| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * সিরিয়ায় বোমা হামলায় ১৩ সেনা নিহত   * রাতে আসছে সিনোফার্মের আরও ৫৫ লাখ টিকা   * আন্তর্জাতিক সনদ পাচ্ছে ফজলি আম ও বাগদা চিংড়ি   * বরগুনায় কীটনাশক খেয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু   * বিশ্বজুড়ে একদিনে সাড়ে ৮ হাজারের বেশি মৃত্যু   * এসকে সিনহাসহ ১১ জনের মামলার রায় বৃহস্পতিবার   * তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপরে, আকস্মিক বন্যা   * মমেক হাসপাতালে ২ জনের মৃত্যু   * পাকিস্তানের জলসীমায় ভারতের সাবমেরিন, গতিপথ আটকানোর দাবি   * উত্তরাখণ্ডে বৃষ্টি-বন্যায় ১৬ জনের মৃত্যু  

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
রাতে আসছে সিনোফার্মের আরও ৫৫ লাখ টিকা

অনলাইন ডেস্ক : চীন থেকে টিকার আরও একটি বড় চালান দেশে আসছে রাতে। বুধবার (২০ অক্টোবর) দিবাগত গভীর রাত অর্থাৎ ২১ অক্টোবরের প্রথম প্রহরে চীনের সিনোফার্মের ৫৫ লাখ ডোজ টিকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

এর আগে গত সোমবার রাত ১১টায় চীনের সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ এবং একই দিন দিবাগত রাত ১২টায় নেদারল্যান্ড থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ১০ লাখ ডোজসহ ২০ লাখ ডোজ টিকার চালান আসে।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কর্মরত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ আজ রাতে চীনের সিনোফার্মের ৫৫ লাখ টিকার চালান আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি দেশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার মাধ্যমে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

এ পর্যন্ত রাজধানীসহ সারাদেশে করোনার টিকা নিবন্ধনকারী সংখ্যা সাড়ে পাঁচ কোটি ছাড়িয়েছে। তাদের মধ্যে জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে পাঁচ কোটি ৪২ লাখ ৫৮ হাজার ২১৫ জন ও পাসপোর্ট এর মাধ্যমে সাত লাখ ৭৭ হাজার ৪৬১ জন নিবন্ধন করেন।

সর্বশেষ গত ২৪ ঘন্টায় সর্বমোট নতুন আরো ৫লাখ ৬২হাজার ২৭৪জন টিকা গ্রহণ করেন। এ নিয়ে দেশে টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৫ কোটি ৮৮লাখ ১হাজার ৫৫জনে দাঁড়িয়েছে।

তাদের মধ্যে প্রথম ডোজের ৩কোটি ৯১লাখ ৬৮ হাজার ৯৪৮জন ও দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহণ করেছেন ১কোটি ৯৬লাখ ৩২ হাজার ৫৯ ১০৭জন।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় টিকা নিয়েছেন পাঁচ লাখ ৬২ হাজার ২৭৪ জন। এ নিয়ে দেশে টিকাগ্রহীতার সংখ্যা দাঁড়ালো পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ এক হাজার ৫৫ জনে। তাদের মধ্যে প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন তিন কোটি ৯১ লাখ ৬৮ হাজার ৯৪৮ জন ও দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েছেন এক কোটি ৯৬ লাখ ৩২ হাজার ১০৭ জন।

রাতে আসছে সিনোফার্মের আরও ৫৫ লাখ টিকা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চীন থেকে টিকার আরও একটি বড় চালান দেশে আসছে রাতে। বুধবার (২০ অক্টোবর) দিবাগত গভীর রাত অর্থাৎ ২১ অক্টোবরের প্রথম প্রহরে চীনের সিনোফার্মের ৫৫ লাখ ডোজ টিকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

এর আগে গত সোমবার রাত ১১টায় চীনের সিনোফার্মের ১০ লাখ ডোজ এবং একই দিন দিবাগত রাত ১২টায় নেদারল্যান্ড থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ১০ লাখ ডোজসহ ২০ লাখ ডোজ টিকার চালান আসে।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কর্মরত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ আজ রাতে চীনের সিনোফার্মের ৫৫ লাখ টিকার চালান আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি দেশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার মাধ্যমে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

এ পর্যন্ত রাজধানীসহ সারাদেশে করোনার টিকা নিবন্ধনকারী সংখ্যা সাড়ে পাঁচ কোটি ছাড়িয়েছে। তাদের মধ্যে জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে পাঁচ কোটি ৪২ লাখ ৫৮ হাজার ২১৫ জন ও পাসপোর্ট এর মাধ্যমে সাত লাখ ৭৭ হাজার ৪৬১ জন নিবন্ধন করেন।

সর্বশেষ গত ২৪ ঘন্টায় সর্বমোট নতুন আরো ৫লাখ ৬২হাজার ২৭৪জন টিকা গ্রহণ করেন। এ নিয়ে দেশে টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৫ কোটি ৮৮লাখ ১হাজার ৫৫জনে দাঁড়িয়েছে।

তাদের মধ্যে প্রথম ডোজের ৩কোটি ৯১লাখ ৬৮ হাজার ৯৪৮জন ও দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহণ করেছেন ১কোটি ৯৬লাখ ৩২ হাজার ৫৯ ১০৭জন।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় টিকা নিয়েছেন পাঁচ লাখ ৬২ হাজার ২৭৪ জন। এ নিয়ে দেশে টিকাগ্রহীতার সংখ্যা দাঁড়ালো পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ এক হাজার ৫৫ জনে। তাদের মধ্যে প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন তিন কোটি ৯১ লাখ ৬৮ হাজার ৯৪৮ জন ও দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েছেন এক কোটি ৯৬ লাখ ৩২ হাজার ১০৭ জন।

আন্তর্জাতিক সনদ পাচ্ছে ফজলি আম ও বাগদা চিংড়ি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এবার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশের ফজলি আম ও বাগদা চিংড়ি। জিওগ্রাফিক্যাল ইনডিকেটর বা জি-আই সনদ পাবে রসালো, আঁশবিহিন আকারে বিশাল ফজলি আম এবং কালো ডোরাকাটা বাগদা চিংড়ি। সরকারের পেটেন্টস, ডিজাইন এবং ট্রেডমার্ক বিভাগের রেজিস্ট্রার মো. আবদুস সাত্তার বিষয়টি বিবিসি বাংলাকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, ফজলি আম ও বাগদা চিংড়ির জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিতে গেজেট প্রকাশ করা হয়ে গেছে। আর পনেরো দিনের মধ্যে সনদ দেবার কাজ শেষ হয়ে যাবে।

তিনি আরও জানিয়েছেন, আবেদন আসার পরে নিয়ম অনুযায়ী স্বীকৃতির জন্য এই দুটি কৃষি পণ্যের ভৌগলিক নির্দেশক যাচাই করা হয়েছে, দুটি জার্নাল প্রকাশ করা হয়েছে। এই পণ্যের নির্দেশক নিয়ে এখনও কেউ আপত্তি করেনি। জার্নাল প্রকাশের দুই মাসের মধ্যে এটি নিজেদের বলে কেউ আপত্তি না করলে সনদ দেয়া হবে।

ফল উন্নয়ন গবেষণা কেন্দ্র ফজলি আমের জিআই সনদের আবেদন করেছিল। আর বাগদা চিংড়ির জন্য আবেদন করে মৎস্য অধিদপ্তর। ফজলি আম প্রতিবেশী দেশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গেও উৎপাদিত হয়। এশিয়ার বেশ কিছু দেশে পাওয়া যায় লবণাক্ত পানির বাগদা চিংড়ি।

এই কৃষি পণ্য দুটির বাংলাদেশের জিআই সনদ পাওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করে মো. আবদুস সাত্তার বলেন, “যে পণ্য একটি অঞ্চলের ঐতিহ্যের অংশ সেটির ক্ষেত্রে এই সনদ দেয়া হয়। আবহাওয়া, মাটি, পানি ও ভৌগলিক গঠনের উপরে যেকোনো কৃষি পণ্যের বৈশিষ্ট্য, ঘ্রাণ ও স্বাদ নির্ভর করে এবং নির্দিষ্ট অঞ্চলেই সেটা হবে। যেমন এশিয়ার বেশ কিছু দেশে ‘ব্ল্যাক টাইগার শ্রিম্প’ বা বাগদা চিংড়ি পাওয়া যায়। কিন্তু আমাদের এখানে যেটা হয় সেটার বৈশিষ্ট্য অন্য কোনোটার সাথে মিলবে না। অন্য কোথাও চাষ হলেও সেটার স্বাদ ও ঘ্রাণ মিলবে না।”

জিআই সনদ পাওয়ার উপকারিতা নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা দেখেছি যে জিআই সনদ পাওয়ার পর বিদেশের বাজারে বিভিন্ন পণ্যের দাম ৩০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ে। জিআই ট্যাগ ব্র্যার্ন্ডিং হিসেবে কাজ করে। বাংলাদেশ থেকে অনেকে বাগদা চিংড়ি রপ্তানি করছে। জিআই সনদ না থাকলে এর মূল্য কম হয়। ক্রেতারা এটিকে ব্র্যান্ডেড বলে মনে করে না।’

উল্লেখ্য, এ পর্যন্ত বাংলাদেশের মোট নয়টি পণ্য জিআই সনদ পেয়েছে। পণ্যগুলো হলো- ইলিশ মাছ, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ক্ষীরশাপাতি আম, দিনাজপুরের কাটারিভোগ ও বাংলাদেশি কালিজিরা, জামদানি, ঢাকাই মসলিন, রাজশাহীর সিল্ক, রংপুরের শতরঞ্জি এবং নেত্রকোনার বিজয়পুরের সাদা মাটি। সূত্র : বিবিসি বাংলা

এসকে সিনহাসহ ১১ জনের মামলার রায় বৃহস্পতিবার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ফারমার্স ব্যাংক (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) থেকে চার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাতের অভিযোগে সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলার রায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হবে। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালতে এ রায় ঘোষণা অনুষ্ঠিত হবে।

গত ৫ অক্টোবর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক আলী হোসেন এদিন ধার্য করেন।

ওইদিন মামলার রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু বিচারক শেখ নাজমুল আলম অসুস্থ থাকায় তারিখ পিছিয়ে পরবর্তী রায় ঘোষণার জন্য ২১ অক্টোবর দিন ধার্য করেন।

এর আগে ১৪ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য মঙ্গলবার দিন ধার্য করেছিলেন একই আদালত।

২৯ আগস্ট আত্মপক্ষ সমর্থনে সাত আসামি নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন এবং আদালতের কাছে ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করেন।

তারা হলেন- ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী), ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, টাঙ্গাইলের মো. শাহজাহান ও একই এলাকার নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা।

মামলার আসামিদের মধ্যে কারাগারে রয়েছেন মাহবুবুল হক চিশতী। আর বাকি ছয়জন জামিনে।

অপরদিকে সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, ফারমার্স ব্যাংকের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সফিউদ্দিন আসকারী আহমেদ, রণজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায় পলাতক রয়েছেন। পলাতক থাকায় তারা আত্মপক্ষ সমর্থন করতে পারেননি। এ মামলায় সাক্ষী দিয়েছেন ২১ জন।

২০১৯ সালের ১০ জুলাই এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা-১ এ মামলা করা হয়। মামলার বাদী দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন। আসামিদের বিরুদ্ধে ঋণ জালিয়াতি ও চার কোটি টাকা আত্মসাতে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়।

এরপর একই বছরের ১০ ডিসেম্বর আদালতে এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের পরিচালক বেনজীর আহমেদ। ২০২০ সালের ১৩ আগস্ট ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

দুদক সূত্রে জানা যায়, আসামি মো. শাহজাহান ও নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখায় দুটি চলতি হিসাব খোলেন। ৭ নভেম্বর তারা দুই কোটি করে চার কোটি টাকা ঋণের আবেদন করেন। ব্যাংক হিসাব খোলা ও ঋণ আবেদনপত্রে দুজনই বাড়ি নম্বর ৫১, সড়ক নম্বর ১২, সেক্টর ১০, উত্তরা আবাসিক এলাকা- এ ঠিকানা উল্লেখ করেন। ওই বাড়ি সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার ব্যক্তিগত সম্পত্তি। ঋণ আবেদনে জামানত হিসেবে রণজিৎ চন্দ্র সাহার স্ত্রী সান্ত্রী রায় সিমির সাভারের ৩২ শতাংশ জমি দেখানো হয়। এ দুজনই এস কে সিনহার পূর্বপরিচিত। ঋণ আবেদন দুটি কোনো রকম যাচাই-বাছাই করা হয়নি। রেকর্ডপত্র বিশ্লেষণ ও ব্যাংকের নিয়মনীতিও মানা হয়নি।

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় ও কিছু পর্যবেক্ষণের কারণে তোপের মুখে ২০১৭ সালের অক্টোবরের শুরুতে ছুটিতে যান তৎকালীন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। পরে বিদেশ থেকেই তিনি পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেন।

ঐশ্বর্যের দেবী লক্ষ্মী পূজা আজ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সনাতন হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম বৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান লক্ষ্মীপূজা আজ (বুধবার)। শারদীয় দুর্গোৎসবের পরবর্তী পূর্ণিমা তিথিতে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা লক্ষ্মীপূজা করে থাকেন। বাঙালি হিন্দুরা ঘরে ঘরে ধনসম্পদ তথা ঐশ্বর্যের দেবী হিসেবে লক্ষ্মী পূজা করে থাকেন।

হিন্দুদের অন্যতম এই ধর্মীয় উৎসবটি কোজাগরি লক্ষ্মীপূজা নামেও পরিচিত। কোজাগরি অর্থ ‘কে জেগে আছো’।

শাস্ত্র মতে, আশ্বিনের পূর্ণিমা তিথিতে ধনসম্পদ, প্রাচুর্য, সৌন্দর্য ও সমৃদ্ধির দেবী লক্ষ্মী বিষ্ণুলোক থেকে পৃথিবীতে নেমে আসেন পূজা গ্রহণ করতে। লক্ষ্মী দেবী সন্তুষ্ট থাকলে সংসারে অর্থকষ্ট থাকে না। সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য বাড়ে।

অপরদিকে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস মতে, এইদিনে মানুষের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে দেবী প্রশ্ন করেন ‘কে জেগে আছো’। তাই লক্ষ্মীপূজা ভক্তদের কাছে কোজাগরি পূজাও। লক্ষ্মীদেবী দ্বিভুজা। তার বাহন প্যাঁচা। হাতে শস্যের ভাণ্ডার। প্রায় প্রতিটি বাঙালি হিন্দুর ঘরে ঘরে লক্ষ্মীপূজা করা হয়। পূজা উপলক্ষে হিন্দু নারীরা উপবাস ব্রত পালন করেন। মঙ্গলঘট ও ধানের ছড়ার সঙ্গে হিন্দু গৃহস্থের আঙিনায় আজ শোভা পাবে চালের গুঁড়া আলপনায় মা লক্ষ্মীর ছাপ। মা লক্ষ্মীর পা আঁকা হবে বাড়ি ও ঘরের প্রবেশপথে।

লক্ষ্মীপূজা উপলক্ষে আজ সারা দেশের বিভিন্ন মন্দির ও মণ্ডপের পাশাপাশি হিন্দুদের ঘরে ঘরে পূজা, প্রসাদ বিতরণ ও অতিথি আপ্যায়ন করা হবে। রাজধানীর ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির, রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠ মন্দির, রামসীতা মন্দির, রাধামাধব বিগ্রহ মন্দির, রাধাগোবিন্দ জিও ঠাকুর মন্দিরসহ পুরান ঢাকার শাঁখারীবাজার, তাঁতীবাজার, সূত্রাপুর, ফরাশগঞ্জ, লক্ষ্মীবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় ঘরোয়া পরিবেশে লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে আরও ১৫১ ডেঙ্গুরোগী
                                  

রাজধানীসহ সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১৫১ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার হাসপাতালে ১০৫ জন ও রাজধানীর বাইরের হাসপাতালে ৪৬ জন রোগী ভর্তি হন।

এ নিয়ে বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে মোট ভর্তি থাকা রোগীর সংখ্যা ৭৯৮ জন। আর চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ৮৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে হাসপাতালে মোট ভর্তি ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে রাজধানীর সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে রয়েছেন ৬০৯ জন ও ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ১৮৯ জন।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. মোহাম্মদ কামরুল কিবরিয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ভর্তি হওয়া ১৫১ জনের মধ্য রাজধানীর সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে ৪৯ জন এবং বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ৫৬ জন ভর্তি হন। এছাড়া ঢাকার বাইরে বিভিন্ন বিভাগের হাসপাতালে ৪৬ জন ভর্তি হন।

বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, গত ১ জানুয়ারি থেকে আজ পর্যন্ত দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২১ হাজার ৭২৫ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২০ হাজার ৮৪৪ জন।

চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি মোট রোগীর মধ্যে জানুয়ারিতে ৩২ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৯ জন, মার্চে ১৩ জন, এপ্রিলে তিনজন, মে’তে ৪৩ জন, জুনে ২৭২ জন, জুলাইয়ে ২ হাজার ২৮৬ জন, আগস্টে ৭ হাজার ৬৯৮ জন, সেপ্টেম্বরে ৭ হাজার ৮৪১ জন এবং ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত ৩ হাজার ৫২৮ জন রোগী ভর্তি হন।

এছাড়া চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ৮৩ জনের মৃত্যু হয়। তার মধ্যে জুলাইয়ে ১২ জন, আগস্টে ৩৪ জন, সেপ্টেম্বরে ২৩ জন এবং ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত ১৪ জনের মৃত্যু হয়।

টিকার অভাব নেই, মাসে দেওয়া হবে তিন কোটি ডোজ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, টিকার অভাব নেই। ২১ কোটি ভ্যাকসিন কেনা আছে। নভেম্বর থেকে প্রতি মাসে তিন কোটি করে টিকা দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) রাজধানীর মহাখালীতে শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, চলতি মাসেও তিন কোটি টিকা দেওয়া হবে। বিশ্বের অন্যান্য দেশে বসবাসরত বাঙালিরাও ভ্যাকসিন পাবেন। প্রধানমন্ত্রী আমাদের বলেছেন টাকার অভাব হবে না, টিকারও অভাব হবে না।

স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকার ব্যবস্থা করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, স্কুলের ছেলেমেয়েরাও টিকা পাবে। আমরা আইসিটি ও শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছি। এগুলো হাতে পেলেই শিক্ষার্থীদের জন্য টিকা কার্যক্রম শুরু করে দেবো।

করোনা প্রতিরোধে বাংলাদেশ সফল জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ করোনাযুদ্ধে সফল। এটা কোনো ম্যাজিক নয়। বিশ্বের অনেক দেশের মধ্যে বাংলাদেশ সফলতা দেখিয়েছে। স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্ট সবার রাতদিন পরিশ্রমের ফলেই এই সফলতা অর্জন হয়েছে। করোনাযুদ্ধে আমরা সফলতার পথে।

পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন, মন্দির ও বাড়িঘরে হামলা প্রধান টার্গেট নয়, ওদের মূল টার্গেট সরকার পতন। ষড়যন্ত্রকারীরা দেশে জ্বালাও-পোড়াও শুরু করেছে। এরা দেশের উন্নয়ন ব্যাহত করতে চায়, শান্তি নষ্ট করতে চায়। তবে আমরা ষড়যন্ত্রকারীদের সফল হতে দেবো না। আমাদের সংগ্রাম চলছে, আমাদের যুদ্ধ হলো ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে।

তিনি বলেন, আমরা সংগ্রাম করছি। আমারা সকল অসুখ, দারিদ্র্য, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবো। শান্তির জন্য যুদ্ধ চলছে, চলবে। যুদ্ধ করে করোনা জয় করতে সক্ষম হয়েছি এবং জয়লাভের পথে। ১৫০ দেশের মধ্যে দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম হয়েছি করোনাযুদ্ধে। অনেকের আত্মত্যাগে এটা সম্ভব হয়েছে।

নিজেকে বর্তমান প্রজন্মের যোদ্ধা দাবি করে জাহিদ মালেক বলেন, আমি ৭১ সালে যুদ্ধে অংশ নিতে পারিনি তবে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সোনার বাংলা গড়ার জন্য যুদ্ধ করছি। দেশের স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়ন ও দারিদ্র্য নিরসনে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে যুদ্ধ করছি। আমরা চাই দেশে দারিদ্র্য থাকবে না, জীবনযাত্রা সুন্দর হবে। আমরা যুদ্ধ করতে পারিনি তবে সোনার বাংলা গঠনে কাজ করছি এটাই যুদ্ধ।

আলোচনা সভায় আরও অংশ নেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) সভাপতি এম আবদুল আজিজ প্রমুখ।

করোনায় আরও ৭ জনের মৃত্যু
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সারাদেশে করোনা আক্রান্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনা পরিস্থিতি সংক্রান্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

কুমিল্লার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
                                  

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে নির্দেশ দিয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) মন্ত্রিসভা বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দেন। বৈঠকের পর সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ কথা জানান।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে মন্ত্রিসভার এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠক পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আজকের কেবিনেট মিটিংয়ে এটা স্পষ্ট বলে দেওয়া হয়েছে, খুব কঠোর অ্যাকশনে যেতে হবে। যারা যারা জড়িত আছে, তাদের অবশ্যই ধরতে হবে। পাশাপাশি জনগণকে একটু ধৈর্য ধরতে হবে, রি-অ্যাকশন করা যাবে না।

তিনি বলেন, কেউ যদি কোরআনের অবমাননা করে, কোরআন আমাকে কোনো অথরিটি দেয়নি যে আমি গিয়ে তার ধর্মের কোনো কিছু গিয়ে ভাঙব। সেটা ঠিক না হোক, আরও বড় অপরাধ হলেও এটা সবাইকে খেয়াল রাখতে হবে, ‘ইসলাম ডাজ নট গিভ এনি অথরিটি টু এনি মুসলিম (ইসলাম কোনো মুসলিমকে এই অনুমতি দেয়নি।’

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আজকে এটাই বলা হয়েছে যে, এটা অলরেডি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে নির্দেশনা দিয়ে দেওয়া হয়েছে, স্ট্যান অ্যাকশন। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব যারা এগুলোর সূত্রপাত করল, তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নেবে। পাশাপাশি ধর্মীয় এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিদের বলা হয়েছে, ছোটখাট টুয়িস্টিং কেউ করলেই যে এইভাবে রি-অ্যাকশন করতে হবে, এটা করা যাবে না।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ বিষয়ে (কুমিল্লার বিষয়ে) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিয়মিত ব্রিফ করছেন, সেখানে আমাদের ইন্টেলিজেন্সও কাজ করছে। কুমিল্লার বিষয়ে আমার ধারণা যে খুব কুইকলি একটা ফাইন্ড আউট হবে।

দুর্গাপূজার মধ্যে গেল ১৩ অক্টোবর কুমিল্লা শহরের একটি মন্দিরে কোরআন অবমাননার কথিত অভিযোগ তুলে কয়েকটি মন্দিরে হামলা-ভাঙচুর চালানো হয়। এরপর চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, ফেনী, রংপুরসহ কয়েকটি জেলায় সাম্প্রদায়িক হামলার শিকার হয় হিন্দুদের উপাসনালয়, ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

বিভিন্ন জেলায় সাম্প্রদায়িক হামলার এসব ঘটনায় মামলার পর চার শতাধিক মানুষকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

`হিন্দু ভাই-বোনদের ভয় নেই, শেখ হাসিনা আপনাদের সঙ্গে আছেন`
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘হিন্দু ভাই ও বোনদের বলব, আপনাদের ভয় নেই। শেখ হাসিনা আপনাদের সঙ্গে আছেন, আওয়ামী লীগ আছে।

’ আজ মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ‘সম্প্রীতি সমাবেশ’-এর আয়োজন করে।

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মাঠে থাকবে জানিয়ে কাদের বলেন, যতদিন না সাম্প্রদায়িক শক্তির বিষদাঁত ভেঙে দিতে পারব, ততদিন আওয়ামী লীগ রাজপথে থাকবে। আওয়ামী লীগ এই অপশক্তিকে মোকাবিলা করবে।

তিনি বলেন, নির্বাচন সামনে রেখে আন্দোলনে ব্যর্থ বিএনপি আজকে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে উসকে দিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়। আমরা জানি, কাদের উসকানিতে এই অপশক্তি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, যারা এই সাম্প্রদায়িকতার বিষবাক্য ছড়াচ্ছে তাদের ভুলে যাওয়া উচিত নয়, এই দেশে যত মুসলমান, তার চেয়ে বেশি মুসলমান প্রতিবেশী দেশ ভারতে আছে। এখানে মাইনরিটিকে যদি আমরা ঝুঁকির মুখে ঠেলে দিই, ভারতে আমাদের চেয়ে বেশি সংখ্যক মুসলমান; তাদের জীবনের কথা, জানমালের কথা আমাদের ভাবতে হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে ‘কোরআন’ পাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন জেলায় মন্দির ও বাড়িঘরে ভাঙচুর এবং হামলার ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার জেরে চাঁদপুরের পুলিশের সঙ্গে স্থানীয় জনতার সংঘর্ষে চারজনের মৃত্যু হয়। সবশেষ রোববার (১৭ অক্টোবর) রাতে রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দুদের বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। পীরগঞ্জে হামলায় ২০টি বাড়িঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

ডিসেম্বরের মধ্যে ৫-৬ কোটি মানুষ টিকা পাবে: সালমান এফ রহমান
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ৫ থেকে ৬ কোটি মানুষ করোনা টিকা পাবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) মিলনায়তনে ‘কলকারখানা, শিল্প ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে দুর্ঘটনারোধ এবং নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণ লক্ষ্যে গঠিত সমন্বিত পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ টিমের প্রশিক্ষণ’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

মেয়র আতিকুলের বিরুদ্ধে মামলা খারিজ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের পিটিশন মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেনের আদালতে এ মামলাটি করেন রাজধানীর ভাষানটেক পুনর্বাসন প্রকল্পের রূপকার মো. আব্দুর রহিম। এরপর আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। কিন্তু মামলা নেওয়ার মতো কোনো উপাদান না থাকায় এটি খারিজ করে দেন আদালত।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাইবার ট্রাইব্যুনালের পেশকার শামীম আল মামুন।

এর আগে মামলার অভিযোগে বলা হয়েছিল, আসামিরা একে অপরের সহযোগিতায় বাদী ও তার প্রতিষ্ঠানের সম্পত্তি জোর করে দখল করেন। মেয়র আতিকুল ইসলামের হুকুম ও অন্য আসামিদের সহযোগিতায় বিভিন্ন মিডিয়া এবং ডিজিটাল ডিভাইসে ইচ্ছাকৃতভাবে বাদী ও তার পরিবার নিয়ে আক্রমণাত্মক, মিথ্যা, ভীতিপ্রদর্শন এবং মানহানিকর তথ্য প্রকাশ করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫/২৯ ধারায় অপরাধ করেছেন।

পিএসসির প্রশ্নফাঁস করলে ১০ বছরের কারাদণ্ড
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসে সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ড হবে। এমন শাস্তির বিধান রেখে ‘বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন আইন, ২০২১’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী ও সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা বৈঠকে যোগ দেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম প্রেস ব্রিফিংয়ে এ অনুমোদনের কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘এটা ১৯৭৭ সালের অর্ডিন্যান্স ছিল। হাইকোর্টের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে সেটা নিয়ে আসা হয়েছে। এটা রুল বেইজড আইন। ম্যাক্সিমাম জিনিসগুলো রুল দিয়ে করে নেওয়া হবে। জেনারেল একটা প্রভিশন লে-ডাউন করে দেয়া হয়েছে আইনটাতে। খসড়া আইনে ১৫টি ধারা আছে। যেহেতু রুল বেইজড আইন, সব প্রসিডিউরগুলো পরবর্তীতে রুলের মাধ্যমে করে দেয়া হবে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘খসড়ায় কমিশন গঠন করার কথা বলা হয়েছে। সেই বিষয়টির ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে। কমিশনে কমপক্ষে ছয়জন সদস্য থাকবেন, তবে সদস্য কোনোভাবেই ১৫ জনের বেশি হবে না। একটা আউট লাইন করে দেয়া হয়েছে। বাকি ফরমেশনটা রুল দিয়ে করে দেয়া হবে।’

‘তাদের (পিএসসি) দায়িত্ব হলো সংবিধানের ১৪০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সরকার কর্তৃক প্রদত্ত বিভিন্ন রিক্রুটমেন্ট ও অন্যান্য অপিনিয়মের বিষয়ে তারা দায়িত্ব পালন করবে। কমিশনকে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সহায়তা প্রদান করতে হবে, এমন একটা ক্ষমতা দেয়া হয়েছে আইনে।’

পরীক্ষা পদ্ধতি কীভাবে হবে সেটার একটা আউট লাইন খসড়া আইনে করে দেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে রুল দিয়ে ব্যাখ্যা দেয়া হবে।’

খসড়া আইনে পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষা সংক্রান্ত কিছু অপরাধের কথা বলা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘কেউ যদি পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করে তাহলে সর্বোচ্চ ২ বছর, সর্বনিম্ন এক বছরের কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ড হতে পারে।’

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকলে খসড়া আইনে সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ডের কথা বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৩ বছর কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবে। বেশ শক্ত একটা স্ট্যান্ড নেওয়া হয়েছে। জরিমানাটা সুনির্দিষ্ট করে দেয়া হয়নি।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, ‘উত্তরপত্রের জালিয়াতির সঙ্গে যারা জড়িত থাকবেন তাদের সর্বোচ্চ ২ বছর ও সর্বনিম্ন এক বছরের কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ড হতে পারে।’

‘কোন পরীক্ষার্থী যদি অসুদপায় অবলম্বন করেন বা অন্য কোন ব্যক্তিকে অসুদপায়ে সহযোগিতা করে তাহলে সেও সর্বোচ্চ ২ বছর ও সর্বনিম্ন এক বছরের কারাদণ্ড এবং অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবে। পরীক্ষা সংক্রান্ত দায়িত্ব পালনে বাধা দিলে সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে খসড়া আইনে।’

পরীক্ষা পরিচালনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি যদি কোনো অপরাধ করে তাহলে দুই বছরের কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ড হতে পারে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মোবাইল কোর্টের মধ্যেও এটা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমেও পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে যারা যুক্ত থাকবেন, তাদের বিচারের আওতায় এনে সঙ্গে সঙ্গে শাস্তি দেয়া যেতে পারে।’

