| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * লকডাউনে বিয়ে: ইউএনও`র আগমনে খাবার রেখেই পালালো বরযাত্রী   * বার্সেলোনার সঙ্গে নেইমারের নতুন চুক্তি   * বগুড়ায় করোনায় নার্সের মৃত্যু   * একদিনে সর্বোচ্চ ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি   * চট্টগ্রামে বিধিনিষেধ অমান্য করায় ২১৮ মামলা, জরিমানা লাখ টাকা   * জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের মার্কেটে আগুন   * তিউনিসে আল-জাজিরার ব্যুরো অফিসে অভিযান   * স্বজনের লাশ দেখতে গিয়ে সড়কে ঝরল নারীর প্রাণ   * কক্সবাজারের ঈদগাঁও-কে নতুন উপজেলা ঘোষনা   * করোনায় করণীয় নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক বসছে  

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
একদিনে সর্বোচ্চ ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

অনলাইন ডেস্ক : দেশে একদিনে সর্বোচ্চ ১২৩ জন এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। চলতি বছরে এটি একদিনে সর্বোচ্চ রোগী ভর্তির রেকর্ড। গতকাল রবিবার সকাল ৮টা থেকে আজ সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তারা।

সোমবার (২৬ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতর গণমাধ্যমকে এতথ্য নিশ্চিত করেছে।

তাদের মধ্যে ১২০ জন রাজধানীর হাসপাতালে ভর্তি হন। এর মধ্যে সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে ২৬ জন এবং বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ৯৪ জন ভর্তি হয়েছেন। অপরদিকে ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনজন ডেঙ্গু রোগী।

এর আগে গত শনিবার সর্বোচ্চ ১০৪ জন ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল।

এ নিয়ে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মোট ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ৪৬৮ জন। এদের মধ্যে ৪৬০ জনই ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অবশিষ্ট আটজন ঢাকার বাইরে হাসপাতালে রয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, এ বছর ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৮০২ জন । তাদের মধ্যে ঢাকার বাইরের বাসিন্দা মাত্র ৫০ জন।

এছাড়া চলতি মাসেই শনাক্ত হয় এক হাজার ৪৩০ জন। গেল জুন মাসে শনাক্তের সংখ্যা ছিল ২৭২ জন। এর আগে মে মাসে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী ছিল ৪৩ জন।

একদিনে সর্বোচ্চ ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশে একদিনে সর্বোচ্চ ১২৩ জন এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। চলতি বছরে এটি একদিনে সর্বোচ্চ রোগী ভর্তির রেকর্ড। গতকাল রবিবার সকাল ৮টা থেকে আজ সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তারা।

সোমবার (২৬ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতর গণমাধ্যমকে এতথ্য নিশ্চিত করেছে।

তাদের মধ্যে ১২০ জন রাজধানীর হাসপাতালে ভর্তি হন। এর মধ্যে সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে ২৬ জন এবং বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ৯৪ জন ভর্তি হয়েছেন। অপরদিকে ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনজন ডেঙ্গু রোগী।

এর আগে গত শনিবার সর্বোচ্চ ১০৪ জন ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল।

এ নিয়ে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মোট ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ৪৬৮ জন। এদের মধ্যে ৪৬০ জনই ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অবশিষ্ট আটজন ঢাকার বাইরে হাসপাতালে রয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, এ বছর ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে এক হাজার ৮০২ জন । তাদের মধ্যে ঢাকার বাইরের বাসিন্দা মাত্র ৫০ জন।

এছাড়া চলতি মাসেই শনাক্ত হয় এক হাজার ৪৩০ জন। গেল জুন মাসে শনাক্তের সংখ্যা ছিল ২৭২ জন। এর আগে মে মাসে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী ছিল ৪৩ জন।

করোনায় করণীয় নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক বসছে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনার করণীয় ঠিক করতে আগামীকাল মঙ্গলবার উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক ডেকেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার মন্ত্রিসভা ভার্চ্যুয়াল বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সচিবালয়ে একটা বড় মিটিং অনুষ্ঠিত হবে, জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি বলেন, হাসপাতালের সিট বাড়িয়ে, ডাক্তার বাড়িয়ে এগুলো (করোনা) নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। ইউরোপের দেশগুলো দেখেন, স্পেন, ডেনমার্ক, সুইডেন, নরওয়ে, জার্মানি।

জার্মানিতো অসহায়ভাবে পড়েছিল। ইন্ডিয়ার অবস্থা দেখেন, কি হয়েছে। একমাত্র মানুষ যদি মাস্ক না পরে, দূরুত্ব না মানে ‌‘ইট উইল বি অলমোস্ট ইমপসিবল’।

এ বৈঠকে অংশ নিতে এর মধ্যেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী, তথ্য যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী, তিন বাহিনী প্রধান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, পুলিশ মহাপরিদর্শক, বিজিবি মহাপরিচালক, নির্বাচন কমিশনের সচিব, বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বৈঠকের কার্যসূচিতে বলা হয়েছে, বিধিনিষেধ কার্যক্রম পরিচালনা ও টিকাদান জোরদার বিষয়ে আলোচনা হবে।

করোনায় মৃত্যুর সব রেকর্ড ভাঙল
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।এখন পর্যন্ত এটি দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৯ হাজার ৫২১ জনে।


সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হিসেবে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে আরও ১৫ হাজার ১৯২ জন। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৭৯ হাজার ৮২৭ জনে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন আরও ১১ হাজার ৫২ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলো ১০ লাখ ৯ হাজার ৯৭৫ জন। একদিনে করোনা শনাক্তের হার ২৯.৮২ শতাংশ। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫০ হাজার ৯৫২টি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, মৃত ২৪৭ জনের মধ্যে পুরুষ ১৪১ জন আর নারী ১০৬ জন। বিভাগ ভিত্তিক প্রাণহানির হিসাবে ঢাকায় সর্বোচ্চ ৭২ জন মারা গেছেন।

এছাড়া চট্টগ্রামে ৬১ জন, খুলনায় ৪৬ জন, রাজশাহীতে ২১ জন, রংপুরে ১৬ জন, সিলেটে ১৪ জন, বরিশালে ১২ এবং ময়মনসিংহে ৫ জন মারা গেছেন।

এদিকে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হলেও তা পুরোপুরি মানা হচ্ছে না। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ায় রাজধানীর হাসপাতালগুলোয় উপচে পড়া ভিড়।

এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে ঘুরেও কেউ শয্যা পাচ্ছে না। আর আইসিইউ শয্যা পাওয়া তো সোনার হরিণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। করোনা পরীক্ষা করাতেও চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

হাসপাতালগুলোয় ঘণ্টার পর ঘণ্টা লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে অনেকে পরীক্ষা করাতে না-পেরে ফিরে যাচ্ছেন। সব মিলিয়ে করোনা পরিস্থিতি দিন দিন জটিল হয়ে উঠছে।

করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ঢাকা ও চট্টগ্রামে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ১৯২ জনের। যা দেশে একদিনে করোনা সর্বোচ্চ মৃত্যু ও শনাক্ত হয়েছে।

সোমবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগে। চট্টগ্রাম বিভাগে মারা গেছেন ৬১ জন, খুলনা বিভাগে মৃত্যু হয়েছে ৪৬ জনের। বাকিরা অন্যান্য বিভাগের।
দেশে এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ১৯ হাজার ৫২১ জন। এছাড়াও মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ১১ লাখ ৭৯ হাজার ৮২৭ জনের।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৫২ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ১০ লাখ ৯ হাজার ৯৭৫ জন। একই সময়ে ৫০ হাজার ৯৫২ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ৮২ শতাংশ।

ওয়ার্ড-ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকাদান কার্যক্রম জোরদার হচ্ছে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও উপজেলা পর্যায়ে করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রম জোরদার করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার (২৫ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মন্ত্রিপরিষদ কক্ষ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম জোরদার করার নির্দেশনা দিয়েছেন। ওয়ার্ড পর্যায়ে বয়স্ক লোকদের ভ্যাকসিনেট করার ব্যবস্থা করা, ভ্যাকসিন নেয়া নিয়ে তাদের মধ্যে একটা অনীহা আছে। হাসপাতালে দেখা গেছে, গ্রামের বয়স্ক লোকরাই আছেন ৭৫ শতাংশ। তাদের মৃত্যু সংখ্যা বেশি, আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৯০ শতাংশ। তাদের ভ্যাকসিনেট করার জন্য আমাদের চেষ্টা করে যেতে হবে। আমরা কার্যক্রম হাতে নিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার হিসেবে ডাক্তার-নার্স, আর্মি, পুলিশ, সাংবাদিক রয়েছেন। তারা তো পেয়েছেন। বাকিদেরও দিতে বলা হয়েছে। তাদের পরিবারকে টিকা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। পরিবারে যদি কোনো ড্রাইভার থাকে তাকেও দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। পরিবারে ১৮ বছরের বেশি যাদের বয়স তারা এ ভ্যাকসিনটা পাবে।’

‘ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম তো চলছেই। এখন আমরা ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা লেভেলে জোর দেব বেশি। পাশাপাশি টেস্টের বিষয়েও জোর দেয়া হয়েছে। গ্রামের লোকেরা অনেক সময় পরীক্ষা করতে চায় না।’

জাহিদ মালেক বলেন, ‘লকডাউনের তিন-চারদিন চলছে। কিন্তু রাস্তাঘাটে মানুষ যেভাবে চলাফেরা করছে, যেভাবে গাড়ি চলাচল করছে তাতে আমরা খুবই দুঃখিত। যারা লকডাউন ব্রেক করছে তারা নিজেদের ক্ষতি করছে। প্রতিটি রাষ্ট্রের সক্ষমতার একটা সীমাবদ্ধতা আছে। আমাদের হাসপাতালে ৯০ শতাংশ সিট বুক হয়ে গেছে, রোগী আছে সেখানে।’

তিনি বলেন, ‘নতুন করে আর কোথায় হাসপাতাল চালু করব। নতুন তো কোনো ভবনও নেই। ডাক্তার-নার্সরাও ক্লান্ত হয়ে গেছেন। তারা আর কত কাজ করবেন? নতুন চার হাজার ডাক্তার নেয়া হচ্ছে, নার্স নেয়া হচ্ছে।’

দেশে মোট ২১ কোটি ভ্যাকসিন আসবে। যেটা মন্ত্রিসভা বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর সামনে উপস্থাপন করা হয়েছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

ঈদযাত্রায় ১৫৮ দুর্ঘটনা, নিহত ২০৭ জন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১১ দিনে সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ১৫৮টি। এতে নিহত হয়েছেন ২০৭ জন। আর আহত হয়েছেন ৩৮৯ জন। ১১ থেকে ২৪ জুলাই ঈদুল আজহার আগে-পরে এই দুর্ঘটনাগুলো ঘটে।

সড়ক দুর্ঘটনার এই প্রতিবেদনটি তৈরি করে রোড সেফটি ফাউন্ডেশন। ৭টি জাতীয় দৈনিক, ৫টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়। সোমবার (২৬ জুলাই) প্রতিবেদনের তথ্য জানায় সংগঠনটি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি নিহতের ঘটনা ঘটেছে। ৭৬টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৮৭ জন।

এই সময়ে ৪টি নৌ দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত এবং ২৬ জন আহত হয়েছেন। ২টি রেলপথ দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন দুইজন।

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, দুর্ঘটনা নিহতের মধ্যে রয়েছে- মোটরসাইকেল চালক ও, আরোহী ৮৭ জন, বাসযাত্রী ১২ জন, ট্রাক-পিকআপযাত্রী আটজন, মাইক্রোবাস-প্রইভেটকারযাত্রী ১৩ জন, থ্রি-হুইলারযাত্রী (সিএনজি-ইজিবাইক-অটোরিকশা) ৩১ জন, নসিমন-মাহিন্দ্র-চান্দের গাড়িযাত্রী ১০, বাইসাইকেল আরোহী তিনজন আছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ বলছে, দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ৫৯টি জাতীয় মহাসড়কে, ৬৬টি আঞ্চলিক সড়কে, ১৪টি গ্রামীণ সড়কে এবং ১৯টি শহরের সড়কে সংঘটিত হয়েছে।


দুর্ঘটনার সময় বিশ্লেষণ করে সংগঠনটি জানায়, দুর্ঘটনাসমূহ ঘটেছে ভোর ৬টায় ৯৬ শতাংশ, সকালে ১৮ দশমিক ৩৫ শতাংশ, দুপুরে ২২ দশমিক ১৫ শতাংশ, বিকেলে ২৪ দশমিক ৬৮ শতাংশ, সন্ধ্যায় ১১ দশমিক ৩৯ শতাংশ এবং রাতে ১৬ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

কোন বিভাগে কত দুর্ঘটনা

ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। এ বিভাগে ৩৩টি দুর্ঘটনায় ৪৮ জন নিহত হয়েছেন। আর সবচেয়ে কম দুর্ঘটনা ঘটেছে সিলেট বিভাগে। এখানে ৪টি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন চারজন।

এছাড়া একক জেলা হিসেবে রংপুর জেলায় সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ৫টি দুর্ঘটনায় ১৫ জন নিহত হয়েছেন এ জেলায়। সবচেয়ে কম দুর্ঘটনা হয়েছে সুনামগঞ্জ জেলায়। এখানে ১টি দুর্ঘটনা ঘটলেও কেউ হতাহত হননি।

ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, বেপরোয়া গতি, চালকদের বেপরোয়া মানসিকতা, অদক্ষতা ও শারীরিক-মানসিক অসুস্থতা, বেতন ও কর্মঘণ্টা নির্দিষ্ট না থাকা এবং মহাসড়কে স্বল্পগতির যানবাহন চলাচলের কারণে দুর্ঘটনা বাড়ছে বলে রোড সেইফটি ফাউন্ডেশন জানায়।

এছাড়া মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা বাড়ার পেছনে তরুণ ও যুবকদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানো এবং জনসাধারণের মধ্যে ট্রাফিক আইন না জানা ও না মানার প্রবণতাকে দায়ী করা হয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ২০২০ সালে ঈদুল আজহার আগে-পরে ১৪ দিনে ১৮৭টি দুর্ঘটনায় ২২৯ জন নিহত হয়েছিল। আর এবারের ঈদুল আজহার আগে-পরে ১১ দিনে নিহত হয়েছেন ২০৭ জন।

বিধিনিষেধে শিল্পকারখানা খুললে আইনানুগ ব্যবস্থা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে শিল্পকারখানা খোলার প্রমাণ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

সোমবার (২৬ জুলাই) মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে গত ২৩ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়েছে। এই বিধিনিষেধ থাকবে আগামী ৫ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত।

খাদ্যপণ্য উৎপাদন ও প্রক্রিয়াকরণের সঙ্গে যুক্ত মিল-কারখানা; কোরবানির পশুর চামড়া পরিবহন, সংরক্ষণ এবং ওষুধ শিল্পকারখানা বাদে সব শিল্পকারখানা, সরকারি-বেসরকারি অফিস বিধিনিষেধে বন্ধ থাকার কথা।

বিধিনিষেধের মধ্যেও অনেকে শিল্পকারখানা চালু রেখেছেন- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ খুলে থাকলে তা পর্যবেক্ষণ করছি, কারা খুলছে? যদি খুলে থাকে, প্রমাণ পাওয়া যায়, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে কঠোর বিধিনিষেধের কোনো বিকল্প নেই। করোনা যেভাবে ছড়িয়ে গেছে, সে বিষয় নিয়ে আজ ক্যাবিনেটে আলোচনা হয়েছে।’

‘রাস্তায় যখন মানুষ নামছে, তখন বলছে আমার চাকরিতে যেতে হচ্ছে। আসলে এটার সত্যতা যাচাই করার চেষ্টা করছি। তারা যে সব নাম বলছে, সেগুলো চেক করার চেষ্টা করছি।’

মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বিশেষ কোনো নির্দেশনা দিয়েছেন কি না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা (করোনা) যে পরিস্থিতিতে ছড়িয়ে গেছে, এ বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা কঠিনভাবেই তো প্রজ্ঞাপন জারি করেছি। এ ব্রেকটা খুব দরকার। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, আমাদের সংক্রমণ কমানোর জন্য ব্রেক প্রয়োজন। ব্রেকটার জন্য এটাই উপযুক্ত কৌশল, সেটি হচ্ছে বিধিনিষেধ।’

বিধিনিষেধ কঠোর হওয়ার কথা আপনি বলেছিলেন, কিন্তু সেটি মাঠে দেখা যাচ্ছে না- এ বিষয়ে ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘যেহেতু গার্মেন্টস ও রফতানিমুখী কলকারখানাগুলো বন্ধ রেখেছি, লাখ লাখ শ্রমিক আসা-যাওয়া করতো, সেগুলো কমেছে। এগুলো ছাড়াও আরও বিভিন্ন কারণ আছে, যে কারণে মানুষ বাইরে আসছে। অযৌক্তিক কারণে বের হলে কিন্তু আইনের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এছাড়া হাসপাতাল থেকে শুরু করে জরুরি সেবার সঙ্গে সম্পৃক্ত মানুষ বাধাহীনভাবে চলাফেরা করতে পারছে।’

পোশাক কারখানা খুলে দেয়ার বিষয়ে কোনে চিন্তা-ভাবনা এখন পর্যন্ত নেই বলেও জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

রিকশার দখলে সড়ক, ভাড়াও দ্বিগুণ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকারঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে গণপরিবহন ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা বন্ধ থাকলেও অবাধে চলছে রিকশা। ফলে ঢাকার ফাঁকা রাস্তার সর্বত্রই এখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে রিকশা। মূলত এখন ঢাকার রাস্তা রিকশার দখলে চলে গেছে। আর গণপরিবহ না চলায় যাত্রীদের কাছ থেকে বাড়তি ভাড়া আদায় করছেন রিকশা চালকরা।

কঠোর বিধিনিষেধের চতুর্থদিন সোমবার (২৬ জুলাই) রাজধানীর রামপুরা, মালিবাগ, মৌচাক, শান্তিনগর, কাকরাইল, পল্টন, ফকিরাপুল ও মতিঝিল অঞ্চল ঘুরে এবং যাত্রী ও রিকশা চালকদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

যাত্রীদের অভিযোগ, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রিকশাচালকরা স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় এখন দ্বিগুণ বা তারও বেশি ভাড়া আদায় করছেন। কর্মক্ষেত্রে যেতে যাত্রীরা রিকশাচালকদের বাড়তি ভাড়া দিতে বাধ্য হচ্ছেন।

অপরদিকে রিকশা চালকরা বলছেন, স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় এখন যাত্রী অনেক কম পাওয়া যাচ্ছে। আগে যে সময়ের মধ্যে ৮-১০টি ভাড়া পাওয়া যেত, এখন সেখানে ৩ থেকে ৪টি ভাড়া পাওয়া যাচ্ছে। এ কারণে যাত্রীদের কাছ থেকে একটু বেশি ভাড়া নেয়া হচ্ছে।

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত ২৩ জুলাই থেকে ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়েছে। ৫ আগস্ট পর্যন্ত নির্ধারণ করা এই বিধিনিষেধের মধ্যে ব্যাংক, বীমা ও শেয়ারবাজার খোলা রয়েছে। এর সঙ্গে কোরবানির পশুর চামড়া সংশ্লিষ্ট খাত, খাদ্যপণ্য এবং কোভিড-১৯ প্রতিরোধে পণ্য ও ওষুধ উৎপাদনকারী শিল্প বিধিনিষেধের বাইরে রয়েছে।

তবে সরকারি-বেসরকির অফিস, গার্মেন্টস-কলকারখানা ও রফতানিমুখী সবকিছু বন্ধ থাকায় এবার অন্যান্য বারের বিধিনিষেধের তুলনায় রাস্তায় মানুষের চলাচল তুলনামূলক কম। ফলে গাড়ি চলাচলও কম। কিছু ব্যক্তিগত গাড়ি ও মোটরসাইকেল চলাচল করলেও রাস্তায় সব থেকে বেশি চলছে রিকশা।

রামপুরা থেকে রিকশায় মতিঝিলের উদ্দেশে রওনা করা নিহাদ নামের একজন বলেন, ‘মতিঝিলের একটি বীমা কোম্পানিতে কাজ করি। আমাদের অফিস খোলা রয়েছে। নিয়মিত অফিস যেতে হয়। বাস চলছে না, তাই বাধ্য হয়ে রিকশায় যেতে হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘অন্যান্য সময় রিকশা ভাড়া নিতো ৮০ থেকে ১০০ টাকা। গতকাল ১৯০ টাকা ভাড়া দিয়ে গেছি। আজ ১৮০ টাকার নিচে কোনো রিকশা পাইনি। ফলে বাধ্য হয়েই এই বাড়তি ভাড়া দেয়া লাগছে। বাস চললে অল্প টাকা খরচেই অফিস যাওয়া যায়। অফিস খোলা রেখে বাস বন্ধ রাখায় আমাদের ভুগতে হচ্ছে বেশি।’

যাত্রাবাড়ি থেকে পল্টনের একটি অফিসে আসা আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘যাত্রাবাড়ি মোড় থেকে পল্টন পর্যন্ত রিকশা ভাড়া নিয়েছে ১৭০ টাকা। এর নিচে কেউ আসতে চায় না। এই গরমে হেটে আসাও সম্ভব না। তাই বাড়তি ভাড়া দিয়েই আসতে হয়েছে।’

মালিবাগ আবুল হোটেল এলাকায় কথা হয় রিকশাচালক ঝন্টুর সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘দুদিন ধরে রাস্তায় রিকশা চলাচল বেড়েছে। যাত্রীও কিছু পাওয়া যাচ্ছে। তবে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় যাত্রী অনেক কম। অফিস সময়ে কিছু যাত্রী পাওয়া যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, স্বাভাবিক সময়ে দিনে ৮০০ থেকে এক হাজার টাকা ভাড়া হয়। গতকাল ৪০০ টাকা ভাড়া পেয়েছিলাম। আজও তেমন হবে বলে মনে হচ্ছে। অন্য সময়ের তুলনায় এখন রিকশা ভাড়া একটু বেশি। কারণ আমরা ভাড়া খুব কম পাচ্ছি।’

কাকরাইল মোড়ে কথা হয় রিকশাচালক আকাশের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘স্বাভাবিক সময়ে যতুটুকুর মধ্যে ৮ থেকে ১০টা ভাড়া পাওয়া যায়, এখন সেই সময়ের মধ্যে ৩ থেকে ৪টা ভাড়াও পাওয়া যায় না। মানুষ খুব কম চলাচল করছে। এ কারণে ভাড়া একটু বেশি। ভাড়া বেশি নিলেও আমাদের আয় অর্ধেকের নিচে নেমে গেছে। আমরা যে কী কষ্টে আছি বলে বোঝাতে পারবো না। পেটের দায়ে রাস্তায় রিকশা নিয়ে নেমেছি।’

সিলেট-৩ আসনের ভোট ৫ আগস্ট পর্যন্ত স্থগিত
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। ভোটগ্রহণ স্থগিত করে আদালত বলেছেন, ‘যেহেতু সরকার ৫ আগস্ট পর্যন্ত বিধিনিষেধ দিয়েছে, আমরা আপাতত ৫ আগস্ট পর্যন্ত দেখি। তারপর পরিস্থিতি বিবেচনা নিয়ে ভোটের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।’

সোমবার (২৬ জুলাই) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির। নির্বাচন কমিশনের পক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় সোমবার (২৬ জুলাই) ছয় আইনজীবী এবং সালেহ আহমদসহ ৭ জন ভোটার মোট ১৩ জন পিটিশনারের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির এই নির্বাচনে ভোটগ্রহণ স্থগিত চেয়ে রিট দায়ের করেন। রিটে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ (সিইসি) সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।

এর আগে এই নির্বাচনে ভোটগ্রহণ স্থগিত চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয় সংশ্লিষ্টদের প্রতি। রোববার (২৫ জুলাই) ই-মেইলের মাধ্যমে পাঁচ আইনজীবীর পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির নোটিশটি পাঠান।

যে পাঁচ আইনজীবীর পক্ষ থেকে রিটটি করা হয়েছে তারা হলেন- অ্যাডভোকেট মো. মুজাহিদুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট আল-রেজা মো. আমির, অ্যাডভোকেট মো. জোবায়দুর রহমান, অ্যাডভোকেট মো. জহিরুল ইসলাম ও অ্যাডভোকেট মুস্তাফিজুর রহমান।

রিটে বলা হয়, ‘২০২১ সালের ১১ মার্চ সাংসদ মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুতে সিলেট-৩ আসনটি শূন্য হয়। এরপর ২০২১ সালের ১৫ মার্চ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ১১ মার্চ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। পরবর্তীতে ২৯ এপ্রিলের প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান ১২৩-এর দফা ৪ অনুযায়ী উক্ত শূন্যপদ পূরণে ৮ জুন ২০২১ তারিখের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিধান রহিয়াছে।’

‘গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান ১২৩-এর দফা ৪-এর শর্তানুসারে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের মতে দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণজনিত দৈব দুর্বিপাকের কারণে নির্ধারিত মেয়াদ অর্থাৎ শূন্য হইবার নব্বই দিনের মধ্যে উল্লিখিত শূন্য আসনের নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব না। এমতাবস্থায় সিলেট-৩ শূন্য আসনের নির্বাচন নির্ধারিত মেয়াদের মধ্যে অনুষ্ঠান সম্ভব না হওয়ায় পরবর্তী নব্বই দিনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হইবে। তাই গত ২ জুন নির্বাচন কমিশন এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ১৪ জুলাই ভোটগ্রহণের দিন ধার্য করে। তবে গত ১৫ জুন নির্বাচন কমিশন ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তন করে ২৮ জুলাই নির্ধারণ করে।’

রিটে আরও বলা হয়, ‘সংবিধানের ১২৩-এর দফা ৪-এর শর্তানুসারে সিলেট উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের সময়সীমা ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত। তাই ২৮ জুলাইয়ে অনুষ্ঠিতব্য উপনির্বাচন স্থগিত করা যাবে না- এমন বক্তব্য আইনের সঠিক ব্যাখ্যা নয়। এক্ষেত্রে ২৮ জুলাইয়ের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কোনো সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা নেই।’

‘তাই নির্বাচন কমিশনের উচিত চলমান করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি বিবেচনায় এবং লকডাউনের সময়ে নির্বাচন আয়োজন না করে ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অন্য যেকোনো সময় ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারণ করা। কারণ এই সময়ে তিন লাখ ৫২ হাজার ভোটারের এই নির্বাচন অনুষ্ঠান সরকারের বর্তমান লকডাউন নীতির বিরোধী। তাই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির বিবেচনায় আগামী ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য সিলেট-৩ আসনের ভোটগ্রহণ স্থগিত করার জন্য উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হতে বাধ্য হলাম।’

এর আগে শনিবার (২৪ জুলাই) সিলেট জেলা প্রশাসনের সম্মেলনকক্ষে উপনির্বাচন উপলক্ষে আয়োজিত আইনশৃঙ্খলা-বিষয়ক সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে আগামী ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন আর পেছানোর সুযোগ নেই।’

