| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * শিশু ধর্ষণ মামলায় সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড কেন দেয়া হবে না : হাইকোর্ট   * মতিউর রহমানসহ ছয়জনকে গ্রেফতার ও হয়রানি না করার নির্দেশ   * প্রিন্স হ্যারি-মেগান রাজকীয় পদবি হারাচ্ছেন   * ইয়েমেনে সামরিক প্রশিক্ষণ শিবিরে হামলায় নিহত ৬০   * যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্রের ওপর `বিপজ্জনক আক্রমণ` : ট্রাম্পের আইনজীবী   * মাঘের শুরুতেই বৃষ্টিতে ভিজলো রাজশাহী   * আওয়ামী লীগ ও নৌকার ব্যাকগ্রাউন্ড লাগে না : আতিকুল ইসলাম   * গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কোন সম্পর্ক নেই গ্রেফতারি পরোয়ানার সঙ্গে   * নারীর আয়ে ৬৪ দেশের শীর্ষে বাংলাদেশ   * ওজনের কারণে ট্রাকে করে নেওয়া হলো গ্রেপ্তারকৃত আইএস নেতা নিমাহ  

   রাজধানী -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাজধানীতে মাদক কারবারি নিহত, আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর মালিবাগ রেলগেট এলাকায় মাদক উদ্ধার অভিযানকালে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে গুলিবিনিময়কালে ইকবাল হোসেন নামে এক মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন।

রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় নিহত ইকবাল হোসেনের স্ত্রী ও শ্যালক এবং তিন র‌্যাব সদস্য আহত হন।



ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় লক্ষাধিক পিস ইয়াবা, নগদ দুই লাখ টাকা, বিদেশি পিস্তল ও গুলি।

র‌্যাব জানায়, কক্সবাজার থেকে ইয়াবার চালান আসছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে মালিবাগ সোহাগ বাস কাউন্টারের সামনে অবস্থান নেয় র‌্যাব সদস্যরা। মাদক চোরাকারবারি চক্রটি বাস থেকে নেমে ইয়াবার চালানসহ একটি প্রাইভেটকারে উঠছিল। এমন সময় র‌্যাব সদস্যরা এগিয়ে গেলে চোরাকারবারী দলটি প্রাইভেটকারসহ পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এবং র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি ছুড়লে একজন নিহত এবং দুজন আহত হন।

র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার (এসপি) মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, মাদক চোরাকারবারিদের সঙ্গে গুলিবিনিময়কালে একজন নিহত ও দুজন আহত হন। আহতদের মধ্যে একজন নিহতের স্ত্রী এবং শ্যালক। তার স্ত্রীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী নিহতর নাম ইকবাল হোসেন।

গুলিবিনিময়ের ঘটনায় র‌্যাবের তিন সদস্য আহত হন। এ সময় তাদের কাছ থেকে লক্ষাধিক পিস ইয়াবা, বিদেশি পিস্তল-গুলি ও নগদ ২ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 
‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাজধানীতে মাদক কারবারি নিহত, আটক ২
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর মালিবাগ রেলগেট এলাকায় মাদক উদ্ধার অভিযানকালে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে গুলিবিনিময়কালে ইকবাল হোসেন নামে এক মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন।

রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় নিহত ইকবাল হোসেনের স্ত্রী ও শ্যালক এবং তিন র‌্যাব সদস্য আহত হন।



ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় লক্ষাধিক পিস ইয়াবা, নগদ দুই লাখ টাকা, বিদেশি পিস্তল ও গুলি।

র‌্যাব জানায়, কক্সবাজার থেকে ইয়াবার চালান আসছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে মালিবাগ সোহাগ বাস কাউন্টারের সামনে অবস্থান নেয় র‌্যাব সদস্যরা। মাদক চোরাকারবারি চক্রটি বাস থেকে নেমে ইয়াবার চালানসহ একটি প্রাইভেটকারে উঠছিল। এমন সময় র‌্যাব সদস্যরা এগিয়ে গেলে চোরাকারবারী দলটি প্রাইভেটকারসহ পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এবং র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি ছুড়লে একজন নিহত এবং দুজন আহত হন।

র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার (এসপি) মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, মাদক চোরাকারবারিদের সঙ্গে গুলিবিনিময়কালে একজন নিহত ও দুজন আহত হন। আহতদের মধ্যে একজন নিহতের স্ত্রী এবং শ্যালক। তার স্ত্রীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী নিহতর নাম ইকবাল হোসেন।

গুলিবিনিময়ের ঘটনায় র‌্যাবের তিন সদস্য আহত হন। এ সময় তাদের কাছ থেকে লক্ষাধিক পিস ইয়াবা, বিদেশি পিস্তল-গুলি ও নগদ ২ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

 
থার্টি ফার্স্ট উদযাপন : ঘরোয়া অনুষ্ঠানেও অনুমতি লাগবে পুলিশের
                                  

 

নিজস্ব প্রতিবেদক   

 

  

থার্টি ফার্স্টে ঘরোয়া অনুষ্ঠানেও পুলিশের অনুমতি লাগবে

ইংরেজি বর্ষবিদায় ও নববর্ষ উপলক্ষে থার্টি ফার্স্ট নাইটে রাজধানীর নিরাপত্তা জোরদারে বেশকিছু নির্দেশনা জারি করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এবারও উন্মুক্ত স্থানে সবধরনের অনুষ্ঠান, নাচ-গান ও কোনো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের অনুমতি থাকছে না। এমনকি ঘরোয়াভাবে কেউ কোনো অনুষ্ঠান করতে চাইলেও পুলিশকে অবহিত করতে হবে। সেখানে পুলিশ নিরাপত্তা বিধান করবে।

 

সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

 

 

তিনি বলেন, নববর্ষ উদযাপনকালে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির যেকোনো ধরনের আশঙ্কা রোধে ঢাকা মহানগরীতে নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখার স্বার্থে রাস্তার মোড়, ফ্লাইওভার, ভবনের ছাদে এবং প্রকাশ্যে স্থানে কোনো ধরনের জমায়েত, সমাবেশ, উৎসব করা যাবে না। এছাড়া কোথাও কোনো ধরনের আতশবাজি-পটকা ফোটানো যাবে না।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সন্ধ্যা ৬টার পর স্টিকার ও পরিচয়পত্র ছাড়া বহিরাগত কোনো ব্যক্তি বা যানবাহন প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকায় বসবাসরত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের গাড়ি নির্ধারিত সময়ের পর পরিচয় দিয়ে নীলক্ষেত এবং শাহবাগ ক্রসিং দিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন।

 

তিনি বলেন, মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সন্ধ্যা ৬টার পর ঢাকা মহানগরীর সব বার বন্ধ থাকবে। মাদকসেবনের বৈধতা ছাড়া কাউকে যেন পাঁচ তারকা হোটেলে অ্যালাও না করা হয় সে জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে হোটেল কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

 

একইসঙ্গে মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১ জানুয়ারি ভোর ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ, জনসমাবেশ ও উৎসবস্থলে সব ধরনের লাইসেন্সকৃত আগ্নেয়াস্ত্র বহন করা যাবে না।

 

 

তিনি বলেন, এবার মাদক সেবন করে কেউ বেপরোয়া যানবাহন চালালে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে ডিএমপি। পাশাপাশি অ্যালকোহল টেস্টের জন্য গুলশান বনানী ও হাতিরঝিলসহ একাধিক এলাকায় কিটসহ পুলিশের বিশেষ টিম কাজ করবে।

 

সুষ্ঠু বিনোদনের জন্য উন্মুক্ত স্থানে কোনো অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে অনুমতি কেন দেবে না ডিএমপি- জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার বলেন, নিরাপত্তাজনিত কারণেই মূলত উন্মুক্ত স্থানে অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। কারণ উন্মুক্ত স্থানে নিরাপত্তা বিধান করা একটু কঠিনই। এক্ষেত্রে ইনডোরে অনুষ্ঠানে উৎসাহিত করা হলেও, ইনডোরের ক্ষেত্রেও পুলিশকে অবহিত করতে হবে।

 

থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনের ক্ষেত্রে কোনো হুমকি তৈরি করছে কিনা- জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, সুস্পষ্ট হুমকি না থাকলেও উন্মুক্ত স্থানের ক্ষেত্রে তো প্রচ্ছন্ন হুমকি থাকে। সে জন্য উন্মুক্ত স্থানে কোনো অনুষ্ঠানের অনুমতি দেয়া হচ্ছে না।

 

ঢাবি ও বিএনপি কার্যালয়ের সামনে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা নিরাপত্তা শঙ্কা তৈরি করেছে কিনা- জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঢাবিতে চাইলে পুলিশ যেতে পারে না। তবে সেখানে সাদা পোশাকে গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা কাজ করছে ককটেল বিস্ফোরণে জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য। আর বিএনপি পার্টি অফিসের সামনের সড়কও খুব ব্যস্ততম। অনেক যানবাহন সেখানে চলাচল করে। আমি সংশ্লিষ্ট এলাকার ডিসিকে নির্দেশনা দিয়েছে নিরাপত্তা নিশ্চিতে বিএনপি পার্টি অফিস এলাকা পুরোটা যেন সিসিটিভির আওতায় নিয়ে আসা হয়।

 

এছাড়া গুলশান এলাকায় প্রবেশের জন্য কাকলি ক্রসিং এবং আমতলী ক্রসিং ব্যবহার করা যাবে। তবে নির্ধারিত সময়ের পর পরিচয় দিয়ে এ দুটি ক্রসিং দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। একইভাবে সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে গুলশান, বনানী, বারিধারা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকায় যেসব নাগরিক বসবাস করেন না তাদের ওইসব এলাকায় গমনের ক্ষেত্রে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

 

এবার রাত ৮টার পর হাতিরঝিল এলাকায় কাউকে অবস্থান করতে দেয়া হবে না। গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় বসবাসরত নাগরিকদের ৩১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাত ৮টার মধ্যে স্ব-স্ব এলাকায় প্রত্যাবর্তনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

পাশে নেই কেউ: বাসা থেকেই বের হননি সাঈদ খোকন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী ঘোষণার দিন গতকাল রোববার বনানীর বাসা থেকে বের হননি মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। ঘনিষ্ঠ কাউন্সিলরদেরও তাঁর বাসায় যেতে দেখা যায়নি।

ডিএসসিসির আসন্ন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন সাঈদ খোকন। এ জন্য তিনি দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দেন। তবে দল তাঁকে মনোনয়ন দেয়নি। ডিএসসিসির মেয়র পদে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন ঢাকা-১০ আসনের সাংসদ শেখ ফজলে নূর তাপস।


ডিএসসিসির মেয়রের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানায়, কর্মদিবসে বেলা ১১টার পরপরই ডিএসসিসির নগর ভবনে নিজ দপ্তরে যেতেন সাঈদ খোকন। কিন্তু গতকাল দলের সমর্থন না পেয়ে তিনি হতাশ।

দিনভর বনানীর বাসায় ছিলেন। তাঁকে সমবেদনা জানাতে পরিবারের সদস্যদের বাইরে অন্য কেউ তাঁর বাসায় যাননি। অথচ গত শনিবার পর্যন্ত তাঁর বাসায় দলীয় নেতা–কর্মী ও সমর্থকদের ভিড় লেগে ছিল।

বনানী ১১ নম্বর রোডের একটি ভবনে থাকেন সাঈদ খোকন। গতকাল বেলা ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত এই বাড়িতে তেমন কাউকে ঢুকতে দেখা যায়নি। বাড়ির সামনে পুলিশ ও আনসারের কিছু সদস্যকে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়। এ সময় মেয়র সাঈদ খোকনের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ধরেননি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সাঈদ খোকনের একজন কর্মী জানান, মেয়র পদে দলের সমর্থন পাবেন, এ বিষয়ে তাঁর (সাঈদ খোকন) আত্মবিশ্বাস ছিল। গত কয়েক দিন তাঁর বাড়িতে দলীয় নেতা–কর্মী ও কাউন্সিলরদেরও ভিড় ছিল। কিন্তু গতকালের চিত্র ছিল ভিন্ন রকম। তাঁকে সমবেদনা জানাতে ডিএসসিসির কর্মকর্তা-কর্মচারী, কাউন্সিলর, ঠিকাদার—কেউই যাননি।

বোর্ড সভা স্থগিত

গতকাল বেলা ১১টায় ডিএসসিসির নগর ভবনে সংস্থার ২১তম বোর্ড সভা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু একই সময় ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়। এতে দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী সব কাউন্সিলর ধানমন্ডিতে চলে যান। সাঈদ খোকনও নগর ভবনে যাননি। পরে বোর্ড সভা স্থগিত করে ডিএসসিসি।

জানতে চাইলে ডিএসসিসির সচিব মোস্তফা কামাল মজুমদার বলেন, জনপ্রতিনিধিদের নিয়েই বোর্ড সভার আয়োজন করে ডিএসসিসি। কিন্তু গতকাল বোর্ড সভা ও আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ঘোষণা অনুষ্ঠান একই সময় পড়েছে। তাই বোর্ড সভা স্থগিত করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী হলেন যারা
                                  

 নিজস্ব প্রতিবেদক    

 

  

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সমর্থন প্রত্যাশী কাউন্সিলর প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

 

রোববার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আ.লীগের কাউন্সিলর প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

 

 

জানা গেছে, ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনে কাউন্সিলর পদে তালিকার বিষয়ে আওয়ামী লীগের শীর্ষ দুই নেতার পরামর্শ গ্রহণ করা হয়েছিল বিগত নির্বাচনে। ওই দুই শীর্ষ নেতার একজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অনেক কাউন্সিলরের কাছে দলের স্থানীয় প্রবীণ নেতারা অবমূল্যায়িত ও অবহেলিত হয়েছেন। ওয়ার্ড জরিপে বর্তমান কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরদের অধিকাংশের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তৃণমূল নেতাকর্মীর। আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে যে জরিপ চালানো হয়েছে তালিকায় সেই জরিপে বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

 

উল্লেখ্য, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে মেয়র পদে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র আতিকুল ইসলাম। আর ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে এ পদে দলটির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপস। ডিএসসিসিতে তাপস মনোনয়ন পাওয়ায় মেয়র পদের লড়াই থেকে ছিটকে পড়েছেন বর্তমান মেয়র সাঈদ খোকন।

 

ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন : ইভিএম প্রস্তুত ৩০ হাজার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য ৩০ হাজার ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) প্রস্তুত রাখছে নির্বাচন কমিশন।

জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেন, প্রথমবারের মত ‍পুরো ঢাকা মহানগরে একসঙ্গে ইভিএমে ভোট করতে তারা পুরোপুরি প্রস্তুত।

“দুই সিটিতে ২ হাজার চারশর বেশি কেন্দ্র রয়েছে। আর ১৪ হাজার ৬ শর মতো ভোটকক্ষ থাকছে। তাই সব মিলিয়ে আমরা রিজার্ভসহ ৩০ হাজার ইভিএম রাখার পরিকল্পনা করেছি, যাতে করে কোথাও ফেইল না করে। প্রতি কেন্দ্রে ব্যাকআপ হিসাবে একটি করে ইভিএম রাখার পরিকল্পনা রয়েছে।”

দুই সিটিতে ইভিএমে ভোটের জন্য ১৯টি পয়েন্ট থেকে প্রশিক্ষণ, ডেমোনেস্ট্রেশন, মক ভোটিং ও ভোটকেন্দ্রে বিতরণের জন্য ইভিএম রাখা হবে। এর মধ্যে উত্তরের ইভিএম থাকবে ৮টি পয়েন্টে, আর দক্ষিণে ১১টি পয়েন্টে।

ঢাকার দুই সিটিতে ৩০ জানুয়ারি সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট হবে। এবারই প্রথম রাজধানীর অর্ধ কোটি ভোটারের সবাই মেয়র ও কাউন্সিলর নির্বাচনে ইভিএমে ভোট দেবেন। এর আগে ১৪ জানুয়ারির মধ্যে ইভিএমগুলো দুই সিটির নির্ধারিত পয়েন্টে পৌঁছে দেওয়া হবে।

বরাবরই ইভিএম নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আসা বিএনপি নেতাদের সন্দেহ, যন্ত্রে ভোটগ্রহণ হলে ‘ম্যানিপুলেট’ করার এবং ফলাফল ‘নিয়ন্ত্রণ’ করার সুযোগ থেকে যাবে। তবে নির্বাচন কমিশন বরাবরই বলে এসেছে, ইভিএমে বরং কারচুপির সুযোগ কমবে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা গত ২৫ ডিসেম্বর এক অনুষ্ঠানে বলেন, এর আগে বিভিন্ন নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং ব্যবহার করে ‘সুফল’ পাওয়ার কারণেই নির্বাচন কমিশন ইভিএম ‘ধরে রেখেছে’।

ইভিএম পরিচালনার জন্য এবার প্রতি কেন্দ্রে দুইজন করে সেনা সদস্য রাখারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। তবে তারা শুধু ‘টেকনিক্যাল সাপোর্ট’ দেবেন।

এবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে সাধারণ ওয়ার্ড সংখ্যা ৫৪টি, সংরক্ষিত ওয়ার্ড সংখ্যা ১৮টি। মোট ভোটার ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬২১ জন। আর সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্র ১ হাজার ৩৪৯টি, ভোটকক্ষ ৭ হাজার ৫১৬টি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ৭৫টি সাধারণ ওয়ার্ড ও ২৫টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড রয়েছে। ১ হাজার ১২৪টি ভোটকেন্দ্রের ৫ হাজার ৯৯৮টি ভোটকক্ষে এবার ভোটগ্রহণ হবে। মোট ২৩ লাখ ৬৭ হাজার ৪৮৮ জন ভোটার এ নির্বাচনে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবেন।

মনোনয়ন ফরম নিলেন সাঈদ খোকন
                                  

স্টাফ রিপোর্টার

আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন।


বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুর ১টার দিকে সপরিবারে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এসে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তিনি।

এর আগে বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) থেকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের আগ্রহী প্রার্থীদের জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করা হয়।

আগামী ২৭ ডিসেম্বর (শুক্রবার) পর্যন্ত ফরম আগ্রহী প্রার্থীরা ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন। ফরম বিক্রির শেষ দিন, অর্থাৎ শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ফরম বিক্রি চলবে।

মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের পর আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রার্থী নির্বাচিত করা হবে।

আগামী ৩০ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পুরো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। ওইদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

দক্ষিণ সিটির কাউন্সিলর প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করছেন
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

আসন্ন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রাজধানীর কমলাপুরে সাদেক হোসেন খোকা কমিউনিটি সেন্টারে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়। নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তারা নির্ধারিত ওয়ার্ডের মনোনয়নপত্র প্রদান করছেন।

সুত্রাপুর থানার নির্বাচনী কর্মকর্তা আফজাল হোসেন জানান, সকাল থেকে একজন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। আমরা প্রার্থীকে মনোনয়নপত্রের ফরম দেয়ার পাশাপাশি ফরম পূরণ ও করণীয় সম্পর্কে জানাচ্ছি।


একজন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীর ৫০০ টাকার প্রে অর্ডার ৩০ হাজার টাকার জামানত লাগবে বলে জানান তিনি।

মনোনয়নপত্র নিতে আসা কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুল মোমেন জানান, আসন্ন ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে আমি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলাম। আমি যুবলীগের ওয়ার্ড সভাপতি। আশা করছি, দল থেকে আমি নমিনেশন পাব।


গত ২২ ডিসেম্বর ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তফসিল অনুযায়ী, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন ৩০ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ৩১ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার)। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ২ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) এবং প্রত্যাহারের শেষদিন ৯ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার)।


বিদ্যমান ভোটার তালিকা দিয়েই ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে ভোট করা হবে। দুই সিটির সম্প্রসারিত ১৮টি করে মোট ৩৬টি ওয়ার্ডের সংরক্ষিতসহ ৪৮ জন কাউন্সিলর জানুয়ারিতে নির্বাচন না করতে সম্প্রতি কমিশনে আবেদন করেছিলেন। তারা হুমকি দিয়েছিলেন যে, তাদের আসনে নির্বাচন করলে উচ্চ আদালতে যাবেন। তবে ইসির নির্ধারিত সময়ে ওসব ওয়ার্ডেও নির্বাচন হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণে ভাগ হওয়ার পর ২০১৫ সালের এপ্রিলে দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হয়েছিল। নির্বাচনের পর ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রথম সভা হয় ওই বছরের ১৪ মে, দক্ষিণ সিটিতে ১৭ মে। এ হিসাবে ঢাকা উত্তরের মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ১৩ মে আর দক্ষিণে একই বছরের ১৬ মে।


ঢাকা উত্তর সিটিতে ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬২১। সাধারণ ওয়ার্ড ৫৪টি এবং সংরক্ষিত ১৮টি। সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা এক হাজার ৩৪৯ এবং ভোটকক্ষ সাত হাজার ৫১৬টি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে ভোটার সংখ্যা ২৩ লাখ ৬৭ হাজার ৪৮৮। সাধারণ ওয়ার্ড ৭৫টি এবং সংরক্ষিত ২৫টি। সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্র এক হাজার ১২৪ এবং ভোটকক্ষ ৫ হাজার ৯৯৮টি।

নিকেতনে উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অভিযান
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক   

 

 

রাজধানীর নিকেতনে বায়ুদূষণকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। মঙ্গলবার নিকেতনের ২ নম্বর গেট-সংলগ্ন ৮ নম্বর সড়ক থেকে এ অভিযান শুরু করা হয়। অভিযান পরিচালনা করছেন ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর নাহিদ হাসান।

 

নাহিদ হাসান জানান, দিনব্যাপী এ অভিযান পরিচালিত হবে। সড়কে যত্রতত্র নির্মাণসামগ্রী ইট-বালু, পাথর রেখে যারা পরিবেশ দূষণ করছে তাদের বিরুদ্ধে এই অভিযান পরিচালনা করছে ডিএনসিসি।

 

 

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের সচিব রবীন্দ্র শ্রী বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ইদানীং লক্ষ্য করা যাচ্ছে, ডিএনসিসির আওতাধীন বিভিন্ন এলাকার সড়ক ও ফুটপাতে কতিপয় অসাধু ব্যক্তি অননুমােদিতভাবে স্থাপনা নির্মাণ করে কিংবা নির্মাণসামগ্রী রেখে জনসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করছেন। এছাড়াও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের অজুহাতে কোনো কোনো সড়ক-ফুটপাত দীর্ঘদিন ধরে যত্রতত্র খনন করে ফেলে রাখার কারণে জনসাধারণকে সীমাহীন দুর্ভোগ পােহাতে হচ্ছে।

 

বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ব্যবহৃত মাটি, বালি যত্রতত্র অনাবৃত অবস্থায় ফেলে রাখা এবং উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নে পরিবেশসম্মত পদক্ষেপ গ্রহণ না করার কারণে ব্যাপক বায়ুদূষণ হচ্ছে, যার কারণে নগরবাসীকে নানারকম স্বাস্থ্যগত সমস্যা মােকাবিলা করতে হচ্ছে। যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনা ফেলা ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় অসঙ্গতির কারণে পরিবেশ দূষণসহ মশকের উপদ্রব বৃদ্ধি পাচ্ছে।

 

 

এসব বিষয়ে প্রতিকারের উপায় চিহ্নিতকরণ, জনসচেতনতা সৃষ্টি এবং এতদ্বিষয়ে আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণের লক্ষ্যে মেয়র আতিকুল ইসলাম কর্পোরেশনের আওতাধীন বিভিন্ন সড়ক, গলি ও এলাকায় পরিদর্শন করবেন এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

 

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, বায়ুদূষণ রোধে কী কী করতে পারি, এটা একটা চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার। কিছু আছে দীর্ঘমেয়াদি, কিছু আছে স্বল্পমেয়াদি। এই মুহূর্তে আমরা দেখছি আমাদের রোগী মরে যাচ্ছে, কোরামিন ইনজেকশন দিতে হবে। আমি মনে করি, এটাকে শর্টটার্ম হিসেবে চিন্তা করতে পারি। এই শর্টটার্মের জন্য আমরা কী করতে পারি। আমি বলেছি ভালোবাসার দিন শেষ, এখন হচ্ছে জরিমানা। সিটি কর্পোরেশনের যে ঠিকাদাররা কাজ করছে তাদের আমি প্রথমে জরিমানা করব। কারণ নিজের ঘরে থেকে যদি জরিমানা শুরু না করি মানুষ কিন্তু উল্টো বদনাম করবে। সিটি কর্পোরেশনের ঠিকাদারদের বলেছি, আগামী ২২ ডিসেম্বর থেকে আমি ঘোষণা ছাড়াই বিভিন্ন জায়গায় যাব।

 

 

তিনি আরও বলেন, যে কনস্ট্রাকশন কোম্পানি কমপ্লায়েন্স মেইনটেইন না করে সিটি কর্পোরেশনে কাজ করবে, হয় তার ব্যবসা বন্ধ করতে হবে, না হয় জরিমানা দিতে হবে। যেকোনো একটিতে আসতে হবে। ফাইনের মাধ্যমে আমরা নোটিশ দেব। তারপরও যদি কাজ না করে অবশ্যই সিটি কর্পোরেশনের কন্ট্রাক্টর যারা আছেন তাদের ব্ল্যাকলিস্ট করা ছাড়া দ্বিতীয় কোনো পন্থা থাকবে না আমাদের।

৩৫ টাকায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৪৫ টাকায় বিক্রি করলেও আজ (২৩ ডিসেম্বর) থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি করবে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। টিসিবির ওয়েবসাইটে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।


বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বর্তমান বাজার পরিস্থিতি বিবেচনা করে আজ (সোমবার) থেকে টিসিবির পেঁয়াজ খোলাবাজারে ৩৫ টাকা দরে বিক্রি করা হবে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উল্লিখিত দরে পেঁয়াজ বিক্রির কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

গত সেপ্টেম্বরে ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয়ায় দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম দ্রুত বাড়তে থাকে। তখন বাজারদর নিয়ন্ত্রণে টিসিবি খোলাবাজারে ৪৫ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করে।

উল্লেখ্য, ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের পর মিশর, মিয়ানমার, তুরস্ক, চীন ও পাকিস্তান থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি পেঁয়াজ আমদানি করা হচ্ছে মিশর ও মিয়ানমার থেকে।

আবারও মনোনয়ন পাওয়ার আশা আতিকুলের
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক


ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) আসন্ন নির্বাচনে মেয়র পদে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ থেকে আবারও মনোনয়ন পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বর্তমান মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, আমি সময় নষ্ট করিনি। তাই আমার বিশ্বাস, আবারও আওয়ামী লীগ থেকে নমিনেশন পাবো।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বীর মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সংবর্ধনা ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে আতিকুল এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিগত উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে জয়ী হয়ে দায়িত্ব নেয়া আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি সময় নষ্ট করিনি। দায়িত্ব পাওয়ার পর যতটুকু সময় পেয়েছি আমি চেষ্টা করেছি সবাইকে নিয়ে কাজ করতে এবং তা সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছি।

ইতিবাচক পরিবর্তনের সূচনা করতে সক্ষম হয়েছি : সাঈদ খোকন
                                  

 

নিজস্ব প্রতিবেদক   

 

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৩০ জানুয়ারি এই দুই সিটিতে ভোট।

 

গত ৫ বছর ধরে ঢাকা দক্ষিণ সিটির দায়িত্ব পালন করছেন মেয়র সাঈদ খোকন। তার কাছে প্রশ্ন রাখা হয়, কেন আগামীতে নগরবাসী আপনাকে মেয়র নির্বাচিত করবে?

 

 

 

এর জবাবে মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘আমি নিজেকে সফল মনে করি। কারণ, আমি ইতিবাচক পরিবর্তনের সূচনা করতে সক্ষম হয়েছি। ৫২ বাজার ৫৩ গলি খ্যাত ঢাকা শহরের এমন কোনো অলিগলি নেই, যেখানে আমি একটা ইতিবাচক পরিবর্তনের ছোঁয়া লাগাতে পারিনি।’

 

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীতে জাতীয় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারবর্গের সংবর্ধনা ও পুনর্মিলনী’ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন দক্ষিণের নগরপিতা।

 

ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ তাকে আবার মনোনয়ন দেবে কি না, এর জবাবে সাঈদ খোকন বলেন, ‘ইনশা-আল্লাহ, আমি আশাবাদী। দল থেকে উভয় মেয়র মনোনয়ন পাব।’

 

এই সিটি নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে নিতে যাওয়া ভোটকে স্বাগত জানান সাঈদ খোকন।

 

 

নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করে নির্বাচনে অংশ নিতে হবে। এ বিষয়ে সাঈদ খোকন বলেন, ‘পদত্যাগ করে নির্বাচন করার কথা যেটা বলা হয়েছে, সেটা আইনে যেভাবে বলা হয়েছে, আইনকে অনুসরণ করে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করব।’

 

নিজের সফলতা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘শান্তিনগরের ৪০ বছরের জলাবদ্ধতা তো আমিই নিরসন করলাম। নাজিমদ্দিন রোডে প্রায় ৫০ বছরের জলাবদ্ধতার সমস্যা ছিল, সেটাও সমাধান করেছি। বংশাল, পুরোনো ঢাকার জলাবদ্ধতা আমরা সমাধান করেছি। আবার নতুন কিছু কিছু জায়গায় জলাবদ্ধতা হচ্ছে। এটা একটা চলমান প্রক্রিয়া। আমরা আশা করি, নগরবাসী যদি আমাদের ভালোবাসায় সিক্ত করেন, আমাদের কাজগুলো অব্যাহত রাখার সুযোগ দেন, এসব সমস্যার সমাধান করতে পারব।’

 

মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলো উৎসবমুখর, আনন্দমুখর হয়। এই উৎসব, আনন্দের মধ্য দিয়ে এ শহরের মানুষ তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করবে। এটা আমাদের আশাবাদ।’

 

‘গত প্রায় পৌনে ৫ বছরে মৌলিক যে সমস্যাগুলো ছিল, সেগুলো অনেকাংশেই সমাধান করতে সক্ষম হয়েছি। একটা ইতিবাচক পরিবর্তন সূচনা করতে আমি সক্ষম হয়েছি’, যোগ করেন তিনি।

 

অনুষ্ঠানে ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র আতিকুল ইসলামসহ কয়েকশ মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অবশেষে ঢাকার আকাশে উঁকি দিয়েছে সূর্য
                                  

স্টাফ রিপোর্টার

চার দিনব্যাপী শৈত্যপ্রবাহে বিপর্যস্ত সারাদেশ। তবে, আজ রোববার রাজধানী ঢাকার আকাশে উঁকি দিয়েছে সূর্য। কমেছে শীতের তীব্রতা। ১৯ ডিসেম্বর থেকে দেশে শৈত্যপ্রবাহ বইছে।


আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে। রাজশাহী, পাবনা, যশোর, তেঁতুলিয়া ও চুয়াডাঙ্গা অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু এলাকায় অব্যাহত থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়েছে।

রোববার সন্ধ্যা ৬টায় পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার তাপমাত্রার বিষয়ে বলা হয়েছে, সারাদেশে রাত এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।

আজকে ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ভোর ৬টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। একই সময় বাতাসের আদ্রতা ছিল ৯৩ শতাংশ।

 

এ দিকে রোববার সন্ধ্যায় সারাদেশের পূর্বাভাসে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, পরবর্তী দুই দিনে তাপমাত্রা আরও বৃদ্ধি পেতে পারে। তার পরবর্তী ৫ দিনের প্রথমদিকে উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে হালকা বৃষ্টি অথবা গুড়িঁ গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় পর্যন্ত আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়েছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার এবং তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে, যার বর্ধিতাংশ উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

শ্বাসরোধে হত্যা, স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে পালালেন স্বামী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক   

 

রাজধানীর সবুজবাগে মাদারটেকের একটি বাসায় হামিদা আক্তার লাবনী (২২) নামের এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় লাবনীর স্বামী পলাশ ও তার বন্ধু সুজিত পলাতক রয়েছেন।

 

সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) দিনগত রাত ১১টার দিকে মুগদা জেনারেল হাসপাতাল থেকে লাবনীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

 

লাবনীর বড় বোন লাইলী আক্তার জানান, লাবনী পলাশের দ্বিতীয় স্ত্রী। ১০ বছর আগে লাবনীর সাথে পলাশের প্রেমের সম্পর্ক হলে আগের স্ত্রীকে তালাক দেয়ার কথা বলে ৬ বছর আগে লাবনীকে বিয়ে করে। তাদের ঘরে একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। কিন্তু পলাশ আগের স্ত্রীকে তালাক দেয়নি। বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হতো। তবে লাবনীর সাথে তাদের তেমন যোগাযোগ ছিল না।

 

লাইলী আরও জানান, বাবা-মার বাসার পাশেই থাকত লাবনী। মেয়ে আরোহীর কাছ থেকে জানতে পারেন, গতরাতে পলাশ তার বন্ধু সুজিতকে নিয়ে বাসায় আসে এবং লাবনীর সাথে ঝগড়া করে। এক পর্যায়ে লাবনীকে বালিশ চাপা দেয়। পরে নিজেরাই মুগদা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক লাবনীকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

সবুজবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. লিটন মিয়া জানান, পূর্ব মাদারটেক আ. আজিজ স্কুলের পেছনে একটি চারতলা বাসার নিচতলায় স্বামী পলাশ ও পাঁচ বছরের মেয়ে আরোহীকে নিয়ে তারা থাকতেন। সোমবার রাত ৮টার দিকে পলাশ ও তার বন্ধু সুজিত লাবনীকে বালিশ চাপা দেয়। পরে আহত অবস্থায় তাকে মুগদা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। লাবনীর মরদেহ হাসপাতালে রেখেই তারা দু’জন পালিয়ে গেছে। তাদেরকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

১৬ ডিসেম্বর বন্ধ থাকবে যেসব সড়ক
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠান চলাকালে প্যারেড স্কয়ার সংলগ্ন এলাকায় সুষ্ঠুভাবে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে। এতে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের স্টিকারযুক্ত যানবাহন ছাড়া অন্যান্য যানবাহনকে সকাল সাড়ে ৫টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত রাজধানীর কয়েকটি সড়ক পরিহার করে বিকল্প সড়কে চলাচলের জন্য পরামর্শ দিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

সড়কগুলো হচ্ছে-

> খেজুরবাগান ক্রসিং থেকে উড়োজাহাজ ক্রসিং-রোকেয়া সরণি হয়ে মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বর পর্যন্ত।

> শ্যামলী শিশু মেলা ক্রসিং থেকে আগারগাঁও লাইট ক্রসিং হয়ে রোকেয়া সরণি পর্যন্ত।

> প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনে নতুন সড়ক দিয়ে আগারগাঁও লিংক রোড পর্যন্ত।

> বিজয় সরণি ক্রসিং-উড়োজাহাজ ক্রসিং, ক্রিসেন্ট লেক হয়ে গণভবন ক্রসিং পর্যন্ত।


> প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গ্যাপ থেকে পরিকল্পনা কমিশন হয়ে বিআইসিসি ক্রসিং পর্যন্ত।


স্মৃতিসৌধ যাওয়ার সড়কে ৬ ঘণ্টা যানবাহন চলবে না।

ডিএমপি জানায়, আগামী ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ উপলক্ষে ঢাকার আমিনবাজার হয়ে সাভার স্মৃতিসৌধ পর্যন্ত সড়কে ভোর সাড়ে ৪টা থেকে ভিভিআইপি, ভিআইপি ও আমন্ত্রিত অতিথিরা সাভার স্মৃতিসৌধে গমনাগমন করবেন।

এ উপলক্ষে ওইদিন রাত ৩টা থেকে থেকে সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত বাস, মিনিবাস, ট্রাক, লরিসহ বড় গাড়িগুলোকে গাবতলী আমিনবাজার ব্রিজ-সাভার রোড পরিহার করে বিকল্প রাস্তা হিসেবে ঢাকা বিমানবন্দর রোড-আব্দুল্লাহপুর ক্রসিং-আশুলিয়া সড়ক হয়ে চলাচল করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

ডিএমপি আরও জানায়, অনুরূপভাবে আরিচা থেকে আমিনবাজার হয়ে ঢাকাগামী গাড়ির চালক/ব্যবহারকারীকে যানবাহনগুলোকে নবীনগর বাজার থেকে আশুলিয়া হয়ে ঢাকায় প্রবেশ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। এছাড়া টাঙ্গাইল থেকে আশুলিয়া হয়ে ঢাকাগামী যানবাহনগুলো কালিয়াকৈর-গাজীপুর চৌরাস্তা-টঙ্গী হয়ে ঢাকায় প্রবেশের জন্য পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে।

যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং রোধে মেয়রের সঙ্গে বৈঠকে পরিবহন সংশ্লিষ্টরা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক   

 

মহাখালী বাস টার্মিনাল এলাকার সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে এবং যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং রোধে বাস মালিক ও পরিবহন শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

 

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুর ১টা থেকে মহাখালী বাস টার্মিনালে এ বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে মহাখালী বাস টার্মিনাল এলাকার সড়কে শৃঙ্খলা এবং যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং রোধ বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

 

এর আগে সোমবার (৯ ডিসেম্বর) ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নগর ভবনে ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) উদ্যোগে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর লক্ষ্যে বাস রুট রেশনালাইজেশনের বিষয়ে গঠিত কমিটি ১১তম বৈঠক করে।

 

বৈঠক শেষে কমিটির আহ্বায়ক এবং ডিএসসিসি মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন জানান, চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে পুরান ঢাকায় চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু হবে।

 

প্রসঙ্গত, গত বছর রাজধানীর গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরানো ও যানজট নিরসনের লক্ষ্যে সিনিয়র সচিব জাফর আহমেদ খান স্বাক্ষরিত একটি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ কমিটি গঠন করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ। দশ সদস্যের এ কমিটির আহ্বায়ক করা হয় ডিএসসিসি মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে।

 

কমিটিতে ডিএনসিসির মেয়রকে যুগ্ম আহ্বায়ক এবং বিআরটিএ চেয়ারম্যান, বিআরটিসি চেয়ারম্যান, রাজউক চেয়ারম্যান, ডিএমপি কমিশনার, গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিন, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি ও ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালককে সদস্য করা হয়।

কুরআনের শিক্ষায় শিক্ষিত হলেই সমাজ আলোকিত হবে: বিচারপতি আবদুর রউফ
                                  

মিয়া আবদুল হান্নান : সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি মোহাম্মদ আবদুর রউফ বলেছেন, পবিত্র কুরআন হচ্ছে সার্বজনীন এবং জীবন্ত জ্ঞান ভান্ডার। কুরআনের শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। তবেই অন্ধকার সমাজ আলোকিত হবে। মুসলমানরা কোনো দিন উগ্রবাদি হতে পারে না।

শনিবার দুপুরে কাকরাইলস্থ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সিটিটিউট মিলনায়তনে জাতীয় সিরাত উদযাপন কমিটি আয়োজিত ’বিশ্ব সঙ্কট নিরসনে রাসূল (সা.) এর আদর্শ শীর্ষক জাতীয় সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিচারপতি আবদুর রউফ এসব কথা বলেন।

সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আব্দুল মা’বুদ।

মাওলানা আবু তাহের জিহাদীর সভাপতিত্বে এবং মাওলানা লুৎফর রহমানের পরিচালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, মাওলানা মহিউদ্দীন রব্বানী, দৈনিক নয়াদিগন্তের সম্পাদক মহিউদ্দীন আলমগীর, মানারাত ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. প্রফেসর উমার আলী, বুয়েটের প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ফখরুল ইসলাম, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগি অধ্যাপক ড. মমতাজ উদ্দীন কাদেরী, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলনের আমীর মুফতী ফখরুল ইসলাম, খেলাফত মজলিসের নেতা মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ডীন প্রিন্সিপাল আবুল কালাম পাটওয়ারী, মুফতি ফয়জুল হক জালালাবাদী,ফুরফুরা দরবার শরীফের খলিফা মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম।

বিচারপতি আবদুর রউফ বলেন, বিশ্বে সত্যবাদিতাই হচ্ছে এখন বড় সঙ্কট। সত্যবাদি হলে এতো অশান্তির সৃষ্টি হতো না। নবী (সা.) মূল আদর্শই হচ্ছে সত্যবাদিতা। তিনি বলেন, ইসলাম সর্ম্পকে অস্বচ্ছতার কারণেই অমুসলিমরা আমাদের খারাপ জানে। বিচারপতি আবদুর রউফ বলেন, ধর্মীয় অনুশাসনে কোনো সংর্কীনতা রাখা হয়নি। তিনি বলেন, মুসলমানরা কেন দেউলিয়ার পথে। তা’ ভেবে দেখতে হবে।


   Page 1 of 31
     রাজধানী
‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাজধানীতে মাদক কারবারি নিহত, আটক ২
.............................................................................................
থার্টি ফার্স্ট উদযাপন : ঘরোয়া অনুষ্ঠানেও অনুমতি লাগবে পুলিশের
.............................................................................................
পাশে নেই কেউ: বাসা থেকেই বের হননি সাঈদ খোকন
.............................................................................................
আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী হলেন যারা
.............................................................................................
ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন : ইভিএম প্রস্তুত ৩০ হাজার
.............................................................................................
মনোনয়ন ফরম নিলেন সাঈদ খোকন
.............................................................................................
দক্ষিণ সিটির কাউন্সিলর প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করছেন
.............................................................................................
নিকেতনে উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অভিযান
.............................................................................................
৩৫ টাকায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু
.............................................................................................
আবারও মনোনয়ন পাওয়ার আশা আতিকুলের
.............................................................................................
ইতিবাচক পরিবর্তনের সূচনা করতে সক্ষম হয়েছি : সাঈদ খোকন
.............................................................................................
অবশেষে ঢাকার আকাশে উঁকি দিয়েছে সূর্য
.............................................................................................
শ্বাসরোধে হত্যা, স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে পালালেন স্বামী
.............................................................................................
১৬ ডিসেম্বর বন্ধ থাকবে যেসব সড়ক
.............................................................................................
যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং রোধে মেয়রের সঙ্গে বৈঠকে পরিবহন সংশ্লিষ্টরা
.............................................................................................
কুরআনের শিক্ষায় শিক্ষিত হলেই সমাজ আলোকিত হবে: বিচারপতি আবদুর রউফ
.............................................................................................
বাস-বে নির্মাণ ও ফুটপাত দখলমুক্ত কার্যক্রম ত্বরান্বিতের নির্দেশ
.............................................................................................
নবান্ন উৎসবে শিশুদের মন কেড়েছে বানর ও সাপের খেলা
.............................................................................................
সড়ক খুঁড়ে ধুলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান, জরিমানা
.............................................................................................
বাধা উপেক্ষা করে অভিযানে পরিবেশ অধিদফতর
.............................................................................................
খিলক্ষেতে ‘গুলিবিনিময়’, মাদক-অস্ত্র ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জনে একদল তরুণ
.............................................................................................
বাকি জীবন আলেম ওলামাদের সম্মান করে যাবো: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
আমরা ধর্মঘট ডাকিনি, ট্রাক শ্রমিকরা বাস চলতে দিচ্ছেন না
.............................................................................................
বাসের দেখা মিলছে না, হেঁটেই গন্তব্যে মানুষ
.............................................................................................
ভবনে বসবাসের সনদ নিতে রাজউকের মাইকিং
.............................................................................................
নতুন আইন : ঢাকার সড়কে ৮ ভ্রাম্যমাণ আদালত
.............................................................................................
মুসলিম উম্মাহ বাবরি মসজিদের আজ্ঞাবহ রায় মেনে নিবে না: আল্লামা নূর হোছাইন কাশেমী
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জে চুলায় তৈরি হচ্ছে ‘জনসন বেবি লোশন’
.............................................................................................
পায়ের ওপর দিয়ে চলে গেল আল-মক্কার বাস
.............................................................................................
তিনদিন পর রাজধানীতে স্বাভাবিক জনজীবন
.............................................................................................
রাজধানীতে বস্তায় মিলল শিশুর মরদেহ
.............................................................................................
কবর থেকে নাইমুলের’র মরদেহ উত্তোলন
.............................................................................................
রেসিডেনসিয়ালের ছাত্র আবরারের মৃত্যুর তদন্ত প্রতিবেদন জমা
.............................................................................................
রাজধানীতে পুলিশ-ডাকাত গোলাগুলি, নিহত ১
.............................................................................................
এসপি হারুনের বিষয়ে তদন্ত হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
কালশি-বনানী ফ্লাইওভার ১ মাস বন্ধ
.............................................................................................
২০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে সম্প্রসারিত হচ্ছে শাহজালাল বিমানবন্দর
.............................................................................................
মহাখালী ফ্লাইওভারে প্রাণ গেল মোটরসাইকেল চালকের
.............................................................................................
প্রথম আলোর প্রকাশকের বিরুদ্ধে নাঈমুল আবরারের বাবার মামলা
.............................................................................................
অস্ত্র মামলায় সম্রাটকে অভিযুক্ত করে র‌্যাবের চার্জশিট
.............................................................................................
এফআর টাওয়ার দুর্ঘটনা : ৩ জনের জামিন বাতিল, আত্মসমর্পণের নির্দেশ
.............................................................................................
ঢাকায় খোকার জানাজা হবে ৪ দফা
.............................................................................................
নীতিমালা নেই, এসি বাসে ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায়
.............................................................................................
খোকার মরদেহ বৃহস্পতিবার ঢাকায় আসার কথা
.............................................................................................
এ মাসেই বসছে মেট্রোরেলের লাইন
.............................................................................................
সাদেক হোসেন খোকা আর নেই
.............................................................................................
নতুন আইনের সুযোগ নিলে ব্যবস্থা, সার্জেন্ট প্রসঙ্গে কমিশনার
.............................................................................................
ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন জানুয়ারিতে, ইভিএমে ভোট
.............................................................................................
রাহাতের মৃত্যুতে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে প্রথম আলোকে উকিল নোটিস
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]