কিছুদিন থেকে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির নিয়োগ পিএসসির মাধ্যমে নেয়ার বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে। এ বিষয়ে কোন আলোচনা হয়েছে কি না- জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘খসড়া আইনে আছে, সরকার প্রদত্ত অন্য কোন দায়িত্ব (পালন করবে পিএসসি)। সেটা রুল দিয়ে করে দেয়া যাবে।’

কোনো সিদ্ধান্ত হয়েছে কি না- এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘তৃতীয় শ্রেণির নিয়োগের বিষয়টি আলোচনা হয়েছে। কিন্তু এখনও প্রিসাইজ কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে বিভিন্ন ফোরামে, সর্বোচ্চ ফোরামে, এ জাতীয় আলোচনা হয়েছে- আলাদা একটা পিএসসি গঠন করে করা (তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী নিয়োগ) যায়। তবে প্রিসাইজ কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।’

সাম্প্রদায়িক উস্কানি দাতাদের জবাব দিতেই হবে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, যারা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির চেষ্টা করছেন, উস্কানি দিচ্ছেন, তাদের খুব শিগগির গ্রেফতার করা হবে। তাদের জবাব দিতেই হবে।

প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, তারা মিথ্যা তথ্য ও গুজব ছড়িয়ে কী ফায়দা নেওয়ার চেষ্টা করছেন? কুমিল্লার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তাকেও শিগগির গ্রেফতার করা হবে।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) ‘র‍্যাবের প্রযুক্তিগত আধুনিকায়ন’ শীর্ষক কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

র‍্যাবের সব ব্যাটালিয়ন ও ক্যাম্প পর্যায়ে তথ্য প্রযুক্তির সর্বোত্তম ও সার্বিক ব্যবহার বিস্তৃত করার লক্ষ্যে মঙ্গলবার দুপুরে র‍্যাব সদর দফতরে ‘র‍্যাবের প্রযুক্তিগত আধুনিকায়ন’ শীর্ষক কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তাসনিম খলিল ও সামিসহ ৪ জনের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ
                                  

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় পলাতক চার আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। এই চার জনের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি জব্দ করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। তারা হলেন জুলকারনাইন ওরফে সামি, সুইডিশ প্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিক নেত্র নিউজের সম্পাদক তাসনীম খলিল, ব্লগার আশিক মোহাম্মাদ ইমরান ও মো. ওয়াহিদুন্নবী। ১৮ অক্টোবর ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেন এ আদেশ দেন।

এ মামলায় চার্জশিটভুক্ত আসামি সাতজন। তিন আসামি কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর, রাষ্ট্রচিন্তার মো. দিদারুল আলম ভুঁইয়া ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সাবেক পরিচালক মিনহাজ মান্নান ইমন জামিনে ছিলেন। এদিন তারা ট্রাইব্যুনালে হাজির ছিলেন।

গত ১২ সেপ্টেম্বর কারাগারে মারা যাওয়া লেখক মোস্তাক আহমেদকে অব্যাহতি দেন আদালত। একইদিনে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সাংবাদিক সাহেদ আলম, ব্লগার আসিফ মহিউদ্দিন ও ফিলিপ শুমাখারকে এ মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।
গত ১০ মে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) আফছর আহমেদ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এ মামলায় চার্জশিট দাখিল করেন।

শেখ রাসেল সব শিশুর প্রতিচ্ছবি: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী
                                  

অনলাইন ডেস্ক : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, যারা দেশের স্বাধীনতা চায়নি, দেশের সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি পছন্দ করেনি সেই স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যসহ শেখ রাসেলকে হত্যা করেছে। এই চক্র এখনও ষড়যন্ত্রের জাল বিস্তার করছে। এদের সম্পর্কে সবাইকে সজাগ ও সচেতন থাকতে হবে।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) বিকেলে ঢাকা পিটিআই প্রাঙ্গণে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর আয়োজিত শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্মবার্ষিকীর আলোচনা সভায় তিনি এসব এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, শেখ রাসেল সব শিশুর প্রতিচ্ছবি। তার জীবন থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে আমাদের শিশু- কিশোরদের আগামী দিনের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠার দীক্ষা নিতে হবে যা দেশকে প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের উন্নত বিশ্বের কাতারে নিয়ে যেতে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মো. মনসুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব গোলাম মো. হাসিবুল আলম, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মহাপরিচালক আতাউর রহমান, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক সোহেল আহমেদ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু বকর সিদ্দিক প্রমুখ।

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আহ্বান জাতিসংঘের
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো। এর পাশাপাশি তিনি সম্প্রতি হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের ওপর হামলার ঘটনাগুলো স্বাধীন তদন্তেরও আহ্বান জানিয়েছেন।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় এক টুইট বার্তায় মিয়া সেপ্পো এ আহ্বান জানান। দেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর সহিংসতার পর বিদেশি কূটনীতিকদের মধ্যে তিনিই প্রথম এই প্রতিক্রিয়া জানালেন।

টুইটারে মিয়া সেপ্পো লিখেছেন, বাংলাদেশে হিন্দুদের ওপর সাম্প্রতিক হামলা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের ফল; যা সংবিধানের মূল্যবোধের পরিপন্থী। এটি থামানো উচিত। আমরা সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি একটি নিরপেক্ষ তদন্তের জন্যও সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই।


তিনি আরও লিখেছেন, একটি অংশগ্রহণমূলক ও সহনশীল সমাজ প্রতিষ্ঠার প্রয়াসে যুক্ত হতে আমরা সবার সহযোগিতা কামনা করছি।


   Page 1 of 365
     জাতীয়
রাতে আসছে সিনোফার্মের আরও ৫৫ লাখ টিকা
.............................................................................................
আন্তর্জাতিক সনদ পাচ্ছে ফজলি আম ও বাগদা চিংড়ি
.............................................................................................
এসকে সিনহাসহ ১১ জনের মামলার রায় বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
ঐশ্বর্যের দেবী লক্ষ্মী পূজা আজ
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে আরও ১৫১ ডেঙ্গুরোগী
.............................................................................................
টিকার অভাব নেই, মাসে দেওয়া হবে তিন কোটি ডোজ
.............................................................................................
করোনায় আরও ৭ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
কুমিল্লার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
`হিন্দু ভাই-বোনদের ভয় নেই, শেখ হাসিনা আপনাদের সঙ্গে আছেন`
.............................................................................................
ডিসেম্বরের মধ্যে ৫-৬ কোটি মানুষ টিকা পাবে: সালমান এফ রহমান
.............................................................................................
মেয়র আতিকুলের বিরুদ্ধে মামলা খারিজ
.............................................................................................
পিএসসির প্রশ্নফাঁস করলে ১০ বছরের কারাদণ্ড
.............................................................................................
সাম্প্রদায়িক উস্কানি দাতাদের জবাব দিতেই হবে
.............................................................................................
তাসনিম খলিল ও সামিসহ ৪ জনের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ
.............................................................................................
শেখ রাসেল সব শিশুর প্রতিচ্ছবি: গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আহ্বান জাতিসংঘের
.............................................................................................
আরও ১৭২ ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে
.............................................................................................
ফের রিমান্ডে কিউকমের সিইও রিপন মিয়া ও আরজে নিরব
.............................................................................................
বিরোধী দল চাই, রাষ্ট্রবিরোধী দল চাই না: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী
.............................................................................................
করোনা কেড়ে নিলো আরও ১০ প্রাণ
.............................................................................................
পদোন্নতি পেলেন ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব মহাপরিচালক
.............................................................................................
ইভ্যালির এমডির দায়িত্বে মাহবুব কবীর মিলন
.............................................................................................
আল্টিমেটাম দিয়ে অবরোধ তুলে নিলেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
ই-কমার্সে শৃঙ্খলা ফেরাতে প্রতিবেদন দেবে কমিটি
.............................................................................................
আত্মবিশ্বাস-আত্মমর্যাদা নিয়ে গড়ে উঠুক শিশুরা: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
শাহবাগে সড়ক অবরোধ
.............................................................................................
রংপুরের এসপি বিপ্লবসহ ৭ কর্মকর্তাকে বদলি
.............................................................................................
শেখ রাসেলের জন্মদিন আজ
.............................................................................................
জাতির পিতা শেখ মুজিব রাজনীতির বিশ্বকবি : ডেপুটি স্পিকার
.............................................................................................
রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের অর্থনীতিতে চাপ সৃষ্টি করছে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
কনস্টেবল নিয়োগ পরীক্ষার সময়সূচি পরিবর্তন
.............................................................................................
১৬ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ
.............................................................................................
জি বাংলার পর সম্প্রচারে স্টার জলসা
.............................................................................................
অনেক কিছুই দেখছি, প্রমাণের অপেক্ষায় আছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
শুরু হলো বিশ্বকাপ, টস জিতে ফিল্ডিংয়ে স্বাগতিকরা
.............................................................................................
পবিত্র রমজান ও ঈদের তারিখ জানালো বিশেষজ্ঞরা
.............................................................................................
সম্রাট-খালেদ-সাঈদ অর্থপাচার করেছেন: সিআইডির প্রতিবেদন
.............................................................................................
কুমিল্লার ঘটনার উদ্দেশ্য ছিল দাঙ্গা বাঁধানো: তাজুল ইসলাম
.............................................................................................
সাম্প্রদায়িক শক্তি ষড়যন্ত্র করছে: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী
.............................................................................................
আরও ১৮৩ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে
.............................................................................................
করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে
.............................................................................................
ইভ্যালির ওয়েবসাইট ও অ্যাপ বন্ধ
.............................................................................................
১১০ বিলাসবহুল গাড়ি বিক্রি করবে চট্টগ্রাম কাস্টমস
.............................................................................................
দেশ বিক্রি করে তো ক্ষমতায় আসবো না: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ওমরাহ যাত্রীদের জন্য দেয়া হলো নতুন যেসব নির্দেশনা
.............................................................................................
রাজধানীতে আইসের সবচেয়ে বড় চালান জব্দ, মূলহোতা গ্রেফতার
.............................................................................................
আজ বিশ্ব খাদ্য দিবস
.............................................................................................
বিজ্ঞাপন ছাড়া বাংলাদেশে সম্প্রচারে ফিরেছে জি বাংলা
.............................................................................................
আজ শনাক্ত ২.০৯ শতাংশ, মৃত্যু আরও ৯
.............................................................................................
সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় জনপ্রতিনিধিদের সতর্ক থাকার আহবান স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop