| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * কক্সবাজারে ইয়াবা ও আগ্নেয়াস্ত্র সহ মাদক ব্যবসায়ী আটক   * স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ ৪০০ মণ আম ধ্বংস   * হুয়াওয়ের সাথে প্যানাসনিকের ব্যবসা স্থগিত   * বিজেপি এগিয়ে ৩৩৯ আসনে, কংগ্রেস ৯০   * ৩২ দলেই হবে কাতার বিশ্বকাপ   * সংগীতশিল্পী খালিদ হোসেনকে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা   * টিকিট নিয়ে বিভ্রান্তি, ভোগান্তিতে মানুষ   * গ্যাস সিলিন্ডার লিকেজ থেকে আগুন ধরে একই পরিবারের ৪ জন নিহত   * সঙ্গীতশিল্পী খালিদ হোসেনের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক   * মেক্সিকোতে অপরাধী চক্রের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১০  

   আইন শৃঙ্খলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
সৌম্য-মোসাদ্দেকের বিধ্বংসী ব্যাটিং-এ প্রথমবারের মত ত্রিদেশীয় সিরিজে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক : ওপেনার সৌম্য সরকারের ৪১ বলে ৬৬ ও মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেকের ২৪ বলে অপরাজিত ৫২ রানের সুবাদে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশ। গতরাতে টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে মাশরাফির দল। ফাইনাল ম্যাচ জয়ের জন্য বৃষ্টি আইনে ২৪ ওভারে ২১০ রানের বড় টার্গেট তাড়া করে সৌম্য-মোসাদ্দেকের বিধ্বংসী ব্যাটিং-এ ৭ বল বাকী রেখেই জয়ের স্বাদ নেয় টাইগাররা। নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে এই প্রথমবারের মত ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা জিতলো বাংলাদেশ।

ডাবলিনে অনুষ্ঠিত ৫০ ওভারের ম্যাচের ফাইনালে টস হেরে প্রথমে ফিল্ডিং বেছে নেয় বাংলাদেশ। ব্যাট হাতে নেমে ২০ দশমিক ১ ওভারে বিনা উইকেটে ১৩১ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরপর বৃষ্টির কারনে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। বৃষ্টির কারনে দীর্ঘক্ষণ খেলা বন্ধ থাকায় শেষ পর্যন্ত ফাইনাল ম্যাচটি ২৪ ওভারে নামিয়ে আনা হয়।

নির্ধারিত ২৪ ওভারে ১ উইকেটে ১৫২ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওপেনার শাই হোপ ৭৪ রান করে বাংলাদেশের স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজের বলে আউট হন। তার ৬৪ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ৩টি ছক্কা ছিলো।

তবে আরেক ওপেনার সুনীল অ্যামব্রিস ৬৯ ও ড্যারেন ব্রাভো ৩ রানে অপরাজিত থাকেন। অ্যামব্রিসের ৭৮ বলের ইনিংসে ৭টি চার ছিলো। ৪ ওভারে ২২ রানে ১ উইকেট নেন বাংলাদেশের মিরাজ।

বৃষ্টি আইনে ২৪ ওভারে জয়ের জন্য ২১০ রান, কঠিনই বটে বাংলাদেশের সামনে। ওয়ানডে খেলতে নেমে বৃষ্টি ঝামেলায় ব্যাটসম্যানদের টি-২০তে খেলতে হবে। তবে কঠিন কাজকে সাদরে গ্রহন করে ইনিংস শুরু করেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। প্রথম ২ ওভারে ১৬ রান তুলতে পারেন তারা। তবে তৃতীয় ওভারে ২টি চার ও ১টি ছক্কায় ১৭ রান আদায় করে নেন সৌম্য। আর এখান থেকেই শুরু হয় বাংলাদেশের সাহসী ব্যাটিং-এর নমুনা।

প্রথম ৩২ বল থেকে ৫৯ রান তুলে ফেলেন তামিম-সৌম্য। এরমধ্যে ২০ বলে ৩৯ রানই ছিলো সৌম্যর। ষষ্ঠ ওভারের তৃতীয় বলে তামিমকে থামিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথম সাফল্য এনে দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার শানন গ্যাব্রিয়েল। ২টি চারে ১৩ বলে ১৮ রান করেন তামিম।
ইনজুরির কারণে সাকিব খেলতে না পারায় তামিমের বিদায়ে প্রমোশন পেয়ে তিন নম্বরে ব্যাটিং করতে নামেন সাব্বির রহমান। কিন্তু সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। ২ বল মোকাবেলা করে শুন্য হাতে ফিরেন সাব্বির।

৬০ রানের মধ্যে তামিম-সাব্বিরকে হারালেও বাংলাদেশের রান চাকা ঘুড়ছিলো সৌম্যর ব্যাটে। ২৭ বলে হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। যা বাংলাদেশের পক্ষে চতুর্থ দ্রুত হাফ-সেঞ্চুরির রেকর্ড।
নিজের হাফ-সেঞ্চুরির পরও মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে ভালো একটি জুটি গড়ার চেষ্টা করেন সৌম্য। দু’জনের ব্যাটিং দৃঢ়তায় ১১তম ওভারেই শতরান পেয়ে যায় বাংলাদেশ। তবে এরপরই থেমে যান সৌম্য। ৯টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৪১ বলে ৬৬ রান করেন সৌম্য। মুশফিক-সৌম্য তৃতীয় উইকেটে ৩৩ বলে ৪৯ রান যোগ করেন।

এরপর দলের হাল ধরেন মুশফিক ও মোহাম্মদ মিথুন। আস্কিং রেটের সাথে পাল্লা দিয়েই রান তুলছিলেন তারা। তবে দু’জনের কেউই বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। দলীয় ১৩৪ রানে মুশফিক ও ১৪৩ রানে আউট হয়ে যান মিথুন। এতে লড়াই থেকে ছিটকে পড়ে বাংলাদেশ। মুশফিক ২টি করে চার-ছক্কায় ২২ বলে ৩৬ ও মিথুন ১৪ বলে ১৭ রান করেন।
১৫ দশমিক ৪ ওভারে দলীয় ১৪৩ রানে পঞ্চম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এ অবস্থায় জয়ের জন্য ৫০ বলে ৬৭ রান দরকার ছিলো বাংলাদেশের। আস্কিং রেট ছিলো আটের সামান্য উপরে। আর বাংলাদেশের রান তোলার গতি ছিলো ওভার প্রতি ৯ করে।

এমন পরিস্থিতিতে মাথা ঠান্ডা করে খেলতে থাকেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক। রানের তোলার চেয়ে উইকেট বাঁচানোই মূল লক্ষ্য তাদের। কারন এই জুটিই ছিলো বাংলাদেশের শেষ স্বীকৃত ব্যাটসম্যান। মাহমুদুল্লাহ-মোসাদ্দেকের সর্তকতায় ২১ ওভার শেষে আস্কিং রান রেট ৯ স্পর্শ করে ফেলে। অর্থাৎ শেষ ৩ ওভারে ২৭ রান দরকার পড়ে বাংলাদেশ। এমন অবস্থায় আর নিজেদের দমিয়ে রাখেননি মাহমুদুল্লাহ-মোসাদ্দেক।

২২তম ওভারে বিধ্বংসী রুপ নেন মোসাদ্দেক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাঁ-হাতি স্পিনার ফ্যাবিয়ান অ্যালেনের করা ঐ ওভার থেকে যথাক্রমে- ৬, ৬, ৪, ৬, ২ ও ১ রান নেন মোসাদ্দেক। অর্থাৎ ঐ ওভার থেকে ২৫ রান তুলে মাত্র ২০ বলে নিজের হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মোসাদ্দেক। বাংলাদেশের পক্ষে যা সবচেয়ে দ্রুত হাফ-সেঞ্চুরির রেকর্ড।

মোসাদ্দেকের এমন বিধ্বংসী রুপে জয়ের কাছে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। শেষ ২ ওভারে ২ রানের প্রয়োজন পড়লে ২৩তম ওভারের পঞ্চম বলে বাউন্ডারি মেরে দলকে লক্ষ্যে পৌঁছে দেন মাহমুদুুল্লাহ। শিরোপা জয়ের আনন্দে মেতে ওঠে বাংলাদেশ। মোসাদ্দেক ২টি চার ও ৫টি ছক্কায় ২৪ বলে অপরাজিত ৫২ ও মাহমুদুল্লাহ ২১ বলে অপরাজিত ১৯ রান করেন। ষষ্ঠ উইকেটে ৪৩ বলে অবিচ্ছিন্ন ৭০ রান যোগ করেন মাহমুদুল্লাহ-মোসাদ্দেক।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের গ্যাব্রিয়েল-রেইফার ২টি করে উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন বাংলাদেশের মোসাদ্দেক। সিরিজ সেরা হন ওয়েস্ট ইন্ডিজের শাই হোপ। পুরো টুর্নামেন্টে ২টি করে সেঞ্চুরি-হাফ-সেঞ্চুরিতে ৫ ইনিংসে ৪৭০ রান করেছেন হোপ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
ওয়েস্ট ইন্ডিজ : ১৫২/১, ২৪ ওভার (হোপ ৭৪, অ্যামব্রিস ৬৯*, মিরাজ ১/২২)।
বাংলাদেশ (বৃষ্টি আইনে টার্গেট ২৪ ওভারে ২১০ রান) : ২১৩/৫, ২২.৫ ওভার (সৌম্য ৬৬, মোসাদ্দেক ৫২*, রেইফার ২/২৩)।
ফল : বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : মোসাদ্দেক হোসেন (বাংলাদেশ)।
সিরিজ সেরা : শাই হোপ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।
বাসস

সৌম্য-মোসাদ্দেকের বিধ্বংসী ব্যাটিং-এ প্রথমবারের মত ত্রিদেশীয় সিরিজে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ওপেনার সৌম্য সরকারের ৪১ বলে ৬৬ ও মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেকের ২৪ বলে অপরাজিত ৫২ রানের সুবাদে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশ। গতরাতে টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে মাশরাফির দল। ফাইনাল ম্যাচ জয়ের জন্য বৃষ্টি আইনে ২৪ ওভারে ২১০ রানের বড় টার্গেট তাড়া করে সৌম্য-মোসাদ্দেকের বিধ্বংসী ব্যাটিং-এ ৭ বল বাকী রেখেই জয়ের স্বাদ নেয় টাইগাররা। নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে এই প্রথমবারের মত ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা জিতলো বাংলাদেশ।

ডাবলিনে অনুষ্ঠিত ৫০ ওভারের ম্যাচের ফাইনালে টস হেরে প্রথমে ফিল্ডিং বেছে নেয় বাংলাদেশ। ব্যাট হাতে নেমে ২০ দশমিক ১ ওভারে বিনা উইকেটে ১৩১ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরপর বৃষ্টির কারনে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। বৃষ্টির কারনে দীর্ঘক্ষণ খেলা বন্ধ থাকায় শেষ পর্যন্ত ফাইনাল ম্যাচটি ২৪ ওভারে নামিয়ে আনা হয়।

নির্ধারিত ২৪ ওভারে ১ উইকেটে ১৫২ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওপেনার শাই হোপ ৭৪ রান করে বাংলাদেশের স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজের বলে আউট হন। তার ৬৪ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ৩টি ছক্কা ছিলো।

তবে আরেক ওপেনার সুনীল অ্যামব্রিস ৬৯ ও ড্যারেন ব্রাভো ৩ রানে অপরাজিত থাকেন। অ্যামব্রিসের ৭৮ বলের ইনিংসে ৭টি চার ছিলো। ৪ ওভারে ২২ রানে ১ উইকেট নেন বাংলাদেশের মিরাজ।

বৃষ্টি আইনে ২৪ ওভারে জয়ের জন্য ২১০ রান, কঠিনই বটে বাংলাদেশের সামনে। ওয়ানডে খেলতে নেমে বৃষ্টি ঝামেলায় ব্যাটসম্যানদের টি-২০তে খেলতে হবে। তবে কঠিন কাজকে সাদরে গ্রহন করে ইনিংস শুরু করেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। প্রথম ২ ওভারে ১৬ রান তুলতে পারেন তারা। তবে তৃতীয় ওভারে ২টি চার ও ১টি ছক্কায় ১৭ রান আদায় করে নেন সৌম্য। আর এখান থেকেই শুরু হয় বাংলাদেশের সাহসী ব্যাটিং-এর নমুনা।

প্রথম ৩২ বল থেকে ৫৯ রান তুলে ফেলেন তামিম-সৌম্য। এরমধ্যে ২০ বলে ৩৯ রানই ছিলো সৌম্যর। ষষ্ঠ ওভারের তৃতীয় বলে তামিমকে থামিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথম সাফল্য এনে দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার শানন গ্যাব্রিয়েল। ২টি চারে ১৩ বলে ১৮ রান করেন তামিম।
ইনজুরির কারণে সাকিব খেলতে না পারায় তামিমের বিদায়ে প্রমোশন পেয়ে তিন নম্বরে ব্যাটিং করতে নামেন সাব্বির রহমান। কিন্তু সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। ২ বল মোকাবেলা করে শুন্য হাতে ফিরেন সাব্বির।

৬০ রানের মধ্যে তামিম-সাব্বিরকে হারালেও বাংলাদেশের রান চাকা ঘুড়ছিলো সৌম্যর ব্যাটে। ২৭ বলে হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। যা বাংলাদেশের পক্ষে চতুর্থ দ্রুত হাফ-সেঞ্চুরির রেকর্ড।
নিজের হাফ-সেঞ্চুরির পরও মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে ভালো একটি জুটি গড়ার চেষ্টা করেন সৌম্য। দু’জনের ব্যাটিং দৃঢ়তায় ১১তম ওভারেই শতরান পেয়ে যায় বাংলাদেশ। তবে এরপরই থেমে যান সৌম্য। ৯টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৪১ বলে ৬৬ রান করেন সৌম্য। মুশফিক-সৌম্য তৃতীয় উইকেটে ৩৩ বলে ৪৯ রান যোগ করেন।

এরপর দলের হাল ধরেন মুশফিক ও মোহাম্মদ মিথুন। আস্কিং রেটের সাথে পাল্লা দিয়েই রান তুলছিলেন তারা। তবে দু’জনের কেউই বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। দলীয় ১৩৪ রানে মুশফিক ও ১৪৩ রানে আউট হয়ে যান মিথুন। এতে লড়াই থেকে ছিটকে পড়ে বাংলাদেশ। মুশফিক ২টি করে চার-ছক্কায় ২২ বলে ৩৬ ও মিথুন ১৪ বলে ১৭ রান করেন।
১৫ দশমিক ৪ ওভারে দলীয় ১৪৩ রানে পঞ্চম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এ অবস্থায় জয়ের জন্য ৫০ বলে ৬৭ রান দরকার ছিলো বাংলাদেশের। আস্কিং রেট ছিলো আটের সামান্য উপরে। আর বাংলাদেশের রান তোলার গতি ছিলো ওভার প্রতি ৯ করে।

এমন পরিস্থিতিতে মাথা ঠান্ডা করে খেলতে থাকেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক। রানের তোলার চেয়ে উইকেট বাঁচানোই মূল লক্ষ্য তাদের। কারন এই জুটিই ছিলো বাংলাদেশের শেষ স্বীকৃত ব্যাটসম্যান। মাহমুদুল্লাহ-মোসাদ্দেকের সর্তকতায় ২১ ওভার শেষে আস্কিং রান রেট ৯ স্পর্শ করে ফেলে। অর্থাৎ শেষ ৩ ওভারে ২৭ রান দরকার পড়ে বাংলাদেশ। এমন অবস্থায় আর নিজেদের দমিয়ে রাখেননি মাহমুদুল্লাহ-মোসাদ্দেক।

২২তম ওভারে বিধ্বংসী রুপ নেন মোসাদ্দেক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাঁ-হাতি স্পিনার ফ্যাবিয়ান অ্যালেনের করা ঐ ওভার থেকে যথাক্রমে- ৬, ৬, ৪, ৬, ২ ও ১ রান নেন মোসাদ্দেক। অর্থাৎ ঐ ওভার থেকে ২৫ রান তুলে মাত্র ২০ বলে নিজের হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মোসাদ্দেক। বাংলাদেশের পক্ষে যা সবচেয়ে দ্রুত হাফ-সেঞ্চুরির রেকর্ড।

মোসাদ্দেকের এমন বিধ্বংসী রুপে জয়ের কাছে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। শেষ ২ ওভারে ২ রানের প্রয়োজন পড়লে ২৩তম ওভারের পঞ্চম বলে বাউন্ডারি মেরে দলকে লক্ষ্যে পৌঁছে দেন মাহমুদুুল্লাহ। শিরোপা জয়ের আনন্দে মেতে ওঠে বাংলাদেশ। মোসাদ্দেক ২টি চার ও ৫টি ছক্কায় ২৪ বলে অপরাজিত ৫২ ও মাহমুদুল্লাহ ২১ বলে অপরাজিত ১৯ রান করেন। ষষ্ঠ উইকেটে ৪৩ বলে অবিচ্ছিন্ন ৭০ রান যোগ করেন মাহমুদুল্লাহ-মোসাদ্দেক।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের গ্যাব্রিয়েল-রেইফার ২টি করে উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন বাংলাদেশের মোসাদ্দেক। সিরিজ সেরা হন ওয়েস্ট ইন্ডিজের শাই হোপ। পুরো টুর্নামেন্টে ২টি করে সেঞ্চুরি-হাফ-সেঞ্চুরিতে ৫ ইনিংসে ৪৭০ রান করেছেন হোপ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
ওয়েস্ট ইন্ডিজ : ১৫২/১, ২৪ ওভার (হোপ ৭৪, অ্যামব্রিস ৬৯*, মিরাজ ১/২২)।
বাংলাদেশ (বৃষ্টি আইনে টার্গেট ২৪ ওভারে ২১০ রান) : ২১৩/৫, ২২.৫ ওভার (সৌম্য ৬৬, মোসাদ্দেক ৫২*, রেইফার ২/২৩)।
ফল : বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : মোসাদ্দেক হোসেন (বাংলাদেশ)।
সিরিজ সেরা : শাই হোপ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।
বাসস

দক্ষ ও অভিজ্ঞতার অনন্য প্রতীক কক্সবাজারের জেল সুপার বজলুর রশীদ আখন্দ
                                  

মোহাঃ আবু সায়েম, কক্সবাজার : বজলুর রশীদ আখন্দ! কক্সবাজারে জেল সুপার হিসেবে কর্মরত আছেন দীর্ঘ ৩ বছর। দীর্ঘ এই সময়ে কক্সবাজার জেলা কারাগারে লেগেছে কাঠামোগত ও অবকাঠামোগত বিভিন্ন রকমের উন্নয়নের ছোয়াঁ।

সুদক্ষ পরিচালনা, অভিজ্ঞতার বাস্তবিক জ্ঞান কাজে লাগিয়ে কক্সবাজার জেলা কারাগারে আজ উন্নয়নের মহাযজ্ঞ চলছে। ৩ বছর আগের পরিবেশ ও বর্তমান কারাগারের পরিবেশ চমৎকারভাবে পরিবর্তন সাধিত হয়েছে।

তথ্য মতে, ২০০১ সালে ২৭ মে কক্সবাজার জেলা কারাগারের সূচনা হয়েছিলো। বর্তমানে কক্সবাজার জেলা কারাগারে ধারণ ক্ষমতার প্রায় ৮ গুণ বন্দি রয়েছে। ১২ দশমিক ৮৬ একর আয়তনের জেলার এ কারাগারের ধারণ ক্ষমতা ৫৩০ জন। কিন্তু বর্তমানে এ কারাগারে অবস্থান করছেন ৪ হাজার ২৯৮ জন বন্দি। কারাভ্যন্তরের পরিমাণ ৪ দশমিক ৭৭ একর। সাধারণত কারাগারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ধারণ ক্ষমতার প্রেক্ষাপট অনুসারে, ৪৯৬ জন পুরুষ ও ৩৪ জন নারী বন্দি থাকার কথা। কিন্তু সে তুলনায় কারা কর্তৃপক্ষ ৮ গুণ বন্দি নিয়ে চরম বিপাকে রয়েছেন। জেল সুপার বজলুর রশীদ আখন্দ এমন একজন অভিজ্ঞ ও সুদক্ষ অফিসার নানা কৌশল অবলম্বন করে ,ধারণ ক্ষমতার প্রায় ৮গুণ বন্দিকে স্বা¯থ্যসম্মত রাখতে তারঁ চৌকস ও মেধাবী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রচন্ড গরমে ৫৩০ জন বন্দির স্থলে ৪২৯৮ জন বন্দিকে পুনর্বাসন করে তিনি পরম যত্নে আগলে রেখেছেন। যা সত্যি প্রশংসার দাবিদার। জেল সুপার তারঁ টিমকে সাথে নিয়ে কারাগারে শান্তি শৃংখলা সৃষ্টি, অসুস্থ বন্দিদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা, বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহ, উন্নতমানের খাবার পরিবেশণ, পায়ো নিষ্কাশন ব্যবস্থা অর্থাৎ সম্পূর্ণভাবে মানুষের মৌলিক চাহিদাসমূহকে বাস্তবায়ন করতে কাজ করছেন অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে।কারাগারে সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় সর্বোপরি।

মডেল কারাগারে বাস্তবে রুপ দিতে সততা ও ন্যায় নীতিকতার মাপকাঠিতে অবিচল থেকে তিনি তারঁ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সাথে নিয়ে কাজ করছেন জনকল্যাণে।

একজন সৎ ও প্রকৃত ব্যক্তির মাঝে যে সকল গুণ থাকা প্রয়োজন বজলুর রশীদ আখন্দের মাঝে সে সকল গুণ গুলোই বিদ্যমান রয়েছে। বলতে গেলে তিনি একজন আপাদমস্তক বহুগুণে গুনান্তিত মানুষ।কারাগারের উন্নয়নের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায়, বন্দি পুনর্বাসনের জন্য ৬ তলা বিশিষ্ট ভবন নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের দিকে। যা আগামী জুনে উদ্বোধন হবার কথা রয়েছে। এছাড়া, দর্শনার্থীদের জন্য আধুনিক ও সাউন্ড সিস্টেম অপেক্ষা ঘর নির্মাণ, মহিলা কয়েদিদের বাচ্চাদের জন্য শিশু পার্ক নির্মাণ সহ কাঠামোগত ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের কার্যক্রম বিদ্যমান র

য়েছে। তাছাড়া জেল সুপারের অনবদ্য প্রচেষ্টা ও সৃজনশীলতার মন মানসিকতার আরেক অনন্য উদাহরণ হচ্ছে, জেল সুপারের বাস ভবনকে ৪ তলা পর্যন্ত উর্দ্ধমুখী সম্প্রসারণের কাজ, দর্শনার্থীদের একত্রে ১০-১৫ জনের কথা বলার সাক্ষাতকারের ঘর সম্প্রসারণের নির্মাণ কাজ, কারা রান্না ঘর সম্প্রসারণ সংস্কার ও উন্নয়নের কার্যক্রম এবং প্রচন্ড গরমে কারাভ্যন্তরে প্রচুর ফ্যানের ব্যবস্থাকরণ সহ আরো বহুমুখী উন্নয়নের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে। অতি শীঘ্রই তা বাস্তবে রুপ দিতে কার্যক্রম হাতে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেল সুপার। সত্যিই জেল সুপারের যাবতীয় উন্নয়নের কর্মকান্ড প্রশংসার দাবিদার। সৃজনশীল ও রুচিশীল মন মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ।

উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি কক্সবাজার কারাগার পরিদর্শন করেন মানবাধিকার চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক। তিনি জেলের অভ্যন্তরে সুন্দর পরিপাটি পরিবেশ, দেয়ালে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, বিভিন্ন সামাজিক ও উন্নয়নমূলক কাজের দৃশ্যসহ সার্বিক পরিস্থিতি দেখে বিমোহিত ও সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশ পুলিশের আদর্শের অনন্য প্রতীক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোছাইন
                                  

মোহাঃ আবু সায়েমঃ ইকবাল হোছাইন!! অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) হিসেবে কক্সবাজারে কর্মরত আছেন। সম্প্রতি ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে কক্সবাজারে যোগদান করেছেন। যোগদানের ৬ মাসের মধ্যে কক্সবাজার জেলায় সামগ্রিক পরিবর্তন হয়েছে অবিস্মরণীয়। মেধাবী কার্যক্রমের মাধ্যমে আজ মাদক শূণ্যের কোটায়। সৃজনশীল কৌশল অবলম্বন করে কক্সবাজার জেলাকে মডেল জেলায় রুপান্তরে তিনি বদ্ধপরিকর। রাত দিন পরিশ্রম করে কক্সবাজার জেলার মানুষ যাতে শান্তিতে থাকতে পারে সেজন্য ৮ উপজেলার কর্মরত সকল পুলিশের সহায়তায় এবং তারঁ চৌকস পুলিশিং কার্যাবলির মাধ্যমে আজ কক্সবাজারের মানুষ স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছে। পুলিশ সম্পর্কে বেশির ভাগ মানুষ খারাপ ধারণা পোষণ করে।

কিন্তু ইকবাল হোছাইন এমন একজন মানুষ, শুধু নাম না, তারঁ প্রাত্যহিক কার্যাবলি প্রতিটি ইতিহাসের অংশ। নিজের ডিপার্টমেন্টের অনেক পুলিশ সদস্য তাকেঁ সৎ ও ন্যায় নীতিকতার আদর্শের প্রতীক হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন। সততা ন্যায় নীতিকতাকে সামনে রেখে মডেল কক্সবাজার রুপান্তর করতে কক্সবাজার জেলাকে নিরাপত্তার চাদরে আচ্ছাদিত রাখতে তারঁ ফোর্সকে প্রাত্যহিক অভিযান অব্যাহত রাখতে তাগদা দিয়ে থাকেনএবং মানুষের জন্য প্রত্যক্ষ সেবার দ্বার উন্মোচন করেছেন। কক্সবাজার জেলার মানুষ এমন একজন পুলিশ অফিসারকে পেয়েছে ,যার পিতা একজন মুক্তিযোদ্ধা। স্বাধীন বাংলাদেশ সৃষ্টি করতে যার বাবা মুক্তিযোদ্ধা করেছেন তারঁ ছেলে অবশ্যই অবশ্যই সোনার বাংলাদেশ গড়তে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন। কক্সবাজারের পুলিশিং কার্যক্রমকে এমনভাবে সাজিয়েছেন প্রত্যেকটি কার্যাবলিই সৃজনশীলতার বহিঃপ্রকাশ। তিনি এমন একজন অফিসার যিনি লোভ লালসাকে দূরে ঠেলে দিয়ে ইহকাল ও পরকালে যাতে শান্তি পেতে পেরেন , প্রবাদ আছে মানুষ বাচেঁ তারঁ কর্মের মধ্যে বয়সের মধ্যে নহে!সে প্রবাদ বাক্যকে বাস্তবে রুপ দিতে তিনিই তারঁ কর্মকান্ডে অবিচল আছেন। প্রকৃত মানুষ এবং ভালো মানুষ হিসেবে যাতে মানুষের মণিকোটায় স্থান নিতে পারেন সেজন্য সততা ও ন্যায় নীতিকতাকে সামনে রেখে আদর্শ শব্দটির যথার্থ লালন , পালন ,ধারণ এবং তারঁ কর্মকান্ডে বাস্তবায়ন করেছেন।সত্যিই কক্সবাজারের মানুষের কাছে তিনি খুবই জনপ্রিয়।

পুলিশিং কার্যক্রমে ফিরে আসছে শৃংখলা সবার মধ্যে সেবার মন মানসিকতা তৈরী হয়েছে আগাছা দূর করে সুন্দর, বাসযোগ্য, অধিকতর নিরাপদ এবং সর্বোপরি মডেল কক্সবাজার রুপান্তর করতে আজ তিনিই সফলতার দ্বার প্রান্তে । প্রিয় মানুষটির জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা।

প্রসঙ্গতঃ তরুণদের আদর্শের প্রতীক ইকবাল হোছাইন নরসিংদি জেলার মনোহরদী উপজেলার সিদিরপুর ইউনিয়নের পীরপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা শওকত আলী মাষ্টারের ৫ ভাই বোনের মধ্যে ৪র্থ মেধাবী সন্তান ইকবাল হোছাইন। ২০০৮ সালে ২৭ তম বিসিএিস পাশ করে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে সেবার মন মানসিকতা নিয়ে যোগদান করেছেন। প্রথমে পুলিশ বাহিনীতে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে পদায়ণ হন। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, জাতিসংঘ শান্তি মিশনে (মালিতে) এক বছর , সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ , ব্্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হয়ে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর বিভিন্ন ইউনিটে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে পুলিশ বিভাগে বেশ প্রশংসিত হন। ২০১৪-১৫ সালে মালিতে জাতিসংঘ মিশনে চমৎকার দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে পুলিশে আলোচিত হন। তার ফলস্বরুপ জাতিসংঘ শান্তি পদক ও লাভ করেন।

ডিএমপি`র মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ৭২
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীতে মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ৭২ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। গ্রেফতারকৃতরা মাদক বিক্রি ও সেবনের সাথে জড়িত।

ডিএমপি’র বিভিন্ন থানা ও গোয়েন্দা পুলিশ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত হতে ৩,৫৭৬ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৯৪৩ গ্রাম ২১৯১ পুরিয়া হেরোইন, ১৬ কেজি ৮০০ গ্রাম গাঁজা, ৮টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন, ১ বোতল বিদেশী মদ ও ২০ ক্যান বিয়ার উদ্ধার করা হয়।

০৬ মে, ২০১৯ সকাল ছয়টা থেকে আজ সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

এ সংক্রান্তে তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৪৪টি মামলা রুজু হয়েছে।
সূত্র: ডিএমপি নিউজ

রাজধানীতে ট্রাফিক আইন অমান্যে ৫৯৫১ মামলা
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে ৫,৯৫১টি মামলা ও ২৯,৮১,৮৫০ টাকা জরিমানা করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ’র ট্রাফিক বিভাগ। এছাড়াও অভিযানকালে ৩৬টি গাড়ি ডাম্পিং ও ৯০২টি গাড়ি রেকার করা হয়েছে।

ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, উল্লেখযোগ্য মামলার মধ্যে রয়েছে হাইড্রোলিক হর্ণ ব্যবহার করার দায়ে ৮১টি, হুটার ও বিকনলাইট ব্যবহার করার জন্য ২টি, উল্টোপথে গাড়ি চালানোর কারণে ১১২৩টি, মাইক্রোবাসে কালো গ্লাস লাগানোর জন্য ৯টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা, ট্রাফিক আইন অমান্য করার কারণে ২২৪৩টি মোটর সাইকেলের বিরুদ্ধে মামলা ও ১০৬টি মোটর সাইকেল আটক করা হয়। সেই সাথে গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করার অপরাধে চালকের বিরুদ্ধে ২৫টি মামলা করা হয়।

০৬ মে, ২০১৯ দিনভর ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগ কর্তৃক অভিযান পরিচালনা করে এসব মামলা ও জরিমানা করা হয়।

ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগের দৈনন্দিন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে রাজধানীতে এ অভিযান নিয়মিতভাবে পরিচালনা করা হচ্ছে। ডিএমপি নিউজঃ

আগামী এক মাসের মধ্যেই নুসরাত হত্যা মামলার চার্জশীট : পিবিআই প্রধান
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) আগামী এক মাসের মধ্যেই দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) প্রধান বনজ কুমার মজুমদার। তিনি আজ শনিবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনে (বিএফডিসি) ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি ও এটিএন বাংলার আয়োজনে নিপীড়ন বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে এ কথা জানান।

এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। ‘সাহসিকা নুসরাত, তুমিই যুক্তি তুমিই প্রতিবাদ’-এই শ্লোগানে অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতায় ইডেন মহিলা কলেজ ও ঢাকা কলেজ সমান নম্বর পাওয়ায় উভয় দলকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। নারী নিপীড়নে তথ্য প্রযুক্তির অপব্যবহার নিয়ে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

পিবিআই প্রধান বলেন, ইতোমধ্যে তদন্তে নুসরাত হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ১৬ জনকে চিহিৃত করে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯জনের জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। এছাড়া অভিযুক্ত সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিটিউরিটি অ্যাক্ট-এ মামলার পর তার মোবাইল দুটি জব্দ করা হয়েছে।
তিনি বলেন,কোন নিরপরাধ ব্যক্তি যাতে হয়রানির শিকার না হয়, সে বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক রয়েছে। তদন্ত প্রক্রিয়া নারীবান্ধব করার লক্ষ্যে রিমা সুলতানা নামে একজন নারী পুলিশ কর্মকর্তাকে বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বনজ কুমার মজুমদার আরো বলেন, তথ্য প্রযুক্তির অপব্যবহারের মাধ্যমে অনেক নারীকে প্রতারিত করা হয়। নির্যাতনের শিকার বেশিরভাগ নারী মামলা করতে চায় না। যাদের অর্থ ও সাহস আছে তারাই বিচার চায়।
হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার করে ফাঁদ পেতে নারীর ওপর বিভিন্ন রকম নিপীড়ন লক্ষ্য করা যায়। বাসস

পুলিশ`র অতিরিক্ত আইজি পদমর্যাদার এক কর্মকর্তার বদলী
                                  

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশ পুলিশ’র অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত আইজি) পদমর্যাদার এক জন কর্মকর্তাকে বদলী করা হয়েছে।

৩০ এপ্রিল, ২০১৯ রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ-১ অধিশাখার এক প্রজ্ঞাপনে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) এর অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক শেখ হিমায়েত হোসেন মিয়া বিপিএম, পিপিএম কে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স ঢাকায় বদলী করা হয়েছে। ডিএমপি নিউজ

গুলিস্তানে ককটেল হামলার বিষয়ে খতিয়ে দেখছে সিটিটিসি: ডিএমপি কমিশনার
                                  

অনলাইন ডেস্ক : সোমবার (২৯ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর গুলিস্তানে ককটেল বিস্ফোরণের বিষয়টি খতিয়ে দেখছে ডিএমপি’র সিটিটিসি বিভাগ। এই উগ্রবাদ ইস্যুকে কেন্দ্র করে কোনো মহল উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য এ কাজ করেছে কি-না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া।

মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, “গতকাল (সোমবার) যে ককটেলটি বিস্ফোরিত হয়েছে তা সাধারণ ককটেল থেকে একটু ভিন্নতর। আমাদের বোম্ব ডিসপোজাল টিম ও সিটিটিসি’র বিশেষজ্ঞ অফিসারেরা ইতিমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে বিস্ফোরণের ধরণ, ইনজুরির ধরণ ও প্রয়োজনীয় এভিডেন্স সংগ্রহ করেছে। সবকিছু বিচার-বিশ্লেষণ করে আমরা দেখছি। ঘটনায় যেই জড়িত থাকুক তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।”

ডিএমপি কমিশনার আরো বলেন, ‘সারা বিশ্বে বৈশ্বিক যে উগ্রবাদের প্রভাব আছে, বাংলাদেশ তার বাইরে না। তবে সংঘবদ্ধ বড় ধরনের কোন নাশকতা করার সক্ষমতা আমাদের দেশে তাদের নেই। এটি ২০১৬ সালে হলি আর্টিজানের পরে আমরা রীতিমত তাদের নেটওয়ার্ককে বিধ্বস্ত করেছি। কখনো কখনো তারা বিচ্ছিন্নভাবে এ ধরনের ঘটনা করার অপচেষ্টা করে, সেগুলো আমরা নজরদারিতে রাখি। জনগণের জানমাল রক্ষার জন্য, এ দেশের মানুষকে রক্ষার জন্য, যেকোনো ধরণের নৈরাজ্য বন্ধের জন্যে, উগ্রবাদ দমানোর জন্য আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি। গোয়েন্দা সংস্থা ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সুসমন্বয়ের মাধ্যমে নিরাপত্তা নিশ্চিতে আমরা তৎপর আছি।”

উল্লেখ্য, সোমবার (২৯ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর গুলিস্তানে ককটেল বিস্ফোরণে দু’জন ট্রাফিক পুলিশ ও এক কমিউনিটি পুলিশ সদস্য আহত হন। তারা এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তারা এখন আশঙ্কামুক্ত। ডিএমপি নিউজ

ডিএমপি`র অভিযানে মাদকসহ গ্রেফতার ৬৯
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীতে মাদক রাখা ও সেবনের দায়ে ৬৯ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। ডিএমপি’র বিভিন্ন থানা ও গোয়েন্দা পুলিশ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত হতে ৭৪৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৭১৮ গ্রাম ৩১০ পুরিয়া হেরোইন, ২ কেজি ৫০ গ্রাম গাঁজা, ৮ লিটার দেশী মদ ও ৫ ক্যান বিয়ার উদ্ধার করা হয়।

২৬ এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ছয়টা থেকে আজ সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৪৬টি মামলা রুজু হয়েছে।

ডিএমপি নিউজ

এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় তাসভির ও ফারুক ৭ দিনের রিমান্ডে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ারে অগ্নিকান্ডে হতাহতের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় ভবনের বর্ধিত অংশের মালিক তাসভির উল ইসলাম ও ভবনের জমির মালিক প্রকৌশলী এস এম এইচ আই ফারুককে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ রোববার দুপুরে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ডিবি পুলিশের পরিদর্শক জালাল উদ্দিন অভিযুক্তদের আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী উভয় পক্ষের শুনানি শেষে তাসভির উল ইসলাম ও এস এম এইচ আই ফারুকের সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ ও আদালত সুত্রে জানাগেছে, মামলায় বিএনপি নেতা তাসভির উল ইসলাম ও এস এম এইচ আই ফারুকের বিরুদ্ধে অসৎ উদ্দেশ্যে পরস্পর জোগসাজশে মানুষের জানমালের ক্ষতি, অবহেলা ও তাচ্ছিল্যপূর্ণ কার্যকলাপের ফলে অপরাধজনক অগ্নিকান্ডে মানুষের প্রাণহানি, মারাত্মক জখমসহ সম্পদের ক্ষতিসাধনের অভিযোগ আনা হয়।
বনানীতেএফআর টাওয়ারের অগ্নিকান্ডের ঘটনায় বনানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) মিল্টন দত্ত বাদী হয়ে শনিবার এই মামলাটি দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর রাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে গোয়েন্দা পুলিশ তাসভির ও ফারুককে গ্রেফতার করে।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বনানী থানার কামাল আতাতুর্কস্থ এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এসময় স্থানীয় জনতাকে সাথে নিয়ে বিভিন্ন বাহিনী ও সংস্থা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভায় এবং ৬৮ জনকে উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে প্রেরণ করে।

আগুন নেভানোর সময় ফায়ার সার্ভিসের ৬ কর্মী আহত হয় এবং এই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ২৬জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এছাড়া সেখানে বিভিন্ন অফিসের আসবাবপত্র পুড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। বাসস

ঢাকাকে টাইম বোমায় পরিণত হতে দিব না : র‌্যাব মহাপরিচালক
                                  

অনলাইন ডেস্ক : এলিট ফোর্স র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহা-পরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ পুরান ঢাকা থেকে কেমিকেল সরিয়ে নিতে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন,‘কারো অসতর্কতার জন্য ঢাকাকে টাইম বোমায় পরিণত হতে দিব না। পুরান ঢাকার দাহ্য কেমিক্যাল গোডাউনগুলো টাইম বোমা ছিল। চুড়িহাট্টার অগ্নিকান্ডের ঘটনার পর সরকারের নির্দেশে সব কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণ করে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। কেমিকেল সরিয়ে সেগুলো আপনারা সতর্কভাবে রাখবেন। অসতর্কতার জন্য ঢাকা যেন টাইম বোমায় পরিণত না হয়, এ বিষয়টি ব্যবসায়ীদের খেলায় রাখতে হবে।’
চকবাজারের চুড়িহাট্টার দুর্ঘটনায় নিহত সকলেই টাইম বোমার পাশে বসবাস করতেন উল্লেখ করে বেনজীর আহমেদ বলেন,‘আমরা এভাবে আর একটি মানুষেরও মৃত্যু দেখতে চাই না’।

র‌্যাবের ডিজি আজ শনিবার দুপুরে র‌্যাব-১০ এর উদ্যোগে রাজধানীর পুরান ঢাকার বকশী বাজারস্থ কারা কনভেনশন হলে পুরান ঢাকার আবাসিক এলাকা থেকে কেমিক্যাল, প্লাস্টিক ও অন্যান্য ঝুঁকিপুর্ণ দাহ্য পদার্থের কারখানা ও গোডাউন অপসারণের লক্ষ্যে আয়োজিত এক বিশেষ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। র‌্যাব-১০ এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।

কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণে দেড়শ’ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে র‌্যাব ডিজি বলেন, প্রকল্পটি সম্পন্ন করতে প্রায় ২ বছর সময়ের প্রয়োজন। কিন্তু ‘আমাদের হাতে এত সময় নেই। আমরা চাই দু’মাসের মধ্যে এর সমাধান হোক। এজন্য ব্যবসায়ীদের প্রথাগত চিন্তার বাইরে গিয়ে সাহসীকতার সাথে কাজ করতে হবে।’
তিনি বলেন, ‘টাস্কফোর্সের অভিযানের পর পুরান ঢাকার কেমিক্যাল ব্যবসায়ীরা ক্যামিকেল সরিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন আসাসিক এলাকায় নিয়ে রেখেছেন বলে আমার কাছে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে। অভিযানের ভয়ে কেউ নিজ বাসায় আবার কেউ তার আত্মীয়ের বাসায় রাখছেন। আগে পুরান ঢাকা ছিল টাইম বোম্ব। এখন সারা ঢাকা যেন টাইম বোমায় পরিণত না হয় এ বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।’

মেয়াদ উত্তীর্ণ কেমিক্যালের বিষয়ে র‌্যাব ডিজি বলেন, আপনারা টাকা দিয়ে পণ্য কিনে আনেন, এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকল কিছু লিখিত দিতে হবে। উৎপাদনের মেয়াদ, কোম্পানির নাম, সব কিছুই। টাকা দিয়ে কেন আপনারা মেয়াদ উত্তীর্ণ জিনিস কিনবেন? মেয়াদ উত্তীর্ণ কেমিক্যাল রাখলে সেটা মেনে নেওয়া যাবে না।’
ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন দাবি ও অভিযানের কথা উল্লেখ করে বেনজীর আহমেদ বলেন,‘আমাদের কোনও ব্যবসায়ী ভাই যেন অযথা হয়রানির শিকার না হয় সে বিষয়টি আমরা দেখবো। অন্যায়ভাবে যেন কারও কোনও ক্ষতি না হয় সেটি নিশ্চিত করেই অভিযান চলমান থাকবে।’

পুরান ঢাকার বকশী বাজারের কেমিক্যাল, প্লাস্টিক ও অন্যান্য ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ,র‌্যাব-১০ এর উধর্বতন কর্মকর্তাসহ এলাকাবাসি এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা এ মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন। বাসস

মানবতাবিরোধী অপরাধ: মধু মিয়াসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন চূড়ান্ত
                                  

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় হবিগঞ্জের রাজাকার কমান্ডার ‘মধু বাহিনী’র প্রধান মধু মিয়া তালুকদারসহ দুইজনের বিরুদ্ধে পাচঁটি অভিযোগের প্রতিবেদন চূড়ান্ত করেছে মানবতাবিরোধী অপরাধ তদন্ত সংস্থা।

মঙ্গলবার ধানমন্ডির মানবতাবিরোধী অপরাধ তদন্ত সংস্থার কার্যালয়ে সংস্থার প্রধান সমন্বয়ক আব্দুল হান্নান খান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, ‘আসামীদের বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ, অপহরণ ও নির্যাতনসহ মানবতাবিরোধী পাঁচ অভিযোগ আনা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে তিনটি ভলিউমে ২৫০ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন চূড়ান্ত করা হয়েছে।’

এ সময় জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা এম সানাউল হক, তদন্ত কর্মকর্তা মো. নুর হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশের বিরুদ্ধে খারাপ আচরণের অভিযোগ কমেছে: আছাদুজ্জামান
                                  

অনলাইন ডেস্ক
আছাদুজ্জামানস্টাফ রিপোর্টার: পুলিশের বিরুদ্ধে খারাপ আচরণের অভিযোগ আগের তুলনায় কমেছে দাবি করে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘পুলিশ সদস্যদের আচরণ কেমন হবে, সে বিষয়ে আমরা সচেতন। আমি দায়িত্ব নিয়ে বলছি, আগে যেভাবে খারাপ আচরণের অভিযোগ আসতো, এখন শতকরা ৫ ভাগও খারাপ আচরণের অভিযোগ আসে না।
বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর) ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।
সম্প্রতি চেকপোস্টে তল্লাশি না করে এক নারীর সঙ্গে বিরূপ ও খারাপ আচরণের ভিডিও ভাইরাল হবার পর পুলিশের আচরণগত উন্নতিতে কোনো ওরিয়েন্টশন আছে কিনা জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘গভীর রাতে চেকপোস্টে এক নারী সিএনজি যাত্রীকে পুলিশের তল্লাশিকালে খারাপ আচরণের ভিডিওটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। যে এই ভিডিওটি আপলোড করেছেন তিনিও পুলিশ সদস্য। তিনি ভেবেছিলেন ওই ভিডিওটা প্রকাশ করলে তার হয়তো সুনাম হবে। কিন্তু তিনি যে অপেশাদার আচরণ করেছেন তা বোঝার ক্ষমতা উনার নেই।
আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘ওই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তে ৪৮ ঘণ্টার সময় দিয়ে মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনারের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর দায়-দায়িত্ব নির্ধারণ করে, যারা ওই নারীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
আগামীতে কোরো পুলিশ সদস্য কোনো নাগরিকের সঙ্গে অপেশাদার কিংবা খারাপ আচরণ করলে, পুলিশের বিষয়ে নেতিবাচক প্রভাব তৈরি করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন ঢাকার পুলিশ কমিশনার।
তিনি বলেন, ‘আমরা ধারাবাহিকভাবে চেষ্টা করে খারাপ আচরণের হার কমিয়ে এনেছি। আমরা শুধু মোটিভেশন কিংবা প্রশিক্ষণই দেই না, যে সব পুলিশ সদস্য অপেশাদার আচরণ করেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থাও গ্রহণ করি।

এবার ১০ এএসপিকে বদলি
                                  

অনলাইন ডেস্ক
বাংলাদেশ পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) পদমর্যাদার ১০ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে। এর আগে অপর এক বার্তায় পুলিশের আট অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদলি করা হয়।
পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত ডিআইজি (পার্সোনেল ম্যানেজমেন্ট-১) মো. আমিনুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ‘জনস্বার্থে’ তাদের বদলি করা হয়।
মঙ্গলবার (২৫ সেপ্টেম্বর) এক বার্তায় বিষয়টি জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া ও পাবলিক রিলেসন্স বিভাগ।
বদলিকৃতদের মধ্যে সিআইডির মিহির কুমার দাসকে রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ) খুলনায়, ডিএমপির মো. আহসানুল হককে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশে, সপ্তম এপিবিএন সিলেটের মো. আলম সরকারকে তাহিরপুর সার্কেল সুনামগঞ্জ, স্পেশাল আর্মড ফোর্স (এসএএফ) পাবনা সালমা সুলতানা আলমকে আরএমপি রাজশাহী, র‌্যাবের মো. খোদাদার হোসেনকে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদা রাজশাহী, সিআইডির জি. এম এনামুল হককে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদা রাজশাহী, সিআইডির আবু হেনা মোহাম্মদ ইউসুফকে র‌্যাবে, নবম এপিবিএন চট্টগ্রামের মুহাম্মদ রাইসুল ইসলামকে সিএমপি চট্টগ্রাম, পুলিশ স্টাফ কলেজ এস এম আশিকুর রহমানকে ডিএমপি ও অষ্টম এপিবিএন ঢাকার মো. রবিউল ইসলামকে ডিএমপিতে পাঠানোর আদেশ দেয়া হয়েছে।

শাহজালালে ১৯ কেজি এনপিএস জব্দ
                                  

অনলাইন ডেস্ক
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ১৯ কেজি নিউ সাইকোট্রফিক সাবসটেনসেস (এনপিএস) জব্দ করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর।
শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে জেড এয়ারওয়েজে আসা এনপিএসের চালান বিমানবন্দরের ফরেন পোস্ট অফিস থেকে জব্দ করা হয়।
বিষয়টি নিশ্চিত করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের গোয়েন্দা শাখার অতিরিক্ত পরিচালক নজরুল ইসলাম শিকদার বলেন, গ্রিন টির আড়ালে আমদানি করা ১৯ কেজি এনপিএস জব্দ করা হয়েছে। এবার মনিপুরিপাড়া তেজগাঁওর একটি ভিন্ন ঠিকানায় ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে চালানটি পাঠানো হয়। ইন্ডিয়া ঘুরে জেড এয়ারওয়েজের মাধ্যমে ফরেন পোস্ট অফিসে আসার তথ্য পেয়ে চালানটি জব্দ করা হয়।
এর আগে শুক্রবার সকালে ১২০ কেজির পৃথক চালান জব্দ করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। ছয় কার্টনে ভরা ১২০ কেজি এনপিএস ইতিপূর্বে গ্রেফতার আমদানিকারক মোহাম্মদ নাজিমের প্রতিষ্ঠানের নামেই আসে।

জাতিসংঘ মহাসচিবের আমন্ত্রণে নিউয়র্ক মির্জা ফখরুল
                                  

অনলাইন ডেস্ক
জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের আমন্ত্রণে নিউয়র্কের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
নিউয়র্ক সফরের বিষয় জানতে চাইলে বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান জানান, এ বিষয়ে তার কিছু জানা নেই। তবে মহাসচিব যে দেশের বাইরে গেছেন এটা তিনি অস্বীকার করেননি।
জানা গেছে, মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ২টায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে মির্জা ফখরুল ঢাকা ত্যাগ করেন। এসময় তার সঙ্গে দলটির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়ালও ছিলেন।
একটি সূত্র জানায়, জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য সংস্থাটির সদর দফতরে বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠেয় এক আলোচনায় অংশ নেবেন বিএনপির মহাসচিব। এতে বাংলাদেশের সার্বিক পরিস্থিতি, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে দলের ও সরকারের অবস্থান তুলে ধরবেন মির্জা ফখরুল। এ সফরে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিএনপির প্রতিনিধি দলের বৈঠক হতে পারে বলে সূত্র জানিয়েছে।
এর আগের খবরে বলা হয়, বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিএনপির সাথে আলোচনা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব। দলটিকে এই আগ্রহের কথা জানিয়ে গত সপ্তাহে বিএনপি মহাসচিবকে নিউ ইয়র্কে যেতে আমন্ত্রণ পাঠিয়েছেন অ্যান্তোনিও গুতেরেস। দলটির উচ্চপর্যায়ের একটি সূত্র এ খবর নিশ্চিত করেছে।
এদিকে মঙ্গলবার বিকেলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করেন মির্জা ফখরুল। এসময় তিনি জাতিসংঘ মহাসচিবের আমন্ত্রণের বিষয়টি তাদের অবহিত করেন।
জানা গেছে, বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধির মাধ্যমে বিএনপির মহাসচিব বরাবর আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে। বিএনপি মহাসচিবের নেতৃত্বে দলের স্থায়ী কমিটি ও কূটনীতি সংশ্লিষ্ট কয়েকজন নেতা শিগগিরই যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওনা দেবেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, আমি এখনও অফিসিয়াল কোনো ইনফরমেশন পাইনি।


   Page 1 of 8
     আইন শৃঙ্খলা
সৌম্য-মোসাদ্দেকের বিধ্বংসী ব্যাটিং-এ প্রথমবারের মত ত্রিদেশীয় সিরিজে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ
.............................................................................................
দক্ষ ও অভিজ্ঞতার অনন্য প্রতীক কক্সবাজারের জেল সুপার বজলুর রশীদ আখন্দ
.............................................................................................
বাংলাদেশ পুলিশের আদর্শের অনন্য প্রতীক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোছাইন
.............................................................................................
ডিএমপি`র মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ৭২
.............................................................................................
রাজধানীতে ট্রাফিক আইন অমান্যে ৫৯৫১ মামলা
.............................................................................................
আগামী এক মাসের মধ্যেই নুসরাত হত্যা মামলার চার্জশীট : পিবিআই প্রধান
.............................................................................................
পুলিশ`র অতিরিক্ত আইজি পদমর্যাদার এক কর্মকর্তার বদলী
.............................................................................................
গুলিস্তানে ককটেল হামলার বিষয়ে খতিয়ে দেখছে সিটিটিসি: ডিএমপি কমিশনার
.............................................................................................
ডিএমপি`র অভিযানে মাদকসহ গ্রেফতার ৬৯
.............................................................................................
এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় তাসভির ও ফারুক ৭ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
ঢাকাকে টাইম বোমায় পরিণত হতে দিব না : র‌্যাব মহাপরিচালক
.............................................................................................
মানবতাবিরোধী অপরাধ: মধু মিয়াসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন চূড়ান্ত
.............................................................................................
পুলিশের বিরুদ্ধে খারাপ আচরণের অভিযোগ কমেছে: আছাদুজ্জামান
.............................................................................................
এবার ১০ এএসপিকে বদলি
.............................................................................................
শাহজালালে ১৯ কেজি এনপিএস জব্দ
.............................................................................................
জাতিসংঘ মহাসচিবের আমন্ত্রণে নিউয়র্ক মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
‘চালককে বেতন দিতে হবে, নইলে রুট পারমিট বাতিল’
.............................................................................................
শাহজালাল বিমানবন্দরে বিপুল পরিমাণ ওষুধ জব্দ
.............................................................................................
জাবালে নূরের মালিকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র
.............................................................................................
শাহ আমানতে পরিত্যক্ত ব্যাগে ৩২টি স্বর্ণের বার
.............................................................................................
শোক দিবসে কোনো হুমকি নেই : ডিএমপি
.............................................................................................
ছাত্রদের ন্যায্য দাবিকে ভিন্নখাতে নেয়ার চেষ্টা চলছে : ডিএমপি কমিশনার
.............................................................................................
পুলিশ সার্জেন্টকে পিটুনি, মোটরসাইকেলে আগুন
.............................................................................................
শিক্ষার্থীদের লাইসেন্স পরীক্ষায় ছাড় পাচ্ছে না পুলিশের গাড়িও
.............................................................................................
পুলিশ পরিদর্শক খুন: আরও ৪ জন গ্রেপ্তার
.............................................................................................
ক্লাস নিলেন র‌্যাব অধিনায়ক
.............................................................................................
প্রকাশক বাচ্চু হত্যার প্রধান আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নতুন সেনাপ্রধানের শ্রদ্ধা
.............................................................................................
সেনাপ্রধানকে জেনারেল ব্যাজ প্রদান
.............................................................................................
দায়িত্ব নিলেন নতুন সেনাপ্রধান
.............................................................................................
আরেক হত্যাকারী গ্রেফতার
.............................................................................................
গুলি কিনতে চান ডিআইজি মিজান
.............................................................................................
ঢাকায় ছিনতাইকারী ও অজ্ঞান পার্টির ৬১ সদস্য আটক
.............................................................................................
ইয়াবা উদ্ধার র‍্যাবের মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ১০০,
.............................................................................................
ডিআইজি মিজানকে দুদকে তলব
.............................................................................................
অভিযুক্তদের সম্পদের হিসাব চাইবে দুদক
.............................................................................................
শিশু ধর্ষণ : আটক ব্যক্তি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
.............................................................................................
কোটা সংস্কার আন্দোলন: তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদ
.............................................................................................
বিউটি আক্তার ধর্ষণ ও হত্যার প্রধান আসামি বাবুল সিলেট থেকে গ্রেপ্তার
.............................................................................................
জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীর মামা-চাচা আটক
.............................................................................................
মাদক নির্মূলে অবহেলায় চাকরি থাকবে না : ডিজি
.............................................................................................
কুমিল্লায় নাশকতা মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে
.............................................................................................
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যর্থতা দেখছেন না স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
‘গণগ্রেফতার নয়, ভিডিও ফুটেজ দেখে গ্রেফতার’
.............................................................................................
গ্রেপ্তারের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চরমপন্থি নেতা নিহত
.............................................................................................
২০১৪-১৫ সালের নৈরাজ্য বরদাশত করা হবে না: আছাদুজ্জামান
.............................................................................................
নতুন আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারী
.............................................................................................
সুন্দরবনের জলদস্যু মুন্না বাহিনীর প্রধানসহ নিহত ৩
.............................................................................................
হত্যাচেষ্টার অভিযোগ থানায়
.............................................................................................
সেই ডিআইজি মিজানকে প্রত্যাহার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]