| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * মতিঝিলে `বিচ্ছু বাহিনী`র ৫ সদস্য গ্রেফতার   * ফরিদপুরে করোনা-উপসর্গে আরও ১২ জনের মৃত্যু   * করোনাকালে ডেঙ্গু নিয়ে অবহেলা না করার অনুরোধ   * ফেরিতে উঠতে গিয়ে নদীতে পড়ে গেলেন ৩ যাত্রী   * করোনায় আরও ২২৮ জনের মৃত্যু   * মাস্কবিহীন কাউকে ছাড় দেয়া হচ্ছে না   * মহারাষ্ট্রে ভারি বৃষ্টি ও ভূমিধস, নিহত বেড়ে ১৩৮   * টিকা নিতে ১ কোটির বেশি মানুষের নিবন্ধন   * দৌলতদিয়ায় উভয়মুখী যাত্রীর চাপ   * পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা: ফেরির ২ চালককে দায়ী করে প্রতিবেদন  

   সারা দেশ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ফরিদপুরে করোনা-উপসর্গে আরও ১২ জনের মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি : ফরিদপুরে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গ নিয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়। একইসময় ১২৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭১ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ২৭৪ জন রোগী।

ফরিদপুর সিভিল সার্জন ডা. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৭১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গ নিয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়।

তিনি আরও বলেন, এখন পর্যন্ত ফরিদপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১৬ হাজার ৮২৯ জন। আর জেলায় করোনায় মারা গেছেন ৩৫৪ জন।

ফরিদপুরে করোনা-উপসর্গে আরও ১২ জনের মৃত্যু
                                  

জেলা প্রতিনিধি : ফরিদপুরে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গ নিয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়। একইসময় ১২৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭১ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ২৭৪ জন রোগী।

ফরিদপুর সিভিল সার্জন ডা. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৭১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গ নিয়ে সাতজনের মৃত্যু হয়।

তিনি আরও বলেন, এখন পর্যন্ত ফরিদপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১৬ হাজার ৮২৯ জন। আর জেলায় করোনায় মারা গেছেন ৩৫৪ জন।

ফেরিতে উঠতে গিয়ে নদীতে পড়ে গেলেন ৩ যাত্রী
                                  

জেলা প্রতিনিধি : সারাদেশে চলমান ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধের তৃতীয়দিনে ভোলার ইলিশা ফেরিঘাটে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলাগামী যাত্রীদের উপচেপড়া ভিড়। এসময় প্রশাসনের বাধা উপেক্ষা করে ফেরিতে উঠতে গিয়ে তিন যাত্রী নদীতে পড়ে যান।

রোববার (২৫ জুলাই) দুপুরের দিকে ইলিশাঘাটে এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই যাত্রীদের দ্রুত উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিকভাবে মো. রুবেল হোসেন (৩০) নামের এক যাত্রীর নাম জানা গেলেও অন্যদের পরিচয় জানা যায়নি।

রুবেল হোসেন জানান, তিনি রাজধানী ঢাকায় একটি কোম্পানিতে চাকরি করেন। ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়ি ভোলায় আসেন। সোমবার (২৬ জুলাই) যোগ না দিলে তার চাকরি থাকবে না। তাই তিনি প্রশাসনের বাধা উপেক্ষা করেই ফেরিতে ওঠার চেষ্টা করেন। এসময় তিনিসহ তিনজন নদীতে পড়ে যান। পরে সাঁতার কেটে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ফেরিতে ওঠেন।

ইলিশা নৌ-থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ জালাল বলেন, ‘ইলিশা ফেরিঘাটে আসা যাত্রীদের আমরা বুঝিয়ে বাড়ি ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করছি। কিন্তু অনেক যাত্রী আমাদের বাধা উপেক্ষা করে ফেরিতে ওঠার চেষ্টা করছেন। দুপুরের দিকে ফেরিতে ওঠার সময় তিন যাত্রী গ্যাংওয়ে থেকে নদীতে পড়ে যান। পরে তারা প্রশাসন ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় তীরে উঠে আসেন।’

উল্লেখ্য, রোববার সকাল থেকে ইলিশা ফেরিঘাটে পাঁচ শতাধিক যাত্রী ফেরিতে ওঠার অপেক্ষা। এদিকে র‌্যাব, কোস্টগার্ড, নৌ-পুলিশ, পুলিশ ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ প্রশাসনের তৎপরতা রয়েছে ঘাট এলাকায়।

দৌলতদিয়ায় উভয়মুখী যাত্রীর চাপ
                                  

রাজবাড়ী প্রতিনিধি : দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার নামে পরিচিত দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ঢাকাফেরত ও ঢাকামুখী যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। বেড়েছে ছোট যানবাহনের চাপও।

রোববার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, নদী পার হয়ে ঢাকা থেকে যাত্রীরা তাদের বাড়ি ফিরছে এবং ঢাকামুখী যাত্রীরা তাদের কর্মস্থলে ফিরছেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিকাল নাগাদ আরও যাত্রীর চাপ বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঢাকাফেরত যাত্রী রাজু মোল্লা বলেন, ঢাকায় ঈদ করে আজকে বাড়ি ফিরছি। বাড়িতে গিয়ে প্রিয়জনদের সঙ্গে লকডাউনের এই কয়েক দিন থাকব।

পাংশা থেকে ঢাকাগামী যাত্রী সোহাগ রহমান বলেন, ভোরেই বাড়ি থেকে বের হয়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে এসে ৩ ঘণ্টা বসে অপেক্ষা করছি। ৩ ঘণ্টা পর একটি ফেরি ফিরেছে। এ ছাড়া ফেরি পুরোপুরি না ভরা পর্যন্ত নদী পাড়ি দিচ্ছে না বলে জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক শিহাব উদ্দিন বলেন, এই রুটে ছোট-বড় মিলে ৯টি ফেরি চলাচল করছে।

শুধু জরুরি গাড়ি পারাপারের জন্য ফেরিগুলো চলছে বলে জানান তিনি।

পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা: ফেরির ২ চালককে দায়ী করে প্রতিবেদন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : পদ্মা সেতুর পিলারে রো রো ফেরি শাহজালালের ধাক্কা লাগার ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে কমিটি।

প্রতিবেদনে ফেরির দুই চালককে (মাস্টার ও সুকানি) দায়ী করা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান সৈয়দ মো. তাজুল ইসলাম বলেন, রোববার দুপুরে কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। দুর্ঘটনার জন্য ফেরি দুই চালককে দায়ী করা হয়েছে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাংলাবাজার ঘাট থেকে ২৯টি যানবাহন নিয়ে শিমুলিয়া ঘাটে আসার পথে রো রো ফেরি শাহ জালাল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পদ্মা সেতুর ১৭ নম্বর পিলারে আঘাত করে।

এ সময় ফেরিতে থাকা যাত্রীরা ছিটকে একে অপরের ওপর পড়ে আহত হন। কমপক্ষে ২০ জন যাত্রী এ সময় মারাত্মক আহত হন। ওই দিনই বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক (বাণিজ্য) এসএম আশিকুজ্জামানকে প্রধান করে চার সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়।

তিনদিনের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়। শুক্রবার কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও ফেরিতে কর্মরত ছয়জনের বক্তব্য নেন। শনিবার খসড়া প্রতিবেদন তৈরি করেন। আজ বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যানের কাছে এ প্রতিবেদন জমা দেয় কমিটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, তেল খরচ কমাতে সংক্ষিপ্ত পথে চলতে গিয়ে পদ্মা সেতুতে আঘাত করে রো রো ফেরি শাহজালাল। স্রোতের অনুকূলে কম গতিতে চালাতে (২৫০ আরপিএম) গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেতুর ১৭ নম্বর পিলারে ধাক্কা দেয় ফেরিটি। অথচ স্রোতের বিপরীতে কিছুটা উপরের দিকে চালিয়ে পদ্মা সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ফাঁক দিয়ে নদী পাড়ি দিলে এ ঘটনা এড়াতে পারতেন ফেরির দুই চালক (মাস্টার ও সুকানি)। সেক্ষেত্রে পথটি দীর্ঘ হতো এবং গতিও বাড়াতে হতো। এতে তেল খরচ হতো বেশি। তাদের উদ্দেশ্য ছিল তেল বাঁচিয়ে তা বাইরে বিক্রি করে দেয়া।

ফেরির আঘাতে সেতুর ১৭ নম্বর পিলারের ক্যাপে কিছুটা স্ক্যাচ পড়েছে। আর কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবি ফেরিটির বড় ধরনের ক্ষতি হয়েছে। ডকইয়ার্ডে নিয়ে মেরামতের আগে এটি চলাচল করতে পারবে না।

এদিকে এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে কৌশল নেন ফেরির দুই চালক ও অন্যান্য স্টাফরা। সেতুতে আঘাত দেয়ার আগে স্টিয়ারিং কাজ করছিল না বলে তদন্ত কমিটির সদস্যদের কাছে দাবি করেন তারা। যদিও তদন্ত কমিটির পর্যবেক্ষণে স্টিয়ারিং ভালো পাওয়া গেছে। তবে তারা ধীরগতিতে চালানোর কথা স্বীকার করেছে।

শাহজালাল ফেরির চালক (মাস্টার) আব্দুর রহমান খাঁনকে শনিবার পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়। এদিন মাদারীপুর সিভিল সার্জনের তত্ত্বাবধানে তার ডোপ টেস্ট ও শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে। তিনি মাদকাসক্ত নয় বলে সূত্র জানিয়েছে।

নেত্রকোনায় একদিনে পানিতে ডুবে ৩ শিশুর মৃত্যু
                                  

জেলা প্রতিনিধি : নেত্রকোনার পূর্বধলায় একদিনে পানিতে ডুবে তিন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২৪ জুলাই) উপজেলার মেঘশিমুল উত্তর পাড়া, লাউয়ারী ও টাংগাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হল- উপজেলার মেঘশিমুল উত্তর পাড়া গ্রামের রাসেল মিয়ার মেয়ে ইভা (৬), ধলামূলগাঁও ইউনিয়নের লাউয়ারী গ্রামের সুমন মিয়ার ছেলে জুনায়েদ (৪) ও ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলা গোয়াতলা ইউনিয়নের টাংগাটি গ্রামের শিপন মিয়ার ছেলে আল আমিন (২)।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার বিকেল ৫টার দিকে ইভা বাড়ির পাশে পুকুরে হাঁস আনতে যায়। এসময় সে হঠাৎ পানিতে পড়ে যায়। খোঁজ পেয়ে বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

অপর দিকে একই দিন দুপুরে জুনায়েদ সবার অজান্তে বাড়ির সামনের পুকুরে পড়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে পূর্বধলা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। জুনায়েদের পরিবার ঢাকায় থাকে। ঈদ উপলক্ষে তারা গ্রামের বাড়িতে এসেছিল।

এদিকে আল আমিন তার নানার বাড়ি উপজেলার হোগলা ইউনিয়নের পাটরা গ্রামে বেড়াতে এসেছিল। শনিবার দুপুরে সে সবার অজান্তে বাড়ির সামনের পুকুরে পড়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পূর্বধলা থানার প্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ শিবিরুল ইসলাম পানিতে ডুবে তিন শিশুর মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

করোনা-উপসর্গে কুষ্টিয়ায় ঝরল আরও ১৯ প্রাণ
                                  

জেলা প্রতিনিধি : কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গে আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় ১৫ জন ও উপসর্গে চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (২৫ জুলাই) হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মো. মেজবাউল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে হাসপাতালে ২০৮ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৪৮ জন। উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৬০ জন।’

মো. মেজবাউল আলম বলেন, ‘ কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৪১ নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে নতুন করে ২৬০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৯১ ভাগ। শনাক্তদের মধ্যে কুষ্টিয়া সদরে ৫২ জন, কুমারখালীতে ২৬ জন, দৌলতপুরে ৮৯ জন, ভেড়ামারায় ৩০ জন, মিরপুরে ৪৯ জন ও খোকসায় ১৪ জন।

জেলায় এ নিয়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা হচ্ছে ১৩ হাজার ১৯৯ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৬৫ জন। এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ৫০৪ জন। এ পর্যন্ত জেলায় ৮২ হাজার ৪৩ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য নেয়া হয়েছে। পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়া গেছে ৭৮ হাজার ৩০ জনের। বাকি নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনের অপেক্ষায় রয়েছেন।

কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে কেরানীগঞ্জে ২৯ হাজার ৪ শত টাকা জরিমানা, ৩৮ মামলা
                                  

মিয়া আবদুল হান্নান : রাজধানীতে লোকজনকে নির্বিঘ্নে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেছে। কোথাও আবার অলি-গলির রেস্টুরেন্টে খাবার পরিবেশন করতেও দেখা গেছে। এদিন সকাল থেকেই রাজধানীর প্রধান সড়কগুলোতে গণপরিবহন না চললেও ব্যক্তিগত গাড়ি অবাধে চলতে দেখা গেছে। সরেজমিনে রাজধানী ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলা সহকারী ভূমি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইকবাল হাসান অভিযান চালিয়ে কেরানীগঞ্জ উপজেলা চত্বর কোনাখোলা, রুহিতপুর বাজার ফারুক প্লাজার সামনে ও লাখিরচর চৌরাস্তা ষ্ট্যান্ড বেপরোয়া মটর সাইকেল চালানো ,ব্যাটারী চালিত অটোরিকশা, হেলমেট বিহীন ও মাস্ক বিহীন, মোটরসাইকেল দুইজন,তিনজন সহযাত্রী নিয়ে লাখিরচর-তুলসিখালি ব্রীজে কঠোর লকডাউন উপেক্ষা করে আড্ডাদেয়া যুবকদের নিকট থেকে ৩৮ টি মামলায় ২৯ হাজার ৪ শত টাকা জরিমানা আদায় করেন। কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আবু ছালাম সঙ্গীয় পুলিশফোর্স ও বর্ডার গার্ড গুরত্বপূর্ণ টহল দিতে দেখা যায়, তাদের দ্বায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করেন।জিঞ্জিরা, আগানগর, কদমতলী চত্ত্বর, চুনকুটিয়া, হাসনাবাদ ব্রীজ, রাজেন্দ্রপুর, আবদুল্লাপুর, রুহিতপুর বোর্ডিং, লাখিরচর জনসমাগম বেশী পরিলক্ষিত হয়েছে। রাজধানীর যাত্রাবাড়ি ওয়ারী, মতিঝিল, লালবাগ, শাহবাগ, মালিবাগ, মগবাজার, ফার্মগেট, মোহাম্মদপুর, ধানমণ্ডি, শ্যামলী ও মিরপুর এলাকা ঘুরে দেখা যায়, রাজপথ ছিল রিকশার দখলে। প্রাইভেটকারের চলাচল গতকালের তুলনায় ছিল বেশি।কঠোর বিধি নিষেধের দ্বিতীয় দিন যেমন চলছে মরণঘাতী মহামারি করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকার ঘোষিত ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধের আজ ২৪ জুলাই ২০২১ শনিবার, দ্বিতীয় দিন চলছে। সকালের বৃষ্টি আর কঠোর বিধিনিষেধে রাজধানীর রাস্তা-ঘাট প্রায় ফাঁকাই দেখা গেছে। রাস্তায় যানবাহন একেবারে নেই বললেই চলে। তবে প্রাইভেটকার, রিকশা, মোটরসাইকেল, অ্যাম্বুলেন্সসহ দেখা গেছে ছোট ছোট কিছু যানবাহন।বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে দেখা গেছে পুলিশের চেকপোস্ট। কেউ অযথা বের হলে করতে হচ্ছে জবাবদিহিতা। সঠিক জবাব দেওয়ার পরেই ছাড় পাচ্ছেন অনেকে। বিধিনিষেধ নিশ্চিত করতে পুলিশ, বিজিবির পাশাপাশি মাঠে রয়েছে সেনাবাহিনী। রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে দেখা গেছে সেনাববাহিনীর টহল। এবারের বিধিনিষেধে প্রশাসন গতবারের চেয়েও কঠোর থাকবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

তিনি বলেছেন, ‘অফিস-আদালত, গার্মেন্টস-কলকারখানা ও রপ্তানিমুখী সব কিছুই বন্ধ থাকবে। এটা এ যাবতকালের সর্বাত্মক কঠোর বিধিনিষেধ হতে যাচ্ছে। এ সময় মানুষের বাইরে আসার প্রয়োজনই হবে না। কারণ অফিসে যাওয়ার বিষয় নেই। যারা গ্রামে গেছেন, তারা জানেন যে অফিস বন্ধ। তাদের ৫ তারিখের পরে আসতে হবে। এদিকে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, বিধিনিষেধের মধ্যে ফেরিতে যাত্রীবাহী সকল ধরনের যান পরিবহন বন্ধ থাকবে। কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুধুমাত্র জরুরি পণ্যবাহী যান ও অ্যাম্বুলেন্স পারাপার করা হবে।

তবে কঠোর বিধিনিষেধের আওতার বাইরে থাকবে কোরবানির পশুর চামড়া সংশ্লিষ্ট খাত, খাদ্যপণ্য এবং কোভিড-১৯ প্রতিরোধে পণ্য ও ওষুধ উৎপাদনকারী শিল্প প্রতিষ্ঠান। এর পাশাপাশি আগামীকাল রোববার থেকে সীমিত পরিসরে চলবে ব্যাংকিং কার্যক্রম। সেই সঙ্গে খোলা থাকবে বীমা কোম্পানির কার্যালয় ও শেয়ারবাজার। ২৫ জুলাই ২০২১রোববার থেকে ব্যাংকে লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত। ব্যাংকের সঙ্গে সমন্বয় করে শেয়ারবাজারে লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত। আর বীমা কোম্পানির প্রধান কার্যালয়সহ কিছু গুরুত্বপূর্ণ শাখা খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। কঠোর বিধিনিষেধের শর্তগুলো হলো- সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। সড়ক, রেল ও নৌপথে গণপরিবহন - অভ্যন্তরীণ বিমানসহ এবং সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। শপিংমল, মার্কেটসহ সব দোকানপাট বন্ধ থাকবে। সব পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে। সব প্রকার শিল্প-কলকারখানা বন্ধ থাকবে জনসমাবেশ হয় এ ধরনের সামাজিক (বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান, ওয়ালিমা), জন্মদিন, পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি) রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

এদিকে কঠোর বিধিনিষেধের প্রথম দিন ৪০৩ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ- ডিএমপি।

গতকাল ২৩ জুলাই ২০২১ শুক্রবার সন্ধ্যায় ডিএমপির মিডিয়া ও পাবলিক রিলেসন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার এডিসি ইফতেখারুল ইসলাম বলেন, জরুরি প্রয়োজন ছাড়া অহেতুক ঘোরাফেরা করায় রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৪০৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২০৩ জনকে ১ লাখ ২৭ হাজার ২৭০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অপরদিকে ডিএমপি ট্রাফিক বিভাগ ৪৪১টি গাড়ির ১০লাখ ৬০ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছে। ১৪ দিনের এ কঠোর বিধিনিষেধ চলবে আগামী ৫ আগস্ট ২০২১ রাত ১২টা পর্যন্ত।

মেঘনায় ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ
                                  

জেলা প্রতিনিধি : নিষেধাজ্ঞা শেষে মেঘনা নদীতে মাছ শিকারে নেমে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ পাচ্ছেন উপকূলের জেলেরা। এতদিন পর কর্মে ফিরে আশানুরূপ মাছ পেয়ে খুশি তারা।

শনিবার (২৪ জুলাই) সকালে নোয়াখালীর হাতিয়া ও কোম্পানীগঞ্জ উপকূলের হাটগুলোতে ইলিশ মাছে সয়লাব হয়ে যায়। দামও ছিল হাতের নাগালে।

এর আগে ইলিশের প্রজনন বৃদ্ধির জন্য ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই মধ্যরাত পর্যন্ত নদীতে মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল সরকার। ওই নিষেধাজ্ঞা শেষে শুক্রবার মধ্যরাত থেকে জেলেরা নদীতে আবারও মাছ ধরা শুরু করেছেন।

নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার পর নদীতে মাছ শিকারে নামতে পারায় উপজেলার জেলেপল্লীতে আনন্দের জোয়ার বইছে, হাসি ফুটেছে জেলে পরিবারগুলোতেও।

একাধিক জেলে বলেন, নদী উত্তাল ও আবহাওয়া অধিদফতরের সিগন্যাল থাকায় নদীতে আমরা বেশি দূর যেতে পারিনি। তবুও আজ সকাল পর্যন্ত আমাদের জালে প্রচুর রুপালি ইলিশ ধরা পড়েছে। এবার মাছের আকার তুলনামূলক ছোট। এরপরও ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়ায় আমরা খুশি।

হাতিয়ার বুড়িরচর ইউনিয়ন জেলে সমিতির সভাপতি জবিউল হক বলেন, ‘দীর্ঘদিন পরে জেলেরা নদীতে মাছ শিকার করতে পারায় তাদের মধ্যে আনন্দ বিরাজ করছে। জেলে পরিবারেও উৎসবের আমেজ বিরাজ। ঘাটে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।’

কোম্পানীগঞ্জের জেলে মনতোষ দাস জানান, মুছাপুর ক্লোজার ঘাট ও চরএলাহীর চরলেংটা ঘাটে প্রচুর ইলিশ এসেছে। চাপরাশিরহাট, পেশকারহাট, বামনী বাজার, বাংলাবাজার, বসুরহাটসহ সব বাজারে মাইকিং করে ইলিশ মাছ বিক্রি করা হয়েছে।

এদিকে বসুরহাটের মাছের আড়তে ৩০০, ৫০০ ও ৭০০ টাকা কেজি দরে বিভিন্ন আকারের ইলিশ বিক্রি করতে দেখা গেছে। বিধিনিষেধের কারণে ক্রেতা কম থাকায় বাজারের আশপাশে বেশ কয়েকটি স্থানে মাইকিং করতে শোনা গেছে।

হাতিয়া উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা অনিল চন্দ্র দাস বলেন, ‘নোয়াখালীর উপকূলে কোনো সতর্ক সংকেত নেই। বৈরী আবহাওয়ায় গভীর সমুদ্রে না গিয়ে কাছাকাছি স্থানে মাছ ধরতে বলা হয়েছে।’

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. মো. মোতালেব হোসেন বলেন, ‘ইলিশ মাছ বড় হতে দেয়ার লক্ষ্যেই এ নিষেধাজ্ঞা ছিল। এছাড়া গভীর সমুদ্রে যেসব মাছ উৎপাদন হয় তার প্রজননের জন্য এ নিষেধাজ্ঞা কাজে এসেছে বলে মনে হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ নিষেধাজ্ঞার প্রধান উদ্দেশ্য ইলিশসহ গভীর সমুদ্রের মাছ নিরাপদে মা মাছে রূপান্তর করা। যাতে তারা নিরাপদে নদীতে ডিম ছাড়তে পারে। আমরা ধারণা করছি ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞার উদ্দেশ্য সফল হয়েছে।’

নোয়াখালী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান বলেন, ‘ইলিশ মাছের বংশ বৃদ্ধির জন্য এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল। নোয়াখালী জেলায় মোট ৪০ হাজার জেলে রয়েছে। এর মধ্যে সমুদ্রে মাছ ধরেন ৯ হাজার ৮৬৪ জন জেলে। নিষেধাজ্ঞার এই সময়ে তাদের প্রত্যেককে ৮০ কেজি করে চাল দেয়া হয়েছে।’

সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত বহাল
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হওয়ার পর এটি এখন ভারতীয় স্থলভাগে অবস্থান করছে। সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে বাংলাদেশে বৃষ্টি হচ্ছে। একই সঙ্গে শনিবারও সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রেখেছে আবহাওয়া অধিদফতর।

সারাদেশে চলমান বৃষ্টির প্রবণতা আগামীকাল রোববার পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

শনিবার (২৪ জুলাই) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ঢাকায় দফায় দফায় বৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত দেশের সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে সন্দ্বীপে, সেখানে ৮৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড কর হয়েছে। এ সময়ে বরিশাল বিভাগে ভারি বৃষ্টি হয়েছে। ঢাকায় ২ মিলিমিটার বৃ্ষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

আবহাওয়াবিদ মো. আব্দুল হামিদ মিয়া বলেন, ‘উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উত্তর উড়িষ্যা-পশ্চিমবঙ্গ উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি বর্তমানে ঝাড়খণ্ড ও উত্তর ছত্রিশঘর ও উড়িষ্যায় অবস্থান করছে। ভূমিতে উঠে যাওয়ায় এটি আর নিম্নচাপে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। এখন এটি দুর্বল হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, ‘এটার (সুস্পষ্ট লঘুচাপ) প্রভাবে আমাদের এখানে প্রচুর মেঘ রয়েছে। সমুদ্র এলাকায়ও বজ্র মেঘ সৃষ্টি হচ্ছে। এজন্য ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল থাকবে। আগামীকাল সকাল নাগাদ সতর্ক সংকেত উঠে যেতে পারে।’

সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে সারাদেশে বৃষ্টি হচ্ছে জানিয়ে হামিদ মিয়া বলেন, ‘এছাড়া এখন দেশের দক্ষিণাঞ্চলে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় রয়েছে। উত্তরাঞ্চলে মোটামুটি সক্রিয়, তবে বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী মৌসুমি বায়ু।’

‘দেশের দক্ষিণাঞ্চলের খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রামের কোথাও কোথাও অতিভারি বৃষ্টি হতে পারে। এখন যে বৃষ্টির প্রবণতা তা আগামীকাল থেকে কমে আসতে পারে। এর দু-তিন দিন পর বৃষ্টি আবারও বাড়তে পারে’ বলেন এই আবহাওয়াবিদ।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।

এ সময়ে সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে শুক্রবার ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত জারি করে আবহাওয়া বিভাগ। শনিবারও তা অব্যাহত থাকবে জানিয়ে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর।

গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল বিভাগের বরিশালে ৩১, পটুয়াখালীতে ৫৭, খেপুপাড়ায় ৫৫ ও ভোলায় ৩৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া মাদারীপুরে ৮১ ও ফরিদপুর ৪৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সৈয়দপুরে ৩৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

খুলনায় করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু
                                  

খুলনা ব্যুরো : খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে; একই সময়ে নতুন করে ২৪৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

শনিবার দুপুর পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে কুষ্টিয়ায়। বাকিদের মধ্যে খুলনায় আট, যশোরে ছয় এবং নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ ও মেহেরপুরে একজন করে ব্যক্তি মারা গেছেন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. ফেরদৌসী আক্তার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এরআগে শুক্রবার বিভাগে করোনায় ৩০ জনের মৃত্যু ও নতুন করে ৩৬১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৮৫ হাজার ৭৮৪ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দুই হাজার ১২৬ জন।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ।

ময়মনসিংহ মেডিকেলে ঝরল ১৪ প্রাণ
                                  

জেলা প্রতিনিধি : ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় দুইজন ও উপসর্গ নিয়ে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২৪ জুলাই) মমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকালপারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

করোনায় মৃতরা হলেন- ময়মনসিংহ সদর উপজেলার নাজনিন (৫৮) ও টাঙ্গাইল সখিপুরের জেসমিন (৪৫)।

অন্যদিকে উপসর্গ নিয়ে মৃতরা হলেন, ময়মনসিংহ সদর উপজেলার নাসরিন (৩৮), ইলমা (২৪), ঈশ্বরগঞ্জের রাবেয়া (৭৪), আব্দুর রউফ (৫৫), নেত্রকোনা সদর উপজেলার আজিজুন্নেসা (৯২), খালিয়াঝুড়ির নুরজাহান (৭৫), আফাজুদ্দিন (৮৫), জামালপুর সদর উপজেলার রত্না (৩২), বকশীগঞ্জের আব্দুল মান্নাফ (৬০), টাঙ্গাইল সদর উপজেলার রাজিয়া (৭০), মৃনাল (৬০) ও গাজিপুর সদর উপজেলার আব্দুর রাজ্জাক (৭৫)।

তিনি আরও বলেন, ‘হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৪২৬ জন চিকিৎসাধীন আছেন। এর মধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ২২ জন। নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬৬ জন। অন্যদিকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৭ জন।’

ময়মনসিংহ জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, ‘ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ও অ্যান্টিজেন টেস্টে ৩৮৪ টি নমুনা পরীক্ষা করে ৯০ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৪৩ শতাংশ।’

করোনা কালিন নিরাপত্তায় মাস্ক ব্যবহার করবেন অযথা প্রয়োজন ছাড়া ঘরে বাইরে যাবেন না: হাবিবুর রহমান ডি আইজি, সিআইডি
                                  

মিয়া আবদুল হান্নান : রাজধানী ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলাধীন রুহিতপুর ইউনিয়নস্থ ধর্মশুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদুল আজহার ঈদের নামাজ আদায় করেন হাবিবুর রহমান ডি আই জি -সি আইডিসহ ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা , ঈদের নামাজে ইমামতি করেন ধর্মশুর হামিদিয়া মাদরাসা মোহতামীম আলহাজ মাওলানা নুরুল হক হামিদী খলিফা পীর সাহেব মধুপুর। ঈদের জামাতের পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন ডি আইজি সি আইডি হাবিবুর রহমান বলেন, আমার জন্ম স্থান এই দক্ষিণ ধর্মশুর গ্রামে আজ আমি আমার এলাকাবাসীদের নিয়ে ঈদের নামাজ জামায়াতে আদায় করবো সে জন্য মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের দরবারে লাখ লাখ শুকরিয়া আদায় করছি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী আব্দুল আলী চেয়ারম্যান রুহিতপুর ইউনিয়ন পরিষদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ আব্দুল কাইয়ুম এমএ এলএলবি বক্তব্যের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে এলাকাবাসীদের আহবান জানান।তার পরিপ্রেক্ষিতে হাবিবুর রহমান বলেন, আমি আপনাদেরই সন্তান,আমি জানি আপনারা আমাকে ভালোবাসেন। আজ ধর্মশুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে উপস্থিত হতে পেরে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের দরবারে শোকরিয়াতান আদায় করছি, তিনি ধর্মশুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ও কবরস্থানের প্রসংশা করে বলেন,কয়েক বছর আগের তুলনা ঈদগাহ ও কবরস্থানে চতুর্থ দিক বাউন্ডারি খুবই সুন্দর হয়েছে। কবরস্থান ও ঈদগাহ শতভাগ উন্নয়নের কাছাকাছি এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে, ত্যাগের মহিমায় আমাদের হাত প্রসারিত করতে হবে। এলাকার সকলস্থরের মানুষের এগিয়ে আসতে হবে। কবরস্থানের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম হাজী আব্দুল রহিম মিয়া, মরহুম হাজী কালা চাঁন দফাদার, মরহুম হাজী আব্দুল মতিন বেপারী নাম উল্লেখযোগ্য, আরো অনেকে আছেন, তারাও আজ দুনিয়ায় নাই,এই কবরস্থানে শুইয়ে আছেন, আমি তাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করি। এই ধর্মশুর গ্রামের সুনাম আসে-পাশে গ্রামগুলো রয়েছে, এ সুনাম অব্যাহত রাখতে হবে। ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে ১৫ জুলাই থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত ৮ দিনের জন্য শিথিল করা হয় কঠোর লকডাউন। এ সময় চালু করা হয় সব ধরনের গণপরিবহন। আর এরপরই নামে ঘরমুখী মানুষের ঢল। ঈদযাত্রায় স্বাস্থ্যবিধি চরমভাবে উপেক্ষিত হওয়ায় করোনা সংক্রমণ ব্যাপকভাবে বাড়ার আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা।এ অবস্থায় শুক্রবার থেকে সারাদেশে শুরু হচ্ছে সর্বাত্মক লকডাউন। বন্ধ থাকবে শপিংমল, দোকানপাট। চলবে না বাস-ট্রেন-লঞ্চ-বিমান। এছাড়া সরকারি অফিসের কাজ ভার্চুয়ালি করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে গত ১ জুলাই থেকে দেশের সব সরকারি বেসরকারি অফিস বন্ধ করে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। কিন্তু এরপরও বেড়েই চলেছে করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যুর মিছিল বাড়ছে তো বাড়ছে । এদিকে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, শুক্রবার থেকে শুরু হতে যাওয়া দুই সপ্তাহের লকডাউনের বিধিনিষেধ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকারের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। গত ১৩ জুলাই এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, করোনা ভাইরাসজনিত সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ৫ আগস্ট দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। ডিআইজি হাবিবুর রহমান বলেন, আপনারা বিধিনিষেধের আগের কিছু শর্তের সঙ্গে নতুন শর্তও জুড়ে দেওয়া হয়। শর্তগুলো মেনে চলবেন, সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিসসমূহ বন্ধ থাকবে। সড়ক, রেল ও নৌপথে গণপরিবহন (অভ্যন্তরীণ বিমানসহ) ও সব প্রকার যন্ত্রচালিত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। শপিংমল/মার্কেটসহ সব দোকানপাট বন্ধ থাকবে। সব পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ থাকবে। সকল প্রকার শিল্প-কলকারখানা বন্ধ থাকবে।জনসমাবেশ হয় এ ধরনের সামাজিক (বিবাহ, বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান, জন্মদিন, পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি), রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

🌼 স্কুল কলেজ বন্ধ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঠেকাতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। হাবিবুর রহমান বলেন, শিশুরা দেশের সম্পদ। ডিজিটালাইজেশনের এক যুগে শিশুদের মোবাইল আসক্তি দিন দিন বাড়ছে। অভিভাবকদের জন্যও বিষয়টি বড় চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। শিশুদের মোবাইল আসক্তি বেড়ে যাওয়ার কারণে পারিবারিক বন্ধন ধারণায় পরিবর্তন আসছে বলে মনে করছেন গবেষকরা।শিশুদের মোবাইল আসক্তি কমাতে যে কাজগুলো করতে পারেন- শিশুর সঙ্গে গল্প করুন। একাকিত্বে ভোগা থেকে শিশুরা স্ক্রিন আসক্ত হতে পারে। সময়ে পেলে তার সঙ্গে গল্প করতে হবে। শিশুরা ছোটবেলা থেকে গল্প শুনলে এমনকি মাতৃগর্ভে থাকাকালে গল্প শুনলেও তার মানসিক বিকাশ বৃদ্ধি পায়। তাই শিশুকে বেশি সময় দিতে হবে, তার সঙ্গে প্রচুর গল্প করতে হবে। আপনার ঘরের পরিবেশটা কেমন? চারদিকে কি ডিভাইস? ঘরে ঢুকতেই একটা বড় টিভি? আপনিও কি এক মিনিট পর পর ডিভাইস দেখেন? তাহলে এগুলো পরিবর্তন করতে হবে। কারণ শিশুরা প্রথম শিক্ষা পায় পরিবার থেকে। তাই বাবা-মাকে এক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার। যতটা সম্ভব শিশুদের সামনে মোবাইল বা ডিভাইস পরিহার করুন। ঘরের চারদিকে শিশুদের উপযোগী রঙ, তুলি, ছবি আঁকার জিনিস, কালার পেনসিল, বিভিন্ন মিউজিক্যাল ইন্সট্রুমেন্ট (বাঁশি, সেতার, ভায়োলিন) রাখতে পারেন। এতে করে আপনার শিশু সেগুলোর প্রতি মনোযোগী হবে। এতে করে সে একা থাকলেও ছবি আঁকার চেষ্টা করবে, মিউজিক বাজানোর চেষ্টা করবে। বাসায় প্রচুর বই রাখুন। অবসর সময়ে আপনি বই নিয়ে বসে গেলে আপনার সন্তানও আপনার পাশে বসে যাবে। অথবা খবরের কাগজ পড়ার অভ্যাস করুন। আপনাকে দেখেই তার মধ্যে এই অভ্যাসগুলো
🌼মাদক বেচা-কেনা সমন্ধে ডিআইজি সিআইডি হাবিবুর রহমান বলেন,আমি জানিতে পারলাম আমাদের এলাকায় মাদকের ছোবল আঘাত করে যাচ্ছে মাদক ব্যবসায়িরা, কিছু অসৎ লোকেরা এই মাদক বিক্রি করে তরুণ ও যুবকদের দ্বারা ক্রয় বিক্রয় করে আমাদের সমাজের নেশাগ্রস্থ বানিয়ে সমাজকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে

পৌঁছাতে তাদেরকে সাবধান করে দিচ্ছি এখানো সময় আছে সাবধান হয়ে যান। আমি মাদক ক্রয়-বিক্রয়ে কাউকে ছাড় দেব না, প্রয়োজনে আমাকে খবর দিবেন, আমি বিভিন্ন জেলা কর্মরত ছিলাম এখন রাজধানী ঢাকার মালিবাগে সিআইডিতে কর্মরত ঢাকা জেলায় মাদকের ছোবল থেকে সমাজকে মাদক মুক্ত রাখতে হবে। মাদক বিষয়ে আমার কোনো আপস নাই, এরা দেশ ও দশের প্রকাশ্যে শত্রু। একটি দেশ ও জাতির জন্য যৌবন হচ্ছে একটি আদর্শ স্বপ্ন। যে জাতির যুব সমাজ যত দক্ষ এবং উন্নত চরিত্রের অধিকারী সে জাতি তত বেশি দ্রুত উন্নতির উচ্চ শিখরে পৌঁছতে পারে। কিন্তু আজ আমরা কি দেখছি? বর্তমান সময়ে

অধিকাংশ যুব সমাজ মাদক-আক্রান্ত হয়ে ধ্বংসের অবলীলায় নিপতিত হতে দেখা যায়। বিভিন্ন ধরনের মাদকের সয়লাব যুবকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়াতে তারা কোনো না কোনো উপায়ে নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছে। মাদক বর্তমানে এত বেশি ব্যাপক আকার ধারণ করছে, যার ভয়ানক প্রভাব ও বিস্তার লক্ষ্য করা যায় আমাদের মানুষ গড়ার আঙ্গিনা-শিক্ষাঙ্গনগুলোতেও। এটি বর্তমান সময়ে যুব সমাজের জন্য একটি ভয়ানক পরিণতি ও অশনি সংকেত। মদ-গাজা ইয়াবা সেবন, রাস্তা, - ঘাটে মাতাল দেখলে আমাকে৷ খবর দিবেন। আমি পুলিশ প্রশাসনের সাহায্য সহযোগিতা তাদের সাহায্য সহযোগিতা দরকার বলে উল্লেখ করে বলেন, আমাকে খবর দিবেন, সন্ত্রাসী যেই হোক গ্রেফতার পূর্বক আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যাবস্থা করতে হবে। সবাই ভালো থাকুন।৷ খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ দীর্ঘজীবী হউক।

লঘুচাপ : সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে সমুদ্রবন্দরগুলোতে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত জারি করা হয়েছে। লঘুচাপের প্রভাবে গত কয়েক দিনের তুলনায় শুক্র ও শনিবার সারাদেশে বৃষ্টিও বেশি থাকবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

আবহাওয়াবিদ মনোয়ার হোসেন শুক্রবার সকালে বলেন, ‘বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি আর শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা নেই। লঘুচাপের প্রভাবে সমুদ্রবন্দরগুলোতে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এজন্য বন্দরগুলোতে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক দেয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘লঘুচাপটি আগামীকালকের (শনিবার) মধ্যে ভারতের উড়িষ্যা বা পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে উঠে নিষ্ক্রিয় হয়ে যাবে।’

লঘুচাপের জন্য বাংলাদেশে বৃষ্টি একটু বাড়বে জানিয়ে মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘এখন এমনিতেই দেশের দক্ষিণাঞ্চলে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় রয়েছে। উপরের (মধ্য থেকে উত্তরাঞ্চল) দিকেও বৃষ্টি বাড়বে। বৃষ্টির এই প্রবণতা আগামীকালকের (শনিবার) পর থেকেই কমে যাবে। এই সময়ে চট্টগ্রামের দিকে অতি ভারি বৃষ্টিরও সম্ভাবনা রয়েছে।’

শুক্রবার এক আবহাওয়ার সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও কাছাকাছি এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও কাছাকাছি এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে ও গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা সৃষ্টি হচ্ছে। বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে জানিয়ে সতর্কবার্তায় বলা হয়, উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়- খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বৃষ্টি হতে পারে। এ সময়ে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে টেকনাফে। সেখানে ৯১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এ সময় ঢাকায় ১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

রাজশাহী মেডিকেলে আরও ২২ জনের মৃত্যু
                                  

জেলা প্রতিনিধি : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের বিভিন্ন ওয়ার্ডে করোনা সংক্রমণে ছয়জন ও উপসর্গে ১৬ জন মারা গেছেন। মৃতদের মধ্যে ১৪ জন পুরুষ ও আট জন নারী। মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ১১ জন, নাটোরের দুইজন, নওগাঁর একজন, পাবনার চারজন ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের চারজন।’

রামেক পরিচালক বলেন, ‘করোনায় মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর দুইজন, নাটোরের একজন, পাবনার একজন ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুইজন। অন্যদিকে উপসর্গ নিয়ে মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ৯ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুইজন, নাটোরের একজন, নওগাঁর একজন ও পাবনার তিনজন। মৃতদের পরিবারকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬১ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬২ জন। রামেকে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৮৬ জন ও উপসর্গ নিয়ে ২২৬ জন ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে ৫১৩টি শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি ছিলেন ৪১২ জন ‘

রামেক পরিচালক বলেন,‘ গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের পিসিআর মেশিনে ২২টি নমুনা পরীক্ষায় ১৪ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। অন্যদিকে, মেডিকেল কলেজের পিসিআর মেশিনে ১৮১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩২ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। দুই ল্যাবের টেস্টে মোট ২০৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ৪৬ জনের করোনা পজিটিভ রেজাল্ট আসে।’

বাগেরহাটে পিকআপের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৬ যাত্রী নিহত
                                  

জেলা প্রতিনিধি : বাগেরহাটের ফকিরহাটে পিকআপের ধাক্কায় ইজিবাইকের ছয় যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও একজন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল সোয়া ৭টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের বৈলতলী প্রাইমারি স্কুল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ফকিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুল আনাম বলেন, ‘পণ্যবোঝাই একটি পিকআপ মোংলার দিকে যাচ্ছিল। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইজিবাইককে চাপা দেয় পিকআপটি। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ইজিবাইকের ছয় আরোহী। নিহতদের এখনও পরিচয় জানা যায়নি। ঘটনার পর থেকে চালক পলাতক রয়েছেন।’

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক গোলাম সরোয়ার বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই স্থানীয়রা একজনকে উদ্ধার হাসপাতালে পাঠায়। ঘটনাস্থল থেকে ছয়জনের মরদেহ অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

কুকুরের কামড়ে ছেলের মৃত্যু, শোক সইতে না পেরে মায়ের আত্মহত্যা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মাদারীপুরের কালকিনিতে কুকুরের কামড়ে আহত নয়ন পাল (৩৪) নামে এক ওষুধ ফার্মেসির কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এদিকে বড় ছেলের মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে দুপুরে বিষপানে করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান মা মেঘনা পাল (৬০) । শুক্রবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নিহত নয়ন পৌর এলাকার দক্ষিণ রাজদী গ্রামের গৌতম পালের ছেলে। তিনি উপজেলা সদরের হাওলাদার ওষুধ ফার্মেসির কর্মচারী ছিলেন।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ১৭দিন আগে নয়ন পালকে একটি কুকুর কামড় দেয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসায় তার অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। বুধবার সকালে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ঢাকার মহাখালীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এদিকে সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ছেলের মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে তার বৃদ্ধ মা মেঘনা পাল (৬০) বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কালকিনি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। আজ শুক্রবার সকালে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

প্রতিবেশী মেহেদী হাসান ও দিদার হোসেন বলেন, ছেলে নয়নের মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছিলেন মেঘনা পাল। বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ তার মৃত্যু হয়েছে।

তারা জানান, নয়নের বাবা ২০ বছর আগে মারা গেছেন। তার মা তাকে লালন পালন করে বড় করেছিলেন। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।


   Page 1 of 272
     সারা দেশ
ফরিদপুরে করোনা-উপসর্গে আরও ১২ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
ফেরিতে উঠতে গিয়ে নদীতে পড়ে গেলেন ৩ যাত্রী
.............................................................................................
দৌলতদিয়ায় উভয়মুখী যাত্রীর চাপ
.............................................................................................
পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা: ফেরির ২ চালককে দায়ী করে প্রতিবেদন
.............................................................................................
নেত্রকোনায় একদিনে পানিতে ডুবে ৩ শিশুর মৃত্যু
.............................................................................................
করোনা-উপসর্গে কুষ্টিয়ায় ঝরল আরও ১৯ প্রাণ
.............................................................................................
কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে কেরানীগঞ্জে ২৯ হাজার ৪ শত টাকা জরিমানা, ৩৮ মামলা
.............................................................................................
মেঘনায় ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ
.............................................................................................
সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত বহাল
.............................................................................................
খুলনায় করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
ময়মনসিংহ মেডিকেলে ঝরল ১৪ প্রাণ
.............................................................................................
করোনা কালিন নিরাপত্তায় মাস্ক ব্যবহার করবেন অযথা প্রয়োজন ছাড়া ঘরে বাইরে যাবেন না: হাবিবুর রহমান ডি আইজি, সিআইডি
.............................................................................................
লঘুচাপ : সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
.............................................................................................
রাজশাহী মেডিকেলে আরও ২২ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
বাগেরহাটে পিকআপের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৬ যাত্রী নিহত
.............................................................................................
কুকুরের কামড়ে ছেলের মৃত্যু, শোক সইতে না পেরে মায়ের আত্মহত্যা
.............................................................................................
সাপাহার প্রেস ক্লাবের ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
উত্তর বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের সম্ভাবনা
.............................................................................................
খুলনায় করোনায় আরও ১০ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
গজারিয়ায় প্রাইভেট কার খাদে পড়ে নিহত ৩
.............................................................................................
রামেকে করোনা ইউনিটে আরও ২২ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
রংপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল ৪ জনের
.............................................................................................
হতাশ বড় গরুর ব্যবসায়ীরা
.............................................................................................
মোংলায় এলো মেট্রোরেলের আরও ১০ বগি ও ২ ইঞ্জিন
.............................................................................................
ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় ২১ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে ২৫ কিলোমিটার যানজট
.............................................................................................
স্পিডবোট-বাল্কহেড সংঘর্ষে মা-মেয়ের মৃত্যু
.............................................................................................
চট্টগ্রামের ৬০ গ্রামে ঈদ উদযাপন
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য অপসারণের ঘোষণা সিসিকের
.............................................................................................
রাঙ্গামাটিতে বন্যহাতির আক্রমণে নিহত ১
.............................................................................................
যশোরে করোনা-উপসর্গে আরও ১৬ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
শিমুলিয়ায় ঘরমুখো মানুষের ঢল, অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন
.............................................................................................
খুলনা বিভাগে করোনায় আরও ৫২ জনের প্রাণহানি
.............................................................................................
কিশোরগঞ্জে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ১৪ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
রাজশাহী মেডিকেলে একদিনে আরও ১৪ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
করোনা : ময়মনসিংহ মেডিকেলে আরও ১৫ জনের প্রাণ গেল
.............................................................................................
যানবাহনের চাপে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়কে ২০ কিলোমিটার ধীরগতি
.............................................................................................
চট্টগ্রামে করোনায় নতুন শনাক্ত ৭৬৫, ছয়জনের মৃত্যু
.............................................................................................
উত্তরাঞ্চলসহ পার্বত্য এলাকায় বন্যার আশঙ্কা
.............................................................................................
খুলনার চার হাসপাতালে আরও ২৪ জনের প্রাণহানি
.............................................................................................
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বেড়েছে যাত্রী ও গাড়ির চাপ
.............................................................................................
রামেকে করোনা ইউনিটে আরও ১৭ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
মৌলভীবাজারে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত
.............................................................................................
রংপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল ৬ জনের
.............................................................................................
মহাসড়কে তীব্র যানজটে নাকাল মানুষ
.............................................................................................
বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হত্যার খুনি গ্রেফতার
.............................................................................................
টাঙ্গাইলে ২৪ ঘণ্টায় করোনা-উপসর্গে ৬ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
নেত্রকোনায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু
.............................................................................................
ফরিদপুরে করোনায় আরও ২১ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop