বোর্ডগুলোর পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ঢাকা বোর্ডেরে পাসের গড় হার ৮২.৩৪।

যশোর বোর্ডে পাসের হার ৮৭.৩১, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩ হাজার ৭৬৪ জন। বরিশাল বোর্ডে পাসের হার ৭৯.১০। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৮৩।

কুমিল্লায় পাসের হার ৮৫.২২। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ২৪৫ জন। ময়মনসিংহ বোর্ডে পাসের হার ৮০.৩১। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭ হাজার ৪৩৪ জন। বরিশাল বোর্ড পাসের হার ৭৯.৭০। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৮৩।

সিলেট বোর্ডে পাসের হার ৭৮.৭৯। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ২৬৩ জন। দিনাজপুর বোর্ডে পাসের হার ৮২.৭৩। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন। চট্টগ্রাম বোর্ডে পাসের হার ৮৪.৭৫। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৮ জন।

মোবাইলে ফল পেতে:
SSC লিখে একটি স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০২০ লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠিয়ে শিক্ষার্থীরা প্রি-রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন বলে জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে। আর এতে খরচ হবে ২ টাকা ৫৫ পয়সা।

তিন উপায়ে পাওয়া যাবে এসএসসির ফল
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রোববার (৩১ মে) সকাল ১০টায় গণভবন থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল এবং পরিসংখ্যান প্রকাশ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর বেলা ১১টায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরবেন গণমাধ্যমে।

এ বছরের ৩ থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে মোট ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। ফল ঘোষণা করা হলে আগামী ৬ জুন থেকে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা হবে বলে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে।

শিক্ষার্থীরা তিনটি উপায়ে যার যার ফলাফল জানতে পারবে। প্রি-রেজিস্ট্রেশন, এসএমএস ও বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে।

এবার সারাদেশে একযোগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল নিজ নিজ ওয়েবসাইটে প্রকাশ করবে শিক্ষা বোর্ডগুলো। শিক্ষার্থীরা রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে ফল সংগ্রহ করতে পারবেন।

যারা প্রি-রেজিস্ট্রেশন করেছেন তাদের মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ফল দেওয়া হবে। রোববার (৩১ মে) দুপুর ১২টা থেকে ওয়েবসাইট থেকেও এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল পাওয়া যাবে। এ জন্য http://www.educationboardresults.gov.bd/ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে শিক্ষার্থীদের রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর ইনপুট দিয়ে ফল জানা যাবে।

এছাড়া ফল প্রকাশের দিন এসএমএসের মাধ্যমে ফল পেতে যে কোনো মোবাইল অপারেটর থেকে এসএমএস করতে হবে। এ জন্য SSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর অর্থাৎ ঢাকা বোর্ড হলে Dha লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০২০ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে পরীক্ষার্থীর ফল জানানো হবে।

দাখিলের ফল পেতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন করতে যে কোনো মোবাইল অপারেটর থেকে এসএমএস করতে হবে। এ জন্য Dakhil লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর অর্থাৎ Mad লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০২০ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠিয়ে প্রি-রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে বলা হয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নির্দেশনা মেনেই শিক্ষার্থীদের ফল সংগ্রহ করতে হবে। আর কোনো অবস্থাতেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ফল প্রকাশের দিন জমায়েত হওয়া যাবে না। ৩১ মে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো ফলাফল পাবে না। ১ জুন বেলা ১২টা থেকে প্রতিষ্ঠান প্রধানরা ইআইআইএন নম্বর ব্যবহার করে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল সংগ্রহ করতে পারবেন।

এসএসসি`র ফল প্রকাশ সকাল ১১টায়
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে আজ (৩১ মে)। রোববার (৩১ মে) সকাল ১১ টায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে শিক্ষাবোর্ডের সার্ভার থেকে এসএমএসের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ফল জানিয়ে দেওয়া হবে।

এর আগে সকাল ১০টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসএসসির ফল ঘোষণা করবেন। এরপর সকাল ১১টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে সংবাদ সম্মেলনে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

এবার করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে শিক্ষার্থীদের স্কুলে গিয়ে ফল জানার সুযোগ নেই। তাই এসএমএসের মাধ্যমে এসএসসির ফল প্রকাশ করছে শিক্ষাবোর্ড। ফল পেতে SSC স্পেস, বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর স্পেস, রোল নম্বর স্পেস, পাসের সাল লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেওয়া হবে।

বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : গত ২৬ মার্চ থেকে শুরু হওয়া সাধারণ ছুটি ৩১ মে`র পর আর বাড়ানো না হলেও মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়ানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বুধবার (২৭ মে) একথা জানিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

মুঠোফোনে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশে করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে গত ২৬ মার্চ থেকে বেশ কয়েক-দফা সরকারি ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হলেও এবার ৩০ মে`র পর আর ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হবে না।

মন্ত্রী আরো বলেন, সাধারণ ছুটি না বাড়ানো হলেও এ সময় বন্ধ থাকবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, তবে অনলাইনে ক্লাস নেয়া যাবে।আপাতত ১৫ জুন পর্যন্ত স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকবে।

এর আগে সবশেষ গত ৬ মে দেশের সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সময়সীমা ৩০ মে পর্যন্ত বাড়িয়ে আদেশ জারি করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

আদেশে বলা হয়, করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার লক্ষ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের নির্দেশে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

করোনাভাইরাসের কারণে গত ১৮ মার্চ থেকে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। অবশ্য সরকার থেকে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে, করোনাভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে এই ছুটি আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গড়াতে পারে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা গণমাধ্যমে এর আগে জানিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোপূর্বে সেপ্টেম্বরের আগে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে না দেওয়ার ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছেন। তাই প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রম বিদ্যমান অবস্থায় রাখা এবং শিক্ষার্থীদের বাসায় রেখে লেখাপড়ার ব্যবস্থা বা বিকল্প পাঠদানের চিন্তাভাবনা চলছে।

৩১ মে এসএসসির ফল প্রকাশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আগামী ৩১ মে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল ফলাফল প্রকাশ করা হবে। ওইদিন সকাল ১০ টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল ও পরিসংখ্যান প্রকাশ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (২১ মে) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে প্রেরিত এক পত্রের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি এ বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হয় ২৭ ফেব্রুয়ারি। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ৫ মার্চ শেষ হয়।

আরো পড়ুন: রেজিস্ট্রেশন করে রাখলে সহজেই পাওয়া যাবে এসএসসির ফলাফল

পরীক্ষার পর ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশের কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দীর্ঘ ছুটির কারণে সেটা সম্ভব হয়নি।

এ বছর মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন।

এসএসসির ফল সহজে পেতে লাগবে নিবন্ধন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল ঈদুল ফিতরের পরে প্রকাশ করা হবে। ফল মোবাইলে আরো সহজভাবে পেতে করতে হবে নিবন্ধন।


মঙ্গলবার (১৯ মে) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।
তিনি জানান, এবার আরো সহজে আগে আগে খুদে বার্তার মাধ্যমে ফল জানার ব্যবস্থা করেছে শিক্ষাবোর্ডগুলো।

জানা যায়, গতকাল সোমবার থেকে প্রাক নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। নতুন ব্যবস্থায় প্রাক নিবন্ধন করা থাকলে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীর মোবাইলে ফল জানিয়ে দেয়া হবে। তবে আগের মতো নির্ধারিত পদ্ধতিতেও খুদে বার্তায় ফল জানা যাবে।

প্রাক নিবন্ধনের জন্য যেকোনো মোবাইল অপারেটরের নম্বর থেকে SSC Board Name ( প্রথম তিন অক্ষর) Roll Year লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। প্রতি এসএমএসের জন্য দুই টাকা চার্জ নেয়া হবে।

গত ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। পরীক্ষার পর ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশের কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দীর্ঘ ছুটির কারণে সেটা সম্ভব হয়নি। এ বছর মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন।


   Page 1 of 19
     শিক্ষাঙ্গন
পরীক্ষা ছাড়াই একাদশের শিক্ষার্থীরা দ্বাদশে
.............................................................................................
ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তিতে বয়সের সীমাবদ্ধতা রাখা হবে না
.............................................................................................
এসএসসি’র খাতা পুনঃনিরীক্ষণ, জিপিএ-৫ পেল ৭৯৩ পরীক্ষার্থী
.............................................................................................
এইচএসসি পরীক্ষা কমানোর চিন্তা-ভাবনা চলছে : শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
মেডিকেল শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীরা অপেক্ষায় পরীক্ষার, প্রস্তুত নয় কলেজ
.............................................................................................
প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার মেয়াদ ২ বছর হচ্ছে
.............................................................................................
পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে পাঠদানে সম্মতি
.............................................................................................
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য হলেন মাকসুদ কামাল
.............................................................................................
অনুমোদন পেল নতুন আরেকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
.............................................................................................
ফের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ছে
.............................................................................................
এসএসসিতে সারা দেশে পাসের হার ৮২.৮৭ শতাংশ
.............................................................................................
তিন উপায়ে পাওয়া যাবে এসএসসির ফল
.............................................................................................
এসএসসি`র ফল প্রকাশ সকাল ১১টায়
.............................................................................................
বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি
.............................................................................................
৩১ মে এসএসসির ফল প্রকাশ
.............................................................................................
এসএসসির ফল সহজে পেতে লাগবে নিবন্ধন
.............................................................................................
মে মাসেই এসএসসি ও সমমানের ফল
.............................................................................................
অনির্দিষ্টকালের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা স্থগিত
.............................................................................................
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দীর্ঘ হচ্ছে ছুটি
.............................................................................................
আগামী ১ এপ্রিল এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা স্থগিত
.............................................................................................
দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা
.............................................................................................
নুরকে সাহসী যুবক বলেও মন্তব্য জার্মান রাষ্ট্রদূতের
.............................................................................................
নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ববি হলের শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
২৮ মার্চ ঢাবি ছাত্রলীগের হল সম্মেলন
.............................................................................................
ইউরোপিয়ান আইটি ইন্সটিটিউটের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
ঢাবিতে আজীবন বহিষ্কৃত ৬৩ জনের পরিচয়
.............................................................................................
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু আজ
.............................................................................................
ইউজিসি চাকরির পথ দেখালো গ্র্যাজুয়েটদের
.............................................................................................
ফের ঢাবির হলে চার শিক্ষার্থীকে রাতভর নির্যাতন
.............................................................................................
আজীবন বহিষ্কার ঢাবির ৬৩ শিক্ষার্থী
.............................................................................................
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রাথমিকে পাস ৯৫.৫০, ইবতেদায়িতে ৯৫.৯৬ শতাংশ
.............................................................................................
প্রাথমিক সমাপনীতে পাস ৯৫.৫০, ইবতেদায়িতে ৯৫.৯৬
.............................................................................................
পাস করেনি কেউ ১৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে
.............................................................................................
২০২০ শিক্ষাবর্ষ : প্রাথমিকের ক্লাস-পরীক্ষার সূচি প্রকাশ
.............................................................................................
জেএসসি পরীক্ষা : বিদেশ কেন্দ্রে পাসের হার ৯৬.৯৯%
.............................................................................................
জেএসসি-জেডিসি : শতভাগ পাস শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৫২৪৩, ৩৩টিতে সবাই ফেল
.............................................................................................
জেএসসি-জেডিসিতে পাসের হার ৮৭ দশমিক ৯০ শতাংশ
.............................................................................................
যেভাবে জানতে পারবেন পিইসি-জেএসসি পরীক্ষার ফল
.............................................................................................
মধুর ক্যান্টিনের সামনে ফের ককটেলবাজি
.............................................................................................
নিজ শিক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করবেন শিক্ষকরাই
.............................................................................................
ঢাবির মধুর ক্যান্টিনে ককটেল ‘বিস্ফোরণ’
.............................................................................................
তুহিন ফারাবির অবস্থার উন্নতি : লাইফ সাপোর্ট খুলে নেয়া হয়েছে
.............................................................................................
থমথমে ঢাবি: বিভিন্ন স্পটে পুলিশের সতর্ক অবস্থান
.............................................................................................
প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্যপুস্তকে পরিবর্তন আসছে
.............................................................................................
অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এখন দিনে সরকারি, রাতে বেসরকারি
.............................................................................................
ভিপি নুরকে পদত্যাগের আহ্বান রাব্বানীর
.............................................................................................
রুম্পা হত্যার বিচারের দাবিতে উত্তাল স্টামফোর্ড
.............................................................................................
দুই ইউনিটে ফেল, অন্য ইউনিটে প্রথম শিক্ষকের বোন!
.............................................................................................
খালেদার জামিন না হওয়ায় ঢাবিতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD