| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ‘শবে কদর’ হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ রজনী   * করোনা টেস্টে জালিয়াতি করে বিলাসবহুল বাড়ি নির্মাণ!   * সিলেটের সাবেক এমপি বিএনপি নেতা সেলিমের মৃত্যু   * দাম বাড়িয়েও মিলছে না আকাশপথের টিকিট   * গণপরিবহনের সঙ্গে ফিরল ঢাকার নিত্য যানজট   * পশ্চিমবঙ্গে লোকাল ট্রেন, শপিংমল, রেস্তোরাঁ, বার বন্ধ   * কোভিড-১৯ এ ভারতের সাবেক মন্ত্রীর মৃত্যু   * সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনার অভিযোগ, গ্রেপ্তার ২   * মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আসছে   * ফেইসবুকে নিষিদ্ধই থাকছেন ট্রাম্প  

   তথ্য-প্রযুক্তি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ফেইসবুকে নিষিদ্ধই থাকছেন ট্রাম্প

অনলাইন ডেস্ক: ফেইসবুক ও ইনস্টাগ্রামে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখেছে এই সোশাল মিডিয়া কোম্পানির ‘ওভারসাইট বোর্ড’।

তবে ট্রাম্পের ক্ষেত্রে ‘চিরতরে’ নিষিদ্ধের যে সিদ্ধান্ত হয়েছে, তার সমালোচনা করে এই বোর্ড বলেছে, ওই সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা করে এমন একটি যৌক্তিক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে, যা সাধারণের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে। যৌক্তিক শাস্তি নির্ধারণ করতে বোর্ড থেকে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষকে ছয় মাসের সময় বেঁধে দিয়েছে।

ক্যাপিটল হিলে দাঙ্গার পর গত জানুয়ারিতে ফেইসবুক থেকে নিষিদ্ধ করা হয় ডনাল্ড ট্রাম্পকে, যখন তিনি প্রেসিডেন্টের মেয়াদের একেবারে শেষ দিকে ছিলেন। কোনো রাষ্ট্রনেতার ক্ষেত্রে এমন নিষেধাজ্ঞা নজিরবিহীন।

পরে বিষয়টি পর্যালোচনার জন্য ফেইসবুকের ২০ সদস্যের ওভারসাইট বোর্ডে যায়, যা ‘ফেইসবুকের সুপ্রিম কোর্ট’ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

রয়টার্স লিখেছে, ওভারসাইট বোর্ড কী সিদ্ধান্ত দেয় তা দেখার অপেক্ষায় ছিলেন অনেকেই, কারণ ভবিষ্যতে রাষ্ট্রনেতারা নিয়ম ভাঙলে ফেইসবুক কেমন পদক্ষেপ নেবে, বোর্ডের সিদ্ধান্তেই তার ইংগিত মিলবে।

বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে ওভারসাইট বোর্ডের উপ প্রধান সাবেক ফেডারেল বিচারপতি মাইকেল ম্যাককনেল বলেন, ‘‘ফেইসবুক (ডনাল্ড ট্রাম্পের উপর) অনির্দিষ্টকালের স্থগিতাদেশ বহাল রেখেছে এবং পুরো বিষয়টি এই আশায় ওভারসাইট বোর্ডের কাছে পাঠিয়েছে যে, বোর্ড এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেবে যেটা তারা অতীতে কখনো করেনি।”

‘‘এই ধরনের ক্ষেত্রে অনির্দিষ্টকালের শাস্তি আন্তর্জাতিক ভাবে বা আমেরিকায় স্পষ্টতা, ধারাবাহিকতা এবং স্বচ্ছতার বিচারে গ্রহণযোগ্য হবে না।”

ট্রাম্পের জন্য ছয় মাসের মধ্যে একটি যৌক্তিক শাস্তি নির্ধারণের যে সিদ্ধান্ত বোর্ড নিয়েছে এখন ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ তা বিবেচনায় নেবে বলে জানান সংস্থাটির বৈদেশিক সম্পর্ক এবং যোগাযোগ বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট নিক ক্লেগ।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা এখন বোর্ডের সিদ্ধান্ত বিবেচনায় নেব এবং স্পষ্ট ও যৌক্তিক শাস্তি নির্ধারণ করবো।

‘‘একটি সিদ্ধান্তে না আসা পর্যন্ত ডনাল্ড ট্রাম্পের একাউন্ট বন্ধ থাকবে।”

ট্রাম্পের একাউন্ট স্থগিত করার সময় ফেইসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ এক পোস্টে বলেছিলেন, ‘‘এই সময়ে প্রেসিডেন্টকে আমাদের সেবা ব্যবহার করতে দেয়ার ঝুঁকি এক কথায় অনেক বিশাল।”

বিশ্বনেতা এবং রাজনীতিকরা যেভাবে বিভিন্ন প্রযু্ক্তি প্ল্যাটফর্মের নিয়মকানুন লঙ্ঘন করছেন তার বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায় সেটা নির্ধারণে কোম্পানিগুলোক রীতিমত ঘাম ঝরাতে হচ্ছে।

ট্রাম্পের ঘটনায় ফেইসবুক কর্তৃপক্ষকে উভয়পক্ষের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে। একপক্ষ বলেছে, রাজনৈতিক বক্তৃতার ক্ষেত্রে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ যেভাবে হাত তুলে বসে থাকার নীতি গ্রহণ করেছে তাদের সেটা বাদ দেওয়া উচিত। আরেক পক্ষ বলেছে, ট্রাম্পের একাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া সেন্সরশিপের উদ্বেগজনক উদাহরণ।

ফেইসবুকের ওভারসাইট বোর্ডের সিদ্ধান্ত নিয়েও এরই মধ্যে সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে।

রিয়্যাল ফেইসবুক ওভারসাইট বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘‘আজকের সিদ্ধান্ত থেকে স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে ফেইসবুক ওভারসাইট বোর্ডের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ব্যর্থ হয়েছে।

‘‘এই রায় উভয় নৌকায় পা দিয়ে চলার মত পাগলামী। তারা ট্রাম্পকে প্রকৃতপক্ষে নিষিদ্ধ না করেই তার উপর আরোপ করা নিষেধাজ্ঞায় সমর্থন দিয়েছে। যেখান ফেসবুকে ফিরে আসার বিষয়ে তাদের একটি নির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত দেওয়ার কথা।”

সূত্র: বিডিনিউজ

ফেইসবুকে নিষিদ্ধই থাকছেন ট্রাম্প
                                  

অনলাইন ডেস্ক: ফেইসবুক ও ইনস্টাগ্রামে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রেখেছে এই সোশাল মিডিয়া কোম্পানির ‘ওভারসাইট বোর্ড’।

তবে ট্রাম্পের ক্ষেত্রে ‘চিরতরে’ নিষিদ্ধের যে সিদ্ধান্ত হয়েছে, তার সমালোচনা করে এই বোর্ড বলেছে, ওই সিদ্ধান্ত পর্যালোচনা করে এমন একটি যৌক্তিক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে, যা সাধারণের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে। যৌক্তিক শাস্তি নির্ধারণ করতে বোর্ড থেকে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষকে ছয় মাসের সময় বেঁধে দিয়েছে।

ক্যাপিটল হিলে দাঙ্গার পর গত জানুয়ারিতে ফেইসবুক থেকে নিষিদ্ধ করা হয় ডনাল্ড ট্রাম্পকে, যখন তিনি প্রেসিডেন্টের মেয়াদের একেবারে শেষ দিকে ছিলেন। কোনো রাষ্ট্রনেতার ক্ষেত্রে এমন নিষেধাজ্ঞা নজিরবিহীন।

পরে বিষয়টি পর্যালোচনার জন্য ফেইসবুকের ২০ সদস্যের ওভারসাইট বোর্ডে যায়, যা ‘ফেইসবুকের সুপ্রিম কোর্ট’ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

রয়টার্স লিখেছে, ওভারসাইট বোর্ড কী সিদ্ধান্ত দেয় তা দেখার অপেক্ষায় ছিলেন অনেকেই, কারণ ভবিষ্যতে রাষ্ট্রনেতারা নিয়ম ভাঙলে ফেইসবুক কেমন পদক্ষেপ নেবে, বোর্ডের সিদ্ধান্তেই তার ইংগিত মিলবে।

বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে ওভারসাইট বোর্ডের উপ প্রধান সাবেক ফেডারেল বিচারপতি মাইকেল ম্যাককনেল বলেন, ‘‘ফেইসবুক (ডনাল্ড ট্রাম্পের উপর) অনির্দিষ্টকালের স্থগিতাদেশ বহাল রেখেছে এবং পুরো বিষয়টি এই আশায় ওভারসাইট বোর্ডের কাছে পাঠিয়েছে যে, বোর্ড এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেবে যেটা তারা অতীতে কখনো করেনি।”

‘‘এই ধরনের ক্ষেত্রে অনির্দিষ্টকালের শাস্তি আন্তর্জাতিক ভাবে বা আমেরিকায় স্পষ্টতা, ধারাবাহিকতা এবং স্বচ্ছতার বিচারে গ্রহণযোগ্য হবে না।”

ট্রাম্পের জন্য ছয় মাসের মধ্যে একটি যৌক্তিক শাস্তি নির্ধারণের যে সিদ্ধান্ত বোর্ড নিয়েছে এখন ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ তা বিবেচনায় নেবে বলে জানান সংস্থাটির বৈদেশিক সম্পর্ক এবং যোগাযোগ বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট নিক ক্লেগ।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা এখন বোর্ডের সিদ্ধান্ত বিবেচনায় নেব এবং স্পষ্ট ও যৌক্তিক শাস্তি নির্ধারণ করবো।

‘‘একটি সিদ্ধান্তে না আসা পর্যন্ত ডনাল্ড ট্রাম্পের একাউন্ট বন্ধ থাকবে।”

ট্রাম্পের একাউন্ট স্থগিত করার সময় ফেইসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ এক পোস্টে বলেছিলেন, ‘‘এই সময়ে প্রেসিডেন্টকে আমাদের সেবা ব্যবহার করতে দেয়ার ঝুঁকি এক কথায় অনেক বিশাল।”

বিশ্বনেতা এবং রাজনীতিকরা যেভাবে বিভিন্ন প্রযু্ক্তি প্ল্যাটফর্মের নিয়মকানুন লঙ্ঘন করছেন তার বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায় সেটা নির্ধারণে কোম্পানিগুলোক রীতিমত ঘাম ঝরাতে হচ্ছে।

ট্রাম্পের ঘটনায় ফেইসবুক কর্তৃপক্ষকে উভয়পক্ষের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে। একপক্ষ বলেছে, রাজনৈতিক বক্তৃতার ক্ষেত্রে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ যেভাবে হাত তুলে বসে থাকার নীতি গ্রহণ করেছে তাদের সেটা বাদ দেওয়া উচিত। আরেক পক্ষ বলেছে, ট্রাম্পের একাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া সেন্সরশিপের উদ্বেগজনক উদাহরণ।

ফেইসবুকের ওভারসাইট বোর্ডের সিদ্ধান্ত নিয়েও এরই মধ্যে সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে।

রিয়্যাল ফেইসবুক ওভারসাইট বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘‘আজকের সিদ্ধান্ত থেকে স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে ফেইসবুক ওভারসাইট বোর্ডের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ব্যর্থ হয়েছে।

‘‘এই রায় উভয় নৌকায় পা দিয়ে চলার মত পাগলামী। তারা ট্রাম্পকে প্রকৃতপক্ষে নিষিদ্ধ না করেই তার উপর আরোপ করা নিষেধাজ্ঞায় সমর্থন দিয়েছে। যেখান ফেসবুকে ফিরে আসার বিষয়ে তাদের একটি নির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত দেওয়ার কথা।”

সূত্র: বিডিনিউজ

গুগল ম্যাপের ‘মাথা খারাপ’!
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ গন্তব্য খুঁজতে যারা হরহামেশা গুগল ম্যাপের আশ্রয় নিয়ে থাকেন, তাদের অনেকেরই অদ্ভুত একটি অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। হঠাৎ করে অ্যাপটি ভুলভাল শব্দ উচ্চারণ করছে!

প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট টেকক্রাঞ্চ জানিয়েছে, অনেক ব্যবহারকারী অভিযোগ করেছেন যে গুগল ম্যাপ থেকে তাদের ভুল উচ্চারণে নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।

গুগল ফোরামে একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘ইউস’ শব্দের পরিবর্তে ম্যাপ ‘ওজো’ উচ্চারণ করছে! ‘অ্যাভিনিউর’ পরিবর্তে শোনাচ্ছে ‘ওভিনেউ’।

বিভিন্ন স্থানের নামেও ভুল করছে ম্যাপটি।

প্রথম শোনায় মনে হতে পারে, অ্যাপটি ইংলিশ এবং ফ্রেন্স ঢঙে উচ্চারণ করছে। কিন্তু কারো কারো দাবি, ভারতীয় ভঙ্গিতে উচ্চারণগুলো হচ্ছে।

এই সমস্যা অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা বেশি ফেস করছেন। এ বিষয়ে গুগল একটি আপডেট এনেছে। তবে সব সমস্যা ঠিক হয়েছে কি না, সেটি নিশ্চিত নয়।

সাময়িকভাবে সমস্যাটি থেকে মুক্তি পেতে ক্যাশ ক্লিয়ার করে, সাইনিং ইন-আউট করে ফোন রিস্টার্ট দিতে হবে। ডিফল্ট ল্যাঙ্গুয়েজও ঠিক করে নিতে হবে।

গুগলের একজন কমিউনিটি সদস্য জানিয়েছেন, সমস্যার কথা গুগলকে ইতিমধ্যে জানানো হয়েছে। তবে বাগটি ঠিক করা হয়েছে কি না, সে বিষয়ে তারা নিশ্চিত নন।

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে কি-না বুঝবেন যেভাবে
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ হ্যাকারদের হামলায় অনেকটা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ফেসবুক। ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে গেলে আমাদের মধ্যে এক ধরনের ভীতি কাজ করে। কারণ একাউন্ট হ্যাক হওয়া মানে আমাদের ব্যক্তিগত তথ্য অন্যের হাতে চলে গেছে।

এসময় অস্থির না হয়ে ঠাণ্ডা মাথায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে। তবে আইডি হ্যাক হয়েছে কি-না এ বিষয়ে প্রথমে নিশ্চিত হতে হবে। কিন্তু কীভাবে বুঝবেন আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে? চলুন জেনে নিই-

আপনি যতবার ফেসবুকে লগ-ইন করেন, ততোবারই ফেসবুকে সেই সেশনটা নোট করা হয়। দেখার জন্য প্রথমে সেটিংস-এ ক্লিক করুন। সেখান থেকে সিকিউরিটি এন্ড লগিন> হোয়ার ইউআর লগড ইন।

এখানেই আপনি যাবতীয় ইনফো পাবেন। যদি দেখেন আপনি ওই একই সময়ে লগ-ইন করেননি তবে বুঝবেন আপনার অ্যাকাউন্টটি হ্যাক করা হয়েছে। এর পর যা করবেন-

পাসওয়ার্ড পাল্টে ফেলুন

যদি বুঝতে পারেন আপনার পাসওয়ার্ড হ্যাক হয়েছে, তবে পাসওয়ার্ডটি পাল্টে ফেলুন। যদি হ্যাকার আপনার পাসওয়ার্ড পাল্টে দিয়ে থাকে তবে লগ-ইন করতে পারবেন না। সে ক্ষেত্রে ফরগেট পাসওয়ার্ড এ ক্লিক করে ইমেইলে জেনারেটেড পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ-ইন করে তারপর পাসওয়ার্ড পাল্টান।

রিপোর্ট করুন

হ্যাক হওয়ার বিষটি ফেসবুককে জানান। যে ব্রাউজারে আপনার অ্যাকাউন্ট লগ-ইন করছেন সেখানই অন্য ট্যাব খুলে টাইপ করুন ফেসবুক হেলপ সেন্টার। যে পেজটি খুলবে সেখানে সিকিউরিটি-আই এর মধ্যে অনেকগুলো অপশন রয়েছে। যেটি সব থেকে ঠিক মনে হবে সেটি ক্লিক করে রিপোর্ট জানান ফেসবুককে।

ড্যামেজ কন্ট্রোল

হ্যাক হওয়ার বিষয়টি আপনার বন্ধুদের জানান।

সন্দেহজনক অ্যাপ ডিলিট করুন

অনেক সময় বিভিন্ন লিঙ্কে ক্লিক করে যখন কোনও অ্যাপ খোলেন তখন আপনা থেকেই সেটা আপনার অ্যাকাউন্টের অ্যাপ লিস্টে অ্যাড হয়ে যায়। সেই অ্যাপ থেকেও অনেক সময় আপনার ব্যক্তিগত ইনফো পাচার হয় এবং হ্যাকারদের সুবিধা করে দেয়। ফলে সন্দেহজনক কোনও অ্যাপ চোখে পড়লেই সেটা ডিলিট করুন। এ ক্ষেত্রে সেটিংস> অ্যাপস এন্ড ওয়েবসাইটস এ যান। এখানে অ্যাপ লিস্ট দেখতে পাবেন।

সতর্ক থাকুন

এমন ঘটনা ঘটে থাকলে অবশ্যই সতর্ক হয়ে যান। কোনও অজানা লোকের কাছ থেকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট অ্যাকসেপ্ট করবেন না।

রাত থেকে মোবাইল নেটওয়ার্ক বিঘ্নিত হতে পারে
                                  

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : আট ঘণ্টা মোবাইল নেটওয়ার্ক সেবায় বিঘ্ন ঘটতে পারে। বুধবার (৭ এপ্রিল) রাত ১১টা থেকে বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) সকাল ৭টা পর্যন্ত গ্রাহকরা সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিটিআরসি)।

বিটিআরসির (মিডিয়া উইং) উপ-পরিচালক জাকির হোসেন খাঁনের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দ্বিতীয় ধাপে ২১০০ মেগাহার্টজ তরঙ্গের নতুন বিন্যাসের জন্য ৭ এপ্রিল রাত ১১টা থেকে ৮ এপ্রিল সকাল ৭টা পর্যন্ত মোবাইল সেবায় বিঘ্ন ঘটতে পারে।

এর আগে ২৯ মার্চ গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে বিটিআরসি জানায়, প্রথম ধাপে ১৮০০ মেগাহার্টজের তরঙ্গ বিন্যাসের কারণে ১ এপ্রিল রাত ১১টা থেকে ২ এপ্রিল সকাল ৭টা পর্যন্ত ৮ ঘণ্টা এবং দ্বিতীয় ধাপে ২১০০ মেগাহার্টজ তরঙ্গের নতুন বিন্যাসের জন্য ৭ এপ্রিল রাত ১১টা থেকে ৮ এপ্রিল সকাল ৭টা পর্যন্ত মোবাইল ফোন সেবায় বিঘ্ন ঘটতে পারে। এ তথ্য জানিয়ে মোবাইল গ্রাহকদের কাছে দুঃখও প্রকাশ করে প্রতিষ্ঠানটি।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নিলামের মাধ্যমে মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংককে নতুন তরঙ্গ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। টেলিটক নতুন কোনো তরঙ্গ বরাদ্দ নেয়নি। তরঙ্গে সেবা দিতে হলে অপারেটরগুলোকে তাদের তরঙ্গ পরিবর্তন করতে হবে। অপারেটরগুলো ৯ এপ্রিল থেকে নতুন তরঙ্গে সেবা দেবে বলে জানা গেছে ।

রাত থেকেই মোবাইল-ইন্টারনেটে সমস্যা
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : নতুন তরঙ্গ বিন্যাস ও পরিবর্তনের কারণে বৃহস্পতিবার (০১ এপ্রিল) রাত ১১টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত মোবাইলে কল ও ইন্টারনেট সেবায় সমস্যার সম্মুখীন হবেন দেশের গ্রাহকরা। ইতোমধ্যে বিভিন্ন মোবাইল অপারেটরগুলো এসএমএস এর মাধ্যমে তাদের গ্রাহকদের এই বার্তা জানিয়ে দিয়েছে।

তাছাড়া গত ২৯ মার্চ বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনও (বিটিআরসি) এক বিবৃতির মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছিল।

মোবাইল অপারেটর বাংলালিংক তাদের গ্রাহকদের পাঠানো এক ক্ষুদে বার্তায় জানায়, বৃহস্পতিবার রাত ১১টা থেকে শুক্রবার সকাল সকাল ৭টা পর্যন্ত তরঙ্গ পুনর্বিন্যাসের জন্য কল ও ইন্টারনেট সেবায় সাময়িক সমস্যা হতে পারে। এ সময়ের পর ইন্টারনেট ব্যবহারে অসুবিধা হলে ফোনটি রিস্টার্ট করুন। সাময়িক এ সমস্যায় আমরা দুঃখিত।

এদিকে গত ২৯ মার্চ বিটিআরসির এক বিবৃতি বলা হয়, প্রথম ধাপে ১৮০০ মেগাহার্টজের তরঙ্গ বিন্যাসের কারণে ১ এপ্রিল রাত ১১টা থেকে ২ এপ্রিল সকাল ৭টা পর্যন্ত ৮ ঘণ্টা এবং দ্বিতীয় ধাপে ২১০০ মেগাহার্টজ তরঙ্গের নতুন বিন্যাসের জন্য ৭ এপ্রিল রাত ১১টা থেকে ৮ এপ্রিল সকাল ৭টা পর্যন্ত মোবাইল ফোন সেবায় বিঘ্ন ঘটতে পারে।

গত ৮ মার্চ মোবাইল অপারেটরদের কাছে ৭ হাজার ৬৩৪ কোটি টাকায় তরঙ্গ বিক্রি করে সরকার। নিলামে এ পরিমাণ টাকায় ২৭ দশমিক ৪ মেগাহার্টজ তরঙ্গ বিক্রি হয়। পাঁচ বছরের কিস্তিতে অপারেটরদের কাছ থেকে টাকাগুলো পাওয়া যাবে।

আফ্রিকার ইথিওপিয়া-সুদান থেকে দশভাগ পিছিয়ে থাকা নেটওয়ার্ক উন্নত করতে তরঙ্গ কিনেছে মুঠোফোন অপারেটররা। নিলামে তোলা ২৭ দশমিক ৪ মেগাহার্টজ তরঙ্গের পুরোটাই কিনেছে বেসরকারি তিন অপারেটর। দুটি ব্যান্ডে সর্বোচ্চ ১০ দশমিক ৪ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কিনেছে গ্রামীণফোন। আর নিলামে অংশ নিয়েও কোন তরঙ্গ না কিনেই ফেরত গেছে সরকারি অপারেটর টেলিটক। বিটিআরসি বলছে, মোট দামের চার ভাগের এক ভাগ দিতে হবে ২২ মার্চের মধ্যেই।

ইন্টারনেট গতি মাপার আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ওকলার সবশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে মোবাইল ইন্টারনেটে ডাউনলোডের গড় গতি ১০ দশমিক ৫৭ এমবিপিএস এবং আপলোডের গতি ৭ দশমিক ১৯ এমবিপিএস। এ ধীরগতি নিয়ে বিশ্বের ১৪০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৬তম। আফ্রিকার পিছিয়ে পড়া দেশ ইথিওপিয়া-সুদানের চেয়েও যার গতি দুর্বল।

মুঠোফোন সেবার এমন দুর্গতি দূর করতে গত ৮ মার্চ তরঙ্গ নিলামে তোলে নিয়ন্ত্রক সংস্থা-বিটিআরসি। যেখানে ২১০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে ৯ নম্বর ব্লকের ৫ মেগাহার্টজ তরঙ্গ বরাদ্দ পাওয়ার জন্য প্রতিযোগিতায় নামে রবি ও গ্রামীণফোন। ৮ ঘণ্টার যুদ্ধশেষে রবিকে হারিয়ে ২৭ মিলিয়ন ডলার ভিত্তিমূল্যের তরঙ্গ ৪৬ দশমিক সাত পাঁচ মিলিয়ন ডলারে কিনে নেয় গ্রামীণফোন। যদিও নিলামে অংশ নিয়েও কোনো তরঙ্গ না কিনেই ফেরত যায় সরকারি অপারেটর টেলিটক।

নিলাম শেষে জানানো হয়, গ্রামীণফোন দুটি ব্যান্ডে ১০ দশমিক ৪ মেগাহার্টজ; রবি ৭ দশমিক ৬ মেগাহার্টজ ও বাংলালিংক কিনেছে ৯ দশমিক ৪ মেগাহার্টজ।

তরঙ্গ কেনার ২৫ শতাংশ অর্থ পরিশোধ করতে হবে আগামী ২২ মার্চের মধ্যে। এরপরও বাড়তি তরঙ্গে সেবা দিতে সময় লাগবে আরও এক থেকে দেড় মাস।

নতুন তরঙ্গ নিয়ে গ্রামীণফোনের তরঙ্গ পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৭.৪ মেগাহার্টজ; রবির ৪৪ মেগাহার্টজ এবং বাংলালিংকের ৪০ মেগাহার্টজ।

বিটিআরসির হিসাবে, বর্তমানে গ্রামীণফোনের গ্রাহক ৮ কোটির কিছু বেশি। রবির গ্রাহক ৫ কোটি ১৫ লাখ। আর বাংলালিংকের গ্রাহক ৩ কোটি ৫৯ লাখ এবং টেলিটকের ৫৫ লাখ।

গুগল ডুডলে মহান স্বাধীনতা দিবস
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : আজ ২৬ মার্চ, বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবস। এ উপলক্ষে হোমপেজে বিশেষ ডুডল দিয়েছে বিশ্বের জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল। শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার পর থেকেই গুগল এই ডুডলটি চালু করেছে। ছবিতে গুগলের নামের মাঝে শোভা পাচ্ছে বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা।

কোনো কিছু খোঁজার জন্য আজ সারাদিন গুগলে ঢুকলেই চোখে পড়বে বাংলাদেশের পতাকা সম্বলিত দৃষ্টিনন্দন এই ডুডল। এতে কার্সর ধরলে বা ট্যাপ করলে উঠছে ‘বাংলাদেশ ইন্ডিপেন্ডেন্স ডে ২০২১’। আর তাতে ক্লিক করলেই বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের ইতিহাস এবং এ সম্পর্কিত ওয়েবসাইটগুলো দেখাবে গুগল।

বিশেষ কোনো দিন, বিশেষ কোনো ব্যক্তি কিংবা আবিষ্কার নিয়ে সার্চ বক্সের ওপরে নিজেদের লোগোর পরিবর্তে এর সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নকশার যে লোগো তৈরি করে গুগল, তাকেই বলা হয় ডুডল। তারই ধারাবাহিকতায় আজ বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবসে দৃষ্টিনন্দন ডুডল প্রকাশ করেছে জনপ্রিয় এই সার্চ ইঞ্জিন।

বিশ্বজুড়ে হোয়াটসঅ্যাপ-ইনস্টাগ্রামে বিভ্রাট, আধা ঘণ্টা পর স্বাভাবিক
                                  

অনলাইন ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা চরম বিভ্রাটের মধ্যে পড়েছিল শুক্রবার রাতে। এই মেসেজিং অ্যাপের সেবা আধ ঘণ্টারও বেশি সময়ের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। ফলে ওই সময় হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে কোনও মেসেজ, ছবি বা ভিডিও পাঠাতে পারেনি এর ব্যবহারকারীরা।

হোয়াটসঅ্যাপ ছাড়াও ইনস্টাগ্রাম এবং মেসেঞ্জারেও একই সমস্যা দেখা দিয়েছিল। তবে ঠিক কি কারণে এসব সেবা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল তা শুক্রবার রাত পর্যন্ত জানা যায়নি। হোয়াটসঅ্যাপের পক্ষ থেকেও এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

ডাউনডিটেক্টর নামে একটি ওয়েবসাইট জানিয়েছে, বাংলাদেশ সময় শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে হোয়াটসঅ্যাপে সমস্যা শুরু হয়। রাত সাড়ে ১১টা থেকে ১২টা ১০ মিনিট পর্যন্ত বিশ্বের বহু হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী ভোগান্তিতে পড়েন।

একই সময় লাখ লাখ ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীও সমস্যায় পড়েন। তবে কিছুক্ষণ পর এই অ্যাপগুলোর সেবা ফের স্বাভাবিক হয়।

হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রামের পাশাপাশি ফেসবুকেরও সেবা বিঘ্নিত হয়। মার্ক জাকারবার্গের মালিকানাধীন এসব প্রতিষ্ঠানের সেবায় বিভ্রাটের পর অনেকেই ক্ষোভ জানিয়ে টুইট করে। তবে ঠিক কি কারণে হোয়াটসঅ্যাপসহ এই ৩টি অ্যাপের সেবা বন্ধ হয়ে যায় তা নিয়ে এখনও কোনও বিবৃতি প্রকাশ করা হয়নি।

বেহাল ইন্টারনেট, গতি কমাচ্ছে উন্নয়নের
                                  

অনলাইন ডেস্ক: সরকারের নানা উদ্যোগের পরও দেশে ইন্টারনেট সেবার মানের কোনো উন্নতি নেই। মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে পিছিয়ে বাংলাদেশ। তবে ফাইবার অপটিক কেবলের মাধ্যমে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতিতে কিছুটা এগিয়ে আছে। ইন্টারনেটের গতি পর্যবেক্ষণে বৈশ্বিক প্রতিষ্ঠান স্পিডটেস্টের সর্বশেষ সূচকের তথ্য এ বাস্তবতা জানাচ্ছে। দেশের তথ্য-প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরাও বলছেন,  দুটি সাবমেরিন কেবলের মাধ্যমে আমাদের পর্যাপ্ত ব্যান্ডউইডথ থাকার পরও এ অবস্থা কাম্য নয়। এতে দেশের উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে, স্থবির করে দিচ্ছে। সফটওয়্যারশিল্পের বিকাশ হচ্ছে না। অনলাইনভিত্তিক শিক্ষাব্যবস্থাও বাধাগ্রস্ত। সর্বোপরি এ বাস্তবতা সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের গতিও কমিয়ে দিচ্ছে। এ ছাড়া ইন্টারনেট সেবায় প্রয়োজনীয় নিরাপত্তাব্যবস্থা না থাকার কারণে সাইবার হামলার আশঙ্কাও এড়ানো যাচ্ছে না। সার্বিক এই পরিস্থিতির পেছনে কোনো নাশকতা পরিকল্পনা কাজ করছে কি না, সেই প্রশ্নও উঠেছে।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তখন থেকে মূলত অনলাইন ক্লাসের ওপর নির্ভরশীল হয়ে যায় পড়ালেখা, কিন্তু  ইন্টারনেটের দুর্বল গতির কারণে নিয়মিত ক্লাস করাই দুরূহ হয়ে পড়েছে। রাজধানী ঢাকাসহ বড় শহরের শিক্ষার্থীরা কোনো রকমে এই ক্লাস চালিয়ে নিতে পারলেও অন্যান্য জায়গায় তা সম্ভব হচ্ছে না। সেবার মান বাড়াতে গত ৮ মার্চ  মোবাইল ফোন অপারেটরদের মাঝে তরঙ্গ নিলাম হয়েছে। কিন্তু তাতেও যে সমস্যার সমাধান হবে, এই আস্থা ভুক্তভোগীদের নেই।

তথ্য-প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ এবং ফাইবার অ্যাট হোম-এর চিফ টেকনোলজি অফিসার সনুম আহমেদ সাবির বলেন, মোবাইল ফোন অপারেটরদের কাছে পাওনা টাকা আদায় নিয়ে নানা জটিলতা এবং ফাইভজি আসছে—এই যুক্তিতে মোবাইল ফোন অপারেটররা দীর্ঘদিন তাদের থ্রিজি ও ফোরজি নেটওয়ার্ক উন্নয়নে কোনো বিনিয়োগ করেনি। টাওয়ার শেয়ারিং নিয়েও সমস্যা আছে। এসব কারণে দেশে মোবাইল ইন্টারনেট গ্রাহকরা তাদের চাহিদামতো ইন্টারনেট সেবা পাচ্ছে না। প্রয়োজনীয় স্পেকট্রাম না থাকার কারণে যে এলাকায় গ্রাহক বেশি সে এলাকায় ইন্টারনেটের গতি কম। যে এলাকায় যতটা বিটিএস প্রয়োজন ততটা নেই। এই পরিস্থিতিতে মানসম্মত সেবা না দিয়েও তারা মুনাফা অর্জন করছে। করোনা প্রাদুর্ভাবের গত এক বছর এভাবে বিনিয়োগ ছাড়াই লাভের মুখ দেখেছে মোবাইল ফোন অপারেটররা। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ক্ষেত্রেও সমস্যা কম নয়। কয়েক হাজার আইএসপি লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। এই লাইসেন্সধারীদের সক্ষমতা নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে।

এ বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘পরিস্থিতি উন্নয়নে সরকারের পক্ষ থেকে যথেষ্ট উদ্যোগ ছিল এবং এখনো আছে। আমি মোবাইল ফোন অপারেটরদের একপ্রকার হাতে-পায়ে ধরেছি ফোরজি নেটওয়ার্ক বাড়ানোর জন্য, কিন্তু তারা পাত্তা দেয়নি। প্রয়োজনীয় স্পেকট্রামও (বেতার তরঙ্গ) নিতে চায়নি। এনটিটিএন অপারেটর ও টাওয়ার কম্পানিগুলোও যথাসময়ে কাজ শুরু করেনি। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর নির্ভরতার কারণেই করোনায় হঠাৎ চাহিদা বাড়ার প্রেক্ষাপটে আমরা ইন্টারনেট সেবার ক্ষেত্রে পিছিয়ে রয়েছি।’

সনুম আহমেদ সাবির আরো বলেন, ‘বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় এই ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা নিয়ে একধরনের মাফিয়াচক্র তৈরি হয়ে গেছে। প্রকৃত লাইসেন্সধারীরা সেখানে সেবা দিতে পারে না। বলা হয়ে থাকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যেখানে ইন্টারনেটের মূল্য ৭০ ডলার, সেখানে আমাদের দেশে তা পাঁচ ডলারে পাওয়া যায়। কিন্তু পাঁচ ডলার দিয়ে যে পরিমাণ যে গতির ইন্টারনেট আমরা কিনছি তা আসলেই পাচ্ছি কি না, সেই প্রশ্নের জবাব নেই। ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো (আইএসপি) এখনো এনটিটিএন অপারেটরদের ফাইবার অপটিক সেভাবে ব্যবহার করছে না। কিছু ক্ষেত্রে নাশকতাও চলছে। ফাইবার অপটিক কেটে দেওয়া হচ্ছে। কারো নেটওয়ার্কে কৃত্রিমভাবে বেশি ট্রাফিক সৃষ্টি করে গতি কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। প্রত্যেকে তার জায়গার কাজগুলো যদি ঠিকভাবে করে তাহলে এতটা সমস্যা হয় না। ইন্টারনেটের গতি ও সহজলভ্যতার সঙ্গে এখন যেকোনো দেশের উন্নয়ন সম্পর্কিত। এ ক্ষেত্রে আমরা দুর্বল অবস্থানে।’

এ বিষয়ে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসের (বেসিস) প্রেসিডেন্ট সৈয়দ আলমাস কবীর  বলেন, ‘আমাদের ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ প্রচুর পরিমাণে আছে, কিন্তু নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে তার ব্যবহার অনেক কম। চাহিদা বাড়ছে, কিন্তু সরবরাহ নেই। সরকার বিভিন্ন সময় ব্যান্ডউইডথের মূল্য কমিয়েছে, কিন্তু উচ্চহারের ট্রান্সমিশন কস্টের কারণে তার সুফল পাওয়া যায়নি। ঢাকার বাইরে ট্রান্সমিশন কস্টের প্রভাব বেশি পড়েছে। ঢাকায় যে ইন্টারনেটের মূল্য এক হাজার টাকা, ঢাকার বাইরে তা আট হাজার টাকায় নিতে হয়। এ কারণে প্রত্যাশা অনুসারে দেশে সফটওয়্যার ইন্ডাস্ট্রির বিকাশ হচ্ছে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশে গ্রাহকদের ৯৬ শতাংশই মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করে, কিন্তু মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারের অভিজ্ঞতা সন্তোষজনক নয়। সফটওয়্যারশিল্পের বিকাশের জন্য দ্রুতগতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট দরকার। সরকার দেশের ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত ফাইবার অপটিক নিয়ে গেছে। কিন্তু ইউনিয়ন কেন্দ্র থেকে ইন্টারনেট সার্ভিস অপারেটররা কিভাবে ছড়িয়ে দেবে, সে বিষয়ে নীতিমালা এখনো প্রস্তুত হয়নি। দেশে স্থানীয় এবং বাংলা কনটেন্ট তেমন নেই। ফেসবুক, ইউটিউবেই বেশির ভাগ গ্রাহক ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। দেশীয় কনটেন্ট বাড়লে ইন্টারনেটের চাহিদাও বাড়বে।’

বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মসিউর রহমান বলেন, ‘আমাদের প্রচুর ব্যান্ডউইডথ পড়ে আছে। দুটি সাবমেরিন কেবল থেকে আমাদের সক্ষমতা ২৮০০ জিবিপিএস। অন্যদিকে দেশে চাহিদা ২৩০০ জিবিপিএসের কাছাকাছি। আমরা এ চাহিদা পুরোপুরি পূরণ করতে সক্ষম, কিন্তু আমাদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে ১৪৮০ জিবিপিএস। এটা গত ফেব্রুয়ারির হিসাব। দীর্ঘদিন ধরে দেশে চাহিদার ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ ব্যান্ডউইডথ আমাদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে।  বাকি ৩৫  থেকে ৪০ শতাংশ  আসছে ইন্টারন্যাশনাল টেরেস্ট্রিয়াল কেবল (আইটিসি) অপারেটরদের মাধ্যমে প্রতিবেশী দেশ থেকে।’

ইন্টারনেট ব্যবহারের নিরাপত্তার দিকটিও ঝুঁকির মুখে। সিকিউরিটি অ্যাপস প্রয়োজন অনুসারে ব্যবহার হচ্ছে না। এগুলো আমদানি করতে উচ্চহারে শুল্ক দিতে হয়। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে যেখানে তিনটা ‘ফায়ার বল’ প্রয়োজন, সেখানে একটা ব্যবহার করা হয়। এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মীদের সচেতনতা বাড়ানোর ব্যবস্থার সঙ্গে প্রশিক্ষণ দেওয়া দরকার। সাধারণ গ্রাহকদের জন্যও ব্যাপকভাবে ইন্টারনেট ব্যবহারে কী করা উচিত, কী করা উচিত নয়, এ বিষয়ে প্রচার চালানো দরকার। তা না হলে সাইবার অপরাধ কমবে না। বড় ধরনের সাইবার হামলারও সুযোগ থেকে যাবে। সার্বিক এই অবস্থা সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার গতিও কমিয়ে দিচ্ছে।

গবেষণার তথ্য : গত ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত বিশ্বের ১৭৫টি দেশের মোবাইল ইন্টারনেট ও ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতির তথ্য নিয়ে সর্বশেষ সূচক প্রকাশ করে বিশ্বখ্যাত তথ্য-প্রযুক্তি গবেষণা সংস্থা স্পিডটেস্ট। এতে দেখা যায়, মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৬তম। আর ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ৯৬তম। দেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গড় ডাউনলোড গতি ১০.৫৭ এমবিপিএস (মেগাবিট পার সেকেন্ড), আপলোড ৭.১৯ এমবিপিএস। আর ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গড় ডাউনলোড গতি ৩৩.৫৪ এমবিপিএস এবং আপলোডের গড় গতি ৩৩.৯৬ এমবিপিএস। দক্ষিণ এশিয়ায় মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে সবচেয়ে এগিয়ে আছে মালদ্বীপ। বৈশ্বিক অবস্থানে ৪৫ নম্বরে থাকা এ দেশে মোবাইল ইন্টারনেটে গড় ডাউনলোড গতি ৪৪.৩০ এমবিপিএস এবং আপলোডের গড় গতি ১৩.৮৩ এমবিপিএস। মালদ্বীপে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে ডাউনলোডের গড় গতি ২৪.৫০ এমবিবিপিএস এবং আপলোডের গড় গতি ১৫.৭৫ এমবিপিএস।

এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে মালদ্বীপের পরই স্থান মিয়ানমারের। বৈশ্বিক তালিকায় ৮৮ নম্বরে থাকা মিয়ানমারে মোবাইল ইন্টারনেটে ডাউনলোডের গড় গতি ২৫.২১ এমবিপিএস এবং আপলোডের গতি ১৬.৭০ এমবিপিএস। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে মিয়ানমারে গড় ডাউনলোডের গতি ২১.৭৩ এমবিবিএস এবং আপলোডের গতি ২০.৪৬ এমবিপিএস। দক্ষিণ এশিয়ায় ইন্টারনেটের গতিতে তৃতীয় স্থানে আছে নেপাল। তালিকায় ১১৪ নম্বরে থাকা দেশটিতে মোবাইল ইন্টারনেটে ডাউনলোডের গড় গতি ১৮.৪৪ এমবিপিএস এবং আপলোডে ১১.৭৩ এমবিপিএস। নেপালে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে গড় ডাউনলোডের গতি ২৪.৮৬ এমবিপিএস এবং গড় আপলোড ২৩.০১ এমবিপিএস।

বৈশ্বিক সূচকে মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে শীর্ষে আছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটিতে মোবাইল ইন্টারনেটে ডাউনলোডের গড় গতি ১৮৩.০৩ এমবিপিএস এবং গড় আপলোড গতি ২৯.৫০ এমবিপিএস। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে ডাউনলোডে গড় গতি ১২৯.৪৩ এমবিপিএস এবং আপলোডের গতি ৬০.৫৪ এমবিপিএস। তালিকায় দুই নম্বরে আছে দক্ষিণ কোরিয়া এবং তিন নম্বরে আছে কাতার। চার নম্বরে আছে চীন। যুক্তরাষ্ট্র আছে ২০ নম্বরে। জাপানের অবস্থান ৫১তম। তালিকায় সর্বনিম্ন স্থানে আছে পূর্ব ইউরোপের দেশ তুর্কমেনিস্তান।

বৈশ্বিক সূচকে মোবাইল ইন্টারনেটের গতির ক্ষেত্রে পাকিস্তান ১১৮ এবং ভারত ১৩১ নম্বরে রয়েছে। তবে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতিতে দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে এগিয়ে আছে ভারত। দেশটিতে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে ডাউনলোডের গড় গতি ৫৪.৭৩ এমবিপিএস এবং আপলোডে গড় গতি ৫১.৩৩ এমবিপিএস।

অন্যদিকে গত বছর দেশে করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর হংকংভিত্তিক আন্তর্জাতিক মোবাইল সেবা বিষয়ক বিশ্লেষণী সংগঠন ওপেনসিগন্যাল ৪২টি দেশের ওপর চালানো এক জরিপের তথ্য প্রকাশ করে বলেছে, বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গতি সবচেয়ে কম।

 

সুত্রঃ কালের কণ্ঠ

চালু হলো মোবাইল অ্যাপ `মুজিব ১০০`
                                  

ডেস্ক রিপাের্ট : ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মাঝে বঙ্গবন্ধুর দর্শন ও সংগ্রামমুখর জীবনের ইতিহাস তুলে ধরার লক্ষ্যে নির্মিত মোবাইল অ্যাপ `মুজিব ১০০` উদ্বোধন করা হয়েছে।

রোববার (১৪ মার্চ) সকাল ১১টায় অনলাইন প্লাটফর্ম জুম`য়ে সংযুক্ত থেকে `মুজিব ১০০` অ্যাপটির উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

উল্লেখ্য, সারাদেশে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে পালিত হচ্ছে মুজিব শতবর্ষ। মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে www.mujib100.gov.bd নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়। `মুজিব ১০০` অ্যাপটি এই ওয়েবসাইটের একটি মোবাইল সংস্করণ। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের `মোবাইল গেইম ও অ্যাপ্লিকেশন এর দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প`-এর অধীনে তৈরি করা হয়েছে `মুজিব ১০০` মোবাইল অ্যাপটি।

দেশের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দেয়া এই অ্যাপের অন্যতম লক্ষ্য। বঙ্গবন্ধুর জীবদ্দশায় দেয়া সমস্ত ভাষণ, বঙ্গবন্ধুর লেখা বই এবং বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানা ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে সাজানো টাইমলাইন, প্রভৃতি কন্টেন্ট দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এই অ্যাপটি। `মুজিব ১০০` অ্যাপের গুরুত্বপূর্ণ ফিচারের মধ্যে রয়েছে `বঙ্গবন্ধু প্রতিদিন`। এই ফিচারের মাধ্যমে প্রতিদিন বঙ্গবন্ধুর জীবনে ঘটে যাওয়া ঘটনাবলি সম্পর্কে জানতে পারবে এই অ্যাপ ব্যবহারকারীরা। এ ছাড়া রয়েছে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র, ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণসহ আরও অসংখ্য বক্তব্য, বঙ্গবন্ধুর নিজের হাতে লেখা চিঠিপত্র এবং তার নিজের হাতে লেখা আত্মীজবনীমূলক বইসমূহ। বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামময় জীবনের বিভিন্ন সময়কার ছবি দিয়ে তৈরি করা হয়েছে ফটো আর্কাইভ।

এ ছাড়া অ্যাপের `ইভেন্ট` ফিচারের মাধ্যমে মুজিব শতবর্ষের বিভিন্ন উদযাপনের আপডেট জানা যাবে এই অ্যাপে। এই অ্যাপ নির্মাণে ব্যবহার করা হয়েছে বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি। যার প্রমাণ মেলে অ্যাপের অগমেন্টেড রিয়েলিটি এবং ভার্চুয়াল রিয়েলিটির মতো ফিচারগুলোতে। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিশ্বনেতাদের বিবৃতি, মুজিব শতবর্ষের থিম সং, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নির্মিত গ্রাফিক নভেল `মুজিব` প্রভৃতি বৈচিত্র্যময় কন্টেন্ট দিয়ে সাজানো হয়েছে অ্যাপটিকে। তরুণরা বঙ্গবন্ধুর জীবনের রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত জীবনের উপলব্ধি থেকে করা বিভিন্ন উক্তি পড়ে অনুপ্রাণিত হবে এই অ্যাপের মাধ্যমে। অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে গুগল প্লে স্টোর এবং অ্যাপল স্টোর দুই জায়গা থেকেই এবং এটি অনলাইন ও অফলাইন-এ এবং খুব অল্প বান্ডউইথ-এ ব্যবহার করা যাবে। বাংলা ও ইংলিশ দুই ভাষাতেই ব্যবহার করা যাবে অ্যাপটি।

`মুজিব ১০০` অ্যাপের উদ্বোধনকালে প্রতিমন্ত্রী বলেন, `মুজিব এক চিরতারুণ্যের প্রতিচ্ছবি। দেশের তরুণ সমাজ এই অ্যাপের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সেই সংগ্রামমুখর জীবন সম্পর্কে জানতে পারবে। সেই সঙ্গে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গবেষণা করতে চান, বিস্তারিত জানতে চান বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে, তার জীবন দর্শন নিয়ে, তাদের ক্ষেত্রেও এই মুজিব ১০০ অ্যাপটি বিশেষভাবে কাজে আসবে। দেশে ও দেশের বাইরের ব্যবহারকারীরা সকলেই এই অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবে।`

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মোবাইল গেম অ্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম। অ্যাপ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. বিকর্ণ কুমার ঘোষ।

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ফেসবুক
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সামরিক অভ্যুত্থানের পর বিতর্কের মুখে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেলের ফেসবুক পেজ।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ফেসবুকের নীতিমালা বিষয়ক পরিচালক রাফায়েল ফ্রাঙ্কেল এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটির সেনাবাহিনী পরিচালিত একটি ফেসবুক পেজও বন্ধ করে দেয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

দেশটিতে গত দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে অব্যাহত আছে সামরিক অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ। সেনাবাহিনী এসব বিক্ষোভ ঠেকাতে নানা হুমকি দিয়ে আসছে শুরু থেকেই। তাদের হয়েও ওই চ্যানেলটি অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে সতর্ক করে সম্প্রতি। এ পরিস্থিতিতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেসবুক।

এমআরটিভি নামের চ্যানেলটির রোববারের খবরে বলা হয়, বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে। সংঘাত মানুষের জীবন হুমকির মুখে ফেলবে।

ফেসবুকের নীতিমালা বিষয়ক পরিচালক রাফায়েল ফ্রাঙ্কেল আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম রয়টার্সকে বলেন, এমআরটিভি আমাদের বৈশ্বিক নীতিমালা অনুযায়ী সহিংসতা ও উসকানি রোধের নীতিমালাসহ কমিউনিটির মানদণ্ড বারবার লঙ্ঘন করছিল। তাই এমআরটিভির ও এমআরটিভির লাইভ পেজ ফেসবুক থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থান হয়। আটক করা হয় দেশটির নির্বাচিত নেত্রী অং সান সূ চিসহ দলের শীর্ষ নেতাদের। এরপর থেকেই অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ অব্যাহত। শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ দমাতে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন ও বলপ্রয়োগ হচ্ছে। সেনাবাহিনীর দমন-পীড়ন এবং নতুন নির্বাচনের প্রতিশ্রুতিও জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন ঠেকাতে পারছে না।

এ অবস্থায় সহিংসতায় উসকানি দেওয়ার আশঙ্কায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী পরিচালিত `তাতমাদো ট্রু নিউজ ইনফরমেশন টিম` নামে একটি ফেসবুক পেজও সরিয়ে নেয় ফেসবুক। তখন ফেসবুকের এক মুখপাত্র বলেন, তাদের বৈশ্বিক নীতিমালা অনুযায়ী মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ওই পেজ নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। ভুয়া ও মনগড়া তথ্য ছড়িয়ে মানুষকে যাতে বিভ্রান্ত করতে না পারে, সেজন্যই পেজটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

উচ্চমাত্রার সাইবার হামলার শঙ্কা, ফের সতর্কতা জারি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশ ব্যাংকসহ দেশের কয়েকটি আর্থিক ও সরকারি প্রতিষ্ঠানে সাইবার হামলার শঙ্কায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে সরকারের কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিম (সিআইআরটি)।

সাইবার অপরাধ তদন্তে সরকারের বিশেষায়িত এই সংস্থাটি মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে তাদের ওয়েবসাইটে এক বিজ্ঞপ্তিতে এই বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছে।

সিআইআরটির বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ পুলিশ, করোনা-বিডি, ইসলামী ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক ও বিকাশসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সাইবার হামলার মুখে পড়েছে বলে জানানো হয়েছে। ১৫ ফেব্রুয়ারি দেশের শীর্ষস্থানীয় এসব প্রতিষ্ঠানগুলোতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এর পেছনে `ক্যাসাব্লাংকা` নামের একটি হ্যাকার গ্রুপকে চিহ্নিত করেছে সিআইআরটির সাইবার থ্রেট গবেষণা দল।

সিআইআরটি এটিকে উচ্চ হুমকির হামলা হিসেবে চিহ্নিত করেছে। তবে, এখনই কোনো আর্থিক লাভের জন্য এই হামলা চালানোর ইঙ্গিত পায়নি সংস্থাটি। `তবে ভবিষ্যতে এটি মারাত্মক হুমকির হতে পারে, যা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি বা বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির কারণ হতে পারে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।`

সিআইআরটি সাইবার হামলার শিকার হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোকে সকল কর্মী, গ্রাহক ও ভোক্তাদের সচেতনতাসহ সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে সতর্ক থাকতে বলেছে। পাশাপাশি সন্দেহজনক বিষয় https://www.cirt.gov.bd/incident-reporting এই ঠিকানায় জানাতে অনুরোধ করেছে।

এর আগে গত নভেম্বরে বাংলাদেশের ব্যাংকগুলোতে সাইবার হামলার আশঙ্কায় সতর্কতা জারি করেছিল সরকার। তার আগে গত আগস্টের শেষ দিকে বাংলাদেশের ব্যাংকগুলোর উপর সাইবার হামলার আশঙ্কায় সতর্কতা জারি করেছিল বাংলাদেশ ব্যাংক। উত্তর কোরিয়ার একটি হ্যাকার গ্রুপ এই হামলা চালাতে পারে বলে ব্যাংকগুলোকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

সেই সতর্কতার অংশ হিসেব অনেক ব্যাংক অনলাইন ব্যাংকিং সেবা সীমিত করেছিল। আবার কোনো ব্যাংক রাতে এটিএম বুথ বন্ধ রেখেছিল। তবে ওইসময় কোনো সাইবার হামলার ঘটনা ঘটেনি।

ফেসবুকে রাষ্ট্রবিরোধী ভুয়া তথ্য দিলে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার প্রস্তাব
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ভুয়া তথ্য প্রচার কাজে জড়িত বাংলাদেশি নাগরিকদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলার প্রস্তাব করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। কেউ যদি দেশের বাইরেরও থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির একটি বৈঠকে এই প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

প্রস্তাবে কমিটির সদস্যরা বলেছেন, অপপ্রচারের সঙ্গে জড়িতদের কোনোভাবেই ছাড় দেয়া যাবে না। তাদেরকে আইনের আওতায় এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে চলমান করোনা পরিস্থিতি ও দেশের সমসাময়িক পরিস্থিতিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীন জননিরাপত্তা, সুরক্ষা ও সেবা বিভাগ এবং অন্যান্য সংস্থাগুলোর সার্বিক কার্যক্রমের প্রতিবেদন উপস্থাপন ও আলোচনা করা হয়।

কমিটি সূত্র আরো জানায়, ১৯৭১ সালে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের তদন্ত কাজ পরিচালনায় গঠিত তদন্ত সংস্থা, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সার্বিক কার্যক্রমের বিষয়েও প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

বৈঠকে মাদকাসক্ত আসামিদের ‘বিশেষ অপরাধী’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে তারা যাতে সহজে জামিন না পেতে পারে সে লক্ষ্যে প্রয়োজনে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

এছাড়া, আগ্নেয়াস্ত্র বরাদ্দের ক্ষেত্রে সংসদ সদস্যদের অগ্রাধিকার দিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রত্যেক জেলা প্রশাসককে পত্র দেয়ারও সুপারিশ করা হয়েছে।

স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. শামসুল হক টুকুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, মো. আফছারুল আমীন, মো. হাবিবর রহমান, সামছুল আলম দুদু, পীর ফজলুর রহমান, নূর মোহাম্মদ, সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ ও বেগম রুমানা আলী এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

যেসব সুবিধা নিয়ে আসছে স্মার্ট চশমা
                                  

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : প্রযুক্তির বাজারে প্রতিদিনই নতুন নতুন গ্যাজেট আসছে। এমন কিছু যা হয়তো আমরা বছর পাঁচেক আগেও কল্পনা করতে পারতাম না, যা আজ হাতের মুঠোয়। যেমন- ধরা যাক মোবাইল ফোনের স্ক্রিন ফোল্ডেবল বা রোটেটবল হতে পারে। অথবা রোলেবল টিভি স্ক্রিনের কথা শুনে আমরা কি প্রথমে অবাক হইনি!

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অগ্রগতি আমাদের অবাক করছে বটে। তবে আমরাও এই অগ্রগতির সঙ্গে তাল মেলাচ্ছি। এবার আরও একটি অসাধারণ আবিষ্কারের কথা শোনা যাচ্ছে। স্মার্ট ফোনের পর বাজারে আসছে স্মার্ট গগলস বা স্মার্ট চশমা।

অ্যাপল, স্যামসাং, অপপো ও ভুজিক্স-এর মতো সংস্থাগুলো ইতিমধ্যে স্মার্ট গ্লাস তৈরির কাজ শুরু করেছে। এই চশমায় এআর প্রযুক্তি থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। এবার একই পথে স্মার্ট গ্লাস তৈরির কাজ শুরু করল চীনা সংস্থা শাওমি। সবার আগে জানতে হবে স্মার্ট গ্লাস কী! অ্যাজুমেটেট রিয়েলিটি থাকবে এই চশমায়।

অন্যদিকে ভার্চুয়াল তথ্য দেবে এই চশমা। ফোনে যেমন ফটো ও ভিডিও আলাদা করে রাখা ও দেখা যায়, এই চশমায় তেমনই অপশন থাকবে। ফোনের নোটিফিকেশনও চশমায় দেখা যাবে। থাকবে নেভিগেশন পদ্ধতি। অপরদিকে হেড ফোন ছাড়াই এই চশমায় গান-বাজনা শোনা যাবে।

শাওমি তাদের স্মার্ট গগলস-এ ফটোথেরাপি ফিচার দিতে পারে। ফলে এই চশমার মাধ্যমে মানসিকভাবে অসুস্থ ও ডিপ্রেশনে ভোগা ব্যক্তিদের চিকিৎসাও সম্ভব হবে। সাউন্ড ও ভিজুয়াল, দূরের সিগনাল এই চশমার মাধ্যমে পাঠানো যাবে।

ভুয়া অ্যাপ চেনার উপায়
                                  

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : নিত্যনতুন তথ্যপ্রযুক্তির কল্যাণে বিশ্ব এখন আমাদের হাতের মুঠোয় চলে এসছে। একটি স্মার্টফোন আমাদের জীবনযাত্রাকে করেছে সহজ থেকে সহজতর। স্মার্টফোন ব্যবহারের অধিকাংশ সুযোগ-সুবিধাই পেয়ে থাকি নানান অ্যাপ ব্যবহার করে। তবে প্রায়ই আমরা আসল অ্যাপ চিনতে না পারায় ভুয়া অ্যাপ ডাউনলোড করে ফেলি।

আমাদের জেনে রাখা দরকার স্মার্টফোনে ভুয়া অ্যাপ ডাউনলোড করলে ব্যক্তিগত তথ্য চুরি যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যা অনেক সময় খুব নেতিবাচক একটা প্রভাব ফেলে আমাদের জীবনে। তাই জানতে হবে কিভাবে ভুয়া অ্যাপ চিহ্নিত করা যায়। সে পদ্ধতিগুলো জানা থাকলে বিপদ থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

ফোনে কোনো অ্যাপের দরকার হলে অফিসিয়াল অ্যাপ স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করুন। অফিসিয়াল অ্যাপ স্টোরগুলোতেও অনেক সময় ক্ষতিকারক অ্যাপ খুঁজে পাওয়া গেলেও কর্তৃপক্ষ সেগুলো খুব তাড়াতাড়ি সরিয়ে ফেলেন, ফলে আপনি ও আপনার ফোন সেখানে নিরাপদ।

অ্যাপ-এর বিবরণ জানতে হবে কোনো অ্যাপে প্রচুর বানান বা ব্যাকরণগত ভুল খুঁজে পেয়েছেন? তাহলে বুঝতে হবে এটি ভুয়া। কারণ, অ্যাপের মৌলিক বিবরণে এ ধরনের ভুল থাকা মানেই হলো সেই অ্যাপটি ভুয়া হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

অ্যাপ ইনস্টলের আগে সাথে থাকা রিভিউগুলো গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করুন। যদি কোনো অ্যাপ ভুয়া হয়ে থাকে তবে নির্দিষ্ট কিছু রিভিউ এ কেউ না কেউ তা স্পষ্টভাবে উল্লেখ করবেনই।

তাই কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার আগে অ্যাপটির বিষয়ে অন্যরা কি বলেছে তা দেখে নিতে ভুলবেন না। এতে আপনি নিশ্চিত থাকবেন একটি নিরাপদ অ্যাপ ব্যাবহারের ক্ষেত্রে।

ডাউনলোডের সংখ্যাকেও বিবেচনা করুন। কোনো অ্যাপ আসল নাকি ভুয়া তা যাচাই করার এটি খুবই ভালো ওই অ্যাপটি এখন পর্যন্ত কতবার ডাউনলোড হয়েছে। যদি ডাউনলোডের সংখ্যা অনেক বেশি হয় তাহলে বুঝতে হবে এটি ভুয়া হওয়ার সম্ভবনা কম।

স্মার্টফোনের নতুন সিরিজ আনল সিম্ফনি
                                  

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : দেশের বাজারে `এটম` নামে নতুন একটি স্মার্টফোন সিরিজ নিয়ে এসেছে জনপ্রিয় স্মার্টফোন কোম্পানি সিম্ফনি মোবাইল।

এটম সম্পর্কে সিম্ফনি মোবাইলের হেড অব মার্কেটিং তাইয়েবুর রহমান বলেন, `উন্নয়নশীল বাংলাদেশের সকল স্তরের মানুষের মাঝে স্মার্টফোনের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। বাজেট যেমনই হোক উন্নত প্রযুক্তির স্মার্টফোন ব্যবহারের দাবিদার সবাই। বাংলাদেশে উৎপাদিত সিম্ফনি এটম স্বল্প বাজেটে উন্নত প্রযুক্তির একটি উদাহরণ। প্রযুক্তির ব্যবহার এবং দামে সিম্ফনি এটম বাজারের বাকি সব ফোন থেকে এগিয়ে থাকবে।`

এটমের বিভিন্ন কারিগরি দিক তুলে ধরে সিম্ফনির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ১.৮ গিগাহার্টজের মিডিয়াটেক হ্যালিও এ২০ কোয়াড কোর প্রসেসর এবং অ্যান্ড্রয়েড ১০.০ এর গো অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে এতে। ৬.২২ ইঞ্চির বড় আইপিএস ডিসপ্লেতে আছে এইচডি প্লাস বা ১৫২০*৭২০ রেজুলেশন।

এই হ্যান্ডসেটটিতে আছে ২ জিবি র্যাম ও ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ যা ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ছবি তোলার জন্য এই স্মার্টফোনটির ব্যাক ক্যামেরায় ব্যবহার করা হয়েছে গুগল কাস্টমাইজড ও সনি সেন্সরের ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা যার অ্যাপারচার ১.৮।

আর সেলফি তোলার জন্য আছে ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ডিসপ্লে ফ্ল্যাশ থাকার কারণে সেলফিও হবে অনেক বেশি আকর্ষণীয়। ক্যামেরার ফিচারগুলো হলো পোট্রেইট মোড, নাইট মোড, গুগল ট্রান্সলেটর, এইচডিআর এবং ফেস বিউটি।

চার হাজার এমএএইচের লি-পলিমার ব্যাটারি আছে যা দিয়ে ব্যবহারের তারতম্যের ভিত্তিতে দুইদিন অনায়াসেই চালানো যাবে। হ্যান্ডসেটটিতে ফিংগার প্রিন্ট সেন্সর এবং ফেস আনলকের পাশাপাশি স্পেশাল কিছু ফিচারও আছে যেমন প্যারেন্টাল কন্ট্রোল, ডিজিটাল ওয়েলবিয়িং, ওয়ান হ্যান্ড মোড এবং ডার্ক থিম।

সিম্ফনির সকল আউটলেটে এই হ্যান্ডসেটটি পাওয়া যাচ্ছে বাংলালিংক এবং রবির ডাটা বান্ডেল সহ মাত্র সাত হাজার ২৯০ টাকায়।

রিয়েলমির নতুন ফোন কিনলেই পাচ্ছেন ফ্রি ইন্টারনেট
                                  

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : তরুণদের পছন্দের স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি নিয়ে এসেছে দারুণ এক অফার। নতুন রিয়েলমি স্মার্টফোন কিনলেই রবি-এয়ারটেল গ্রাহকরা পাবেন ফ্রি ইন্টারনেটের বান্ডেল অফার।

প্রথম ক্যাম্পেইনের আওতায় রিয়েলমি ৭আই, সি১৭, সি১৫ কোয়ালকম সংস্করণ (৪/৬৪), সি১৫ কোয়ালকম সংস্করণ (৪/১২৮), রিয়েলমি নারজো ২০, সি১২, সি১১ মডেলের স্মার্টফোন কিনলেই পাওয়া যাবে ফ্রি ১০ জিবি ফোরজি ইন্টারনেট প্যাক এবং দ্বিতীয় ক্যাম্পেইনের আওতায় রিয়েলমি ৭প্রো কিনলেই গ্রাহকরা পাবেন ফ্রি ১২ জিবি ফোরজি ইন্টারনেট প্যাক।

প্রথম ক্যাম্পেইনের আওতায় প্রতিটি হ্যান্ডসেট কেনার সঙ্গে সঙ্গে রিয়েলমি ব্যবহারকারীরা প্রতি মাসে (দুই মাস) সাতদিন মেয়াদের ৫ জিবি করে ফোরজি ইন্টারনেট পাবেন। দ্বিতীয় ক্যাম্পেইন অফারের আওতায় রিয়েলমি ৭প্রো`র নতুন ক্রেতারা সাতদিনের মেয়াদ সহকারে তিন মাসের জন্য ৪ জিবি ফোরজি ইন্টারনেট (প্রতি মাসে) উপভোগ করতে পারবেন। এসব প্যাকেজ বিদ্যমান ও নতুন রবি-এয়ারটেল সংযোগের জন্য প্রযোজ্য এবং কেবল নতুন কেনা রিয়েলমি স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে পাওয়া যাবে।

রিয়েলমি তরুণ প্রজন্মকে সঙ্গে নিয়ে একটি `স্মার্ট ইকোসিস্টেম` তৈরির জন্য তাদের `স্মার্টফোন+এআইওটি` কৌশলটির ওপর জোর দিচ্ছে। `ডেয়ার টু লিপ` স্পিরিটে বিশ্বাসী রিয়েলমি ২০২১ সালে ফ্যান ও ব্যবহারকারীদের স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহারের অভিজ্ঞতাকে আরও বেশি উপভোগ্য করতে কাটিং-এজ প্রযুক্তির বিভিন্ন ডিভাইস নিয়ে আসছে।


   Page 1 of 16
     তথ্য-প্রযুক্তি
ফেইসবুকে নিষিদ্ধই থাকছেন ট্রাম্প
.............................................................................................
গুগল ম্যাপের ‘মাথা খারাপ’!
.............................................................................................
ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে কি-না বুঝবেন যেভাবে
.............................................................................................
রাত থেকে মোবাইল নেটওয়ার্ক বিঘ্নিত হতে পারে
.............................................................................................
রাত থেকেই মোবাইল-ইন্টারনেটে সমস্যা
.............................................................................................
গুগল ডুডলে মহান স্বাধীনতা দিবস
.............................................................................................
বিশ্বজুড়ে হোয়াটসঅ্যাপ-ইনস্টাগ্রামে বিভ্রাট, আধা ঘণ্টা পর স্বাভাবিক
.............................................................................................
বেহাল ইন্টারনেট, গতি কমাচ্ছে উন্নয়নের
.............................................................................................
চালু হলো মোবাইল অ্যাপ `মুজিব ১০০`
.............................................................................................
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ফেসবুক
.............................................................................................
উচ্চমাত্রার সাইবার হামলার শঙ্কা, ফের সতর্কতা জারি
.............................................................................................
ফেসবুকে রাষ্ট্রবিরোধী ভুয়া তথ্য দিলে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার প্রস্তাব
.............................................................................................
যেসব সুবিধা নিয়ে আসছে স্মার্ট চশমা
.............................................................................................
ভুয়া অ্যাপ চেনার উপায়
.............................................................................................
স্মার্টফোনের নতুন সিরিজ আনল সিম্ফনি
.............................................................................................
রিয়েলমির নতুন ফোন কিনলেই পাচ্ছেন ফ্রি ইন্টারনেট
.............................................................................................
৩০ জানুয়ারি রাতে ইন্টারনেটের গতি কমবে
.............................................................................................
চাপের মুখে আপডেট স্থগিত করল হোয়াটসঅ্যাপ
.............................................................................................
২০২০ সালে বাংলাদেশে রেকর্ড সংখ্যক ইমোর ব্যবহার
.............................................................................................
শক্তিশালী ব্যাটারির স্যামসাং গ্যালাক্সি এম৫১
.............................................................................................
গেমিং পারফরমেন্সে বাজার মাতাতে এলো রিয়েলমি নারজো ২০
.............................................................................................
গ্রাহকদের জন্য আইফোন-১২ আনল গ্রামীণফোন
.............................................................................................
বিশ্বজুড়ে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে সমস্যা
.............................................................................................
দেশের তৃতীয় সাবমেরিন কেবল স্থাপিত হবে ৭০০ কোটি টাকায়
.............................................................................................
আইফোন নিয়ে ভুয়া দাবি, অ্যাপলের জরিমানা
.............................................................................................
ইউটিউবে আসছে অডিও বিজ্ঞাপন
.............................................................................................
শীত রুখতে ইলেকট্রিক গেজেট !
.............................................................................................
নতুন ফিচার নিয়ে টুইটার
.............................................................................................
নতুন সংযোজন জিমেইলে
.............................................................................................
জুমে আনলিমিটেড ভিডিও কল ২৬ নভেম্বর
.............................................................................................
ফেসবুকে চালু হলো ভ্যানিস মোড
.............................................................................................
বাজারে এলো রিয়েলমি সি১৫ কোয়ালকম এডিশন
.............................................................................................
বাজারে ফিরছে নকিয়া ৬৩০০
.............................................................................................
নতুন ফিচার নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ
.............................................................................................
ফেসবুক ভাসছে কাঞ্চনজঙ্ঘা!
.............................................................................................
ওয়াইফাই ৬-এর গতি ৪ গুণ বেশি
.............................................................................................
ডাউনলোড না করেও ব্যবহার করা যাবে ইনস্টাগ্রাম
.............................................................................................
সঙ্কটে সৌমিত্র, দেয়া হলো ভেন্টিলেশনে
.............................................................................................
৫ দিন ইন্টারনেটের গতি ধীর থাকতে পারে
.............................................................................................
শিগগিরই আসছে `গ্যালাক্সি এস২১`, ফিচারের তথ্য ফাঁস
.............................................................................................
হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েবেও ভিডিও কল
.............................................................................................
জুম থেকে উপার্জনের সুযোগ
.............................................................................................
বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট
.............................................................................................
ফেসবুক মেসেঞ্জার এলো নতুন রূপে
.............................................................................................
বাংলাদেশে অপো এফ১৭ ও এনকো ডব্লিউ৫১`র যাত্রা শুরু
.............................................................................................
স্থায়ীভাবে বাড়ি থেকে কাজ করবেন মাইক্রোসফট কর্মীরা
.............................................................................................
বদলে যাচ্ছে জি-মেইলের লোগো
.............................................................................................
ইন্টারনেট থেকে আয়ের উপায়
.............................................................................................
চলতি মাসেই আসছে আইফোন ১২
.............................................................................................
অ্যান্ড্রয়েড আপডেটে খুশি নন ব্যবহারকারীরা
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop