| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * সিরিয়ায় বোমা হামলায় ১৩ সেনা নিহত   * রাতে আসছে সিনোফার্মের আরও ৫৫ লাখ টিকা   * আন্তর্জাতিক সনদ পাচ্ছে ফজলি আম ও বাগদা চিংড়ি   * বরগুনায় কীটনাশক খেয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু   * বিশ্বজুড়ে একদিনে সাড়ে ৮ হাজারের বেশি মৃত্যু   * এসকে সিনহাসহ ১১ জনের মামলার রায় বৃহস্পতিবার   * তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপরে, আকস্মিক বন্যা   * মমেক হাসপাতালে ২ জনের মৃত্যু   * পাকিস্তানের জলসীমায় ভারতের সাবমেরিন, গতিপথ আটকানোর দাবি   * উত্তরাখণ্ডে বৃষ্টি-বন্যায় ১৬ জনের মৃত্যু  

   শিক্ষাঙ্গন -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
পিইসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা হচ্ছে না

অনলাইন ডেস্ক : করোনার কারণে দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শ্রেণিকক্ষে পাঠদান চালু করা সম্ভব হয়নি। গত ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল খোলা হলেও অল্প সময়ের মধ্যে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয়, তাই চলতি বছরের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি ফাইলে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (১৭ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, রোববার বিকেলে পিইসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা বাতিলে অনুমোদন দিয়ে তা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। ফলে এ বছর পিইসি-ইবদেদায়ি পরীক্ষা হচ্ছে না। চলতি সপ্তাহে বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেওয়া হতে পারে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ দেড় বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে সরাসরি পাঠদান শুরু হয়। ক্লাস শুরু হলেও অল্প সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের সিলেবাস শেষ করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া অন্যান্য প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব না হওয়ায় চলতি বছরের সমাপনী পরীক্ষা বাতিল করতে গত ৭ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব পাঠায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ প্রস্তাবে সায় দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব জানান, চলতি বছরের পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা বাতিলে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। রোববার বিকেলে সেটি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। চলতি সপ্তাহে বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

পিইসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা হচ্ছে না
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনার কারণে দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শ্রেণিকক্ষে পাঠদান চালু করা সম্ভব হয়নি। গত ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল খোলা হলেও অল্প সময়ের মধ্যে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয়, তাই চলতি বছরের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি ফাইলে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (১৭ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, রোববার বিকেলে পিইসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা বাতিলে অনুমোদন দিয়ে তা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। ফলে এ বছর পিইসি-ইবদেদায়ি পরীক্ষা হচ্ছে না। চলতি সপ্তাহে বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেওয়া হতে পারে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ দেড় বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে সরাসরি পাঠদান শুরু হয়। ক্লাস শুরু হলেও অল্প সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের সিলেবাস শেষ করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া অন্যান্য প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব না হওয়ায় চলতি বছরের সমাপনী পরীক্ষা বাতিল করতে গত ৭ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব পাঠায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ প্রস্তাবে সায় দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব জানান, চলতি বছরের পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা বাতিলে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। রোববার বিকেলে সেটি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। চলতি সপ্তাহে বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা কাল
                                  

প্রথমবারের মতো গুচ্ছ পদ্ধতিতে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের যাতায়াত ও থাকা-খাওয়ার সমস্যাসহ বিভিন্ন দুর্দশা লাঘবে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

রোববার (১৭ অক্টোবর) ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে গুচ্ছ পদ্ধতির যাত্রা শুরু হবে।

জিএসটিভুক্ত সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, ১৭ অক্টোবর ‘এ’ ইউনিটে বিজ্ঞান, ২৪ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিটে মানবিক এবং ১ নভেম্বর ‘সি’ ইউনিটে বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগেই সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে পৌঁছানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

গুচ্ছভুক্ত ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সদস্য সচিব ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘এ’ ইউনিটে পরীক্ষায় অংশ নেবেন ১০ হাজার ৯১৫ জন পরীক্ষার্থী।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়েই এই সংখ্যক পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়া হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে কোনো আসনবিন্যাস হবে না। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে আমরা সর্বোচ্চ নজর রাখব।

গুচ্ছভুক্ত ২০টি বিশ্ববিদ্যালয় হলো-

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় (নেত্রকোনা), বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

জিএসটিভুক্ত ভর্তি পরীক্ষা ও ফলাফলসহ অন্য সব তথ্য gstadmission.ac.bd ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র তালিকা প্রকাশ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ১৪ নভেম্বর শুরু হবে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পরীক্ষা আয়োজন হবে সেসব কেন্দ্রের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

সোমবার (১১ অক্টোবর) ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়।

জানা গেছে, এ বছরের এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে। এসএসসির তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ২৩ নভেম্বর। এবার তত্ত্বীয় পরীক্ষা জেএসসির ফলাফল মূল্যায়ণ করে নম্বর ম্যাপিং করে নম্বর দেওয়া হবে। নৈর্বাচনিক তিন বিষয়ের তিন পরীক্ষা নেওয়া হবে।

এ পরীক্ষায় সময়, নম্বর ও প্রশ্ন সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। তিন বিষয়ের নম্বর যুক্ত করে এ বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে। তবে কারিগরিতে সব বিষয়ের পরীক্ষা নেওয়া হবে। প্রতি বছর ফেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়। কিন্তু করোনার কারণে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

অন্যদিকে, এইচএসসি পরীক্ষায় তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ৩০ ডিসেম্বর।

যত নম্বরে পরীক্ষা:
এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার নম্বর বিভাজন প্রকাশ করেছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। এসএসসি ও এইচএসসির বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থীরা প্রতি বিষয়ে ৩২ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নেবে। এর মধ্যে রচনামূলক ২০ নম্বর ও এমসিকিউতে (নৈর্ব্যক্তিকে) থাকবে ১২ নম্বর। মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের বিষয়গুলোয় শিক্ষার্থীরা ৪৫ নম্বরের পরীক্ষা দেবে। এর মধ্যে ৩০ নম্বর রচনামূলক ও ১৫ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। রচনামূলক ও নৈর্ব্যক্তিকের নম্বরকে ১০০ নম্বরে রূপান্তর করে প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণ করা হবে।


এসএসসির বিজ্ঞানে নম্বর বিভাজন:
ঢাকা বোর্ড প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার নম্বর বিভাজনে বলা হয়েছে, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, উচ্চতর গণিত ও জীববিজ্ঞান বিষয়ে পরীক্ষার রচনামূলক অংশে শিক্ষার্থীদের ৩২ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে। এর মধ্যে রচনামূলক ২০ আর নৈর্ব্যক্তিক অংশে ১২ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে পরীক্ষার্থীদের।

বিজ্ঞান বিভাগের রচনামূলক অংশে ৮টি প্রশ্ন থাকলেও যেকোনো দু’টির উত্তর দিতে হবে শিক্ষার্থীদের। ১০ করে ২০ নম্বর। নৈর্ব্যক্তিক অংশে ২৫টি প্রশ্নের মধ্যে ১২টির উত্তর দিতে হবে। এখানে নম্বর ১২। মোট ৩২ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে এসএসসিতে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের।

শিক্ষা বোর্ড বলছে, বিজ্ঞানে শিক্ষার্থীদের ২০ নম্বরকে ৫০ ও নৈর্ব্যক্তিকের ১২ নম্বরকে ২৫ নম্বরে রূপান্তর করে মোট প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণ করা হবে।

এসএসসির মানবিক ও ব্যবসায় নম্বর বিভাজন:
এসএসসির মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের ৪৫ নম্বরের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। রচনামূলকে ৩০ নম্বর ও নৈর্ব্যক্তিকে ১৫ নম্বরের পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে রচনামূলক অংশে ১১টি প্রশ্ন থাকলেও উত্তর দিতে হবে যেকোনো ৩টির। প্রতিটির মান ১০। নৈর্ব্যক্তিকে ৩০টি প্রশ্ন থাকলেও উত্তর দিতে হবে ১৫টির। প্রতিটি প্রশ্নের জন্য ১ নম্বর করে মোট ১৫।

মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের ৩০ নম্বরকে ৭০ ও নৈর্ব্যক্তিকের ১৫ নম্বরকে ৩০ নম্বরে রূপান্তর করে শিক্ষার্থীদের মোট নম্বর নির্ধারণ করবে বোর্ড। প্রতিটি বিষয়ের পরীক্ষা ১ ঘণ্টা ৩০ মিনিটে হবে। রচনামূলক ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিট ও নৈর্ব্যক্তিকে সময় ১৫ মিনিট।

দেড় বছর পর খুলল ঢাবির আবাসিক হল
                                  

অনলাইন ডেস্ক : মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দেড় বছর বন্ধ থাকার পর খুলল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলো।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আবাসিক হলগুলোতে স্নাতক চতুর্থ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীরা এক ডোজ টিকা নেওয়ার সনদ দেখিয়ে হলে উঠতে শুরু করেছেন। ফুল ও চকলেট দিয়ে হল প্রশাসনও তাদের স্বাগত জানায়।

দীর্ঘদিন পর হলে প্রবেশ করতে পেরে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরাও। তাদের সঙ্গে কথা বললে তারা নিজেদের দ্বিতীয় আবাসে ফেরায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই আসতে শুরু করে শিক্ষার্থীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে শুরু করে শিক্ষার্থীদের আগমনের সংখ্যা। হলগুলোর গেটে চেয়ার-টেবিল নিয়ে বসেছেন হাউজ টিউটররা। আগত শিক্ষার্থীদের ফুল, চকলেট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো সম্বলিত মাস্ক দিয়ে বরণ করে নিচ্ছেন তারা। হলে প্রবেশের সময় চেক করা হচ্ছে শরীরের তাপমাত্রা, করানো হচ্ছে স্যানিটাইজেশন। শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নির্দেশিকা।

আবাসিক হল সংক্রান্ত নিয়ম

* স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী পরস্পরের কাছ থেকে কমপক্ষে ১ মিটার (৩ ফুট) দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

* কোনো কক্ষের মেঝেতে শোয়া যাবে না। এক বিছানায় একাধিক ব্যক্তি শোয়া যাবে না। কেবল আবাসিক ও দ্বৈতাবাসিক শিক্ষার্থীরা হলে অবস্থান করতে পারবে।

* কোনো বহিরাগত বা বাহির থেকে আসা কাউকে কক্ষে অবস্থান করতে দেওয়া যাবে না। প্রয়োজনসাপেক্ষে কক্ষে ও কক্ষের বাহিরে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

* কক্ষের বাইরে গেলে সবাইকে বাধ্যতামূলকভাবে নিয়মিত ও সার্বক্ষণিক সঠিক নিয়মে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক পরতে হবে।

* স্বাস্থ্যবিধি পালনের জন্য সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে।

* ডাইনিংয়ে পালাক্রমে খেতে হবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত অতিথি কক্ষে শিক্ষার্থীদের সমাবেশ বন্ধ থাকবে।

* বেড়ানো ও ঘোরাঘুরি থেকে বিরত থাকতে হবে এবং সভা-সমাবেশ, রেস্তোরাঁ, পার্টি ও গণপরিবহন এড়িয়ে চলতে হবে।

ঢাবির আবাসিক হল খুলছে আজ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : শিক্ষার্থীদের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত বছরের ২০ মার্চ থেকে বন্ধ রাখা হয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) হল। আজ (৫ অক্টোবর) থেকে শর্ত সাপেক্ষে শিক্ষার্থীদের জন্য হল খুলে দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নিতে এরই মধ্যে শেষ করা হয়েছে সব ধরনের প্রস্তুতি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অনার্স ৪র্থ বর্ষ এবং মাস্টার্স-এর যেসব আবাসিক শিক্ষার্থী অন্তত করোনার প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছে, তারা স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে টিকা গ্রহণের কার্ড/সনদ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈধ পরিচয়পত্র সংশ্লিষ্ট হল কর্তৃপক্ষকে দেখিয়ে আজ সকাল ৮টা থেকে থেকে নিজ নিজ হলে উঠতে পারবেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সকাল ১০টায় বিজয় একাত্তর হল এবং সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব হল পরিদর্শন করবেন। সকাল ৮টায় হল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের ফুল, চকলেট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো সংবলিত মাস্ক দিয়ে বরণ করে নেবেন।

তবে পাঁচ দিনের জন্য পুরো মাসের বাসাভাড়া না দেওয়ার যুক্তি দিয়ে এরই মধ্যে বিভিন্ন হলে উঠেছেন শিক্ষার্থীদের কেউ কেউ। গত শুক্রবার অমর একুশে হলের তালা ভেঙে হলে উঠেছেন শিক্ষার্থীরা। বিজয় একাত্তর হল আর মেয়েদের পাঁচটি হল ছাড়া বাকি সব হলেই আগে থেকে হলে অবস্থান করছিল। শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটি এসব শিক্ষার্থীকে চিহ্নিত করতে তদন্ত কমিটি এবং অবৈধভাবে বিভিন্ন হলে অবস্থানকারীদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়ার সুপারিশ করেছে।

আবাসিক হল ব্যবহারে বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনাসমূহ

১। কক্ষের বাইরে আসলে সবাইকে বাধ্যতামূলকভাবে নিয়মিত ও সার্বক্ষণিক সঠিক নিয়মে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক পরিধান করতে হবে।

২। স্বাস্থ্যবিধি পালনের জন্য সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

৩। স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী পরস্পরের কাছ থেকে কমপক্ষে ১ মিটার (৩ ফুট) শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

৪। কোনো কক্ষের মেঝেতে শোয়া যাবে না, এক বিছানায় একাধিক ব্যক্তি শোয়া যাবে না। কেবলমাত্র আবাসিক ও দ্বৈতাবাসিক শিক্ষার্থীরা হলে অবস্থান করতে পারবে। কোনো বহিরাগত বা বাহির থেকে আসা কাউকে কক্ষে অবস্থান করতে দেয়া যাবে না।

৫। প্রয়োজন সাপেক্ষে কক্ষে এবং কক্ষের বাহিরে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

৬। শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ কক্ষ এবং কক্ষের প্রয়োজনীয় আশপাশে সবসময় নিজ দায়িত্বে পরিষ্কার-পরিজ্ঞা রাখতে হবে এবং এক্ষেত্রে হল প্রশাসন সহযোগিতা করবে।

৭। হল ডাইনিং, ক্যান্টিন, মেস, দোকান, সেলুন, রিডিংরুম, অডিটোরিয়াম, টিভিরুম, অতিথিকক্ষ, পাঠাগার, মসজিদ ও উপাসনালয়ে ভিড় করা যাবে না। শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব বিধি অনুসরণ এবং মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। ডাইনিং-এ পালাক্রমে খাবার খেতে হবে।

৮। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত অভিথিকক্ষে শিক্ষার্থীদের সমাবেশ বন্ধ রাখতে হবে। বেড়াতে ও ঘুরতে যাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে এবং সভা-সমাবেশ, রেস্তোরাঁ, পার্টি ও গণপরিবহন এড়িয়ে চলতে হবে।

আলিম পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর শুরু
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আগামী আলিম পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর থেকে সারাদেশে শুরু হতে যাচ্ছে। হবে। রোববার (৩ অক্টোবর) পরীক্ষার সূচি দিয়েছে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড। পরীক্ষা চলবে ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. কামাল উদ্দিন পরীক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ সুরক্ষায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে আলিম পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রকাশিত সূচি অনুযায়ী, প্রথম দিনে কুরআন মাজিদ বিষয়ের পরীক্ষা হবে। সকাল ১০টায থেকে ১১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পরীক্ষা হবে। প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। দুই অংশের পরীক্ষার মধ্যে কোনো বিরতি থাকবে না।

প্রসঙ্গত, করোনা মহামারির কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা আলিম পরীক্ষা আগামী ২ ডিসেম্বরে সশরীরে নেওয়া হবে। পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে হবে।

আজ থেকে নতুন রুটিনে প্রাথমিকের ক্লাস
                                  

অনলাইন ডেস্ক : আজ শনিবার থেকে সপ্তাহে দুই দিন করে শুরু হচ্ছে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ক্লাস।আগে এসব শ্রেণিতে ক্লাস হয়েছে সপ্তাহে এক দিন করে।

অষ্টম ও নবম শ্রেণির পর প্রাথমিকের জন্য এ সিদ্ধান্ত নিয়ে গত বুধবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর নতুন সময়সূচি প্রকাশ করেছে।

নতুন সময়সূচি অনুযায়ী, তৃতীয় শ্রেণির ক্লাস রবি ও বৃহস্পতিবার এবং চতুর্থ শ্রেণির ক্লাস শনি ও বুধবার অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া মঙ্গলবার প্রথম শ্রেণি ও সোমবার দ্বিতীয় শ্রেণির ক্লাস অনুষ্ঠিত হবে। আর আগের মতোই প্রতিদিন হবে পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস।

পঞ্চম শ্রেণির ক্লাসগুলো হবে মধ্যাহ্নবিরতির পর। আর মধ্যাহ্নবিরতির আগে হবে বাকি শ্রেণির ক্লাস। মধ্যাহ্নবিরতির সময় শ্রেণিকক্ষের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করতে হবে। তবে শিশুশ্রেণি, নার্সারি ও কেজি শ্রেণির মতো প্রাক্‌-প্রাথমিক স্তরের শ্রেণিকক্ষের ক্লাস আপাতত বন্ধই থাকছে।

করোনায় দীর্ঘ দেড় বছর বন্ধ থাকার পর গত ১২ সেপ্টেম্বর প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়েছে।

২১ অক্টোবর খুলছে জাবির আবাসিক হল
                                  

মহমারি করোনার কারণে প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সব আবাসিক হল আগামী ২১ অক্টোবর থেকে খুলে দেওয়ার সুপারিশ করেছে শিক্ষা পর্ষদ। তবে হলে উঠতে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে করোনাভাইরাসের অন্তত এক ডোজ টিকা নিতে হবে। এবং যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা পর্ষদের সভায় এ সুপারিশ করা হয়েছে বলে সভা শেষে জানান প্রাধ্যক্ষ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোহা. মুজিবুর রহমান।

আগামী ২ অক্টোবরের সিন্ডিকেট সভায় হল খোলার এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হবে।

অধ্যাপক মোহা. মুজিবুর রহমান বলেন, সভায় শিক্ষকেরা পূজার ছুটি শেষে আবাসিক হল খুলে দেওয়ার ব্যাপারে মত দেন। সে কারণে ২১ অক্টোবর হল খুলে দেওয়া হবে বলে সুপারিশ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা করোনাভাইরাসের টিকার একটি ডোজের সনদ দেখিয়ে হলে প্রবেশ করতে পারবেন।

যেসব শিক্ষার্থী করোনার টিকার জন্য নিবন্ধন করে এখনও এসএমএস পাননি, তাদের এসএমএস ছাড়াই টিকা দেওয়ার বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম যোগাযোগ করবেন বলেও তিনি জানান।

অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেন, হল খোলার পর ১৪ দিন হলে থেকে অনলাইনে শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। তবে প্রয়োজনে হলের বাইরে যেতে পারবেন তারা।

তিনি আরও জানান, ২১ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুললেও পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে আরও কিছুদিন পরে অভ্যন্তরীণ দোকানপাট খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাফেটেরিয়ায় সকাল-সন্ধ্যা খাবারের ব্যবস্থা থাকবে। শিক্ষার্থীরা সেখান থেকে খাবার নিয়ে হলে গিয়ে খেতে পারবেন। এছাড়া হলের ডাইনিং ও ক্যান্টিন চালু থাকবে।

এদিকে করোনাভাইরাসের কারণে গত প্রায় ১৮ মাস বন্ধ থাকা হলের ফি এরইমধ্যে অনেক শিক্ষার্থী পরিশোধ করায় আগামী ১৮ মাসের হল ফি মওকুফ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন অধ্যাপক মুজিবুর রহমান।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, অনেক শিক্ষার্থী হলের সিটভাড়া দিয়েছে। তাদের সে টাকা ফেরত দেওয়ার জটিলতার কারণে সবার আগামী ১৮ মাসের সিটভাড়া মওকুফ করা হয়েছে।

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার চূড়ান্ত রুটিন প্রকাশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার চূড়ান্ত সময়সূচি প্রকাশ করা হয়েছে।

আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে এসএসসি এবং ২ ডিসেম্বর থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে।

আজ সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ দুই পরীক্ষার সূচি চূড়ান্ত করে প্রকাশ করেছে।

এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে শুধু নৈর্বাচনিক বিষয়ে। অন্যান্য আবশ্যিক বিষয়ে আগের পাবলিক পরীক্ষার সাবজেক্ট ম্যাপিং করে মূল্যায়নের মাধ্যমে নম্বর দেয়া হবে।

চতুর্থ বিষয়েরও পরীক্ষা নেয়া হবে না। নির্ধারিত দিনে সকাল ১০টা থেকে ১১টা ৩০ মিনিট এবং ২টা থেকে ৩টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

আন্তশিক্ষা বোর্ডের সমন্বয়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, ১৪ নভেম্বর থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে, চলবে ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত। করোনার এ সময়ে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেয়া হবে।

এর আগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের দাখিল পরীক্ষা রুটিন প্রকাশ করে। এ পরীক্ষাও শুরু হবে ১৪ নভেম্বর থেকে, চলবে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত।

অবশেষে খুললো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষ এবং মাস্টার্সের শিক্ষার্থীদের জন্য খুলেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগার। রোববার সকাল দশটা থেকে গ্রন্থাগার খুলে দেওয়ার পর ফটকে অন্তত এক ডোজ করোনা টিকার প্রমাণপত্র ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয়পত্র দেখিয়ে গ্রন্থাগারে প্রবেশ করতে পারছেন শিক্ষার্থীরা আগামী ৫ অক্টোবর খুলে দেওয়া হবে আবাসিক হল।

প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটি ও একাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশ অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে গত ১৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের এক জরুরি সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভা শেষে জানানো হয়, অনার্স চতুর্থ বর্ষ এবং মাস্টার্সের যেসব শিক্ষার্থী কোভিড-১৯-এর অন্তত প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন, তাঁরা স্বাস্থ্যবিধি এবং অন্যান্য প্রক্রিয়া অনুসরণ করে গ্রন্থাগার ব্যবহার এবং নিজ নিজ হলে উঠতে পারবেন। তবে অবশ্যই শিক্ষার্থীদের টিকা গ্রহণের কার্ড/সনদ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈধ পরিচয়পত্র সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দেখাতে হবে।

শিক্ষার্থীরা আজ সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, বিজ্ঞান গ্রন্থাগার ও বিভাগীয়/ইনস্টিটিউটের সেমিনার লাইব্রেরি ব্যবহার করতে পারবেন।

অপরদিকে, আবাসিক শিক্ষার্থীরা আগামী ৫ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে নিজ নিজ হলে উঠতে পারবেন। শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সেবা প্রদানকারী কর্মকর্তা/কর্মচারীদেরও টিকা গ্রহণের সনদ/প্রমাণপত্র সঙ্গে রাখতে হবে।

সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বাস্থ্য বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি আবাসিক হল ও একাডেমিক ভবনের দৃশ্যমান জায়গায় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের নির্দেশিকা সম্বলিত ব্যানার/ফেস্টুন থাকবে।স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুধু নিয়মিত আবাসিক শিক্ষার্থীরা হলে অবস্থান করবেন। সভায় হল ও ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে ক্রিয়াশীল ছাত্র সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা প্রত্যাশা করা হয়।

প্রশাসন থেকে জানানো হয়,বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা মেডিকেল সেন্টারে টিকা প্রদান কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যেসব শিক্ষার্থী এখনও টিকার জন্য নিবন্ধন করেননি, তাঁদের জাতীয় পরিচয়পত্র/জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিবন্ধনের আওতায় এসে টিকা গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে।

কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা কবে?
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনার কারণে আটকে থাকা ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের অনার্স প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা নিতে যাচ্ছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। গত বছরের মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। পরে পরীক্ষার্থীদের ‘অটোপাস’ দিয়ে এইচএসসির ফল প্রকাশ করে সরকার।


দীর্ঘ এক বছরের বেশি সময়ের পর করোনার প্রকোপ কমে আসায় ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি ঘোষণা করেছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। এরইমধ্যে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে গত ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ভর্তির কার্যক্রমও শুরু করে দিয়েছে। আজ (শনিবার) ৬০ আসনের বিপরীতে ভর্তি পরীক্ষা নিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় করোনার কারণে এবার প্রথমবারের মতো ক্যাম্পাসের বাইরে বিভাগীয় শহরগুলোতে ভর্তি পরীক্ষা নিচ্ছে। ‘ক’ ইউনিট দিয়ে ৮টি বিভাগীয় শহরে এই পরীক্ষা ১ অক্টোবর শুরু হবে। এরপর ২ অক্টোবর ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা হবে, ২২ অক্টোবর ‘গ’ ইউনিটের, ২৩ অক্টোবর ‘ঘ’ ইউনিটের এবং ৯ অক্টোবর ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা হবে। আর ব্যবসায় প্রশাসন ইন্সটিটিউটের (আইবিএ) ভর্তি পরীক্ষা হবে ১১ অক্টোবর। ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য (https://admission.eis.du.ac.bd) ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

অন্যদিকে দেশে প্রথমবারের মতো গুচ্ছপদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা হতে যাওয়া ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের। ১৭ অক্টোবর ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে শুরু হচ্ছে এই গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা, এরপর ২৪ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিট এবং ১ নভেম্বর ‘সি’ ইউনিটের পরীক্ষা হবে। এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য (https://gstadmission.ac.bd/) ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

গুচ্ছভুক্ত ২০টি বিশ্ববিদ্যালয় হলো- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা ২০ ও ২১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। সেই পরীক্ষা থেকে বাছাই করা শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের চূড়ান্ত পরীক্ষা হবে ৬ নভেম্বর। পরীক্ষা সংক্রান্ত তথ্য (http://ugadmission.buet.ac.bd/) এই ঠিকানায় জানা যাবে।

এদিকে চট্টগ্রাম, খুলনা ও রাজশাহীর প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা ১২ আগস্ট নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে সেই তারিখে পরীক্ষা নেওয়া যায়নি। স্থগিত করা হয়। ১৩ নভেম্বর ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের পরীক্ষার পাশাপাশি ‘মুক্তহস্ত অংকন’ পরীক্ষা নেওয়া হবে। এই পরীক্ষার তথ্য পাওয়া যাবে (https://admissionckruet.ac.bd/) ওয়েবসাইটে।

অন্যদিকে কৃষি বিজ্ঞান বিষয়ে ডিগ্রি প্রদানকারী ৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা ২৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা সংক্রান্ত তথ্য (https://admission-agri.org/) ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

গুচ্ছভুক্ত সাত কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হলো- বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় এবং খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

এদিকে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ২০টি গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষায়ও থাকছে। এ বিষয়ে জানা গেছে, কৃষি সংক্রান্ত বিষয়গুলোর শিক্ষার্থী নেওয়া হবে কৃষি গুচ্ছ পরীক্ষা থেকে, আর বিবিএ এবং সিএসইর শিক্ষার্থী নেওয়া হবে ২০ গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা থেকে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৭ ও ২৮ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিট, ২৯ অক্টোবর ‘সি’ ইউনিট, ৩০ ও ৩১ অক্টোবর ‘ডি’ ইউনিট এবং ১ ও ২ নভেম্বর ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে। এ ছাড়া ‘বি-১’ ও ‘ডি-১’ ইউনিটের পরীক্ষা ৫ নভেম্বর নেওয়া হবে। ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত পাওয়া যাবে (https://admission.cu.ac.bd/) এই ঠিকানায়।

৪ অক্টোবর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘সি’ ইউনিটের (বিজ্ঞান), ৫ অক্টোবর ‘এ’ ইউনিটের (মানবিক), ৬ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিটের (বাণিজ্য) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন তিন ধাপে এই পরীক্ষা নেওয়া হবে। পরীক্ষার সব তথ্য (https://admission.ru.ac.bd/undergraduate/) এই ঠিকানায় পাওয়া যাবে।

এদিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি অনুষদের পরীক্ষা গত ৪ ও ৫ জুন বিভাগীয় শহর ঢাকা, চট্টগ্রাম, রংপুর ও খুলনায় নেওয়ার কথা থাকলেও স্থগিত করা হয়। ১৯ ও ২০ নভেম্বর এই পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে এখনো চূড়ান্ত হয়নি। পরীক্ষার সূচি পুনর্নির্ধারণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি সংক্রান্ত ওয়েবসাইটে (https://applyonline.bsmrmu.edu.bd/Admission/Home) জানানো হবে।

অন্যদিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০টি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৭ নভেম্বর থেকে ১৮ নভেম্বরের মধ্যে নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তারিখ চূড়ান্ত করে জানানো হবে (https://juniv-admission.org/) এই ওয়েবসাইটে।

বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে পারে। এর আগে ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

এ ছাড়া গাজীপুরের ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯টি বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে ১২টা এবং দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত দুই শিফটে এই পরীক্ষা নেওয়া হবে।

দুদিন করে ক্লাস হবে তৃতীয়-চতুর্থ শ্রেণিতে
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী সপ্তাহ থেকে প্রাথমিক স্তরের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ক্লাস সপ্তাহে দুই দিন করে হবে। এখন সপ্তাহে এক দিন করে ক্লাস নেওয়া হয় প্রাথমিকের এই দুই শ্রেণিতে। এ বিষয়ে শিগগিরই নির্দেশনা জারি করা হবে বলে মঙ্গলবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে জানা গেছে।

এর আগে গত সোমবার থেকে মাধ্যমিকের অষ্টম ও নবম শ্রেণির ক্লাস এক দিন করে বাড়িয়ে সপ্তাহে দুই দিন করা হয়। তখন থেকেই প্রাথমিক স্তরের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ক্লাসও এক দিন করে বাড়ানোর চিন্তা করা হচ্ছিল।

গত ১২ সেপ্টেম্বর প্রাথমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়। এখন চলতি বছরের ও আগামী বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। আর অন্যান্য শ্রেণির ক্লাস সপ্তাহে এক দিন করে হচ্ছে।

এদিকে প্রাক-প্রাথমিক স্তরের শ্রেণিকক্ষের ক্লাস আপাতত বন্ধ রয়েছে।

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু ১৭ অক্টোবর
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে ১৭ অক্টোবর। শেষ হবে ১ নভেম্বর। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সভা করে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভর্তি কমিটি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন গুচ্ছভুক্ত ভর্তি পরীক্ষার টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর।

তিনি বলেন, ভর্তি কমিটির সভায় ‘ক’ ইউনিটের পরীক্ষা ১৭ অক্টোবর, ‘খ’ ইউনিটের ২৪ অক্টোবর এবং ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা ১ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে ২৫ আগস্ট গুচ্ছভুক্ত এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদনের ফল প্রকাশ করা হয়। তবে মোট তিন ইউনিটের প্রায় ৯৪ হাজার শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদন করেননি।

বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগে চূড়ান্ত আবেদন জমা পড়েছে দুই লাখ তিন হাজার ৫১৪টি। এর মধ্যে বিজ্ঞানে জমা পড়েছে এক লাখ দুই হাজার ৯৬০টি। আর মানবিকে ৬৭ হাজার ১১৭টি এবং বাণিজ্যে ৩৩ হাজার ৪৩৭টি। এ কারণে তৃতীয় ধাপে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের আবেদন করার সুযোগ দেওয়া হয়। ১৩ সেপ্টেম্বর আবেদন শুরু হয়ে শেষ হয় ২০ সেপ্টেম্বর। এতে বিজ্ঞান বিভাগে প্রায় এক লাখ ৩২ হাজারের মতো নতুন আবেদন জমা পড়ে।

গুচ্ছভুক্ত ২৭ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে। আর ২০টিতে আয়োজন করা হবে মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা।

৫ অক্টোবরই খুলছে ঢাবির হল
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্সের শিক্ষার্থীদের জন্য আগামী ৫ অক্টোবর থেকে আবাসিক হল খুলে দেওয়া হবে। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এছাড়া ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগার খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অনার্স চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্সের যেসব শিক্ষার্থী অন্তত কোভিড-১৯ এর প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন তারা স্বাস্থ্যবিধি ও স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর মেনে টিকাকার্ড বা সনদ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈধ পরিচয়পত্র সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দেখিয়ে গ্রন্থাগার ব্যবহার ও নিজ নিজ হলে উঠতে পারবে।

প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটি ও একাডেমিক কাউন্সিলের সুপারিশ অনুযায়ী এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীরা ২৬ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা হতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, বিজ্ঞান গ্রন্থাগার ও বিভাগ বা ইনস্টিটিউটের সেমিনার লাইব্রেরিগুলো ব্যবহার করতে পারবে। সংশ্লিষ্ট আবাসিক শিক্ষার্থীরা ৫ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে নিজ নিজ হলে উঠতে পারবে। শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন সেবাদানকারী কর্মকর্তা বা কর্মচারীদেরও টিকা নেওয়ার সনদ বা প্রমাণপত্র সঙ্গে রাখতে বলা হয়েছে।

আরও বলা হয়, সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, স্বাস্থ্যবিষয়ক সচেতনতা বাড়াতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি আবাসিক হল ও একাডেমিক ভবনের দৃশ্যমান জায়গায় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণের নির্দেশিকা সম্বলিত ব্যানার/ফেস্টুন থাকবে। টিকা নেওয়া সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে অনার্স প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য নিজ নিজ আবাসিক হল খুলে দেওয়া হবে। আবাসিক হলগুলোতে আগের মতো ঠাসাঠাসি করে বসবাস ও কথিত কোনো ‘গণরুম’ রাখা যাবে না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুধুমাত্র নিয়মিত আবাসিক শিক্ষার্থীরা হলে অবস্থান করবে। সভায় হল ও ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে ক্রিয়াশীল ছাত্র সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।

শতভাগ শিক্ষার্থী টিকার আওতায় আসার পর সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রম শুরু হওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শতভাগ শিক্ষার্থী টিকা কার্যক্রমের আওতায় আসার পর সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রমের তারিখ নির্ধারণ করা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা মেডিকেল সেন্টারে টিকাদান কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যেসব শিক্ষার্থী এখনও টিকার নিবন্ধন করেননি, তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিবন্ধনের আওতায় এসে টিকা নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

অনিয়মিত হয়ে পড়া শিক্ষার্থীকে দিতে হবে না বকেয়া টিউশন ফি
                                  

অনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরিস্থিতিতে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন অনেক শিক্ষার্থী। স্কুল খোলার খবরে পুনরায় ভর্তি হতে গিয়ে তাদের অনেকেই পড়েছে বিড়ম্বনায়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে তাদের বলা হচ্ছে, টিউশন ফির বকেয়া পরিশোধ করেই ভর্তি হতে হবে তাদের।

রাজধানীর মিরপুরের স্বনামধন্য এক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী মাহফুজ আহমেদ। তার বাবা জানান, করোনার কারণে তার পরিবার দীর্ঘদিন গ্রামে ছিল। সেখানে নানান সমস্যার কারণে মাহফুজ পড়াশোনায় অনিয়মিত হয়ে পড়ে। এখন স্কুল খোলার ঘোষণায় ঢাকায় এসে আবারও ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হতে চাইলে প্রতিষ্ঠান থেকে জানানো হয়, ভর্তি হতে চাইলে আগের বকেয়া পরিশোধ করে ভর্তি হতে হবে।

এ অবস্থায় বকেয়া পরিশোধে অপারগতা জানিয়ে তিনি শিক্ষা অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন।

এমন সমস্যায় পড়েছে মাহফুজের মতো আরও অনেক শিক্ষার্থী, যারা কোনো কারণে অনিয়মিত হয়ে পড়েছে। তাদের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান থেকে বলা হয়েছে, বকেয়া টিউশন ফি পরিশোধ করতে। ভর্তি জটিলতার এমন একাধিক অভিযোগ শিক্ষা অধিদপ্তরে জমা পড়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, এ ধরনের অভিযোগ আমাদের কাছেও এসেছে। যারা অনিয়মিত হয়ে পড়েছে তাদের জন্য ভর্তির দরজা খোলা থাকবে৷ যে শিক্ষার্থী যেদিন থেকে ভর্তি হবে, সেদিন থেকেই তার টিউশন ফি কার্যকর হবে। আগের বকেয়া শিক্ষার্থীদের পরিশোধ করতে হবে না। আমরা সার্বিক বিষয়ে পর্যালোচনা করে খুব শিগগির এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করবো।

গত বছরের ৮ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব শনাক্ত হয়। ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর তথ্য জানায় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। মারণ ভাইরাসটির বিস্তার রোধে ওই বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। এরপর সংক্রমণ পরিস্থিতির বিশেষ উন্নতি না হওয়ায় দফায় দফায় ছুটি বাড়ানো হয়। চলতি বছরের শুরুর দিকে সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলে কয়েক দফা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রস্তুতি নিলেও শেষ পর্যন্ত তা সম্ভব হয়ে ওঠেনি।

তবে সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি ঘটলে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তথা প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে খুলে দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানান।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষা শুরু ৮ সেপ্টেম্বর
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : কোভিড-১৯ মহামারির কারণে স্থগিত হওয়া জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষাসমূহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ৮ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. ফয়জুল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৮ সালের মাস্টার্স ফাইনাল পরীক্ষা, ১১ সেপ্টেম্বর থেকে ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষা শুরু
হবে। এছাড়া অন্যান্য প্রফেশনাল পরীক্ষা নির্ধারিত তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। সব পরীক্ষার সংশোধিত সময়সূচি
বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে www.nu.ac.bd প্রকাশ করা হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পরীক্ষা চলাকালীন ৩ ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে কেন্দ্রে আসন বিন্যাস করার জন্য সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে অনুসরণ করে যথাসময়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।


   Page 1 of 29
     শিক্ষাঙ্গন
পিইসি ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা হচ্ছে না
.............................................................................................
গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা কাল
.............................................................................................
এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র তালিকা প্রকাশ
.............................................................................................
দেড় বছর পর খুলল ঢাবির আবাসিক হল
.............................................................................................
ঢাবির আবাসিক হল খুলছে আজ
.............................................................................................
আলিম পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর শুরু
.............................................................................................
আজ থেকে নতুন রুটিনে প্রাথমিকের ক্লাস
.............................................................................................
২১ অক্টোবর খুলছে জাবির আবাসিক হল
.............................................................................................
এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার চূড়ান্ত রুটিন প্রকাশ
.............................................................................................
অবশেষে খুললো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগার
.............................................................................................
কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা কবে?
.............................................................................................
দুদিন করে ক্লাস হবে তৃতীয়-চতুর্থ শ্রেণিতে
.............................................................................................
গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু ১৭ অক্টোবর
.............................................................................................
৫ অক্টোবরই খুলছে ঢাবির হল
.............................................................................................
অনিয়মিত হয়ে পড়া শিক্ষার্থীকে দিতে হবে না বকেয়া টিউশন ফি
.............................................................................................
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষা শুরু ৮ সেপ্টেম্বর
.............................................................................................
সশরীরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে
.............................................................................................
ধাপে ধাপে খুলছে বিশ্ববিদ্যালয়
.............................................................................................
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত
.............................................................................................
এইচএসসি-আলিমের ফরম পূরণ শুরু
.............................................................................................
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
ভিকারুননিসার অধ্যক্ষের ফোনালাপের ঘটনায় তদন্ত কমিটি
.............................................................................................
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকে ভর্তি আবেদন শুরু
.............................................................................................
এসএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ
.............................................................................................
এসএসসি-এইচএসসিতে অটোপাস না পরীক্ষা, ঘোষণা চলতি সপ্তাহে
.............................................................................................
বিকল্প মূল্যায়নে এসএসসি-এইচএসসির ফল
.............................................................................................
টিকার তথ্য দিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনা
.............................................................................................
ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে
.............................................................................................
এসএসসি-এইচএসসি : বিকল্প পদ্ধতির ঘোষণা ঈদের পর
.............................................................................................
ঢাবি-জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থাকলেও টিকার তালিকায় নেই সাত কলেজ
.............................................................................................
এইচএসসির ফরম পূরণ স্থগিত
.............................................................................................
আবারও ছুটি বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের
.............................................................................................
এইচএসসির ফরম পূরণের সময় পরিবর্তন
.............................................................................................
এইচএসসির ফরম পূরণ শুরু ২৭ জুন
.............................................................................................
বেশকিছু পরিবর্তন আসছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে
.............................................................................................
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ল ৩০ জুন পর্যন্ত
.............................................................................................
গুচ্ছভর্তি পরীক্ষা স্থগিত
.............................................................................................
২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে পেছাচ্ছে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা
.............................................................................................
বেরোবির নতুন উপাচার্য হাসিবুর রশীদ
.............................................................................................
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত
.............................................................................................
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত
.............................................................................................
চার শর্তে খুলবে পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়
.............................................................................................
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে বাধা কাটল
.............................................................................................
এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ
.............................................................................................
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি বাড়লো ১২ জুন পর্যন্ত
.............................................................................................
ফের বাড়ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি
.............................................................................................
জুনে স্কুল-কলেজ খুলতে চায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়
.............................................................................................
দেশের চলমান কিন্ডারগার্টেন ও প্রার্থমিক বিদ্যালয়ের ছুটি বাড়ল
.............................................................................................
কওমি মাদ্রাসায় সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ রাখার নির্দেশ
.............................................................................................
বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সময় পেছাল
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop