বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * যাত্রী বাড়লেও চিরচেনা সেই চাপ নেই সদরঘাটে   * পশ্চিমবঙ্গে বিপৎসীমা ছাড়িয়েছে তিস্তার পানি   * সীমান্তে বেড়েছে গরু চোরাচালান   * সড়কে চাপ আছে যানজট নেই: কাদের   * মানুষ শুধু গরু দেখছে, কিনছে না   * আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে প্রথমবার জিরা আমদানি   * পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু আজ   * এক্সপ্রেসওয়েতে বেড়েছে যানবাহনের চাপ   * শিগগির যুদ্ধবিরতির সম্ভাবনা দেখছেন না বাইডেন   * বঙ্গবন্ধু সেতুতে একদিনে ৩ কোটি ২১ লাখ টাকার টোল আদায়  

   কৃষি সংবাদ
  গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় ১ হাজার ৩৪৪ মেট্রিক টন অতিরিক্ত ধান উৎপাদন
 

অনলাইন ডেস্ক : হিটসক ও নেক ব্লাস্টের পরও গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় ১ হাজার ৩৪৪ মেট্রিক টন ধান অতিরিক্ত উৎপাদন হয়েছে।

বোরো মৌসুমের মার্চের শেষে ও এপ্রিল মাসের শুরুতে বৃষ্টিপাতের কারণে নেক ব্লাস্ট, পাতাপোড়া, খোলপচা,খোল পোড়া রোগ, মাজড়া, গান্ধী, বাদামী ও গাছ ফড়িং পোকার আক্রমণের আশংকা দেখা দেয়। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মাফরোজা আক্তার ওই সময় পর্যবেক্ষণ টিম গঠন করেন। এছাড়া বোরোধানের রোগ বালাই দমন ব্যবস্থাপনায় সার্বক্ষণিক মাঠ পরিদর্শনের জন্য সব ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের বোরাধান মাঠে অবস্থান করার নির্দেশ দেন ওই কর্মকর্তা। ব্রিধান-২৯ ও ব্রিধান-২৯ এ নেকব্লাস্টসহ অন্যান্য রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। এছাড়া এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকে টানা তাপ প্রবাহে ধান হিট সকে পড়ে। এসব প্রতিকূলতার মধ্যেও গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা কৃষকরে পাশে গিয়ে দাঁড়ান। তারা পরামর্শ দেন। তাদের পরামর্শে কৃষকরা কাজ করেছেন। এছাড়া উচ্চ ফলনশীল উফশী ও হাইব্রিড ধানের চাষ সম্প্রসারিত হওয়ায় গোপালগঞ্জে ধানের অতিরিক্ত ফলন পাওয়া সম্ভব হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা ধারণা করছেন।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মাফরোজা আক্তার বলেন, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় ২০ হাজার ৭৩৬ হেক্টর জমিতে বোরোধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ৪৫ হাজার ১২৫ মেট্রিক টন ধান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে কৃষকরা প্রণোদনার বীজ সার পেয়ে ২০ হাজার ৯২৮ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ করে। তারা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৯২ হেক্টর জমিতে বেশি বোরোধানের আবাদ করেন। ইতিমধ্যেই শতভাগ জমির ধান কাটা সম্পন্ন হয়েছে।

২০ হাজার ৯২৮ হেক্টর জমিতে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৪৯৬ মেট্রিক টন ধান উৎপাদিত হয়েছে। এতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ হাজার ৩৪৪ মেটিক টন ধান অতিরিক্ত উৎপাদিত হয়েছে। কৃষক আমাদের পরমর্শে কাজ করেছেন তাই অতিরিক্ত ধান উৎপাদন করা সম্ভব হয়েছে। তিনি এ জন্য কৃষকদের ধন্যবাদ জানান।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ হামিদুল ইসলাম বলেন, বোরো মৌসুমে এ উপজেলায় ৮১% জমিতে হাইব্রিড ধানের আবাদ হয়েছিল। এছাড়া উচ্চ ফলনশীল জাতের ব্রিধান-৯২, ব্রিধান-৫০, ব্রিধান-৮৮,ব্রিধান-৮৯, ব্রিধান-৭৪,ব্রিধান-৮৪, বঙ্গবন্ধু ধান-১০০সহ বিভিন্ন জাতের ধানের চাষাবাদ করেন কৃষক। এ কারণে ধানের অতিরিক্ত ফলন পাওয়া গেছে। ব্রিধান-২৮ ও ব্রিধান-২৯ জাতে নেক ব্লাস্ট ও প্রায় সব জাতের ধান হিট সকে পড়ে। তারপরও কৃষক সচেতন হওয়ায় ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। এ কৃতিত্ব আমাদের কৃষকদের । অতিরিক্ত ধান উৎপাদন করায় আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বলাকইড় গ্রামের আশরাফুল মিয়া (৫৫) বলেন, বোরো মৌসুমে ধানক্ষেতে পোকার আক্রমণ হয়েছে। ক্ষেতে কিছু ক্ষতিকর পোকার উপস্থিতি লক্ষ্য কারা গেছে। প্রতিটি ক্ষেত্রেই কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা আমাদের পরামর্শ দিয়েছে। তাদের পরামর্শে কাজ করে ক্ষেতের ফসল রক্ষা করতে পেরেছি। শেষ পর্যন্ত ধানের বাম্পার ফলন পেয়েছি। বাম্পার ফলন পেয়ে ঘুরে দাঁড়াতে পেরেছি। এ জন্য কৃষি বিভাগকে ধন্যবাদ জানাই। ওই কৃষক আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের বিনামূল্যে বীজ, সার, সেচে ভর্তুকি দিয়েছেন। তাই আল্লাহর রহমতে ধানের ভালো ফলন পেয়েছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য আমরা ধন্য। তাঁর জন্য সব সময় আল্লাহর কাছে দোয়া-মোনাজাত করি। আল্লাহ যেন তাকে সুস্থ রাখেন। বাসস



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 574        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     কৃষি সংবাদ
গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় ১ হাজার ৩৪৪ মেট্রিক টন অতিরিক্ত ধান উৎপাদন
.............................................................................................
অনলাইনে আমের ব্যবসা যেন এখন বহু রাজশাহীবাসীর কাছেই আশীর্বাদ
.............................................................................................
মাগুরায় ৭০ কোটি টাকার লিচু বিক্রির আশা
.............................................................................................
জৈবকৃষির বিস্তারে ভ্রাম্যমান কৃষি হসপিটাল
.............................................................................................
অপ্রচলিত ফসলের উৎপাদন বাড়াতে সহযোগিতা করা হবে: কৃষিমন্ত্রী
.............................................................................................
বগুড়ায় মরিচের বাম্পার ফলন
.............................................................................................
পেঁয়াজের বিকল্প নিয়ে গবেষণায় সফল বাংলাদেশি বিজ্ঞানী
.............................................................................................
আলু চাষে ব্যস্ত নীলফামারীর কৃষকেরা
.............................................................................................
আশ্বিন মাসের কৃষি
.............................................................................................
নওগাঁয় আমের ভালো দাম পেয়ে খুশি বাগান ব্যবসায়ীরা
.............................................................................................
বরগুনায় কাঁকড়া চাষ প্রসার লাভ করছে
.............................................................................................
গম চাষে ভালো ফলন পেয়ে খুশি হিলির চাষিরা
.............................................................................................
যশোরের গদখালিতে ৫০ কোটি টাকার ফুল বিক্রির সম্ভাবনা
.............................................................................................
সীমান্ত এলাকায় গম চাষে নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
এশিয়ার দেশগুলোর জন্য যৌথ গবেষণা কেন্দ্র চালু
.............................................................................................
দক্ষিণাঞ্চলের ৫ জেলার ধানে `ব্লাস্টের সংক্রমণ`
.............................................................................................
হালদায় ডিম ছেড়েছে কার্প জাতীয় মাছ
.............................................................................................
এবার ধানে ব্লাস্ট রোগ সংক্রমণ
.............................................................................................
ভোলায় যে কারণে অসময়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে তরমুজ
.............................................................................................
কিশোরগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে ক্ষতির মুখে পড়েছে বোরো আবাদ
.............................................................................................
Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale
Digital Load Cell
Digital Indicator
Digital Score Board
Junction Box | Chequer Plate | Girder
Digital Scale | Digital Floor Scale
Dynamic Solution IT
POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software
Accounts,HR & Payroll Software
Hospital | Clinic Management Software

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: [email protected]
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Dynamic Scale BD