বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * পদযাত্রা বন্ধ করে নির্বাচনের দিকে যাত্রা করেন, বিএনপিকে কাদের   * পাঠ্যবই নিয়ে মিথ্যাচারে প্রশ্রয় দেওয়ার সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী   * যারা খাদ্যে ভেজাল দেয় তারা সাইলেন্ট কিলার: মন্ত্রী   * জাপানি ছোট মেয়ে একদিন বাবা, আরেকদিন মায়ের কাছে থাকবে   * জনগণের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী   * মোংলায় লাগেজ কারখানার পোড়া স্তূপ থেকে এখনো বের হচ্ছে আগুন   * ৪ জেলায় বইছে শৈত্যপ্রবাহ, শীত আরও বাড়তে পারে   * প্যাকেজ ঘোষণা : বেসরকারিভাবে হজ পালনে খরচ বাড়লো দেড় লাখ টাকা   * পাতাল রেল নির্মাণকাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী   * ঢাকায় আসছেন শোলেট, নজর থাকবে রোহিঙ্গা ইস্যুতে  

   ইসলাম
  নবীজি সা. যেভাবে জীবনযাপন করত
 

মিয়া আবদুল হান্নান : বিশ্ব মুসলমানদের হৃদয়ের তীর্থস্থান মসজিদুল হারাম থেকে সামান্য দূরেই আখেরী নবী রাসুল (সা.)-এর পিতা আবদুল্লাহর ঘর অবস্থিত। সেটি ‘শিআবে আলী’র প্রবেশমুখে অবস্থিত। বনি হাশেম গোত্র যেখানে বাস করত সেটিই ‘শিআবে আলী’ হিসেবে তখন পরিচিত ছিল। আর বাবা আবদুল্লাহর এ ঘরেই প্রিয় নবী মুহাম্মদ (সা.) ৫৭০ খ্রিস্টাব্দে জন্মগ্রহণ করেন। মক্কায় অবস্থানকালীন সময়ে রাসুল (সা.) এ ঘরেই বসবাস করতেন বলে জানা যায়। নির্ভরযোগ্য ঐতিহাসিক তথ্য । সাদাদিধে জীবন যাপন ছিল নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জীবনের অন্যতম অংশ।

তিনিঅনাড়ম্বরপূর্ণ ও দরিদ্রতা পছন্দ করতেন। হজরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) দোয়া করে বলেন, হে আল্লাহ! তুমি আমাকে দরিদ্র অবস্থায় বাঁচিয়ে রাখো, দরিদ্র থাকা অবস্থায় মৃত্যু দিও এবং কিয়ামত দিবসে দরিদ্রদের দলভুক্ত করে হাশর করো।
এ কথা শুনে হজরত আয়েশা (রা.) বলেন, হে আল্লাহর রাসুল! আপনি এমন বলছেন কেন? তিনি বললেন, হে আয়েশা! তারা তো তাদের সম্পদশালীদের চেয়ে চল্লিশ বছর পূর্বে জান্নাতে প্রবেশ করবে। হে আয়েশা! তুমি প্রার্থনাকারী দরিদ্রকে ফিরিয়ে দিও না। যদি দেওয়ার মতো কিছু তোমার নিকট না থাকে, তাহলে একটি খেজুরের টুকরা হলেও তাকে দিও। হে আয়েশা! তুমি দরিদ্রদের ভালোবাসবে এবং তাদেরকে তোমার সান্নিধ্যে রাখবে। তাহলে কেয়ামতের দিন আল্লাহ তায়ালা তোমাকে তার সান্নিধ্যে রাখবেন। (তিরমিজি , হাদিস : ২৩৫২) হজরত আয়শা (রা.) মহানবী (সা.)-এর ওফাতের পর বলেছিলেন, আখেরী নবী রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর জীবিতকালে আমাদেরকে কয়েকবার শুধু পানি আর খেজুর খেয়েই দিন কাটাতে হয়েছিল। এমনকি, যেদিন তার মৃত্যু হয় সেদিনও আমাদের ঘরে পানি ও খেজুর ছাড়া আর কিছুই ছিল না। (বোখারি)। সাদাসিধে জীপন যাপন করলেও নবীজি মানুষ ছিলেন। দুনিয়ার জীবন যাপনের জন্য তিনি প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র ব্যবহার করতেন। নিজের ও পরিবারের থাকার জন্য তিনি ঘর নির্মাণ করেছিলেন। মদিনায় হিজরত করার পর হযরত মুহাম্মদ রাসুলুল্লাহ (সা.) প্রথমে মসজিদে নববি নির্মাণ করেন। মসজিদে নববির পাশের ও সংলগ্ন ভূমির মালিক ছিলেন হারিস ইবনে নোমান (রা.)। সেখানে তাঁর বাড়ি ছিল। কিন্তু তিনি তা মহানবী (সা.)-এর প্রয়োজনে ছেড়ে দেন। তিনি উপহার হিসেবে ছেড়ে দিলেও রাসুল (সা.) তাঁকে উপযুক্ত মূল্য পরিশোধ করেন। তাঁর পুরো বাড়িই রাসুল (সা.) ও তাঁর পবিত্র স্ত্রীদের জন্য ব্যবহৃত হতো। (আল ওয়াফা বি-আহওয়ালিল মোস্তফা, পৃষ্ঠা-২৬০) সেখানে মোট ৯টি ঘর নির্মাণ করা হয়। অবকাঠামোতে কাঁচা ইট ও খেজুরের ডাল ব্যবহার করা হয়। চারটি ঘরের সামনে পাথরের দেয়াল বা বেড়া ছিল। অন্যগুলোর সামনে শক্ত মাটির দেয়াল ছিল, যেন কেউ সহজেই ঢুকে যেতে না পারে। প্রতিটি ঘরের ছিল দরজা ও জানালা। হাদিসের বর্ণনা থেকে পাওয়া যায়, আয়েশা (রা.)-এর ঘরে এক পাল্লাবিশিষ্ট কাঠের দরজা ছিল এবং তার সামনে পর্দা ঝোলানো থাকত। কোনো কোনো ঘরের সামনে ছোট কক্ষও ছিল। সে ক্ষেত্রে মূল কক্ষে লাকড়ির তৈরি দরজা থাকত এবং ছোট কক্ষের দরজায় পর্দা ঝোলানো থাকত। হযরত মুহাম্মদ রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর ঘরে সাধারণ পশমের তৈরি কাপড়ের পর্দা ব্যবহৃত হতো। আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত, ‘রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর বিছানা ছিল চামড়ার তৈরি এবং তার ভেতরে ছিল খেজুরগাছের ছাল। ’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৬৪৫৬) অন্য বর্ণনায় এসেছে, তাঁর ব্যবহৃত বালিশও ছিল চামড়ার তৈরি, যার ভেতরে ছিল খেজুরগাছের ছাল। (সুনানে আবি দাউদ, হাদিস : ৪১৪৬)

ওমর ইবনুল খাত্তাব (রা.)-এর বর্ণনায়ও হযরত মুহাম্মদ রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর ঘরের আসবাবের বিবরণ পাওয়া যায়। তিনি বলেন, আখেরী নবী ‘রাসুল (সা.) একটি চাটাইয়ের ওপর শুয়ে ছিলেন। চাটাইয়ের ওপর কিছুই ছিল না। তাঁর মাথার নিচে ছিল খেজুরের ছালভর্তি চামড়ার বালিশ। আমি তাঁর শরীরে চাটাইয়ের দাগ দেখে কেঁদে ফেললাম। তিনি বলেন, কাঁদছ কেন? আমি বললাম, হে আল্লাহর রাসুল! কায়সার ও কিসরা ভোগ-বিলাসে মত্ত অথচ আপনি আল্লাহর রাসুল! তিনি বললেন, তুমি কি এতে সন্তুষ্ট নও যে তাদের জন্য পার্থিব জীবন ও আমাদের জন্য পরকাল। ’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৪৯১৩)



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 95        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     ইসলাম
ইসলামে মাতৃভাষার মর্যাদা
.............................................................................................
পবিত্র শবে মেরাজ ১৯ ফেব্রুয়ারি
.............................................................................................
শবেমেরাজ কবে জানা যাবে সন্ধ্যায়
.............................................................................................
সময় থাকতে যেসব জিনিসের মূল্যায়ন করতে বলেছেন নবিজি (সা.)
.............................................................................................
নবীজি সা. যেভাবে জীবনযাপন করত
.............................................................................................
এক মুসলমানের প্রতি অন্যের পাঁচ অধিকার
.............................................................................................
আল্লাহর সাহায্য পাওয়ার দোয়া
.............................................................................................
সালাম ফেরানোর পর যে দোয়া পড়তে হয়
.............................................................................................
মিথ্যা সাক্ষ্য দেওয়ার পরিণাম কী?
.............................................................................................
জুমার প্রথম খুতবা : জুমার দিন উম্মতের জন্য বিশেষ উপহার
.............................................................................................
ক্ষমা প্রার্থনায় যে দোয়া পড়তে ভালোবাসতেন নবিজি (সা.)
.............................................................................................
আল্লাহর সঙ্গে বান্দার সুসম্পর্ক হবে ৬ আমলে
.............................................................................................
আসমান-জমিনের মধ্যবর্তী স্থান সওয়াবে পূর্ণ হয় যে আমলে
.............................................................................................
সচ্ছলতার জন্য যেসব আমল করবেন
.............................................................................................
পাপকে তুচ্ছ মনে করার ভয়াবহতা
.............................................................................................
আজ পবিত্র ঈদ-ই- মিলাদুন্নবী (সা.)
.............................................................................................
বিশ্ব নবী (সাঃ) এর জীবনদর্শন অহিংস দেশ গড়ার পথ দেখায়: রাহাত হুসাইন
.............................................................................................
জুমার প্রথম খুতবা : নবিজি (সা.) বিশ্ববাসীর জন্য রহমত
.............................................................................................
আত্মশুদ্ধি অর্জনের গুরুত্ব
.............................................................................................
পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী কবে জানা যাবে সন্ধ্যায়
.............................................................................................
Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale
Digital Load Cell
Digital Indicator
Digital Score Board
Junction Box | Chequer Plate | Girder
Digital Scale | Digital Floor Scale
Dynamic Solution IT
POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software
Accounts,HR & Payroll Software
Hospital | Clinic Management Software

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: তাজুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়: ২১৯ ফকিরের ফুল (১ম লেন, ৩য় তলা), মতিঝিল, ঢাকা- ১০০০ থেকে প্রকাশিত । ফোন: ০২-৭১৯৩৮৭৮ মোবাইল: ০১৮৩৪৮৯৮৫০৪, ০১৭২০০৯০৫১৪
Web: www.dailyasiabani.com ই-মেইল: dailyasiabani2012@gmail.com
   All Right Reserved By www.dailyasiabani.com Dynamic Scale BD