ভোটারদের মাস্ক পরে ও সামাজিক দূরত্ব মেনে ভোটকেন্দ্রে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এই উপনির্বাচনের সব কার্যক্রম লকডাউনের আওতার বাইরে থাকবে।’

বিধিনিষেধ অমান্য করায় তিন দিনে ঢাকায় গ্রেপ্তার ১৩৭৩
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনা সংক্রমণরোধে দুই সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ চলাকালে বিনা প্রয়োজনে বাসা থেকে বের হওয়ার অভিযোগে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) হাতে তিন দিনে মোট গ্রেপ্তার হয়েছেন ১ হাজার ৩৭৩ জন। এর মধ্যে, তৃতীয় দিনে ৫৮৭ জন, দ্বিতীয় দিনে ৩৮৩ জন, প্রথম দিনে ৪০৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রোববার (২৫ জুলাই) ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম বলেন, লকডাউনের তৃতীয় দিনে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ডিএমপির আটটি বিভাগের রমনা, লালবাগ, মতিঝিল, ওয়ারী, তেজগাঁও, মিরপুর, গুলশান ও উত্তরা এলাকায় সরকারি নিয়ম অমান্য করে বাইরে বের হওয়ায় ৫৮৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। লকডাউনে সড়কে যানবাহন নিয়ে বের হওয়ায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ও ট্রাফিক বিভাগ ৫২১টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলায় জরিমানা করা হয়েছে ১২ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

তিনি আরও বলেন, সরকার করোনার সংক্রমণরোধে দুই সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ নিশ্চিতে তৃতীয় দিনে রাজধানীজুড়ে সক্রিয় আছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। রাজধানীতে সরকারি বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে অকারণে ও নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হওয়ায় ও লকডাউনেও প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ২৩৩ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ৯৫০ টাকা জরিমানা করা হয়।

ভর্তুকি মূল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু আগামীকাল
                                  

অনলাইন ডেস্ক : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সরকারি বিপনন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অফ বাংলাদেশ (টিসিবি) আগামীকাল থেকে ভোক্তা সাধারণের নিকট ভর্তুকি মূল্যে সয়াবিন তেল, মশুর ডাল ও চিনি বিক্রি করবে। মাসব্যাপী নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পণ্যের বিক্রয় কার্যক্রম চলবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, কঠোর লকডাউন পরিস্থিতিতে নিন্ম আয়ের মানুষের নিকট ভর্তুকি মূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পৌঁছে দেয়া এবারের বিক্রয় কার্যক্রমের মূল উদ্দেশ্য। টিসিবি নিয়োজিত ডিলাররা ভ্রাম্যমান ট্রাকে দেশব্যাপী এসব পন্য বিক্রি করবে। সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১০০ টাকা, মশুর ডাল প্রতি কেজি ৫৫ টাকা ও চিনি কেজি প্রতি ৫৫ টাকা দরে বিক্রি করা হবে।

আগামীকাল থেকে ২৬ আগষ্ট পর্যন্ত মাসব্যাপী এসব পণ্য বিক্রি করবে টিসিবি। বাসস

করোনাকালে ডেঙ্গু নিয়ে অবহেলা না করার অনুরোধ
                                  

বিশেষ সংবাদদাতা : করোনা মহামারিকালে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গুর প্রকোপ থেকে প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে জনগণকে অবহেলা না করার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র ও পরিচালক (সংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম।

রোববার (২৫ জুলাই) দুপুর ২টায় কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভার্চুয়াল স্বাস্থ্য বুলেটিনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জেলা সদর ও উপজেলা পর্যায়ের হাসপাতালে ডেঙ্গু পরীক্ষার এন্টিজেন কিটের পর্যাপ্ত সরবরাহ রয়েছে। সরকারি হাসপাতালে এ পরীক্ষাটি বিনামূল্যে করার সুযোগ রয়েছে। ডেঙ্গুর উপসর্গ দেখা দিলে বিলম্ব না করে সরকারি কিংবা বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ডেঙ্গু পরীক্ষা করার অনুরোধ জানান তিনি।

করোনায় আরও ২২৮ জনের মৃত্যু
                                  

বিশেষ সংবাদদাতা : মহামারি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রকোপে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে আরও ২২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৯ হাজার ২৭৪ জনে।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় নতুন রোগী শনাক্ত হয় ১১ হাজার ২৯১ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১১ লাখ ৬৪ হাজার ৬৩৫ জন।

রোববার (২৫ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, একই সময়ে সরকারি ও বেসরকারি ৬৩৯টি ল্যাবরেটরিতে ৩৭ হাজার ৯৭২টি নমুনা সংগ্রহ ও ৩৭ হাজার ৫৮৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়ালো ৭৪ লাখ ৫৫ হাজার ২৮১টি।

নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ০৪ শতাংশ। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৬২ শতাংশ।

মৃত ২২৮ জনের মধ্যে পুরুষ ১২৫ ও নারী ১০৩ জন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ১৭৪, বেসরকারি হাসপাতালে ৪০ এবং বাড়িতে ১৪ জন মারা যান।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১০হাজার ৫৮৪ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ৯ লাখ ৯৮ হাজার ৯২৩ জন। সুস্থতার হার ৮৫ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত ২২৮ জনের মধ্যে শূন্য থেকে দশ বছরের কম বয়সী একজন, দশোর্ধ্ব ২ জন, বিশোর্ধ্ব ৮ জন, ত্রিশোর্ধ্ব ২২ জন, চল্লিশোর্ধ্ব ৩৪ জন, পঞ্চাশোর্ধ্ব ৫০ জন, ষাটোর্ধ্ব ৭০ জন, সত্তোরোর্ধ্ব ৩৩ জন, আশির্ধ্ব ৬ জন এবং নব্বই বছরের বেশি ২ জন মারা যান।

একই সময়ে করোনায় মৃত ২২৮ জনের মধ্যে বিভাগওয়ারী হিসাবে দেখা গেছে, ঢাকায় ৬৯, চট্টগ্রামে ৪০, রাজশাহীতে ২১, খুলনায় ৫০, বরিশালে ৬, সিলেটে ১১, রংপুরে ১৬ এবং ময়মনসিংহে ১৫ জনের মৃত্যু হয়।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

মাস্কবিহীন কাউকে ছাড় দেয়া হচ্ছে না
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউনের তৃতীয় দিন কারণে-অকারণে লোকজনের বাইরে বের হওয়ার প্রবণতা বেড়েছে। বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। কেউ নিয়ম না মানলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। অলিগলির চিত্র একেবারেই ভিন্ন। প্রধান সড়কের বাইরে অলিগলিতে খোলা আছে সব ধরনের দোকানপাট।

রোববার (২৫ জুলাই) মিরপুর-১০, ১১ ও ১২ নম্বর ঘুরে দেখা গেছে, প্রধান ও অভ্যন্তরীণ সড়কে মানুষের চলাচল অনেকাংশেই বেড়েছে। নিয়ম ও স্বাস্থ্যবিধি না মানলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে মামলা দেয়া ও জরিমানা করা হচ্ছে।

রোববার দুপুর ১টার পরে মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বরে বিজিবির তত্ত্বাবধানে মোবাইল কোর্টের কার্যক্রম শুরু হয়। এ সময় মাস্ক না পরা ও বিনা প্রয়োজনে বাইরে বের হয়ে লকডাউনের আইন অমান্য করায় ২২ জনকে জরিমানা করা হয়। কত টাকা জরিমানা করা হয়েছে তা জানাননি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুন নাহার।

তিনি বলেন, ‘করোনা প্রতিরোধে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কেউ আইনের ব্যত্যয় ঘটালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে সোপর্দ করছে।’

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুন নাহার আরও বলেন, ‘মাস্কবিহীন কাউকেই ছাড় দেয়া হচ্ছে না। করোনা প্রতিরোধে সবাইকে মাস্ক পরিধান করতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। কেউ আইন অমান্য করলে জরিমানা অব্যাহত থাকবে।’

সরেজমিনে দেখা যায়, আজ রাস্তায় জনসমাগম ও যানবাহন চলাচল বেড়েছে। মিরপুর-১০ নম্বরে দুটি চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করছে পুলিশ। পেট্রলিং করছে সেনাবাহিনী। যারা অকারণে বাইরে বের হয়েছে তাদের ফিরেয়ে দেয়া হচ্ছে। মূল সড়কগুলোতে দোকানপাট বন্ধ থাকলেও অলিগলিতে দোকানপাট খোলা।

টিকা নিতে ১ কোটির বেশি মানুষের নিবন্ধন
                                  

অনলাইন ডেস্ক : দেশে করোনা টিকা নিতে আগ্রহী নিবন্ধনকারীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। শনিবার পর্যন্ত মোট নিবন্ধনকারীর সংখ্যা বেড়ে এক কোটি ১৮ লাখ ৪৯ হাজার ৯৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (এমআইএস ও লাইন ডাইরেক্টর) অধ্যাপক ডা. মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত করোনার টিকা সংক্রান্ত এক তথ্যে বিষয়টি জানা যায়।

এতে বলা হয়, ফাইজারের প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন চার হাজার ১৪৮ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৯২ জন ও নারী ২১ জন। এ নিয়ে ফাইজারের প্রথম ডোজের টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা মোট ৫০ হাজার ২১৭ জন হয়েছে।

এদিকে শনিবার দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েছেন ১৩৮ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৮৪ জন ও নারী ৩৪ জন।

এছাড়া শনিবার মডার্নার প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন ৩৬ হাজার ৫৮৬ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ২২ হাজার ৭৩২ জন ও নারী ১৩ হাজার ৮৫৪ জন। এ পর্যন্ত মডার্নার প্রথম ডোজের টিকা নিলেন ৩ লাখ ৬ হাজার ১২৩ জনে।

একই দিনে সিনোফার্মের প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন এক লাখ ২২ হাজার ৯৬৪ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ৭৩ হাজার ১৮০ জন ও নারী ৪৯ হাজার ৭৮৪ জন।

এ পর্যন্ত সিনোফার্মের প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন এক লাখ ৭২ হাজার ৬২৪ জন। আর দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিয়েছেন এক হাজার ২২৮ জন।

তাদের মধ্যে পুরুষ ৬৮৬ জন ও নারী ৫৪২ জন। এ নিয়ে সিনোফার্মের দ্বিতীয় ডোজের টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৫৪৭ জনে।

দেশে এলো প্রবাসী চিকিৎসকদের উপহারের ২৫০টি ভেন্টিলেটর
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবায় যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী চিকিৎসকদের উপহার হিসেবে পাঠানো ২৫০টি মোবাইল ভেন্টিলেটর ঢাকায় এসে পৌঁছেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে তারা এই উপহার পাঠিয়েছেন।

শনিবার (২৪ জুলাই) রাতে ভেন্টিলেটরগুলো হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। এ সময় বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। স্বাস্থ্য সচিব লোকমান হোসেন মিয়া।

এর আগে, শাহজালাল বিমানবন্দরে কর্মরত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ জানান, বিমানবন্দরে উপস্থিত থেকে মোবাইল ভেন্টিলেটর মেশিন গ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ।

তিনি আরও জানান, যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী চিকিৎসকদের পাঠানো মোবাইল ভেন্টিলেটরগুলো রাত সাড়ে ৮টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ডা. জিয়া আহমেদ সাজেদ, ডা. মাসুদুল হাসান, ডা. চৌধুরী হাসান, ডা. হাফিজ হাসান, ডা. মাহমুদুজ্জামান বাপ্পি ও কানাডা প্রবাসী ডা. আরিফুর রহমান মোবাইল ভেন্টিলেটরগুলো উপহার হিসেবে পাঠিয়েছেন।


   Page 1 of 320
     জাতীয়
একদিনে সর্বোচ্চ ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি
.............................................................................................
করোনায় করণীয় নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক বসছে
.............................................................................................
করোনায় মৃত্যুর সব রেকর্ড ভাঙল
.............................................................................................
করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ঢাকা ও চট্টগ্রামে
.............................................................................................
ওয়ার্ড-ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকাদান কার্যক্রম জোরদার হচ্ছে
.............................................................................................
ঈদযাত্রায় ১৫৮ দুর্ঘটনা, নিহত ২০৭ জন
.............................................................................................
বিধিনিষেধে শিল্পকারখানা খুললে আইনানুগ ব্যবস্থা
.............................................................................................
রিকশার দখলে সড়ক, ভাড়াও দ্বিগুণ
.............................................................................................
সিলেট-৩ আসনের ভোট ৫ আগস্ট পর্যন্ত স্থগিত
.............................................................................................
বিধিনিষেধ অমান্য করায় তিন দিনে ঢাকায় গ্রেপ্তার ১৩৭৩
.............................................................................................
ভর্তুকি মূল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু আগামীকাল
.............................................................................................
করোনাকালে ডেঙ্গু নিয়ে অবহেলা না করার অনুরোধ
.............................................................................................
করোনায় আরও ২২৮ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
মাস্কবিহীন কাউকে ছাড় দেয়া হচ্ছে না
.............................................................................................
টিকা নিতে ১ কোটির বেশি মানুষের নিবন্ধন
.............................................................................................
দেশে এলো প্রবাসী চিকিৎসকদের উপহারের ২৫০টি ভেন্টিলেটর
.............................................................................................
বিধিনিষেধের দ্বিতীয় দিনে রাজধানীতে আটক ৩৮৩
.............................................................................................
সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই : সিইসি
.............................................................................................
জাপান থেকে এল অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২ লাখ ৪৫ হাজার টিকা
.............................................................................................
দেশে করোনায় মৃত্যু ১৯ হাজার ছাড়াল
.............................................................................................
আরও ২১ কোটি টিকার ব্যবস্থা করেছি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
চার দিন পর ফের করোনার টিকাদান কার্যক্রম শুরু
.............................................................................................
ঈদে ৯০ লাখ ৯৩ হাজার পশু কোরবানি
.............................................................................................
লকডাউন : অলিগলি থেকে প্রধান সড়ক সব খানেই মানুষ
.............................................................................................
অলিম্পিক লরেল পেলেন ড. ইউনূস
.............................................................................................
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ১৬৬ জন
.............................................................................................
ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ৮৫ জন
.............................................................................................
`করোনা টিকা নেয়ার বয়সসীমা ১৮ হচ্ছে`
.............................................................................................
আজ তাজউদ্দীন আহমদের ৯৬তম জন্মদিন
.............................................................................................
কাঁচাবাজার-নিত্যপণ্যের কেনাবেচা ৬ ঘণ্টা
.............................................................................................
শুরু হলো ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধ
.............................................................................................
জুলাইয়ের ২২ দিনে ডেঙ্গু রোগী হাজার ছাড়াল
.............................................................................................
রাত পোহালেই ফেরিতে গাড়ি ও যাত্রী পরিবহন বন্ধ
.............................................................................................
মুনিয়ার ‌`আত্মহত্যা`র মামলায় সায়েম সোবহানকে অব্যাহতি
.............................................................................................
সর্বাত্মক কঠোর লকডাউন : কাল থেকেই মাঠে থাকবে বিজিবি-সেনাবাহিনী
.............................................................................................
করোনায় একদিনে আরও ১৮৭ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
শিথিলতা বাড়ার আভাস নেই, কাল থেকেই কঠোর বিধিনিষেধ
.............................................................................................
কোরবানি দিতে গিয়ে আহত শতাধিক
.............................................................................................
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৭৩ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
রাজধানীতে বর্জ্য অপসারণ শুরু
.............................................................................................
শেষ মুহূর্তে জমজমাট মার্কেট, ফুটপাতেও উপচেপড়া ভিড়
.............................................................................................
অনলাইনে ২৭৩৫ কোটি টাকার পশু বিক্রি
.............................................................................................
১৯ দিনের `ছুটির ফাঁদে` দেশ
.............................................................................................
দাম নেই, গরু নিয়ে বাড়ি ফিরছেন ব্যবসায়ীরা
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হবে : মেয়র আতিক
.............................................................................................
স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, করোনার বিরুদ্ধে আমরা জিতবোই : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ফাঁকা হচ্ছে ঢাকা, গ্রামে ছুটছে মানুষ
.............................................................................................
মডার্না টিকার আরও একটি চালান দেশে পৌঁছেছে
.............................................................................................
করোনায় রেকর্ড ২৩১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩৩২১
.............................................................................................
ভ্যাকসিন নেয়ার বয়সসীমা কমিয়ে ৩০ বছর নির্ধারণ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop