বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * পদত্যাগ করছেন পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী   * করোনায় আরও ৪৫৪ মৃত্যু, শনাক্ত আড়াই লাখের নিচে   * পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি : মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৮, এখনো নিখোঁজ ৬৫   * সেনাবাহিনীতে যুক্ত হলো নতুন সামরিক বিমান   * ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি রিভা আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেলে   * শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ‘চোখ ওঠা’ ছড়াচ্ছে দ্রুত   * পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি : করতোয়ার তীরে শোকের মাতম, নিহত বেড়ে ২৪   * দেশীয় মাছ ও শামুক সংরক্ষণে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান   * জাপানে শক্তিশালী টাইফুনের আঘাত, ২ জনের মৃত্যু   * একদিনে আরও ৪৪০ ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে  

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
পদত্যাগ করছেন পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন মিফতাহ ইসমাইল। দেশটিতে নানা ধরনের সংকটের মধ্যেই তার এ পদত্যাগের ঘোষণা এল। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) এক টুইট বার্তায় দলের নেতাদের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার কথা জানান তিনি। জানা গেছে, পাঁচ বছর নির্বাসনে থাকার পর পাকিস্তানে ফিরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছেন ইসহাক দার। খবর দ্য ডনের।

এই মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফের সঙ্গে লন্ডনে অবস্থান করছেন মিফতাহ ইসমাইল। সেখানে নওয়াজ শরীফসহ পিএমএল-এন নেতাদের মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে। এতে তার পদত্যাগের সিদ্ধান্তের পাশাপাশি পাকিস্তানের আরও বেশ কিছু বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।


পিএমএল-এনের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, বৈঠককালে মিফতাহ নওয়াজ শরীফের হাতে পদত্যাগ পত্র তুলে দিয়ে দেশের জন্য কাজ করার সুযোগ দেওয়ায় ধন্যবাদ জানান।

পদত্যাগ করছেন পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন মিফতাহ ইসমাইল। দেশটিতে নানা ধরনের সংকটের মধ্যেই তার এ পদত্যাগের ঘোষণা এল। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) এক টুইট বার্তায় দলের নেতাদের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার কথা জানান তিনি। জানা গেছে, পাঁচ বছর নির্বাসনে থাকার পর পাকিস্তানে ফিরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ করতে যাচ্ছেন ইসহাক দার। খবর দ্য ডনের।

এই মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরীফের সঙ্গে লন্ডনে অবস্থান করছেন মিফতাহ ইসমাইল। সেখানে নওয়াজ শরীফসহ পিএমএল-এন নেতাদের মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক হয়েছে। এতে তার পদত্যাগের সিদ্ধান্তের পাশাপাশি পাকিস্তানের আরও বেশ কিছু বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।


পিএমএল-এনের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, বৈঠককালে মিফতাহ নওয়াজ শরীফের হাতে পদত্যাগ পত্র তুলে দিয়ে দেশের জন্য কাজ করার সুযোগ দেওয়ায় ধন্যবাদ জানান।

করোনায় আরও ৪৫৪ মৃত্যু, শনাক্ত আড়াই লাখের নিচে
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারাবিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে দুই লাখ ৪৮ হাজার ১৬১ জন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন তিন লাখ ৬৪ হাজার ৪৩১ জন।

মহামারি শুরুর পর থেকে ভাইরাসটিতে এ পর্যন্ত মোট মারা গেছেন ৬৫ লাখ ৪০ হাজার ৩৩৯ জন। সংক্রমিত হয়েছেন ৬২ কোটি ২ লাখ ৫৩ হাজার ৮৩৮ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৬০ কোটি ৩ লাখ ৯২ হাজার ১২৭ জন।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

এর আগে রোববার (২৪ সেপ্টেম্বর) ২৪ ঘণ্টায় ৪৫৪ জনের মৃত্যু ও ২ লাখ ৪৮ হাজার ১৬৮ জন রোগী শনাক্ত হন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ও সংক্রমন ছিল রাশিয়ায়। দেশটিতে এসময়ে ৯৫ জনের মৃত্যু ও ৪৬ হাজার ৭৫৮ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে রাশিয়ায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো দুই কোটি সাত লাখ ৯২ হাজার ৯২১জনে। তাদের মধ্যে মারা গেছেন তিন লাখ ৮৬ হাজার ৭৫৭ জন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন এক কোটি ৯৭ লাখ ৫৬ হাজার ৫০৭ জন।

দৈনিক সংক্রমণের দিক থেকে জাপান এখন দ্বিতীয়। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৪০ হাজার ৯১৮ জন ও মারা গেছেন ৬৯ জন। পূর্ব এশিয়ার এ দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ১০ লাখ ২৩ হাজার ৮১৪ জন শনাক্ত হয়েছেন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৪৪ হাজার ৩৩১ জনের।

করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে মারা গেছেন ৭ জন এবং শনাক্ত হয়েছেন ছয় হাজার ৭৪৯ জন। এ নিয়ে দেশটিতে ৯ কোটি ৭৯ লাখ ৫ হাজার ৯১৫ জন শনাক্ত ও ১০ লাখ ৮১ হাজার ৭১৫ জন মারা গেছেন।

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় কেউ মারা যাননি। শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ২০৯ জনের বেশি। এ নিয়ে মোট শনাক্ত ৪ কোটি ৪৫ লাখ ৭০ হাজার ৩২৩ জন ও মারা গেছেন ৫ লাখ ২৮ হাজার ৫১০ জন।

একদিনে ফ্রান্সে নতুন শনাক্ত ৩১ হাজার ৩৬৫ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত তিন কোটি ৫১ লাখ ৫৭ হাজার ৪৬ জন শনাক্ত ও মারা গেছেন এক লাখ ৫৪ হাজার ৮৮৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণ কোরিয়ায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৫ হাজার ৭৯২ জন ও মারা গেছেন ৭৩ জন।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩ জন মারা গেছেন। নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ১ হাজার ২০১ জন। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৩ কোটি ৪৬ লাখ ৭৪ হাজার ৪২২ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ছয় লাখ ৮৫ হাজার ৮৬০ জন।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে ১৩ জন, ইরানে ১২, ইন্দোনেশিয়ায় ১৬, চিলিতে ১৬, তাইওয়ান ৩৪, থাইল্যান্ডে ১৪, ফিলিপাইনে ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে তেহরানে মানুষের ঢল
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হিজাব আইন অমান্য করার অপরাধে পুলিশের হাতে আটক এক ইরানি তরুণীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত এক সপ্তাহের দাঙ্গার বিরুদ্ধে রাজধানী তেহরানে শান্তিপূর্ণ মিছিল করেছেন লাখ লাখ মানুষ। মিছিলকারীরা বিদেশিদের মদদে দাঙ্গা সৃষ্টিকারীদের তীব্র নিন্দা জানিয়ে স্লোগান দেন।

গত এক সপ্তাহ ধরে ইরানের বিভিন্ন শহরে দাঙ্গাকারীরা বিভিন্ন সরকারি স্থাপনার পাশাপাশি মসজিদ, পবিত্র কুরআন ও জাতীয় পতাকায় আগুন দিয়েছে ও নারীদের মাথা থেকে জোর করে হিজাব খুলে ফেলেছে।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) তেহরানের শান্তিপূর্ণ মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা ইরানের জাতীয় পতাকাসহ নানারকম স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড বহন করেন। তারা যুক্তরাষ্ট্র, ইহুদিবাদী ইসরাইল ও সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মদদে দাঙ্গা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণেরও আহ্বান জানান।

মিছিলকারীদের উপস্থিতিতে তেহরানের একাংশের সড়ক লোকে লোকরণ্য হয়ে যায়। শান্তিপূর্ণ মিছিলকারীরা পুলিশসহ ইরানের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোর প্রতি তাদের অকুণ্ঠ সমর্থন ঘোষণা করে বলেন, জনগণের জানমাল রক্ষা করতে নিরাপত্তা বাহিনীগুলো প্রাণপণে তাদের দায়িত্ব পালন করছে।

তাছাড়া মিছিলকারীরা তেহরানের সড়কগুলোতে দায়িত্ব পালনরত পুলিশ সদস্যদের ফুল দিয়ে অভিনন্দনও জানান। এসময় মিছিলকারীরা একজন স্বেচ্ছাসেবী যোদ্ধার জানাযার নামাজে অংশ নেন। ওই যোদ্ধা তেহরানে দাঙ্গাবাজদের হাত থেকে সরকারি সম্পদ রক্ষা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে গিয়ে নিহত হন।

মিছিল শেষে এক বিবৃতিতে তারা বলেন, দাঙ্গাকারীরা ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানে হিজাবের বিধিনিষেধ তুলে দেওয়ার দাবি জানাচ্ছে, যা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। যেকোনো নারীকে প্রকাশ্য স্থানে হিজাব পরতে হবে। মিছিলকারীরা দাঙ্গাবাজ ও দুষ্কৃতকারীদের চিহ্নিত করে তাদেরকে বিচারের আওতায় আনার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

ভারতের প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের রপ্তানি বেড়েছে ৩৩৪ শতাংশ
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের রপ্তানি গত পাঁচ বছরে ৩৩৪ শতাংশ বেড়েছে। তাছাড়া সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টার কারণে ভারত এখন ৭৫টিরও বেশি দেশে এসব সরঞ্জাম রপ্তানি করছে।রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভারত সরকারের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর দ্য ইকোনমিক টাইমসের।

দেশটির প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো (পিআইবি) এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, ভারতীয় প্রতিরক্ষা খাত এক বিপ্লবের চূড়ায় রয়েছে।

পিআইবি তাদের বার্তায় প্রতিরক্ষাখাতে দেশীয় প্রযুক্তির আবির্ভাব ও উৎপাদন বৃদ্ধির কিছু পরিসংখ্যানও শেয়ার করেছে। কোচিতে ভারতের প্রথম দেশীয় বিমানবাহী রণতরী আইএনএস বিক্রান্তের সাম্প্রতিক কমিশনিংয়ের কথাও উল্লেখ করেছে এটি।

তাছাড়া ভারতীয় উপকূলরক্ষী বাহিনীতে দেশীয় অ্যাডভান্সড লাইট হেলিকপ্টার এমকে-৩ এর স্কোয়াড্রন নিয়োগ করা ও নতুন প্রজন্মের পারমাণবিক সক্ষম ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ‘অগ্নি পি’-এর সফল পরীক্ষার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে পিআইবির টুইট বার্তায়।

দেশটির প্রতিরক্ষা সচিব অজয় কুমার এর আগে বলেছেন, মেইক ইন ইন্ডিয়া পদক্ষেপের অংশ হিসেবে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া সম্ভব হচ্ছে। মূলত প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম উৎপাদনে বিশ্বের শীর্ষ পাঁচটি দেশের মধ্যে থাকাতে চায় ভারত।

তিনি বলেছেন, গত ৭৫ বছরে ভারত বিশ্বের অন্যতম প্রতিরক্ষা পণ্য আমদানিকারক হিসেবে রয়েছে। কিন্তু এই পরিস্থিতির পরিবর্তন করতে চায় সরকার।

জাপানে শক্তিশালী টাইফুনের আঘাত, ২ জনের মৃত্যু
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জাপানের মধ্যাঞ্চলে শক্তিশালী টাইফুন তালাস আঘাত হেনেছে। কয়েক হাজার মানুষ বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। সেখানে বিশুদ্ধ পানির সংকটও দেখা দিয়েছে। স্থানীয় সময় রোববার টাইফুনের প্রভাবে ভারি বৃষ্টিপাত শুরু হয়। খবর এএফপির।

এতে আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে এবং বেশ কয়েক জায়গায় ভূমিধসের খবর পাওয়া গেছে। দুর্যোগে এখন পর্যন্ত দুজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

আঞ্চলিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, শিজুকার কাকেগাওয়া শহরে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রতিবেশী ফুকুরোই শহরে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে শিজুকার কাওয়ানেহোনচো শহরে এখনও একজন নিখোঁজ রয়েছেন। এছাড়া আরও তিনজন সামান্য আহত হয়েছেন। জাপানের আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুযায়ী, টাইফুন তালাসের প্রভাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪০ সেন্টিমিটারের বেশি (১৬ ইঞ্চি) বৃষ্টিপাত হয়েছে।

তীব্র ঝোড়ো বাতাস ও ভারি বৃষ্টির কারণে শিজোকার পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে। বেশ কিছু বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে গেছে। প্রায় এক লাখ ২০ হাজার বাড়ি-ঘর বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে।

এছাড়া প্রায় ৫৫ হাজার বাড়ি-ঘরে পানির সংকট দেখা দিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে কাজ করছেন পৌরসভার কর্মকর্তারা। কয়েকদিন আগেই জাপানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে টাইফুন নানমাদোলের আঘাতে চারজনের মৃত্যু হয়। এছাড়া আহত হয় আরও ১৪৭ জন।

পুতিনের পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি ধাপ্পাবাজি নয়: ইইউ
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের যে হুমকি দিয়েছেন তা ধাপ্পাবাজি বলে উড়িয়ে না দিয়ে গুরুত্বের সঙ্গে নেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতিবিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল। খবর বিবিসির।

জোসেফ বোরেল বলেছেন, রুশ নেতা ও সেনাবাহিনী কোনঠাসা হয়ে পড়ার পর ইউক্রেনের যুদ্ধ একটা বিপজ্জনক মুহূর্তে পৌঁছেছে।

ইউক্রেন বাহিনীর পাল্টা আক্রমণের মুখে রণাঙ্গনে রুশ বাহিনী কিছুটা বিপর্যস্ত অবস্থায় আছে।

বোরেল বলেন, রুশ সৈন্যরা কোনঠাসা হয়ে পড়ায় অবশ্যই পরিস্থিতি বিপজ্জনক দিকে মোড় নিয়েছে ও এর প্রতিক্রিয়ায় পুতিন পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের যে হুমকি দিয়েছেন তা খুবই খারাপ।

যুদ্ধের সাত মাসের মাথায় প্রেসিডেন্ট পুতিনের সৈন্যরা কোনঠাসা হয়ে পড়লেও বোরেল বলছেন সমস্যার একটা কূটনৈতিক সমাধান এখন জরুরি। তিনি বলেছেন, এমন একটা সমাধান যেটা ইউক্রেনের আঞ্চলিক অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবে, নাহলে যুদ্ধ হয়তো থামবে, কিন্তু শান্তি আসবে না ও আবার যুদ্ধ হওয়ার হুমকি থেকে যাবে।

এ সপ্তাহের শুরুর দিকে জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক বিরল ভাষণে পুতিন বলেন, তার দেশের হাতে বিধ্বংসী নানা ধরনের মারণাস্ত্র রয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের হাতে যেসব অস্ত্রসম্ভার রয়েছে তার সবই আমরা ব্যবহার করবো।

ওই ভাষণে পুতিন ইউক্রেনে যুদ্ধ করার জন্য রিজার্ভ সৈন্য তলবেরও ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, তিন লাখ রুশ যারা বাধ্যতামূলক সামরিক প্রশিক্ষণ নিয়েছে তাদের তলব করা হবে।

তার এই ঘোষণার পর রাশিয়ায় প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়ে ও রণাঙ্গনে যাওয়া এড়াতে দলে দলে রাশিয়ানরা দেশ ছেড়ে পালাতে শুরু করে।

ইউক্রেন পাল্টা আক্রমণ চালিয়ে রুশ সৈন্যদের হাত থেকে আট হাজার বর্গ কিলোমিটারের বেশি এলাকা পুনর্দখল করেছে বলে ঘোষণা দেওয়ার পর পুতিন এই ভাষণ দেন।

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্ত কমেছে
                                  

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ১৬ হাজার ৪২৬ জন। এ সময় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬৫৪ জনের।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে করোনার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

এর আগে, শনিবার ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ২ হাজার ৯৪৬ জন। এ সময় ভাইরাসটিতে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১৮৯ জনের।

ওয়ার্ল্ডোমিটারসের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬১ কোটি ৯৯ লাখ ৫২ হাজার ৯৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬৫ লাখ ৩৯ হাজার ৬৮৫ জনের।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের ঘটনা ঘটেছে জাপানে। এ সময় দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪ হাজার ৫৩ জন এবং মারা গেছেন ৮৫ জন। অন্যদিকে প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে রাশিয়া। এ সময় দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৫১ হাজার ২৬৯ জন এবং মারা গেছেন ১১১ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ হাজার ৩৭৭ জন এবং মারা গেছেন ৭৫ জন। দক্ষিণ কোরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ হাজার ৩১৫ জন এবং মারা গেছেন ৬৩ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮ হাজার ২৪ জন। ফিলিপাইনে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬২৩ জন এবং মারা গেছেন ২৯ জন। ব্রাজিলে মারা গেছেন ২১ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৮৩৪ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ৩৬০ জন এবং মারা গেছেন ৪৩ জন। তাইওয়ানে মারা গেছেন ৫১ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮ হাজার ৩২৪ জন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। ২০২০ সালের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। একই বছরের ১১ মার্চ করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে সংস্থাটি।

রাশিয়ায় বিক্ষোভ অব্যাহত, আটক ৭২৪
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইউক্রেন আগ্রাসনের জেরে প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক সংহতি ঘোষণার পর বিক্ষোভ শুরু হয় রাশিয়ায়। দেশজুড়ে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। বিক্ষোভের জেরে শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) আরও ৭২৪ জনকে আটকের খবর পাওয়া গেছে।

মানবাধিকার সংগঠন ওভিডি বলছে, ৩২ জেলা থেকে ৭২৪ জনের মতো মানুষকে আটক করা হয়েছে শনিবার। প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে যুদ্ধের জন্য ৩ লাখ সেনা পাঠাতে পুরুষদের অংশ নেওয়ার পরিকল্পনা ঘোষণা করার পর থেকে ব্যাপক বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

বিক্ষোভ সমাবেশ আইনত নিষিদ্ধ দেশটিতে। প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক বাহিনীতে বেসামরিক লোকদের নিয়োগের পদক্ষেপের ফলে শহরাঞ্চলে ব্যাপক বিক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। এর আগে এই সপ্তাহের শুরুতে বিক্ষোভ চলাকালে এক হাজারের বেশি মানুষকে আটক করার অভিযোগ উঠেছে।

মস্কোতে, বার্তা সংস্থা এএফপি এক বিক্ষোভকারীকে ‘আমরা কামানের পশু নই’ বলে চিৎকার করতে দেখে। ওই ব্যক্তিকে কর্মকর্তারা আটক করেছে। রাশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর সেন্ট পিটার্সবার্গে এক ব্যক্তি সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমি পুতিনের পক্ষে যুদ্ধে যেতে চাই না’।

খসড়া তৈরির পর দায়িত্ব পালনে অবহেলার জন্য কঠোর নতুন শাস্তির অনুমোদন দিয়েছে মস্কো। প্রেসিডেন্ট পুতিন শনিবার নতুন ডিক্রিতে স্বাক্ষর করেছেন যেখানে বলা হয়েছে, যে কোনো সেনা আত্মসমর্পণ করলে, সামরিক বাহিনী ত্যাগ করার চেষ্টা করলে বা যুদ্ধ করতে অস্বীকার করলে তার ১০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে।

দেশটির সামরিক বাহিনীতে এক বছর চাকরি করার জন্য স্বাক্ষর করা যে কোনো বিদেশি নাগরিককে রাশিয়ার নাগরিকত্ব দেওয়ার আদেশেও স্বাক্ষর করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন।

এদিকে, রুশ অনেক তরুণ দেশ থেকে পালানোর সুযোগ খুঁজছে। জর্জিয়ার সীমান্তে, রাশিয়ার গাড়ির সারি ৩০ কিমি (১৮ মাইল) এরও বেশি লম্বা হয়েছে। যদিও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় লোকদের ভ্রমণ না করার আহ্বান জানিয়েছে।

স্থানীয় রাশিয়ান কর্মকর্তারা স্বীকার করেন যে প্রায় ২৫ হাজার গাড়ি একটি চেকপয়েন্টে অপেক্ষা করছে।

অপরদিকে, ফিনল্যান্ডেও প্রবেশ করতে আগ্রহী রাশিয়ানদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশটির বর্ডার গার্ডের মুখপাত্র ম্যাটি পিটকানিটি জানান, গত সপ্তাহ থেকে রাশিয়ানদের আগমনের সংখ্যা দ্বিগুণেরও বেশি।

সূত্র: বিবিসি

উত্তরাখণ্ডে ভয়াবহ পাহাড়ধসের ভিডিও ভাইরাল
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের উত্তরাখণ্ডে পাহাড়ের বিশাল অংশ ধসে পড়েছে। ভয়ানক সেই ভিডিও এরই মধ্যে প্রকাশ্যে এসেছে। জানা গেছে, শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) তাওয়াঘাট লিপুলেখ জাতীয় সড়কে নাজাং তাম্বা গ্রামের কাছে ঘটনাটি ঘটেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, তখন প্রায় সন্ধ্যা নেমে এসেছে। হঠাৎই জোরালো একটা আওয়াজ পান তাম্বা গ্রামের বাসিন্দারা। তত ক্ষণে তারা বুঝতে পেরেছিলেন, কী ঘটতে চলেছে। সেই আওয়াজের কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই পাহাড়ের বিশাল অংশ ধসে পড়ে যায়।

শুক্রবার পুণ্যার্থীদের ৪০ জনের একটি দল ওই পথেই মানসরোবরের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। কিন্তু তার আগেই ধস নামায় আটকে পড়েন তারা।

বৃষ্টির কারণে উত্তরাখণ্ডের জায়গায় জায়গায় ধস নেমেছে গত কয়েক দিন ধরে। যার জেরে জাতীয় সড়কগুলো অবরুদ্ধ হয়ে পড়ছে। উত্তরাকাশীর স্বারিগড় ও হেলগুগড়ের কাছে বড় বড় পাথরের খন্ড রাস্তায় নেমে আসায় হৃষিকেশ-গঙ্গোত্রী জাতীয় সড়ক বন্ধ হয়ে যায়। অন্য দিকে, একই কারণে স্তব্ধ হয়ে যায় বিকাশনগর-কলসি-বারকোট জাতীয় সড়ক।

ভারতের উত্তরাঞ্চলে গত ২৪ ঘণ্টায় খারাপ আবহাওয়ার কারণে কমপক্ষে ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এর মধ্যে বজ্রপাতের কারণে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আগামী কয়েক দিন আরও বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

দেশটির উত্তর প্রদেশে ভারি বৃষ্টির কারণে বাড়ি-ঘর ধসে পড়ে কমপক্ষে ২৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ত্রাণ কমিশনার রনবীর প্রসাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

চীনের সঙ্গে ফের সম্পর্ক চান জেলেনস্কি
                                  

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের সঙ্গে ফের সম্পর্ক স্থাপন করতে চান ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। তবে রাশিয়ার আগ্রাসনের ব্যাপারে চীনের অবস্থান অস্পষ্ট বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জেলেনস্কি জানিয়েছেন, রাশিয়ার হামলা শুরু হওয়ার আগে চীনের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল। তাছাড়া বেইজিংয়ের সঙ্গে অনেক অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সহযোগিতাও ছিল।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশন চলাকালে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষৎ করেছেন। এরপরই ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে এমন মন্তব্য এল।

অন্যদিকে রাশিয়া-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী ও মস্কোর নিয়ন্ত্রণে থাকা ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলে গণভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হতে এই কথিত ভোটের আয়োজন। শুক্রবার শুরু হওয়া এই ভোটের জন্য ইউক্রেনীয়দের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন রুশ সেনারা।

দক্ষিণ খেরসনে, রাশিয়ান সেনাদের সাধারণ মানুষের ভোট সংগ্রহের জন্য শহরের মাঝখানে একটি ব্যালট বাক্স বসিয়ে রাখতে দেখা গেছে। তবে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাওয়ার বিষয়টিকে ‘নিরাপত্তাজনিত’ কারণ বলছে রাশিয়ার সরকারি সংবাদ সংস্থাগুলো।

এর আগে ২০১৪ সালে ক্রিমিয়া দখলের জন্য গণভোটের আয়োজন করে সমালোচনার মধ্যে পড়ে রাশিয়া। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া ভোটে রাশিয়ার পক্ষে ফলাফল অনিবার্য বলে ধারণা করা হচ্ছে। ২০১৪ সালে ক্রিমিয়ার গণভোটে কারচুপি হয় বলে বিষয়টি আন্তর্জাতিকভাবে সমালোচিত। সেখানে আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়ার সঙ্গে সংযুক্তির পক্ষে ৯৭ শতাংশ ভোট পড়েছিল।

ইরানে নারীসহ ৭০০ বিক্ষোভকারী গ্রেফতার, নিহত ৩৫
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইরানে পুলিশ হেফাজতে এক নারীর মৃত্যুর পর বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে চলা বিক্ষোভকালে দেশটির একটি প্রদেশ থেকে নারীসহ ৭০০ জনের বেশি গ্রেফতার করা হয়েছে। তাছাড়া এ ঘটনায় নিহত হয়েছে ৩৫ জন। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

গুইলান প্রদেশের পুলিশ প্রধান জেনারেল আজিজুল্লাহ মালেকি বলেছেন, ৬০ জন নারীসহ ৭৩৯ জন বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এদিকে দেশটির প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি বলেছেন, পুলিশ হেফাজতে এক নারীর মৃত্যুর পর ইরানজুড়ে যে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে তা চূড়ান্তভাবে মোকাবিলা করতে হবে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে জানানো হয়েছে, সপ্তহব্যাপী চলা বিক্ষোভের কারণে ৩৫ জন নিহত হয়েছে। মূলত দেশটির ৩১টি প্রদেশেই বিক্ষোভ ছড়িয়েছে।

জানা গেছে, পুলিশ হেফাজতে মাহসা আমিনি নামে ২২ বছর বয়সী এক তরুণীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে ইরান। দেশজুড়ে গড়ে ওঠা এই বিক্ষোভ প্রতিবাদ দেশটিকে বহু বছরের মধ্যে এবার মারাত্মক চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছে।

ওই তরুণীর বিরুদ্ধে হিজাব সম্পর্কিত নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগ তুলেছিলো পুলিশ। তবে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তার মৃত্যু হয়েছে স্বাস্থ্যগত কারণে। যদিও ওই তরুণীর পরিবার ও বহু ইরানি নাগরিকের বিশ্বাস, পুলিশ হেফাজতে মারধরের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।

এবার সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার প্রস্তুতি উ. কোরিয়ার
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী এ সম্পর্কিত কর্মকাণ্ডের উপস্থিতি লক্ষ্য করতে পেরেছে। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ কোরিয়া সফরে যাবেন মার্কিন ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। এ জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে দেশটি। কিন্তু এর মধ্যেই উত্তর কোরিয়া থেকে এমন পদক্ষেপের খবর এল।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক ইওল হ্যারিসের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার বিষয়ের পাশাপাশি অর্থনৈতিক নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা করতে প্রস্তুত। তাছাড়া এ সফরে জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে টোকিওতেও যাবেন কমলা হ্যারিস।

যুক্তরাষ্ট্রের এক সরকারি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ওই সফরে পারমাণবিক অস্ত্রের পরীক্ষা চালাতে পারে উত্তর কোরিয়া।

এদিকে শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) নিজেদের পারমাণবিক অস্ত্রধারী রাষ্ট্র ঘোষণা করেছে উত্তর কোরিয়া। এরই মধ্যে এ সম্পর্কিত একটি আইন পাস হয়েছে দেশটিতে।

দেশটির সর্বোচ্চ নেতা কিম জং-উন এই সিদ্ধান্তকে অপরিবর্তনযোগ্য বলে অভিহিত করেছেন। পাশাপাশি পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে কোনো আলোচনার সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছেন তিনি।

অবশেষে পর্যটকদের জন্য দুয়ার খুললো ভুটান
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে আন্তর্জাতিক পর্যটকদের জন্য দুয়ার খুলে দিলো ভুটান। ফলে শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) থেকে পুনরায় ভুটানে ভ্রমণের সুযোগ পাচ্ছেন বিভিন্ন দেশের পর্যটকরা।করোনা মহামারির কারণে প্রায় আড়াই বছর নিজেদের সীমান্ত বন্ধ রেখেছিল দেশটি।

পর্যটন শুল্কের ক্ষেত্রে টেকসই উন্নয়ন ফি নামে একটি সংশোধন এনেছে ভুটান। গত তিন দশক ধরে টেকসই উন্নয়ন ফি ৬৫ ডলার রাখা হলেও এখন তা বাড়িয়ে দুইশ ডলারে উন্নীত করা হয়েছে। ফলে দেশটিতে ভ্রমণের ক্ষেত্রে এখন থেকে পর্যটকদের অতিরিক্ত অর্থ গুনতে হবে।

২০২০ সালের মার্চে পর্যটকদের জন্য দুয়ার বন্ধ করে দেয় ভুটান। করোনার প্রথম কেস শনাক্ত হওয়ার পরই দেশটির সীমান্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়। কিন্তু দেশটির আয়ের অন্যতম উৎসই পর্যটন। তাই দীর্ঘদিন ধরে সীমান্ত বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়তে হয়েছে ভুটানকে।

দেশটির জনসংখ্যা ৮ লাখের কিছু কম। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৬১ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এছাড়া মারা গেছে ২১ জন। ভুটানে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা কম হলেও গত দুই বছর সীমান্ত বন্ধ থাকায় অর্থনীতি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে দেশে দারিদ্র্য বেড়েছে।

২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর চীনে প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। ভুটান করোনার বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করে ২০২০ সালের ১৫ জানুয়ারি থেকে। শুরু হয় উপসর্গের ভিত্তিতে নমুনা পরীক্ষা। ওই বছরের ৬ মার্চ ভুটানে প্রথম আক্রান্তের খবর মেলে। সে সময় আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা ৩০০ জনকে চিহ্নিত করে নমুনা পরীক্ষা শুরু হয়। তাদের নেগেটিভ রিপোর্ট আসলেও পাঠানো হয় কোয়ারেন্টাইনে। নিয়ন্ত্রিত এমন পরিকল্পনার কারণে ছোট্ট দেশটি করোনা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়।

ভুটানের প্রধান অর্থনীতি পর্যটন হওয়া সত্ত্বেও কঠোর হাতে বিদেশিদের আগমন বন্ধ রাখে ভুটান। প্রায় সব রেস্টুরেন্ট, শপিংমল, জিম বন্ধ করে দেওয়া হয়। মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহারে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। যারা বিদেশ থেকে এসেছিলেন, তাদের জন্য সরকারি খরচে থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

কোনো উপসর্গ দেখা দিলেই যাতে সঙ্গে সঙ্গে সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে যাওয়া যায় সেই ব্যবস্থাও করা হয়। ভুটানে ১৪ থেকে ২১ দিনের কোয়ারেন্টাইনও চালু করা হয়। এতে সংক্রমণের আশঙ্কাও কমেছে। একই সঙ্গে গণহারে করোনা পরীক্ষা চালু করে ভুটান।

এছাড়া করোনাকালে যাদের উপার্জন কমেছে, তাদের ভিটামিন ট্যাবলেটসহ ওষুধ, খাবার, পাঠানো থেকে শুরু করে সব ব্যবস্থা করেছে কর্তৃপক্ষ। এর সুফলও পেয়েছে তারা।

বিশ্ববাজারে তেলের দাম আট মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম কমা অব্যাহত রয়েছে এ সপ্তাহেও। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) একদিনে প্রায় পাঁচ শতাংশ কমে আট মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছেছে এর দাম। দুই দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে মার্কিন ডলারের দর সর্বোচ্চ পর্যায়ে যাওয়া এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অর্থনৈতিক মন্দার শঙ্কা আরও তীব্র হওয়ার জেরে বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবর অনুসারে, শুক্রবার আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের বেঞ্চমার্ক ব্রেন্টের দাম ৪ দশমিক ৮ শতাংশ বা ব্যারেলপ্রতি ৪ দশমিক ৩১ ডলার কমে ৮৬ দশমিক ১৫ ডলারে দাঁড়িয়েছে। এ নিয়ে গত এক সপ্তাহে প্রায় ছয় শতাংশ কমলো ব্রেন্টের দাম।

এদিন যুক্তরাষ্ট্রের তেলের বেঞ্চমার্ক ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দামও ৪ দশমিক ৮ শতাংশ বা ব্যারেলপ্রতি ৪ দশমিক ৭৫ ডলার কমে ৭৮ দশমিক ৭৪ ডলারে দাঁড়িয়েছে। এ নিয়ে এক সপ্তাহে ডব্লিউটিআইয়ের দাম কমেছে প্রায় সাত শতাংশ।

এ নিয়ে টানা চতুর্থ সপ্তাহ উভয় বেঞ্চমার্কের দামই কমলো। গত বছরের ডিসেম্বরের পর থেকে এ ধরনের ঘটনা এটিই প্রথম। এদিন ডব্লিউটিআইয়ের দাম গত ১০ জানুয়ারির থেকে সর্বনিম্ন এবং ব্রেন্টের দাম ১৪ জানুয়ারির পর থেকে সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছেছে।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের গ্যাসোলিন (পেট্রল) এবং ডিজেলের ভবিষ্যৎ মূল্যও (ফিউচার প্রাইস) কমেছে পাঁচ শতাংশের বেশি।

গত বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) এক লাফে সুদের হার ৭৫ বেসিস পয়েন্ট বাড়ানোর ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক। এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে সুদের হার বাড়িয়েছে বিশ্বের অন্যান্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোও। এতে আবারও মাথাচাড়া দিয়েছে অর্থনৈতিক মন্দার ঝুঁকি।

ডেটা ও অ্যানালিটিক্স ফার্ম ওনাডার জ্যেষ্ঠ বাজার বিশ্লেষক এডওয়ার্ড মোয়া বলেন, মনে হচ্ছে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো সুদের হার বাড়ানোর ক্ষেত্রে আক্রমণাত্মক থাকতে প্রস্তুত। এটি অর্থনৈতিক কার্যকলাপ ও অপরিশোধিত তেলের স্বল্পমেয়াদী চাহিদার দৃষ্টিভঙ্গি উভয়কেই দুর্বল করবে।

২০০২ সালের মে মাসের পর থেকে বেশ কয়েকটি প্রধান মুদ্রার বিপরীতে সর্বোচ্চ দরে পৌঁছেছে মার্কিন ডলার। ডলারের মান বাড়লে অন্যান্য মুদ্রা ব্যবহার করে ক্রেতাদের জন্য জ্বালানি কেনা আরও ব্যয়বহুল হয়ে ওঠে, যার ফলে চাহিদা কমে যায়।

নিউইয়র্কের এগেইন ক্যাপিটাল এলএলসি’র অংশীদার জন কিলডফ বলেন, এখানে ডলারের দাম বিস্ফোরিত হওয়ার মতো বেড়েছে এবং তেলের মতো ডলার-প্রধান পণ্যগুলোর দাম নিম্নমুখী হয়ে পড়েছে। এছাড়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো সুদের হার বাড়ানোয় বিশ্বব্যাপী মন্দার আশঙ্কা বাড়ছে।

মিয়ানমার সংকটে জাতিসংঘের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ মালয়েশিয়া
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারে চলমান রাজনৈতিক সংকট সমাধানে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ভূমিকায় তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে তিনি ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেছেন, মিয়ানমারের পরিস্থিতি মোকাবিলায় নিরাপত্তা পরিষদ উল্লেখযোগ্য কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তাদের কাছ থেকে এমন প্রতিক্রিয়া ‘খুবই দুঃখজনক’ বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশীয় প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, কারও কারও মতে, নিরাপত্তা পরিষদ [মিয়ানমারের] বিষয়টিতে হাত ধুয়ে ফেলেছে এবং সেটি যেন আসিয়ানের (দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলোর জোট) হাতে তুলে দিয়েছে।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে মিয়ানমারের নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে সামরিক বাহিনী। জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা এটিকে ‘নতুন গৃহযুদ্ধ’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন, যাতে কয়েক হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

ইসমাইল সাবরি আরও বলেছেন, আসিয়ানের ‘পাঁচ-দফা ঐকমত্য’ প্রস্তাবকে নতুন করে প্রাণ দেওয়া দরকার। ওই প্রস্তাবনায় অবিলম্বে সহিংসতা বন্ধ, একজন বিশেষ দূত নিয়োগ এবং সব অংশীদারদের নিয়ে আলোচনার আহ্বান জানানো হয়েছিল।

আসিয়ানের অন্যতম সদস্য মালয়েশিয়া। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসিয়ানের ‘পাঁচ দফা ঐকমত্য’ প্রস্তাব বাস্তবায়নে কোনো অর্থপূর্ণ অগ্রগতি না থাকায়, বিশেষ করে মিয়ানমারের জান্তার দিক থেকে হতাশ মালয়েশিয়া। বর্তমান রূপ নিয়ে আসিয়ানের ‘পাঁচ দফা ঐকমত্য’ আর চলতে পারবে না।

মিয়ানমারের সামরিক শাসকদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপের দাবিতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনের অন্যতম সোচ্চার কণ্ঠ মালয়েশিয়া। তারা শুরু থেকেই মিয়ানমার জান্তাকে ক্ষমতাচ্যুত করে নির্বাচিত রাজনীতিবিদদের হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়ার জন্য জাতীয় ঐক্যের সরকারের (এনইউজি) সঙ্গে আলোচনায় বসতে আসিয়ানের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছে।

ফিলিপাইন, ইন্দোনেশিয়া এবং সিঙ্গাপুরও ক্ষমতা ছাড়ার সুনির্দিষ্ট সময়সীমা ঘোষণার জন্য মিয়ানমারের জেনারেলদের চাপ দিচ্ছে।

এদিন রোহিঙ্গা সংকট নিয়েও কথা বলেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের কারণে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। তিনি বলেন, ১৯৫১ সালের ‘কনভেনশন অন দ্য স্ট্যাটাস অব রিফিউজি’ এবং ১৯৬৭ সালের প্রোটোকলে স্বাক্ষরকারী নাহলেও কেবল মানবিক কারণে প্রায় দুই লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী গ্রহণ করেছে মালয়েশিয়া।

২০১৭ সালে মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর বর্বর নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণ ও অগ্নিসংযোগের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে সাড়ে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলিম। এর আগেও এসেছিল কয়েক লাখ। সবমিলিয়ে সাড়ে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী আশ্রয় নিয়েছে বাংলাদেশে।

মিয়ানমারে এখনো রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী হিসেবে দেখা হয়। সেখানে তারা নাগরিকত্ব, স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষার মতো অনেক মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত।

প্রতি বছর প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে নৌকায় করে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার নানা দেশে পাড়ি জমায় রোহিঙ্গাসহ মিয়ানমারের বহু মানুষ। এ ধরনের অভিবাসনপ্রত্যাশী বা শরণার্থীদের অন্যতম প্রধান গন্তব্য মালয়েশিয়া।

সূত্র: আল জাজিরা, রয়টার্স

ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপে ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্প
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপে আবারও আঘাত হেনেছে ৬ দশমিক ২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় ভোররাত ৩টার দিকে দ্বীপটিতে আঘাত হানে এ ভূকম্পন।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার (ইউএসজিএস) তথ্যমতে, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ছিল মেউলবোহ শহর থেকে ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং কেন্দ্র ছিল ভূপষ্ঠ থেকে ৪৮ দশমিক ৬ কিলোমিটার গভীরে।

রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পটির মাত্রা ৬ দশমিক ২ বলে জানিয়েছে ইউএসজিএস। তবে ইউরোপীয় ভূমধ্যসাগরীয় ভূকম্পন কেন্দ্র (ইএমএসসি) থেকে এর মাত্রা ৬ দশমিক ১ বলে জানানো হয়েছে।

তথাকথিত ‘প্যাসিফিক রিং অব ফায়ার’-এ অবস্থানের কারণে ইন্দোনেশিয়া অত্যন্ত ভূমিকম্পপ্রবণ একটি দেশ। গত ফেব্রুয়ারিতে দেশটির সুমাত্রা দ্বীপে ৬ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্পে প্রাণ হারিয়েছিলেন অন্তত ১০ জন।

গত আগস্টের শেষের দিকে মাত্র দুদিনে তিনবার ভূমিকম্পে কাঁপে দ্বীপটি। গত ২৯ আগস্ট সুমাত্রায় আঘাত হানে ৬ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্প। এর কয়েক ঘণ্টা আগে সেখানে আঘাত হানে ৫ দশমিক ২ মাত্রা ও ৫ দশমিক ৪ মাত্রার আরও দুটি ভূমিকম্প।

গত ২২ আগস্ট ইন্দোনেশিয়ার ডেনপাসার এলাকায় আঘাত হেনেছিল ৫ দশমিক ৫ মাত্রার এক ভূমিকম্প। এর পরেরদিন সুমাত্রা দ্বীপে আঘাত হানে ৬ দশমিক ৩ মাত্রার আরেকটি ভূমিকম্প।

২০০৯ সালে ইন্দোনেশিয়ার পাডাং এলাকায় ৭ দশমিক ৬ মাত্রার এক ভূমিকম্পে ১ হাজার ১০০ জনের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছিলেন।


   Page 1 of 390
     আন্তর্জাতিক
পদত্যাগ করছেন পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
করোনায় আরও ৪৫৪ মৃত্যু, শনাক্ত আড়াই লাখের নিচে
.............................................................................................
বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে তেহরানে মানুষের ঢল
.............................................................................................
ভারতের প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের রপ্তানি বেড়েছে ৩৩৪ শতাংশ
.............................................................................................
জাপানে শক্তিশালী টাইফুনের আঘাত, ২ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
পুতিনের পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি ধাপ্পাবাজি নয়: ইইউ
.............................................................................................
বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্ত কমেছে
.............................................................................................
রাশিয়ায় বিক্ষোভ অব্যাহত, আটক ৭২৪
.............................................................................................
উত্তরাখণ্ডে ভয়াবহ পাহাড়ধসের ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
চীনের সঙ্গে ফের সম্পর্ক চান জেলেনস্কি
.............................................................................................
ইরানে নারীসহ ৭০০ বিক্ষোভকারী গ্রেফতার, নিহত ৩৫
.............................................................................................
এবার সাবমেরিন থেকে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার প্রস্তুতি উ. কোরিয়ার
.............................................................................................
অবশেষে পর্যটকদের জন্য দুয়ার খুললো ভুটান
.............................................................................................
বিশ্ববাজারে তেলের দাম আট মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন
.............................................................................................
মিয়ানমার সংকটে জাতিসংঘের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ মালয়েশিয়া
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপে ৬.২ মাত্রার ভূমিকম্প
.............................................................................................
করোনায় একদিনে ১১৮৯ মৃত্যু, শনাক্ত ৪ লাখ ৩২ হাজার
.............................................................................................
মূল্যস্ফীতি কমাতে রাশিয়ার তেল কিনবে ফিলিপাইন
.............................................................................................
রাশিয়াকে ড্রোন দেওয়ার অভিযোগ : ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক কমালো ইউক্রেন
.............................................................................................
বন্যার ধাক্কা সামলাতে ঋণখেলাপির পথে পাকিস্তান
.............................................................................................
সিঙ্গাপুরে মূল্যস্ফীতি বেড়ে ১৪ বছরে সর্বোচ্চ
.............................................................................................
ইউএনজিএ কাশ্মীর, ফিলিস্তিন বিরোধ সমাধানের আহ্বান জানিয়েছে
.............................................................................................
কাবুলে মসজিদে বিস্ফোরণ, নিহত অন্তত ৪
.............................................................................................
সিরিয়ায় নৌকা ডুবে ৩৪ অভিবাসীর প্রাণহানি
.............................................................................................
বিলকিস বানো মামলা সুপ্রিম কোর্টে চ্যালেঞ্জ
.............................................................................................
হংকংকে ছাড়িয়ে এশিয়ার শীর্ষ অর্থনৈতিক কেন্দ্র সিঙ্গাপুর
.............................................................................................
মেক্সিকোতে ফের শক্তিশালী ভূমিকম্প
.............................................................................................
অস্ট্রেলিয়ার সৈকতে ২০০ তিমির মৃত্যু
.............................................................................................
ডলারের বিপরীতে ভারতীয় রুপির পতন অব্যাহত
.............................................................................................
বিশ্বে নতুন মিলিয়নিয়ার ৫২ লাখ, অর্ধেকই যুক্তরাষ্ট্রের
.............................................................................................
ফের সুদের হার বাড়ালো ফেড, ১৪ বছরে সর্বোচ্চ
.............................................................................................
আইআইওজেকে -এ ভারতের যুদ্ধাপরাধের উপর SWI রিপোর্ট
.............................................................................................
পুতিনের নির্দেশনার জেরে আরও নিষেধাজ্ঞার মুখে রাশিয়া
.............................................................................................
ট্রাম্পের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা
.............................................................................................
মার্কিন ডলারের বিপরীতে ভারতীয় রুপির রেকর্ড দরপতন
.............................................................................................
পাকিস্তানে কমার বদলে ফের বাড়লো পেট্রলের দাম
.............................................................................................
পাকিস্তানে নিয়ন্ত্রণ হারাতে চলেছে পানিবাহিত রোগ
.............................................................................................
মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী পোস্টে ‘লাইক’ দিলেও ১০ বছরের জেল!
.............................................................................................
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১০৫৬, শনাক্ত সোয়া ৪ লাখ
.............................................................................................
রুশ তেলে নিষেধাজ্ঞা আনছে ইইউ, এক কোটি ব্যারেল ছাড়বে যুক্তরাষ্ট্র
.............................................................................................
অবশেষে রাশিয়ায় পেপসি, সেভেন আপ উৎপাদন বন্ধ করলো পেপসিকো
.............................................................................................
‘মন্দাসহ চারটি বড় ঝুঁকির মুখে বিশ্ব অর্থনীতি’
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় ৬৩১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩ লাখ ৪ হাজার
.............................................................................................
মেক্সিকোতে ৭.৬ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ১
.............................................................................................
উইন্ডসরের পথে রানির মরদেহ, দু’পাশে হাজারো মানুষের ভিড়
.............................................................................................
ওজোন স্তর রক্ষায় কাজ করছে সরকার: পরিবেশমন্ত্রী
.............................................................................................
রানি এলিজাবেথের শেষকৃত্যের আনুষ্ঠানিকতা শুরু
.............................................................................................
শক্তিশালী টাইফুনের আঘাত, লন্ডভন্ড জাপানের উপকূল
.............................................................................................
রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্য আজ
.............................................................................................
চেংদুতে লকডাউন প্রত্যাহার, হাফ ছেড়ে বাঁচলো ২ কোটির বেশি মানুষ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Dynamic Scale BD